ছোটবেলার নিনজা কার্টুনের কথা মনে আছে? এবার তাদের সাথে খেলা করুন!! +বোনাস- নোকিয়া PC Suite এর নতুন ভার্সন এখন শুধু আপনার ডাউনলোডের অপেক্ষায় এবং তৈরী করুন আপনার ডিজিটাল সিগনেচার!!

গগনে গরজে মেঘ, ঘন বরষা।
কূলে একা বসে আছি, নাহি ভরসা...।।

কিছুদিন হল যে হারে বৃস্টি-বাদলা শুরু হয়েছে, তাতে করে ঘরে বসে কবিগুরুকে স্মরণ করা অর্থাৎ তার কবিতা আওড়ানো ছাড়া হাতে আর কোন কাজ নেই। তবে একদিক থেকে ভালই হয়েছে- টিটির জন্য টিউন করা শুরু করে দিলাম। টিউনটি ৪/৫দিন আগে করা হলেও টিটির অসাধারণ(?) স্পীডের কারণে পাবলিশ করতে পারিনাই। জনি না এই অবস্থা কতদিন থাকবে??
যাই হোক, কাজের কথায় আসি-
আজ আমি ৩টি বিষয় নিয়ে টিউন করব। একটি হল- অসাধারণ এক গেম- "Teenage Mutant Ninja Turtles" নিয়ে এবং আরেকটি হল- নোকিয়া পিসি সুইটের নতুন ভার্সন নিয়ে। আর সব শেষটি হল- ওয়েব সিগনেচার করার জটিল একটি সফটওয়্যার নিয়ে।
আশা করি আপনাদের ভাল লাগবে। তো আসুন শুরু করি
অসাধারণ এক গেম- "Teenage Mutant Ninja Turtles"-
একটা সময় ছিল- যখন 'বিটিভি'তে এই নিনজা কার্টুন দেখার জন্য ঘন্টার পর ঘন্টা বসে থাকতেও কস্ট হত না। কোথায় যে হারিয়ে গেল সেই দিনগুলি?
যাই হোক, আপনাদের কি মনে আছে- কচ্ছপ-আকৃতির কিছু নিঞ্জার কথা, যারা দুস্টের দমন করার জন্য তাদের জীবণ একরকম উৎসর্গই করে দিয়ে ছিল?? আমি আজ আপনাদের জন্য তাদের নিয়েই বানানো এক অসাধারণ গেম নিয়ে এসেছি। এরই মধে্য গেমটি যদি আপনি খেলে থাকেন, তাহলে বলার কিছু নেই। তবে যদি না খেলে থাকেন, তাহলে বলব- আপনার জীবণের সবচাইতে ভাল গেমের একটা মিস করেছেন।
গেমটির জোসস সাউন্ড ইফেক্ট আসলেই মন কারার মত। তবে গেমটির সবচেয়ে বড় চমক হল- এর হিরোদের ফাইটিং। চারজন নিবেদিতপ্রান নিঞ্জা ভিন্ন ভিন্ন অস্ত্র নিয়ে আবারো দুস্টের দমনে নেমে পড়েছে। গেমটিতে একশন কী অর্থাৎ ফাইটিং কী মোট চারটি, যা দিয়ে আপনি আপনার প্রতিপক্ষ ভিলেনদের একের পর এক নন-স্টপ হিট করে যেতে পারবেন। আপনি আপনার ইচ্ছামত কী পরিবর্তন করে নিতে পারবেন।
গেমটিতে এতই জীবন্তভাবে, দ্রুত ও একের পর এক ফাইট/হিট করা যায় যে, আপনার মনে হবে যে আপনি নিযেই বোধহয় ফাইট করছেন!!
আরো মজার ব্যপার হল- গেমটি পুড়ানো কনফিগারেশনের পিসিতে খুব ভালভাবেই চলবে। আমার নিজের সেলেরন ১.৮ প্রোসেসরে এটি রীতিমত দৌড়াচ্ছে। তবে আমার মত আপনার যদি পুরানো কনফিগারেশনের পিসি হয়ে থাকে, তাহলে গেমটি চালু করার পর মেইন মেনুর অপশন থেকে ডিসপ্লে অপশনে যান, সেখান থেকে Toon Shade অপশন টি অফ করে দিন। তা না হলে গেমটির গ্রাফিক্স খাপছাড়া দেখাতে পারে।
আর সবচেয়ে বড় সুখবর হল- জোসস এই গেমটি হাইলি কম্প্রেস করে মাত্র ১০০মেগাবাইটের মধে্য নিয়ে আসা হয়েছে, তাও আবার মিডিয়াফায়ারের ডাউনলোড কিঙ্ক!!
তাহলে আর দেরি না করে গেমটি নিচের লিঙ্ক থেকে ডাউনলোড করে নিন।
পার্ট-১- ১০০ মেগাবাইট
পার্ট-২- ৩৯৫ কিলোবাইট
ডাউনলোড করতে নিচের ছবিতে দেখানো ''স্কীপ অ্যাড" বাটনে ক্লিক করুন। তাহলে তাহলে সরাসরি ডাউনলোড কিঙ্ক পেয়ে যাবেন।

তবে তার আগে নিচের স্ক্রীন-শটগুলো দেখে নিন-

যদিও স্ক্রীন-শট দিয়ে গেমটির ২০% গুরুত্তও বোঝানো সম্ভব না, তারপরেও সামান্য চেস্টা।

লুফে নিন নোকিয়া পিসি সুইটের নতুন ভার্সনঃ-

অনেক তো গেম খেললাম। এবার একটু সিরিয়াস হই, কী বলেন??
যারা নোকিয়া হ্যান্ডসেট ব্যবহার করে, এবং আমার মত সেই সেটকে মডেম হিসাবে ব্যবহার করে, তাদের সবার পিসিতেই নোকিয়া পিসি সুইট ইন্সটল দেয়া থাকে। শুধু ইন্টারনেট কানেকশন দেয়াই নয়, আপনার সেটটিকে পিসির সাথে প্রথমবারের মত পরিচয় করিয়ে দেয়া, ফাইল ট্রান্সফার, মোবাইলের সফটওয়্যার আপডেট করা, মোবাইলের ব্যাক-আপ রাখা থেকে শুরু করে সবকাজেই আপনার পিসি সুইট লাগবে।
এর কথা নুতুন করে আর কিছু বলার নেই। সবাই জানে। তাই আর কথা বাড়ালাম না।
অসীম গুরুত্তপুর্ন এই সফটওয়্যারটির নতুন Version- 7.1.51.0 রিলিজ হয়েছে। যেখান থেকে আপনি ওভি মিউজিক ডাউনলোড করতে পারবেন। এছাড়া ক্যালেন্ডার সহ বেশ কিছু নতুন ফিচার যোগ করা হয়েছে। আরও ভালভাবে বোঝানোর জন্য স্ক্রীন-শট দিয়ে দিলাম-

ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন এবং আগের নিয়মে অর্থাৎ স্কীপ অ্যাডে ক্লিক করুন। এবার সাইটটির একদম নিচে চলে যান এবং নিচের ছবিতে দেখানো বাটনে ক্লিক করুন।

আসুন সিগনেচার করে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিইঃ-

আপনি হয়ত লক্ষ্য করে থাকবেন, অনেক ব্লগার তাদের কমেন্টে বা টিউন শেষে বেশ রঙ্গীন/ চোখধাদানো সিগনেচার করে থাকে। এতে যেমন কমেন্ট বা টিউনের মান বৃদ্ধি পায়, অন্যদিকে টিউনার বা কমেন্টারের কমেন্ট সবার দৃস্টি আকর্ষন করে এবং তার সৃজনশীলতাও সবার কাছে পরিচিতি পায়।
ব্লগের কথা না হয় বাদ-ই দিলাম। আপনি অনেক ওয়েবসাইট থেকে বিজ্ঞাপনের মেইল বা স্পাম মেইল তো নিশ্চই মাঝে মাঝেই রিসিভ করেন? হয়ত খেয়াল করেছেন যে তারা তাদের মেইলে বাহারী সব সিগনেচার ব্যবহার করে। এতে তাদের মেইলের মান কিছুটা হলেও বেড়ে যায়।
ঠিক তাদের মত করেই আপনি এখন সিগনেচার করতে পারবেন। শুধু আমার দেয়া মাত্র ৭০০কিলোবাইটের এই ছোট্ট সফটওয়্যার টি ইন্সটল করে নিন। এটি দিয়ে আপনি আপনার নাম, ঠিকানা, মোবাইল নাম্বার, ইমেইল সহ হাজারটা ইনফরমেশন দিয়ে HTML ও প্লেইন টেক্সট সিগনেচার বানাতে পারবেন।
সিগনেচার বানাতে প্রথমে সফটওয়্যার টির ফরম পূরণ করুন। যে যে অপশন আপনার দরকার, শুধু সেগুলোই পূরণ করুন। বাদবাকি অপশনগুলো থেকে টিক চিন্হ তুলে দিন। এবার আপনার পছন্দমত ফন্ট, ফন্ট-কালার, ফন্ট-সাইজ ইত্যাদি সিলেক্ট করুন এবং Create HTML Signature বাটনে ক্লিক করুন। ব্যস, তৈরী হয়ে গেল আপনার ব্রান্ডনিউ সিগনেচার। এবার HTML কোডটুকু কপি করে আপনার ব্লগে বা ইমেইলে সিগনেচার হিসাবে ব্যবহার করুন।
আপনার যদি জিমেইলে Account থাকে, তাহলে একটি দুঃসংবাদ- জিমেইল Default ভাবে HTML সিগনেচার সাপোর্ট করে না। সেক্ষেত্রে এই সফটওয়্যার টির 'Plain Text' সিগ্নেচার টি ব্যবহার করতে পারেন। জিমেইলের Account Settings থেকে সিগনেচার অ্যাড করার অপশন পাবেন। একবার সিগনেচার Active করলে পরবর্তী সকল আউটগোইং মেইলে আপনার সিগনেচার অটোমেটিকেলি অ্যাড হয়ে যাবে। একই ভাবে MSN/ Hotmail এ সিগনেচার অ্যাড করতে পারবেন। MSN এর ক্ষেত্রে HTML সিগনেচার ব্যবহার করতে পারবেন।
আর আপনার যদি এত ঝামেলা ভাল না লাগে, তাহলে এখানে, এই টেকটিউন্সেই ব্যবহার করুন না কেন??
যারা HTML এর কাজ জানে, তারা নিজেদের মত করে সিগনেচার বানিয়ে নেয়। তবে আমার মত যাদের HTML এর জ্ঞান শুন্যের কোঠায়, তাদের জন্য এটি একটি ফরজ় সফটওয়্যার। কি বলেন??
এর ইউজার ইন্টারফেস এত সুন্দর ও সহজ যে বর্ণনা দেয়ার দরকার নেই। শুধু নিচের স্ক্রীনশট টি দেখুন। আশা করি বুঝতে আর কোন সমস্যা থাকবে না।


সিগনেচার বানানোর পর প্রিভিউ তে ক্লিক করলে উপড়ের ছবির মত দেখাবে।
ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন এবং পূর্বের নিয়ম অনুসরণ করুন।

পরিশিষ্টঃ-

টিটির নামিদামী টিউনার, অর্থাৎ- হাসান যোবায়ের ভাই, দিহান ভাই, লাকি ভাই এদের বেশ কিছুদিন হল দেখা নেই। আর শাকিল ভাই, টিনটিন ভাই- এরা তো মনেহয় টিটি থেকে অঘোষিত অবসর নিয়ে ফেলেছেন। তাই যাদের দেখে টিউন করা শিখেছি, তাদের অবস্থা বেগতিক দেখে নিজেই টিউন করতে বসে গেলাম। তা না হলে হয়ত আমকেও সেই কথা বলতে হবে, যে কথা সামুর এক বড়ভাই তার পোস্টে মজা করে বলেছিলেন- ২০৪০ সালে গিয়ে পিসির সামনে বসে বলতে হবে- ৩৩ বছর কেটে গেল- তবু কেউ টিউন করে নি।
জানি না আমার টিউন টি আপনাদের কাছে কেমন লাগল। ভাল-খারাপ যাই লাগুক, কমেন্ট করতে ভুলবেন না।

সবশেষে একটু ব্যক্তিগত কথা বলে শেষ করছি। আমাদের বাসায় আজ আমার সবচেয়ে......পছন্দের... কাজিন এসেছে। অনেকদিন পরে দেখা......তাকে নতুন করে দেখে কবিগুরুর সেই পুরানো অথচ চিরসবুজ লাইনদুটি আবার মনে পরে গেল-

মুখের পানে চাহিনু অনিমেষে, বাজিল বুকে সুখের মত ব্যথা............।
আমার জন্য একটু দোয়া করবেন......।।

Level 2

আমি Himaloyee। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 10 বছর 10 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 31 টি টিউন ও 631 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

মুখের পানে চাহিনু অনিমেষে, বাজিল বুকে সুখের মত ব্যথা............।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

ভালো। তবে “শাকিল ভাই, টিনটিন ভাই- এরা তো মনেহয় টিটি থেকে অঘোষিত অবসর নিয়ে ফেলেছেন” মনে হয় পুরো ঠিক। দেখা যায় না একটু ও তাদের।

ভাল হয়েছে………অনেক কাজের টিউন…….
আর আপনার কাজিন এবং আপনার জণ্য রইল শুভ কামনা…