ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

ইউটিউব চ্যানেলে ভিউয়ার্স পাচ্ছেন না? জেনে নিন ৭টি পদ্ধতি যা আপনার চ্যানেলে হাজার হাজার ভিউয়ার্স আনতে সাহায্য করবে।

টিউন বিভাগ গুগল
প্রকাশিত

আসসালামুয়ালাইকুম বন্ধুরা।
আশা করি আপনারা আল্লাহর রহমতে ভালো আছেন আপনাদের দোয়ায় আলহামদুলিল্লাহ আমিও ভালো আছি।
আজকের টিউনে আমি আলোচনা করবো ৭ টি টেকনিক সম্পর্কে যা আপনার কন্টেন্ট'কে ইউটিউব থেকে হাজার হাজার ভিউয়ার্স এনে দিতে সাহায্য করবে।
তো চলুন কথা না বাড়িয়ে কাজে চলে যাই।

ADs by Techtunes ADs

১. থাম্বনাইলস

আপনার ইউটিউব ভিডিওর জন্যে ভিডিও থাম্বনাইল হচ্ছে অনেক গুরুত্বপুর্ন একটি বিষয়।
আপনার কন্টেন্ট যতই অসাধারন হোক না কেনো আপনার থাম্বনাইল যদি আকর্ষনীয় না হয় তাহলে আপনার সে কন্টেন্ট কোনো কাজেই আসবে না।
কারণ আপনার কন্টেন্ট দেখার জন্যে থাম্বনাইলের মাধ্যমেই আকর্ষিত হবে একজন ইউটিউব ভিউয়ার।
আপনার কন্টেন্ট যতই ভালো মানের হোক না কেনো যথাযথ থাম্বনাইল ব্যবহার না করলে আপনার ভিডিও কন্টেন্টটি কোনোভাবেই ভালো ভিউয়ার্স আনতে সক্ষম হবে না

২. ভিডিও টাইটেল

আপনার ভিডিও টাইটেল আরেকটি গুরুত্বপুর্ন বিষয় আপনার ভিডিওতে ভালো মানের ভিউয়ার্স আনার জন্যে।
যদি আপনি শুধুমাত্র আপনার কন্টেন্ট অনুযায়ী কি-ওয়ার্ডস গুলো একের পর এক দিয়ে আপনার ভিডিও টাইটেল ভরতি করে ফেলেন এই আশায় যে এটা আপনাকে ভিডিও র‍্যাঙ্ক করতে সাহায্য করবে তাহলে আমি বলবো আপনি সম্পুর্ন ভুল ধারনার মধ্যে আছেন।
আপনার ভিডিও টাইটেলটি এমন হতে হবে যা মানুষের মনে প্রশ্ন জাগায়, মানুষকে আপনার ভিডিওটি দেখতে আগ্রহী করে। একজন মানুষ হিসেবে চিন্তা করুন এই ভিডিওটি আপনি কেনো দেখতে কি নামে হলে দেখতেন। কি নাম হলে এটা আপনাকে আকর্ষিত করতো।
আপনার ভিডিও যদি হয় কোনো টেকনিক্যাল বিষয়ের সলুউশন  বা অন্য যেকোনো সমস্যার সমাধান নিয়ে তাহলে টাইটেলটা এভাবে দেওয়ার চেষ্টা করুন যাতে মানুষের দেখে মনে হয় আপনার ভিডিওটি দেখে আসলেই সে তার কাঙ্খিত সমাধান পাবে।
ক্লিক-বেট টাইপ টাইটেল দেওয়ার ব্যাপারে আমি উৎসাহিত করবো না। তবুও এই ধরনের টাইটেল অনেক ভিউয়ার্স এনে দিতে পারে আপনার ভিডিওতে তবে একটি ব্যাপার অবশ্যই নিশ্চিত করবেন সেটা হচ্ছে আপনার টাইটেলে আপনি যা দেখাবেন বলছেন ভিউয়ার্সদের তা যেনো অবশ্যই আপনার ভিডিওতে থাকে!

ভিডিও টাইটেল এবং থাম্বনেইল এই দুইটি বিষয়ের মধ্যে সব সময় সামঞ্জস্য রাখার চেষ্টা করবেন, আপনার ভিডিও টাইটেল যদি হয় এক রকম আর থাম্বনেইল আরেক রকম তাহলে সেটা মোটেও কাজ করবে না। আর যদি এই দুইটি বিষয়ের সামঞ্জস্য করে আপনার ভালো মানের থাম্বনাইল আর ভিডিও টাইটেল দিতে পারেন তাহলে নিশ্চিত থাকুন এই ভিডিওর মাধ্যমে আপনি অনেক টাকা উপার্জন করতে পারেন ওহ দুঃখিত অনেক ভিউয়ার্স আনতে পারেন আপনার ভিডিওতে আর ভিউয়ার্স=টাকা  🙂

৩. ভিডিও টাইটেল, ভিডিও থাম্বনাইলের সাথে ভিডিও কন্টেন্ট এর যেনো সামঞ্জস্য থাকে।

ভিডিও টাইটেলে ভিডিও থাম্বনাইলে আপনি ভিউয়ার্সকে যা দেখাবেন বলছেন আপনার ভিডিওতে এসে যেনো ভিউয়ার্স অবশ্যই সেটাই দেখে।
অর্থাৎ আপনি আপনার ভিডিও টাইটেলে বললেন আপনি শেখাবেন কিভাবে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে হয় জিপি সিম ব্যবহার করে,
আর ভিডিওতে দেখালেন ফ্রি ফেইসবুক ব্যবহার করার পদ্ধতি যেটা অত্যন্ত সস্তা একটি পদ্ধতি ভিউয়ার্স আনার যা ধোকাবাজি হিসেবে গন্য করবে আপনার ভিউয়ার্স এবং আনলাইক+রিপোর্ট ও পড়তে পারে আপনার ভিডিওতে যা আপনার চ্যানেলের জন্যে মোটেও ভালো কিছু হবে না।
আর সাবস্ক্রাইবারও হারাবেন আপনি সুতারাং সব সময় লক্ষ্য রাখবেন আপনি টাইটেলে যা বলছেন তা অবশ্যই যেনো ভিডিওতে প্রদর্শন করেন।

৪. কন্টেন্ট প্ল্যান

আপনি যে ধরনের কন্টেন্টই বানান না কেনো সব সময় এমন ভাবে কন্টেন্টটি প্রদর্শনের চেষ্টা করবেন যাতে ভিউয়ার্স বেশি সময় ধরে আপনার ভিডিওটি দেখে, ভিডিও আপনি বার বার রিভাইস করবেন আপলোড দেওয়ার আগে আর লক্ষ্য করবেন যে এমন কোনো কিছু কি আছে ভিডিওতে যেটাকে অযথা মনে হচ্ছে, এমন কিছু কি আছে যা ভিউয়ার্সকে বিরক্ত করবে ? এমন কিছু কি আছে যা না থাকলেও কোনো সমস্যা হতো না ভিডিওতে? আপনি কন্টেন্ট তৈরি এমনভাবে করবেন যাতে একটি বিষয় বর্ণনা করার পরে ভিউয়ারের মনে প্রশ্ন থাকে এর পরেরটি কি হবে?
এরপরে কি থাকবে, আপনার কন্টেন্ট এমনভাবে প্রদর্শন করতে হবে যাতে ভিউয়ার্স শেষ পর্যন্ত আপনার ভিডিওটি দেখে তার মনের জাগা প্রশ্নের উত্তর পাওয়ার জন্যে। হয়তো আপনি কোনো টিপস দিচ্ছেন তাহলে এভাবে বলতে পারেন "এই টিউনটি শেষ পর্যন্ত পড়ুন শেষে আপনাদের জন্যে রয়েছে এই বছরের ইউটিউবারদের জন্যে সবচেয়ে প্রয়োজনীয় একটি টিপস যা আপনার ভিডিওর মানকে হাজারগুনে বাড়িয়ে দিবে  😉 "

৫. ভিউয়ার্সদের আপনার ভিডিওর সাথে যুক্ত করুন!

ভিডিও তৈরি করার সময় একটা বিষয় সব সময় খেয়াল রাখবেন সেটা হচ্ছে আপনার ভিডিওতে যত মানুষ যুক্ত হবে, অর্থাৎ ভিডিওতে তারা যত বেশি নিজের মতামত জানাবে ততই আপনার ভিডিওতে ভালোভাবে র‍্যাঙ্ক করবে, ভিডিও তৈরি করার সময় সব সময় আপনি ভিউয়ার্সদের আহ্ববান জানাবেন তারা যেনো নিজের মতামত প্রদর্শন করে এই বিষয়ে যেমন উদাহারণ প্রদান করি "এই ছিলো আমার ৭টি পদ্ধতি যা ভিডিওতে এনে দিতে পারে আপনাকে লাখ লাখ ভিউয়ার্স" আপনি কি পদ্ধতি অনুসরন করেন আপনার ভিডিওতে ভিউ আনার জন্যে ? আপনি কি পদ্ধতি ব্যবহার করেন আপনার ভিডিওর মান আরো বাড়ানোর জন্যে, কিভাবে তৈরি করেন আপনি আপনার ভিডিও ? জানান আমাদের টিউমেন্টের মাধ্যমে"
এভাবে প্রশ্ন করার মাধ্যমে ভিউয়ারকে আপনার ভিডিওর সাথে যুক্ত করতে চেষ্টা করবেন তাহলে দেখা যাবে ভিউয়ার্সরা প্রশ্ন করছে আপনার ভিডিও সম্পর্কে নিজেরাই আলোচনা শুরু করেছে যা আপনার কন্টেন্ট কে অত্যন্ত আকর্ষনীয় করে তুলবে এবং ইউটিউবে ভালো মানের র‍্যাঙ্ক করাতে সাহায্য করবে।

৬. কল টু একশন

সব সময় আপনার ভিডিওতে এই অংশটি রাখবেন, অনেকেই হয়তো আপনার চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করবে যদি আপনি গুরুত্বপুর্ন ইনফরমেশন শেয়ার করেন, কিন্তু আপনি যখন আলাদাভাবে বলবেন আপনার চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করতে তাহলে সেটা আপনার সাবস্ক্রাইবারের সংখ্যা অনেক বাড়িয়ে দিবে বলে মনে করি আপনাকে, ভিডিওর শেষে সব সময় এমন একটি পদ্ধতির কথা আপনি ভিউয়ার্সদের জানাবেন যেটার মাধ্যমে তারা আপনার চ্যানেলের আগামী ভিডিওগুলো দেখতে পারে। সেটা হতে পারে সাবস্ক্রাইব করার মাধ্যমে মেইল লিস্ট সাবস্ক্রাইবের মাধ্যমে আপনার ফেইসবুক পেইজ লাইকের মাধ্যমে আপনার টুইটার আইডি ফলো করার মাধ্যমে। ভিডিও শেষে আপনি আপনার ভিউয়ার্সদের এভাবে বলতে পারেন যদি আপনি এই ভিডিও থেকে গুরুত্বপুর্ন কিছু জেনে থাকেন যা আপনার কাজে লাগবে তাহলে অবশ্যই আমার চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন আমার ফেইসবুক পেইজে লাইক প্রদান করুন আমার আগামী ভিডিও আপডেট পাওয়ার জন্যে এবং তাদের আহ্ববান জানান শেয়ার করার জন্যে।
এছাড়া কিভাবে সাবস্ক্রাইব করতে হয় সেটা ছোটো একটি ভিডিও যুক্ত করার মাধ্যমে দেখিয়ে দিতে পারেন আপনার ভিডিওর শেষে।

৭. ভিডিও বিতরন পদ্ধতি

আপনার ভিডিওর শেষে আপনি যুক্ত করে দিতে পারেন আপনার নিউজ লেটারে সাবস্ক্রাইব করার কথা। যাতে আপনি পরবর্তিতে আপনার ভিউয়ার্সদের আপনার ভিডিও পৌছিয়ে দিতে পারেন। আপনার ভিডিও দেখে যদি কারো পছন্দ হয় সে চাইবে আপনার আরো ভিডিও দেখে নতুন কাছে জানতে আকর্ষনীয় কিছু দেখতে কিন্তু হয়তো সব সময় তার মনে থাকবে আপনার চ্যানেলে এসে দেখে যেতে তাই একটি সঠিক বিতরন পদ্ধতি থাকলে ধরুন নিউজলেটার যারা সাবস্ক্রাইব করবে তাদের আপনি আপনার রেগুলার ভিডিও আপডেট পাঠাতে পারেন তাদের মেইলে যা তাদের কে নিয়ে আসবে আপনার ভিডিওতে এবং এর মাধ্যমে আপনি পেয়ে যাবেন অনেক ভিউয়ার্স আর যত ভিউয়ার্স পাবেন তা অবশ্যই আপনাকে ভিডিও ভালো মানের র‍্যাঙ্ক করাতে সাহায্য করবে।

সুতারাং বন্ধুরা আজকে এতুটুকুই যদি ভালো লেগে থাকে আমার টিউন আর আপনারা কাজের কিছু জানতে পেরেছেন বলে মনে হয় এই টিউন থেকে তাহলে অবশ্যই শেয়ার করবেন এই টিউন যাতে এর মাধ্যমে অন্যরাও জানতে পারে শিখতে পারে।

ADs by Techtunes ADs

আমার সাথে যোগাযোগ করার জন্যে আমার ফেইসবুক আইডি, তো বন্ধুরা আজকে এখানেই শেষ করছি আমার টিউন আশা করি দোয়া করি আপনারা সব সময় ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন আর টেকটিউনসের সাথেই থাকুন। আল্লাহ হাফেয!

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি আশিকুর রহমান নীল। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 5 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 20 টি টিউন ও 9 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

২০১০ সালে টেকটিউনস এর সাথে পরিচয় । একটা সময় টেকটিউনস ভিজিট না করলে মনে হতো কি যেন করা হয় নি আজ 🙂 আস্তে আস্তে টেকটিউনস হয়ে গেল এন্ড্রয়েড টিউনস ! আর রাতারাতি হাজার হাজার ডলার কামিয়ে কোটিপতি হবার টিউটোরিয়াল । আজ অনেকদিন পরে আপনার পোস্ট দেখে লগিন করলাম মন্তব্য করার জন্য । এরকম ইনফরমেটিভ পোস্ট আসলেই দরকার । খুব ভালো লিখেছেন, শুভকামনা 🙂

আশিকুর রহমান নীল ভাই খুব ভাল একটি টিউনের জন্য অভিনন্দন আপনাকে।

টিউনে ছবি যোগ করলে , টিউনটি আরো সুন্দর হত ;

মতামত একান্তই ব্যাক্তিগত, আমার কাউকে দুঃখিত করার কোনো প্রকার উদ্দেশ্য নেই। । । ।

ভাল থাকবেন আর এই রকম আরো নির্ভেজাল টিউন করে টেকটিউন পরিবারকে সমৃদ্ধ করুন।।।