ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

গেমস জোন [পর্ব-১৩০] :: ক্রাইসিস ২ (২০১১)

টিউন বিভাগ গেমস
প্রকাশিত

গেমস জোন

ক্রাইসিস ২ একটি ফার্স্ট পারসন শুটার ভিডিও গেম যেটি নির্মাণ করেছে ক্রাইটেক। প্রকাশ করেছে ইলেকট্রনিক আ‌র্টস (ইএ)। গেমটি ক্রাইসিস গেমস সিরিজের মেইন টাইটেল এর ২য় সংস্করণ।গেমটি ২০০৭ সালের ক্রাইসিস গেমটির সিকুয়্যাল। গেমটি সিরিজের সর্বপ্রথম গেম যেটি ক্রাইটেক ইঞ্জিণ ৩ দিয়ে তৈরি এবং সিরিজের প্রথম কনসোল গেম। গেমটি মাইক্রোসফট উইন্ডোজ, এক্স.বক্স ৩৬০ এবং প্লে-স্টেশন ৩ গেম কনসোল এর জন্য ২০১১ সালের মার্চে বিশ্বব্যাপি মুক্তি পায়।

ADs by Techtunes ADs

 

নির্মাতা:

ক্রাইটেক

প্রকাশক:

ইলেকট্রনিক আর্টস

সিরিজ:

ক্রাইসিস

ইঞ্জিণ:

ক্রাইইঞ্জিণ

ADs by Techtunes ADs

ভার্সন:

১.৯.০.০

প্ল্যাটফর্ম:

মাইক্রোসফট উইন্ডোজ,

প্লে-স্টেশন ৩,

এক্সবক্স ৩৬০

রিলিজ:

মার্চ ২২ থেকে ২৫ এবং এপ্রিল ১ থেকে ১৪, ২০১১।

ধরণ:

ফার্স্ট পারসন শুটার

ADs by Techtunes ADs

মোড:

সিঞ্জেল এবং মাল্টিপ্লেয়ার

ট্রেইলার ভিডিও:

http://www.youtube.com/watch?v=JGy2F6fec3A

http://www.youtube.com/watch?v=laIghwTFdqg

http://www.youtube.com/watch?v=oBwReBKYs2s

http://www.youtube.com/watch?v=YUhXKUEtyHs

 

সিস্টেম রিকোয়ারমেন্টস:

কমপক্ষে:

ADs by Techtunes ADs

মাইক্রোসফট উইন্ডোজ এক্স.পি (সার্ভিস প্যাক ৩ সহ) অপারেটিং সিস্টেম,

কোর ২ ডুয়ো ২.৪ গিগাহার্টস গতির প্রসেসর,

২ গিগাবাইট র‌্যাম,

৫১২ মেগাবাইট গ্রাফিক্স কার্ড

৯ গিগাবাইট খালি জায়গা হার্ডডিক্সের

ভাল ভাবে খেলতে হলে:

মাইক্রোসফট উইন্ডোজ সেভেন অপারেটিং সিস্টেম,

কোর আই ৩ ২.৬ গিগাহার্টস গতির প্রসেসর,

৪ গিগাবাইট র‌্যাম

১ গিগাবাইট গ্রাফিক্স কার্ড,

ADs by Techtunes ADs

৯ গিগাবাইট হার্ডডিক্সের খালি জায়গা

অতিরিক্ত:

ডাইরেক্ট এক্স ৯.০সি সাথে শেডার অথবা পিক্সেল শেডার ভাসর্ন ৩.০। ইন্টারনেট কানেকশন মাল্টিপ্লেয়ার এবং প্রথম চালুর জন্য।


ক্রাইসিস ২ একটি ফার্স্ট পারসন শুটিং ভিডিও গেম। যেখানে আপনাকে একটি ফোর্স রিকন মারিন দলের হয়ে খেলতে হবে। সিরিজের আগের গেমস গুলোর মতই গেমটিতে ওয়েপন এবং সুপার এবেলিটিতে স্বাধীণতা থাকবে। সিরিজের আগের গেমস গুলো জঞ্জলে হওয়াতে ক্রাইটেক গেমটিতে বিনা-জঞ্জলে বানাতে চাইল। তাই গেমটির পটভূমি হিসেবে নিউ ইয়ার্ক সিটিকে বেছে নেওয়া হয়েছে। তবে এটিকে “আরবান জঞ্জল” বানানো হয়েছে। যেখানে আপনি প্লেনিং এবং অগ্রবর্তী গেমপ্লে তে ব্যাপক মজা পাবেন। গেমটিতে আপনি দেয়াল ভেদ করে দেখতে পারবেন সুপার পাওয়ার এর বল’ এ।

গেমটিতে প্লেয়ার কে ফোর্স রিকন মারিন “আলকার্টেজ” এর নিয়ন্ত্রণে দেখা যায়। প্লেয়ারকে বরাবরের মতই সুপার পাওয়ার / এবিটিলি যু্‌ক্ত ন্যানো সুইট ২.০ পরিহিত অবস'ায় পাবেন।

ক্রাইসিস ২ গেমটির পটভূমি নিউ ইয়র্ক সিটি। সাল ২০২৩। সিরিজের প্রথম গেমটির পটভূমির ৩ বছর পর। গেমটিতে নিউইয়র্ক সিটিকে প্রায় ধ্বংস হতে দেখা যায়। যার কারণ সিটিতে এলিয়েনদের আগমন। গেমটি শুরু হয় একটি সংবাদ ফুটেজে, যেখানে দেখা যায় “ম্যানহাটান” ভাইরাস এর ছড়িয়ে পড়ার খবর দিয়ে। এই ভাইরাসটির কারণে সিটি মৃত্যু ভূমিতে পরিণত হয়। ভাইরাসটির পিছনে এলিয়েনদের হাত রয়েছে। এখন এলিয়েনদের হাত থেকে সিটিকে বাচাঁতে ক্রাইনেট মিলিটারী ফোর্স একটি প্রাইভেট মিলিটারী কনট্রাকটরকে দায়িত্ব দেয়। এখানে গেমটির শুরু।

দলটির প্রথম কাজ হয় সাবেক ক্রাইনেট ডক্টর ন্যাথান গ্রাউডকে খুঁজে বের করা। কারণ তার কাছে এই এলিয়েনদের উপর গুরুত্বপুর্ণ তথ্য রয়েছে। তবে এরই মধ্যে এলিয়েন দলটি সম্পুর্ণ মানবজাতিকে ধ্বংস করার পথে উঠে পড়ে লেগেছে।

গেমটি দেখা যায় যে ফোর্স রিকন মারিন সদস্য “এ্যাকার্টেজ” শুধু মাত্র বেঁেচ থাকে এলিয়েদের হামলার পর।  ডেলটা ফোর্স মেজর “প্রফেট” এ্যকার্টেজ এর জীবন বাচাঁয় । এবং প্রফেট আত্নহত্যার করে। এ্যাকাটের্জ প্রফেট এর ন্যানোসুইট এ থাকা ক্যামেরার ভিডিও টেপ এ দেখতে পায় যে “প্রফেট” নিজের সেই ভাইরাস এ আক্রান-। এরপর আর কি করা?  এ্যকাটের্জ ন্যানোটসুইটটি পড়ে এবং বেরিয়ে পড়ে এলিয়েনদের হাত হতে মানব জাতিকে বাঁচাতে। এ্যকাটের্জ কে প্রফেট মনে করে গ্রউড ফোর্স এ্যকাটের্জ এর সাথে যোগাযোগ করে বলে যে তার ল্যাবে দেখা করতে। তবে যাই হোক, গ্রউড ফোর্স ইতিমধ্যে জেনে গেছে যে প্রফেট ভাইরাস এ আক্রান- এবং প্রফেট কে মারার জন্য দল পাঠায় তার ল্যাব এ। তবে এখানে যে প্রফেট এর সুইট এ্যাকাটের্জ পড়ে আছে তা কিন' গ্রইড ফোর্স জানে না।

গ্রউড ল্যাব্রেটরিতে যাওয়ার পথে এ্যকার্টেজ কিছু এলিয়েন টিস্যু খুঁজে পায় একজন মৃত্য সোল্ডার এর সুইট এ। টিস্যুকে ধরা মাত্রই এ্যাকাটের্জ এর সুইট এ আজিব রিএকশন শুরু হয় এবং এ্যকাটের্জ এর সুইট এ কিছু এলিয়েনগত পাওয়া ট্রান্সফার হয়। পরবর্তীতে গ্রউড এর দেখা করার পর গ্রউড বুঝতে পারে যে প্রফেট অলরেডি মরে গেছে এবং এ্যাকটের্জ ও মরা। তবে মরার কিছুক্ষণ আগে প্রফেট এর ন্যানোসুইট পড়ার কারণে এ্যাকটের্জ এখনো বেঁেচ আছে। বলতে গেলে এ্যকার্টেজ এর একমাত্র বাঁচার অবোলম্বন হলো এই ন্যানোসুইট। এবং ন্যানোটসুইটটি এখন এন্টিবুট হয়ে গেছে ভাইরাসটির বিপক্ষে। তাই এ্যকার্টেজ এর এখন হারানো মতো কিছু নেই। সে বেরিয়ে পড়ে মানব জাতিকে বাঁচাতে।

ক্রাইসিস ২ এর নিমার্ণ কাজ শুরু হয় সিরিজের প্রথম গেম ক্রাইসিস রিলিজ এর পর পরই। ২০০৭ সালেই। এবং ক্রাইসিস ২ গেমটি প্রথম এনাউন্স করা হয় ২০০৯ সালে ই৩ কনফারেন্স এ। গেমটি অনেক সময় ব্যয় করে ক্রাইইঞ্জিণ ৩ এর উপর বানানো। গেমটির পিসি ভার্সন ডাইরেক্ট এক্স ৯ এর উপর বানানো। সাথে থাকছে ডাইরেক্ট এক্স ১১ সার্পোট। গেমটি ক্রাইসিস গেমটির সর্ববেষ্ট গ্রাফিক্স ইফেক্ট দেয়ার জন্য ডেভেলপাররা আপ্রাণ চেষ্টা করেছেন। ক্রাইসিস গেমস সিরিজ এবং হালো গেমস সিরিজ হাড্ডাহাড্ডি লড়াই তে আছে। সম্প্রতি হালো ৪ গেমটি অসাধারণ গ্রাফিক্স দিয়ে রিলিজ করা হয়েছে। তবে ক্রাইসিস ৩ও কম যায় না!! হাহাহাহাহা

ADs by Techtunes ADs

ডাউনলোড:

www.skidrowgames.net/crysis-2-flt.html

or

ADs by Techtunes ADs

www.skidrowgames.com/2842/action-games/crysis-2/

Torrent:

kickass.to/search/crysis%202%20skidrow/

আমার লেখা গেমস জোন শুধুমাত্র ফেসবুকে আমার নিজস্ব এবং গেমস জোনের আসল পেজ http://www.facebook.com/games.zone.bd এই পেজটাতে আমি শেয়ার করে থাকি। বাকি কোনো পেজে আমার গেমস জোনের পোষ্ট শেয়ার করা হয় না। যদি করে থাকে তাহলে তারা আমার পারমিশন ছাড়াই এ কাজ টি করেছে। আপনারা যদি ফেসবুকে আমার গেমস জোনের পোষ্ট সমূহ অন্যান্য পেজে পেয়ে থাকেন তাহলে একটু কষ্ট করে আমাকে জানিয়ে দেবেন প্লিজ। বহু কষ্ট করে বহু সময় খরচ করে গেমস জোনের এক একটি পর্ব লিখি আমি।

 

ADs by Techtunes ADs
Level 10

আমি ফাহাদ হোসেন। Supreme Top Tuner, Techtunes, Dhaka। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 663 টি টিউন ও 436 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 81 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

যার কেউ নাই তার কম্পিউটার আছে!


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level 0

গেমওয়ালা ভাই, অসাধারন রিভিউ এর জন্য ধন্যবাদ। আমি আজ তিনদিন ধরে শুধু এই গেমটা খেলছি।জানা থাকলেও সময়ের অভাবে আগে খেলা হয়নি।

Level 0

ফাহাদ ভাই, গেমের ওভারঅল গ্রাফিক্স এবং সাউন্ড সিস্টেম কেমন তা টিউনের মধ্যে আলাদা সেক্‌শন করে লিখলে টিউন আরও পূর্ণতা পাবে বলে মনে করি । 🙂