ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

মেলামাইন যুক্ত দুধ: প্রজন্ম ধ্বংস করার উৎকৃস্ট হাতিয়ার

ফটিক টাইপের পিচকি আমার খুব পছন্দ, কারন আমারে প্রথম দেখাতেই চিনে আমি কেমন টাইপের পোলা। তাই সবার আগে আমার চশমা তারপর মাথার চুল- এদুটো জিনিসের উপর গেরিলা অ্যাটাক করলে আমি রিফিউজিদের মতো অসহায় হয়ে পড়ি। তবে আমি স্বীকার করি বা না করি শিশুরা কিন্তু বড়ই নিস্পাপ আর একমাত্র বুড়া হলেই বুঝতে পারি শিশুকালে সবার পিটানিতেও কি মজা মিশানো ছিলো!তবে এখন পিচকিদের দেখলে খুব ভয় হয় কারন এদের আছে নিডো তাও আবার মেলামাইন যুক্ত। এটা কিন্তু বড়ই চিন্তনীয়!

ADs by Techtunes ADs

কি জন্য সেটাই ব্যাখ্যা করি!

চৈনিক বোচনেরা একটা অকাম করেছে সেটা হলো দুধে এরা বিষ মিশাইছে। কেউ বলে নিডোতে বিষ আছে কেউ বলে নাই, নেসক্যাফে বলে নাই,

1.JPG

বিএসটিআই বলে আছে। দড়ি টানাটানি আর কাবাডি শুরু হয়ে গেছে।

আমরা জানার চেস্টা করি এই বিষটা কি?

এই বিষটা হইলো মেলামাইন. যেমন ধরেন শরীফ মেলামাইন: ভাংলেও ভাঙ্গে না, পুড়াইলেও পুড়ে না! এইটা ইন্ডাস্ট্রিয়াল কেমিক্যাল যেইটা মূলত সায়ানুরামাইড নামে পরিচিত। এর মলিকিউলার সংকেত হইলো C3H6N6
4.JPG

এইটা সাধারনত আমেরিকায় রেসিসট্যান্ট বোর্ড তৈরীতে ব্যাবহ্রত হয়, বাংলাদেশে থাল বানাইতে ব্যবহার হয় আর কুটিকালে যেই সস্তা বিলাতী দুধ খাইতাম সেইটায় আছে কি না জানি না!মেলামাইনের সাথে ফরমালডিহাইড মিশাইলে এইটা হেভী পোক্ত হয় তখনই এইটা এইসব কাজে ব্যবহার করা হয়!

2.JPG

তার মানে বুঝা যাইতাছে মেলামাইন মোটেও খাওনের জিনিস না, এইটা এমুন একটা ইন্ডাস্ট্রিয়াল কেমিক্যাল যেইটা খাওনের জিনিস হইতেই পারে না!

6.JPG

এখন কথা হইলো এত কিছু থাকতে চৈনিক বোচনিস্টরা এই দুধের বদলে মেলামাইন খাওন শুরু করাইলো কেন?

পুস্টিগুন হিসাবে দুধের মধ্যে যেইটা আছে সেইটা হইলো প্রোটিন আর মেলামাইনের সেই একই প্রোটিন আছে যেটার মধ্যে আছে নাইট্রোজেন। সেই চিন্তা করে দুধের মধ্যে যতো বেশী মেলামাইন মিশানো যাবে ততো লাভের টাকা মানে ডলার মানে পাউন্ড বাড়বে! কারন এতে খরচা পাতী কম হবে! আপনারে এক মুঠো গুড়া মেলামাইন দেখাইলে আপনার ঠাহর করার উপায় নাই এইটা গুড়া দুধ না মেলামাইন, কারন এর কোনো গন্ধ নাই আর পুরা ফিলিপস লাইটের মতো ফকফকা সাধা!

ADs by Techtunes ADs

5.JPG

এখন কথা হইলো যদি এমুনই চেহারা হয় তাহইলে ধরা খাইলো কেমন চৈনিকরা?

বছর ২০০৭ এ আমেরিকার কুকুর আর বিড়ালের উপর আল্লাহর গজব নাইমা (মোল্লাদের ভাষায়)পড়লো, পাইকারী দরে মরা শুরু করলো। তখন খোঁজ নিয়া দেখা গেলো এইসব পোষা প্রাণীদের খাবারে মেলামাইন আছে ভালো পরিমানে!২০০৮ এর শুরুর দিকে চীনে গণহারে পিচকিদের কিডনিজনিত রোগের সমস্যা দেখা দিলো!এই বছরের আগস্টে চীনের সানলু গুড়া দুধে মেলামাইন পাওয়া গেলো। সেপ্টেম্বরের ২১ তারিখে তাইওয়ানে খোঁজ নিয়া জানা গেলো বেশীর ভাগ খাবারেই মেলামাইনে ঠাসা!

এখন কথা হইলো মেলামাইন খাইলে কি হয়? শরীর মেলামাইনের মত পোক্ত হইলে সমস্যা কই?

সমস্যা হইলো মেলামাইন খাওনের পর কিডনিতে থাইকা যায় আর কিডনির টিউব গুলানের মধ্যে বসবাস করা শুরু করে। ফলে পোলাপানের হিস্যুতে সমস্যা

7.JPG

হয় আর ব্যাথা চরমে ঠেকে। মানে কিডনিতে পাথর! কিডনি তখন বড় হইতে থাকে!

এখন ডায়ালাইসি কি সেইটা একটু বুঝাই!

 9.JPG

ডায়ালাইসি খুব ভালা জিনিস, যাগো আর কি কিডনি ধর্মঘট করা শুরু কইরা দিছে, অন্তত তারা এইটা বুঝে! ঘটনা হইলো এইটা রক্ত পরিস্কারক বলা যায়, মানে হইলো গিয়া শরীরের রক্ত গুলান একটা মেশিনে ঢুকায়া ফিল্টার করাইয়া আবার জায়গারটা জায়গায় ফিরায়া দেয়ার পদ্ধতিই হইলো ডায়ালাইসিস।

10.JPG

পুরা কাজটা করতে মাত্র ঘন্টা চারেক লাগে আর তিন দিন পর পর করতে হয় আর বিবাহ করা বৌ এর মতো বাকী জীবন চালাইয়া যাইতে হয়।

11.JPG

ADs by Techtunes ADs

সাবডায়ালাইসিস ক্যাথেটারের জন্য হাতের মধ্যে মোটামুটি একটা গর্ত করতে হয় যেইটা দেখলে শরীর শিরশিরি করে।

12.JPG

এখন কথা হইতে পারে বুড়া মানুষ তো করায়ই এইসব আর আল্লাহ রোগ দেনে ওয়ালা তিনি লেনেওয়ালা, তাহইলে পুচকিদের কি সমস্যা?

সমস্যা হইলো একটাই পিচকিদের কিডনি খুব ছোট আর দিন ভইরা খালি এরা গুড়া দুধই খায় আর বেশ ভালো পরিমানেই খায়। আমিও খাইছি গেন্ধাকালে!নীচের ফটুকে দেখেন পিচকিদের কিডনি গেলে কি শাস্তিটা দেওন হয়! চীনে এরম এখন ১৩০০০ পুলাপান হাসপাতালে এই ডায়ালাইসিসের জন্য!

13.JPG

এখন কথা হইলো কি পরিমান খাইলে মিটার ডাউন হইতে পারে?

কিন্তু কথা হইলো বিষ যদি বিষই হয় তা হইলে সামান্য খাইলেও যা বেশী খাইলে তার চেয়ে একটু বেশী তার মানে আসল কথা হইলো খাওন যাইত না!তাইলে সবচেয়ে প্রয়োজনীয় কথা হইলো কি খাওন যাইতো কি খাওন যাইতো না!নীচের ফটুক দেখেন আর ঢোক গিলেন, টেস্ট করনের দরকার নাই বাংলাদেশে, যেইখান থিকা এই গুলান সেইখানেই এগুলার গায়ে সিল ছাপ্পর পইড়া গেছে, বিএসটিআই যাওনের কাম নাই!

14.JPG

সোজা বাংলায় যেই খাওনে ক্রীম বা ননি বা দুধ আছে, সেইটারে বাই বাই!

আমরা এখন কি করুম?

বডিবিল্ডারগো কোনো সমস্যা নাই, কারন এরা গরুর দুধই খায়। প্রাপ্ত বয়স্কদেরও সমস্যা নাই  কারন বডি বিল্ডিং যখন করা লাগে না তখন না খাইলেই হয় আর খাইলে মিল্ক ভিটা না হইলে আড়ং মারং খান। তবে সবাই এমনে খাওন শুরু করলে বাজারে গরুর দাম বাইড়া যাইবো!তবে একটা কথা কই, বাঙ্গালী কসাই না। আমাদের যারা এসব দুগ্ধ জাত পন্য বা কফি বার অথবা রেস্টুরেন্ট ব্যাবসায় জড়িত তারা যেনো এই বিষ বিক্রি না করে। আর শিশুদেরকে যেনো মায়ের দুধই খাওয়ানো হয়। এখন তো সব আবার স্বাস্হ্য সচেতন, তবুও.

ADs by Techtunes ADs
Level New

আমি অশ্রুগুলো রিনকে দেয়া। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 11 বছর যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 18 টি টিউন ও 104 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

ছেলেটি পথে নেমেছিলো একদিন নীল মায়ার হাতছানিতে। নিঃসঙ্গতায় হেটে যেতে আবিস্কার করে নিঃশব্দ চাদ তার একান্ত সঙ্গী। এখন সে হাতড়ে বেড়ায় পুরোনো সুখস্মৃতি, ঘোলা চোখে খুজে ফেরে একটি হাসি মুখ!


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

সবাইকে বলছি যারা এ পোস্ট টা পড়ছেন, তারা যেনো পরিচিত যাদের বাচ্চা কাচ্চা আছচে তাদেরকে এই পোস্ট বা বিষয়টা সম্পর্কে জানিয়ে দেয়। এটা আমাদের সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকেই করা উচিত!

হুম রিন ভাইয়্যা ….. বাচ্চাটার ছবি দেখে অনেক খারাপ লেগেছে আমার …… আমি কি আপনার এই পোষ্টের লিংক টা ফেসবুকে দিতে পারি?

আবার জিগায়!

দ্রুত দিয়া দেন! আমি সেদিনও এক পরিচিতরে দেখলাম চা খাওনের জন্য ডিপ্লোমা কিনলো। আমি কিছু বলাতে কইলো,” কিন্যা যখন ফেলাইছি তখন খাইয়া শেষ কইরা আর খামু না!”
মনটা চাইলো কিছু বলতে কিন্তু ভদ্র ভাষায় কিছু বইলাও লাভ নাই। খালি একটু বুঝায়া কইলাম,” নিজে মরেন অসুবিধা নাই, বাসার ভাইস্তাটারে এইটা খাওয়াইয়েন না!” এইটা শুইনা দেখলাম একটু মনক্ষুন্ন হইলো।

আমার মনে হয় পাবলিক বুঝতাছে না এখনও!

যত পারেন সবাইকে জানানোর ব্যাবস্হা করেন যে জিনিসটা কি ভয়াবহ!

যেইখানে পারেন এইটার লিংক দেন, সবাইরে মুখে মুখে জানান। পিচকি গুলান মইরা গেলে হাহাকার পইড়া যাইবো চারিদিকে!

আজকে সকালেই এই মেলামাইন যুক্ত দুধ নিয়ে কথা বলতে ছিলাম। কিন্তু বিষয়টা আমাদের কাছে পরিষ্কার ছিল না। আপনার এই টিউনটা পরে অনেক কিছু জানলাম। আর আমার মনে হয় এই টিউনটা আমাদের সবার কেমপেইন করা প্রয়োজন..

চমৎকার লেখা। আমাদের সবারই দ্বায়িত্ব এই ব্যপারে মানুষকে সচেতন করা। আপনাকে আপনার দ্বায়িত্ব পালনের জন্য অনেক ধন্যবাদ।

সা— লা— ম , সালাম গুরু তোমায় সালাম..

এই পোস্ট পড়ে অনেক অজানা তথ্য জানা হয়ে গেল, তবে সর্বস্তরে এই মেলামাইনের ক্ষতিকর দিক সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে না পারলে এর পরিণাম যে কত ভয়াবহ হতে পারে তা চীনাদের দেখেই বোঝা যাচ্ছে বৈকি। আর এ জন্য আমিও মেহেদী হাসান ভাইয়ের সাথে একমত, ক্যামপেইন অত্যাবশ্যকীয়।
অতিবগুরত্বপূর্ণ এই পোস্টের জন্য রিন ভাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

Level New

দারুন লেখা।

পোস্ট দিয়া সারটে পারলাম না দুধের লিটার 50টাকা হইয়া গেলো। এখন আমার কি হইবো? আমার আবার দৈনিক 1 লিটার ছাড়া চলে না! এই দুর্দিনে সবাই এখন গরুর দুধের পিছনে লাগছে!

Level New

অবশ্যই সময়োপযোগী পোষ্ট। এ ব্যাপার নিয়ে প্রতিদিন পত্রিকায় কম বেশী লেখা হচ্ছে। চোখ বুলাই এবং মন দিয়ে দু একদিন পড়েছিও। কিন্তু পরেনতি এত ভয়াবহ হতে পারে তা আগে বুঝিনি। অনেক অনেক ধন্যবাদ আপনাকে।

Level New

vai facebooke amder akta groupe ace nam “poingkha chora” kivabe ami apnar ai tunes ta post korte pari ? pls help koren ami Noton.

আমার প্রিয় পিজা হাটও তাইলে এই দলের অর্ন্তভূক্ত। খামু না ,আর খামু না। অশ্রুগুলো রিনকে দেয়া ভাইকে অসংখ্য ধন্য সহজ ও সাবলীল ভঙ্গীতে এমন একটা জনগুরুত্বপূর্ন বিয়ষটাকে আমাদের সামনে তুলে ধরার জন্য।

আমি রিন ভাইয়ের এই টিউনটা আজকেই প্রোমশনের ব্যবস্থা করতেছি… গ্রেট টিউন..

ভয়াবহ!

মেলামাইনের বিষাক্ততার বিশদ ভাবে জানালে ভাল হত। অনেক বিষাক্ত পদার্থেরই লিথাল ডোজ বলে একটা টার্ম চালু আছে। এছাড়া গ্রহণযোগ্য মাত্রা বলেও একটা শব্দ আছে। এছাড়া বিভিন্ন বয়স এবং অন্য কোন বৈশিষ্ট ভেদে ভিন্ন ভিন্ন গ্রুপের মানুষের উপরেও এর প্রভাব ভিন্ন ভিন্ন হবে – এর উপর কি কোন তথ্য আছে?

খাদ্য হিসেবে ম্যালামাইনের কি কোন উপকার আছে?

ম্যালামাইনের দাম বাড়িয়ে দিলে তখন আর লাভের জন্য দুধে এটা কেউ মিশাবে না।

akebare patapati.
nice very nice for ur info.
thanks jashim

এখানে কিছু কথা বলে রাখা উচিত। আসলে মেলামাইন যে দুধের সাথে মিশানো যেতে পারে এটা 2007 সালের আগে কারো ধারনার মধ্যে ছিলো না। কিছু কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা সবার নজর কাড়ে!
2007 সালে কুয়েতের মতো দুই একটা দেশ বাড়ী ঘরের বাসন পাত্র যেমন চামচ, টিস্পুন, তরকারীর বড় চামচ, বাসন কোসনে মেলামাইনের ব্যাবহার নিষিদ্ধ করে কারন এগুলো বাসন কোসনের গ্লেজ বাড়ালেও সায়ানুরামাইডের সাথে ফরমালডিহাইডের ব্যাবহারকে স্বাস্হ্য ঝুকির মধ্যে ফেলে দেয়। আর এটা হয়তো সবারই জানা ফরমালডিহাইডও স্বাস্হ্যের জন্য বেশ ক্ষতিকর!
এখানে মেইন যুক্তি হলো মেলামাইন হলো ক্রিস্টালের মতো গুড়ো যার নাম সায়ানুরামাইড। এটার জৈবিক বিশ্লেষনে দেখা যায় কার্ন নাইট্রোজেন আর হাইড্রোজেন। এটা যখন কিডনীতে যায় তখন এ্যামোনিয়া তৈরী হয় যেটা কিডিনীতে সমস্যার সৃস্টি করে। আবার আরো ব্যাপার হলো মেলামাইন ক্ষুদ্রতম পর্যায়ে বিশ্লেষিত না হলেও কিডনীতে গিয়ে দীর্ঘতম সময়ের জন্য জমা হতে থাকে। ফলে যেটার সৃস্টি হয় সেগুলো হলো কিডনীর আর্টারী তে ব্লকেজের সৃস্টি হয় আর দীর্ঘতম সময়ের জন্য কিডনীর স্বাভাবিক কারজ কর্মের ব্যাঘাত ঘটে আর কর্মক্ষমতা কমতে থাকে। এর ফলে সময় যত হয় মূত্রের সন্ঞালন, রক্তের পরিসন্ঞ্চালন আরও অন্যান্য কাজে বাধা গ্রস্হ করে আর লিভারেও এর প্রভাব দেখা দেয় যার ব্যাখ্যা ডাক্তাররা ভালো দিতে পারবেন। এর ফলে শিশুরা দ্রুত সংক্রমিত হয় কারন তাদের কিডনী এমনি ছোট আর তারপর এরা প্রচুর পরিমাণে দুধ খায়। তাই বড়দের চেয়ে ছোটরা দ্রুত সংক্রমিত হয়!

আর ডোজের লেভেল এখনো অনির্ণীত। তবে ওয়ার্ল্ড হেল্থ অর্গানাইজেশনের মতে: যেহেতু বানব শরীরে মেলামাইনের কুপ্রভাব সরাসরি ভাবে নির্নয় করার মতো কোনো উপাত্ত নেই , তাই প্রানিদের উপর কুপ্রভাব গুলো দেখা যেতে পারে।প্রাণীদের উপর টেস্ট করে দেখা যায় মেলামাইন নিজেই পাথর তৈরী করটে সক্ষম।সায়ানুরামাইডের সাথে মিশে কিডনীতে পাথরের পরিমান বাড়াতে যেটা মূলত মেলামাইন তৈরীতে ব্যাবহ্রত হয়।এইসব ছোট ছোট ক্রিস্টালের কণাগুলো কিডনীর টিউবগুলোতে পাথর বাসা বাধে আর এর কার্যক্রমে বাধার সৃস্টি করে যার ফলে মূত্রের সৃস্টিতে বাধা প্রদান করে, কিডনি আর কাজ করতে পারে না, আর কিছু কিছু ব্যাপারে মৃত্যুর সম্ভাবনাও দেখা দেয়!
কিছু কিছু ব্যাপারে প্রাণীদের মাঝে মেলামাইনের ফলে কারসিনোগিক এফেক্ট দেখা দেয় কিন্তু মানব দেহে এই এফেক্টের সাথে মেলামাইনের সরাসরি সম্পৃক্তকরনের ডাটা হাতে নেই!”

তার মানে দেখা যাচ্ছে এখনও সময় হয়ে ওঠেনি যে কত ডোজের কি পরিমান মেলামাইন ক্ষতির সম্ভাবনা ঘটায় তবে এটা শিওর চীনের ঘটনা, বা আমেরিকার ঘটনা কোনো প্রকারের কো ইনসিডেন্ট না। এটার জন্য মেলামাইনই দায়ী সেটা যে পরিমানই হোক না কেন! একটা এক দুই বছরের বাচ্চার জন্য যেকোনো ডোজই খারাপ কারন তাকে বাচতে বাচতে হবে আরো 60-70বছর! এটা অন্তত মাথায় রাখতে হবে।

একটা খবর দেয় এ মাসের 18 তারিখে জাপানের একটা কোম্পানী চীন হতে আমদানিকৃত ডিম পাউডারে মেলামাইনের উপস্হিতি পায়। আর তার কিছু দিন আগে কিছু জাপানীজ অসুস্হ হয়ে পড়েন ফ্রোজেন সবুজ মটরশুটি খেয়ে অসুস্হ হয়ে পড়ে। এর ফলে চীন হতে যাই আনা হচ্ছে সবকিছুকেই মাইক্রোস্কোপের নীচে নেয়া হচ্ছে!

আশা করি শামীম সাহেব তার উত্তর পেয়েছেন! তবে বাংলাদেশের ডাক্তাররা মেলামাইন সম্পর্কে কি ভাবছেন সেটা নিয়ে আমি একটু সন্দিহান কারন তাদের পেয়ারের নিডোও আজ প্রশ্নবিদ্ধ!

তবে মেলামাইনের দামি বাড়ানো খুব একটা বুদ্ধিদীপ্ত সমাধান না। তাহলে সোনার সাথে খাদ হিসাবে তামার দাম বাড়ানো, শাক সব্জী ঠিক রাখার জন্য ফরমালীনের দাম বাড়ানোও আরেকটা বাজে সল্যুশন!

আশা করি আমাদের আরো একটু মাথা খাটানোর দরকার, যেটা অবশ্যই বৈজ্ঞানীক সব সম্ভাবনাকেও সমর্থ করে!

রিন ভাই, সবই বুঝলাম কিন্তু আমাদের দেশে এই খ্যদ্য নিয়ন্ত্রণ ( বা এরকম কিছু ) কোন আইন নেই কেন? সমস্যা কোথায়? আর আমাদের দেশের কোন গুড়া দুধে কী আসলেই মেলামাইন পাওয়া গেছে বা আদৌ কোন পরীক্ষা করা হয়েছে?

প্রযুক্তিবিদ ভাই, বাংলাদেশ এমন একটা দেশ যেখানে রাস্তা নস্ট করার জন্যও আইন আছে কিন্তু এর প্রয়োগ নেই। দেখা যায় এখানে ইয়ে করলে 10 টাকা জরিমানা লেখা থাকে, কিন্তু কে লিখেছে কে নেবে, সেটারও কোনো ধারনা নেই।
যেহেতু বিএসটিআই বলছে তারা আর আরও দুটি প্রতিষ্ঠান দিয়ে পরীক্ষা করিয়েছে তার মানে বলা যায় এখন সবাই একটু নড়ে চড়ে বসেছে। আপনি বিএসটিআই বিল্ডিং এর সামনে দিয়ে ঘোরাঘোরি করলে দেখবেন এখানে মেলামাইন সনাক্তকরনের কীট পাওয়া যায় লেখা একটা সাইনবোর্ডও আছে।

আমাদের দেশে জন গনের একটা সমস্যা আছে, কাকে কান নিয়ে গেছে আর সেটা যদি সরকারী কাক হয় উদাসীনতা বা চান্ঞ্চল্যতা সবই পরীলক্ষিত হয়। তাই আমাদের বোঝা উচিত কি করা যায়। ইদানিং একটা কনফিউশন আছে ঢাকা ইউনির ল্যাবে মেলামাইন পাওয়া গেলে অন্য গুলোতে পাওয়া যায় নি। কিন্তু কেউ এটা বলছে না নিডো ব্রান্ডের যে দুধটা এদেশে পাওয়া যায় সেটা নেসলে ছাড়া অন্য কেউ ডুপ্লিকেট বা ইম্পোর্ট করে কিনা।

আবার আমরা সবাই জানি দেশের সবচেয়ে কাচা দুধের র আনে আবুল খায়ের। এবং তার বেশ বড় বড় লট মাঝে মাঝেই ধরা খায় নিম্নমানের দুধ আমদানি করার জন্য। কিন্তু আবুল খায়ের এমনি ক্ষমতা শালী ব্যাক্তি বাংলাদেশের কোনো সরকারই তাদের একটা চুল নাড়াতে পারে না কারন তারা দেশের সবচেয়ে বড় তেলের ইম্পোর্টারও সাথে আরও অন্যান্য কিছু ভোগ্যপন্যেরও। পারলে সে দেশের দুর্ভিক্ষ বাধায় দিতেও পারে। কিন্তু আমরা সবকিছু জেনেও এইসব বাজে জিনিস দিয়ে তৈরী কনডেন্সড মিল্ক খাই। সয়াবিন তেলের দাম না কমলে সরকারকে গাল দেই কিন্তু কাউকে দেখলাম না পারটেক্স বা সিটি গ্রুপ বা আবুল খায়েরের মতো লোকদের কিছু করতে। আপনি খাবেনও কাজও করবেন ভুল তাহলে বলেন আপনাদের উপরোক্ত জিনিস জানিয়েও অর্থহীন আবার করেও অর্থহীন। কারন দোষটা আমাদের, আমাদের কনসপশনের।

তাই আইন ফাইন করে কোনো লাভ নাই। আবার সেদিন দেখলাম টিভিতে এক মহিলা নিডো কিনার পর বলছে, সরকার তো দেশের বাইরে পাঠিয়েছে, রিপের্ট আসুক তারপরই বন্ধ করবো।অথচ তার হাতে অল্টারনেটিভ থাকা সত্বেও এটা করছে!

এখন বলেন আমাদের কি হওয়া উচিত?

Dear Asru Gulo Rin ke die,

I am a very new reader of techtunes and i am very impressed reading your writing. Because just after logging in the site the first article i read was one of your’s. And today i again went through this article regarding melamine and it was really awesome. Can i get your mail ID ? I have lots of question to ask but i dont get any person befitting for that…………i hope u may be the one.

মারুফ ভাই, মাইরা ফেলাইছেন। আমিও অনেকদিন পর এই সাইটে আইসা আপনের কমেন্টখান পইড়া টাস্কি খাইলাম।

আমার ইমেইল চাইছেন নেন সমস্যা নাই: [email protected]

তবে আমি কিন্তু খুব বেশী জ্ঞানী না। নিতান্তই প্রতিটা ক্লাসে সফলতার সহিত লাস্ট হইয়া পাশ করছি!