মোবাইল দিয়ে ফ্রিল্যান্সিং এর কোন কোন কাজগুলো করা যায়?

আসসালামুয়ালাইকুম
আজকের টিউনে সবাইকে স্বাগত জানাচ্ছি।

আজকে যে বিষয়টি নিয়ে কথা বলব তাহলো মোবাইলে ফ্রিল্যান্সিং।

কি?
ইনকাম করবেন নাকি?😁
তাহলে চলুন শুরু করি মুল পয়েন্ট।

মোবাইল দিয়ে কি ফ্রিল্যান্সিং করা সম্ভব?

আপনি যদি মোবাইল দিয়ে ইনকাম লিখে ইউটিউবে সার্চ দেন তাহলে অসংখ্য ভিডিও আসবে এবং এগুলোর  অধিকাংশ ভিডিও  স্ক্যাম। হয়তোবা কিছু কিছু সাইট থেকে আপনার সামান্য কিছু ইনকাম হলেও হতে পারে। কিন্তু সেই টাকা আপনি উইগথড্রো করতে পারবেন কি না সে বিষয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। এজন্য আপনি যদি আসলেই মোবাইল দিয়ে কোন কাজ করতে চান আপনাকে অবশ্যই কোনো ভালো কিছু করতে হবে।

এখন আসি, ভালো কি করব?

ভালোকিছু যদি আপনি কোনো মার্কেটপ্লেসে(Fiverr, freelancer, upwork etc.) করতে চান তবে সেখানে কয়েক হাজার কাজের মধ্যে মাত্র  ৩০ থেকে ৪০ টি ক্যাটাগরির  কাজ পাবেন মোবাইলে করার মতো।

যে কেউ চাইলে কাজগুলো করতে পারবে। আর এই কাজগুলো  কি, এগুলো নিয়ে  বিস্তারিত জানানোর জন্যই আজকের টিউনটি।

তাহলে চলুন জেনে নেই মোবাইল দিয়ে ফ্রিল্যান্সিং এর কোন কাজগুলো করা যায়।

১. ট্রান্সলেশন ল্যাঙ্গুয়েজ

ট্রান্সলেশন ল্যাঙ্গুয়েজ এর কাজ যদি আপনি করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে অনেকগুলো ভাষা জানতে হবে। আপনি যদি শুধু বাংলা জানেন তাহলে এই কাজটি ঠিকভাবে করতে পারবেন না। কারন আপনাকে যদি কোন একটা ভাষা থেকে বাংলায় অনুবাদ করতে দেয়া হয় তাহলে সেই ভাষাটি জানতে হবে। কাজটি হয়তোবা ইংলিশ টু বেঙ্গলি, হয়তোবা হিন্দি টু বেঙ্গলি, হয়তোবা অন্য কোন ভাষা থেকে বেঙ্গলি ভাষা ট্রান্সলেশন হতে পারে। এটির জন্য আপনাকে অবশ্যই ইংলিশ জানতে হবে এবং অন্য আরো কিছু ভাষা জানতে হবে। যদি এটি জানেন তাহলে আপনি ট্রান্সলেশনের জব গুলো করতে পারবেন।

২.কন্টেন্ট রাইটিং

কন্টেন্ট রাইটিং ক্যাটাগরির  মধ্যে  যেগুলো আপনি মোবাইল দিয়ে চাইলে কাজ করতে পারেন সেগুলো হচ্ছে আর্টিকেল রাইটিং, ব্লগ রাইটিং, ব্লগ টিউমেন্টিং, তারপর ক্রিটিভ রাইটিং, ফোরাম টিউনিং, মেডিকেল রাইটিং, প্রুফরিডিং, প্রডাক্ট ডেস্ক্রিপশন ইত্যাদি।
এখন এর প্রত্যেকটা বিষয়ে একটা একটা করে বলতে গেলে অনেক সময়ের ব্যাপার। আপনি চাইলে ক্যাটাগরিগুলো গুগলে সার্চ করে করে দেখে নিতে পারেন। 😃

ওয়েবসাইটে  টাইপিং এর কাজ গুলো আমরা চাইলে খুব সহজে মোবাইল দিয়ে করতে পারি। এজন্য আমাদের পিসি বা ল্যাপটপ  দরকার হবে না তবে টাইপিং এ একটু কষ্ট হতে পারে। আর আপনি যদি চান নিজের ব্লগ তৈরি করবেন তাহলে আপনিও মোবাইল দিয়ে তা তৈরি করে লেখালেখি শুরু করতে পারেন। এই ভিডিওটি টিউটোরিয়াল হিসেবে দেখতে পারেন তবে আগে পুরো টিউনটি পরুন তা না হলে অনেক কিছু মিস করবেন।

আর আপনার ব্লগের ভিজিটর যদি বেড়ে যায় তাহলে আপনি সেখান থেকে গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে আয় করতে পারবেন। 😀😀

৩. মার্কেটিং

ধরুন আমার একটি মেডিসিন রয়েছে 😉। এখন আমি সেই মেডিসিনটা প্রমোট করতে চাচ্ছি বিভিন্ন ফোরামে। এখন আপনি এ কাজটা চাইলে মোবাইল দিয়েও করতে পারেন।
এজন্য  যত ধরনের ফোরাম রয়েছে সবগুলোর লিস্ট করবেন। তারপর সেখানে গিয়ে  আপনি এ বিষয়ে টিউমেন্ট করতে পারেন আবার টিউন করতে পারেন। তো সেগুলোর কিছু নিয়ম রয়েছে, যেমন আপনি শুরুতে গিয়েই প্রোডাক্ট প্রমোট করতে পারবেন না।
আপনাকে ধীরে ধীরে এগিয়ে যেতে হবে।

আর আপনাকে অর্গানিক ভাবে আপনার প্রোগ্রাম সবার সামনে উপস্থাপন  করতে হবে। আর এই বিষয়গুলো এগুলো হচ্ছে ফোরাম টিউনিং।
এ রিলেটেড কাজগুলো আরো বিস্তারিত জানতে চাইলে আপনি  গুগল এবং ইউটিউবের সাহায্য নিতে পারেন। আর এ কাজগুলো  কীভাবে করে তাও শিখে নিতে পারবেন।

এখানে এটুকু জানাতে চাই যে, মোবাইল দিয়ে ফোরাম টিউনিং এর কাজ করা সম্ভব।

৪.কাস্টমার সাপোর্ট

কাস্টোমার সাপোর্ট বোর্ডের কাজ আমরা চাইলে মোবাইল দিয়ে করতে পারি।

মনে করুন, কোন একটা বড় কোম্পানি যাদের ফোন সাপোর্ট দরকার।
এখন কোন কাস্টমার ফোন করবে একটা নাম্বারে আর আপনি সেটি রেসপন্স করবেন এবং তাদের সাথে কমিউনিকেট করবেন এবং ক্লায়েন্টের আপনার কাস্টমারের যে চাহিদা কাস্টমারের যে প্রশ্নগুলো সেগুলোর উত্তর দিবেন এটিই হলো কাস্টমার সাপোর্ট।
আর এই কাজটি আপনি ঘরে বসে মোবাইল দিয়ে করতে পারবেন।

উপরের ক্যাটাগরিগুলোতে যা বললাম সবগুলো মোবাইলে একেবারে সম্পূর্ণ ১০০% না হলেও ৮০-৯০%  করতে পারবেন। এর মধ্যে থেকে যে কাজগুলো আপনার জন্য পসিবল, আপনার মনে হবে যে আমি এটা মোবাইলে পারব, সে কাজগুলোর জন্য আপনি আপনার মোবাইল দিয়ে বিট করতে পারেন বা গিগ খুলতে পারেন।

আমি আবারও বলছি অনলাইনে যে ভিডিও গুলো রয়েছে যে, মোবাইলে কিভাবে ইনকাম করা যায়, বিকাশে পেমেন্ট দেয়, এটা সেটা ইত্যাদি ইত্যাদি এগুলো থেকে সবসময় বেচে থাকুন।
মনে রাখবেন কেউ আপনাকে এমনিতেই টাকা দিবে না। তাই এজন্য নিজের স্কিল গুলো শক্ত করে গড়ে তুলুন।

কথা হবে পরবর্তী টিউনে।

সে পর্যন্ত ভালো থাকবেন, ইনশাআল্লাহ।

টিউমেন্টে জানান কেমন লাগল এই টিউনটি।
আসসালামু আলাইকুম।

Level 2

আমি রাশেদুল ইসলাম রিয়ন। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 মাস 3 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 12 টি টিউন ও 2 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 3 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস