ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

২০২০ সালের সেরা ১০ টি ফ্রি VPN সার্ভিস! যেগুলো ফ্রি কাজ করে মাখনের মত!

টিউন বিভাগ সাইবার সিকিউরিটি
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 13
সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা

আসসালামু আলাইকুম, কেমন আছেন টেকটিউনস কমিউনিটি? আশা করছি সবাই ভাল আছেন। আজকে আবার হাজির হলাম নতুন টিউন নিয়ে। আজকের এই টিউনটি মূলত অনলাইন নিরাপত্তা নিয়ে এবং আমি এই টিউনে আলোচনা করব  সেরা ১০ টি VPN নিয়ে, যেগুলোর মাধ্যমে আপনি ব্যবহার করতে পারবেন ফ্রি VPN সার্ভিস।

ADs by Techtunes ADs

অনলাইন নিরাপত্তা

আমরা সবাই জানি বর্তমানে ইন্টারনেট নিরাপত্তা কতটা গুরুত্বপূর্ণ। হ্যাকারদের বিভিন্ন ফাঁদে পড়ে আপনার বিভিন্ন সেন্সেটিভ তথ্য চলে যেতে পারে অনলাইনে। তাছাড়া ইন্টারনেট ব্যবহার বর্তমানে এতটাই জরুরী হয়ে পড়েছে কোন ভাবেই এটা ইগ্নুর করার সুযোগ নেই। তো আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে কিভাবে নিরাপদে ব্যবহার করা যায় এই ইন্টারনেট কিভাবে নিজের তথ্য গুলো কোথাও লিক হয়ে যাওয়া হতে বাঁচানো যায়। ইন্টারনেটে নিরাপদ থাকার অন্যতম পথ হচ্ছে VPN। তাছাড়া নিজেকে anonymous করতেও অনেকে ব্যবহার করে এই VPN বা Virtual Private Network। আমরা প্রায়ই খবর পাই, অমুক প্রতিষ্ঠানের সার্ভার হ্যাক এত মিলিয়ন ডাটা গায়েব, অমুক ব্যাংকের সার্ভার হ্যাক এত কোটি টাকা উধাও ইত্যাদি৷ কারা করে এগুলো। হ্যাঁ অবশ্যই হ্যাকাররা।

কিন্তু কে এই হ্যাকার? কি পরিচয় তার? আসল নাম কি, থাকেই বা কোথায়? কোন কিছুই কখনো প্রকাশ পায় না। কেন পায় না, তার কারণ হচ্ছে তারা তাদের ব্যক্তিগত তথ্য গোপন করে ইন্টারনেটে অবস্থান করে। যাদের নেই কোন নির্দিষ্ট আইপি এড্রেস বা নির্দিষ্ট পরিচয়। আসলে তারা সবাই VPN ব্যবহার করে এই ধরনের কাজ করে।

VPN কি এবং কেন?

সহজভাবে বলতে গেলে  VPN হল একটি প্রাইভেট নেটওয়ার্ক ব্যবস্থা যার মাধ্যমে ইউজাররা ব্লক করা যেকোনো ওয়েবসাইটে ঢুকতে পারে এবং ইউজারের যাবতীয় সকল তথ্য গোপন থাকে। কিছুদিন আগেও VPN একটা অপশনাল বিষয় ছিল। কিন্তু বর্তমানে ইন্টারনেট সেন্সরশিপ, কান্ট্রি রেস্ট্রিকশন, ডেটা নিরাপত্তা ও অনন্যা নিরাপত্তার জন্য VPN ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর কাছে এখন একটি অপরিহার্য বিষয়। VPN এর সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করতে হলে ব্যবহার করতে হয় প্রিমিয়াম কোন প্যাকেজ এবং এমন স্বল্প সংখ্যক VPN আছে যেগুলো ফ্রিতে ব্যবহার করা যায়।

ফ্রি VPN?

পেইড VPN এর এই যুগে, ফ্রি, বিশ্বাসযোগ্য, নেটফ্লিক্স, টরেন্টে নিরাপদে এক্সেস করার সুযোগ দেবে এমন VPN খুঁজে পাওয়া মুশকিল। সম্প্রতি আমি প্রায় ৯২ টি VPN পরীক্ষা করেছি যাদের দাবি তারা ফ্রি সার্ভিস দেয় কিন্তু মাত্র ১০ টি ফ্রি VPN পেয়েছি যা বিশ্বাসযোগ্য ও নিরাপদ।

বেশিরভাগ ফ্রি VPN গুলোতে কিছু না কিছু সমস্যা থাকে যেমন, লিমিট ডাটা বা ব্যান্ডউইথ ব্যবহারের সুযোগ, স্লো স্পীড, সীমিত সার্ভার লোকেশন, এমনকি ব্লক করা থাকে বিভিন্ন স্ট্রিমিং ওয়েবসাইট। ফ্রি VPN নিয়ে সবচেয়ে ভয়ের যে বিষয় সেটি হচ্ছে, এর মাধ্যমে আপনার অনলাইন প্রাইভেসি পর্যন্ত নষ্ট হতে পারে।

আর এসব কারণেই আমি  দীর্ঘদিনের একটি রিসার্চে এমন কিছু VPN বের করেছি যাতে নেই অতিরিক্ত কোন চার্জ, প্রাইভেসি রিস্ক এবং যা নিরাপদে ব্যবহার করতে পারবেন। আজকের টিউনটি হবে আমার সেই রিসার্চের আলোকেই।

ADs by Techtunes ADs

ছোট করে, ছোট রিভিউ

মূল আলোচনায় চলে যাবার আগে চলুন ছোট করে দেখে নেয়া যাক বর্তমানে টপে কোন কোন VPN আছে।

NordVPN: এই VPN কে আমি সবার আগে রাখব কারণ এটি অন্য VPN গুলো থেকে বেশি দ্রুত গতির, বেশি নিরাপদ এবং ফিচারের দিক থেকে এগিয়ে এবং এখানে নেই কোন ডাটা লিমিট। যদিও VPN টি পুরোপুরি ফ্রি নয় তবে এখানে মানি ব্যাক গ্যারান্টি পাবেন, পছন্দ না হলে টাকা ব্যাক নিতে পারেন।

ProtonVPN: এই VPN দিয়ে আন-লিমিটেড ডাটা ব্যবহার করতে পারবেন, সার্ভার লোকেশন তিনটি থাকলেও এখানে পাবেন সর্বোচ্চ নিরাপত্তা।

Windscribe: এই VPN একটি ইউজার ফ্রেন্ডলি ইন্টারফেস পাবেন সাথে পাচ্ছেন প্রতিমাসে ১০ জিবি ফ্রি ডাটা, ১০ টি সার্ভার যা দিয়ে ব্রাউজিং করতে পারবেন দ্রুত গতিতে কিন্তু নেটফ্লিক্স ব্যবহার করতে পারবেন না।

Hotspot Shield: বিশ্বাসযোগ্য একটি VPN যাতে US নির্ভর সার্ভার গুলো দিয়ে পাবেন প্রতি মাসে ৫০০ এম্বি দ্রুত ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগ। এই VPN এর মাধ্যমে ইমেইল, ফেসবুক বা অন্যান্য ওয়েবসাইট ব্যবহার করতে পারলেও তা স্ট্রিমিং এর জন্য তেমন ভাল নয়।

hide.me: এই VPN এর ফ্রি প্ল্যান দিয়ে প্রতি মাসে আপনি ২ জিবি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন যা স্ট্রিমিং এর জন্য ভালই তবে ডাটা লিমিটের জন্য এটা দিয়ে কোন মুভি দেখতে পারবেন না বড় ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন না।

১০ টি ফ্রি VPN- সম্পূর্ণ এনালাইসিস

আমি আজকে আমার দেখা বেস্ট কিছু VPN এর সাথেই আপনাকে পরিচয় করিয়ে দেব যেগুলো আপনি নিরাপদে ব্যবহার করতে পারবেন এবং সাথে পাবেন বিভিন্ন ফিচার। সত্যি কথা বলতে কোন ফ্রি VPN আপনাকে সম্পূর্ণ প্যাকেজ দেবে না যেমন, দ্রুত গতি, আন-লিমিটেড ডাটা ব্যবহার, সর্বোচ্চ নিরাপত্তা। সব সুবিধা পেতে হলে অবশ্যই আপনাকে কম দামে কোন প্রিমিয়াম প্যাকেজ কিনে নিতে হবে। চলুন পরিচিত হই এমন ১০ টি VPN এর সাথে যাতে নিরাপদে ইন্টারনেট  ব্যবহার করতে পারবেন, যদিও সব গুলোতে চাহিদা মত ফ্রি সার্ভিস পাবেন না তবুও কিছুটা আপস করলে পেয়ে যেতে পারেন আপনার সেরা VPN-টি।

১. NordVPN

চমৎকার এই NordVPN পুরোপুরি ফ্রি নয় তবে এর প্রিমিয়াম প্যাকেজ গুলো অন্য যেকোনো VPN থেকে দারুণ, যাতে রয়েছে এডভান্সড সব ফিচার। আপনি ভাবতে পারেন এটি কেন এই লিস্টে? এই VPN এ আছে ৩০ দিনের মানি ব্যাক গ্যারান্টি যাতে ৩০ দিনে ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন এই VPN এর প্রিমিয়াম ফিচার।

ADs by Techtunes ADs

NordVPN

অফিশিয়াল ওয়েবসাইট @ NordVPN

আপনি স্বল্প সময়ের জন্য, কোথাও ঘুরতে গেলে বা স্ট্রিমিং করার জন্য কোন প্রিমিয়াম ফিচার ব্যবহার করতে চান তাহলে বলব এই VPN আপনার জন্য বেস্ট হবে। NordVPN এর সিকিউরিটি ভাঙা অনেক কঠিন। এই VPN এর মাধ্যমে আপনি যেকোনো জায়গা থেকে আপনার পছন্দের টিভি শো, সিরিজ স্ট্রিম করতে পারবেন। আপনার জন্য দারুণ খবর হচ্ছে এর মাধ্যমে দেশ ভিত্তিক ব্লক করা ৪০০ টিরও বেশি স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মে এক্সেস করতে পারবেন যা চীনেও কাজ করে।

অন্য ফিচার গুলোর কথা বললে, এর মাধ্যমে ডেডিকেটেড P2P সার্ভারের মাধ্যমে টরেন্টিং করতে পারবেন আগের চেয়ে দ্রুত গতিতে সাথে পাবেন, এড ব্লকিং, Onion Over VPN, ডেডিকেটেড আইপি এন্ড্রেস ইত্যাদি।

হ্যাঁ, এটা সত্যি যে NordVPN সারাজীবন ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন না এটি তবে এক মাস ব্যবহার করে একটি সিদ্ধান্তে আসতে পারেন যে পরবর্তীতে ব্যবহার করবেন কিনা।

চলুন দেখে নেয়া যাক NordVPN এর ফিচার গুলো

  • মানি ব্যাক গ্যারান্টির সাথে পাচ্ছেন ৩০ দিন আন-লিমিটেড ডাটা ব্যবহারের সুযোগ
  • ৫৯ টি দেশের প্রায় ৫৪০০+ সার্ভার
  • ম্যালওয়্যার প্রোটেকশন এর জন্য 256-bit encryption
  • সর্বোচ্চ Anonymous হবার সুযোগ
  • Netflix, Hulu, HBO, BBC iPlayer, Showtime, Amazon Prime Video, Sling TV, সহ আরও অনেক স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মে কাজ করে
  • Windows, macOS, iOS, Android, Android TV, Linux, Firefox, Chrome, অপারেটিং সিস্টেমে সাপোর্ট করে।

২. ProtonVPN

এই ProtonVPN তাদের প্রিমিয়াম প্যাকেজের পাশাপাশি চমৎকার ফ্রি সার্ভিস দেয় যেমন, এতে পাচ্ছেন আন-লিমিটেড ডাটা ব্যবহারের সুযোগ এবং পুরোপুরি এড ফ্রি একটি VPN সার্ভিস। এই ProtonVPN দিয়ে আপনি শুধু মাত্র Japan, Netherlands, এবং US এর সার্ভার ব্যবহার করতে পারবেন।

ProtonVPN

অফিশিয়াল ওয়েবসাইট @ ProtonVPN

ADs by Techtunes ADs

ProtonVPN এ স্বল্প সার্ভার থাকার কারণে অভারলোড হয়ে নেট স্পীড কমে যেতে পারে।  স্ট্রিমিং সাইট বা টরেন্টিং করতে হলে আপনাকে প্যাকেজ আপগ্রেড করতে হবে তবে বিভিন্ন দেশে ব্লক করা ওয়েবসাইট গুলোতে এক্সেস পাবেন সম্পূর্ণ বিনা মূল্যে।

ProtonVPN এর আছে ইউজার ফ্রেন্ডলি ইন্টারফেস যা কয়েকটি প্ল্যাটফর্মে সাপোর্ট করে এবং দ্রুত যেকোনো সার্ভারে কানেক্ট হতে পারে। এই VPN, AES encryption, automatic kill switch, DNS leaks Protection ফিচার গুলোর মাধ্যমে আপনার জন্য নিশ্চিত করবে হাই সিকিউরিটি  ইন্টারনেট ব্যবহার।

এটি একটি switzerland ভিত্তিক কোম্পানি যারা তাদের প্রাইভেসি পলিসি সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা করে দিয়েছে এবং তারা No-Log Policy ফলো করে। No-Log Policy হচ্ছে এমন একটি শর্ত যেখানে VPN কোম্পানি ইউজারে কোন হিস্ট্রি বা ব্যক্তিগত ডাটা ব্যবহার করবে না। তারমানে ProtonVPN এর মাধ্যমে আপনি পাচ্ছেন সেরা নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

চলুন দেখে নেয়া যাক ProtonVPN এর ফিচার গুলো

  • আন-লিমিটেড ফ্রি ডাটা
  • No-Log Policy
  • Robust encryption এবং automatic kill switch ফিচার
  • Youtube, Spotify, kodi স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মে কাজ করে
  • Windows, macOS, iOS, Android, Linux অপারেটিং সিস্টেমে সাপোর্ট করে

৩. Windscribe

Windscribe নিজেদের টপ ফ্রি VPN হিসাবে প্রতিষ্ঠা করতে ইউজারদের জন্য রেখেছে আলাদা আলাদা ডাটা গিফট ব্যবস্থা যেমন, কেউ তাদের সার্ভিস নিয়ে tweet করলে পাবে ৫ জিবি এবং অন্যকে রেফার করলে পাবে ১ জিবি অতিরিক্ত বোনাস ডাটা। এই VPN এ আপনি পাচ্ছেন robust AES encryption ব্যবস্থা যা মাল্টিপল VPN প্রোটোকলে কাজ করে।

Windscribe

অফিশিয়াল ওয়েবসাইট @ Windscribe

Windscribe এর ফ্রি এবং পেইড উভয়ই ভার্সনেই ইউজাররা এড ব্লক, ম্যালওয়্যার ব্লক সহ যাবতীয় ফিচার ব্যবহার করতে পারে। এটি আপনার তথ্য লিক বাঁচাতে একটি ফেয়ারওয়েল এর ব্যবস্থা রেখেছে যা এর নিজস্ব VPN Tunnel বাদে অন্য দিকে ট্রাফিক যাওয়া ব্লক করে দেবে।

Windscribe এর আরও দুটি ফিচার হচ্ছে Port Forwording, Split tunneling।  তারা স্পষ্ট ভাবে বলে দেয় যে তারা আপনার কি কি ডাটা ব্যবহার করবে এবং যেখানে আছে No-Log Policy। Windscribe এর রয়েছে ডেক্সটপ এবং ব্রাউজার এক্সটেনশন ভার্সন যা একটি ইউজার ফ্রেন্ডলি ইন্টারফেস প্রদান করে। তাদের সাপোর্ট সিস্টেমও চমৎকার, যেকোনো প্রয়োজনে করতে পারবেন লাইভ চ্যাট এবং সিঙ্গেল ক্লিকের মাধ্যমে কানেক্ট হতে পারবেন VPN সার্ভারে।

ADs by Techtunes ADs

এই Windscribe VPN দিয়ে আপনি শুধু মাত্র US, UK, Canada, France, Germany, Hong Kong, Netherlands, Norway, Romania, এবং Switzerland এর সার্ভার ব্যবহার করতে পারবেন এর বাইরের কোন দেশের ব্লক করা কন্টেন্টে এক্সেস করতে পারবেন না।

চলুন দেখে নেয়া যাক Windscribe এর ফিচার গুলো

  • প্রতিমাসে ১০ জিবি ফ্রি ডাটা ব্যবহারের সুযোগ
  • ১০ টি দেশের ব্লক কন্টেন্টে এক্সেস করার সুযোগ
  • Robust encryption, Malware Protection, Ad blocking
  • টরেন্টিং সাপোর্ট
  • Netflix, Hulu, HBO স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মে কাজ করে
  • Windows, macOS, iOS, Firefox, Chrome, Linux অপারেটিং সিস্টেমে সাপোর্ট করে

৪ Hotspot Shield

Hotspot Shield আপনাকে অফার করে বিশ্বাসযোগ্য এবং Military- grade এনক্রিপশন ব্যবস্থা। এটি আপনার সকল ধরনের DNS লিক হতে বাধা দেবে এবং আপনি অনলাইনে থাকতে পারবেন শতভাগ Anonymous। এটি No-Log Policy সাপোর্ট করে। Hotspot Shield টেকনিক্যাল সাপোর্ট এর পাশাপাশি ফ্রি এবং পেইড উভয় ইউজারদেরই P2P সাপোর্ট দিয়ে থাকে।

Hotspot Shield

অফিসয়াল ওয়েবসাইট @ Hotspot Shield

Hotspot Shield এর ইউজার ফ্রেন্ডলি ইন্টারফেস এর মাধ্যমে এক ক্লিকেই কানেক্ট হতে পারবেন সার্ভারে। ফ্রি ভার্সনটিতে প্রতিদিন মাত্র ৫০০ এম্বি ব্যবহার করতে পারবেন এবং যা বিভিন্ন এড দেখাবে। ফাইল ডাউনলোড এর ক্ষেত্রে কিছুটা ঝামেলা হলেও বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া বা ইমেইল ব্যবহারে এটি পারফেক্ট।

এই Hotspot Shield VPN টিতে ৭০+ দেশের ৩২০০+ সার্ভার থাকলেও ভার্চুয়াল লোকেশন হিসাবে শুধু US কে ব্যবহার করতে পারবেন। তবে এর মাধ্যমে আপনি যেকোনো দেশের ব্লক ওয়েবসাইট গুলোও ব্যবহার করতে পারবেন। Hotspot Shield এর ফ্রি ভার্সন দিয়ে আপনি  স্ট্রিমিং করতে পারবেন না আপনাকে এজন্য প্রিমিয়াম প্যাকেজ নিতে হবে। তাদের ফ্রি ভার্সন পছন্দ হলে প্রিমিয়াম প্যাকেজটিও নিতে পারেন সাত দিনের ট্রায়েলে।

চলুন দেখে নেয়া যাক Hotspot Shield এর ফিচার গুলো

  • প্রতিদিন ৫০০ এম্বি করে প্রতি মাসে ১৫ জিবি ফ্রি ডাটা ব্যবহারের সুযোগ
  • সিম্পল ইউজার ফ্রেন্ডলি ইন্টারফেস
  • military gurd এনক্রিপশন
  • স্টেবল কানেকশন, lag-free ব্রাউজিং
  • Youtube, Spotify স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মে কাজ করে
  • Windows, macOS, iOS, Android, Chrome অপারেটিং সিস্টেমে সাপোর্ট করে

৫. Hide.me

ADs by Techtunes ADs

hide.me একটি দারুণ VPN সার্ভিস যা আপনাকে বিশ্বাসযোগ্য ফ্রি সার্ভিস অফার করে। এর সাথে পাচ্ছে শক্তিশালী সিকিউরিটি সিস্টেম, ইউজার ফ্রেন্ডলি এপ এবং প্রতিমাসে ২ জিবি ফ্রি ডাটা ব্যবহারের সুযোগ। দারুণ এই VPN আপনাকে দিচ্ছে, AES encryption, automatic kill switch, এবং No-log policy ফিচার গুলো যা আপনাকে অনলাইনে করবে আরও নিরাপদ।

hide.me

অফিশিয়াল ওয়েবসাইট @ hide.me

hide.me এর মাধ্যমে আপনি নিশ্চিন্তে পাবলিক ওয়াই-ফাইও ব্যবহার করতে পারবেন, আপনার ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস হবে না। এটি মাল্টিপল প্রোটোকল ব্যবহার করে আপনার ডিভাইস অনুযায়ী কানেকশনকে করবে আরও আপটি-মাইজ। এতে রয়েছে IP leak Protection, Split Tunneling, 24/7 support সহ এড ফ্রি ব্রাউজিং এর সুবিধা।

hide.me এর মাধ্যমে আপনি Singapore, Canada, Netherlands, US এর সার্ভার পাবেন এবং এর বাইরে কোন দেশের ব্লকিং সার্ভিসে এক্সেস করতে পারবেন না।  এই VPN এর মাধ্যমে কন্টেন্ট ফিল্টার ব্যবস্থায় অফিস বা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নির্দিষ্ট ব্রাউজিং সহ সরকারি ব্লক সার্ভিসও বাইপাস করতে পারবেন।

hide.me, VPN এর ফ্রি ভার্সনে আপনি নেটফ্লিক্সে এক্সেস নিতে পারবেন না তবে ফ্রি এবং পেইড উভয় ভার্সনেই টরেন্টিং করতে পারবেন নিশ্চিন্তে। ফ্রি একাউন্টে আপনি একই সময় একটি ডিভাইসেই ব্যবহার করতে পারবেন এই VPN এবং ফাইল শেয়ারের জন্য পাবেন মাসে মাত্র ২ জিবি ডাটা যা বড় ফাইল ডাউনলোড এর জন্য যথেষ্ট নয়।

চলুন দেখে নেয়া যাক hide.me এর ফিচার গুলো

  • প্রতিমাসে ২ জিবি ডাটা
  • ৫ টি দেশের ফ্রি সার্ভার
  • শক্তিশালী এনক্রিপশন এবং মাল্টিপল প্রোটোকল
  • ব্রাউজিং এর জন্য দ্রুত স্পীড
  • Hulu, iPlayer, Amazon Prime Video, HBO GO স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মে কাজ করে
  • Windows, macOS, iOS, Android, Linux, Chrome Firefox, Amazon Fire TV, অপারেটিং সিস্টেমে সাপোর্ট করে

৬. TunnelBear

আপনি যদি VPN সার্ভিস ব্যবহারে নতুন হয়ে থাকেন তাহলে TunnelBear এর ফ্রি ভার্সন আপনার জন্য বেস্ট হবে বলে আশা করছি। এটার ভালুক এনিমেশনের ইউজার ফ্রেন্ডলি ইন্টারফেসটি দেখতে বেশ চমৎকার।  অন্য VPN গুলোর মত এখানে সার্ভারের লিমিটেশন নেই এখানে প্রায় ২২+ দেশের সার্ভার পাবেন, সেটা আবার ফুল স্পীডে।

TunnelBear

ADs by Techtunes ADs

অফিশিয়াল ওয়েবসাইট @ TunnelBear

এই TunnelBear VPN-টি AES 256-bit encryption ব্যবহার করে যা আপনার কোন লগ ডিটেল রাখে না এবং আপনি ইন্টারনেটে থাকতে পারবেন anonymous ভাবে। TunnelBear দেশভিত্তিক ব্লক করা ওয়েবসাইট কোন ঝামেলা ছাড়াই আন-ব্লক করতে পারে তবে এটি দিয়ে নেটফ্লিক্স বা অন্য স্ট্রিমিং সাইট গুলো ব্যবহার করা যায় না।

TunnelBear এর ফ্রি একাউন্ট আপনাকে প্রতি মাসে ৫০০ এম্বি পর্যন্ত ইন্টারনেট ব্যবহারে সুযোগ করে দেবে এবং টুইট করে অতিরিক্ত ১ জিবি নিতে পারবেন। TunnelBear অনলাইনে মোটামুটি স্ট্রিমিং করার জন্য ভাল হলেও বড় কোন ফাইল আদানপ্রদানের জন্য উপযুক্ত নয়।

চলুন দেখে নেয়া যাক TunnelBear এর ফিচার গুলো

  • প্রতিমাসে ৫০০ এম্বি ফ্রি ডাটা ব্যবহারের সুযোগ
  • ২২+ দেশের সার্ভার
  • No-Log Policy
  • Youtube, Spotify প্ল্যাটফর্মে কাজ করে
  • Chrome, Firefox, and Opera Windows, macOS, iOS, Android, অপারেটিং সিস্টেমে সাপোর্ট করে

৭. OperaVpn

Opera ব্রাউজার তাদের ব্রাউজিং সার্ভিস এর সাথে নিয়ে এসেছে বিল্ড-ইন VPN সার্ভিস যা আপনাকে ইন্টারনেটে নিরাপদ রাখতে পারে। ব্রাউজার থেকে VPN সার্ভিস এনে-বল করেই এটি ব্যবহার করতে পারেন। OperaVPN আসলে এক্সটেনশন এর মাধ্যমে কাজ করে। এটি একটি ব্রাউজিং এক্সটেনশন হওয়াতে এটি আপনার ট্রাফিককে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না তাই এই VPN আপনার ইমেইল বা ব্যাংক একাউন্ট ব্যবহারে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিতে পারবে না।

OperaVPN

অফিশিয়াল ওয়েবসাইট @ OperaVPN

OperaVPN সার্ভিসে আপনি পাবেন বিল্ড-ইন এড ব্লকার এবং ম্যালওয়্যার ব্লকার। আপনি Opera ব্রাউজারে VPN এনে-বল করে সহজেই ইন্টারনেটে Anonymous হতে পারবেন যা পাবলিক ওয়াই-ফাই নিরাপদে ব্যবহারের ক্ষেত্রেও কার্যকরী।  এই এক্সটেনশন VPN দিয়ে আপনি Americas, Europe, Asia এই তিনটি ভার্চুয়াল লোকেশন পাবেন।

আপনি যেহেতু OperaVPN দিয়ে নির্দিষ্ট সার্ভার সিলেক্ট করতে পারবেন না তাই এটি স্ট্রিমিং এর জন্য ভাল হবে না।  আমি নিজেও এখানে Netflix US, BBC iPlayer, চালাতে পারি নি। এই ব্রাউজারটি মোটামুটি সকল প্ল্যাটফর্মের জন্যই পেয়ে যাবেন।

ADs by Techtunes ADs

চলুন দেখে নেয়া যাক OperaVPN এর ফিচার গুলো

  • আন-লিমিটেড ডাটা ও ব্যান্ডউইথ
  • বিল্ড-ইন এড ব্লকার এবং ম্যালওয়্যার ব্লকার
  • কোন ধরনের রেজিস্ট্রেশন এর দরকার নেই
  • Windows, macOS, iOS, Android, Linux অপারেটিং সিস্টেমে সাপোর্ট করে।

৮. Speedify

নাম দেখেই হয়তো আন্দাজ করতে পেরেছেন এটি আপনাকে দ্রুতগতিতে ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগ করে দেবে। আপনার ধারনা ঠিক, এই Speedify VPN, Channel Bonding টেকনোলজির মাধ্যমে একই সাথে দুইটি ইন্টারনেট কানেকশনে আপনার ট্রাফিক আদান প্রদান করবে যাতে স্বাভাবিক ভাবেই স্পীড বেড়ে যাবে কয়েক গুন৷ এটি আপনার ওয়াই-ফাই বা ডাটা কানেকশন উভয় মাধ্যমেই ইন্টারনেট গতি বাড়াতে সক্ষম।

Speedify

অফিশিয়াল ওয়েবসাইট @ Speedify

আমার DNS লিক পরীক্ষায় ভাল ভাবেই উত্তীর্ণ হয়েছে এই Speedify VPN। তারমানে এটি আপনার আইপিকেও নিরাপদ এবং প্রাইভেট রাখতে সক্ষম। এর ChaCha এনক্রিপশন, No-Log Policy এর মাধ্যমে এটি আপনাকে অনলাইনে সম্পূর্ণ Anonymous থাকতে সাহায্য করবে। দেশভিত্তিক ব্লক কন্টেন্ট গুলোও এক্সেস করতে পারবেন এই VPN দিয়ে।

Speedify এর সার্ভার আপনার টরেন্টিং এবং অন্য P2P সার্ভিস গুলোকে আরও আপটি-মাইজ করবে। প্রতিমাসে এটি আপনাকে ২ জিবি ফ্রি ডাটা দিবে যাতে করে ফেসবুক, ইমেইল সহ বিভিন্ন ব্লক সার্ভিস ব্যবহার করতে পারবেন তবে সেটা অবশ্য স্ট্রিমিং এবং টরেন্টিং এর জন্য যথেষ্ট নয়।

অন্য ফ্রি VPN গুলোর মতও আপনাকে উৎসাহিত করবে প্রিমিয়াম প্যাকেজ ব্যবহারে জন্য তবে তারা আশ্বস্ত করেছে তাদের ফ্রি ভার্সনটি ও থাকবে সম্পূর্ণ এড ফ্রি। এতে সহজেই বুঝা যায় এটি আপনার কোন তথ্য ব্যবহার করবে না এবং থার্ড-পার্টি কারও কাছে বিক্রিও করবে না।

চলুন দেখে নেয়া যাক Speedify  এর ফিচার গুলো

  • প্রতিমাসে ২ জিবি ডাটা
  • বিশ্বজুড়ে ৫০ টি লোকেশনের ২০০+ সার্ভার
  • Channel Bonding টেকনোলজির মাধ্যমে নিরাপদ এবং বিশ্বস্ত ইন্টারনেট কানেকশন
  • Cha Cha এনক্রিপশন
  • Windows, macOS, iOS, Android, Linux অপারেটিং সিস্টেমে সাপোর্ট করে

৯. Betternet VPN

ADs by Techtunes ADs

আরেকটি দারুণ ফ্রি VPN সার্ভিস হচ্ছে Betternet VPN। যা প্রতিদিন আপনাকে দেবে ৫০০ এম্বি ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগ।  এটি শুধু মাত্র US সার্ভার প্রদান করে যার মানে আপনি যেকোনো দেশের ব্লকিং কন্টেন্ট এক্সেস করতে পারবেন না। তবে Betternet আপনাকে বাদ বাকি নিরাপত্তা দিতে চমৎকার ভাবে কাজ করে।

Betternet VPN

অফিশিয়াল ওয়েবসাইট @ Betternet VPN

Betternet VPN, Robust Encryption টেকনোলজির মাধ্যমে আপনাকে দ্রুত এবং নিরাপদ ইন্টারনেট অভিজ্ঞতা দিতে সক্ষম। কিছু ক্ষেত্রে এটি আপনার ট্রাফিককে প্রটেক্ট না করতে পারলেও এর মাধ্যমে ইন্টারনেটে আপনি সহজেই Annymous থাকতে পারবেন এবং যেকোনো পাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহারেও নিরাপত্তা পাবেন।

এখানে আপনার কিছু বিষয় জেনে নেয়া দরকার, Betternet VPN অন্য যেকোনো VPN থেকে অধিক ইউজার ডাটা কালেক্ট করে এবং অনেক এড শো করায়, ফলশ্রুতিতে তারা আপনার ডাটা অন্য থার্ড-পার্টির কাছেও বিক্রি করে দিতে পারে।

চলুন দেখে নেয়া যাক Betternet VPN এর ফিচার গুলো

  • প্রতিদিন ৫০০ এম্বি ডাটা ব্যবহারের সুযোগ
  • আলাদা রেজিস্ট্রেশন এর দরকার নেই
  • Robust encryption এবং Malware Protection
  • Windows, macOS, iOS, Android, অপারেটিং সিস্টেমে সাপোর্ট করে

১০. VPNBook

সর্বশেষ আপনাদের সাথে পরিচয় করিয়ে দেব VPNBook এর সাথে যা আপনাকে অফার করে, আন-লিমিটেড ডাটা, AES এনক্রিপশন, PPTP কানেকশন, এবং OpenVPN ব্যবহারের সুযোগ। আপনি VPN ব্যবহার করে নিশ্চিন্তে যেকোনো জায়গা থেকে ইন্টারনেট ব্রাউজ করতে পারবেন কেউ আপনার কোন Activity ফলো করতে পারবে না। VPNBook এর মাধ্যমে আপনি UK, Canada, France, Germany, এবং  Poland এর সার্ভার ব্যবহার করতে পারবেন। VPNBook নেটফ্লিক্স বা Hulu আন-ব্লক করার দাবী জানালেও আমি টেস্ট করার সময় কোনটিতেও ঢুকতে পারি নি।

VPNBook

অফিশিয়াল ওয়েবসাইট @ VPNBook

ADs by Techtunes ADs

VPNBook কোন এক্টিভিটি লগ কালেক্ট করে না তবে প্রতি-সপ্তাহের জন্য তারা আপনার কানেকশন লগ সেভ রাখতে পারে৷ এই লিস্টের অন্য VPN গুলোর মত VPNBook কোন app প্রোভাইড করে না  এটি ম্যানুয়ালি কনফিগারেশন করে ব্যবহার করতে হয়। তবে এর ম্যানুয়ালি কনফিগারেশন করা কঠিন কিছু না।

VPNBook এর মাধ্যমে আপনি টরেন্টিং করতে পারবেন এবং সেন্সরশিপ বাইপাস করতে পারবেন। এটি এড এর মাধ্যমে ইনকাম করে সুতরাং তাদের সার্ভিস ব্যবহারের জন্য আপনাকে কিছু এড দেখতেই হবে।

এই রিসার্চ এর Methodology

যেহেতু আমি একটি রিসার্চ করেছি সুতরাং  চলুন এর পদ্ধতি গুলো দেখে নিই, আমার এই রিসার্চে প্রতিটি VPN এর পেছনে সময় লেগেছে প্রায় ১ মাস। প্রতিটি VPN বিভিন্ন এনালাইসিস টুল দিয়ে টেস্ট করা, নিজে ব্যক্তিগত ভাবে ব্যবহার করা, একই সাথে ১০ টি দেশে ব্যবহারের অভিজ্ঞতার আলোকে উপরের তথ্য গুলো দেওয়া হয়েছে। বলে রাখা ভাল ১০ টি দেশের ভেতরে চীন এবং রাশিয়ার মত নেটওয়ার্ক মনিটরিং দেশ গুলোও আছে।

এই টিউনে VPN গুলোর লিস্টিং করা হয়েছে সিকিউরিটি, স্পীড, ডাটা লিমিট, এবং বিশ্বাসযোগ্যতার উপর ভিত্তি করে একই সাথে স্ট্রিমিং সাপোর্ট, টরেন্টিং, লগইন পলিসি, সার্ভার পর্যাপ্ততা, ম্যালওয়্যার ব্লকিং ইত্যাদি ফিচারকেও গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।

 

  1. আমি প্রতিটি VPN এর সিকিউরিটি সিস্টেম খুব ভালভাবে পরীক্ষা করেছি এবং দেখেছি সেখানে কোন দুর্বলতা আছে কিনা, তাদের logging Policy গুলোও ভালভাবে পড়েছি, জেনেছি তারা ইউজারের কি কি তথ্য কালেক্ট করে বা স্টোর করে এবং কিভাবে ব্যবহার করে। আপনাকে মনে রাখতে হবে যারা No-Log Policy দেয় তারা বাদে বাকিরা আপনার তথ্য অন্য কোথাও বিক্রি করতে পারে।
  2. আমি ইন্টারনেট স্পীড চেক করেছি speedtest.net দিয়ে এবং VPN কানেক্ট করার আগের ও পরের স্পীড গুলোও কম্পেয়ার করেছি। সুতরাং সেই অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি কিছু VPN আপনার ইন্টারনেট স্পীডকে কিছু মাত্রায় কমিয়ে দিতে পারে। এতে করে স্ট্রিমিং সার্ভিস গুলো ব্যবহারে আপনি  মোটামুটি বেগ পেতে পারেন। স্বাভাবিক স্পীড পেতে হলে আপনাকে প্রিমিয়াম প্যাকেজ ব্যবহার করতেই হবে এবং সেটা ভাল VPN হতে হবে।
  3. আমি VPN গুলো, তাদের দেয়া ফ্রি ডাটা এবং অন্য সার্ভিস গুলোর উপর ভিত্তি করে এবং সমন্বয় করে লিস্টিং করেছি। যেমন কোন VPN শুধু মাত্র আন-লিমিটেড ডাটা দিলে অন্যদিকে স্পীড কম থাকলে তাকে প্রথমে দেই নি।
  4. VPN ব্যবহারের অভিজ্ঞতা ডিপেন্ড করবে আপনি কোন সার্ভার ব্যবহার করছেন। যে VPN অধিক সার্ভার প্রোভাইড করে সেগুলো মোটামুটি বেশি বিশ্বস্ত। কম সার্ভারের VPN অধিক ইউজার ব্যবহারের ফলে তার নিরাপত্তা ব্যবস্থা হ্রাস পেতে পারে। আমি প্রতিটি VPN এর কয়েকটি সার্ভার ব্যবহার করে দেখেছি যাতে করে আপনাদের সঠিক তথ্য গুলো দেয়া যায়। এবং সে অনুযায়ী VPN গুলো ১ম, ২য় সিরিয়াল আকারে সাজিয়েছি।

ফ্রি VPN এর কিছু জরুরী তথ্যঃ

টিউনের এই পর্যায়ে আমি ফ্রি VPN  নিয়ে কিছু দরকারি তথ্য দিব যেগুলো সবারই জানা দরকার। আমাদের সবার মনে প্রায়ই কিছু প্রশ্ন আসে যেমন, VPN কিভাবে আয় করে? VPN ব্যবহার করা কি সেইফ? VPN ব্যবহার কি লিগ্যাল?  চলুন কমন প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেয়া যাক।

ফ্রি VPN গুলো কিভাবে আয় করে

আপনাকে সব সময় মনে রাখতে হবে এই টেকনোলজি আর ব্যবসায়িক বিশ্বে কোন কিছুই কেউ আপনাকে ফ্রিতে দেয় না। টাকা না দিতে হলেও হয়তো কিছু না কিছু আপনাকে দিতেই হবে। বেশিরভাগ ফ্রি VPN আপনাকে এড দেখানোর মাধ্যমে আয় করে, কিছু কিছু ক্ষেত্রে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য স্টোর করা হয় এবং থার্ড-পার্টির কাছে বিক্রি করা হয়। আবার কিছু কিছু VPN স্লো স্পীড দিয়ে আপনাকে প্রিমিয়াম প্যাকেজ নিতে বাধ্য করায়।

ADs by Techtunes ADs

ফ্রি VPN গুলো সেইফ বা নিরাপদ?

এই টিউনে উল্লেখিত VPN গুলো ব্যবহার সম্পূর্ণ নিরাপদ এবং VPN গুলোও বিশ্বস্ত, এবং এটা নিশ্চিত হতে  অনেক পরীক্ষা নিরীক্ষাও করেছি। কিন্তু আপনাকে মনে রাখতে হবে অন্য যেকোনো ফ্রি VPN আপনার জন্য নিরাপদ নয়। ফ্রি VPN এর মাধ্যমে আপনার প্রাইভেসি ইন্টারনেটে লিক হতে পারে, আপনার পিসিতে ভাইরাস বা ম্যালওয়্যার প্রবেশ করতে পারে এবং তারা আপনার ডাটা চুরি করে থার্ড-পার্টির কাছে বিক্রিও করে দিতে পারে।

VPN কি লিগ্যাল

নেটওয়ার্ক মনিটরিং দেশ চীন এবং রাশিয়া ছাড়া বাকি সব দেশেই VPN ব্যবহার করা লিগ্যাল। তবে মনে রাখতে হবে যেকোনো দেশেই VPN ব্যবহার করে, হ্যাকিং, টরেন্টিং, পাইরেসি করা ই-লিগ্যাল। এসব কর্মকাণ্ডের জন্য আপনাকে জেলে পর্যন্ত যেতে হতে পারে।

শেষ কথা:

আমি, আমার রিসার্চের মাধ্যমে ১০ টি VPN সম্পর্কে আলোচনা করলাম, আমার লক্ষ্যই ছিল কোন VPN ফ্রিতে সর্বোচ্চ সেবাটি দিচ্ছে তবে মনে রাখবেন ফ্রি VPN থেকে যেকোনো কম দামী প্রিমিয়াম VPN সব দিক থেকেই ভাল, সেটা হোক নিরাপত্তা, স্ট্রিমিং, টরেন্টিং এবং স্পীডের ক্ষেত্রে। প্রিমিয়াম VPN আপনাকে দেবে আন-লিমিটেড ব্যান্ডউইথ এবং সার্ভার যাতে আপনি পাবেন VPN ব্যবহারে সর্বোচ্চ অভিজ্ঞতা। তাছাড়া অধিকাংশ VPN আপনাকে ট্রায়েল পিরিয়ড এবং মানি ব্যাক গ্যারান্টি দিচ্ছে যাতে করে নিজেই ডিসিশন নিতে পারবেন। আমি মনে করি যাদের ক্রেডিট কার্ড আছে এবং VPN ব্যবহার মোটামুটি জরুরী, তারা কম দামে ভাল কোন VPN ব্যবহার করতে পারেন। তাছাড়া আপনি যদি অনলাইনে কোন Survey  রিলেটেড কাজ করে থাকেন তাহলে তো এ বিষয়ে নতুন করে কিছুই বলতে হবে না।

আমার কাছে কোন VPN বেস্ট? এমন প্রশ্ন করা হলে আমি বলব, NordVPN আমার কাছে চমৎকার মনে হয়েছে কারণ এর মাধ্যমে শত শত স্ট্রিমিং সার্ভিসে এক্সেস পাওয়া যায় এবং ৩০ দিনের মানি ব্যাক গ্যারান্টি তো আছেই।

কেমন হল আজকের টিউন তা অবশ্যই টিউমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন। আমাদের জানান আপনার কাছে কোন VPN সবচেয়ে বেশি কার্যকর মনের হয়।

পরবর্তী টিউন পর্যন্ত ভাল থাকুন। আমাদের সমসাময়িক যে সংকট চলছে এর থেকে রক্ষা পেতে সবাই সচেতন থাকবেন কারণ আপনার সচেতনতাই পারে আমাদের সবাইকে খারাপ অবস্থা থেকে বাঁচাতে। সবাই বাসায় থাকুন আর আল্লাহর উপর ভরসা রাখুন, আল্লাহ হা-ফেজ।

ADs by Techtunes ADs
Level 13

আমি সোহানুর রহমান। সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 6 বছর 12 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 468 টি টিউন ও 176 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 30 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

কখনো কখনো প্রজাপতির ডানা ঝাপটানোর মত ঘটনা পুরো পৃথিবী বদলে দিতে পারে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস