ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

ফটোশপ ব্যবহারের ১০ টি বদঅভ্যাস যা আমাদের অভ্যাসে পরিণত হওয়া উচিত নয়

আসসালামু আলাইকুম,

ADs by Techtunes ADs

আমি শুরু করেছিলাম সেই ফটো্শপ ৭.০ থেকে যা আজো এদেশের অনেক পেশাদার ডিজাইনারগন ব্যবহার করে যাচ্ছেন বিরতিহীনভাবে। সময়ের পথপরিক্রমায় ফটোশপ ৮.০ (সিএস) আসল, এরপর একে একে সিএস২, ৩, ৪, ৫, ৬ রিলিজ হলো। সর্বশেষ ফটোশপ সিসি (১৪) রিলিজ হলো। তবে ডিজাইনারগন যে ভার্সনে নিজেকে নিজে দক্ষ মনে করেন সেই ভার্সনটিই ব্যবহার করে থাকেন। এসব অবশ্য আজকের আলোচনার বিষয় নয়।

আমরা যারা ডিজাইনার এবং ফটোশপ ব্যবহার করি তাদের একেকজনার কাজের ধারা একেক রকম। একই কাজ একেকজন ডিজাইনার ভিন্ন ভিন্ন পদ্ধতিতে করে থাকেন। আর এভাবে কাজ করতে গিয়ে আমরা এমন কিছু পদ্ধতি প্রয়োগ করে থাকি যেগুলোকে ফটোশপে বদঅভ্যাস বলা যেতে পারে। এভাবে কাজগুলো না করলে আমাদের কাজ হয় অনেক নিখুঁত, অনেক দ্রুতগতির সর্বপরি ডিজানটা হবে অনেক সমৃদ্ধ। আজকের আলোচনার বিষয় হলো এরকম ১০টি বদঅভ্যাস যেগুলো ডিজাইনার হিসেবে এখনি আমাদের ত্যাগ করা উচিত।

এখন এক এক করে আমরা দেখে নেব কোন ১০টি অভ্যাস আমাদের এখনি ত্যাগ করতে হবে এবং কোন কোন উপায়গুলো আমাদের খুজে নিতে হবে ডিজাইনার হিসেবে পেশাদারিত্ব আনতে।

১) সিঙ্গেল লেয়ার নিয়ে কাজ করাঃ

বিখ্যাত ডিজাইনারগন সবসময়ই বলে থাকেন “এটা খুবই ভালো একটি অভ্যাস নতুন নতুন লেয়ার নিয়ে সবসময় সবধরনের ইমেজ এডজাস্টমেন্ট  কর ” আমরা জানি ফটোশপে লেয়ার ভাসমান থাকে। লেয়ারকে উপর/নীচ করে ডিজাইনকে চমৎকারভাবে সাজানো যায়। এছাড়া ফটোশপে ইমেজকে বেশীরভাগ সময়ই এডজাস্ট করতে হয়। এক্ষেত্রে ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজে কাজ না করে যেসকল কমান্ড নতুন এডজাস্টমেন্ট লেয়ার তৈরি করে সেগুলো ব্যবহার করুন। একটি উদাহরন দেই-মনে করেন কোন লেয়ারের Contrast, Brightness, Level পরিবর্তন করবেন। আমরা Image>Adjustment এ গিয়ে কাজ করতে পারি, ফটোশপের যে ৩টি Auto command রয়েছে সেগুলোও প্রয়োগ করতে পারি। কিন্তু তা না করে যদি আমরা Layer panel এ Create new fill or adjustment layer এ কাজগুলো করি তবে সেগুলো অনেক ভালো হয় কারন এই এডজাস্টমেন্ট প্রয়োজনে যে কোন সময় সংশোধন করা যায়। মোট কথা যেকোন ইমেজ এডজাস্টমেন্ট করার সময় নতুন লেয়ারে কাজ করার অভ্যাস করতে হবে। নিচের চিত্রটি দেখুন-

২) চাকা বল সাবান দিয়ে ধোলাই না করে মুখোশ পরানোর অভ্যাস করুনঃ

Eraser দিয়ে আমরা কোন কিছু মুছে ফেলি, Delete করা মানে একেবারেই বাদ একদম চাকা বল সাবান। এসব না করে Mask command ব্যবহার করা শিখুন। কোন কিছু মোছা, ডিলিট করা, মাস্ক করা তিনটি ক্ষেত্রেই সিলেকশান কমান্ড দিতে হয়। মুছে ফেললে এবং ডিলিট করলে ইমেজের ঐ অংশটি একেবারেই শেষ, তা না করে মাস্কিং করে ঐ অংশটিকে Hidden করে দিন। যদি প্রয়োজন হয় তখন আপনি মাস্কিং disable করে আবার সে অংশটুকু ফেরত পেতে পারেন। ফটোশপে তিন ধরনের মাস্কিং েরয়েছে Pixel mask, Vector mask, Clipping mask. পরিস্থিতি অনুযায়ী আপনি যে কোনটি ব্যবহার করতে পারেন।নিচের চিত্রটি দেখুন-

৩) মাউস দিয়ে ক্লিক ক্লিক না করে কী-বোর্ড দিয়ে কমান্ড দেওয়া শিখতে হবেঃ

ফটোশপের শত শত কমান্ড আছে। আপনি যদি প্রতিটি কমান্ড দিতে গিয়ে মেনুতে যান আর ক্লিক ক্লিক করেন তবে আপনার ডিজাইনার লাইফ হাফ মার্ডার। আর এ কাজটি সময় শেষ করে দেবে ধরে নিন। প্রফেশনাল ডিজাইনারগন মাউস দিয়ে খুব বেশি কমান্ড দেননা। তারা কী-বোর্ড দিয়ে কমান্ড দিয়ে থাকেন। আপনিও সেরকম হতে হবে। তাই কী-বোর্ড কমান্ড শিখুন। হয়ে যান প্রফেশনাল।ফটোশপের কী-বোর্ড কমান্ড লিস্ট অনেকের ্কাছেই আছে। তাই আপনাদের জন্য অল্প কয়েকটি কী-বোর্ড কমান্ড এখানে দিলাম। দেখে নিন-

  • Cmd/Ctrl + T – Free Transform
  • Cmd/Ctrl + Enter – Accept typing
  • Cmd/Ctrl + S – Save document
  • Cmd/Ctrl + A – Select all
  • Cmd/Ctrl + D – Deselect
  • Cmd/Ctrl + I – Invert colors
  • Cmd/Ctrl + Shift + I – Invert selection
  • Cmd/Ctrl + click on layer’s thumbnail – Selection based on Layer’s content
  • Cmd/Ctrl + Option/Alt + A – Select All Layers
  • Option/Alt + click between two layers – Clipping Mask
  • Cmd/Ctrl + G – Group Layers
  • Cmd/Ctrl + Shift + G – Ungroup Layers

এছাড়া যদি আরও কী-বোর্ড কমান্ড শিখতে চান তাহলে নিচের চিত্রটি দেখে অনুশীলন করুন। চিত্রটিতে ্ফটোশপের প্রায় সবগুলো দরকারী কমান্ড রয়েছে।

ADs by Techtunes ADs

এই ইমেজটির ঝকঝকে প্রিন্ট চাইলে ফলো করুন  এই লিংক

৪) পিক্সেল লেয়ারকে Rotate করতে ব্যবহার করুন স্মার্ট অবজেক্ট

ফটোশপে যারা কাজ করেন তারা পিক্সেলও রেজুলেশান এর সাথে খুবই পরিচিত। বিভিন্ন কারনে ইমেজকে যদি ঘুরানোর প্রয়োজন হয় আমরা তা করে থাকি। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ইমেজকে ঘুরাতে গিয়ে আমাদের ইমেজকে তার মুল কোয়ালিটি হারিয়ে ফেলে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এই ক্ষতিটি হয় আমরা যখন ইমেজকে ছোট/বড় করি। এর মুল কারন হলো পিক্সেল ভিত্তিক ইমেজগুলো সবসময় রেজুলেশান নির্ভর। রেজুলেশান, সাইজ এর হেরফের হলেই ইমেজ ফাটবে।

ফটোশপ সিএস ২ ভার্সন থেকেই স্মার্ট অবজেক্ট ফিচারটি ফটোশপে যুক্ত হয়েছে। বিষয়টি এরকম যখন কোন ইমেজকে স্মার্ট অবজেক্টে কনভার্ট করবেন তখন ইমেজটি আর পিক্সেল নির্ভর থাকেনা। ফটোশপ এটিকে একটি ইউনিক ইমেজ হিসেবে নিয়ে নেয়।তাই যতই সাইজ নিয়ে টানাটানা করেননা কেন, Rotate যতই করুন না কেন, ইমেজের কোয়ালিটির পরিবর্তন হয়না। তাই বড় ধরনের এডিট করতে গেলে েইমেজকে ‍স্মার্ট অবজেক্টে কনভার্ট করার অভ্যাস গড়ে তুলুন। ছবিটি দেখুন-

৫) এডজাস্টমেন্ট লেয়ার ব্যবহার না করাঃ

উপরে একটি উদাহরনে এই বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছে। যে কোন ইমেজেই যদি আপনি Image menu থেকে Adjustment কমান্ড প্রয়োগ করেন তাহলে ইমেজটি স্থায়ীভাবে পরিবর্তন হয়ে যায়। এটি একটি মারাত্মত ধরনের ভূল। এটি না করে New image adjustment layer এর মাধ্যমে আমরা ইমেজ এডজাস্ট করতে পারি।এতে এডজাস্টমেন্ট এর নতুন একটি লেয়ার তৈরি হয় যেটিতে থাকে আপনার পূর্ন নিয়ন্ত্রন।

যে কোন সময় চাইলেই আপনি এ ধরনের এডজাস্টমেন্ট এডিট করতে পারেন।তবে একটি কথা স্মরন রাখতে হবে এডজাস্টমেন্ট লেয়ার সবসময় তার নীচে যে লেয়ারগুলো থাকে তাদের সবগুলোকে এডজাস্ট করে থাকে।দেখুন ছবিটি-

৬) লেয়ারগুলো সঠিকভাবে সাজানো খুবই জরুরীঃ

একজন ডিজাইনার হিসেবে সবসময় আপনাকে সাজানো ঘুচানো হতে হবে। এর কোন বিকল্প নেই। ফটোশপে যারা কাজ করেন তারা অনেকেই জানেন কখনও কখনও একটি প্রজেক্ট ফাইলে শত শত লেয়ার তৈরি করতে হয়। আর এ লেয়ারগুলোকে যদি বিষয়বস্তু অনুসারে সঠিকভাবে সাজানো না হয় তাহলে আপনার ডিজাইনের লেয়ারগুলো খুজে নিতে অনেক সময় ব্যয় হবে।

পাশাপাশি যার জন্য প্রজেক্টটি করেছেন তারও অনেক সময় নষ্ট হবে। তাই ডিজাইনটির বিষয়বস্তু অনুসারে লেয়ারগুলোকে সুন্দর করে সাজিয়ে নিন। ডিজাইনারদের জন্য এটি অবশ্য পালনীয় একটি বিষয়। তাই এড়িয়ে যাবেননা। নিচের চিত্রটি দেখুন-

ADs by Techtunes ADs

৭) ফিল্টার সমূহের যাচ্ছেতাই ব্যবহার ডিজাইনকে শেষ করে দেয়ঃ

ফটোশপে অনেক ফিল্টার রয়েছে যা দিয়ে ডিজাইনকে চোখ ধাঁধানো করা যায়। কিন্তু ফিল্টারের সেটিংস যদি ঠিকমত বসাতে আপনি ব্যর্থ হন তবে আপনার করা ডিজাইনটি হয়ে যাবে কুৎসিত প্রকৃতির খারাপ মানের ডিজাইন। তাই এ বিষয়টি অত্যন্ত নিপুনতার সাথে করবেন। অবশ্যই স্মার্ট ফিল্টার হিসেবে ফিল্টারকে ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন। কারন স্মার্ট ফিল্টার হিসেবে ফিল্টারকে ব্যবহার করলে সেটিংসগুলো এডিট করার সুযোগ থাকে সবসময়।আবার আপনি একটি স্মার্ট অবজেক্টে একাধিক ফিল্টারও ব্যবহার করতে পারবেন অনায়াসেই। বিষয়গুলো জেনে শুধু অভ্যাসটা করুন। চিত্রটি দেখুন-

৮) ফটোশপ ক্যানভাসকে নেভিগেট করার দ্রুততম উপায়গুলো জেনে নিনঃ

ফটোশপের একই ক্যানভাসে আমাদেরকে অনেকসময় একাধিক ইমেজ নিয়ে কাজ করতে হয় অথবা অনেক বড় ক্যানভাস নিয়ে কাজ করা লাগে। সেক্ষেত্রে পুরো ইমেজটি আমরা মনিটরের পর্দায় দেখতে পাইনা। তাই আমাদেরকে নেভিগেশান করার কাজটি করা লাগে। অধিকাংশ ফটোশপ ব্যবহারকারীগন ডানে ও নীচের স্ক্রলবার টেনে এই কাজটি করেন। কেন? দ্রুতগতিতে কাজটি করার জন্য কী-বোর্ড এর ব্যবহার শিখে নিন।নিচের কমান্ডগুলো দেখুন-

  • Space – Hand tool
  • Z + drag right and left – Zoom in and out
  • Hold down H + click – Bird’s eye view
  • Cmd/Control + 0 – Fit to Screen
  • Cmd/Control + 1 – Actual Size

নিচের চিত্রটি দেখুন-

৯) এডবি ব্রিজের ব্যবহার করা শিখতে হবেঃ

ফটোশপের কাজটাই তো ইমেজ নিয়ে। আর ইমেজগুলোকে সুন্দরভাবে সাজিয়ে না রাখলে কাজ করার সময় মাথা নষ্ট পুরাই। তবে ফটোশপের সহযোগী হিসেবে সিএস২ ভার্সন থেকে চালু হয়েছে ইমেজ অর্গানাইজ করে রাখার সাপোর্ট  প্রোগ্রাম এডবি ব্রীজ Adobe Bridge। নামকরা ডিজাইনারগন এমনকি স্বনামধন্য ফটোগ্রাফারগন তাদের ইমেজ সুন্দরভাবে সাজাতে ও দরকারী ইমেজ সহজে খুজে পেতে Adobe bridge ব্যবহার করে থাকেন। তবে আমরা অনেকেই হয়ত এটি ব্যবহারে মনোযোগী নই। এডবি ব্রীজে মনোযোগী হন। ইমেজ ঘুচিয়ে রাখার সব দুঃশ্চিন্তা নিমিষেই উধাও। ১০০%  গ্যারান্টি দিলাম।নিচের ছবিটি দেখুন-

১০) পিএসডি ফাইল সংরক্ষন করে রাখুনঃ

আমরা সবাই জানি পিএসডি ফরমেট হলো ফটোশপের নেটিভ ফাইল ফরমেট। ধরুন আপনি কোন ক্লায়েন্টে একটি প্রজেক্ট করছেন। এপ্রুভ হলো। আপনি ক্লায়েন্টকে চাহদা অনুযায়ী আউটপুট দিলেন। মনে রাখবেন ক্লায়েন্ট কখনোই ফাইলটি সংরক্ষন করবেনা। কিন্তু ১৫ দিন পর ঐ ক্লায়েন্ট পুনরায় ঐ কাজটি সামান্য একটু মোডিফাই করে আবার করতে দিল। যদি আপনি ফাইলটি পিএসডিতে সেভ করে সংরক্ষন না করেন তাহলে কি করবেন। ভেবে দেখুন। কি ভাবলেন? পিএসডি ফাইল রাখতেই হবে। এতে ভুল করা যাবেনা।

আজ আর নয়। উপরে যে সব বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা হয়েছে, আশা করি সবাই এগুলোর প্রতি বিশেষ নজর রাখবেন। এ সংক্রান্ত কোন জিজ্ঞাসা থাকলে নিঃসঙ্কোচে কমেন্ট করে জানার চেষ্টা করবেন। সবগুলো উত্তর দেয়ার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ। ভালো লাগলে শেয়ার করুন যাতে আরও অনেকে জানতে পারে। নির্বাচিত করার মত মনে হলে নির্বাচিত মনোনয়ন করুন, তাতে লেখাটি আরও কিছুদিন প্রথম পৃষ্ঠায় দৃশ্যমান থাকবে।আগামীতে আরও দরকারী আলোচনা নিয়ে আসব কথা দিচ্ছি। ততক্ষন সাথে থাকুন। শিখতে থাকুন। সবাই ভালো থাকুন

ADs by Techtunes ADs

কোন প্রশ্ন বা কোন প্রয়োজনে সাথে থাকুন ফেসবুকে
আমার টিউন লাইব্রেরীঃ আমার টিউনার পাতা
নিয়মিত আমার টিউনের আপডেট পেতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করুনঃ
টেকটিউনস » Md. Saiful by Email

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি মোঃ সাইফুল। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 6 বছর 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 22 টি টিউন ও 148 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

খুবই চমৎকার এবং গোছানো একটি পোস্ট। খুব ভাল লাগল। এবং গ্রাফিক্স সম্পর্কিত কাজ যারা করে, তাদের জন্য পোস্টটি অনেক কাজে লাগব। জনগণের স্বার্থে পোস্টটি শেয়ার করলাম

    @ekram.cit: ভাই বেশি কিছু না লিখে আপনাকে শুধু ধন্যবাদ দিলাম এত সুন্দর মতামতের জন্য।

দারুণ তো @ ধন্যবাদ

দারুন একটা পোস্ট অনেকদিন পর পেলাম। আরও কিছু থাকলে নিঃসঙ্কোচে দিন- আমাদের মতো লোক দের কাজে লাগবে, ধানবাদ।

অসাধারন টিউন সাইফুল ভাই। নির্বাচিত হউক

Level 0

অসাধারন, এরকম টিউন আশা করছিলাম অনেক দিন ধরে। আমার দেখা যে কয়েকটা ছবি তোলার স্টুডিও দেখেছি তারা বেশিরভাগ Adobe Photoshop CS 7/8 ব্যবহার করে। তাদের অনেককে প্রশ্ন করেছিলাম পুরাতন ভার্শনে আপনারা কি পেয়েছেন? ওরা বেশিরভাগ-ই উত্তর দিয়েছে এটাতে অনেক কিছু সাপোর্ট করে, যা নতুনটাতে করেনা।
কিছু কিছু স্টুডিওলার মনে করে তারা নিজেরা জাহাজ হয়ে গেছে।
আপনার টিউন থেকে অনেক কিছু জানতে পারলাম। যারা এই টেকটিউনে আসে তারা আজ বুঝবে Adobe photoshop CS6/CS5/CS4/CS3/CS2 কি জিনিস?(যারা পুরাতন ভার্শন ব্যবহার করে 🙂 )
ধন্যবাদ।

    @bdsharif: Thanks a lot. বিষয়টা আসলে এরকম। অনেক ডিজাইনারগন ফটোশপ ৭.০ ব্যবহার করে শান্তি পায় কারন ফটোশপ ৭.০ এ কমান্ডগুলো কম সময়ের মধ্যে কার্যকরী হয়। ফটোশপের পরবর্তী ভার্সনগুলোতে যে সকল নতুন ফিচার যুক্ত হয়েছে সেগুলো কার্যকর হতে আসলেই একটু সময় নেয়। তবে পিসি যদি উন্নতমানের হয় তাহলে এটা কোন ফ্যাক্টর নয়। তারা হয়ত আগের পিসিগুলো ব্যবহার করে। তারপরও এসব বিষয় অনেক সীমাবদ্ধতা আছে যেগুলো লিখলে হয়তো তাদেরকে অসম্মান করা হবে তাই লিখছিনা। তবে যে ভার্সন যার কাছে ভালো লাগে সে সেটাই ব্যবহার করে। এই আরকি।

      Level 0

      @Md. Saiful: হ্যা…আপনার কথায় যুক্তি আছে। নতুন যে ভার্শনগুলো এসেছে সেগুলো Windows XP service pac 3 প্রয়োজন পড়ে (সর্বনিম্ন Requirements)।
      তাছাড়া 2GB Ram থাকলে ভালো Perform করা যায়। বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষ-যারা প্রযুক্তির সাথে যুক্ত আছে (তরুন প্রজন্ম বাদে) তারা পুরাতন প্রযুক্তিকেই পছন্দ করে। যে Software গুলো অন্যান্য Country আগেই ব্যবহার করে ফেলেছে সেখানে বাংলাদেশ কমপক্ষে এক বছর পর ব্যবহার করে। এজন্য-ই আমরা তরুন প্রজন্ম চাইলেও অত কিছু করতে পারছি না।
      ধন্যবাদ আপনার রিপ্লাই এর জন্য।

      @Md. Saiful: সহমত যেমন আমাদের @হোছাইন আহম্মদ সেও কিন্তু ফটোশপ নিয়ে টিটিতে অসংখ টিউন করেছেন কিন্তু সে সবগুলোতেই ফটোশপের পুরাতন ভার্সন গুলো ব্যবহার করেছেন। কারণ একটাই পুরাতন ভার্সন গুলো অনেক দ্রুত কাজ করে। যেমন উদাহরণ হিসেবে বলবো আমি এতোদিন অফিস ০৩ ব্যবহার করেছি গতকাল রাতে ০৭ সেটাপ দিলাম কিন্তু ০৭ ওপেন হতে প্রায় ১০ সেকেন্ড এর মতো সময় নেয় যেখানে ০৩ নিতো ০৩ সেকেন্ড। আমার পিসি ডুয়াল কোরের Ram 4GB তাহলে বলুন কোনটা ভালো।

    Level 0

    @bdsharif: তাছাড়া স্টুডিওগুলোতে মূলত যে কাজগুলি করা লাগে :
    ১. brightness/contrast ajust
    2. hue/saturation aust
    3. backgroun remuval
    4. spot fixing
    5. আর পাসপোর্ট সাইজের ছবি 3r এ পাতানো
    তো এই কাজগুলির বাইরে খুব কমই অন্য কাজ তাদের করা লাগে, আর এর জন্যে ps 7/8 ই যথেষ্ট। তাছাড়া latest version গুলো বেশ ভারী। software latest ব্যবহার করা মানেই কিন্তু আধুনিক হওয়া তা নয়। আমার যে কাজের জন্য যা প্রয়োজন সেটার সর্বচ্চ ভালটা ব্যবহার করে সময়, শ্রম বাচানই আধুনিকতা। উপরের ৫ টা কাজই ps7,8,cs1,2,3,4 যাই বলুননা কেন একইভাবে হবে। তাহলে যেখানে ps7/8 ৪/৫ সেকেন্ডে লোড হবে, সেখানে সকালে দোকান খুলে ৮/৯ সেকেন্ড অপেক্ষা করবে কেন কেউ? আর studio ব্যবসাটা করে লাক্ষ টাা সবা্ কামায় না, জাষ্ট জবনটা বাচানোর তাগিদেও অনেকেই করছে। তাই তারা core i 2/3 এর মেশনও সব সময় কিনতে পারছে না। যেমন output, ckmb হসড়জট ও তারা কিনবে। ধন্যবাদ।

ভালো লিখেছেন।

আমার দেখা ভালো কিছু পোষ্টের মধ্যে যুক্ত হল। প্রিয়তে নিলাম।

সাইফুল ভাই, ধন্যবাদ দেয়ার ভাষা নাই। চমৎকার বিষয় নিয়ে চমৎকার ভাবে উপস্থাপন করেছেন। অসাধারণ এইরকম আরো অনেক টিউন আশা করছি আপনার কাছ থেকে।
শুভকামনা রইলো!

    @কম্পিউটার লাভার: কম্পিউটার লাভার এইরাম মতামত দিলে ভালো লাগে।

      Level 0

      @Md. Saiful: Ami karo comment Techtuner er page dekhte pacchi na. Kon option theke ami seta ber korbo??? Jate sobar recent commenet ami dekhte pai.

Level New

Ek Kothay Oshadaron!

    @Ridwan Ahmad: Thanks a lot.

      Level 0

      @Md. Saiful: Ami karo comment Techtuner er page dekhte pacchi na. Kon option theke ami seta ber korbo??? Jate sobar recent commenet ami dekhte pai.

Level 0

Techtune a kivabe comment dekhbo ektu keo bolen?

অনেক সুন্দর লিখেছেন। চালিয়ে যান।

বাংলা ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখতে চাইলে পাবেন এখানে
http://www.projuktiteam.com/

    @হাসান যোবায়ের (আল-ফাতাহ্): হাসান ভাই, আপনি, রাকিব, ইকরাম ভাই যদি কমেন্টস করেন আমি ধন্য হয়ে যাই। যাহোক আপনি ভালো আছেনতো? আমি ব্যক্তিগতভাবে আপনার ডিভিডিগুলো প্রমোট করি যদি কোন ভাই বাংলা টিউটোরিয়াল চায়।

ফাটাফাটি টিউন হইছে

মচতকার উপস্থাপন করেছেন। চালিয়ে যান।

Level 0

Thank u vai …

অভিজ্ঞতালব্দ মূল্যবান একটি টিউন উপহার দেয়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। নতুন টিউনের অপেক্ষায় রইলাম।

    @রেজুয়ান আহমদ: অবশ্যই নতুন টিউন নিয়ে আসছি। ধন্যবাদ আপনাকে।

chrom akta tune….tnX apnaka…

Thanks for nice tune! @ Mr. Md. Saiful. Its helpful for Photoshop user.

দারুন একটি সতর্কতামূলক টিউন করেছেন সাইফুল সাহেব ! অনেক সুন্দর উপস্থাপন 🙂

    @সাইফুল ইসলাম: আমি কি করব বুঝবার পারছিনা। সব বসরাই কমেন্ট করতেছে। কেমন আছেন?

      @Md. Saiful: আপনি এভাবেই নিয়মিত সুন্দর সুন্দর টিউন উপহার দিতে থাকেন তাহলে আপনিও বস হয়ে যাবেন 😛
      আলহামদুল্লিাহ ভাল আছি 🙂

      @Md. Saiful: সাইফুল ভাই দেখি সাইফুল ভাইয়ের টিউমেন্ট পাইছে! 😀 সেইরাম কপাল B|

Photoshop 7 e polygonal tools diye silect korar somoy 5 second er mathay auto select hoye jay… Ki kora jay…

    @মিয়াজী (IIUC): পলিগনাল লেসো টুল যে বৈশিষ্ট্য সে অনুযায়ী কোন ইমেজের কিছু অংশ সিলেক্ট করার পর যে কোন স্থানে যদি ডাবল ক্লিক পড়ে যায় তবে সিলেকশানের দুই প্রান্ত অটোমেটিক এক হয়ে যায়। আশা করি সমাধানটা করতে পারবেন।

Level 0

chorom post.chalie jan…

Level 0

অসাধারন পোষ্ট এবং অনেক সি: ভাইয়েরা এখানে কমেন্ট করেছে তো আমার নতুন করে বলার কিছু নাই, আমি সাইফুল ভাইকে বিশেষ করে ধন্যবাদ দিতে চাই এই কারনে যে আপনি পোষ্টটি খুবই সহজ ভাষায় লিখেছেন এবং যে সকল শ.কমেন্ট গুলো ব্যবহার করেছেন তা ফটোশপ এর প্রায় সব ভার্সনে ব্যবহার করা যায়। আমি আশাবাদী যে আগামীতে আরো ভাল ভাল পোষ্ট আপনার কাছ থেকে পাব……ধন্যবাদ….

অসাধারন ও কাজের টিউন। কিছু জিনিস এখন থেকে আরো ভালোভাবে করতে পারব।

    @সুমির: চালিয়ে যান। টিউমেন্ট এর জন্য ধন্যবাদ।

তুখড় হয়েছে পোস্ট টা। এরকম ভবিষ্যতে আরও পাবো বলে আসা করছি। ধন্যবাদ।

    @surojit sardar: টিটিতে চোখ রাখুন নিয়মিত। আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

      @Md. Saiful: ভাই আপনার কাছে আমার আরএকটা প্রশ্ন আমি ফটোশপ CS5 পোর্টেবল ভার্শন ব্যবহার করি আমার কছে CS6 নেই এই দুইটা ভার্সন এর মধ্যে পার্থক্য আছে কি…? আশাকরি আপনি বুঝতে পেরেছেন।

        @মাহমুদ কলি।: মাহমুদ ভাই সিএস5 ও সিএস6 এর মধ্যে পার্থক্যতো আছেই। আর পোর্টেবল ভার্সন ও মুল ভার্সন এর সাথে অনেক পার্থক্য আছে। আপনার কোন ভার্সন লাগলে ফেসবুকে যোগাযোগ করবেন। সরবরাহ করব। আমার কাছে সব ভার্সন আছে। পোর্টেবল, মুল সবই। সিএস4,5,6, সিসি সবই আছে।

          @Md. Saiful: ধন্যবাদ মন্তব্য করার জন্য, যোগাযোগ করবো।

Google Adsence lagbe karo?? Amar sate contact korte paren..2 hour e kore dibo..aita host account apni onekgulo site a add dite parben
Facebook: https://m.facebook.com/masum.ahemed?ref_component=mbasic_home_header&ref_page=%2Fwap%2Fhome.php&refid=8

Mobile:01737549011(bondho thakle message diyen)

অসাধারন টিউন, ভবিষ্যতে আরও এইধরনের টিউন আশা করব…

Level 0

Saiful ভাই, আপনার টিউটি আমার অত্যন্ত পছন্দ হয়েছে। যেহেতু আমিও এই লাইনের একজন মানুষ। তাই আপনার টিউনটি আমার কাছে অত্যন্ত উপকারী বলে মনে হয়েছে। আমি আমার কাজের ক্ষেত্রে আপনার টিউনটি অনুসরণ করে করার চেষ্টা করব। এরকম একটি মান সম্মত টিউন করার জন্য প্রাণের অন্তস্থল থেকে ধন্যবাদ দিলাম। আমার Adobe Illustrator CS4 এবং Adobe Illustrator CS5 সফটওয়্যার গুলি ভীষণ দরকার। আপনার কাছে অথবা অন্য কারো কাছে যদি থেকে থাকে তাহলে তার লিংকটি দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি। টরেন্ট ডাউনলোড লিঙ্ক দিতে পারলে বেশি খুশি হব।

Level 0

Saiful ভাই,
আমার Adobe Illustrator CS4 এবং Adobe Illustrator CS5 সফটওয়্যার গুলি ভীষণ দরকার।
আমি আপনার Facebook Address এ যোগাযোগ করার চেষ্টা করব।

অসাম!! 😀

অনেক সুন্দর টিউন । আশা করি এই রকম টিউন আপনার কাছথেকে আরও পাব……..

    @মুকুল: ধন্যবাদ সুন্দর মতামত প্রদানের জন্য।

নতুন দের জন্নে খুব ই ভাল পোস্ট
আমন পোস্ট করতে থাকেন
আমি ও অনেক স্টুডিও তে গিয়ে জিজ্ঞসা করেছি তারা কেন ps 7 ব্যবহার করে।
বেসিরভাগ বলেছে এটার ওপারেটিং সিস্টেম নাকি সোজা
কিন্তু তাদের কিভাবে বুঝাব যে সুবিধার জন্নেই ত এগুলো আপডেট করে ওরা
আমি Adobe photoshop creative cloud ব্যবহার করি
photoshop 7 এ যা ১০ মিনিট ধরে করতে হয় cc তে ২ ক্লিক এ করা জায় ।

জাই হক এমন সুন্দর পোস্ট এর অপেক্ষায় থাকলাম 🙂

    @basharul alam sunny: ধন্যবাদ সানি ভাই। আপনার কথার সাথে আমি একমত। আসলে যে যেটা ব্যবহার করে মজা পায়।

অনেক ভাল টিউন ঃ-) ধন্যবাদ আপনাকে।
আমার একটু সাহায্য দরকার ছিল, কেউ কি আমাকে Photoshop Element 11 এর Key/Serial দিতে পারবেন? আমি Mac OS ব্যবহার করি। আমি Windows এর Keygen খুঁজে পেয়েছি, সেটা Windows এর জন্য কাজ করছে কিন্তু Mac এর জন্য কাজ করছে না। Windows এ Keygen App চালিয়ে সেই কোড Mac app দিলে Valid key হচ্ছে না! ঃ-(

    @Fortune Hunter: ধন্যবাদ আপনাকেও। আর্ আপনার প্রশ্নের উত্তর দিতে পারলামনা। এটি আমার জানা নাই।