ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

প্রোজেক্ট বুক :১: স্বয়ংক্রিয় বাতি

সুপ্রিয় টেক টিউন বন্ধুরা । আজ অনেক দিন পর লিখতে বসলাম । আজকে আমি আপনাদের  একটি প্রজেক্ট নিয়ে কথা বলব । আমরা সবাই সন্ধ্যার সময় বাসার সব বাতি গুল জ্বালাই আর সকাল হতেই সব গুল বন্ধ করে দেই । কিন্তু যদি বাতিগুলো নিজে থেকেই বন্ধ হয়ে যায় তাহলে ত কথাই নেই। যাকে আমরা বলি Automatic system .আজকাল পুরো বিশ্বতে চলছে এই স্বয়ংক্রিয় প্রক্রিয়া । আজকে আমি আপনাদের যেটা নিয়ে লিখছি সেটা আমি ১ বসর আগে আমার বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি বিষয়ে ব্যাবহারিক ক্লাস এ প্রোজেক্ট হিসেবে করেছিলাম । কিন্তু নিচে যে ছবিটা দেয়া সেটা আমার প্রোজেক্ট এর নয় । সেটা ইন্টারনেট থেকে নেয়া । আমার প্রোজেক্ট এর কোন  ছবি আমার কাছে ছিল না । কিন্তু এই ছবিটা দেখে আপনারা বেশ ভালো ধারনা পাবেন । এটি একটি খুব ছোট কিন্তু খুব কাজের প্রোজেক্ট । আপনি আপনার বাসার  D.C কারেন্ট এ চলে এমন সব জিনিস এটা দিয়ে চালাতে পারবেন । আগামি টিউন এ আমি এটার নতুন ভার্সন যেটা A.C তে চলে সেটা দিব। যাই হক কাজের কথায় আসি ।  এটা একটি ছোট সার্কিট । যাতে আছে একটি LDR (Light Dependent Resistor) একটি Relay একটি  Op-Amp একটি Transistor  ৪ টিresistors আর আছে ৫ ভোল্ট এর একটি D.C source (Battery /Adapter/D.C source) । ছবিতে দেখানো মতে আপনি সার্কিটটি বসিয়ে ফেলুন । এ জন্য অবশ্য আপনাকে একটি verro বোর্ড কিনতে হতে পারে । এটার ঠিক উলটো পাশে যেখানে soldering  করা নেই সেখানে আপনি সার্কিট টি বসাবেন । আপনার এবার দরকার হবে একটি সেট যেখানে আপনি পাবেন এটা  জোড়া দেয়ার সব উপকরন । সেগুল হচ্ছে ।

ADs by Techtunes ADs

1 . SOLDERING IRON
2. SOLDERING PASTE
3.some connecting wire (if necessary)
4. D.C source  (5-9 volts)
5. resistors (given value )
6. potentiometer
তবে একটু সমস্যা হতে পারে resistor ,  potentiometer গুলর মান নিয়ে । আমি আগেই বলে রাখছি আমাদের দেশে আমরা যে সব জিনিস ব্যাবহার করি সব গুলতে কম বেশি ঝামেলা থাকে । দেখা যাচ্ছে আপনি  ব্যাবহার করলেন ১০০ কিলো ওহম এর । কিন্তু আপনাকে দিবে হয়ত ৮৮।৯০ কিলো । এগুল খুবই বিরক্তিকর ব্যাপার । একটু ধৈর্য ধরতে হবে ।

@@@@@@@@@@@@
কিভাবে কাজ করে ?
এখানে যে আছে সেটা হচ্ছে এক প্রকার resistor জার কাজ হচ্ছে আলো পরলে resistor রোদক আর অন্ধকার মানে আলো না পরলে conductor wire হিসেবে কাজ করে । Resistivitir কম বা বেশির উপর এটা নির্ভর করে । ঠিক এই ভাবে এটি  ভোল্ট দেয় । আপনি চাইলে Potentiometer দিয়ে কম বেশি করে নিতে পারেন । এর কারন আমি আগেই বলেছি । আর Relay হচ্ছে  Mechanical switch . আর তাই যখন দিনের আলো পরবে তখন সব বাতিগুলো বন্ধ থাকবে আর যখন সন্ধ্যার পর অন্ধকার পরবে তখন সব বাতি জ্বলে উথবে। আপনাকে কষ্ট করে সুইচ টিপতে হবে না।

কোথায় পাবেন ?

আজকাল অনেক অনলাইন শপ আছে যেখান থেকে আপনারা নিজেদের প্রয়োজন মত কিনতে পারেন । খরচ খুব বেশি না। যদি আপনার কিছুই না থাকে তাহ্লে ৪০০ টাকার মত খরচ পরবে । আর যদি শুধু সার্কিটটি কিনেন তাহলে ১৩০ থেকে ১৭০ টাকা ।
http://www.techshopbd.com

আমি আমার প্রয়োজনীয় সব এখান থেকে কিনি । আর আমাদের দেশীয় গর্ব পুরান ঢাকা ত আছেই । তবে কম জিনিস কিনার জন্য Stadium market যেতে পারেন ।
আজকের জন্য এত তুকুই । আগামিতে আরও ভালো কোন টিউন নিয়ে আসব। কোন সমস্যা হলে আমাকে মেইল করতে পারেন 
[email protected]

আমার ফেসবুক আইডি
[email protected]

ফেসবুকে আমার গ্রুপ 
We The Engineer's

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি মুন্না। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 10 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 19 টি টিউন ও 234 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

ACTUALLY , i am a introvert type boy . But i think it's the time to open before my friends.


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

সুন্দর পোস্ট। চালিয়ে যান পরবর্তী পোস্টের অপেক্ষায় রইলাম। ধন্যবাদ ……………..

Level 0

এই ধরনের সার্কিট আরো কত গুলা দেখেছি যে খানে ৫৫৫ আইসি ব্যাবহার করা হয়েছে। এমন কি কোন আইসি ছাড়া মডেলও দেখেছিলাম! কিন্তু এখানে নতুন একটা আইসি LM339 ব্যাবহার করেছেন। এটা ব্যাবহার করার আলাদা কোন সুবিধা আছে কি?