ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

মজার হবি ইলেক্ট্রনিক্স [পর্ব-০২] :: রেজিস্টরের কালার কোড

মজার হবি ইলেক্ট্রনিক্স

আসসালামুআলাইকুম, সবাইকে আগাম Happy New Year 2012 এর শুভেচ্ছা। একটি কথা বলি আমরা যারা জব করি তাদের টিউন লেখার মত সময় হয়ে উঠে না। তাই একটি টিউন করার পর পরবর্তী টিউন করতে সময় লেগে যায় অনেক তাই আপনাদের কাছে আন্তরিক ভাবে ক্ষমা চেয়ে চাইছি। যাই হোক এবার শুরু করি---

ADs by Techtunes ADs

আজ তুলে ধরব “মজার হবি ইলেক্ট্রনিক্স” এর ২য় পর্ব যার টাইটেল হবে “রেজিস্টরের কালার কোড ”। এতে আমরা  রেজিস্টরের কালার কোডের মাধ্যমে কিভাবে রেজিস্টরের মান বের করা যায় তা নিয়ে আলোচনা করব।

রেজিস্টরের কালার কোড

এখানে একটি 1k (1000 Ω) রেজিস্টর আছে। চিত্রে লক্ষ করুন রেজিস্টরে মোট ৪টি ব্যান্ড দেখানো হয়েছে (প্রতিটি কালারকে এক একটি ব্যান্ড বলা হয়)।


এখন খেয়াল করুন উপরে কালার কোডের চার্ট দেয়া আছে। তাতে ১ম ও ২য় ব্যান্ড কে পাশাপাশি রেখে ৩য় ব্যান্ড (এটা ৪ ব্যান্ড এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য) অথবা ৪ নম্বর ব্যান্ড (এটা ৫ ব্যান্ড এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য) এর সাথে গুন করতে হবে অর্থাৎ চার্টে  Multiplier খেয়াল করুন ১ম হতে ২য়  অথবা ৩য় ব্যান্ড পর্যন্ত পরিষ্কার ভাবেই বুঝতে পারছেন কারন প্রতিটি ব্যান্ডের পাশেই কালার-এর জন্য নির্দিষ্ট মান দেয়া রয়েছে। Multiplier ব্যান্ডটি যা হবে তা দিয়ে গুন করে নিতে হবে।

অর্থাৎ উদাহরণ সরূপ চিত্রে চার্টের উপরের 4 band রেজিস্টর খেয়াল করুন এখানে ৪টি ব্যান্ড বা কালার দেয়া আছে । তাতে ১মে আছে Green = 5, ২য় তে আছে  Blue = 6 এবং Multiplier আছে Yellow = 10k/10000 Ω অতএব রেজিস্টর এর মান দাড়ায় 560kΩ

আবার চিত্রে চার্টের নিচের 5 band রেজিস্টর খেয়াল করুন এখানে ৫টি ব্যান্ড বা কালার দেয়া আছে । তাতে ১মে আছে Red = 2, ২য় তে আছে  Orange = 3 , ৩য় তে আছে Violet = 7 এবং Multiplier আছে Black = 1 Ω অতএব রেজিস্টর এর মান দাড়ায় 237Ω । সুতরাং ভয় পাওয়ার কোন কারণ নাই এখন যদি 5/4  Band  যাই থাকুক না কেন কালার কোড কোন ব্যাপার না।

এখন লক্ষ করুন ৪(চার) [এটা ৪ ব্যান্ড এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য] অথবা ৫(পাচ) [এটা ৫ ব্যান্ড এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য] নম্বর ব্যান্ডটি ব্যবহার করা হয় টলারেন্স নির্ণয়ের জন্য।  আপনাদের এবার মনে প্রশ্ন  জাগতে পারে টলারেন্স কি এটা খায় না মাথায় দেয়। তাহলে এবার আমরা জানি টলারেন্স কি?

টলারেন্স কিঃ-

রেজিস্টর প্রস্তুতকারক যখন রেজিস্টর তৈরী করে থাকে,তখন তারা রেজিস্টরের সঠিক ভ্যালু বজায় রাখতে পারে না। এগুলোর মান সবসময় কিছু কম বেশি হয়ে থাকে। তাই একে অনেক সময় +/- ভ্যালুও বলা হয়। ভ্যালুর এই কম বেশি হওয়ায়ই টলারেন্স। কোন সার্কিট ডিজাইন করার সময় টলারেন্সের ব্যাপারটা মাথায় রেখে সার্কিট ডিজাইন করা হয়। আপনি রেজিস্টর এর যত মান পাবেন তার সাথে টলারেন্স যা থাকে সেটা 5% or 10% থাকুক তা +/- করে নিয়ে মান ধরবেন।

রেজিস্টর কালার কোড ক্যালকুলেটর

রেজিস্টর কালার কোড দেখে যাদের রেজিস্টরের মান বের করতে অসুবিধা হয় তারা রেজিস্টর ক্যালকুলেটর ব্যবহার করতে পারেন। এটা দেখতে  নিচের চিত্রটা দেখুন-

ADs by Techtunes ADs

এটি ব্যবহার করা খুব সহজ Windows 95/98/2000/XP/2007/2008 উভয় অপারেটিং সিস্টেমে এটি কাজ করে। ১মে লক্ষ করুন নিচে মোট ৪টি ড্রপ ডাউন মেনু রয়েছে, বা দিক থেকে ১মটি রেজিস্টরের ১ম কালার ব্যান্ড, এরপর ২য় তারপর ৩য় এবং সর্বশেষ কালার  ব্যান্ডটি হলো রেজিস্টরের টলারেন্স। রেজিস্টরের ৪ নম্বর কালার ব্যান্ডটি সাধারণত ৩টি রং এর হয়ে থাকে (Gold, Silver, Brown) এবং মেনু থেকে কালার পরিবর্তন করা হলে এর উপরের মেনুতে যে মান থাকে তার পরিবর্তন হবে। উপরে, মাঝখানে যে R Unit  রয়েছে, এটি রেজিস্টরের ইউনিট (ohms, kilo ohms, mega ohms)। উপরে সবচেয়ে বামপাশে যে ড্রপ ডাউন মেনু রয়েছে এর কাজ হলো রেজিস্ট্ররের কোন একটি ভ্যালু দেয়া। মনে করুন আপনার 100 ওমসের একটি রেজিস্ট্রর দরকার, কিন্তু আপনি জানেন না এই মানের জন্য রেজিস্ট্ররের কি কি কালার থাকবে। এক্ষেত্রে আপনি ড্রপ ডাউন মেনু থেকে 100 Select করে  Convert button কিল্ক করুন, দেখবেন নিচের ড্রপ ডাউন মেনু গুলোতে পর্যায়ক্রমে তিনটি কালার এর নাম সহ রং দেখাচ্ছে। E12/E24 হচ্ছে রেজিস্ট্রর সিরিজ, বেশীরভাগ ইলেক্ট্রনিক্স সার্কিটে এই সিরিজের রেজিস্ট্রর ব্যবহার করা হয়ে থাকে, সুতরাং এটা যেরকম আছে সেভাবেই থাকবে। রেজিস্ট্রর কালার বের করার জন্য এখন আর কোন ডিজিটাল অথবা এনালগ মাল্টিমিটার কিংবা কালার কোড মুখস্থ  করারও দরকার নেই। শুধু মাত্র রেজিস্ট্রর ক্যালকুলেটর সফটওয়্যার টি ডাউনলোড করে নিন যার ফাইল সাইজ মাত্র 209KB । আর একটি মজার ব্যাপার হলো এটি পোর্টেবল সফট ফলে ইন্সটল করার ঝামেলা মুক্ত। নীচে এর মিডিয়াফায়ার ডাউনলোড লিংক টি দিয়ে দিলাম।

এখানে কিল্ক করুন

(চলবে......)

পরবর্তী টিউন হবে ক্যাপাসিটর নিয়ে ।

টিউনে কোন ভুল হলে জানাবেন এবং ক্ষমার চোখে দেখবেন।

বিঃদ্রঃ এই টিউনটি আমার লিখিত ইলেক্ট্রনিক্সে হাতে খড়ি  (শিগ্রি প্রকাশ হবে) নামক বই হতে সংকলিত।

কোন কিছু বুঝতে অসুবিধা হলে তা কমেন্টস অথবা বিডি-ইলেক্ট্রনিক্স গ্রুপ এ জানাবেন।

আমার জন্য দোয়া করবেন যাতে আপনাদের ভাল কিছু  উপহার দিতে পারি।

ধন্যবাদ ।আল্লাহ হাফেজ।

ADs by Techtunes ADs

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি মিথুন। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 6 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 10 টি টিউন ও 124 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level 0

সুন্দর একটি টিউন 🙂 দেখে ভালো লাগলো

    @swordfish: মাহাবূব ভাই আপনারে দেখতে কিন্তু যোশ লাগে।

    @swordfish: ধন্যবাদ মাহাবূব ভাই @swordfish: মাহাবূব ভাই আপনারে দেখতে কিন্তু যোশ লাগে।

    🙂 ধন্যবাদ

রেজিস্টরের দুই পাশ এক তাহলে কিভাবে আমি ১st colour band select করব

    @মিথুন: @সবুজ@সবুজ ভাই: টলারেন্স সাধারণত সনালি,রুপালি এবং কালার ছাড়া অর্থাৎ বডি কালার হ্য়।তাই এই কালার গুলো যে পাশে থাকবে তার ঠিক উল্টো পাশে ১ম ব্যান্ড হবে। ভাই:

টলারেন্স সাধারণত সনালি,রুপালি এবং কালার ছাড়া অর্থাৎ বডি কালার হ্য।তাই এই কালার গুলো যে পাশে থাকবে তার ঠিক উল্টো পাশে ১ম ব্যান্ড হবে।

thanks for reply

মিথুন ভাই কেমন আছেন । অফিসে তো কাজ থাকবেই, এতো কাজের মাঝও আমাদের জন্য সময় করায় ধন্যবাদ। সুন্দর টিউন হয়েছে। আগামীতে আরো ভালো টিউন প্রত্যাশা করছি। ধন্যবাদ

12 volt 45 ah একটি ব্যাটারি দিয়ে একটি এলইডি লাইট জালাতে কোন কত মানের Resistor লাগবে..হিসাব টি কেভাবে করে?
thanks for ur post…..

    @শামিম: সুত্র টা হল-
    R=V/I
    ভাই এই RESISTER গুলো বাজারে পাওয়া যাবে খুব কম
    আপনি 10 ওমস/7W-10W USE করতে পাড়েন

    কথায় ব্যবহার করবেন এবং সার্কিটের ডিজাইনের উপর তা নির্ভর করে কত মানের Resistor লাগবে

Level 0

ইলেক্ট্রনিক্স এ নবীনদের জন্য আপনার টিউন টি খুবই উপযোগী। রেজিস্টর কালার কোড ক্যালকুলেটর এর জন্য ধন্যবাদ।

    @SamuraixBD: ধন্যবাদ টিউনটি কষ্ট করে পড়ার জন্য

B B R O Y Good Boy Very Good White Girl

🙂

Level 0

মিথুন ভাই অনেক ধন্যবাদ আপনাকে।ভাই Surface Mount Molded (SMD) রেজিস্টর এর মান কেমনে বের করতে
হয় তা একটু বলবেন।আর শামিম ভাই যে বলছে 12 volt 45 ah একটি ব্যাটারি দিয়ে একটি এলইডি লাইট জালাতে কত মানের Resistor লাগবে..হিসাব টি কেভাবে করে? একটু বলবেন।।অনেক প্রশ্ন করলাম মাইন্ড কইরেন না।।
শুভ কামনা রইল আপনার জন্য…

    Surface Mount Device (SMD) হবে ভাই। হ্যা এগুলোর মান সংখ্যা কোডের মাধ্যমে লেখা থাকে। আমি এটা নিয়ে পড়ে টিউন করব ।ধন্যবাদ

    SMD এর ক্ষেত্রে কিছু আলাদা নম্বর থাকে দইয়া করে গুগুল করে জেনে নিবেন। ধন্যবাদ 🙂

চমৎকার টিউন। আপনার এই চেইন আরও এগিয়ে নিয়ে যান সেই শুভকামনা থাকল।
ধন্যবাদ। 🙂

খুবই তথ্যবহুল টিউন
সলডারিং আয়রন সম্বন্ধে একটা টিউন করবেন প্লিজ

Level 2

ধন্যবাদ…… কিভাবে cariable capacitor circuit এ যোগ করে তার একটা দুইটা ছবি দিবেন আপনার পোষ্টের সাথে?

নিপূ ভাই Variable Capacitor নিয়ে next টিউন এ আলোচনা করব। আশা করি ছবি থাকবে

Level 0

প্রিয় তে রাখলাম। ভবিষ্যতে কাজে লাগবে for sure. thanks a lot

    অসংখ্য ধন্যবাদ @tech_no ভাই 🙂

josss hoceeee………apne apner moto professional vabe agia jan. tune kora off korle kintu apner khoboree ase…:P:P:P

Level 0

মিথুন ভাই, এই তথ্যটি জানালে উপক্রিত হতাম ; 220 to 24 volt transformer এ ব্রিজ রেক্টিফায়ার ব্যবহার করে 24 Volt dc output পেতে চাইলে কি মানের ডায়ড ব্যবহার করতে হবে?

koto amp: drkar

SamuraixBD ভাই আপনি যেকোন ভাল রেক্টিফায়াই ডায়োড ব্যবহার করতে পারেন তবে যদি ২ অ্যাম্প এর বেশী আঊটপূট অ্যাম্প লাগে তাহলে যে অ্যাম্প ব্যবহার করবেন সেই অ্যাম্পের ডায়োড ব্যবহার করবেন। আপনি যদি ব্রিজ ব্যবহার করেন তাহলে আঊটপূটে ৩২-৩৫ ভোল্ট দেখাতে পারে ,আপনি এতে ঘাবড়াবেন না। এটা ব্রিজ এর ধর্ম। আপনি চাইলে রেগুলেটর আইসি 7824 ব্যবহার করতে পারেন কিন্তু এতে আঊটপূট কারেন্ট পাবেন ৭০০ মিলি অ্যাম্প। ধন্যবাদ

প্রিয় টিউনার,

আপনাকে এই চেইনটি চলমান করার জন্য অনুরোধ করা গেল। দয়া করে আপনার চেইন টিউনটি নতুন পর্ব যুক্ত করুন এবং নিয়মিত আপডেট করুন। ধন্যবাদ।