ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

পাবলিক রিলিজ হল উইন্ডোজ ১০ রেডস্টোন আপডেট। দেখে নিন নতুন কি কি থাকছে এবং কিভাবে ডাউনলোড আর এক্টিভেট করবেন।

গত ২ আগস্ট, ২০১৬ তারিখে মাইক্রোসফট বহু প্রতীক্ষিত উইন্ডোজ ১০ এর রেডস্টোন আপডেট পাবলিক রিলিজ দেয়।যেহেতু এটা উইন্ডোজ ১০ এর ১ বছর বয়স হওয়া উপলক্ষে রিলিজ দেয়া হয় তাই এটাকে এনিভারসারি আপডেটও বলা হয়েছে।

ADs by Techtunes ADs
ছবি - Shutter Stock

এই আপডেটটি মূলত রিলিজ দেয়া হয় উইন্ডোজ ১০ এ নতুন কিছু ফিচার এড করার জন্য।এছাড়াও উইন্ডোজ ১০ এর আগের বিল্ড এর অনেক বাগসও ফিক্স করা হয়েছে এই আপডেটে।আগে দেখা যাক নতুন কি কি থাকছে এই আপডেটে। 🙂

 

নতুন স্টার্ট স্ক্রিন

এই আপডেটে উইন্ডোজ ১০ এর আগের স্টার্ট স্ক্রিন বা স্টার্ট মেনুতে কিছুটা চেঞ্জ আনা হয়েছে।উইন্ডোজ ১০ এর ইউনিভারসাল অ্যাপগুলাতে যেমন ইন্টারফেস থাকে সেই একই ধরনের ইন্টারফেস স্টার্ট মেনুতেও দেয়া হয়েছে।ইউজার অ্যাকাউন্ট এর পিকচার আর সাইন ইন/আউট এর অপশন এখন স্টার্ট স্ক্রিন এর নিচের দিকে দেয়া হয়েছে। আর স্টার্ট মেনু এখন আগের থেকেও অনেক বেশি স্মার্ট এবং আরও বেশি সাজানো গোছানো।

নতুন সেটিংস ইন্টারফেস এবং ডার্ক থিম

উইন্ডোজ ১০ এর আগের সেটিংস মেনুটা এই আপডেটে চেঞ্জ করা হয়েছে। আগের সেটিংস মেনুতে প্রত্যেকটা আলাদা আলাদা সেটিংস অপশন এর জন্য আলাদা আলাদা আইকন ছিল না।এই আপডেটে প্রত্যেকটি আলাদা আলাদা সেটিংস অপশন এর জন্য আলাদা আলাদা আইকন দেয়া হয়েছে।এছাড়া আগের সেটিংস মেনুতে অনেক সেটিংস অপশনই ছিল না যেগুলা কন্ট্রোল প্যানেল থেকে খুজে নিতে হত।এই সেটিংস অপশনগুলা এই আপডেতে ডিফল্ট সেটিংস মেনুতে দেয়া হয়েছে। এছাড়া এই আপডেটে সেটিংস মেনু থেকে পিসির ডিফল্ট থিম (লাইট/ডার্ক) চেঞ্জ করার অপশনও দেয়া হয়েছে।

নতুন উইন্ডোজ স্টোর ইন্টারফেস

এই আপডেটে আগের উইন্ডোজ স্টোরের ইন্টারফেসটার অনেক চেঞ্জ করা হয়েছে। উইন্ডোজ স্টোর এখন আগের থেকে অনেক বেশি এট্রাকটিভ এবং স্মার্ট।

ADs by Techtunes ADs

মাইক্রোসফট এজ ইম্প্রুভমেন্ট

এটা উইন্ডোজ ১০ এর জন্য মাইক্রোসফট এর ডেভেলপ করা অসাধারন একটা ওয়েব ব্রাউজার।যারা উইন্ডোজ ১০ ইউজ করেন তারা এটার সাথে খুব ভালভাবেই পরিচিত।এই আপডেটে এই ব্রাউজারটি আরো বেশি ইম্প্রুভ করা হয়েছে।সবথেকে বড় ফিচারটা হল Extensions ইউজ করার সুবিধা।আমরা গুগল ক্রোম বা ফায়ারফক্স বা অপেরা যে ব্রাউজারই পিসিতে ইউজ করিনা কেন সবসময় যেটার প্রতি গুরুত্ব দেই তা হল এক্সটেনশনস।

এটা আশা করি সবাই চেনেন।ব্রাউজার এর কার্যক্ষমতা বহুগুনে বাড়িয়ে দেয় এই ব্রাউজার এক্সটেনশনস।আগে মাইক্রোসফট এজ ব্রাউজারে এক্সটেনশন ইউজ করা সম্ভব না হলেও এই আপডেটে এটা করা সম্ভব হবে।এছাড়াও কয়েকটা সাইটে বা কয়েকটা সাইটে আপনার অ্যাকাউন্টে লগিন করতে আপনি বায়োমেট্রিক সিকিউরিটি ইউজ করতে পারবেন এজ ব্রাউজার এর মাধ্যমে (যদি আপনার পিসি বা ল্যাপটপ এটা সাপোর্ট করে)।

ওয়াইফাই হটস্পট (ইন্টারনেট শেয়ারিং)

উইন্ডোজ ৭ বা ৮ বা উইন্ডোজ ১০ এর আগের ভারশনেও পিসি বা ল্যাপটপ থেকে কোন মোবাইলে ওয়াইফাই এর সাহায্যে ইন্টারনেট শেয়ার করতে হলে থার্ড পার্টি সফটওয়্যারের সাহায্য নিতে হত। যেমন  My wifi router, Virtual router manager বা Connectify এইসব সফটওয়্যার। কিন্তু উইন্ডোজ ১০ এর এই ভারশনে ডিফল্টভাবে ইন্টারনেট শেয়ারিং এর এই অপশনটা দেয়া হয়েছে সেটিংস অপশনে।তাই এইসব থার্ড পার্টি সফটওয়্যারগুলার আর দরকার পড়বে না। 😀

একশন সেন্টার

এবার একশন সেন্টারেও থাকছে নতুন ইউজার ইন্টারফেস।একশন সেন্টার বলতে আমরা যেটাকে উইন্ডোজ ১০ এর নোটিফিকেশন সেন্টার বলে চিনি,যেখানে পিসির বিভিন্ন অ্যাপ আর নরমাল নোটিফিকেশন আসে।

এবার একশন সেন্টার এর উপরের অংশে স্টিকি নোট ঝুলিয়ে রাখা যাবে এবং যেকোনো মেসেজ বা চ্যাট প্রত্যেকটি থাম্বনেইল সহ একশন সেন্টারে থাকবে।এবার একশন সেন্টার হবে ক্লাউড বেসড। অর্থাৎ আপনার আইফোন বা এন্ড্রয়েড বা উইন্ডোজফোন এর নোটিফিকেশনগুলাও আপনি উইন্ডোজ ১০ এর একশন সেন্টারে sync করতে পারবেন চাইলে।

কর্টানা ইম্প্রুভমেনট

কর্টানা ছিল উইন্ডোজ ১০ এর বেস্ট ফিচারসগুলার মধ্যে একটা।সব উইন্ডোজ ১০ ইউজাররাই জানেন যে করটানা কি, বাট যারা জানেন না তাদের জন্য, করটানা হচ্ছে উইন্ডোজ ১০ ইউজার এর পারসোনাল অ্যাসিস্ট্যান্ট।করটানা দিয়ে কি কি করতে পারবেন বা কিভাবে কাজে লাগাতে পারবেন সেটা একটু গুগল ঘাটলেই বুঝবেন।

ADs by Techtunes ADs

সব যদি আমিই বলে দেই তাহলে আপনি কি শিখলেন জীবনে? 😛  যাই হোক, এবার করটানা লকস্ক্রিনেও এভেইলেবল হবে,অর্থাৎ আপনি সাইনড ইন না থাকলেও করটানা কাজ করবে।

নতুন স্কাইপ অ্যাপ

আগে উইন্ডোজ ১০ এর জন্য কোন অফিশিয়াল ফুল ফিচারড স্কাইপ ইউনিভারসাল অ্যাপ ছিল না।স্কাইপ ইউজ করতে চাইলে ডেক্সটপ অ্যাপ ইউজ করতে হত।কিন্তু উইন্ডোজ ৮ এর মত স্টোরে কোন অফিশিয়াল ইউনিভারসাল অ্যাপ ছিল না।কিন্তু এবার সব ইউজাররাই বিল্ট ইন স্কাইপ অ্যাপ পাবেন।যদিও এটা বেটা বা প্রিভিউ ভারশনে আছে এখনো।

এছাড়া আরো অনেক নতুন ফিচার আছে এই আপডেটে যা লিখে শেষ করা যাবে না।আপনি নিজে ইউজ করলেই বুঝবেন আর কি কি নতুন ফিচারস আছে বা আর কোন কোন বাগস ফিক্স করা হয়েছে।

কিভাবে ডাউনলোড করবেন

আপনি যদি উইন্ডোজ ১০ ইউজার হয়ে থাকেন আর যদি চান যে আপনার আগের কোন ডাটা বা সেটিংস বা অ্যাপস ডিলিট না হোক তাহলে আপনি সরাসরি উইন্ডোজ আপডেট অপশন থেকে উইন্ডোজ আপডেট দিয়ে দিতে পারেন।আর যদি ক্লিন ইন্সটল করতে চান তাহলে ISO ফাইল ডাউনলোড করে পেনড্রাইভ দিয়ে বুটেবল করে পিসি অথবা ল্যাপটপে ইন্সটল করতে পারেন। ISO ফাইল এখান থেকে  ডাউনলোড করতে পারেন।

কিভাবে এক্টিভেট করবেন

আপনি যদি উইন্ডোজ ১০ রিলিজ হওয়ার প্রথম দিকে উইন্ডোজ ইন্সটল করে থাকেন এবং উইন্ডোজ ১০ এর অটোমেটিক একটিভেটেড ভারশন ইউজ করে থাকেন তাহলে চিন্তার কোন কারন নাই, এই ভারশনটিও আপনার পিসি বা ল্যাপটপে ইন্সটল করার পরে অটোমেটিক এক্টিভেট হবে। আর যদি আপনি আজ পর্যন্ত কোনদিন উইন্ডোজ ১০ ১ বারের জন্যও ইন্সটল না করে থাকেন তাহলে আপনার দুর্ভাগ্য।

আপনাকে গুনতে হবে ঠিক ১২০ ডলার :-P। কারন উইন্ডোজ ১০ এর ফ্রি আপগ্রেড অফার গত মাসেই শেষ হয়ে গেছে। কিন্তু আপনি যদি লিগালি উইন্ডোজ ১০ একটিভেট করতে না চান তাহলে একটিভেটর ইউজ করতে পারেন।জাস্ট উইন্ডোজ ইন্সটল করার পরে এই activator তা ইন্সটল করে আবার আনইন্সটল করবেন এন্ড Done। ১২০ ডলারের কাজ শেষ। 😀  কিন্তু activator টা আপনাকে একটু কষ্ট করে এই লিঙ্কে যেয়ে টরেন্ট   থেকে ডাউনলোড করে নিতে হবে।

ধন্যবাদ আমার টিউনটা ধৈর্য সহকারে পড়ার জন্য।যেকোনো ধরনের প্রশ্ন থাকলে টিউনমেন্টে জানাতে পারেন। যেকোনো প্রয়োজনে ফেসবুকেও মেসেজ দিতে পারেন। 🙂

ADs by Techtunes ADs

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি সিয়াম একান্ত। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 5 বছর যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 40 টি টিউন ও 82 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 10 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমার নাম সিয়াম রউফ একান্ত। অনেকে সিয়াম নামে চেনে আবার অনেক একান্ত নামে। যাইহোক, পড়াশুনা একেবারেই ভাল লাগেনা আমার। ভাল লাগার মধ্যে দুইটা জিনিস , ফটোগ্রাফি আর প্রযুক্তি। এই প্রযুক্তির প্রতি ভাললাগা থেকেই টেকটিউন্স চেনা এবং টেকটিউন্সে আইডি খোলা। দেখা যাক কতদূর কি করা যায়......


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

যারা একবারও উইন্ডোজ ১০ ইন্টল করে নাই তারাও ফুল ভার্সন এ্যাকটিভ করতে পারবে ।
জানতে হলে কল করুন । ০১৭২০৪৫২৩১৮

    কল কইরা কি লাভ ? আমিতো একটিভেটর এর লিংক দিয়ে দিছি। যারা একবারো উইন্ডোজ ১০ ইন্সটল করে নাই তারা activator দিয়ে একটিভেট করে নিতে পারবে।

ভাই ধন্যবাদ আপনাকে এই বিষয়ে টিউন করার জন্য।

    টিউনমেন্ট এর জন্য ধন্যবাদ। 🙂

      “There was a problem starting setup. Close the tool, Restart your PC and than try running the tool again.” This Message is found when double click the Media CreationTool.exe

      I had Restart the PC again & Again but same problem Occuring
      Please Find some Solution. I cant make Bootable USB Disk.

Level 0

TOOL download hoy…then ki korbo

ভাল মানের টিউন। শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

Level 0

থ্যাংক ইউ ভাই, আমার প্রশ্ন যদি activator দিয়ে active করা হয় তাহলে কি ভাইরাস এর সমস্যা অথবা অন্য কোনো সমস্যা হতে পারে? activator দিয়ে active করলে কি সুবিধা হবে? দয়া করে জানালে উপকৃত হব।

    না ভাই , একটিভেটরটা আমি নিজে আমার ফ্রেন্ড এর পিসিতে টেস্ট করে নিছি। কোন প্রবলেম নাই। বাট ইন্সটল করার আগে সেটিংস থেকে উইন্ডোজ ডিফেন্ডার অফ করে নিবেন।

vai ISO file ta namte parsi na… official page e cole jai… direct download link nai??

আপনি Windows 10 এর কোন Edition ব্যবহার করেন ?

    আমি বর্তমানে উইন্ডোজ ১০ প্রো ইউজ করছি। আমার মতে এটাই উইন্ডোজ ১০ এর বেস্ট এডিশন।

vai tool shara direct ISO file ki vabe download korbo

Level 0

vai ami try korsi…kintu thik bujtesi nah…..steps gula ki aktu bolben? ami tool download disi then install korar time e pendrive chailo ami iso download howar jonno amr pendrive select kore dilam…then 100% howar pore ki korbo? tokhn ki pendrive sudu laptop e connect korlei windows setup korar command gula asbe? aktu janaben kindly.

    আপনার পেনড্রাইভে উইন্ডোজ ১০ ইন্সটল হয়ে গেছে।এখন আপনাকে বুট মেনু থেকে আপনার পেনড্রাইভ বুট করে উইন্ডোজ সেটআপ দিতে হবে। নিজে না পারলে অন্য কারো সাহায্য নিতে পারেন। বা একবার গুগলে ” how to setup wondows with pendrive ” লিখে খুজে দেখতে পারেন।

ভাই আমি windows 10এর home Edition ব্যবহার করি।কিন্তু এটি ইনস্টল দেয়ার পর থেকে স্কিনের নিচে লেখা উঠে থাকে ”activate windows go to settings to activate windows”.এখন আমি কিভাবে active করতে পারি।

    নরমালি যদি আপনার উইন্ডোজ এক্টিভেট না হয় তাহলে আপনি টিউনে দেয়া এক্টিভেটরটা ইউজ করতে পারেন। বাট অবশ্যই এক্টিভেটর ইন্সটল করার আগে উইন্ডোজ ডিফেন্ডার অফ করে নিবেন।

ভাই আমি উইন্ডোস 10 আপডেট দিয়েছিলাম যখন ফ্রি অফার ছিল ,কিন্তু ড্রাইভার না পাবার কারণে আবার আনইনস্টল করে দিয়েছি. এখন আমি যদি উইন্ডোস 10 দেয় তা হলে কি অরিজিনাল তা হবে না ক্র্যাক লাগবে ???

ভাই আপনার কাছে কিছু প্রশ্ন।

আমি এখন ও উইন্ডোজ ১০ ব্যবহার করি নাই।
কম্পিউটার এর দোকানে যেসব সিডি আছে সেগুলা ত পুরনো সেগুলাতে আগের ভার্শন তাই বার বার copy pasteকরে দেওয়া হয়।

১.আমি যদি সিদি কিনে সেটআপ দেই আর পরে যদি আপডেট দেই তাহলে কি নতুন আপডেট ব্যবহার করতে পারব???

২. উইন্ডোজ ১০ যদি ব্যবহার করি তাহলে কি আমাকে ড্রাইভার আপডেট দিয়ে চালাতে হবে??? নাকি আগে default ড্রাইভার এর যে সিডি দিয়ে দিছে সেটা থেকে সেটআপ দিয়েই হবে???

২. আমি photoshop illustator ব্যবহার করি এইগুলা উইন্ডোজ ১০ এ চালাতে কোন সমস্যা হবে কি???

যদি এই প্রশ্ন গুলার উত্তর দেন তাহলে উপকৃত হব।

ধন্যবাদ পোস্টের জন্য।

    আমার ও একই সমস্যা

    মাসুদ আহমেদ ভাই

    ১। সিডি না কিনে একবার চেক করে দেখুন আপনার পিসি-টি উইন্ডোজ ১০ কমপিটিবল কিনা, তারপর না হয় সিডি কিনবেন বা উইন্ডোজ ১০ অ্যানিভারসারি এডিশন ডাউনলোড করে ইন্সটল করবেন । আর ডাউনলোড করে ইন্সটল করুন তাহলে আপনার হার্ডডিস্কের জায়গা অনেকটা সেভ হবে ।
    আর আপনার প্রশ্নের উত্তর হ্যাঁ নতুন আপডেট ব্যবহার করতে পারবেন ।।

    ২। আপনার default ড্রাইভার এর যে সিডি আছে সেটা থেকে সেটআপ দিলেই হবে, যদি আপডেট ভার্সন থাকে তবে সেটি ইন্টারনেটের মাধ্যমে নিজে থেকেই হয়ে যাবে, এই উইন্ডোজ ১০ অ্যানিভারসারি এডিশনে কেবল আপনার পিসিতে ইন্টারনেট কানেকশন থাকলেই হবে।

    ৩। আপনার পিসিতে যদি photoshop illustator সাপোর্ট করে তবে নিশ্চয়ই চালাতে পারবেন । আমার কোনো সমস্যা হয়না । আশা করি আপনারও হবে না।

    আশা করি আপনার প্রশ্নের উত্তর পেয়ে গেলেন তাহলে আর দেরি কেন !
    শুরু করে দিন ডাউনলোড আর মজা নিন নতুন উইন্ডোজ এর।।

      আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ ভাই। ডাউনলোড করতে গেলে থ টুল ডাউনলোড হয়ে যায়। ফাইল কিভাবে ডাউনলোড করব? দয়া করে লিঙ্ক টা যদি দেন তাহলে খুব ভাল হত।

Darun tune!!! Thanks for writing……..

দারুন টিউন করেছেন সিয়াম ভাই। টেকটিউনসে এমন টিউন নিয়মিত করবেন আশা করি।

    টিউনমেন্ট এর জন্য ধন্যবাদ। 🙂 আশা করি ভবিষ্যতেও ভাল টিউন লিখতে পারব টেকটিউনসে।

ভাই আমি উইন্ডোজ ১০ ব্যবহার করছি কিন্তু একটা সমস্যা যেটা হল রেপ “র্ক” দেওয়া যায় না অফিস 2016 এবং বিজয় 71 ফন্ট সুতানু এমজেে এর কোন সমাধান আছে আপনার কাছে? সমাধান আছে আপনার কাছে?

    আমি অভ্র ইউজ করি। এতাতে এমন কোন প্রবলেম হয়নি এখনও। কিন্তু কয়েকটা কাস্টম বাংলা ফন্ট ইন্সটল করে দেখতে পারেন কাজ হয় কিনা।

লেটেস্ট উইনন্ডোজ ১০ এ বাংলা ফন্ট সমস্যা। দয়া করে সাহায্য করুন।
কদিন আগে আমার পিসিতে লেটেস্ট উইন্ডোজ ইনস্টল করেছি।
(Windows 10 pro x64 JUNE 2016) সবই ঠিক আছে শুধু বাংলা ফন্টে সমস্যা হচ্ছে…
পেইন্ট প্রগ্রামে কোন ভাবেই বাংলা লিখতে পারছিনা। কিছু লিখলে এই রকম বক্স এর মত আসে।
http://prntscr.com/c5n1bd
অনেক বাংলা ফন্ট ইন্সটল করেছি কিন্তু কাজ হচ্ছেনা। অন্য সকল প্রগ্রামে বাংলা সুন্দর লেখা হয়। শুধু এই পেইন্ট প্রগ্রামেই এমন হচ্ছে। কিভাবে এর সমাধান পাব?
কি করে এর সমাধান পেতে পারি? এর সমাধান কি?
দয়া করে সাহায্য করুন।

খুব ভাল মানের টিউন প্রকাশ করেছেন সিয়াম একান্ত ভাই,
তবে যদি ডাউনলোড করার সরাসরি লিঙ্ক গুলি দিতেন তবে আরো ভাল হতো ।

আর এই রকম আরো টিউন করে চলুন ফিরিয়ে আনি সেই হত গৌরব।
টেকটিউনের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ ।। ভাল থাকবে ।।

    অভিষেক ভাইয়া আপনাকে ফেসবুকে মেসেজ করেছি। একটু দেখুন প্লিজ…

    টিউনমেন্ট এর জন্য ধন্যবাদ অভিষেক ভাইয়া। 🙂 আসলে আমি মাইক্রোসফট এর অফিশিয়াল সাইট থেকে ডাউনলোড লিংক দিয়েছি , এইজন্য ডাইরেক্ট ডাউনলোড করা যাচ্ছে না , টুল ডাউনলোড করে নিতে হচ্ছে। অফিশিয়াল সাইট থেকেও ডাইরেক্ট লিংক দিতে পারতাম , কিন্তু সেইটা শুধু ২৪ ঘণ্টা স্থায়ী হত।

ভাই খুব দ্রুত আপনার কাছ থেকে উইন্ডোজ ১০ মোবাইল এনিভারসারি আপডেট সম্পর্কে একটি জটিল টিউন আশা করছি।

দারুন টিউন করেছেন সিয়াম ভাই। টেকটিউনসে এমন টিউন নিয়মিত করবেন আশা করি।

দারুন টিউন করেছেন .

There was a problem starting setup. Close the tool, Restart your PC and than try running the tool again.

This Message is found when double click the MediaCreationTool.exe.

I had Restart the PC again & Again but same problem Occur.
Please Find some Solution. I cant make Bootable USB Disk.

“There was a problem starting setup. Close the tool, Restart your PC and than try running the tool again.” This Message is found when double click the Media CreationTool.exe

I had Restart the PC again & Again but same problem Occuring
Please Find some Solution. I cant make Bootable USB Disk.

ভাই খুব দ্রুত আপনার কাছ থেকে উইন্ডোজ ১০ মোবাইল এর এনিভারসারি আপডেট সম্পর্কে একটি জটিল টিউন আশা করছি।

ভাই আপনার টিউন দেখে জানালা-১০ ব্যাবহারের সাহস সঞ্চার করলাম, পিসি ভালই চলছে কিন্তু নেট কানেক্ট করলে অনেক স্লো হয়ে যায়। কোন উপায় আছে কি? Pc Config: i3- 3.06ghz , 2GB DDR-3 1333Bus, Kaspersky 2016 Genuine.

    নেট কানেক্ট করলে পিসি স্লো হয় কেন এইটা আমার ঠিক জানা নেই। কিন্তু আমার মনে হয় আপনার উইন্ডোজ ১০ পিসিতে কোন থার্ড পার্টি এনটিভাইরাস ব্যাবহার না করলেই ভাল হয়। কারন উইন্ডোজ ১০ এর Windows Defender এইসব থার্ড পার্টি এনটিভাইরাসের থেকে অনেক বেশি স্ট্রং আর কার্যকরী। তাই আপনি kaspersky এনটিভাইরাসটা আনইন্সটল করে দিলে ভাল হয়। অনেকসময় এইসব অ্যান্টিভাইরাস পিসিকে স্লো করতেও যথেষ্ট বড় ভুমিকা পালন করে। 😛

আমি অটোমেটিক আপডেট দেওয়ায় ভার্শন ১৫১১ দেখাচ্ছে। কিন্তু সকল ফিচার পাচ্ছিনা, বিশেষ করে মোবাইল হটস্পট অপশনটা নাই।

ভাই খুব ভালো টিউন । HELP করার জন্য ধন্যবাদ ।
BUT আমার কম্পিউটার এর একটা সমস্যা দেখছি । আমার PC তে 4GB RAM লাগানো আছে । কিন্তু 2gb usable দেখাচ্ছে । সাহায্য করবেন PLEASE ।

    আপনার পিসিতে যদি এক্সটারনাল গ্রাফিক্স মেমরি ইন্সটল করা থাকে তাহলে হতে পারে বাকি মেমরিটুকু গ্রাফিকস মেমরিতে ইউজ করা হচ্ছে।আপনি পিসির bios থেকে গ্রাফিক্স কনফিগারেশন চেক করেন।

ভাই আমার ল্যাপটপে উইন্ডোজ ১০ প্রো এর রেডস্টোন ওস বিল্ড 14393.0 সেট আপ দিয়েছি। উইন্ডোজ আপডেট অপশনে গেলে আপডেট দেখায় কিন্তু আপডেট দিলে ০% এ আটকে থাকে কোন প্রোগ্রেস হয় না। আমি উইন্ডোজ সফলভাবে এক্টিভেট করেছি।এটার একটি সমাধান দিন প্লিজ। আর আপনার দেয়া এক্টিভেটর এর টরেন্ট ছাড়া ডিরেক্ট ডাউনলোড লিংক দেয়া যায়??

    @আবু সাইদ আপনি উইন্ডোজ আপডেট থেকে আপডেট না দিয়ে iso ফাইল ইউজ করে ক্লিন ইন্সটল করেন। আশা করি কোন প্রবলেম হবে না। 🙂

      ভাই আমি প্রথমেই iso ফাইল ইউজ করে ক্লিন ইন্সটল দিয়েছি পেনড্রাইভ থেকে কিন্তু এই সমস্যাটির সমাধান হয় নাই। আপনার কাছে যদি আমারটার থেকে লেটেস্ট প্রো ভার্শন এর ডিরেক্ট ডাউনলোড লিংক থাকে তাহলে প্লিজ শেয়ার করেন। আর দয়া করে আপনার দেয়া এক্টিভেটর এর টরেন্ট ছাড়া ডিরেক্ট ডাউনলোড লিংকটা দিন।

ভাই পোস্টটা খুব ভালো । আমি WINDOWS 7 ব্যবহার করি । WINDOWS 10 ব্যবহার করার জন্য সর্বনিম্ন কি কি জিনিস লাগবে ।

    মোটামোটি এইগুলা থাকলেই আপনি উইন্ডোজ ১০ ইউজ করতে পারবেন।

    Processor: 1 gigahertz (GHz) or faster.
    RAM: 1 gigabyte (GB) (32-bit) or 2 GB (64-bit)
    Free hard disk space: 16 GB.
    Graphics card: Microsoft DirectX 9 graphics device with WDDM driver.

ধন্যবাদ 🙂 #সিয়াম_একান্ত ভাইয়া । আমি ইনস্টল করতে যাচ্ছি । কোনো সমস্যা হলে, Help করবেন 🙂 ।

Thanks Vaiya

Help please……
কারো কাছে কি উইন্ডোজ ১০ রেডস্টোন (Single language x64) এর প্রোডাক্ট কি আর এক্টিভেটর আছে?
কেউ যদি হেল্প করতেন তবে অনেক উপকৃত হতাম।