ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

যেভাবে পালটিয়ে ফেলবেন জীবনটাকে – একটি অনুপ্রেরণামূলক টিউন

বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম

ADs by Techtunes ADs

অনলাইনে সেলিব্রেটি হওয়ার সকলেরই শখ আছে। কিন্তু শুধু শখ থাকলেই তো আর হবে না। এর জন্য দরকার অনেক ধৈর্য,অনেক পরিশ্রম ইত্যাদি ইত্যাদি।সবাইতো চায় পত্রিকার পাতায় তাদের নাম লেখাতে। কিন্তু এটা তো আর ছেলের হাতের মোয়া নয় যে চাইলেন আর পত্রিকায় আপনার নাম উঠে গেলো। কিন্তু আপনিও পারেন পত্রিকার পাতায় আপনার নাম উঠাতে।  হ্যা,আপনার পক্ষেও সম্ভব অনলাইন সেলেব্রেটি হওয়া। আজ তা সম্পর্কে একটি উদাহরনসহ লিখতে চলেছি।

যেভাবে গড়বেন অনলাইন ক্যারিয়ারঃ

ধৈর্য,জ্ঞানলাভের বাসনা,আর কিছু ট্রিক এই গুনগুলো যদি আপনার মধ্যে থাকে তাহলে একদিন না একদিন আপনাকে কেউ না কেউ বস বলে ডাকবে,আপনার কাছে সাহায্য চাবে ইত্যাদি ইত্যাদি। আর সাহায্য করার আনন্দ যে কতটুকু সেটা আমি টেকটিনসে আসার পর বুঝেছি। আপনি যদি নিঃস্বার্থ ভাবে মানুষের উপকার করে যেতে চান তাহলেই আপনি অনলাইন সেলিব্রেটি হতে পারবেন। আসুন দেখি কিভাবে তা হওয়া যায়ঃ

খুজতে হবে একটা সহায়ক ওয়েবসাইটঃ

না,না একদমই নয় আপনাকে খুজতে হবে না। আপনি ঠিক জায়গায়ই দাঁড়িয়ে আছেন। টেকটিউনসই হলো এমন সহায়ক ওয়েবসাইট যেখানে আপনি শিখতে শিখতে শেখাতে পারবেন। আর এই ওয়েবসাইটে কিছু শিখতে হলে আপনার ধৈর্য থাকতে হবে।নিয়মিত সারাদেশের টিউনারদের সম্পর্কে আপনার অভিজ্ঞতা হবে। টিউনারদের মধ্যে সবাই অভিজ্ঞ। তারা তো আর একদিনে সব শিখতে পারেন নি। তাদের সম্পর্কে খোজ নিয়ে দেখবেন তাদেরকেও একদিন কপি-পেস্ট করা হাতেধরে শিখতে হয়েছে। তাদেরকেও পার হতে হয়েছে শত শত বাধা।টিউনারদের কাছ থেকে আইডিয়া নিন আর নিজের জীবনের সাথে মিলিয়ে দেখুন আর ঠিক করে নিন আপনাকে কি করতে হবে।

সাহায্য চাইইইইইইইইইইইঃ

আমার কাছেও অনেকেই প্রতিদিন ফেইসবুকে সাহায্য চায়। আমি তাদের বিমুখ করি না। আবার আমাদের ফেইসবুক গ্রুপেও(টেকটিউনস গ্রুপ) অনেক সাহায্য দেখা যায়। অধিকাংশই ডাউনলোড লিঙ্ক দরকার সম্পর্কে। যেমন ধরুন “ ফ্লাস প্লেয়ারের ডাউনলোড লিঙ্ক চাই" ..."আভাস্ট এর ডাউনলোড লিঙ্ক চাই"।

দেখুন ভাইজানরা এই সামান্য সফটওয়ারটি কি তাদের পক্ষে খুজে পাওয়া সম্ভব নয় ? নাকি যারা সাহায্য দেন তাদের জন্য ইন্টারনেটটাই ভিন্ন ? তারা কি নিজেরা সফটওয়ার বানায়া লিঙ্ক দেন?

এখন এই প্রশ্নগুলো বুঝতে পারবেন না।  একটা ছোট উদাহরণ দেই। ধরুন আপনার বাড়ি দিনাজপুর। এখন আপনি যদি ঢাকা যেতে চান  তাহলে আপনাকে নয় বাসে/নয় ট্রেনে/কিংবা প্লেনে যেতে হবে। ট্রেনে যেতে সময় লাগবে ৮ ঘন্টা আর প্লেনে যেতে সময় লাগবে ১ ঘন্টা। সময় যাই লাগুক আপনি ঢাকায় যেতে পারবেন।

এক্ষেত্রে এক্সপার্টদের সফটওয়ার খোজাটা হলো প্লেনের মত। আর সাধারনদের সফটওয়ার খোজাটা ট্রেনের মত। সময় বেশি লাগবে বলে আপনি  নিজের জিনিস নিজে খুজবেন না কেন ? এক্সপার্টরাও তো এভাবেই শিখেছেন।

নিজের বিবেককে প্রশ্ন করুন আর ভাবুন আপনি কি কি করতে পারেন আর কি কি করতে পারবেন। নিজের জিনিস নিজে বের করাটা খুবই আনন্দের।  আপনি নিজে স্যারের সাহায্য ছাড়া একটা অঙ্কের উত্তর মিলিয়ে দেখুন কতই না ভালো লাগবে। নিজের প্রতিভাগুলোকে আর ঘুমিয়ে থাকতে দিয়েন না। সেগুলোকে জাগ্রত করুন। না হলে পরকালে আল্লাহর নিকট কি জওয়াব দেবেন ?

ADs by Techtunes ADs

তবে হ্যা,সাহায্যের দরকার আছে ? সাহায্য হবে এইরকম “ কোন আন্টি-ভাইরাস ভালো সাহায্য চাই “...”কোন মডেম কিনব সাহায্য চাই”......আমার কম্পিউটারের এই সমস্যার সমাধান চাই “   ইত্যাদি। তবে সাহায্য চাওয়ার আগে নিজে ট্রাই করে দেখতে হবে। না ট্রাই করলে শিখবেন কিভাবে ?

আর একটা কথা যদি আপন নিরলস পরিশ্রম করেও কাংখিত জিনিস না পান তবে পরামর্শ নিবেন,সাহায্য নয়। আমার লেখা পড়ে কষ্ট পেতে পারেন। কিন্তু আমি হলক করে বলতে পারি আমি যা বলছি তা ভুল বলছি না।

সামাজিক নেটওয়ার্কগুলোর সাথে যুক্ত থাকুনঃ

আমি এক্ষেত্রে আপনাকে ফেইসবুক,টুইটার,গুগল প্লাস,অরকাট ইত্যাদি সামাজিক নেটওয়ার্ক সাইটের সাথে যোগাযোগ রাখতে বলছি। এতে আপনার এক্সপেরিয়েন্স অর্থাৎ অভিজ্ঞতা বাড়বে। আপনি সারা বাংলাদেশ এমনকি সার বিশ্বের মানুষের সাথে যোগাযোগ রাখতে পারবেন। চিনতে ও জানতে পারবেন সবাইকে। আর ফেইসবুক গ্রুপিং এর মাধ্যমেও আপনি আপনার মণের আশা পূরন করতে পারবেন। তবে একটা কথা আপনি যদি ফেইসবুকে সারাদিন চ্যাটিং নিয়ে ব্যস্ত থাকেন তাহলে রেসাল্ট প্লাস মাইনাসে .........মাইনাসই হবে। এক্ষত্রে প্রযুক্তির ভালো দিকটাই আপনাকে ব্যবহার করতে হবে।

সম্ভব হলে নিজের একটা ব্লগ খুলুনঃ

নিজের একটা পারসনাল ব্লগ থাকা খুব জরুরি। ব্লগটা ওয়ার্ডপ্রেস অথবা ব্লগস্পট হলে ভালো হয়। নিজের ব্লগের মাধ্যমে আপনি নিজেকে ঝালিয়ে নিতে পারবেন। নিজের মধ্যে একটা শক্তি জাগবে,আপনার অন্তর বলবে ”আমরাও পারি”’। তাছাড়া আপনি নিজে উপার্জন করতে পারবেন আপনার ব্লগ থেকে।

যদি নিজে না খুলতে পারেন তাহলে এক্সপার্টদের কাছে পরামর্শ নিন। যদিও আমি ব্লগিং সম্পর্কে খুব একটা এক্সপার্ট নয় তবুও আমার কাছ থেকেও পরামর্শ নিতে পারেন।

STRATEGIC TIMEOUT (3 মিনিট)

কিভাবে আমার জীবন বদলে গেলোঃ

সাল তখন ২০১০,সবেমাত্র বৃত্তি পরীক্ষা দিলাম। আর ক্লাস নাইনে উঠলাম। ভালো ফলাফল করা আর বাহিরে ঘোরাফেরা আটকানোর জন্য আমাকে কম্পিউটার কিনে দেওয়া হলো। প্রথম দিন আমার ইঞ্জিনিয়ার আঙ্কেল মোস্তাফিজুর রহমান(রোডস আন্ড হাইওয়ে,সাব-ডিভিসনাল ইঞ্জিনিয়ার,বগুড়া) আমাকে কপি-পেস্ট করা শিখালেন। সেইদিন সারাদিন করলাম সেই কাজ। কিন্তু একদিন শখ হলো ব্যাকগ্রাউন্ড সিনারি পাল্টাবো। আদা জল খেয়ে লেগে গেলাম ব্যাকগ্রাউন্ড সিনারি পাল্টানোর জন্য। উইন্ডোজ নষ্ট হলো। ৫০০ টাকা খরচ করে একজন কম্পিউটার অপারেটর এর মাধ্যমে উইন্ডোজ দিলাম। তারপর আচমকাই শিখে ফেললাম ব্যাকগ্রাউন্ড পাল্টানো। এভাবে শিখতে লাগলাম ছোটখাটো কাজগুলো। এভাবে চলতে লাগল আমার প্রাথমিক ইঞ্জিনিয়ারিং জীবন। :mrgreen:

সাল তখন ২০১১,কম্পিউটার কেনা এক বছর হয়ে গেলো। এখন আমি কম্পিউটারের পোকা। বেশি কিছু না জানলেও যা জানি তাই নিয়ে প্রাউডফিল করি। এর মাঝেই কম্পিউটারে ভাইরাস ঢুকে গেলো। ছুটে চললাম বিভিন্ন ডাক্তারের কাছে এন্টি-ভাইরাসের জন্য। আঙ্কেলের কাছে শুনলাম ক্যাস্পারস্কির কথা। আঙ্কেলের দেওয়া ২০০০ টাকা খরচ করে পাইরেটেড ক্যাস্পারস্কি ইন্সটল করলাম। ওব্যাটা টাকা পেয়ে আরও কিছু জিনিস দিয়ে গেলো। মোটামুটি ভাইরাস তাড়ানোর কাজ শেষ। এবার আমার ফ্রেন্ডদের মেমোরি কার্ডে গান দেওয়ার পালা। অডিও দিতে পারলাম কিন্তু ভিডিও গান দিলাম কিন্তু ফোনে চল্লো না। ছুটে গেলাম আমাদের এলাকার শ্রেষ্ট কম্পিউটার মাল্টিমিডিয়া দোকান “বৈশাখি ডট কম “ এ। সেখানে মানিক ভাই আর সাহেব ভাই এর পরামর্শ মতে ফরম্যাট ফ্যাক্টরি আর ওয়ান্ডারশেয়ার কনভার্টার নিলাম। টাকা অবশ্য গুন্তে হয়ে ছিলো ৮০ টাকা। যাহোক নিজে কনভার্ট করতে পারবো ভেবে টাকাকে টাকা মনে করলাম না।

সাল ২০১২,এখন আমি ইন্টারনেটের পোকা। সফটওয়ার এডিট করতে পাকা (সফটওয়ার বানাতে নয়) । অনেক সফটওয়ার নিয়ে গবেশনা করি। বেশি কিছু করতে পারলাম না কারন ১ লা ফেব্রুয়ারি থেকে পরীক্ষা শুরু। আপাতত কাজগুলো স্টান্ডবাই করে পরীক্ষা আর পড়াশুনায় মননিবেশ করলাম। পরিক্ষা শেষ,তার অনেক আগে সাহেব ভাইয়ের কাছ থেকে একটা ফাইল নিয়ে এসেছিলাম যেখানে নানা ধরণের ভালো ভালো ওয়েবসাইটের নাম দেওয়া আছে। ইন্টারনেটের অভাবে সাইটগুলোতে ঢুকতে পারি নি। আমার এডিট করা গেমটিকে আরো ডেভেলপ করার জন্য রবির ৫ জিবি ইন্টারনেট প্যাক(ভ্যাটসহ ৭৫০ টাকা,প্যাকেজ কিনতে ডায়াল *8444*83#) নিলাম। ব্যাস ১৫ দিনের মধ্যেই ক্রিকেট গেমটা ডেভেলপ করলাম। এবার সেই ডকুমেন্ট টা বের করে সাইটগুলো ব্রাউজ করলাম। প্রতিটি ওয়েবসাইটই দারুন। ১০ নম্বরে পেলাম টেকটিউনসের নাম। ব্রাউজ করলাম। ব্যাস কেল্লাফতে,নিজে নিজে চিন্তা করলাম কি নাই এই ওয়েবসাইটে! বিভিন্ন টিউন থেকে প্রাথমিক জ্ঞান নিয়ে একটা ব্লগস্পট ব্লগ খুললাম।গুগল সার্চ করলাম আর ব্লগ ডেভেলপ করতে লাগলাম। এরপর মনে হলো একটা টিউন করে হাতের জড়তা ভাঙ্গি। ব্যাস,যে সফটওয়ার খুজতে আমাকে অনেক বাধা অতিক্রম করতে অনেক বাধা অতিক্রম করতে হয়েছে তা শেয়ার করলাম এরই মাঝে ৭-৮ টা টিউন করলাম টেকটিউনসে আর ৩৫ টা আমার ব্লগে। তারপর জয়েন করলাম টেকটিউনসের ফেইসবুক গ্রুপে এক-একটা সাহায্য করলাম আর ধীরে ধীরে ফ্রেন্ডলিস্ট বড় হতে থাকলো।

ADs by Techtunes ADs

আমার এলাকায় আমার ব্লগের প্রচার শুরু করলাম কিন্তু তেমন কোন সাড়া পেলাম না। তবুও রেসাল্টের পর আরোও ডেভেলপ করার ইচ্ছা আছে। এখন নিজেও বুঝতে পারি না আমি এখন কোথায় দাঁড়িয়ে আছি। ফেইসবুকে এখন অনেকেই বস বলে ডাকে।   প্রতিনিয়ত সাহায্য চায়।   আমার অতি সীমিত হলেও তা দিয়ে যথাসাধ্য সাহায্য করি।

মাত্র ৩ মাসের টেকটিউনসের সাহায্যে বদলে গেল জীবনটা। এখন এটা ভেবে খুব ভালো লাগে যে,আগে তিসাদ নামের কোন গাধাকেও কেউ চিনতো না।আর এখন আমাকে অনেকেই চেনে।

পালটে ফেলুন ভ্রান্ত ধারনাঃ

টেকটিউনসে টিউন করবো ? আমিতো খুব কম জানি ? আমার টিউন কি সবাই পড়বে ? আমাকে নিয়ে সবাই হাসি ঠাট্টা করবে না তো ?

এসকল প্রশ্ন নতুনদের মনে থাকা খুব কমন ব্যাপার। টেকটিউনস বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় কমিউনিটি। আমি মনে করি এখানকার সবাই সহমর্মী। কেউ কাউকে ঠাট্টা বিদ্রুপ করবেনা বলে আমার বিশ্বাস। সাহস করে কলম(থুক্কু,কি-বোর্ড) ধরতে  হবে। যখন টিউন করার পর কোন পরামর্শ পাবেন তা সঙ্গে সঙ্গে প্রয়োগ করবেন। যেমন আমি প্রথম প্রথম 4Shared এর লিঙ্ক দিয়েছিলাম। এখানে ডাউনলোড করা ঝামেলা বলে অনেকেই ডাউনলোড করতে পারেন নি। আপনি মূল্যবান জিনিস  শেয়ার করলেন,সেটা কেউ যদি ডাউনলোড না করতে পারে তাহলে শেয়ার করে লাভ কি? তাই সহজ লিঙ্ক দেওয়া জরুরী। এছাড়াও টিউন গ্রহনযোগ্য হওয়ার জন্য কিছু টিউন আপনারা পড়লে ভালো টিউন করার একটা মন-মানুসিকতা জন্মাবে।

নিজে নিজে চিন্তা করুন আর আইডিয়া বের করুনঃ

নিজে চিন্তা করুন এবং নতুন আইডিয়া বানান আর ফেইসবুকে শেয়ার  করুন। কেউ কোন টিউমেন্ট করলে গ্রহন করুন। সেগুলো বিভিন্নভাবে প্রয়োগ করুন। দেখবেন সফলতা আপনাকে খুজে নেবে। ধীরে ধীরে পেয়ে জাবেন আপনার কাঙ্গিত পথ।

নিজেই নিজের টিউনের গুনাগুন বিচার করুনঃ

আপনার টিউন লিখা হয়ে গেলে নিজেই মার্কিং করুন। তারপর এক্সপার্টদের টিউনগুলোর সাথে মিলিয়ে দেখুন আর কি কি  ফিচার এড করা যেতে পারে। আপনি যখন টিউন লিখবেন তখন আপনি একই সাথে লেখক আবার পাঠকও। নিজে একবার টিউনটা রিভাইজ দিন। বানান ভুল থাকলে ঠিক করুন। যেগুলো সফটওয়ারের লিঙ্ক আপনি দেবেন আগে নিজে সেগুলো ট্রাই করুন আর দেখুন সেগুলো কাজ করে কি না। অবশ্যই টিউনটাকে গঠনগত ভাবে সুন্দর ও সাবলীল করার চেষ্টা করবেন। সম্ভব হলে ফিচারড ইমেজ আকর্ষণীয় করুন,অবশ্য সেটা আপনার ইচ্ছা। টিউন বেশি তথ্যবহুল করার চেষ্টা করুন।

কিছু কথাঃ

ভাইজানরা সবেমাত্র এসএসসি পরিক্ষা শেষ করেছি। তাই রচনা লেখার অভ্যাসটা এখন ছাড়তে পারি নি। দেখতে দেখতে এক খানা রচনা লিখে ফেললাম। আমি এত বড় টিউন লিখবো তা ভাবতেই পারি নি। আমি মনে করি এর দারা অনেকেই এই সাইবার জগতের হাল-চাল বুঝতে পারবেন। যেকোন সমস্যা যা আপনি টেকটিউনসে মতামত দিতে পারছেন না, তা ব্যক্তিগত ভাবে আমাকে জানান এখানেঃ

ফেইসবুক

ADs by Techtunes ADs

ফেইসবুক ২

আমার টিউনার পাতা

ADs by Techtunes ADs
Level New

আমি মোঃ আসেফ হাবীব তিসাদ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 9 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 17 টি টিউন ও 326 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level 0

পড়ে অনেক ভালো লাগলো তোমার মত ছোট ভাইয়ের কাছ থেকে এমন একটি অনুপ্রেরণামূলক টিউন সত্যিই চমৎকার

    ধন্যবাদ । সিনিয়রদের কমেন্ট চলার গতিকে আরও বাড়িয়ে দেয় । তবে খুব খারাপ লাগে যখন টিউন করলে তা ধীরে ধীরে প্রথম পেজ থেকে হারিয়ে যায় ।

BOSS আপনে আসলেই BOSS।

    আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ টিউনটা পড়ার জন্য । আমি ভেবেছিলাম আমার টিউন কেউই পড়বে না ।

পড়ে অনেক ভালো লাগলো

Level 0

U r genious. Ami obak hochchi, ami 28 bochor boyose chinta korchi ki kora jai (jodoio family goto problem chilo) , ar apni kina boss hoye gelen. Congratulation. Apnakeyi ami khuchchi…..

দারুণ একটি লেখা।

Bai chorom hoic post ta khub valo lagse pore.Thank you ……….

Level 0

পরকালে আল্লাহ তা’য়ার কাছে কি জবাব দেবেন ? কথাটাতে মজা পাইছি । 😀 btw nyc writing ..

এক কথায় অসাধারন।

ভাল লাগল ।

Level 0

আপনি টাকা খরচ করতেন কেন?

টেকটিউনস গ্রুপে পোস্ট করলেই তো আমরা হেল্প করতাম 🙂

    নাই নাই তার সাথে কেহ নাই । নেট যার সাথে নাই তার সাথে গ্রুপ নাই । গ্রামিন ফোনের এডটা নকল করলাম । ধন্যবাদ ।

ভাল লাগল 😀

আসাধারন একটি লেখা…..

ফ্যামিলি গত সমস্যার কারনে অনেক কিছুই করা হয়ে থাকে না যা করতে চাই। 🙁

টিউনটা পড়ে খুব ভালো লাগলো । ভাই আপনার প্রতি আমার সুভকামনা রইলো । টেকটিউনস খুব ভালো লাগে তাই ভিজিট করি । ভাই সহলের কাছে একটা হেল্প চাচ্ছি । আমি টিউন করতে চাই । কিভাবে করবো???

তোমার কথাগুলু খুবই সত্যি। আমিও প্রথমে কম্পিউটার এর মাউস নাড়াতে পারতাম না। কিন্তু আল্লাহর রহমতে আর নিজের আগ্রহে কম্পিউটার সম্পর্কে মোটামুটি জেনেছি ও টেক টিউন্স এর বদউলতে জেনে চলেছি। তোমার জন্য অনেক শুভ কামনা রইল ভাই। ধন্যবাদ

Level 0

ভাইজানের কথাগুলা আমার খুব মনে ধরসে…আমিও চাই আমার একটা ব্লগ থাকবে কিন্তু আমি জানি না কিভাবে ব্লগ বনাতে হয়…ওয়ারডপ্রেস/ব্লগস্পট সম্পর্কে আমার কুনো ধরাণাই নেই….ব্লগ বানানোর নিয়ম এবং এর জন্য কি কি জানতে হয়…আপনি যতটুকু জানেন এবং যারা যারা এই বিষয় নিয়ে টিউন করেছে তাদের লিংক গুলো যদি আমাকে জানাতেন তাহলে আমিও মনে হয় ইনশাআল্লাহ একটা প্ল্যাটফরমে এসে দাড়াতে পারব।[email protected]

Level 0

পড়ে খুব ভাললাগল ধন্যবাদ তোমাকে।

বেশ কিছু দিন পর টেকটিউনস এ অনেক ভাল একটা লিখা পড়লাম। 🙂
শুরুটা চমৎকার হয়েছে। আশা করি সামনে আরো অনেক অনেক ভাল টিউন পাবো।
শুভ কামনা রইল।

সুপার্ব!! 😀 এভাবেই নিজেকে ঝালাতে হয় ভাইসাব! নিজেকে নিজেই চিনাতে না পারলে অন্য কেউ চিনায় দিবে না। এই ধরো, তোমার এই টিউনটি পরার পর তুমিও অনেক পরিচিতি পাবা নতুন করে। তোমার কথাগুলো পড়ে অনেকেই অনুপ্রেরণা পাবে সামনে এগিয়ে যাবার। আর এভাবে একসময় তুমিও অনেক বড় বস!!! 😀

টিউনটি নির্বাচিত/স্টিকি করার জন্য রিপোর্ট করলাম। 🙂

বিঃদ্রঃ আমার বয়সে ছোট তাই তুমি করে বললাম। 🙂

    ধন্যবাদ ভাই । টিউন করার সময় ভেবেছিলাম আমার লেখা কেউই পড়বে না । সনি ম্যাক্সে একটা এড দেখা যাচ্ছে যার স্ক্রিপ্ট ” হার আইডল কি পিছে হতি না জানে কিতনে সারে আইডল “……আসলেই প্রত্যেক হিরোর পেছনে থাকে আপনার মত আরও অনেক হিরো যারা উতসাহ দেয়। আপনার মত কিছু সিনিওরদের কাছে থেকে কমেন্ট পেয়ে চলার গতি আরও বেড়ে গেল ।দোয়া করেন যেন আরও অনেক কিছু দিতে পারি ।
    প্রথম দুই-তিন দিন অনেকেই পড়েছে ।দ্বিতীয় পৃষ্টায় চলে যাওয়ায় আর মনে হয় কেউ পড়বে না । খুব ভালো লাগবে যদি আমার টিউনটা নির্বাচিত/স্টিকি করে রাখা হয় ।

খুব ভালো লাগলো…

Level 0

চমৎকার … 🙂
আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো। 🙂

আমার কাছে লেখাটা অনেক ভাল লেগেছে,ধন্যবাদ আপনাকে এত সুন্দর একটা লেখা উপহার দেয়ার জন্য,আশা করছি সামনে ভাল কিছু পাব আপনার কাছ থেকে,শুভকামনা রইল।

আশা করছি আগামীতে এটি নির্বাচিত টিউন হবে। সোজা প্রিয়তে। আর তিসাদ ভাই ভাইসসিটি এডিটিং নিয়ে পরবর্তী টিউন টি চাই খুব দ্রুত।

@ মোঃ আসেফ হাবীব তিসাদ…. আপনাকে অনেক ধন্যবাদ । আমি অনেক দিন থেকে টেকটিউন পড়ছি । কম্পিউটারের অনেক কিছু ও জানি, এখন সফটওয়্যার ডেভলপ এর কাজ করতেছি এবং দেশের নাম করা একটা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ট্রেনার হিসাবে করতেছি প্রায় ২ বছর । কিন্তু মানুষের সাথে আমার অভিজ্ঞতা গুলো শেয়ার করব করব করেও করা হছ্চে না । আপনার টিউনটি দেখে আসলে অনুপ্রেরণা ফেলাম ।

Level 0

ভাই আপনার মত টিউনার বাংলার ঘরে ঘরে জন্মাক। ptc নিয়ে লেখা আপনার পোস্টটিও অসাধারন হয়েছে।
আমার নিজের একটা ব্লগ আছে ২ সপ্তা হল ব্লগটা দারকরিয়েছি। ব্লগ থেকে ঘুরে এসে যদি কোন comment
করতেন খুব ভালো লাগতো ।
http://oxy-radon.blogspot.com/

    @Oxy-Radon: ব্লগটা ভালোই । তবে আরো ডেভেলপ করতে হবে । আর কমেন্টে লিঙ্ক দিয়েন না । ভালো লিঙ্ক দেন আর খারাপ লিঙ্ক দেন আপনার পরিচয় একটাই আর সেটা হলো স্পামার । মাইন্ড কইরেন না ।

ওই মিয়া ! আপনি দিনাজপুরীয়া এইটা আগে কইবেন না?
আসেন আগে কোলাকুলি করে নিই 😉

প্রত্যেকটা টিউনই পড়লাম, আপনার প্রায় টিউনই দারুন মানসম্পন্ন ! অনেক সুন্দর করে গুছিয়ে লিখেন আপনি,
বোঝা যায় আপনি রচনাতে কখনোই কম মার্ক পান না 😛 শুভ কামনা রইল আপনার জন্য।
– মেতে উঠুন প্রযুক্তির সুরে !

    @সাইফুল ইসলাম: পরী মডু(এঞ্জেল মড) ,আমার বাড়ি থেকে একখান দৌড় দিলেই আপনাদের কারেন্টহাট(দৌড়টা চোখ বন্ধ করে দিলে আরও তাড়াতাড়ি) । অবশ্যই মেতে উঠবো প্রযুক্তির সুরে ইনশাহআল্লাহ । কলেজে আডমিশন নিতাছি । তাই দোয়া কইরেন যেন কলেজের সিটে বসতে পারি কলেজের গেটে নয় 😀 । আর একটু জাভা হ্যাকিং ও শুরু করেন আমার ফোন জাভা বইল্যা টিউনগুলো পড়া হয় না :mrgreen:

Khub valo legeche… TT te kivabe bangla likha jai janaben?

অনেক ভালো টিউন । ধন্যবাদ

তিসাদ সাহেব এত অল্প বয়সে…… এতো ভাল লেখা কল্পনাও করা যায় না……।। খুব ভাল লাগল ……… দোয়া করি তোমাকে দেখে অনুপ্রানিত হোক বাংলাদেশের নবীন প্রযুক্তিপ্রেমিরা।

টিউন নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন।
😀 :mrgreen:

    @নিওফাইটের রাজ্যে: আপনারেও ধন্যবাদ । আপনার দেওয়া বানানগুলোই টিউনটাতে কপি-পেস্ট করছি । “ধৈর্য” এই বানান টা অনেক কষ্ট কইরাও আমার অভ্র ফনেটিকে লেখবার পারলাম না । একটু হেল্পান । হুম টিউন নির্বাচিত হওয়ার পর খুব ভালো লাগতাছে । আর ১ সপ্তাহ খারান আমার আরেকটা নির্বাচিত হইতাছে ……………

      @মোঃ আসেফ হাবীব তিসাদ: আমি লিনাক্সে ফিক্সড প্রভাত লে-আউট ব্যবহার করি। অভ্র অনেকদিন ব্যবহার করা হয় না। একটু ওয়েট করেন, দেখি অভ্র ফোনেটিকে লেখে ক্যাম্বায়। তারপর জানামুনে 🙂
      আপনার বেশিরভাগ টিউন তো হাই ক্লাস। বিশেষ কইরা PTC বাঁশমার্কা টিউন নির্বাচিত করলে খুশি হইতাম 😛

        @নিওফাইটের রাজ্যে: PTC বাঁশমার্কা টিউন করায় ভার্চুয়াল লাথিগুতাও ইদানিং কম খাইতেছি না । কিছু পিটিসি ফ্যান ওই টিউন পাওয়ার পর আমার সব টিউনে উলটাপালটা কমেন্ট করতাছে । তাই ভাবছিলাম আর টিউন করবো না !!! কিন্তু কাল সাইফুল ভাইয়ের কথায় সস্তি পাইলাম আর একখানা টিউন লেখাও শুরু কইরা দিছি । হুম,আমার আরেকটা টিউন ইনশাহআল্লাহ আগামী ২-১ সপ্তাহের মধ্যে নির্বাচিত হইতাছে,ওটা আপনি মনে হয় পড়েন নাই ।

          @মোঃ আসেফ হাবীব তিসাদ: এরা তো আছেই ক্যাচাল করার জন্য। এরা সবসময় থাকবেই। ব্লগিংয়ে অপোজিশন না থাকলে মজা লাগে না। নেগেটিভ কমেন্টস থাকবে এবং তাদেরকে সুন্দর করে বিষয় বুঝিয়ে দিতে হবে।

          আপনার টিউনে উল্টাপাল্টা কমেন্ট করলে সেটা মুছে না দিয়ে তাকে হাইলাইট করে দেখান সেই আইডিধারী কতটুকু চরিত্রবান( ❗ )।
          আপনার ফ্রিল্যান্সিংয়ের টিউন একটা কমেন্ট তুলে আনলাম:

          diyamoni
          17 May, 2012 at 7:30 am
          @ মোঃ আসেফ হাবীব তিসাদ ভাই জানের মনে হয় প্রেস্টিজে লাগছে, নতুবা আমার কমেন্টস টা দিব্যি হাওয়া করা দিলেন ? মানুষ কে ছোট ভাবার আগে একটু নিজের দিকে দেখবেন, যে “বড় বড় লেকচার বাজি করতে যাইতাছি, কিন্তু কার কতোটা উপকারে আইলাম এইটাতো কেউ জানে না”। No Problem চালিয়ে যান তেল এর অভাব হবে না।

          আপনি কমেন্ট না মুছে দিয়ে বরং তাদের উত্তর দিন। সেটাই যুক্তিযুক্ত। তবে স্প্যাম কমেন্ট মুছে দেওয়া উচিৎ।
          এরা যে সমস্যাটা সৃষ্টি করেন তা হল “এদের ঋণাত্মক দৃষ্টিভঙ্গির ভয়ে অনেকেই টিউন করতে চান না।”

          টিউনটি সুন্দর হয়েছে। ধন্যবাদ। 🙂

আপনি যদি গেম ডেভেলপ করার ব্যাপারে কিছু জানান তাহলে উপক্রিত হব।

    @আশিক আরেফিন: হুম,কোন গেম পাইলে শুরুতে আমার মত ওটার ব্যবচ্ছেদ করবেন । মানে ওটার মধ্যে কি কি ফরমেটের ফাইল আছে তা দেখবেন যেমনঃ .Col .big .asf ইত্যাদি । তারপর পুরাদমে গুগল সার্চ করবেন । এতে আপনি যেকোন গেমের প্রাথমিক ব্যাবচ্ছেদ করতে পারবেন । ধন্যবাদ ।

ধৈর্য ফোনেটিকে লেখে এইভাবে “dhoirz” (এটা লিখলেই সাজেশন আসবে আরকি) 😀
এই নেন ইস্ক্রিনশট আপলোডায়া দিলাম। 😛
বানান ঠিক করার জন্য ধইন্ন্যা। আসলে যেকোন লেখায় বানান ভুল থাকলে সেটা দৃষ্টিকটু লাগে এবং লেখা অনেকাংশে গুরুত্ব হীনও হতে পারে। (নিজের অভিজ্ঞতা থিকা কইলাম 😆 )

Level New

অনেক ভালো টিউন । ধন্যবাদ

অনেক ভালো লাগলো ….

Level 0

সকাল সকাল নেট খুলে মনটাই ভাল হয়ে গেল টিউন টা পরে
সাথে অনেক পরিচিত সব মুখ
আপনার টিউন পরে আপনার রেজাল্ট জানবার মন চায়
ধন্যবাদ

অনুপ্রেরণা এবং সাহস যুক্ত হলো মনে, ধন্যবাদ তিসাদ আপনাকে।

বড় ভাই, একটা অসাধারন টিউন। এর তুলনা হয় নাহ!
তা, ভাই এর GPA কত আসছে?

অনেক ধন্যবাদ ।অসাধারণ একটি অনুপ্রেরণামূলক টিউনের জন্য।

Level 0

Many thanks, for such a inspirational tunes. Allah bless you,

Level 0

tanx so much. for you post

Level 0

পড়ে খুব ভাল লাগল ।ধন্যবাদ ।

Level 0

vai ami prothom computer a nijei windows disilam.sobar age windows diye suru kori.tar por
autodesk maya,autodesk max etc nijey kaj sikhi.then i was 16

Level 0

Nice Post Friend…………………………..

Level 0

Hi Tishad, I have sent you a friend request on facebook. Please accept that.

Level 0

এখন আমার বস আমাকে বস ডাকে সত্যি অবাক ব্যাপার ! ( ধৈর্য,জ্ঞানলাভের বাসনা,আর কিছু ট্রিক এই গুনগুলো যদি আপনার মধ্যে থাকে তাহলে একদিন না একদিন আপনাকে কেউ না কেউ বস বলে ডাকবে,আপনার কাছে সাহায্য চাবে ইত্যাদি ইত্যাদি । ) অনেক ধন্যবাদ আপনাকে এমন একটি অনুপ্রেরণামুলক এবং শিক্ষনীয় পোস্ট করার জন্য।

Level 0

ধন্যবাদ

তিসাদ ভাই তুমি আমার ছোট ভাই হলেও দূরে আছ। তারপরও তোমাকে তুমি না বলে পারলাম না। এত তুমি আরো আপন হবে। তোমার লেখা গুলো আমি সব পড়েছি। খুব সুন্দর হয়েছে। তোমার জন্য অনেক অনেক শুভ কামনা রইল।

অনেক গোছানো উতসাহ মূলক একটি টিউন, আশা রাখি আরো সুন্দর পোষ্ট পাবো আপনার কাছ থেকে

Level 0

Jodio onek por comments korlam kico mone korban na.very very thanks.

ভাল একটা টিউন দিসেন ভাই, বেশ ভাল কিছু কথাও বলসেন। সবচে ভাল লাগল সাহায্য নিয়া লেখা অংশ টা। আপনার কথা টা ১০০% ঠিক! 😀

Level 0

ধন্যবাদ তিসাদ, এত সুন্দর একটা পোস্ট লেখার জন্য ।আরো চমত্‍কার চমত্‍কার পোস্টের আশায় রইলাম ।

vaijwn ssc result ki???

valo e laglo……..onnake dhonnobad…..

ভাই তোমার লেখাটা অনেক ভালো হইছে। তাই comment না করে পারলাম না।আমি একটু অলস প্রকৃতির !!! বেশি লেখা দেখলে পড়তে ইচ্ছে করে না! but তোমার পুরো লিখা টা পরলাম। আসলে কষ্ট করে শিখার মাঝে অনেক মজা আছে, যা মানুষ সহজে ভুলে না। যেমন আমি আজ অনেক দিন যাবত একটা কাজ করব করব করে করা হচ্ছে না, তোমার লিখা টা পড়ার ভাবলাম আজই করে পেলব। আর বল্লে যে রচনার কথা ,ওটা অনেক ভালো হইছে ,bye,best of luck…………….. 🙂

তিসাদ বস………………………….. তুমি তো সত্যিই অনলাইন সেলিব্রেটি হয়ে গেলা…….
ধন্যবাদ ভাল টিউন করার জন্য।

    @আকিব ভাই: ধন্যযোগ! আর সেলিব্রিটি হওয়া কি এত সহজ রে ভাই?? 😛 অনেকদিনপর রিপ্লাই দিলাম্‌…

ধন্যবাদ তিশাদ ভাই…

Gusie lekhar hat maratok valo. 3~4 years kono interruption na hole asholei online selibreti hoe jabe. ধইন্ন্যা |

Level 0

আপনার মতই আমি কিন্তু কষ্ট মার খেয়ে কম্পিউটারের করে কাজ শিখেছি !তবে আমাকে শুধু একজন লোক কিভাবে পিসি ON/OFEকরতে দেখিয়েছিলেন ।
MS OFFICE,PC Trubolshtooing,Video editing,Photo editing বেশ কিছু গুরুপ্তপূর্ণ কাজ,Software editing,Network shareing,Internet{most populare works}

    @RXBTSB: কষ্ট করে শেখার মাঝে একটা অন্যরকম আনন্দ আছে,যেটা সবাই বোঝে না । আর এভাবে শিখলে কিন্তু অনেকদিন মনে থাকে ব্যাপারটা

Level 0

Mail id [email protected]
and give your mail id?

Level 0

ভালো লাগলো

valo bondhuuuuuuu

ধন্যবাদ অসাধারণ টিউনের জন্য…
আমি একটি এন্ড্রয়ড এপ তৈরি করেছি, বিক্রয়[ডট]কম এর অল্টারনেটিভ হিসেবে। ইচ্ছে হলে ট্রাই করে দেখতে পারেন।
এপটির ফীচার সমূহঃ
* কোনো রেজিস্ট্রেশন ছাড়াই এড পোস্ট করতে পারবেন
* দিনে আনলিমিটেড এড পোস্ট করতে পারবেন
* লোকেশন বেইসড এড সার্চ করতে পারবেন
* কোন হিডেন চার্জ নেই, একদম ফ্রী
* ইনশা আল্লাহ, আমি যতদিন বেঁচে থাকব, অতদিন সার্ভিসটা ফ্রী রাখব
* ইউজার ফ্রেন্ডলি ইন্টারফেস
* ছোট APK সাইজ ( মাত্র ৩ এমবি)
.
গুগল প্লে ডাউনলোড লিঙ্কঃ https://play.google.com/store/apps/details?id=p32929.buysellbd
APK ডাউনলোড লিঙ্কঃ http://tiny.cc/buy_sell_bd
.
এপটি ডাউনলোড করে দয়াকরে একটি হলেও এড পোস্ট করুন। অনেক খুশি হব। আগাম ধন্যবাদ…