ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

প্রয়োজন এবং আনন্দকে এক সূতোয় গেঁথে দিতে আমার আজকের আয়োজন অবসর কিংবা ব্যস্ততার ফাঁকে সৃজনশীল কিছু কাজ করুন অরিগ্যামি হতে পারে আপনার এবং আপনার শিশুর সৃজনশীলতা প্রকাশের অন্যতম উপকরন [মেগা-টিউন]

টিউন বিভাগ কী কেন কীভাবে
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

- بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ -

ADs by Techtunes ADs

সুপ্রিয় টেকটিউনস কমিউনিটি সবাইকে আমার সালাম এবং শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি আমার আজকের টিউন।

ছোটবেলায় কাগজের নৌকা কিংবা কাগজ দিয়ে বিমান তৈরী করেনি এরকম লোক খুব কম খুঁজে পাওয়া যাবে। বড় বেলাতে এসেও অনেকে হয়তো তাদের এই অভ্যাসটি ছাড়তে পারেনি। সামনে কোন কাগজের টুকরা পড়ে থাকলে দেখলে আপনারা হয়তো মনের অজান্তে সেটাকে পাখি, বিমান কিংবা নৌকার রূপ দিয়ে দেন। আমি নিজেও যখন বাড়িতে যাই তখন ভাগনে ভাগনি কাউকে পেলেই চোখের পলকে কাগজ দিয়ে কিছু একটা বানিয়ে দেই। এরকম অভ্যাস আপনার আমার মতো অনেকের থাকলেও আমরা অধিকাংশই জানিনা এটা একটা শিল্পকলা।

ছবি - Shutter Stock

আমরা যদি আমাদের এই কাজকে শুধু নৌকা কিংবা বিমান বানানোতে সীমাবদ্ধ না রেখে একটু বড় চিন্তা করি তাহলে আমরা শুধু কাগজ ভাঁজ করেই অনেক সুন্দর সুন্দর কিছু ব্যবহার্য কিংবা ঘর সাজানোর জিনিস তৈরী করতে পারি। এতোক্ষণ আমি যে বিষয়ে আলোচনা করলাম তার নাম হলো অরিগামি (Origami)। আমার আজকের টিউনে আপনারা জানবেন অরিগামির ইতিহাস, অরিগামি তৈরীর উপকরন এবং অরিগ্যামি তৈরীর পদ্ধতি। সবার শেষে থাকবে কিছু বাংলা এবং ইংরেজি রিসোর্স। তাহলে চলুন শুরু করি।

Origami (অরিগামি)

Origami শব্দটি একটি জাপানি শব্দ। জাপানি শব্দ Ori মানে হলে হলো ভাঁজ এবং Kami মানে হলো কাগজ। পরবর্তি সময়ে Kami শব্দটি পরিবর্তিতে হয়ে Gami হয়ে যায়। তখন এর নাম হয়ে যায় Origami মানে হলো কাগজের ভাঁজ। সাধারনত কাগজকে কোন প্রকার কাটা ছেড়া বা আঠা লাগানো ছাড়া শুধুমাত্র ভাঁজ করে বিভিন্ন আকৃতি দেওয়ার প্রথাকে বলা হয় Origami। ধারনা করা হয় ১৬০৩ সাল থেকে জাপানে সর্ব প্রথম অরিগ্যামির চর্চা শুরু হয়। তারপর দিনের পরিবর্তনে এই চর্চা জাপানে সীমাবদ্ধ না থেকে বিশ্বব্যাপি ছড়িয়ে পড়ে। আরো কিছু জানার আগে চলুন কিছু ছবি দেখে নেওয়া যাক।

অরিগামি দিয়ে বানানো চমৎকার একটি ড্রাগন
অরিগামি দিয়ে তৈরী অত্যাশ্চার্য শিল্পকর্ম | যা আমাদের সবাইকে করবে মোহিত

অরিগামি দিয়ে যে শুধু মনমুগ্ধকর শিল্পকর্ম হয় তা নয় আপনি চাইলে গৃহস্থালীর প্রয়োজনীয় ছোটখাট কিছু জিনিসপত্রও অরিগামির সাহায্যে তৈরী করতে পারবেন। তাহলে চলুন এক নজরে একটু দেখে নিই কিছু ছবি।

বাসা কিংবা অফিসের জন্য তৈরী করতে পারেন সুদৃশ্য কলমদানী
ছোটদের জন্য তৈরী করতে পারেন সুদৃশ্য ঝুড়ি

এতোক্ষনে নিশ্চয় অরিগামি সম্পর্কে আপনাদের সুষ্পষ্ট ধারনা এসে গেছে। আপনাদের মনে এখন অরিগামি তৈরীর চিন্তা মাথায় আসবে এটাই স্বাভাবিক। তো চলুন তাহলে শুরু করা যাক অরিগামি তৈরীর প্রকৃয়া।

অরিগামি তৈরীর উপকরন

বিভিন্ন রঙের বর্গাকৃতি অরিগামি পেপার

অরিগামির চর্চা যখন শুরু হয়েছিলো তখন শুধু কাগজ ভাঁজ করে বিভিন্ন আকৃতি দেওয়াকেই বেশি প্রাধান্য দেওয়া হতো। কিন্তু বর্তমান সময়ে যারা অরিগামির চর্চা করেন তারা শুধু কাগজ ভাঁজ করাতেই সীমাবদ্ধ না থেকে কাগজ গলিয়ে মণ্ড তৈরী করে, আঠা লাগিয়ে, কাগজ কেটে অথবা আরো প্রয়োজনীয় আনুষাঙ্গিক পরিবর্তন করে অরিগামি তৈরী করে থাকেন। তবে সব চাইতে আদর্শ পদ্ধতি হলো কোন প্রকার কাটা-ছেড়া না করে অরিগামি তৈরী করা।

তো শুরু করার আগে চলুন জেনে নেই কী কী লাগবে।

উপকরনঃ অরিগামি পেপার। অরিগামি তৈরী করার জন্য শুধুমাত্র যেটা লাগে সেটা হলো অরিগামি পেপার। আপনারা হয়তো চিন্তায় পড়ে গেছেন যে এই অরিগামি পেপার কোথায় কিনতে পাওয়া যাবে। আসলে যে কোন পেপার হাউজে গেলেই আপনি অরিগামি পেপার কিনতে পারবেন তবে যদি না পাওয়া যায় তাহলে সমাধান হলো যেকোন পেপারকে বর্গাকৃতি করে কাটলেই সেটা হয়ে যাবে অরিগামি পেপার। কাজের সুবিধার জন্য আপনারা টিউনার পেপার গুলো ব্যবহার করতে পারবেন।

ADs by Techtunes ADs

যেভাবে তৈরী করবেন মনমুগ্ধকর অরিগামি

আজকাল অরিগামি তৈরী করার রিসোর্সের অভাব নেই। অরিগামির তৈরীর অনেক রকম বই পাওয়া যায়, ইউটিউবে রয়েছে সহস্রাধিক ভিডিও টিউটরিয়াল, রয়েছে অরিগামি তৈরীর বিভিন্ন ফ্ল্যাশ ওয়েবসাইট। আপনারা সবগুলো জায়গা থেকেই অরিগামি শিখতে পারবেন। তবে আমি ব্যক্তিগত ভাবে ফ্ল্যাশ সাইটগুলোকে বেশি প্রাধান্য দেই। তার পেছনে কারন হলো আপনি খুব কম ব্যান্ডউইথ খরচ করে এই সাইটগুলো থেকে ত্রিমাত্রিক চিত্রের সাহায্যে অরিগামি শিখতে পারবেন। নিচে অরিগামি তৈরীর বিভিন্ন সাইটের লিংক দেওয়া হলো।

আপনি যদি আমাদের মাতৃভাষা বাংলায় অরিগামি শিখতে চান তাহলে আপনার জন্য রয়েছে নারায়ণ সান্যালের অরিগামির উপর বিশাল একটা বই। নিচের ডাউনলোড লিংক থেকে ১০ মেগাবাইটের বইটি যে কেউ ডাউনলোড করে রেখে দিতে পারেন।

ডাউনলোড করুন নারায়ণ সান্যালের অরিগামি | সাইজ ১০ মেগাবাইট

সর্বশেষ উপায় হলো আপনারা চাইলে আমাদের জীবনে কাজে আসে এরকম কিছু জিনিস নিয়ে আমি ধারাবাহিক টিউটরিয়াল লিখতে পারি।

আমরা কেন অরিগামি শিখবো

মনমুগ্ধকর অরিগামি ফল

আমার আজকের টিউনের শিরোনাম ছিলো “প্রয়োজন এবং আনন্দকে এক সূতোয় গেঁথে দিতে আমার আমার আজকের আয়োজন। অবসর কিংবা ব্যস্ততার ফাঁকে সৃজনশীল কিছু কাজ করুন। অরিগামি হতে পারে আপনার এবং আপনার শিশুর সৃজনশীলতা প্রকাশের অন্যতম উপকরন”। আপনি খেয়াল করছেন কিনা জানিনা আমাদের জীবন দিনের পর দিন বড় একঘেয়ে হয়ে যাচ্ছে। জীবনে কিছু বিচিত্রতা আনতেই আপনার প্রয়োজন অরিগামি শেখা। তাছাড়া অরিগামি হলো একটি প্রথম শ্রেণীর শিল্পকলা, আপনি এর চর্চার মাধ্যমে নিজের সৃজনশীলতা বাড়াতে পারবেন। একটুকরা কাগজকে শুধু ভাঁজ করে বিভিন্ন আকৃতি দেওয়া খুব ছোট কথা না। তাছাড়া আপনার শিশুকে তাদের বিনোদনের ব্যাতিক্রমধর্মী মাধ্যম হিসাবে আপনি অরিগামিকে উপস্থাপন করতে পারবেন। কারন অরিগামি শুধু মাত্র একটি শিল্পকলা নয়, এটি মেধা বিকাশের অন্যতম মাধ্যম। আমি জানি আপনারা সারাদিন অনেক ব্যস্ত থাকেন তবে কাজের ফাঁকে একট টুকরা কাগজ নিয়ে একটি অরিগামি তৈরী করলে আপনার মনে একটা মানুষিক রিফ্রেশমেন্ট আশাকরি।

মজার অরিগামি

অরিগামি সম্পর্কে আপনাদের অনেক কিছু বলার চেষ্টা করলাম। এবার চলুন তাহলে একটি অরিগামি তৈরী করা যাক। নিচের চিত্র গুলো দেখুন এবং ধাপে ধাপে অনুসরন করুন। সব সময়ের জন্য উপকরণ হিসাবে থাকছে একটি বর্গাকৃতির কাগজ। তো শুরু করা যাক।

শিশুদের জন্য মজার অরিগামি | একটি পাখি

অরিগামি সম্পর্কিত টিউনের প্রায় শেষ পর্যায়ে চলে আশাকরি আপনাদের মনে অরিগামি তৈরী এবং চর্চার মনোভাব সৃষ্টি হয়েছে। আপনাদের নিজের এবং পরবর্তি জেনারেশনে অরিগামির ব্যাপক বিস্তার হোক এটাই আমার আজকের প্রত্যাশা। তবে শেষ করার আগে কিছু কথা রয়েছে এখনো বাকি। কারন বরাবরের মতো টিউন শেষ হবে শেষ কথা দিয়েই।

শেষ কথা

টিউনটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে অথবা বুঝতে যদি কোন রকম সমস্যা হয় তাহলে আমাকে টিউমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না। কারন আপনাদের যেকোন মতামত আমাকে সংশোধিত হতে এবং আরো ভালো মানের টিউন করতে উৎসাহিত করবে। আর আপনাদের যাদের টেকটিউনসে একাউন্ট নেই তারা আমার ব্যক্তিগত ফেসবুক পেজ লিংক থেকে আমার টিউনে টিউমেন্ট করতে পারবেন। পেজে লাইক দিয়ে আমার সকল টিউন বিষয়ে আপডেট থাকুন। সর্বশেষ যে কথাটি বলবো সেটা হলো, আশাকরি এবং অপরকেও কপি পেস্ট টিউন করতে নিরুৎসাহিত করি। সবার সর্বাঙ্গিন মঙ্গল কামনা করে আজ এখানেই শেষ করছি। দেখা হবে আগামী টিউনে।

আপনাদের সাহায্যার্থে আমি আছি.

ফেসবুক | টুইটার | গুগল-প্লাস

ADs by Techtunes ADs

ADs by Techtunes ADs
Level 6

আমি সানিম মাহবীর ফাহাদ। Supreme Tuner, Techtunes বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 6 বছর 5 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 179 টি টিউন ও 3522 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 107 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

অন্য আর দশটা মানুষের মতোই একদিন এই পৃথিবীতে আসছিলাম। তারপর থেকে নিজের মতো করেই নিজের পৃথিবীতে বেঁচে আছি। এরপর একদিন টুপ করে জীবন্ত পৃথিবী থেকে ঝরে পড়বো। জীবনতো এটাই, তাই না?


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

সুন্দর টিউন,অনেক কিছু জানলাম।

একসময় ওরিগামির ওপর অনেক ভিডিও কালেক্ট করা ছিল একটা নেশার মত।

vai building style er kolomDanita aktu taratari diyen..

    @তানজামিন খান: টিউমেন্টের জন্য ধন্যবাদ তানজামিন খান ভাই। টিউডারদের চাহিদার উপর নির্ভর করবে পরবর্তিতে অরিগামির উপর কোন টিউটরিয়াল দেওয়া যাবে কিনা। তবে আপনার কথা মাথায় থাকলো।

অরিগামের এত কিছুই তো জানতাম না। এই সামান্য কাগজের এত কিছু করা যায় কে জানত। আবার ইতিহাসও দেখি ম্যালা পুরান।
হুম এবার কাগজ আর ফেলা যাবে না। বই পড়ে ট্রাই করতে হবে।
অরিগামির তথ্য আর বইয়ের জন্য ধন্যবাদ।

    @ফজলে রাব্বী নোমান: আপনাকেও ধন্যবাদ নোমান ভাই সুন্দর মন্তব্য প্রদানের জন্য। কিন্তু কাগজ ব্যবহারের ক্ষেত্রে একটু সতর্ক থাকবেন কারন কিছু কাগজ আছে যেগুলো শুধুমাত্র ফেলে দেওয়ার জন্যই তৈরী করা হয়! 😛

হা হা হা…… 😀

অনেক সুন্দর টিউন। অনেক জানার জন্য। ভাই আপনি শুরুতে بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ লিখছেন কিভাবে। আমি আরবি লিখতে পারি কিন্তু যের,যবর,পেশ ছাড়া যেমন بسم الله الرحمن الرحيم । যদি আমাকে সিস্টেমটা বলতেন তাহলে খুব উপকৃত হতাম। আমি টেকটিউনস সহ গুগলে খুজেছি কিন্তু যা পাই তা ভূয়া নতুবা আমি ওগুলোর ব্যবহার জানি না।

    @Emrul islam: টিউমেন্টের জন্য ধন্যবাদ ইমরুল ইসলাম ভাই। আপনিতো আরবি লিখতে পারেন কিন্তু আমি তাও পারি না। ইন্টারনেটের কল্যাণে পেয়েছি। তারপর শুধু কপি পেস্ট করি। আপনার ভালো লাগলে আপনিও রেখে দিতে পারেন।

খুব ভাল এবং সুন্দর একটি টিউন।
“অরিগামি” নামটি জানলাম এবং এ সম্পর্কে বেশ কিছু ওয়েব লিংক দেয়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

পোষ্টের টাইটেল দেখেই ইন্টারের ইংরেজী বইটার সেই ডানদিকের পৃষ্ঠাটার ছবিটা যেন ভেসে উঠল চোখের সামনে- ওইদিন ক্লাসে অস্থির জিনিসটা সম্পর্কে জেনেছিলাম……পিচ্চিকালে আমরা যে নৌকা বানাতাম ঐটাও বোধহয় পারফেক্ট একটা অরিগ্যামি ছিল- যতদূর মনে পড়ে স্কয়ার কাগজেও বানানো যেত:)

আর আপনিতো ভালই একটা পরিচিতি দিয়ে দিলেন……প্রিয়তে নিলাম……যদি কোনদিন শুরু করি, তবে আমার প্রোফাইল থেকে আপনার টিউনটা খুঁজে নিয়ে তবেই লেগে পড়ব 🙂

ভাই বই টার ডাউনলোড লিংক কই?

    ডাউনলোড লিংকটা মুছে গিয়েছিলো। এখন আপডেট করে দিয়েছি। সাময়িক সমস্যার কারনে ‍দুঃখিত 😮

সৃজনশীল কাজের মূল্য ছিল থাকবে। সৃজনশীল যেকোনো কাজের সাথে থাকতে ভালো লাগে।
ফাহাদ ভাই ধন্যবাদ সুন্দর টিউনের জন্য।
🙂

    ধন্যবাদ তপু ভাই আপনার সুন্দর মন্তব্যের জন্য 🙂
    টিউনার হিসাবে এটা অনেক বড় একটা পাওয়া, ভালোই লাগছে আজ।

ভাই খুব ভাল লাগলো !!! অনেক ধন্যবাদ ।

যাক অনেকদিন পর একটা টিউন নির্বাচিত হল। ধন্যবাদ

:)আসলে অরিগামের এত কিছুই তো জানতাম না। সামান্য কাগজের এত কিছু করা যায়!! আসলে এটাও এটা কারু শিল্পের নির্দেশণ বলে মনে করি। অরিগামে বিষয়টা প্রথম আমার এক স্কুল শিক্ষকের মাধ্যমে জেনেছিলাম বেশ কয়েক বছর পূর্বে। বাট, এবার আপনার মাধ্যমে বিষয়টা জানতে সম্পূর্ণ পরিষ্কার হলাম। মনে হচ্ছে আগামীকাল হতে কাজে লেগে পরি…..!!
এমন অসাধারন টিউন করার জন্য আপনাকে অসংখ্যক ধন্যবাদ। আনেকটি কথা ফাহাদ ভাইয়া! আপনার কাছ হতে অনুমতি চাচ্ছি তাহলো- আপনার লেখাগুলো কি আমার বন্ধুদের সাইটে শেয়ার করতে পারি। অবশ্য রেফারেল হিসাবে অবশ্যই আপনার নাম, লিংক থাকবে। পরিশেষে ভাল থাকবেন-

    @ফেরী ওয়ালা: টিউমেন্টের জন্য অনেক ধন্যবাদ ফেরী ওয়ালা ভাই 🙂
    আমার যেকোন লেখা কার্টেসি দিয়ে টেকটিউনস ছাড়া আপনি যেকোন জায়গায় ব্যবহার করতে পারবেন।
    তবে অবশ্যই রেফারেল হিসাবে নাম এবং লিংক দিয়ে দিবেন। ভালো থাকবেন, আপনার জন্য শুভ কামনা রইলো।

এক কথায় অসাধারণ !

অনেক ধন্যবাদ ভাই। খুব সুন্দর আর গুছানো হয়েছে।

Level New

অনেক ভাল একটা টিউন।

সত্যিই অনেক ভাল টিউন

পরবর্তী টিউন এর অপেক্ষায় রইলাম।

    এরপরে অনেক টিউন পরবর্তি টিউন হিসাবে প্রকাশিত হয়ে গেছে! ধন্যবাদ আপনাকে 🙂

Thanks for nice tune.Keep it up.

সেইরকম বস!!!

সেইরকম বন্ধু(ফেসবুক এ বন্ধু আমরা)

Level 0

“বিশ্ব জোড়া পাঠশালা মোর সবার আমি ছাত্র,
নানান ভাবে নতুন জিনিস শিখছি দিবারাত্র…..”
আসলেই পৃথিবীতে কতকিছুইনা শিখতে/জানতে বাকি আছে! ‘অরিগামি’ এই নতুন শব্দটা হয়তো আমাকে নতুন অনেক কিছু শেখাবে। আর এর পুরো ক্রেডিটটাই‍্ সানিম মাহবীর ফাহাদ স্যারের। ধন্যবাদ স্যার।

প্রিয়তে রাখলাম

ধন্যবাদ স্যার.
প্রিয়তে রাখলাম

Very interesting topic.

খুব সুন্দর ধন্যবাদ ভাই। ভাই আপনার সেরা দশ থেকে এডোবি ইলেস্ট্রটর ও ফটোশপ ২০১৭ ও ২০১৮ পেয়েছি যা এখনও ব্যবহার করছি ভাই ২০১৯ টা এখনও পেলাম না। যদি দিতেন ক্রাক ফাইলসহ তাহলে তৃপ্ত হতাম। ধন্যবাদ

ধন্যবাদ অসাধারণ টিউনের জন্য…
আমি একটি এন্ড্রয়ড এপ তৈরি করেছি, বিক্রয়[ডট]কম এর অল্টারনেটিভ হিসেবে। ইচ্ছে হলে ট্রাই করে দেখতে পারেন।
এপটির ফীচার সমূহঃ
* কোনো রেজিস্ট্রেশন ছাড়াই এড পোস্ট করতে পারবেন
* দিনে আনলিমিটেড এড পোস্ট করতে পারবেন
* লোকেশন বেইসড এড সার্চ করতে পারবেন
* কোন হিডেন চার্জ নেই, একদম ফ্রী
* ইনশা আল্লাহ, আমি যতদিন বেঁচে থাকব, অতদিন সার্ভিসটা ফ্রী রাখব
* ইউজার ফ্রেন্ডলি ইন্টারফেস
* ছোট APK সাইজ ( মাত্র ৩ এমবি)
.
গুগল প্লে ডাউনলোড লিঙ্কঃ https://play.google.com/store/apps/details?id=p32929.buysellbd
APK ডাউনলোড লিঙ্কঃ http://tiny.cc/buy_sell_bd
.
এপটি ডাউনলোড করে দয়াকরে একটি হলেও এড পোস্ট করুন। অনেক খুশি হব। আগাম ধন্যবাদ…