গেমস জোন [পর্ব-২৭৬] :: Alien Isolation (২০১৪)

টিউন বিভাগ গেমস
প্রকাশিত

গেমস জোন

আগের কার দিনে সেগা (SEGA) কোম্পানিকে আমরা চিনতাম ছোটখাট গেমস যেমন হাউস অফ দ্যা ডেড, র‌্যালি রেসিং, মোটো জিপি ইত্যাদি গেমসের জন্য। আর এলিয়েন গেমস সিরিজ তৈরির পর এখনকার যুগে সেগা মানেই চমৎকার কোনো এলিয়েন গেমস! যেমনটি গতবারের এলিয়েন সিরিজের গেম Aliens: Colonial Marines বাজার মাতিয়ে গেল। আর এরই ধারাবাহিকতায় বাজারে কিছুদিন আগে মুক্তি পেলে এলিয়েন সিরিজের নতুন গেম এলিয়েন আইসোলেশন। তবে সরাসরি ছায়াছবির চরিত্র নিয়ে গেম বানানো এবং সিরিজকে নতুন ফার্স্ট পারসন রুপে আমরা এই প্রথমবারের মতো দেখতে যাচ্ছি। কারণ FPS স্টেলথ / সারভাইভাল হরর কোনো গেমস আমরা অনেকদিন ধরেই পাই নি। আর গেমটির সবচেয়ে মজার ব্যাপার হচ্ছে গেমটিতে কোনো এলিয়েনকে না খুন করেই গেম ওভার করা যাবে, তার মানে চরম একটি স্টেলথ গেম হতে যাচ্ছে এই এলিয়েন আইসোলেশন!

এলিয়েন আইসোলেশন একটি ফার্স্ট পারসন সারভাইভাল হরর স্টেলথ ভিডিও গেম যেটি নির্মাণ করেছে দ্যা ক্রিয়েটিভ এসেমল্বি এবং গেমটি প্রকার করেছে সেগা। গেমটি ৭ অক্টোবর, ২০১৪ সালে মাইক্রোসফট উইন্ডোজ, প্লে-স্টেশন ৪, এক্সবক্স ওয়ান , প্লে-স্টেশন  এবং এক্সবক্স ৩৬০ গেমস কনোলের জন্য বাজারে মুক্তি পায়।
গেমটি আমান্ডা নামের এক নারীর কাহিনী নিয়ে গেমটির স্টোরিলাইন সাজানো হয়েছে। যেখানে আমান্ডা তার মা ইলেন এর নিখোঁজের পর তাকে খুজতে মহাকাশের স্পেস স্টেশন Sevastopol লে চলে যায় কিন্তু সেখানে গিয়ে সে আবিস্কার করে এলিয়েনরা স্পেস স্টেশনে হামলা চালিয়েছে এবং অধিকাংশ স্টেশন সদস্যদের খুন করে ফেলেছে, স্টেশনের যন্ত্রপাতিকে ক্ষতবিক্ষত করে ফেলেছে যার ফলে স্টেশনের সাথে কোনো যোগাযোগই নেই কোথারও।

তবে প্রথমে আমান্ডা এবং তার গ্রুপ সদস্যরা ভাবে যে স্টেশনের এই অবস্থার জন্য Seegson দায়ী। কারণ Seegson অনেকদিন ধরেই এই স্টেশনকে বিক্রি করে দিতে চেয়েছিল, তবে না করতে পারে নি বিধায় হয়তো স্টেশনের এই অবস্থা করেছে! তাই স্টেশনে আমান্ডার গ্রুপটি বিভিক্ত করে তদন্ত করা শুরু করে আর তারা মুখোমুখি হয় এলিয়েনসদের!

গেমটির নির্মাতা প্রতিষ্ঠান দ্যা ক্রিয়েটিভ এসেমব্লি গেমটিকে একশন শুটার এর পরিবর্তে সারভাইভাল হরর রুপদান করেছে। যদিও এলিয়েনস সিরিজের গেমসগুলো আগে থেকেই একশন ভিক্তিক শুটার গেমস হয়ে আসছিল কিন্তু এবার সিরিজে প্রথমবারের মতো আমরা স্টেলথ এর মজা নিতে পারবো।
এলিয়েনস নামে হলিউডে দুটি ছবি রয়েছে, একটি হচ্ছে জেমস ক্যামেরনের প্রযোজনায় আরেকটি হচ্ছে রিডলেয় স্কট এর প্রযোজনায়। জেমস ক্যামেরনের ছবিটি স্কটের ছবির তুলনায় বেশি একশনে ভরপুর, তাই এবারের ছবিটি রিডলেয় স্কট এর পরিচালিত এলিয়েনস ছায়াছবিটি নিয়ে তৈরি করা হয়েছে।
আর পুরো গেমটিতে মাত্র একটি এলিয়েন রয়েছে যাকে হত্যা করা যাবে না, গেমটিতে এলিয়েনের হাত থেকে স্টেলথ টেকনিকের সাহায্য নিয়ে বেঁচে থাকতে হবে বা সারভাইব করতে হবে তোমাকে! তবে যদিও গেমটিতে কিছু অস্ত্র রয়েছে কিন্তু তা শুধুমাত্র হিউম্যান শত্রু এবং এন্ড্রয়েড রোবোটিকদের বিরুদ্ধে ব্যবহার করা যাবে।
আর যেহেতু একটি এলিয়েন রয়েছে গেমটিতে তাই এবারের এলিয়েনটিকে সাজানো হয়েছে আরো শক্তিশালি ভাবে। এলিয়েনটি তোমার গন্ধ এর খোঁজ নিতে পারবে এবং তোমার অবস্থান সর্ম্পকে অবগতও হতে পারবে! তাই সাবধান! এছাড়াও এবারের এলিয়েনটি হতে যাচ্ছে সবচেয়ে বেশি ইমোশনযুক্ত এলিয়েন। যেমন এলিয়েনটি যদি দেখে কোনো গ্যাস লাইন পাইপ ফেটে গেছে তাহলে সে ফাটলের ভিতর গিয়ে খোঁজ নিবে কেন পাইপ ফাটলো! আর এলিয়েন সাউন্ড ফাইডিং সিস্টেমকেও আরো শক্তিশালী বানানো হয়েছে।


গেমটিতে তুমি অন্ধকার যেকোনো জায়গায় লুকাতে পারবে। আর গেমটিতে তুমি পাবে ফ্ল্যাশলাইন এবং মোশন ট্র্যাকার এলিয়েনের অবস্থান জেনে নেওয়ার জন্য তবে এগুলোর ব্যবহারের ফলে শব্দ হবে এবং এর শব্দের জন্য এলিয়েন তোমার লুকোনোর জায়গায়টি চিনে ফেলতে পারবে তাই অতি সাবধানের সাথে এই গেজেডগুলো ব্যবহার করা উচিত।
আর কোনো কোনো সময় তোমাকে আমান্ডার শ্বাস-প্রশ্বাসও বাটন চেপে বন্ধ করে রাখতে হবে লুকিয়ে থাকার সময় যাতে ধরা না পড়ে না যাও।
তবে গেমটিতে একটি লক্ষ্যনীয় বিষয় হচ্ছে, গেমটির পটভূমি ভবিষ্যৎ বিক্তিক হলেও গেমটির যাবতীয় অস্ত্রগুলো কিন্তু এখন থেকে প্রায় ১৫ বছর আগেরকার টাইপের! আর গেমটির ক্যাম্পেইন তোমাকে ২০ ঘন্টার গেম-প্লে ফিচার করাবে। তবে গেমটিতে তোমাকে বহু বার মরতে হবে, তাই অনেকক্ষণ ধরেই গেমটি তুমি খেলতে পারবে আশা করা যায়!
আর গেমটির ভালো দিক সর্ম্পকে আমি একটি কথাই বলবো, This is the True Survival Horror baby!!

নির্মাতাঃ

প্রকাশ করেছেঃ

ডিস্ট্রিবিউটরঃ
20th Century Fox

সিরিজঃ
এলিয়েন

খেলা যাবেঃ
বিভিন্ন প্লাটফর্মে

মুক্তি পেয়েছেঃ
অক্টোবর ৭, ২০১৪ সালে

ধরনঃ
সারভাইভাল হরর,
স্টেলথ

সিস্টেম রিকোয়ারমেন্টসঃ

কমপক্ষেঃ
কোর ২ ডুয়ো অথবা ফেনম II এক্স৩ ৭১০ গতির প্রসেসর
৪ গিগাবাইট র‌্যাম,
জিফোর্স জিটি ৪৩০ অথবা রাডিয়ন এইচডি ৫৫৫০ গ্রাফিক্স কার্ড,
উইন্ডোজ সেভেন অপারেটিং সিস্টেম,
৩৫ গিগাবাইট হার্ডডিক্সের জায়গা,
ডাইরেক্স এক্স ১১

ভালোভাবে খেলতে হলেঃ
কোর আই ৩ প্রসেসর,
৮ গিগাবাইট র‌্যাম,
জিফোর্স জিটিএক্স ৬৬০ অথবা রাডিয়ন আর৯ ২৭০ গ্রাফিক্স কার্ড,
উইন্ডোজ সেভেন (৬৪বিট) অপারেটিং সিস্টেম,
ডাইরেক্ট এক্স ১১

Level 10

আমি ফাহাদ হোসেন। Supreme Top Tuner, Techtunes, Dhaka। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 662 টি টিউন ও 429 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 118 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

যার কেউ নাই তার কম্পিউটার আছে!


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

vai download link ta diben ae game tar..??