ADs by Techtunes tAds
ADs by Techtunes tAds

যে কয়েকটি কারণে আপনি কখনই সফল ফ্রীলান্সার হতে পারবেন না!

বাংলাদেশের যুব সমাজকে বর্তমানে ফ্রীলান্স কি, কেন বা এই ধারার প্রশ্নগুলো তেমন কাউকে বুঝিয়ে বলতে হয় না বিশেষ করে যারা অনলাইন মুখী। কারণ গত কয়েক বছর ধরে আমাদের দেশে ফ্রীলান্সারদের যে আধিপত্য বিস্তার লাভ করেছে তা আমাদের সবারই জানাশুনার মধ্যেই। আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে রয়েছে ভিন্নতা। ভিন্নতা বলতে সেই বিষয়গুলো, যেগুলো বা যারা চোখের সামনে ভালো মন্দ গুলো দেখাও বিচার করতে পারে না আসলেই তাঁর কি করা উচিৎ।

ADs by Techtunes tAds

প্রিয় পাঠক! আমার টিউনটির শিরোনাম দেখে অনেকেই ভাবছেন আমি হয়তো অন্যদেরকে অবমূল্যায়ন করছি। আমার পোস্ট টাইটেল সম্পর্কে যদি আপনার চিন্তা এমন হয়ে থাকে তাহলে বাকী লিখা গুলো আপনার জন্য নয়। আমি মূলত পোস্ট লিখছি তাদের জন্য যারা তাদের চোখের সামনে ভালো কিছু দেখেও সেগুলোকে নিজের করে নিতে পারে না। বা বুঝে উঠতে পারে না আসলেই কিভাবে তাঁরা নিজেকে একজন সফল ফ্রীলান্সার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবেন।

কিছু কিছু বিষয় যা আপনি ফলো করতে পারলেই আপনার ফ্রীলাসার হওয়ার স্বপ্ন পূরণে অনেক সহায়তা করবে। দেখুন কারণ হিসেবে আমি এখানে যে বিষয়গুলোকে নেগিটিভলি উল্লেখ করবো সেগুলোকে আপনি বেশি কিছু না শুধু নিজের সাথে মিলিয়ে দেখেন এবং পারলে সেই বিষয়গুলোকে পজিটিভ করে নিন নিজের জন্য নিজের মত করে। তাহলে হয়তো আর পিছে ফিরে দেখতে হবে না। তো চলুন কারণ গুলো দেখে নেই যে কারণগুলোর কারণে আপনি কখনই একজন সফল ফ্রীলান্সার হতে পারবেন না-

১. অধ্যাবসায়হীনতাঃ

ফ্রীলান্সার হবার মূলমন্ত্র! এই গুনটি আপনার মাঝে নাই। আপনি অধ্যবসায়ী হতে পারেন নাই বা চেষ্টাও করেন নাই কখনও। এক বিষয় চিন্তা করেন, আপনি হয়তো অন্য সব সফল ফ্রীলান্সারদেরকে ফ্রীলান্সিং এর মাধ্যমে আয় করতে দেখে ভাবেন "আমিও সফল হবো" অথবা "আমি ঐ ভাইয়ের মতো এইটা হবো,ঐটা হবো"। দেখুন চাইলেই অনেক কিছু পাওয়া যায়, একথাটি অনেক ক্ষেত্রে সত্যি। তবে শুধু কি চাইলেই হবে কারণ এই কথাটি বলে আপনি যতই চেঁচামেচি করেন না কেন কোন লাভ হবে না। আপনার সফলতা কখনই আসবে না। কারণ আপনি যে ভাইয়ের মতো হইতে চাচ্ছেন সেই ভাই অনেক সাধনা করেই ঐটা হইছে বাট আপনি কি করছেন? সফলতা চাইতে হলে বা সফল হতে হলে আপনাকে বেশি কিছু করার দরকার হবেনা! শুধু দরকার আপনার পছন্দের বিষয়ে তীব্র "অধ্যবসায়"!একবার অধ্যবসায় শুরু করুণ। দেখবেন আপনার সফলতা আপনাকে হাত ছানি দিয়ে ডাকছে! 🙂

২. সময়জ্ঞানহীনতাঃ

যারা অধ্যবসায়ী না তাঁদের কখনও সময়ের মূল্যায়ন করতে পারেন না। কারণ আপনি অধ্যবসায় শুরু করলেই আপনাকে সময় সম্পর্কে অনেক চিন্তা ভাবনা করে চলতে হবে। এমন অনেকেই দেখা যায়, যারা “টাকা আকাশে উড়ে” শুধু এই চিন্তা নিয়েই ফ্রীলান্স করতে আসেন। আসলে-ইতো টাকা উড়ে! কি বিশ্বাস হয় না? একবার ফ্রীলান্স সাইটগুলোতে দেখেন, প্রতিদিন কত কোটি ডলারের কাজ পোস্ট হয়। যার মধ্যে খুব বেশি হলে ৫০% কাজ সম্পূর্ণ হয় আর বাকীগুলান কর্মীর অভাবে বাতিল হয়ে যায়। আপনি কখনও একথায় বিশ্বাস-ই করবেন না কারণ আপনার সময়-ই নাই এসব সাইটে ভিজিট করে দেখবার। কারণ আপনি সময়জ্ঞানহীনতা নিয়ে অনেক ব্যস্ত থাকেন হয়তো!!! 😉

৩. অপ্রত্যাশিতভাবে টাকার পিছনে ছুটছেনঃ

আবার আসি “টাকা আকাশে উড়ে” নিয়ে। বর্তমান সময়ে আমাদের দেশে এমন কিছু ফ্রীলান্সার আছেন। যারা আসলেই “ফ্রীলান্স” বা “ফ্রীলাসিং” কথাটির অর্থই জানেন না। তাঁদের জন্য একটু সংক্ষেপে বলি-

আউটসোর্সিং বা ফ্রীলান্সিং কি?

আউটসোর্সিং বা ফ্রীলান্সিং বর্তমান সময়ে বাংলাদেশ সহ বিশ্বের অনেক দেশে অর্থনৈতিক চালিকা শক্তির সবচেয়ে গুরুপ্তপূর্ণ ভিত্তি। বিশেষ করে যুব সমাজের কাছে যারা পড়াশুনার পাশাপাশি নিজের পকেট খরচটা চালাতে চান। একটা সময় দেখা যায় এই পেশায় তারা এমনভাবে জড়িয়ে পড়েন, যা কিনা তাদের ভবিষ্যতের আয় উন্নতির স্থায়ী পথ হয়ে যায়।

ADs by Techtunes tAds

আউটসোর্সিং ও ফ্রীলান্সিং শব্দ দুটি আমরা একই জিনিস বুঝলেও। অর্থগত দিক থেকে এদের পার্থক্য আছে বটে, সংক্ষিপ্তভাবে বলছি এদের অর্থগত পার্থক্য। আউটসোর্সিং (Outsourcing) মানে বাহিরের মাধ্যম থেকে কোন কাজ বা তথ্য নিজের কাছে নিয়ে আসা বা নিজের কাজ বা তথ্য অন্যের কাছে পাঠিয়ে দেয়া। এক্ষেত্রে শুধু ফ্রীলান্সিংকে একক ভাবে আউটসোর্সিং বলা চলে না। যেকোনো বিষয় এর সাথে যুক্ত হতে পারে। এক্ষেত্রে স্থানীয়/নিজ দেশের কাজকে কিন্তু আউটসোসিং বলা চলে না।

আর ফ্রীলান্সিং (Freelancing) বলতে, মুক্ত বা স্বাধীনভাবে কাজ করার মাধ্যমকে বুঝায়। এক্ষেত্রে বলা চলে ফ্রীলান্সাররা কিন্তু কারো কাছে কুক্ষিগত নয়, এবং কখনও হতেও পারে না। ফ্রীলান্সাররা দেশ বিদেশের সকলের সাথে কাজ করে সম্পূর্ণ নিজের স্বাধীনতায়। কেউ তাকে বাধা বা কাজে বিঘ্নিত করতে পারে না। তবে হ্যাঁ, এক্ষেত্রে কেউ যদি নিজের চেষ্টায় না করে অন্য কোন ফ্রীলান্স দল/গ্রুপ আর আওতায় থেকে কাজ করে তবে তাকে মুক্ত বা স্বাধীন ফ্রীলান্সার বলা যাবে না। এক্ষেত্রে বলে রাখা ভাল, ফ্রীলান্স কি সম্পূর্ণ ফ্রি নিবন্ধন এর আওতায় পড়ে এবং বায়ারের কাজ গুলো ফ্রীলান্স কোম্পানি থেকে নিতে নগণ্য পরিমাণ অর্থ প্রদান করতে হয়ে।

দেখুন আপনি কাজ জানেন আপনার কাছে কাজ আসবে এটা কিন্তু ঠিক। তবে, আপনি যদি চুপ করে বসে থাকেন তাহলে কি কেউ আপনাকে জানবে? আপনাকে কাজ দিবে? টাকা কামাতে চাইলে আপনাকে আপনার কোয়ালিটি জানাতে হবে। প্রমাণ করতে হবে যে, আপনি কাজের জন্য বেস্ট! আর এভাবে না চলতে পারলে শুধু টাকার পিছনে ছুটাই হবে, ফ্রীলান্স করে টাকা কামানোর শখ কোনদিন পূরণ হবে না। 🙁

৪. কাজ শিখার অমনোযোগিতাঃ

এই বিষয়টিতে সবচেয়ে বেশি অমনোযোগী নতুনরা। অনেকেই প্রশ্ন করে বসেন, “ভাই সব চেয়ে সহজ কাজ কোনটি? যেটাতে তেমন কিছু শিখতে হবে না”। এমন কথা যারা বলেন তাঁদের জন্য ফ্রীলান্সিং না! কারণ, আপনি যদি সাধারণ মানের লিখালিখির কাজ করেও আয় করতে চান তবে আপনাকে জানতে হবে, কিভাবে লিখলে আপনাকে বায়ার কাজ দিবে বা লিখায় কতটা সৌন্দর্য দিতে পারলে বায়ার আপনাকে বেঁছে নিবে সবার মাঝে থেকে! অনেকে বলেন, ভাই আমি গ্রাফিক্স বা ওয়েব ডিজাইন শিখতে চাই কিন্তু কোথায় শিখবো, কার কাছে শিখবো জানি না। তাঁদের জন্য বলি, সৃষ্টিকর্তা তো আপনাকে অন্ধ করে পাঠান নাই, তাই না? আপনিতো অন্তত নেট ব্রাউজ/চালাতে পারেন। তাহলে গুগল করুন না আপনি যে বিষয়টি খুঁজছেন। যদি ওয়েব ডিজাইন টিউটোরিয়াল খুঁজেন তাহলে কীওয়ার্ড লিখুন “Free Web Design Tutorials” অথবা “Free Web Design Video Tutorials”। আমি ১০০% সিউর আপনি আপনার কাঙ্ক্ষিত বস্তুটি পেয়ে যাবেন। একটি কথা মনে রাখবেন, আপনি এখন ২০১২ সালে এসে যে জিনিস গুলো বাংলায় খুঁজে পাচ্ছেন সেগুলো কিন্তু কিছু বছর আগেও বাংলা ছিল না। আজ যারা সফল তাঁরা কিন্তু একটা সময় আপনার মতই ছিলেন। তাঁরা ইন্টারনেটের এই বিশাল ময়দান থেকে অনেক যুদ্ধ করে আজকের সফল ব্যক্তিত্ব হয়েছেন। আপনি তাঁদের মত হওন বা না হওন, নিজে খুঁজে নেয়ার চেষ্ঠাতো করবেন? না পেলে না হয় কার হলে নিবেন। নিজের চিন্তা এবং মেধা শক্তিকে কাজে লাগান। নাহলে, একটা সময় কোন কিছুই খুঁজে পাবেন না নিজের মাঝে থেকে! 🙁

৫. ভ্রান্ত ধারনা থেকে ফ্রীলান্সিং শুরু করাঃ

ফ্রীলান্সিং নিয়ে ভ্রান্ত ধারনা কি, তা হয়তো এই সময়ে আর বলে দিতে হবে না। উপরে লিখা “আউটসোর্সিং বা ফ্রীলান্সিং কি?” এই বিষয়টি ভাল করে বুঝতে পারলে আপনাকে কেউ ভ্রান্ত করতে পারবে না। তারপরেও বলি, ধরুন, আপনি যাদেরকে ফ্রীলাসিং এ সাকসেস হতে দেখে নিজেও ফ্রীলান্সিং করতে আসলেন। কিন্তু, আপনি ভাল করে জেনে নিলেন না আসলেই আপনার ঐ ভাই বা বোনটি কি কাজ করে ফ্রীলান্সিং এ সাকসেস হয়েছেন। আর আপনার এই নাম জানার কারণেই বর্তমান সমাজে কিছু কুলাঙ্গাররা সুযোগ নিবে আপনার মূল্যবান সময়, শ্রম, অর্থ হাতিয়ে নেবার জন্য। বাস্তবিক ভাবে অনেককেই দেখেছি এখন দেখছি, কেউ কেউ নিজের সম্পত্তি বিক্রয় করেও টাকা ইনভেস্ট করে সেসব মূল্যহীন কাজে। একবার ভাবুনতো বা খোঁজ নিয়ে দেখুনতো, আপনি আপনার পাশের যে ভাই বা বোনটির সফলতা দেখে ফ্রীলান্সিং করতে নামলেন তিনি কাজ পেতে নিজের সম্পত্তি বিক্রয় করেছেন। এমনটা হতে পারে, তিনি কাজ শিখার জন্য টাকা ইনভেস্ট করেছেন কিন্তু কাজ পেতে নয়। 🙂

টিউনটির মূল আলোচনা এখানেই শেষ! আবার আপনার ভাবে দেখবার পালা। উপরের পাঁচটি কারণের যে কোন একটি আপনার মাঝে থাকলে আপনি কখনই সফল ফ্রীলান্সার হতে পারবেন না। আপনি কি উপরের কোনটির সাথে আপনার মিল খুঁজে পান? যদি মিল খুঁজে পেয়ে থাকেন আর স্বপ্ন দেখেন সফল হবার, তাহলে আপনি ভুল পথে হাঁটছেন! 🙁

আজ এই পর্যন্ত-ই! টিউনটি সম্পর্কে আপনার মূল্যবান মতামত জানাতে ভুলবেন।

সবাই ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন। 🙂

ADs by Techtunes tAds

টিউনটি একই সাথে টেকটিউনস এবং  রংপুরসোর্স  ব্লগে প্রকাশিত।

ADs by Techtunes tAds
Level 0

আমি আরিফুল ইসলাম শাওন। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 44 টি টিউন ও 1085 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

হ্যালো টেকটিউনার্স!! :) আমি আরিফুল ইসলাম শাওন, ডাক নাম "শাওন" এই বেশি পরিচিত। বিভাগীয় শহর রংপুরেই থাকি। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে এ্যাকাউন্টিং-এ গ্রাজুয়েশন করেছি। পেশায়আছি গত ৬ বছর থেকে। নিজের ফ্রীলান্স ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এবং ট্রেইনিং ইন্সটিটিউট রংপুরসোর্স এর প্রতিষ্ঠাতা, সিইও এবং লিড ডেভেলপারের দায়িত্বে আছি। ব্লগিং করছি আমার অফিশিয়াল ব্লগ বাংলা...


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

🙁 🙁 🙁 🙁 🙁

মনে হয় না হতে পারবো….

Level 0

🙂 শাত্তন ভাই সময়ের উপযুক্ত একটি লেখা। পড়ে অনেক ভালো লাগলো। আমার মত অন্যরা পড়ে অবশ্যই উৎসাহিত হবে। আমাদের দেশে সেই ছেলে হবে কবে যারা বড় হয়ে বড় ফ্রিল্যান্সার হবে।

কুচি কুচি ধইন্না পাতা….:D

Level 0

চমত্কার টিউন 😀

Level 0

কাজ শিখার অমনোযোগিতাঃ

আপনার সাথে একমত না হয়ে উপায় নাই।আমি নিজেই তো আমার উধাহরন। কাজ শিখতে চাই কিন্তু একবার গুগল মামারে জিজ্ঞেস করলাম না আমার দরকারি জিনিষ তার কথা। লজ্জা!!!!!!

চমৎকার ৫টি টপিক ! অসাধারন ! প্রতিটি কথাতেই লজিক আছে ।

[সৃষ্টিকর্তা তো আপনাকে অন্ধ করে পাঠান নাই, তাই না?] বেশি ইমশনল হয়ে পরেছিলেন নাকি ?!

কাজ শেখায় অমনোযোগীতার ব্যাপারটি আমার কাছে উল্টো হয়ে দাড়িয়েছে। সবাই বলে যেকোনো একটাতে লেগে থাকো, ভাল করবে। কিন্তু আমি সেটা পারছি কই। আপাদত ওয়েব প্রোগ্রামিং এ থাকলেও স্মার্টফোন অ্যাপ তৈরী শিখতে ইচ্ছা করছে খুব বেশি। আর ডেস্কটপ সফটওয়্যারতো রইলই। তাছাড়া আবার গ্রাফীক্স আর 3d এর কাজ শিখতে ইচ্ছা করে আবার অ্যাডসেন্সে সফল হওয়ারও ইচ্ছা করে। তাহলে seo বাদ পড়বে কেন? এখন কি করি?

    @আদনান: ফ্রীলান্স আলরাউন্ডার হয়ে যান মিয়া ভাই! 😛

    @আদনান: নিচের রুটিন টা ফলো কর। তোমার ইচ্ছা গুলো সফল হবে।
    ১। সব রকম ক্লায়েন্টের কাজ করা আজ থেকে বন্ধ।
    ২। আজ থেকে পরবর্তী ৬ মাস স্মার্টফোন অ্যাপ তৈরী শিখবে
    ৩। তার পরবর্তী ৬ মাস ডেস্কটপ সফটওয়্যার
    ৪। তার পরবর্তী ৬ মাস গ্রাফীক্স আর 3d এর কাজ
    ৫। তার পরবর্তী ৬ মাস অ্যাডসেন্স
    ৬। তার পরবর্তী ২ মাস seo
    ৭। তার পরবর্তী ২ মাস সব রিভাইস দিবে।
    তাহলে ২.৫ বছরে তোমার পড়া এবং সব শেখা শেষ হবে।
    তাহলে মোটামুটি তোমার আশা ও সফল হবে।
    **আমি কিন্তু কিছু পারিও না আর তোমাকে হেল্প ও করতে পারন না

      @nazmul0028: হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ না হেসে প্রলাম না ভাইয়া। একটা মানুষকে এভাবে রুটিন দিলেন কি থিঙ্ক করে? এক্সপার্ট হতে হয় যে কোন এক দিকে। বাট আপ্নিতো দেখছি সব জান্তা সমশের টাইপের সমাধান দিলেন!!!

    @আদনান: ভাই, আপনার সাথে আমার এমন চরম ভাবে মিলে গেল কেন??

অনেক কাজের একটা টিউন। 🙂
আমার কাজে লাগবে। 😀

PDF করে রাখলাম। দেখি ১, ২ বৈশিষ্ট্যের কোন উন্নতি ঘটাতে পারি কীনা। 😀 😛
সাথে ধন্যবাদ থাকছেই। 🙂 :mrgreen:

ধন্যবাদ।পোস্ট টি আমার অনেক কাজে লাগবে। 🙂

আরিফুল ইসলাম শাওন u r a geneous

u r a genious

Shaoner lekhar prosonsa korte hoy.. asole e or juktigula thik.. Porissrom sara kisu e kora jay na.. BijoyBlog a likhar jonno amontron janalam.

Level 0

Khub valo post
please see my profile and say am I success?
odesk
https://www.odesk.com/users/~~d14e34ae5559fe65
elance
http://arefin11.elance.com

Level 0

VAI JOTIL LAKHCEN.THANK YOU

ভাই, HTML এর উপরে কোন ভাল বাংলা বই আছে? ইন্টারনেট এ না থাকলেও যদি আপনার জানা কোন ভাল লেখকের বই থাকে, যেখানে HTML এর একেবারে শুরু থেকে আলোচনা করা হয়েছে (যেহেতু আমি এ বিষয়ে একেবারে নতুন) এবং নীলক্ষেতে পাওয়া যেতে পারে, এমন বই এর সন্ধান দিতে পারলে আমার খুব উপকার হয়। আমি সম্প্রতি HTML নিয়ে পড়াশুনা শুরু করেছি। ইচ্ছা আছে ভালভাবে ওয়েব ডেভলপমেন্ট এর মোটামুটি সবকিছু আয়ত্ত করে তারপর মাঠে নামার। ইংরেজিতে শুরু করেছি। কিন্তু বিষয়টা বেশ খটমটে লাগছে! আর কোন ট্রেনিং সেন্টার এ ভর্তি হতে চাইনা কারণ টেকটিউনস এরই এক ভাই এ ব্যাপারে নিষেধ করে একটা পোস্ট করেছিলেন। তারা যা শেখায়, তার চেয়ে অনেক বেশি টাকা নেয়। তাই গুগল মামা আর ভাল কোন বাংলা বই এর সাহায্য নিয়ে এগোতে চাই। আপনার সাহায্য একান্ত কাম্য। ধন্যবাদ।

    @পিয়াস: ভাল মানের বাংলা এইচটিএমএল ইবুক পাওয়া অনেক মুশকিল! তাও আপনার জন্য এটা খুঁজে বের কলাম। মাত্র ১৭ পাতার দেখেন কাজে আসে কিনাঃ http://www.mediafire.com/?bkhujzojzzv বইটিতে তেমন বেশি কিছু নিয়ে আলোচনা করা হয় নাই।

    আর আপনাকে কে মানা করেছেন ট্রেনিং সেন্টার এ ভর্তি হতে জানি না। তবে, প্রাক্টিক্যালি শিখলে অনেক কিছুই জানা যায়। টাকার দিকে দেখলে ভাল শিখতে পারবেন কোথায় বলুন? তবে কথাও ভর্তি হলে সেই প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে ভাল করে জেনে তারপর ভর্তি হন।

    শুভ কামনা রইলো! 🙂

অনেকেই আছেন যারা গুগল থেকে সার্চ করে বের করতেও অলসতা করে… এবং বেশির ভাগই খুজতেই চাই না যেটা শেখার মন মানসিকতা কে অনেক দূরে রাখে…
আশা করি টিউনটির উদ্দেশ্য সফল হবে
আর শাওন আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ…

ভাই খুব ভাল। লাগলো চেষ্টা করছি লেগে থাকতে।

অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে। শুভকামনা রইল।

thanks.

Apnar Tuner Image Guloi Dekhchilam.Lekhar Sathe Perfect!Apnar Onek Tune i Porlam.Skill Gulo Darun Laglo.Bujhe Nilam Amake Ki Ki Korte Hobe:-D

ভাই চরম লিখছেন ।

আমার মধ্য আপনার বলা সব গুলো গুনাগুন-ই (বেগুন) বিদ্যমান । তারপরও হব অবশ্যই (ইনশাল্লাহ) :p

Level 0

আমাকে পারতেই হবে। আপনার এ টিউন আমাকে ফ্রিল্যানচার হতে সাহায্য করবে। আমি বিশ্বাস করি আমি একদিন সত্যিই পারব। আপনার সাহায্য আমার প্রয়োজন। যদি ছোট ভাইকে সাহায্য করতে চান তাহলে আপনার মেইল বা নাম্বার আমাকে পাঠান আমি আপনার সাথে যোগাযোগ করতে চাই আমার মেইল – [email protected]

Level 0

আপনার মেইল আইডি পাঠান। প্লিজ।

ধন্য ধন্য ধন্য……১০০ ভাগ আশা ফিরে পেলাম ভাই …পারলে কিছু প্রতিষ্ঠান এর নাম জানালে অনেক ওপক্রিত হতাম যারা SEO,web degining ,Wordpress শেখাই

ভাই আমি আসি Dhanmondi,32 ঢাকা তে ড্যাফোডিল এ বিএসসি করতেসি টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং

vaia valo post ..khub valo laglo, amar jonno dowa korben . amio ekjon chotto freelancer.

Level 0

oprar konotir sata amar kono mil nai……..ami shopno dhaki abong sofol hoyar jonno porisrom korta valobasi………….! amr freelancer boro vai jara achan pls amr jonno doya korban jano ami sofol hota pari…………………!

Level 0

vai ami html,css,jquiry sikechi.akon ki korbo akto bolben plz.kibabe agabo.

    @nazim19: ভাইয়া আপনি কতটুকু শিখেছেন এবং কত ভাল শিখেছেন জানি না। তবে আমি যেভাবে বলছি এটা ফলো করতে পারেঃ

    প্রথমতঃ এইচটিএমএল এবং সিএসএস সিখুন।
    দ্বিতীয়তঃ এইচটিএমএল সিএসএস দিয়ে ওয়েবসাইট লেআউট মেক করতে শিখুন।
    তৃতীয়তঃ ওয়েবসাইট এর লেআউট কে রেসপন্সিভ ডিজাইনে কনভার্ট করতে শিখুন।
    চতুর্থতঃ পিএসডি টু এইচটিএমএল এবং সিএসএস কনভার্ট করতে শিখুন।

    প্রাথমিক অবস্থায় এই চারটি জিনিস রপ্ত করুন। এরপর, জুমলা অর ওয়ার্ডপ্রেস, জাভাস্ক্রিপ্ট, জেকুয়েরি, পিএইচপি এবং অন্যকিছু। প্রাথমিকেই ভাল জ্ঞান অর্জন না করে আডভান্স হওয়া ভুল।

    যদি তিনি ভুল না করে আসলেই এভাবেই বলে থাকেন তবে তার শিখানোর ধরণ এবং জ্ঞান নিয়ে সন্দেহ থাকে!

    পুনশ্চঃ আপনি চাইলে আমাদের ত্থেকে অনলাইন ট্রেইনিং করতে পারবেন। ওয়েব ডিজাইন, সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট বিষয়ে আমরা ট্রেইনিং করিয়ে থাকি। 🙂

      @আরিফুল ইসলাম শাওন: শাওন ভাইয়া আমি HTML , CSS ও JAVASCRIPT জানি । আপনি বলেছেন যে HTML ও CSS শিখার পর layout তৈরী করা শিখতে । তারপর Layout টাকে RESPONSIVE করতে । আমি Layout কে Cross-Browser Compitable করতে পারি কিন্তু Responsive করতে পারি না । আমি যতদূর জানি যে Responsive Design তৈরী করতে Twiiter Boostrap বা Gird system ব্যবহার করতে হয় । অনেক জায়গায় দেখেছি যে CSS3 Media Query দিয়ে কিভাবে Responsive Laypout তৈরী করতে হয় । কিন্তু শুধুমাত্র HTML ও CSS দিয়ে কিভাবে Responsive Layout তৈরী করতে হয় তা আমি জানি না । এ বিষয় releted কয়েকটা article এর link দিলে ভাল হত ।

আধ্যাবসায়হীনতা এবং সময়জ্ঞান এর অভাব আমার প্রধান সমস্যা।
আমার সবচেয়ে বড় বাধা হল ,আমার দৈনিক রুটিন একদম উল্টাপাল্টা। কখন খাই, কখন ঘুমাই কিছুই ঠিক নাই।

লেখাটা আমার চরম কাজে লাগছে পাশাপাশি আমি নিজের সম্পর্কে অনেক কিছু জানলাম!!! আরও যা জানলাম তা হল উপরের ৫টা কারণের একটাও আমার মধ্যে নেই!!এখনো ফ্রিল্যান্সিং শুরু করিনি কিন্তু অনেক ভুয়া লোকেরা আমার টাকা বাগিয়ে নেওয়ার জন্য উঠেপড়ে লেগেছিল। উল্লেখযোগ্য আমারই এক দূর সম্পর্কের আত্মীয় ডুল্যান্সার করত এবং সে অন্যের টাকা মেরে মেরে কিছুদিনেই কোটিপতি বনে যায়! মাস কয়েক আগে সে আমাদের বাসায় এসে এলাকায় জমি কিনে এবং আমাকে তার সাথে কাজ করতে বলে। এক কথায় “না” বলে দেই! বর্তমানে সে দৌড়ের উপরে :3 আর যাই হোক,আমার অভ্যাসটা হল কোন কাজ করার আগে তার সম্পর্কে ভালো জ্ঞান থাকা চাই আর “ভাবিয়া করিও কাজ,করিয়া ভাবিও না” এই কথা চিরকাল থেকে মানি!!! আজকে আরও একবার মানলাম!!! অসংখ্য ধন্যবাদ শাওন ভাই! চিরকাল কাজে লাগবে আপনার কথাগুলো। ——— লেখা ভালো হওয়ার খাতিরে আমার টিউমেন্টের সাইজটাও একটু বড় হয়ে গেল! আশা করি মাফ করবেন ^_^

শাওন ভাই , আপনি এভাবে আমার বৈশিষ্ট গুলে তুলে ধরতে পারেন না 😀

বাহ ! অনেক ভালো পয়েন্ট গুলো তুলে ধরেছেন , ভালো টিউন ।

খুবি ভাল একটা টিউন

Level 0

অনেকদিন পার আপনার পোষ্ট টা পড়ে লজ্জা পাইলাম।

ভাই আপনার পোষ্টটা পড়ে খুব ভালো লাগলো। অনেক উপকারে আসবে।
তাই আপনাকে ধন্যবাদ জানানোর জন্যে Login করতেই হল।

Level 0

:'( :'( ভাই ২০১২ তে এস এস সি দিছি। এরপর PTC কইরা ৬০ হাজার গচ্চা খাইছিলাম।এরপর থেইকা অনলাইনে ইনকাম কইরা সব টাকা অসুল করমু ভাবছিলাম। এক বছর পেরিয়ে গেলো।সাধারন ওয়েবসাইট ডিজাইনের কাজ শিখেছি। oDesk এ Account করেছি ৫ মাস + । কিন্তু এই এখনো আমার ব্যালেন্স ০০০০০০০ :'( আমি জানি আমার নিজের ব্যরথতায় আজ এই করুন দশা। কিন্তু আমি এখনো হাল ছারিনি। আমি ভাই সারারাত নেটে বসে এগুলা ঘাটতে থাকি। ফজর আযান দিলে নামাজ পড়ে তারপর ঘুমাই। তবুও আশা ছারিনাই।ইন সা আল্লাহ আমি পারবো। একদিন সফল হবই

    @Md. Rahat: এই ডিজিটাল যুগে এসেও যদি পিটিসি’র ফাঁদে পড়েন তাহলে র বলার কিছু নাই। 🙁 বাই দ্যা ওয়ে, সাধারন ওয়েবসাইট ডিজাইন শিখেছেন ভাল কথা। এখন আরও এডভান্স কাজ শিখেন। আমার নিজের করা ভিডিও টিউটোরিয়াল ডিভিডি দিয়ে দেখতে পারেনঃ http://www.blog.rangpursource.com/article-id/2842 🙂

    @Md. Rahat: যাক, অধম কেবল আমি একাই না। ভাই আসেন গলা মেলাই!!!

পোষ্ট নির্বাচিত হয়েছে। শাওন ভাই জাতি মিষ্টি খেতে চাইলে আপনি কি বলবেন??

Notunder jonne khub valo akta post ..ar jara professional hoye gese tara a sobgulai mene chole ..by d way thanks ..valo post ..future a aro valo asa kori .. (Y)

Level 0

আপনার পোষ্টটা পড়ে ভালো লাগলো । নতুনদের অনেক উপকারে আসবে। তবে ফ্রিল্যান্সিং করতে হলে আরও অনেক কিছু জানতে হবে । ভাল টিউন ধন্যবাদ আপনাকে ।

Level 0

it’s all right………..

চেষ্টাই আছি সফল ফ্রিলেন্সার হওয়ার 🙂 তথ্যবহুল টিউনের জন্য ধন্যবাদ !

আপনার টিউন টা বেশ ভাল লাগল কিন্ত একটা কথা না বললেই নয়,ভাই বানান ভুল আছে।

আরিফুল ইসলাম শাওন ভাই আমি html and css মোটামোটি শেষ করেছি আমার এখন কি করা উচিত?
আর হ্যাঁ আপনার সুন্দর টিউনের জন্য বর্তমান মার্কেটের দামী জিনিস অনেক গুলো দেশী ধইন্নাপাতা !!!!

Level 0

সুপার tune……….অনেক ভালো লাগলো…………keep it up…..

Free Software,Games,Movie,Live TV,Bangla Newspaper And Much More

http://softandmovie.com/

Get Free Facebook Like,Twitter Followers,Google Plus Traffic Exchange And Much More

http://fastestlike.com/

Level 0

অসম্ভব ভালো লিখেছেন।এক কথায় অনবদ্য।

অনেক ভালো লাগলো।

এগুলোর একটাও আমার সাথে মিলেনা, আমি ইলাসট্রেটরে লোগো ডিজাইন করি এবং প্রায় বছর হতে চললো অডেস্ক ও ইলেন্সে বিড করতে করতে আংগুল বেঁটে হয়ে গেছে, 😉 কেউ ফিরেও তাকায় না, অর্থাৎ ১টিও কাজ পাইনি। 🙁

Level 0

vai apnar nijer advic theke emon 5ta FreeLn er kajer name sugst koren jegulor online market bepok, jegulor antoto 1a or 2ta te khub dokkho hole valo kaj korte parbo.kichu kichu kaj pari but age jekono kaje valo spclst hoe then freeln e jete chai.pleas sugst any 5.thanx.

সুন্দর পোস্ট !