ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

হয়ে উঠুন গ্রাফিক্স ডিজাইনারঃ সফল হওয়ার আগের কথা

ADs by Techtunes ADs

ডাটা এন্ট্রি বলেন, আর ভি-এ বলেন- পোর্ট ফলিওতে দু একটা নিন্মমানের লোগো ডিজাইন কিংবা ফটো এডিট থাকবেই। দোষের কিছু নয়, বলছি কি লাভ এতে? একটা বেপারই বোঝা যায়, ফটোশপ- কিংবা ইলাসট্রেটর সম্পর্কে এই লোকের কিছু ধারনা আছে। হয়ত আগ্রহও আছে। বাট, প্ল্যানিং নেই। কাজও নেই।

আবার অনেক নতুন। এখনো কোন কাজ করছেন না। শুনেছেন, ডিজাইনারদের অনেক টাকা, তাই ডিজাইনিং শেখার জন্য, ফেসবুকে কাউকে অনলাইনে পেলেই টেক্সট করা শুরু করেন। কিভাবে করবো? কেন করব? কথায় শিখব? আপনে সিখাবেন? বলা বাহুল্য, এই চ্যাটে গ্রাফিক ডিজাইন কি সেটা শেখানও সম্ভব হয়না। অজ্ঞতা যথেষ্ট বিরক্তি আসে- কারন এই লোকেরা মনে করে- ফেসবুকে অনলাইনে থাকা মানেই- এই লোক ফ্রি আছেন এবং যে কোন ধরনের উদ্ভট প্রস্ন করা যায়। তাই- লিখার অভ্যাস না থাকলেও দু চার কলম লিখলাম। আশা করছি- ভুল গুলো আপনাদের চোখ এড়িয়ে যাবে। পিঃ

ওয়েল, গ্রাফিক ডিজাইন একটি সৃষ্টিশীল কাজ। গতানুগতিক অন্য কাজগুলো থেকে আলাদা। এই কাজটির চাহিদা  আছে থাকবে। আপনি এখন যেই স্ক্রিনে এই লিখাটা পড়ছেন, সেটার শুরুও গ্রাফিক্স। যেই মোবাইলে আপনি জানে জিগারের সাথে কথা বলছেন- সেখানেও আছে গ্রাফিক্স। টেলিভিশন, ফিল্ম  থেকে শুরু করে, উচা উচা বিল বোর্ড - সব কিছুই গ্রাফিক্সের আওতাভুক্ত। সহজ কথায়- কম্পিউটারের মাধ্যমে দৃষ্টিনন্দন যে কোন কাজকেই আমরা গ্রাফিক্স বলতে পারি। সো, কাজটা মজার। কথা হল- কাজটা আপনার জন্য কি না।

১। প্রাথমিক যোগ্যতাঃ

আপনার কোন ফ্যান্টাসি আছে? কাউকে নিয়ে জেগে জেগে স্বপ্ন দেখেন? তার শরীরের কোন অংশটা সুন্দর, কোন অংশটায় খুত আছে- ধরতে পারেন? কোন রঙের লিপসটীক তাকে বেশি মানায়? কোন জামাটায় তাকে পরীর মতো লাগে? তাকে কখনো পুতুলের মতো সাজিয়ে রাখার চিন্তা করেছেন? উত্তর গুলো যদি পজিটিভ হয়- হবে- আপনাকে দিয়েই হবে। জাস্ট খালি ক্যানভাসটাকে আপনার গার্ল ফ্রেন্ড মনে করেন। মনে মনে মনের মতো করে সাজান। এক কানে না দিলে কিই বা হয়- ভেবে এক কানের কানফুল না দিয়ে চলে যাবেন না। সাজিয়েছেন? সুন্দর লাগছে? কনগ্রাটস -আপনি বরন ডিজাইনার।

আপনার কোন ফ্যান্টাসি নাই? নো প্রবলেম। আরেক জনের গার্ল ফ্রেন্ডরে সাজান!

২। ক্ষেত্র নির্বাচন করুনঃ

নিজেকে গ্রাফিক ডিজাইনার বলার আগে- আপনাকে কিছু সিদ্ধান্তে আসতে হবে। আপনার কোন দিকে আগ্রহ আছে? যেমনঃ এডভারটাইজিং, ওয়েবসাইট, মাল্টিমিডিয়া, প্রিন্ট ডিজাইন অথবা অ্যানিমেশন। এগুলোকে গ্রাফিক্স এর বিভিন্ন ক্ষেত্র বলা হয়। শুরু করার আগে, আপনার সমস্ত আগ্রহ একটা ক্ষেত্রে নিয়ে আসুন। যেটা আপনাকে সবচেয়ে বেশি আকর্ষিত করে। যদিও ওয়েব এবং প্রিন্ট গ্রাফিক্স কিছুটা কাছাকাছি, তবে কিছু বেসিক পার্থক্য আপনাকে জানতে হবে। তাই, শুরু থেকেই বেপারটায় ফোকাস দিলে- উন্নতি তাড়াতাড়ি আশা করা যায়।

৩। প্রয়োজনীয় টুলস জোগাড় করুনঃ

ADs by Techtunes ADs

গ্রাফিক ইন্ডাস্ট্রিতে বিপ্লব ঘটানো দুটি সফটওয়্যার হল- এডোবি  ফটোশপ আর ইলাসট্রেটর। এই দুইটা দিয়েই শুরু করুন। সহজ বেবহার, অনন্যসাধারণ ফিচার। যে কোন শৈল্পিক কাজে- এদের চাইতে কার্যকরী কোন সফটওয়্যার চোখে পরেনা। বাজারে সিডি কিনতে পাবেন। আর না হলে টরেন্ট থেকে ডাউনলোড করে নিন।

৪। বই কিনুনঃ

যে যাই বলুন। বইয়ের আপিল আমার কাছে অন্য রকম। বাজার থেকে কিছু বই কিনে নিন। উঠতে, বসতে, গাড়িতে কিংবা কারেন্ট গেলে বারান্দায় বসে- বই গুলোতে চোখ বুলান। ১৫০-২০০ টাকা খরচ করে যা শিখতে পারবেন।  ইন্টারনেটএ পাঁচ ঘণ্টা সার্ফিং করেও তার অর্ধেক পাবেন না। তবে- আমাদের দেশি বইগুল লিখাই হয়- আন্দরকিল্লা কিংবা নীলক্ষেতের গ্রাফিক ডিজাইনারদের উদ্দেশ্য করে। তাই মানের যথেষ্ট ঘাটতি আছে। মান্সম্মত ই-বই ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে নিতে পারেন। মানের কমতি থাকবে না।

৫। ট্রেনিং নিনঃ

মানুষ সব চেয়ে বেশি শিখে দেখে। তাই ২/১ মাস কারো কাজ দেখুন। হতে পারে সেটা ট্রেনিঙের মতই নিয়মিত। এতে আপনার কাজের স্পৃহা বারবে। গতিও বারবে সন্দেহ নেই।

৬। গ্রাফিক কমিউনিটির সাথে ইনভল্ভ হনঃ

নিজে নিজে প্র্যাকটিস করাটা গ্রেট। (y)  তবে মাঝে মাঝে নিজের কাজ গুলো অন্যদের দেখান। যদিও প্রথম দিকে এটা খুব পেইনফুল টাস্ক হবে কোন সন্দেহ নেই, অনেক সময় ভালো কিছু সাজেশন পেতে  পেতে পারেন। তাই নিজের ইগোটাকে দমিয়ে রাখুন। অন্নের মতামতটাকে সিরিয়াসলি নিন।  আবার অন্নের কাজ গুলও দেখা জরুরী। অন্যরা কি কাজ করছে তা দেখলে আপনি প্রেজেনট ফ্যাশন/ ট্রেনজ বুঝতে পারবেন। উপরন্তু- ফ্রিলেন্স কাজের ক্ষেত্রে এটা আরও অনেক বেশি দরকারি। সমপেশাজীবীদের সাথে বন্ধুত্ব গড়ুন, যোগাযোগ রাখুন, তাদের কাছ থেকে শেখার মন মানসিকতা তইরী করুন। সফলতা খুব একটা দূরে নয়।

৭। সুযোগ থাকলে ডিগ্রি নিনঃ

আপনি গ্রাফিক ডিজাইনের প্রতি সত্যিকারেই সিরিয়াস? এটাকে আপনার একাডেমিক শিক্ষায় যুক্ত করুন। একটা সার্টিফিকেট থাকাটা সবসময়ই একটা প্লাস। তাছাড়া- অনেকেই গ্রাফিক ডিজাইনার হায়ার করেনা, যদিনা সে দেখতে পায়, আপনি প্রপারলি ট্রেইনড।

৮। ডু ওয়াট ইউ লাভঃ

ADs by Techtunes ADs

এই ইংরেজি বাক্যটা যত হালকা দেখছেন, তত হালকা নয়। এটা খুবই সিরিয়াস ফিলসপি। নিজের স্টাইল তইরী করুন। আপনি কালার নিয়ে খেলতে ভালবাসেন? খেলুন। হাজার হাজার কালার আনুন আপনার কাজে। অথবা, যদি আপনার পরিচ্ছন্ন, ভারসাম্যপূর্ণ সিম্পল ডিজাইন ভালো লাগে- তাই করুন। সর্বোপরি, নিজের জন্য নিজস্ব ডিজাইন সেন্স তইরী করুন।

৯। এখনো পড়ুনঃ

পড়া ছাড়বেন না। গ্রাফিক সম্পর্কিত আর্টিকেল পড়ুন। প্রফেশনালদের স্টাডি করুন। নিজেকে গতানুগতিক গ্রাফিক ডিজাইনারের মতো রাখবেন না। বৃত্তের বাইরে পা ফেলার মতো সাহস রাখুন। Joey Roth, Makota Makita & Hiroshi Tsuzaki, Santiago Calatrava, Frank Gehry এদের মতো ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইনারদের কাজ দেখুন। কিংবা আই ও এস গুরু Teehan and Lax এর কাজগুলো ফলও করুন।

১০। ফন্ট লাইব্রেরী করুনঃ

টাইপোগ্রাফি যারা করেন, তারা জানেন কাজের ক্ষেত্রে ফন্ট কতটা গুরত্তপূর্ণ। আমি একটা কাজে দশ বারের বেশি রিভিউ দিসিলাম জাস্ট ক্লায়েন্টের ফন্ট পছন্দ হচ্ছিলো না বলে। তাই, যারা ভাবছেন, ধুর! আমার কাছে দেড়শ দুশো ফন্ট আছে, আর কি দরকার? ভুল ভাবছেন। এদের মধ্যে কাজের ফন্ট খুব কমই আছে। তাই ফন্ট লাইব্রেরী করুন। আজই।

১১। ভালো লাগা ডিজাইনগুলো সংগ্রহে রাখুনঃ

টি -শার্ট, টিউনার, ফুড লেভেল কিংবা টিউন কার্ড- ভালো লাগা যে কোন ডিজাইন সংগ্রহে রাখুন। কম্পিউটারে হলে স্ক্রিন শট রাখুন। কাজ করতে গিয়ে যখন মাথা হেং করবে- তখন কাজে লাগবে সন্দেহ নাই। অথবা সময় পেলে এই ডিজাইন গুলো কপি করুন বসে বসে।

১২। নিজের কোন কাজ ফেলে দিবেন নাঃ

হোক সেটা খুবই খারাপ। হোক সবাই এটার নিন্দা করেছে। তারপরও তা সংগ্রহে রাখুন। কয়েক মাস পরে ওই কাজেই আবার টাচ দিন। হয়ত- মাস্টারপিস বানায়া ফেলবেন। ঃ)

১৩। পোর্টফলিও বানানঃ

ADs by Techtunes ADs

নিজের সব কাজ গুলোকে এক যায়গায় স্থান দিন। নিজে কম্পেয়ার করুন, কোন কাজটা ভালো- কোন কাজটা খারাপ কেন খারাপ। বন্ধুদের ফিডব্যাক নিন। ক্লায়েন্টের টেস্টিমোনিয়াল নিন। নতুন কেউ দেখতে চাইলে দেখান।

১৪। এই কথা গুলো দিয়ে টিউনার বানানঃ

  • 1# Be sooooo good, they can't ignore you.
  • 2# Creativity is the best design tool you ever have. Use it first.
  • 3# The two main pathways to becoming a Graphic Designer are through school or through self study.
  • 4# No design appeals to everyone, so, don't afraid to be YOU.
  • 5# Don't be afraid to be different: visually explore refreshing ideas, and reinterpret existing styles.

-

(লেখকের আহাজারিঃ কষ্ট করে পড়ার জন্য ধইন্না। নতুন লিকক। দোয়া রাখবেন :P)

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি অরিজিনাল যামীর। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 3 টি টিউন ও 70 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

মরুন্মিত কষ্টকর জীবন নিয়ে কিছুই বলার নাই......।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

thnaks a lot ……….

আপনার কোন ফ্যান্টাসি নাই? নো প্রবলেম। আরেক জনের গার্ল ফ্রেন্ডরে সাজান!

হা হা হা ,

আর যাই হোক গ্রাফিক্স ডিজাইন আর প্রোগ্রামিং আমার দ্বারা হবে না

    @এ কে এম বোরহানিছ বাপ্পি: মন্তব্বের জন্য ধইন্না। এই বুঝতে পারা, জিনিসটাই চাই। আপনি যেমনি পেরেছেন। গ্রাফিক আর প্রোগ্রামিঙের চাইতে অনেক ভালো কাজ, দুনিয়ায় আছে। চেষ্টা থাকলে, চাঁদেও যাওয়া যায়। 😛

you are welcome bro. 🙂

ভাইয়া আমার গ্রাফিক ডিজাইন নিয়ে অনেক আগ্রহ। ফটোশপ এর কাজ বেশ ভালই পারি, ইলাসট্রেটর তেমন দেখা হয়নি। ফেসবুক এর কভার পেজ ডিজাইন করা আমার একটি শখের মদ্ধে অন্যতম। কমপক্ষে ৩০-৪০ টির মত কভার আমার ডিজাইন করা। কিন্তু সামনে কিভাবে এগিয়ে বা গ্রাফিক ডিজাইন এ আমার ভবিষ্যৎ কি এ নিয়ে কোন ধারনা বিন্দুমাত্র নেই। আপনার পরামর্শ পেলে অনেক উপকৃত হতাম।

    @তামিম: তামিম ভাই, আপনার কাজ দেখলে হয়ত আন্দাজ করতে পারতাম, ড্যাপথ কতটুকু হয়েছে। তবে, ইলাস্ট্রেটর খুব একটা কঠিন না। অপারেটিং ফটোশপের মতই। ভেক্টর ওয়ার্ক, এনিমি, কার্টুন, স্টোরিবোর্ড এসবের কাজে লাগে। প্রিন্টের কাজে এটি ফটোশপের চাইতে জনপ্রিয় টুল। তবে, ওয়েব এবং মোবাইল গ্রাফিকের জন্য শুধু ফটোশপ হলেও চলে।
    আপনার একটি নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে শখের কথা সুনে ভালো লাগলো। নিয়মিত প্র্যাকটিস করুন। ফ্রিলেন্সিং মার্কেট থেকে কাজ নিয়ে কিছু কাজও করতে পারেন। যেহেতু পোর্টফলিও আছে। কাজ পেতে সমস্যা হবেনা।

      ভাইয়া আপনার পরামর্শের জন্য ধন্যবাদ। ফ্রিলেন্সিং মার্কেট এর কয়েকটি ঠিকানা জানাতে চাচ্ছি।

        @তামিম: অনেকগুলো মার্কেট প্লেস আছে, সবচেয়ে বড়টি হল Odeesk.com , এছাড়া freelancer.com , elance.com থেকেও কাজ নিতে পারেন। তাছাড়া 99designs.com এর কনটেস্টে অংশ নিতে পারেন। এগুলোতে কিভাবে কাজ করতে হবে, এই সম্পর্কিত প্রচুর আর্টিকেল গুগলে আছে। সার্চ দিয়ে জেনে নিতে পারেন। টিটিতেও এগুলো নিয়ে অনেক লিখা আছে। এর পরেও কোন প্রবলেমে পড়লে সিনিয়াররাতো আছেই 😛

    @তামিম: আপনার ফেইসবুক আই ডি দেন যেগুলো আপনি কভার ডিজাইন করেছেন দেখি

Level 0

ভাল একটি পোস্ট করার জন্য ধন্যবাদ । আমার কাছে প্রোগ্রামিং থেকে গ্রাফিক ডিজাইন টা সহজ মনে হয় । আর ফটোশপ থেকে ইলেসট্রেটর এ কাজ করে বেশি মজা পাই তবে ভাল ডিজাইন করতে পারি না

Level 0

চরম লিখছেন ভাই……………..!! আপনাকে অনেক অনেক Thanks

দারুন লিখেছেন ভাই। তবে একটি কথা আপনি লিখেছেন সময় হলে ডিগ্রি নিতে ডিগ্রি কোথায় থেকে নিব এব্যপারে একটু ডিটেইলস বললে ভাল হত বর্তমানে অনার্স ৩য় বর্ষে অধ্যায়নরত আছি।

    @রুহুল আমিন: শান্ত মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অফ ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি বাংলাদেশের প্রথম এবং একমাত্র ডিজাইন ইউনিভার্সিটি। এখানে গ্রাফিক্স ডিজাইন এবং মাল্টিমিডিয়ার ওপর ৪ বছরের অনার্স কোর্স রয়েছে। আমি পড়ছি।

      @তানভীর জেড আহমেদ: ভাই, আপনার ৪ বৎসরের গ্রাফিক্স ডিজাইন এবং মাল্টিমিডিয়ার অনার্স কোর্স এর ফুল সিলেবাস টা শেয়ার করা যায়? মানে আমি জানতে চাইছি আপনাদের কে ৪ বৎসরে কোন কোন কোর্স গুলো পরানো হবে। পারলে কষ্ট করে একটু মেইল এ পাঠিয়ে দেবেন। আমার মেইল mit.dhk[at]gmail.com

অনেক ধন্যবাদ।

অসাধারণ একটা টিউন।
আমি নতুন গ্রাফিক্স ডিজাইনে। অনেক সমস্যা রয়ে গেছে। চেষ্টা করছি ঠিক করার জন্য।
অনেক ধন্যবাদ টিউন করার জন্য। 🙂

Level 0

ভাই আমার প্রোফাইল টা দেখেন https://99designs.com/users/799227
আমারে দিয়া কি হবে?

একজনকে রিপ্লাই দিলে আরেকজনের কাছে চলে যাচ্ছে। বুঝতাসিনা ক্যান :O এইখানেই সবাইরে লিখি 😛
@রুহুল আমিন ভাইঃ বাংলাদেশে এই ব্যাপারে একাডেমিক শিক্ষার সুযোগ কম। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে ফাইন আর্টস পরানো হয়, এটা বিকল্প হতে পারে। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির কিছু কোর্স আছে। এগুলো, ট্রাই করে দেখতে পারেন। প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে সান্তা মারিয়ামে করায় আমি সুনেছি।
এর চাইতে সহজলভ্য যদি চান- তায়লে ডেভস টিম অথবা নিউ হরাইজন্স!
@তানভীর জেড আহমেদ ভাইঃ ধন্যবাদ বিষয়টি জানানোর জন্য। আরেকটু ডিটেইলস জানতে চাই। কোন ভাবে কি জানানো সম্ভব? আমার ফেবু আইদিঃ fb.com/trialversion22
@টেক ফ্রিক ভাইঃ ৯৯.কমে চেষ্টা করছেন মানে অবশ্যই হবে। কয়টা মাস লেগে থাকুন। আপনার কালার সিলেকশন আর আইডিয়াগুলা আমার বেশ ভালো লেগেছে। তবে আপনাকে টাইফোগ্রাফি আরেকটু সচেতন হতে হবে। আই মিন- ফন্ট সিলেকশন, ক্যারেক্টার স্পেছিং এটসেটরা। আপনার প্রফেশনাল হতে আর দেরি নেই। (ওয়াই)
@পিজে, খালিদ হুসেইন, হাসান যোবায়ের ভাইঃ অনেক ধন্যবাদ মন্তব্বের জন্য। 😀

তানভীর জেড আহমেদ ভাই আপনি যেটা বল্লেন ”শান্ত মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অফ ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি বাংলাদেশের প্রথম এবং একমাত্র ডিজাইন ইউনিভার্সিটি” এই কথাটি সম্পূর্ন ভুল কথা . সরকারি গ্রাফিক্স আর্ট ইনষ্টিটিউট হল বাংলাদেশের প্রথম এবং একমাত্র কলেজ. যেটা 1970 সালে স্থাপিত. কলেজটি মোহাম্মদপুর এ অবস্থিত.

অনেক সুন্দর লিখেছেন ! ফটোশপে বসে যেকোনকিছু বানালেই আমার মন ভাল হয়ে যায় 🙂

আর হ্যা ডোরেমনকে দেখে একটু ভয় পাইছি ! 😛

Level 0

এর থেইকা সুন্দর পোস্ট , পাওয়ারফুল পোস্ট আগে পড়ার সৌভাগ্য হয় নাই , যামীর ভাই আপনাকে স্বাগতম , প্রথম লেখাতেই মন জয় করে ফেলছেন , এই লেখা টা প্রিন্ট করলাম , আমার ডিজাইনিং ক্যারিয়ারের শুরুর দারুণ পাথেয় 🙂

    @Bijonms: থেঙ্কু ভাই। আপনার কমেন্টটাতেও পাওয়ার আছে। পাওয়ারে পাওয়ারে কাটাকাটি 😛 শুভ হোক আপনার পথ চলা।

jotil post……………………

http://www.toyota.com

সুন্দর পোস্ট বাক্তিগত সংগ্রহতে রাখলাম । সামনে ডিজাইনিং নিয়ে আরও পোস্ট আসা করছি ।

সুন্দর পোস্ট বাক্তিগত সংগ্রহতে রাখলাম । সামনে ডিজাইনিং নিয়ে আরও পোস্ট আসা করছি ।

দারুন লিখছেন……।।কিন্ত ভাল মানের ই-বুক ডাউনালোড লিংক পাইলে ভাল হত।আরেকটা কথা…।।এখন অনেকেই ভিডিও টিঊটরিয়াল দেয়।এটা কেমন হয় আপনার কাছে

    @dipu number 2: ভিডিও টিউটোরিয়াল শেখার ক্ষেত্রে বেশ কাজ দেয় বলে মনে করি। ফটোশপের দুটি ভালো বই- ফটোশপ এনালজি আর ফটোশপ সি এস ৫ ফর ডামিস। গুগলে এগুলোর নাম লিখে সার্চ করতে পারেন। ডাউনলোড লিংক পেয়ে যাবেন।

বেশ ভালো লাগলো। আরো টিউন আশা করি। টিউটোরিয়ালধর্মী টিউনও বোধহয় আপনি ভালোই লিখতে পারবেন। অপেক্ষায় থাকলাম। শুভ কামনা রেখে যাচ্ছি।

কয়েকদিন ফটোশপ নিয়ে মাতামাতি করে যখন বুঝলাম এত ধৈর্‍্য্য আমার হবে না ,তারপরেই শুরু করে দিলাম ভিডিও এডিটিং শেখা।বেশ অগ্রসর হলাম।আপাতত অবসরে।ধন্যবাদ না দিয়ে পারছি না সুন্দর টিউনটির জন্য।আশা করছি নিয়মিত হবেন।

ধন্যবাদ আবার আসবেন

Level 0

bro,
i really wish to talk to you…
mail me… [email protected]

বাশ নাই।দিমু কেমনে……।।আপনাকে দরকার

Level 0

onek sundor akta post porlam, khub valo laglo. asha kori arokom aro notun post pabo……….

Level New

Thanks Xamir Bhai. Really ! You are great.

কত্রিপক্ষকে ধন্যবাদ, টিউনটি নির্বাচিত করার জন্য। অনারড!

Level 0

ধন্যবাদ সুন্দর ভাবে উপস্থাপনের জন্য। আমার একটি প্রিন্টিং গ্রাফিক্স ডিজানই -এর প্রতিষ্ঠান আছে। আমার ওয়েবসাইট : http://www.mu-graphics.com/

Level 0

Age onek search kore ckt+description collect kortam bt search kora end hole pore ar porte valo lagto na, tai oi kaj ta kora o possible hoto na. Ajke ai post ta pore onek valo laglo. Bishes kore “sob shomoy boi pora niye”. Thanks. Ajke thake searching off , book pora start.

    @Shoukhin: বইয়ের কোন বিকল্প নেই। আমি মনে করি, ফটোশপ জানা মানেই, ডিজাইনার নয়। এর জন্য প্রচুর লিখাপরার দরকার আছে।

তুফান পোস্ট:p এটা নিয়া ৫ বার পড়লাম।নিজের কাজগুলো নিজেকেই জাজ করতে হয় আমি একটা ভালো ফেসবুক গ্রুপ খূজছি যাদের কাছে কাজগুলো দেখানো যাবে ও উপদেশ পাওয়া যাবে।আপনার জানা থাকলে জানাবেন।

অসাধারণ পোষ্ট ।একটু ঘুরিয়ে ফিরিয়ে পরামর্শগুলো মনে হয় Freelancing এর অধিকাংশ ক্ষেত্রেই কাজে লাগানো যায় । আরও এই ধরণের টিউনের আশায় রইলাম ।

গাইডলাইনবহুল পোষ্ট। আমি বিভিন্ন সাইট ঘাটাঘাটি ও বই পড়ে যা শিখেছি(?) তা নিয়ে সন্তুস্ট নই। কারন এখনো মনে হয় ফ্রিল্যান্সে কাজ করার যোগ্য হইনি। চেষ্টা করে যাচ্ছি নিজে নিজে। ইলাসট্রেটরে আমার করা কিছু লোগো দেখে মন্তব্য করতে অনুরোধ করছি।

http://www.logobuy.blogspot.com

    @Shakil Ahmed: ইংরেজিতে একটা কথা বলা হয়ঃ Modern Design is continuous struggle to be simple. কথাটা মনে রাখবেন। সিম্পল কাজ করুন, বাট ক্রিয়েটিভ। লোগো ডিজাইন গ্রাফিক্সের সবচে কঠিন কাজ গুলোর মধ্যে একটি। প্রতিটি লোগোর পিছনে একটি মেসেজ থাকে। সেই মেসেজটি ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করুন। শুভ কামনা।

সুন্দর টিউন করার জন্ন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। আশাকরি আপনি নিয়মিত নতুন নতুন টিউন আমাদের উপহার দিবেন।

Level 0

jotttiiiiilsssss vai
Full HD
Thanks for nice writing

আমার জন্য অনেক কাজে দিবে।
@অরিজিনাল যামীর ভাই আপনাকে অনেক thanx

এক কথায় অসাধারণ……………..

Level 0

সুন্দর পুষ্ট…

Mon ta kharap silo but apnar lekha pore monta valo ho-e gelo…..apnar lekhata chorom ho-ase….kaje inspire pelam

Level 0

অনুপ্রেরনা মূলক টিউন । আপনার লেখাটা পরে মনে কিছুটা আশার সঞ্চার হল।ও লেখার জন্য ধন্যবাদ ।

গোল্ডেন প্লাস লেখাটির জন্য 🙂

Level 0

Beginner হিসাবে শুরু করার জন্য কি ফটোশপ যতেষ্ট?

Level 0

pode onek valo laglo…onek kewso shiklam.

Level 0

thanks.next r o post chai

ইচ্ছা করে অনেক কিছু। কিন্তু মেডিকেলে পড়ে পসিবল হয় না । বুঝিনা অন্য পেশার মানুষ এত সময় পাই কখন ? পেশা হলে ভিন্ন কথা ।

মনোরঞ্জন একটা পোস্ট পরে ভাল লাগলো। 🙂

Level 0

Very Very Nice Tune.
Lovely Tune. Many Thanks Brother

Kub sundor tune……… somvob hole dharabahik korun?

গ্রাফিক্স নিয়ে কাজ করার আপাত সম্ভাবনা নেই তবে স্বীকার করতে হবে আপনি লেখেন চমৎকার । লেখার সাবলীল গতি ভালো লেগেছে । শুভকামনা

অসাধারণ টিউন ………..

বাহ। অসাধারন লিখেছেন ভাই। সাথে উপস্থাপনাও। 🙂

Level 0

Bhai, Tune Ta Onek Valo Hoe Se, Vai Aami Aapnar Kase Ekta Help Chaitase, Aami Photoshop and Illustrator er Kaj Kisu Ta Jani, Kaj Korte Valo O Lage, Tobe Aamar Boro Problem Ta Hosse Creative Kisu Mathai Ase Na, Chotobela Ta Ek Sari Kapor Designer Er Kase Theke Illustrator and Photoshop Dekesilam, Oi Lok Kaj Take Emon Vabe Uposthapon Koreselo Aamar Samne Er Por Photoshop And Illistrator Er Kaj Dekle Birokto Lago, Kintu Vhai Ekhon Mone Hoe Je Na Egulo Deya Onek Kisue Kora Jai, Aami Recent 2-3 Month Theke Aabar Photoshop And Illustrator Er Kaj Gulo Kora Suru Korese, Tai Aapnar Sahajjo Kamona Korse Vhai, Kon Books And Video Tutorial Gulo Aamar Moto Loker Jonno Valo Tar Link Ta Jode Ektu Deten Tahole Onek Upokar Hoto, Onek Kotha Bole Fillam Sorry, Aapnar Phone And Mail ID Ektu Mail Korben PLS, Aamar Mail [email protected]. Wait For U R MAIL.

Level 0

sundor tune…

Level 0

Bhai Waiting for U R Reply

    @shonzim: আপনার মন্তব্য পড়লাম। ক্রিয়েটিভিটি জিনিশটা কমন জিনিষ। সবার মধ্যেই আছে। তবে, খুব কম লোকই এটাকে নিজের মধ্যে আবিস্কার করতে পারে। এর জন্য প্রচুর চেষ্টা থাকতে হবে। পাশাপাশি, যা নিয়ে কাজ করবেন, তাতে প্রচুর দক্ষতাও থাকতে হবে। অনুশীলন করে যান। একটা সময়ে বুঝতে পারবেন, আপনার কাজ গুলো অন্যদের চেয়ে আলাদা হয়ে উঠছে।
    http://sixrevisions.com/photoshop/70-excellent-photoshop-resources/
    এইখানকার রিসোর্সগুলা ঘেটে দেখতে পারেন।
    ধন্যবাদ।

যারা গ্রাফিক্স ডিজাইন নিয়ে পড়া শুনা করতে চান তারা আমার এই টিউনটি দেখতে পারেন।

“প্রফেশনাল গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে চান? অ্যানিমেশন? গেম ডেভলপার? ফ্লিম ডিরেকটর? একসাথেই সবগুলো বিষয়ে ডিগ্রী নিতে পারবেন বাংলাদেশেই!!!”
https://www.techtunes.co/edutunes/tune-id/196638

Level 0

Very nice post. Thanks.

Level 0

মান্সম্মত ই-বই ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে নিতে পারেন। মানের কমতি থাকবে না। Book name please?????????

Level 0

thanks brother..

Onek Valo Laglo post-ti pore Thanx Bro… http://www.comillarbarta.com

Level 0

এক কথায় সুপার । এ রকম দিক নির্দেশক শিক্ষক পেলে আর কি লাগে।

Level 0

ভাইজান আপনার ফেবু আইডি টা দিবেন ???

সুন্দর টিউন…………

এক কথায় অসাধারণ। আর প্রতিটা পয়েন্ট-এ আপনার ছবি নির্বাচন অত্যন্ত সুন্দর হয়েছে।

যামীর ভাই আপনার লেখা পড়ে নুতন করে অনুপ্রেরনা পেলাম। আমি ম্যাগাজিনে ডিজাইনের কাজ করেছি সিম্পল। এখন শুধু লোগো নিয়ে কাজ করতে চাই। কিভাবে আগালে ভালো হয় পরামর্শ দিলে উপকৃত হতাম।

good post

ধন্যবাদ অসাধারণ টিউনের জন্য…
আমি একটি এন্ড্রয়ড এপ তৈরি করেছি, বিক্রয়[ডট]কম এর অল্টারনেটিভ হিসেবে। ইচ্ছে হলে ট্রাই করে দেখতে পারেন।
এপটির ফীচার সমূহঃ
* কোনো রেজিস্ট্রেশন ছাড়াই এড পোস্ট করতে পারবেন
* দিনে আনলিমিটেড এড পোস্ট করতে পারবেন
* লোকেশন বেইসড এড সার্চ করতে পারবেন
* কোন হিডেন চার্জ নেই, একদম ফ্রী
* ইনশা আল্লাহ, আমি যতদিন বেঁচে থাকব, অতদিন সার্ভিসটা ফ্রী রাখব
* ইউজার ফ্রেন্ডলি ইন্টারফেস
* ছোট APK সাইজ ( মাত্র ৩ এমবি)
.
গুগল প্লে ডাউনলোড লিঙ্কঃ https://play.google.com/store/apps/details?id=p32929.buysellbd
APK ডাউনলোড লিঙ্কঃ http://tiny.cc/buy_sell_bd
.
এপটি ডাউনলোড করে দয়াকরে একটি হলেও এড পোস্ট করুন। অনেক খুশি হব। আগাম ধন্যবাদ…