শাওমি/XIAOMI Redmi note 4x ফোন কিনবেন নাকি?

আসসালামু-আলাইকুম। আশা করি সবাই ভালো আছেন। এটাই এখানে আমার প্রথম টিউন। তাই কথা না বাড়িয়ে সরাসরি টিউনে চলে যাই। টিউনের শিরোনাম দেখে আমাকে কেউ গালাগালি দিবেন না। আগে পুরোটা পড়ুন। আমি ২০১৪ সালে xiaomi redmi note 2 কিনেছিলাম সিঙ্গাপুর থেকে ইনটারনেটে এর বিজ্ঞাপন দেখে। তখন এ ফোনের নাম আমি সঠিক উচ্চারন করতে পারিনি।

যাই হোক শাওমি তাদের Redmi Note Seris দিয়েই বিশ্ব বাজারে সবার নজর কেড়েছে। কারন অন্য কোন কোম্পানি এত অল্প দামের মধ্যে Snapdragon চিপ সেটের মোবাইল বাজারজাত করে না। বর্তমানে তাদের Redmi note 4/Redmi note 4x বাজারে চলতেছে।

আমি ধারাবাহিক ভাবে Redmi note 4/Redmi note 4x এর ২০টি Feature দেখাবো যা মধ্য বাজেটের ফোনে সাধারণত দেখা যায় না। চলুন শুরু করি-

১) আপনি কি চান যে প্রতেকটা আ্যপ ডবল করে আলাদা একাউন্ট ব্যবহার করবেন? যেমন ২টি ফেসবুক। ২টি ইমো। ২টি যে কোন আ্যপ। এর জন্য Redmi note 4/Redmi note 4x এ আছে Dual App।

২) আপনি কি অনেক দুরের জিনিস কাছে জুম করে ছবি তুলতে ভালোবাসেন? তাহলে আপনার দরকার Redmi note 4/Redmi note 4x. কারন এতে আছে  ৮x  জুম। যেখানে samsung J7 এ পাবেন মাত্র 4x জুম। বিশ্বাস হচ্ছে না? তাহলে দুটি ফোন পাশাপাশি এনে জুম করে দেখুন।

৩) আপনি কি আপনার ফোন এক হাত দিয়ে চালাতে চান? সাড়ে পাঁচ ইঞ্চি ফোনে তা সম্ভব নয়। তাই আপনাকে ফোনের ডিসপ্লে ছোট করতে হবে। এটা Redmi note 4/Redmi note 4x এ সম্ভব। আপনি আপনার ডিসপ্লেকে 4/4.5/5  ইঞ্চি করতে পারবেন। এর জন্য আছে One handed mode।

আমি কোন ভাবে শাওমি ফোনের কোন ব্যবসার সাথে জড়িত নই। এটা আমার প্রিয় ফোন। তাই সবার সাথে শেয়ার করলাম।এটা আমার প্রথম টিউন। ভুলত্রুটি ক্ষমা করবেন।

Level 0

আমি নিরব দর্শক। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 3 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 4 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস