ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

ছবিতে রং করুন :: মনের মাধুরী মিশিয়ে!!!

বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম। আসসালামুআলাইকুম । সবাইকে আমার আন্তরিক প্রীতি, সম্মান, শুভেচ্ছা ও ভালবাসা জ্ঞাপন করছি। আশাকরি আল্লাহ্‌র অশেষ রহমতে সবাই ভালো আছেন।

ADs by Techtunes ADs

বর্তমান প্রেক্ষাপটে বাচ্চাদের ছবি আঁকা ফরজ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যাদের সমর্থ আছে তারা অংকন টিচার দিয়ে শিশুকে ছবি আঁকা শিখাচ্ছেন। বাচ্চামন হল উর্বর জমির মত। আজ যে বিষয়টি শিশুর মনে ভালোলাগা দিয়ে গ্রহন করাতে পারবেন তা শিশুমনে স্থায়ী ভাবে গেঁথে থাকবে। আর জোর করে কিছু করানো হলে তাতে হয়তো আজ ভাল ফল দেখিয়ে কাল তা ভুলে যাবে। আজকের এই টিউনটি ছবিতে রং করা বিষয়ক। যদি শিশুকে কিছুটা আনন্দের মাধ্যমে কিছু শিখাতে পারেন তাতে দোষ কি? আর সেই সাথে নিজেরও একটু ঝালাই হয়ে গেলো!!!

ছবি দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

এখানে বিভিন্ন ক্যাটাগরির হাজার হাজার ছবি পাবেন।

আমি Build a home এর মধ্যে ঢুকেছি। আপনি আপনার ইচ্ছে মত যে কোনো ক্যাটাগরি থেকে ছবি বাছাই করতে পারেন। একটু খুঁজে দেখুন পেতে পারেন অসম্ভব সুন্দর কোনো ছবি।

ছবি সিলেক্ট করার পরে এমন দেখাবে। Print ক্লিক করে প্রিন্ট করে নিতে পারেন। তারপর ওয়াটার কালার, ক্যান্ডেল কালার বা রং পেন্সিল দিয়ে মনের মাধুরী মিশিয়ে রং করতে পারেন।

আর আপতত প্রিন্ট করতে না চাইলে ছবিটি সেইভ করতে পারেন। আমি ছবিটি সেইভ করেছি।

ADs by Techtunes ADs

সেইভ করা ছবিটি পেইন্ট দিয়ে ওপেন করুন।

এখন রং করার পালা। Fill ক্লিক করে সিলেক্ট করুন। Colors থেকে পছন্দের রং ক্লিক করুন।

এবা শুধু ছবির উপর বিভিন্ন রং দিয়ে ক্লিক করুন।

আরও রং চাইলে এডিট কালার থেকে রং বেছে নিন। এখানে প্রায় ৭মিলিয়ন কালার পাবেন।

রং করার আগের ছবিটি।

রং করার পরের ছবিটি। (আমি ১ মিনিটে ছবিটি রং করেছি)

মতামত জানাবেন।

ADs by Techtunes ADs

কষ্ট করে আমার এই টিউনটি দেখার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমি আপনাদের ভালবাসায় সিক্ত ও পরিতৃপ্ত। আপনাদের ব্যাপক সাড়া আমার নিত্যদিনের প্রেরণা।

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি মোঃ আসিফ- উদ-দৌলাহ্। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 114 টি টিউন ও 1147 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

মা ও বাংলা ভাষার কাঙ্গাল


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

ভাইজান আপনি দেহি আমাগোরে বাচ্ছা কালে নিয়া যাইতেছেন 😀 এখন কি আমার আকাআকির বয়স আছে আর আমার বাচ্ছা ও তো নাই যে শিখবো 🙁

    @SUMONSOPNO: ভাগ্নে, ভাতিজা নাই? কেউ না থাকলে নিজেই প্রাকটিস করুন। পরে অন্যদের শিখাতে পারবেন। ধন্যবাদ!!!

Level New

darun post thanks

asif vaia fb te ad disi Durbine Chok Rakhbona<<<amr id acpt korenio 🙂

ভালো টিউন।ধন্যবাদ।

হি হি হি আজকের টিউনটা আমার পছন্দমত হয়েছে।আমি জীবনেও আকার পরিক্ষায় ১৭-১৮র উপরে পাই নাই(একবার মনে হয় ৩৪ পেয়েছিলাম)তবে পেইন্টে গুতাগুতি আমার খুব ভালো লাগে।আর আকা ছবিতে পেইন্টে রঙ করার ফিলিংস অন্যরকম,একদম ছোটকালের কথা মনে পরে।তখন উইন্ডোজ ৯৫ বা ৯৮ বা এক্সপির পেইন্টে কিছু ডিফল্ট ছবি থাক্ত অগুলোতে মনের মাধুরি মিশিয়ে রঙ করতাম।এখন আবার মনে পরছে ঐ দিনগুলো।আপনাকে কি ধন্যবাদ দিব?ঠিক হবে না,আপনি তার উপরে।

    @অচেনা বালক: হিটলারের সাথে আমার একটা মিল কি জানেন? হিটলার ছবি আঁকতে পারতেন। আর্ট স্কুলে ফাস্ট হয়েও হিটলারকে ভর্তি করা হয় নি কারণ ইহুদি প্রিন্সিপাল খৃষ্টান আর গরিব সহ্য করতে পারতেন না।
    আর আমার হয় নি নিজের গাফেলতিতে। মাঝে মাঝে মনে হয় কম্পিউটারের উপর না পড়ে যদি গান, ছবি আঁকা কিংবা লেখালেখি করতাম ভালোহত। ধন্যবাদ আমার ভিতরের শিশুটিকে জাগিয়ে তোলার জন্য।

খুব সুন্দর।শুধু বাচ্চারা কেন বড়রাও কাজ করতে পারবে।ধন্যবাদ।

    ও হ্যাঁ আপনার প্রতিটি টিউনেই মন্তব্য করতে চাই কিন্তু কেন জানি না হয়ে উঠে না।প্রশংসা শুধু লিখিতভাবেই হতে হবে এমন কোন কথা নেই,হ্নদয় দিয়েও তা করা যায় এবং হ্নদয় দিয়েই তা অনুভব করতে হয়।আপনার জন্য শুবভ কামনা।

    @প্রবাসী ভাই: How sad, how bad and how mad it was, but it was sweet. (kits)