Ratio – নতুন বিশ্বের জন্য সম্পূর্ণ নতুন Distraction ফ্রি, সুপার অ্যান্ড্রয়েড লাঞ্চার

টিউন বিভাগ অ্যান্ড্রয়েড Apps
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 28
সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা

আসসালামু আলাইকুম, কেমন আছেন টেকটিউনস কমিউনিটি? আশা করছি সবাই ভাল আছেন। আজকে আবার হাজির হলাম নতুন টিউন নিয়ে। আজকের এই টিউনটি  আলোচনা করব নতুন এবং ভিন্ন এক অ্যান্ড্রয়েড লাঞ্চার, Ratio Launcher নিয়ে।

Ratio Launcher এর অরিজিন

দারুণ এই Ratio Launcher টি নিয়ে কথা বলার আগে চলুন এর অরিজিন জেনে নেয়া যাক। বার্লিন ভিত্তিক Blloc নামে একটি কোম্পানি ২০১৮ সালে বাজারে নতুন ফোন, Blloc Zero 18 নিয়ে আসে। যা মোটামুটি বাজারে পরিচিতি পায়। ফোনটির হার্ডওয়্যার মানুষকে এতটা আগ্রহী করতে না পারলেও এর সফটওয়্যার মানুষকে বেশ আকৃষ্ট করেছিল। তারা তাদের ফোনের এমন একটি ইন্টারফেস দেয়া হয়েছিল যা দেখে মনে হয়েছিল, তারা যেন সকল ইন্টারফেসকে এড়িয়ে গিয়ে নতুন কিছু তৈরি করেছে।

Blloc Zero 18 ফোনটির মনোক্রমিক ইউজার ইন্টারফেস ছিল একদম ভিন্ন কনসেপ্টের। কিছুটা মাইক্রোসফট ফোনের মত মনে হলেও এর ডিজাইন ছিল একদম আলাদা।

ডিজাইনটি ইউজারদের কাছে আবেদনীয় হবার অন্যতম কারণ ছিল ডিসট্রাকশন ফ্রি ফিচার। Distraction এর এই যুগে মানুষকে ফ্রি রাখার অভিনব এক পদ্ধতি যেন অবলম্বন করেছিল Blloc ফোন গুলোর ব্ল্যাক এন্ড হোয়াইট মনোক্রমিক ইউজার ইন্টারফেস।

Ratio Launcher কি

Ratio একটি অ্যান্ড্রয়েড লাঞ্চার যা ব্যবহার করে আপনার ফোনকে দিতে পারবেন Blloc ফোনের সেই দারুণ ইউজার ইন্টারফেস।

আগেই বলেছি Blloc ফোন গুলোর সফটওয়্যার এবং ইউজার ইন্টারফেস দারুণ পছন্দ হয় ইউজারদের, আর এজন্যই Blloc কোম্পানি সকল অ্যান্ড্রয়েড ইউজারদের জন্য নিয়ে আসে Ratio লাঞ্চার।

Ratio লাঞ্চার এখনো বেটা ভার্সনে রয়েছে। এখন পর্যন্ত বেটা ভার্সনে সাইন অ্যাপ করেছে ২ লক্ষ ৬২ হাজারেরও বেশি মানুষ। খুব তাড়াতাড়ি আসতে যাচ্ছে তাদের V4। বর্তমানে তাদের v.3.3.2 ভার্সনটি এভেইলেবল রয়েছে।

Ratio

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট @ Ratio

Ratio Launcher হ্যান্ড অন রিভিউ

চলুন দারুণ এই লাঞ্চারের ফুল রিভিউ দেখে নেয়া যাক। আমরা এখন দেখে নেব কি কি ফিচার পাচ্ছি এই চমৎকার লাঞ্চারে।

Ratio যেহেতু একটি লাঞ্চার সুতরাং এটি আপনার ফোনের ডিফল্ট হোম স্ক্রিন রিপ্লেস হয়ে যাবে। একটি হোম স্ক্রিনের ডিজাইন কেমন হতে পারে এই ধারণা পুরোপুরি বদলে দিয়েছে Ratio। Distraction কমাতে আপনার ফোনটির হোম স্ক্রিনটিকে দেয়া হয়েছে মিনিমালিস্টিক লুক।

Ratio লাঞ্চারটিতে হোম স্ক্রিনের জন্য রাখা হয়েছে তিনটি ভিউ যেমন, Tree, Root, এবং Tiles। প্রথমেই আপনার চোখে পড়বে Tiles সেকশনের App Drawer ফিচার। যাকে কোম্পানিটির Drawers বলে উল্লেখ করেছে। যেখানে আপনি ফোল্ডার অনুযায়ী অ্যাপ গুলো সাজিয়ে রাখতে পারবেন। বিভিন্ন Gesture এর মাধ্যমে আপনি চাইলে ড্রয়ার গুলো Expend করতে পারবেন অথবা মিনিমাইজ করে রাখতে পারবেনা

Tiles সেকশন

Tiles সেকশনের দারুণ Drawers ফিচারের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন কোন কোন অ্যাপ গুলো আপনি বেশি ইউজার করছেন কোন গুলো আপনার বেশি সময় ব্যয় করে। তাছাড়া প্রতিটি অ্যাপে ক্লিক করে জানতে পারবেন এর বিস্তারিত বিবরণ, কখন কখন ইউজ করেছে, কত সময় ইউজ করেছেন ইত্যাদি। একই সাথে জানতে পারবেন কি পরিমাণ ডেটা কনসিউম করেছে অ্যাপ গুলো, পরিবর্তন করতে পারবেন অ্যাপ আইকন সহ আরও অনেক কিছু।

স্ক্রিনের নিচের দিকে প্রতিটি অ্যাপের জন্য আলাদা কিছু ফিচার পাবেন যেমন, Move, Color, Hide, Lock, Mute, Expend।

আপনি যদি Color অন করে দেন তাহলে আপনার নির্দিষ্ট অ্যাপটি কালারফুল থাকবে আর যদি অফ করে দেন তাহলে সেটা ব্ল্যাক এন্ড হোয়াইট হয়ে যাবে। তাছাড়া আপনি নিচের ডান পাশে Swipe করেও কালার সুইচ করতে পারবেন।

ড্রয়ারের আরেকটি চমৎকার ফিচার হচ্ছে এর ফিঙ্গার প্রিন্ট লক সিস্টেম। আপনি চাইলে যেকোনো অ্যাপকে লক করে রাখতে পারবেন যা শুধু মাত্র ফিঙ্গার প্রিন্ট দিয়েই আনলক হবে।

Mute অপশনের মাধ্যমে আপনি যেকোনো অ্যাপের নোটিফিকেশন বন্ধ রাখতে পারবেন।

Root সেকশন

এবার চলুন দেখা যাক হোম স্ক্রিনের আরেকটি সেকশন Root এ কি আছে। আপনি স্ক্রিনকে ডান পাশে Swipe করলে আরেকটি স্ক্রিন ওপেন হবে যাকে তারা বলে Root।

Root হল মূলত একটি Feed স্ক্রিন, যেখানে আপনি প্রতিদিনের এক্টিভিটি গুলো চেক করতে পারবেন। যেকোনো প্রয়োজনে সার্চও দিতে পারবেন। এখানে বলে রাখা ভাল সার্চ রেজাল্ট দেখাবে Qwant সার্চ ইঞ্জিন থেকে। সার্চ রেজাল্টের নিচের দিকে পাবেন কিছু রিকুমেন্ডেশন, যেখান থাকে আপনি Weather, Spotify, YouTube ইত্যাদি সিলেক্ট করতে পারবেন। আপনি পছন্দ মত ফিড গুলো ফিক্সড করে রাখতে পারবেন।

স্ক্রিনের নিচে ডান পাশে আপনি আরও কিছু অপশন পেয়ে যাবেন যেমন, Sun Mode, Focus Mode, New App Drawer।

Sun Mode এর মাধ্যমে আপনি পুরো ইন্টারফেসকে লাইট করতে পারেন, Focus Mode এর নিজেকে Distraction ফ্রি করে কাজ করতে পারেন, এবং New App Drawer এর মাধ্যমে নতুন Drawer তৈরি করে নিতে পারেন।

Tree সেকশন

এর আরেকটি সেকশন যার নাম Tree, যাকে কনভারসেশন ফিডও বলা হয়। হোম স্ক্রিনের বামে Swipe করে এই Tree স্ক্রিনে আসতে পারেন। যেখানে আপনি এক জায়গা সব গুলো মেসেজিং প্ল্যাটফর্মের মেসেজ পেয়ে যাবেন।

আগের বলেছি Ratio একটি Distraction ফ্রি লাঞ্চার। সুতরাং তারা এমন ব্যবস্থা করেছে যাতে করে আপনি আপনার মনোযোগ ঠিক রেখে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মেসেজের রিপ্লাই দিতে পারবেন। আপনার ফোনের সকল চ্যাটিং অ্যাপ যেমন, WhatsApp, Telegram, Messenger এর সকল মেসেজ পাবেন Tree স্ক্রিনে। এই ফিচার দেয়ার উদ্দেশ্য হচ্ছে আপনাকে যেন আলাদা করে অ্যাপ গুলোতে ঢুকতে না হয়।

আমরা এই বিষয়টি ভাল করেই জানি, বর্তমান সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ এবং মেসেঞ্জার গুলো এমন ভাবে ডিজাইন করা যাতে ঢুকলে কোন দিক দিয়ে আপনার সময় চলে যাবে টেরই পাবেন না।

Blloc Desk ফিচার

Ratio লাঞ্চারের সবচেয়ে দারুণ লেগেছে এর Blloc Desk ফিচারটি। যেখানে আপনি আপনার ফোনকে উইন্ডোজ অথবা ম্যাক-বুকের সাথে Wifi এর মাধ্যমে কানেক্ট করতে পারবেন। আপনি একই সাথে পাবেন ছবি এবং বিভিন্ন অ্যাপের এক্সেস। চাইলেই কোন ধরনের ক্যাবল ছাড়াই ড্রাগ এন্ড ড্রপ করে ফাইল ট্রান্সফার করতে পারবেন পিসি এবং ফোনের মধ্যে। তাছাড়া Note এ কোন কিছু লিখলে তা রিয়েল টাইমে পিসিতেও শো করবে।

বিঃদ্রঃ তবে একটি বিষয় আমি পরিষ্কার করে দিতে চাই, Ratio তার সকল কাজ করতে আপনার ফোনের সকল ধরনের পারমিশন চাইবে, একই সাথে তার কাছে আপনার ফোনের বিশাল ডেটা এবং সেনসিটিভ ইনফরমেশন থাকতেই পারে। যদিও তাদের দাবী তারা ইউজারের সকল ডেটা ডিভাইসের ভেতরেই রাখবে, ক্লাউডে পাঠাবে না। তারপরেও সিদ্ধান্ত আপনার। আর এই কথা গুলো বলার উদ্দেশ্য হচ্ছে, যেখানে আমি সাইবার সিকিউরিটি নিয়ে টিউন করি সেখানে আমার মনে হয় এই বিষয়টি মনে করিয়ে দেয়া উচিত।

Blloc এর বর্তমান বিজনেস

Blloc এর সাথে ব্যক্তিগত ভাবে যোগাযোগ করে জানতে পেরেছি তারা এই মুহূর্তে আর কোন হার্ডওয়্যার তৈরি করছে না, তারা তাদের বিজনেসকে Ratio ভিত্তিক করে ফেলেছে। তারা এখন Ratio এর প্রো ফিচার সাবক্রিপশনের মাধ্যমে আয় করছে।

শেষ কথাঃ

যারা দীর্ঘ দিন ধরে ডিফল্ট লাঞ্চার ব্যবহার করতে করতে বোরিং হয়ে গিয়েছেন এবং নতুন ভিন্ন কিছু পাচ্ছেন তাদের জন্য দারুণ হতে পারে Ratio Launcher টি। তাছাড়া যারা Distraction ফ্রি কাজ করতে চান তাদের জন্য উপযুক্ত হবে এই Ratio Launcher।

তো কেমন হল আজকের টিউন তা অবশ্যই জানান, টিউমেন্ট করুন আপনি কি লাঞ্চারটির এক্সপেরিমেন্ট করেছেন কিনা? করে থাকলে অভিজ্ঞতা কেমন।

আজকে এই পর্যন্তই, দেখা হবে পরবর্তী টিউনে সে পর্যন্ত ভাল থাকুন। আল্লাহ হাফেজ!

Level 28

আমি সোহানুর রহমান। সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 6 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 465 টি টিউন ও 186 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 55 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

কখনো কখনো প্রজাপতির ডানা ঝাপটানোর মত ঘটনা পুরো পৃথিবী বদলে দিতে পারে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

সিকিওরিটির কথা ভেবে ইন্সটল করলাম না।তবে রিভিও টা জোসস

এইটা তো ১৪ দিন ফ্রি ইউজ করা যাবে, ট্রায়াল ভার্সন বলে।

    Tree নামের যে ফিচারটি আছে সেটা ১৪ দিন ব্যবহার করতে পারবেন, বাকি ফিচার গুলোর কোন লিমিটেশন নেই।

আর এই এপ তো এন্ড্রোয়েড ৭.০ তে চলে না।
মিনিমাম কত ভার্সন লাগবে?

    মিনিমাম কত ভার্সনে সাপোর্ট করবে সেটা উল্লেখ নেই, আমি Android 10 এ টেস্ট করেছি। তবে এন্ড্রোয়েড ৭.০ এ চলার কথা , আপনি আবার চেষ্টা করে দেখতে পারেন।

দারুণ