বিজ্ঞানের আরেক উদ্ভব! নাচে নাচে আলো ঝিকিমিকি লাইট কিভাবে বানাবেন বাড়িতে দেখুন?

  • নাচে নাচে আলো ঝিকিমিকি লাইট যেভাবে বানাবেন বাড়িতে

আশাকরি সবাই ভালো আছেন? আমিও আপনাদের দুআ তে ভালোই আছি। বিজ্ঞান প্রতিনিয়ত আমাদেরকে বিভিন্ন মনকারা জিনিষ উপহার দিচ্ছে। আপনারা তো জানেন বিয়ে বাড়ির আনন্দ কত? তার সাথে যদি নাচে নাচে ঝিকিমিকি আলোর ব্যাবস্থা থাকে তাহলে তো কথাই নেই। এখন বাড়িতে অল্প খরচে যদি এই লাইটিংটা বানাতে পারেন তাহলে তো খুশির ঠেলাই উড়তে মন চাইবে কি বলেন। আচ্ছা কথাই আসি এখন আমরা শিখবো কিভাবে ঝিকিমিকি আলো তৈরি করা যায়। তার জন্য আমাদের কিছু জিনিষ প্রয়োজন হবে। আহ! ভয় পাইয়েন না অল্প খরচেই জিনিষগুলো অনায়াসে পাবেন। কোথায় পাবো এমন প্রশ্ন জাগছে তাইনা? হ্যা, আমি বলবো আপনার পাশের কোনো ইলেকট্রিক এর দোকান থেকে পাবেন। তবে শুরু করা যাক,

 

  • প্রোজেক্টে যা যা দরকারঃ

১. ট্রানজিস্টারঃ AC 128 একটি

২. রেজিস্টারঃ 3.3 K একটা আর 470 একটা

৩. প্রিসেটঃ 1K একটা

৪.  LED: আলাদা আলাদা রঙের আপনি যত বড় বানাবেন সেই মত তত সংখ্যক ই নিবেন ১০-২০ টার মত

৫. ট্যাগঃ 3-way একটা

যেভাবে তৈরি করবেনঃ ট্যাগটাকে সর্বপ্রথম একটা ভালো কাঠের সাথে আটকে নিতে হবে। এরপর তার তিনটে পয়েন্টকে তিনটি নাম্বার দেওয়া যাক ১, ২, এবং ৩। এবার AC 128 ট্রানজিস্টার কাইলেক্টের, বেস আর এমিটার পরপর লাগাতে হবে ৩, ২ আর ১ নম্বর পয়েন্টে। 470 রেজিস্টারটিও লাগবে ১ আর ২ এর মধ্যে খানে। এবার এলইডির পজিটিভ আর নেগেটিভ ঠ্যাঙ গুলোকে চিনে নিতে হবে না হলে হবে নারে ভাই। একটা দেড় ভোল্টের ব্যাটারির দুই প্রান্তের তার এনে দুই মাথাই স্থাপন করা যাক। যে ঠ্যাঙে পজিটিভ তার থেকে আসা তার ঠেকানো মাত্রই আলো জ্বলতে থাকবে সেটাই পজেটিভ, অন্যটা হবে নেগেটিভ বুঝতেই পারছেন।

এবার কাজ হলো তিনটে এলইডির নেগেটিভ ঠ্যাঙগুলো একসাথে জুড়ে ফেলা। তদনুরূপ ভাবে পজিটিভ ঠ্যাঙ গুলোও জুড়তে হবে। নেগেটিভ জোড়া ঠ্যাঙ যেখানে জোড়া লাগানো সেখানে 3.3 K রেজিস্টার এর একটা প্রান্ত লাগাতে হবে। রেজিস্টার এর অন্য প্রান্ত চলে যাবে সোজা ২ নম্বর পয়েন্টে। এবার পজিটিভ ঠ্যাঙগুলো যেখানে জোড়া হয়েছে সেই জায়গা থেকে একটা তার এনে প্রিসেটটার মাঝের পয়েন্টে লাগাতে হবে। প্রিসেট এর দুই ধারের যে কোনো একটা প্রান্ত থেকে একটা তার এনে ট্যাগের ৩ নম্বর পয়েন্টে দিতে হবে।

এবার যে ট্রানজিস্টার সঙ্গে এটা লাগানো হবে তার স্পিকার থেকে দুটো তার বের করে ট্যাগে লাগাতে হবে ১ আর ২ নাম্বার পয়েন্টে। ট্রানজিস্টারের ব্যাটারির নেগেটিভ আর পজেটিভ প্রান্ত থেকে দুটো তার বের করতে হবে। পজিটিভ প্রান্ত থেকে যে তারটা বেরিয়েছে সেটা যাবে এলইডির নেগেটিভ ঠ্যাঙগুলোতে যেখানে জোড়া হয়েছে সেখানে। ট্রানজিস্টার সুইচ এবার চালু করলেই তালে তালে এলইডির আলো নাচবে কমবে বাড়বে।

এটি আমাদের কেনো দরকারঃ ১. বর্তমান আমরা বিজ্ঞানের জগৎ এ বাস করি। তাই আমরা দৈনন্দিন জীবনে বিজ্ঞান ব্যবহার ছাড়া চলতেই পারি না। আমরা জানি বিয়ে বাড়ি কতটা আনন্দের একটি স্থান। আর সেখানে যদি ঝিকিমিকি আলোর ব্যাবস্থা থাকে তাহলে তো কথাই নেই। মজা দ্বিগুন হয়ে যাবে। তাই আমরা বিজ্ঞান ব্যবহার করে ঝিকিমিকি আলো তৈরি করতে পারছি খুব সহজেই।

২. বিজ্ঞানের বিস্তার ঘটাতে এটি বেশ প্রয়োজন কেননা বিজ্ঞান আজ সব থেকে এগিয়ে। তাই এই আনন্দ ঘন মুহুর্তও কেনো পিছিয়ে থাকবেনা বলুনতো? অতএব আমরা বিজ্ঞান ব্যবহার ছাড়া খুবই অসহায়।

আজকের টিউনটি এই পর্যন্তই। আশা করি সবার ভালো লেগেছে। পরবর্তী টিউন আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। বুজতে সমস্যা হলে টিউমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না। নিজি কপিরাইট থেকে বিরত থাকুন ও অন্যকে বিরত থাকতে উপদেশ দিন আল্লাহাফেজ।

Level 0

আমি সাইবার ২১- we work for the safety of the people। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 4 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 13 টি টিউন ও 7 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 9 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস