Rooted Android mobile এ keylogger দিয়ে দেখেনিন আপনার মোবাইল থেকে কখন কি type করেছে।সাথে থাকছে হ্যাকিং এর মেথহোড

সবাইকে সালাম আর শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি আমার এবারের টিউন।আজকের টিউনে আমি  আপনাদের দেখাব কিভাবে আপনার android mobile  এ key logger এর মাধ্যমে আপনার মোবাইলের সকল টাইপিং হিস্টোরি দেখবেন।টাইপিং হিস্টোরি দেখা মানে আপনার মোবাইল থেকে কেউ যদি ফেচবুকে লগিন করে তা হলে তাও সেভ হয়ে যাবে এবং আপনি তা পরে দেখতে পারবেন।আর যদি এ কি লগার আপনার গার্ল ফ্রেন্ডের মোবাইলে এক্টিব করে দিতে পারেন তাহলে আপনি আপনার গার্লফ্রেন্ডের সকল হিস্টোরি ও জানতে পারবেন।জাই হক জারা আগে থেকেই জানেন কি লগার এর বেপারে তাদের কে নতুন করে বলার কিছু নেই।আর জারা নতুন তাদের জন্য আমি জতটুকু জানি ততটুকু সেয়ার করতেসি।আমার জ্ঞানের পরিমান সীমিত তাই আমার কোন ভুল হলে দয়া করে ক্ষমা ও সোন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

কি লগার হল এমন একটি মাধ্যম জা আপনার অজান্তে আপনার প্রিতিটি অক্ষরে অক্ষরে টাইপিং হিস্টোরি কোন একটা সেসানে সেভ করে রাখে এবং আপনি তা পরবর্তিতে চেক করতে পারবেন।এই কি লগার মুলত বের করা হয়েছে অনেক আগে জারা প্রোগ্রামার চিল তারা তাদের ছেলে মেয়েদের বেপারে লক্ষ রাখার জন্য অর্থাত তাদের ছেলে মেয়ে কখন কি করে,কোন সাইট ভিসিট করে,কোন বাজে কাজের সাথে জড়িত হচ্ছে কিনা সব তথ্য দেখার জন্য এই কি লগার তৈরি করে।তাদের ছেলেমেয়ের অজান্তে কি লগার পিসিতে ইন্সটল করে রাখত  এবং এটা ইন্সটল করার পর ডিসপ্লে তে এটা সো করে না জার দরুন কেউই এটা বুজতে পারত না।আপনারা জানেন হ্যাকাররা সব সময় ফাক ফোকর খুজে আর তাই পরবর্তিতে হ্যাকাররা এই কি লগার কে তাদের একটা বর হাতিয়ার হিসাবে ব্যবহার করে।

 

এবার আমি সরাসরি কাজের কথায় চলে জাই।

যা যা প্রয়োজন হবে

১)একটি রুটেড এন্ড্রয়েড মোবাইল।রুট করা না থাকলে আগে রুট করে নিন।

২)xposed installer apps download apk from here

৩) key logger apps apk from here

৪)es file xplorer apps apk from here

 

ধাপ ১:

Xposed installer  এবং key logger apps দুইটি ইন্সটল করেন। apps দুইটি ইন্সটল করার পর xposed installer apps টি ওপেন করেন।

Modules লেখার মধ্যে ক্লিক করেন।

ধাপ ২:

Logger এর পাসে টিক মার্ক করে দিন।তারপর আপনার মোবাইল টি রিবুট/রি স্টার্ট/বন্ধ করে চালু করেন।

 

ধাপ ৩:

এবার লগ এপ্স টি ওপেন করেন।ওপেন করলে আপনি আমার মত দেখতে পাবেন।

ধাপ ৪:

এবার একদম উপরে /storage/sdcard0/ এই লেখার পর key.log লিখে turn on এ টিক মার্ক করে দিয়ে সেভ করে বের হয়ে আসেন।

ধাপ ৫:

এবার আমরা আগে কনফার্ম হব আমাদের key.log  ফাইলটি সঠিক ভাবে যুক্ত হয়েছে কিনা।তার পর আমরা আমাদের টাইপ করা হিস্টোরি খুজব কারন অনেক মোবাইলে key.log file টা আসতে ঝামেলা করে।

ধাপ ৬:

Es file xporer apps টি ইন্সটল করে ওপেন করেন তারপর সরাসরি আপনার sd card এ জান।যদি আপনার ফাইল টি সফল ভাবে যুক্ত হয় তাহলে আপনি sd card এ গেলেই আমার মত key.log file টি দেখতে পাবেন।বলে রাখাভাল অনেকের মোবাইলে মেমোরি কার্ডে এই ফাইল টি ডাইরেক্ট সো করে।আমি es file xplorer এপ্স টি ব্যবহার করেসি যাদের এই ফাইলটি সরাসরি মেমোরি কার্ডে সো করে না তাদের জন্য।

ধাপ ৭:

এখন আমরা অপেরা মিনিতে কিছু জিনিশ টাইপ করে দেখব,আমাদের টাইপ করা টেক্সট গুলা সেভ হয় কিনা।

ধাপ ৮:

এবার key.log file টি ওপেন করে দেখুন সব সেভ হয়ে গেসে।

বিঃদ্রঃ আমি প্রথমে আপনাদের বলেছিলাম সাথে থাকছে হ্যাকিং মেথহোড।এখন অনেকে ভাবতেসেন হ্যাকিং এর ত কিছুই পেলাম না??? হুম তাদের জন্য বলছি এটা পুরাটাই একটা হ্যাকিং এর অংশ।আপনি যে কোন চলে বলে কলে কৌশলে কাজ গুলু অন্য কার মোবাইলে করেন তাহলেই আপনি তার সকল তথ্য পেয়ে জাবেন।

সকলের উদ্দ্যশ্য একটা কথাই বলতে চাই দয়া করে হ্যাকিং  কে নিজের সার্থে ব্যবহার করবেন না।দেশের সার্থে জনগনের সার্থে ব্যবহার করবেন।

সর্তকবার্তাঃআগেই বলে রাখি এই কি লগার যেহুতু আমাদের টাইপিং কৃত সকল কি সেভ করে রাখে তাহলে আপনি যখন আপনার মোবাইল থেকে ডাচ বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং,ইউ কেশ,এম কেশ,বিকেশ ব্যবহার করে আপনার ব্যালেঞ্চ তদন্ত করতে বা অন্য কোন কাজ করার সময় আপনি পিন কোড ব্যবহার করবেন তখন আপনার ব্যবহারকৃত পিন কোড ও সেভ করে রাখবে এই কি লগার।তাই সব সময় সাবধান থাকবেন আপনার বন্ধু সেজে কোন দুঃ চক্র কারি আপনার ক্ষতি করার চিন্তায় নেই তো??হয়ত দুঃ চক্র কারি আপনার একাউন্টের টাকা যে নাম্বারে ট্রান্সফার করবে আপনি তা পরে চেক করলে দেখতে পবেন।আর যদি টাকা ট্রান্সফার করার ফর সে ভুল পিন বার বার ব্যবহার করে আপনার একাউন্ট ব্লেক লিস্ট করে দেয় তাহলে আপনি টাকাও হারালেন আর একাউন্ট রি ওপেন করতে বেশ জামেলাও পড়বেন।অথবা দেখা গেল সে তার গোপন একটা সিম কার্ডে টাকা ট্রান্সফার করল তখন আপনি ত আর তা টের ও পেলেন না।যে ঐ ইউসার কে বা কারা।আবার প্রতিটি একাউন্টের কতৃপক্ষ সব সময় বলে দেয় প্রতিটি লেনদেন করবেন নিজ দায়িত্বে,আপনার কোন ভুল হলে তার জন্য কোম্পানি দায়ি নয়।

 

বাচার উপায়ঃএই ধরের কি লগারের হাত থেকে বাচতে হলে সব সময় মোবাইল নিজের কাছে রাখুন।অন্য কার হাতে মোবাইল যদি দিতেই হয় তাহলে আপনি মোবাইলে software install /uninstall system,মোবাইলের settings,xposed installer apps লক করে রাখতে পারেন।এর জন্য app lock apps টি ব্যবহার করতে পারেন।

 

আজ এই পর্যন্তই সবাইল ভাল থাকবেন আর আমার জন্য দোয়া করবেন যেন আপনাদেরকে সব সময় ভাল কিছু উপহার দিতে পারি।কোন কিছু না বুজলে বা কোন সমস্যা হলে আমার সাথে ফেচবুকে ডাক্তারি পরামর্শ নিতে পারেন।আমার ফেচবুক প্রোফাইল  fb profile

 

 

 

 

 

 

 

Level 0

আমি সাইবার গোস্ট। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 6 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 10 টি টিউন ও 58 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

জানতে আর শিখতে চাই অনেক কিসু কিন্তু দুষ্ট বুদ্ধির কারনে কিসুই শিখা হয় না।।। আইটি-কম্পিউটার আর ইন্টারনেট পাগল....


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

অস্থির পোস্ট।। অনেক ভাল লাগলো…

দারুন পোস্ট…….

@টিটি বয়:আপনাকে ধন্যবাদ টিউমেন্ট করার জন্য।

@দুরন্ত পথিক: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ টিউমেন্ট করার জন্য।

অনেক ভাল

@রাফসান হাবীব: আপনাকেও ধন্যবাদ টিউমেন্ট করার জন্য।

samsung note-3 কি ভাবে রুট করব ভাই?

ও মামা মামারে তুমি এতদিন কই আছিলা। তোমারে পাইলে আমাগো কুমিল্লার বিখ্যাত রসমালাই খাওয়াইতাম। তোমারে চুমা দিতে মন চাইতাছে মামা@ তুমি কি যে এক অস্থির টিউন করছ বোঝাইতে পারুম না। অনেক ধন্যবাদ।

@রনি হাসান:আপনাকে ধন্যবাদ টিউমেন্ট করার জন্য।আপনি vroot. exe pc apps টি ব্যাবহার করে দেখতে পারেন।এই এপ্সটি দিয়ে ৯০% মোবাইল রুট করা সম্ভব।

@এআর আতিক:তুমাকে অসইংখ্য ধইন্যবাদ বাইগ্না টিউমেন্ট কয়ার জন্য।থাক তুমারে আর কষ্ট করা লাগব না। কুমিল্লার রসমলাই খাইতে খাইতে আমি এখন এতডাই সুইট হইসি এখন মাইয়া মানুষ আমারে দেখলেই গাল টিপা আরম্ভ করে।

বড় ভাই সাইবার গোস্ট, দরকারি টিউনের জন্য ধন্যবাদ। আমার মেমোরি ডিরেক্টরে key.log নামে কোনো ফাইল create হয় না। কি করতে হবে?

@মেহেদি হাসান:ধন্যবাদ আপনাকে টিউমেন্ট করার জন্য।আমি আগেই বলেছি এই key.log file টি এড হতে ঝামেলা করে।আপনি একটা কাজ করেন আপনি নিজে ডাইরেক্ট মেমোরি কার্ডে সরাসরি বা রুট এক্সপ্লোরার এপ্স ব্যাবহার করে key.log নামে একটি ফাইল তৈরি করেন।তারপর দেখেন আপনার টাপিংকৃত সব কিছু সেভ করে কিনা।

ভাই key.log নামে কোন ফোল্ডার সেভ হয় না কি করব

    @ মালেকুজ্জামা পিন্টু : ধন্যবাদ আপনাকে টিউমেন্ট করার জন্য।আপনি আমার পুর্বের টিউমেন্ট টি কি পড়েছেন?? যদি পড়েও থাকেন তা হলে কি সেই ভাবে ট্রাই করেছেন?? আমি আশা করি আপনি উপরের নিয়মে ট্রাই করলে সফল হবেন।আমি আপনার সুবিধার্থে টিউমেন্ট টি আবারো রিপিট করছি।আমি আগেই বলেছি এই key.log file টি এড হতে ঝামেলা করে।আপনি একটা কাজ করেন আপনি নিজে ডাইরেক্ট মেমোরি কার্ডে সরাসরি বা রুট এক্সপ্লোরার এপ্স ব্যাবহার করে key.log নামে একটি ফাইল তৈরি করেন।তারপর দেখেন আপনার টাপিংকৃত সব কিছু সেভ করে কিনা।