ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

কারো লেখা কপি করার আরেক অন্যায় দিক জেনে নিন – একটি আবেদন

আমি আজকে যা লিখছি, সেটির মূল এই লেখাটি এস এম মেহেদী হাসান নামে এক ওয়েব ডিজাইনার এবং ডেভলপার সম্পুর্ণরূপে কপি করে তার ব্লগে রেখেছেন, ঠিকানা এইখানে http://bit.ly/a9TCF6 পোস্টের নিচে তিনি লিখেছেন "ধন্যবাদ টেকটিউনস"। এবারে দেখুন, তিনি পোস্ট সম্পুর্ণরূপে কপি করার ফলাফল কি হয়েছে। যেহেতু আংশিক পোস্ট নয়, তাই পাঠক সেখানেই পুরোটা পড়েছেন এবং মন্তব্য দিয়েছেন।

ADs by Techtunes ADs

সেখানে একজন পাঠক মন্তব্য লিখেছেন যে এই লেখাটি আমি নাকি অন্য কোনোখান থেকে কপি করেছি। জানুয়ারীর ২৩ তারিখে পাঠক এই কথা লিখেছেন আর আমি এক মাস পরে আজকে সেটা জানলাম। আমি তো কষ্ট করে এই টিউনটি লিখেছি, কারো থেকে কপি নয়। কিন্তু দেখুন, কেমন অনায়াসে আমি চোর বনে গেলাম? কার দোষে আমি চোর হলাম? যিনি এই লেখাটি সম্পুর্ণরূপে কপি করেছেন তার কারনে আমি চোর হলাম, প্রতিবাদ করার সুযোগ আমি পেলাম না। আমি তবুও সেখানে মন্তব্য করে প্রমাণ চেয়েছি, আমি কোথা থেকে কপি করেছি সেটা যেন আমাকে দেখানো হয়। কিন্তু এক মাস আগের মন্তব্য পড়ে দেখতে আর কি আসবেন সেই পাঠক? আমি তার কাছে চোর হয়েই থেকে গেলাম এস এম মেহেদী হাসান নামের এক ওয়েব ডিজাইনার এবং ডেভলপারের কারনে।

এস এম মেহেদী হাসান - আপনি কি এই টিউন পড়ছেন? আমার কষ্টের লেখা, আমিই শুনতে বাধ্য হলাম চুরি করা কপি করা লেখা? কেন এমন হবে?

টেকটিউনসে আসেন অনেকেই, এইখান থেকে কেউ কেউ পোস্ট নিয়ে পুরোটাই প্রকাশ করে দিচ্ছেন, আপনাদের ব্লগে পাঠক এসে মন্তব্য রেখে যাচ্ছেন, আসল লেখক হিসেবে আমাদের কিছু বলার থাকতে পারে, সেই সুযোগ আপনারা দিচ্ছেন না। আমি জানতেই পারিনি আমি একজন পাঠকের নজরে চোর বনে বসে আছি! দায়িত্ব কে নেবেন? এস এম মেহেদী হাসান কি দায়িত্ব নেবেন এই সম্মানহানির? তিনি লিখেছেন "ধন্যবাদ টেকটিউনস", তাতেই এই ডেভলপার ভেবেছেন দায় শেষ। কিন্তু সত্যিই কি দায় শেষ? টিউনের লেখিকা আমি, অভিযোগ হয়েছে টিউনটি কপি করা, উত্তর এস এম মেহেদী হাসান দেননি সেই পাঠককে। অর্থাৎ, এই ওয়েব ডেভলপার ভদ্রলোক আসল লেখিকাকে চোর হিসেবেই রেখে দিলেন।

আপনাদের কাছে আমার আবেদন - যারা যারা টেকটিউনস কিম্বা অন্য যেখান থেকেই লেখা নিন, দয়া করে পুরোটা কপি করবেন না, আর যদি একান্তই পুরোটা কপি না করে থাকতে না পারেন, তাহলে দয়া করে আসল লেখক/লেখিকার হদিশও দিন যাতে যাতে এইধরনের চোর অপবাদে জর্জরিত না হতে হয় আমাদের। আমি অত্যন্ত মর্মাহত। এমন আরো উদাহরন আছে কিনা আমি সব খুঁজে দেখিনি। আমি বিশাল বড় প্রফেশনাল ব্লগার নই, কিন্তু আমি যেটুকু, সেটুকু আসল, একটুও নকল নয়। চুরি আমি করছিনা, অথচ অন্যদের কারনে চোর হতে হচ্ছে আমাকে - দুঃখিত এবং আশাহত হওয়া ছাড়া আর কিই বা পথ বাকি থাকে?

অনেকেই বলেন বাংলাকে ভালোবাসি, বাংলা ভাষাকে ভালোবাসি, অথচ আমাদেরই মধ্যে কিছু অসাধু ব্যাক্তির কারনে ব্যাথিত হচ্ছি আমরা, যারা কষ্ট করে লিখে যাচ্ছি। এইসব কপিয়ার যারা নিজেদেরকে ডেভলপার হিসেবে পরিচয় দেন, কি ধরনের ডেভলপার তারা? আপনারাই বলুন? কতোখানি ক্ষতি তারা করছেন, কতোখানি অপমান তারা করছেন বাংলাকে। এইটা কি উচিৎ? যারা এইসব কাজ করছেন তারা নিজেরাও চুরি করছেন, সেইসাথে আসল লেখককেও চোর বানিয়ে তুলছেন।

টেকটিউনস থেকে এই লেখা কপি হয়েছে, তাই আমি এখানেই প্রতিবাদ জানাচ্ছি, যাতে আপনারাও জানতে পারেন ব্যাপারটা। সকল টিউনার যারা কষ্ট করে নিজে লেখেন পুরোটা, সবাই সরব হোন, আশাকরি আপনাদেরকে পাশে পাবো। বাকিরা যারা কপি করছেন, দয়া করে সচেতন হোন, আপনাদের চুরির কারনে কেন আমরা চোর হবো? লেখা নিতে হলে প্রথম প্যারাগ্রাফ নিন, বাকিটা আসল লেখার দিকে লিঙ্ক করে দিন? অপ্রীতিকর অভিযোগগুলির যথার্থ উত্তর যেন দিতে পারি আমরা, সেই সুযোগটুকু দিন আমাদেরকে?

আর, এস এম মেহেদী হাসান - প্লিজ, নিজেকে ওয়েব ডেভলপার হিসেবে পরিচয় দেওয়ার আগে ভেবে নিন আপনি কি ডভলপারের বদলে ডেস্ট্রয়ার নন তো? আপনার কারনে আজকে একজন মহিলা ব্লগার পরিচিত হলেন কপি ব্লগার হিসেবে। ব্লগিং জগতে মহিলাদের প্রতিনিধিত্ব অনেক কম, যাও বা আছে তাও শেষ করতে উঠেপড়ে লেগেছেন নাকি?

আপনারা জানেন কিনা জানিনা, আরেকজন আছেন, তিনি গোটা টেকটিউনসকেই ডুপ্লিকেট করে ফেলেছেন, ঠিকানা - http://bit.ly/coAFjh

- লেখাটি আমার ব্লগেও দিলাম, এইখানে

ADs by Techtunes ADs

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি রিয়া। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 11 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 96 টি টিউন ও 362 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

জীবনের সব ভুল, যদি ফুল হয়ে যায়... জীবনের সব কালো, যদি আলো হয়ে যায়...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

সত্যই দুঃখ্যের। “চোর কখনোই শুনবেনা ধর্মের কাহিনী”।
আর দেখে বোঝা যাচ্ছে অনেক কস্ট করে আবেদনটা লিখেছেন।
ধন্যবাদ।

সত্যই দুঃখ্যের

@ রিয়া, মেহেদী হাসান নিজের Blog কে জনপ্রিয় করার জন্য একটু নিচের দিকে নামতে চাইছেন আরকি। আপনি খেয়াল করলে দেখবেন যে তিনি Techtunes-এও ব্যপক প্রচারনা চালাচ্ছেন।
@ মেহেদী হাসান,(If U Read) At Least লেখকের নাম ও লিংক দিতে পারতেন কিংবা রিয়াকে অনুরোধ করতে পারতেন আপনার ব্লগে লেখার জন্য।

Level New

রিয়া আপু সত্যি দুঃখের ব্যাপার। এর আগে একাধিক বার এমন কপি করার ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু কি আর করা এরাতো রাঘব বোয়াল………….

অবশ্যই খারাপ কাজ করেছে আসলে মানুষের বিবেক জাগ্রত না হলে কারো কিছু করার নাই ।

@ রিয়া আপু, পুরো বিষয়টা পড়ে দেখার পর আমিও মর্মাহত। মেহেদী নামের ওই ব্লগার এর ব্লগে আমি আগেও গিয়েছি, সেখানে সব পোস্ট ই তো কপি পোস্ট করা। চুরি করে এভাবে নিজের ব্লগ ডেভলপ করা- এটা এক অর্থে ব্লগ শিল্পকেই ধংস করা। আমি ধিক্কার জানাচ্ছি এই ব্লগার মেহেদিকে। আমি যতদুর জানি তিনি টেক টিউনস এর একজন জনপ্রিয় ব্লগার। তার কাছ থেকে এ ধরনের আচরণ কাম্য নয়। ধন্যবাদ আপনাকে বিষয়টা সবার সামনে তুলে ধরার জন্য।

টেকটিউনস এ দেখেছি কপি-পেস্ট একটা বড় ধরনের সমস্যা। বারবার এ প্রসঙ্গ নিয়ে আলোচনা হলেও বিষয়টার কোনো সন্তোষজনক সমাধান হয়নি। আর টেকটিউনস কতৃপক্ষ ও এ বিষয়ে বেশ উদাসীন। আমার মনে হয় এ বিষয়ে একটা সুস্পষ্ট নীতিমালা থাকা দরকার ।

*** আসলে প্রশ্নটা হলো নৈতিকতার। নিজের নীতিবোধ থেকে এটাকে যদি দমন না করা যায়, তাহলে কোনো পদক্ষেপই এটাকে স্থায়ীভাবে আটকাতে পারবেনা।

    ***শেষ দুই প্যারা অফটপিক***

Level 0

প্রথমে sorry আপনি-সহ বেশ কিছু টিউনারদের miss-guide করার জন্য আমার শেষ টিউন-এ।আপনি সবসময় আমার কাছে সম্মানিত।এই নিয়ে আমার জানামতে আপনি ২য় টিউন করলেন পরপর এই বিষয়ে।আমি কম বেশি আপনার সব সাইট-এ ভ্রমন করি এবং বেশ ভাল লাগে। তবে আজ যে বিষয়-টি উঠে আসল তা হল প্রকৃত ব্যক্তিকে চোর বানিয়ে দেয়া। যা খুবই দূঃখজনক।

আমরা কম বেশি সবাই wordpress ব্যবহার করি। JR-Protection নামে একটি plugin আছে যা কিনা নিচের কাজ-গুলো করতে সহায়তা করে। তা হলঃ
১।ওয়েভ পেইজ-এর right click disable করে রাখে
২।ওয়েভ পেইজ-এর text selection disable করে রাখে
৩।ওয়েভ পেইজ-এর RSS feed disable রাখে।

প্রমাণ এর জন্য ভিজিট করুন http://www.emdadkhan.com/?p=93#more-93

EKH

    ভাই একটা জনপ্রিয় ব্লগে এই্ ধরনের ফাংশনের কোন দরকার নাই।এতে সাইটের জনপ্রিয়তা কমে যাবে।বিবেক জাগ্রত না হওয়া পযর্ন্ত এগুলো থামানো সম্ভব না।এই প্লাগিন থাকার পরও কপি পেস্ট করা যায় তবে একটু কষ্ট করতে হয় আরকি।এটা কোন ব্যাপার না।

    এমদাদ ভাই। আপনার সাইটে কমেন্ট করতেও সমস্যায় পরলাম। কমেন্ট করতেই পারলাম না।

ব্যাপরটা দূঃখজনক, রিয়া আপু মন খারাপ করবেন না, আর কিছু টিউনার ইদানিং তাদের ব্লগের লিঙ্ক ব্যবহার করার জন্য টেকটিউনে আসছে। তাদের ব্লগ ভিজিট করলে দেখা যায় টেকটিউনের লিখা কপি করা 🙁 অরজিনাল টিউনে যদি আপনার নাম থাকে সেখানে কেটে তার নাম বসিয়ে দেয়… এটা খুবই খারাপ। বন্ধ হওয়া দরকার এসব আর যদি কপিই করে তবে কেন অরজিনাল পোষ্টের লিঙ্ক প্রকাশ করে না, যাই হোক রিয়া আপু আপনি এগিয়ে যাবেন এটাই কামনা 🙂

আ.উ:-পাঠকের নজরে চোর বনে বসে আছি! দায়িত্ব কে নেবেন? এস এম মেহেদী হাসান কি দায়িত্ব নেবেন এই সম্মানহানির? -মানহানীর মামালা করা প্রয়োজন।
আ.উ:-আর, এস এম মেহেদী হাসান,ওয়েব ডেভলপার – আমারতো মনে হয় ওয়েব কপিয়ার, বিশাল বড় কিছু ভাবছেন নিজেকে, দুর্নিতীর শাস্তির বাস্তব উদাহরন “ফখরুদ্দিন কতৃক দুই নেত্রী ও তাদের চামচাদের ……..” কথা এত তাড়াতাড়ি ভুলে গেলেন, তথাকথিত ডেভলপার এর ক্ষেত্রে তাই কি প্রযোজ্য নয়?
আ.উ:-আপনার কারনে আজকে একজন মহিলা ব্লগার পরিচিত হলেন কপি ব্লগার হিসেবে- এখানে আমার আপত্তি আছে ব্লগার এর পরিচিত ব্লগার কোন মহিলা বা পুরুষ নয়। চোরের কোন ধর্ম নাই, সে পুরুষ বলেন আর মহিলা বলেন সবার পোষ্ট তার কাছে সমান, যেমন ব্লগিং সাইটের যত কালো লেখা আছে কোনটা কি তার পাথক্যর প্রয়োজন নেই, প্রয়োজন শুধু কালো লেখা গুলোর কপি করতে পারলেই হলো। আসলে বিবেক, প্রাতিষ্ঠানিক সু শিক্ষা ও নীতিজ্ঞান একটা বড় ব্যপার। তবে আমার মতে এগুলো কিছুই না সাময়িক, আপনি আপনার মত করে এগিয়ে যান ভবিষ্যতেই দেখতে পাবেন এর ভালোমন্দ ফলাফল। ধন্যবাদ।

    আপনি যথার্থই বলেছেন, ব্লগার সর্বদাই ব্লগার, মহিলা বা পুরুষ আলাদা নয়। আমিও কোনোদিন এইভাবে বলিনি। এক্ষেত্রে উল্লেখ করেছি কেন সেটাও লেখার মধ্যেই বলেছি। এইটুকু বলার ছাড় দিন, অন্তত এই টপিকে। মহিলা ব্লগার বলতে আমি বিশেষ কিছু সুবিধার পাওয়ার কথা বলিনি। যে দেশে ৯৫% ব্লগার পুরুষ, বাকি ৫% মধ্যে কয়জন যে আসলেই মহিলা সেটা বোঝা যায়না – সেখানে এই কথা লিখেছি একটাই কারনে, যাতে মহিলারাও এগিয়ে আসেন, তারা যেন পিছিয়ে না যান। সমাজে সার্বিক উন্নতির জন্য এটা কিন্তু প্রয়োজন। একেবারেই নিরর্থক হলে কিন্তু সরকারের মহিলা ও শিশুকল্যাণ দপ্তরটিও তুলে দিতে হয়। তাইনা? আমি অন্য কোনো লেখায় এই প্রসঙ্গ তুলিনি, ভবিষ্যতেও লিখবোনা। আমি আপনার কথা সাপোর্ট করি, দ্বিমত নেই।

আমরা তো বাঙ্গালী তাই আমাদের এগুলো গায়ে সয়ে গেছে কিছুই করার নাই। তবে বুঝিনা হুবহু কপি পেষ্ট করে লাভ কি? এজন্যই বাংলাদেশ এতটা পিছিয়ে সবাই দূর্ণীতি করে কেউ বাদ নেই। যতদিন নিজেদের বিবেক জাগ্রত না হবে ততদিন অন্যজাতীর কাছে আমাদের পরাজিত হতে হবে।

আমি সত্যিই দু:খিত । কারণ আমি যখন আমার ব্লগ শুরু করি তখন সেটা ছিলো পরিক্ষামুলক । আপনারা খেয়াল করলে দেখবেন যে আমার ব্লগের প্রথম কয়েকটা পোষ্ট প্রথম আলো থেকে নেয়া । এবং পরবর্তিতে আমি নিজে সময় করে লিখা শুরু করিছি । আমি প্রথম আলোর কোনো নিউজ দিলে সেটার নিচে লিখে দিয়েছি প্রথম আলোর নাম। এবং টেকটিউনস এর রেডিও এর পোষ্টের নিচেও টেকটিউনস এর নাম দিয়েছি । হয়তোবা আমার উচিত ছিল যে লিংক টাও দেয়ার । আমি এই জন্য দু:খিত । আমি “-ধন্যবাদ টেকটিউনস” এ পোষ্টের লিংক টা দিয়ে দিয়েছি । এবার আশা করি আপনারা খুশি হবেন । আর চোর তারাই যারা চুরি করে স্বীকার করে না । আমি কিন্তু পোষ্টের নিচে বলে দিয়েছি । যাই হোক আপনাদের সকলকে ধন্যবাদ ।

    ১) মেহেদী, প্রথমেই আমি আপনার কাছে মাফ চাইবো, আমার এই লেখা অত্যন্ত রূঢ় হয়ে যাওয়ার জন্য।
    ২) আপনি টিউনার রাইটস – https://www.techtunes.co/tuner-rights/ – অংশটি ভাল করে পড়ুন। এটা পড়লে বুঝবেন যে “ধন্যবাদ টেকটিউনস” লেখা কতোখানি নিরর্থক।
    ৩) টিউনার হিসেবে শুধু স্বত্ত্ব আসল কথা নয়, সেইসাথে নিজের লেখার সবরকমের জবাবদিহিতা করাও টিওনারের দায়িত্ব এবং কর্তব্য। আপনি শুধুই আপনার দিক দেখলেন, অবহেলা করলেন উৎসকে।

    আমার ওই লেখার মধ্যে এইরকম অংশ ছিল, আমি দেখলাম আপনি সেটিও মুছে ফেলে লেখাটি প্রকাশ করেছেন। আপনি যেমন এটা করেছেন, আমিও কিন্তু সেটা লক্ষ্য করেছি! কেন এমন কাজ করেছেন বলতে পারেন কি? এটা তো সাধারন নজরে কেউ দেখতে পেতোনা। তবুও কি ভেবে এটাকে মুছে ফেলেছেন? নিশ্চয় এর কারন আপনিও জানেন, আমিও জানি, বাকিরাও বুঝতে পারবেন। কেন এমন কাজ করেন যেখানে নিজের মনের মধ্যেই অপরাধবোধ কাজ করবে?

    আপনার ব্লগে একজন পাঠক যা লিখলেন, তাতে আমি আমার অজান্তে কপিয়ার হয়েছি, প্রতিবাদ করতে পারিনি। আপনিও এর থেকে একটু শিক্ষা নিন, এইসব করলে মূল লেখক/লেখিকার নামে অভিযোগ উঠতে পারে এবং আপনি সেটার জবাব দিতে না পারলে মূল টিউনার অভিযুক্ত হয়েই থেকে যাবেন। দয়া করে এই অবমাননাকর পরিস্থিতিতে ফেলবেন না আমাদের। আপনি টেকটিউনসের ধন্যবাদ লেখা দিলেও টেকটিউনস এর উত্তর দিতে পারবেনা, পারবে একমাত্র টিউনার নিজেই। তাই, আমার অনুরোধ, যদি মূল লিঙ্ক দিতে না চান, অন্তত লেখক/লেখিকার ইমেইল ঠিকানাটি দিয়ে দিন? আপনার ব্লগের ভালোর জন্য নিশ্চয় করুন যা যা প্রয়োজন, কিন্তু এতে অন্যদের মানসম্মান নিয়ে যেন টানাটানি নাহয় সেদিকে দেখবেন না? প্লিজ, আমার লেখাকে অন্যভাবে না দেখে দেখার চেষ্টা করুন কি কারনে এইসব কথা উঠে আসছে। আমরা সবাই এখানে নিঃস্বার্থভাবে লিখছি, তার পরে যদি অপবাদ মাথায় নিতে হয় এবং সেটা উত্তর না দেওয়া যায় তাহলে কেমন লাগে? আপনি নিজেকে এই স্থানে বসিয়ে ভেবে দেখুন।

    *** আমি আপনাকে আর লজ্জিত করতে চাইনা, তাই আমি এখন এই টিউনে মন্তব্য থামিয়ে দেবো কিনা আমাকে জানান তাড়াতাড়ি। সব শেষে, আমি আবারও আপনার কাছে মাফ চেয়ে নিচ্ছি সবার সামনে এভাবে আপনার নাম টেনে আনার জন্য। অপরাধ নেবেন না প্লিজ।

আমিও রিয়া আপুর সাথে একমত। যদি copy করতে চান করেন কিন্তু Real লেখকে নাম ও link দেয়া আবশ্যক । নয়তো নতুন visitor দের কাছে এমনটাই হতে পারে।

রিয়াপি আপনি মন খারাপ করবেন না ………. ইউনিকনেস এর যে কি মজা এইসব চোর কোনদিন বুঝবেনা। আমারো মাঝে মাঝে খারাপ লাগে যখন আমার টিউনও কপি হয়। কিন্তু এই বোকাদের কে বোঝাবে ……. যত ভালো লেখা তুমি চুরি করবে, তুমি তত বড় মাপের চোর বলেই অনলাইনে পরিচিত হবে।

আর যারা টেকটিউন্সের লেখা দেদারসে কপি করে চলেছেন ….. দয়া করে থামুন, অনেক হয়েছে। না হলে এখন আমাদের কপি রাইট আইনের ভাষায় কথা বলতে হবে। মনে রাখবেন, আপনারা কিন্তু ধরা ছোয়ার বাইরে নন।

আশা করি ব্যপারগুলো পরিস্কার করতে পেরেছি

আসলে কপি পেস্ট সহ ব্লগের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে একটা সময়ে খুব তর্ক বিতর্ক করতাম চিল্লাচিল্লী করতাম কিন্তু কোন লাভ নাই তাদের কাজ তারা করবেই উল্টো প্রতিবাদ করতে গেলে নিজেকেই ঝামেলা পোহাতে হয় আর ছোট হতে হয় তাই এখন আর কিচ্ছু বলি না যা ইচ্ছা হোক। দেখছিই কিভাবে কপি হচ্ছে কিন্তু সব এখন গা সওয়া হয়ে গেছে তাই আর কিছুই গায়ে লাগে না।

তবে আমার উপরের কথাগুলো কোনভাবেই শুধুমাত্র মেহেদী হাসানের জন্য প্রযোজ্য নয় যদিও এই কাজটি সহ বেশকিছু নিন্দাজনক কাজ তিনি করেছেন আমি মূলত অন্যান্য কপিয়ারদের বলেছি। কিন্তু উনি এ ভুলটি সহ বেশকিছু নিন্দাজনক কাজ করলেও উনি একজন ভালো ডেভলপার অন্তত ওনার বিভিন্ন কাজ দেখে তাই মনে হয়েছে। তাই একজন সচেতন টিউনার জোয়ারে গা না ভাসিয়ে ওনাকে বোকা বললাম কিন্তু চোর বলতে পারলাম না বলে দুঃখিত। তার চেয়ে বরং আপনিও ওনাকে একজন সহব্লগার হিসেবে ক্ষমা করে দিন ওনার বোকামীকে এবং সমঝোতা করে ফেলুন। কারন কথায় কথা বাড়ে আর ঝামেলায় ঝামেলা বাড়ে। তাই ক্ষমাই হতে পারে সবচেয়ে ভাল সমাধান।

হয়তো অন্যদের চেয়ে একটু বেশীই বলে ফেললাম ভুল হলে আমাকেও ক্ষমা করবেন।

    @শাকিল: আমি জানি আমি অনেক রূঢ়ভাবে লিখেছি, এতোখানি রূঢ়ভাবে আমি লিখতে চাইনি। এতোদিন কপি/পেস্টের ব্যাপারে আমি এতো সরব হইনি, অন্যান্যেদের পাশাপাশি আমার লেখাও প্রচুর কপি হয়েছে। টেকটিউনসে আমার আসার পেছনে মূল কারনই এটা – আমার অনেক লেখাই কপি হয়ে এখানে আসছিল, পাঠকরাই চেয়েছিলেন আমি নিজেই যেন লেখা শুরু করি। এর পরেও অন্যত্র কপি চলছিল, হোক, তবুও আমি বেশি চেঁচামেচি করিনি, আমাকে কি কোনোদিন এভাবে লিখতে দেখেছেন?
    অপরের কৃতকর্মের কারনে যদি আমাকে চোর হতে হয়, তাহলে মূল কর্মটি যিনি করেছেন তিনি কিকরে সাধু ব্যাক্তি থাকতে পারেন, আপনিই বলুন? শিক্ষিত এবং জ্ঞানি মানুষদের কাছে আমরা কি আশা করতে পারি, একটুখানি নৈতিকতা কি আশা করতে পারিনা? কথায় কথা বাড়ে, তা সত্যি, সেই কারনেই এতোগুলি মন্তব্যে একটিও উত্তর করিনি আমি।
    সহব্লগার হিসেবে নয়, আমি এমনিতেই এইসব ভুলে যাবো; আমি এখন আমার দেশের বাইরে, এবং আমার দেশ & সকল নাগরিক আমার কাছে অতি প্রিয় – তাদের সকল দোষ আমি ভুলে যাবো। তবে আপন মানুষদের প্রতিই বেশি অভিযোগ থাকে, তাইনা? এটাও তাই ছিল।

    হূমম উনি প্রথমে লেখাটি প্রকাশ করে যেমন ভুলটি করেছেন তারপরের অপরাধ হলো সেই পাঠকের কাছে আপনার অবস্থানটি স্পষ্ট না করে। পাঠকের মেইল তো আছেই আমি আশা করবো তিনি পাঠককে মেইল করে তার কাছে আপনার অবস্থানটি পরিস্কার করবেন। এবং অতি সত্তর আপনার লেখাটি তার ব্লগ থেকে মুছবেন জানিনা কেন এখনো মোছা হয়নি।

    আর আপু আমি সবসময়ই মনে হয় কম জানা কিন্তু বেশী বোঝা পাবলিক 😉 তাই মনে হয় অনেক খানিই নাক গলিয়ে ফেললাম। যেহেতু আমি আসলে খুবই কম জানি তাই আমার কোন ভুল হলে আমার জন্যও না হয় আপনার ঐ দেশের মানুষ ফমূর্লা এপ্লাই করলেন।

    আর আপনি অনেক জানেন আমি তো কিছুই জানিনা তারপরও একটা অনুরোধ করি ব্যাপারটা শেষ করে দিন এখানেই যদি উনি ক্ষমা চান। কারন কথা বাড়বেই আর অতি উৎসাহী কিছু কমেন্টার কিন্তু আছেন। তাই সমঝোতাই উত্তম।

    না শাকিল, অবশ্যই ভাল করেছেন লিখে। সবার সবরকম মতামতের জন্যই তো লেখা। আমি খুব ওয়েলকাম করি, বাকিরা কে কি ভাবলো জানিনা, আমি মনে করিনা নাক গলিয়েছেন। আর, আমি নিজেই মেহেদির কাছে মাফ চেয়েছি এইভাবে লেখার জন্য। উপরে আছে, দেখুন। এছাড়াও তার কাছে জানতে চেয়েছি যে এই টিউনে এখন মন্তব্য থামিয়ে দেব কিনা। আমি মেহেদির মতামত চেয়েছি। ব্যাপারটা যাতে আর না বাড়ে, সেই কারনেই আর কি। তবে মতামত বন্ধ করে দিলে যদি ওনার আপত্তি হয়, সেই ভেবেই ওনার কাছেই জানতে চেয়েছি কি করবো। এই লেখাটা লিখে আমি নিজেই অস্বস্তিতে পড়েছি, আমি কোনোদিন এইভাবে আক্রমণাত্মক লিখিনা।

    আমি সকল টিউনারের কাছেই মাফ চাইছি এইভাবে লেখার জন্য, আশাকরি কারনটা বুঝে আমার এইরকম রূঢ় লেখাকে মার্জনা করে দেবেন। আমি কাউকে দুঃখিত করতে চাইনা, কারো নাম টেনে তাকে ছোট দেখানোর উদ্দেশ্যে লিখিনি। নিরপরাধ মানুষের দিকে আঙ্গুল উঠলে তার যেমন লাগে, আমারও একই প্রতিক্রিয়া হয়েছে। আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত।

    শাকিল আরেফিন ভাইয়ের সাথে একমত। যেহেতু ভুল করে সবাই শিকার করে না, আর উপরে দেখলাম মেহেদি ভাই দুঃখ প্রকাশ করেছে, আশাকরি ক্ষমা চাইবে। সমঝোতাই উত্তম।
    —রিয়া আপুর অভিযোগ শুধু মেহেদি ভাইকে করা হলেও এটা আসলে সকল কপিরাইটারদের উদ্দেশ্যে…।
    আর
    এধরনের আলচনার প্রয়োজন খুব বেশি কেননা
    আমরা যারা নতুন তারা
    জানতে পারবো কোনটা ভুল। কতটা ভুল।

    না আপনার কোন অস্বস্তির কারন নেই বা তার কাছে মাফ চাওয়ারও কারন নেই আমার মতে। আপনি কেন ছোট হচ্ছেন। আসলে পরিস্থিতি আপনাকে বাধ্য করেছে এরকম টিউন করার জন্য তাই পরিস্থিতির স্বীকার হয়ে সেই পরিস্থিতির প্রয়োজনেই হয়তো টিউনটি করেছেন।

    তবে সত্যি বলতে কি অনেকেই বলে যে কম্যুনিটি ব্লগে বিশৃঙ্খলা কপি পেষ্ট হয় নিয়ম নাই মডারেটররা দায়িত্তহীন কিন্তু দেখুন আপনার বাসার পরিবেশ কিন্তু শান্তু ভদ্র সুন্দর এমনটাই থাকবে কিন্তু একটা বাজারে বা সড়কে যান সেখানে কিন্তু নিয়ন্ত্রনের অনেকে আছে তারপরও কখনোই আপনার বাসার মত শান্ত সুন্দর পরিবেশ পাবেন না কারন সেখানে নানা ধরনের লোক আছে নানাজন নানারকম। কম্যুনিটি ব্লগও ঠিক এরকম আসলে কারোরই দোষ নেই সবাই সবার মত চলছে এটাকেই সবার সহ্য করে নিতে হবে। এই আমার কথাই ধরুন আমিতো মনে করি যখন আমি লেখা প্রকাশ করি তখনই যে কাওকে আমাকে ভাল খারাপ বা গালমন্দ করার অধিকার দিয়ে দেই তাই নানাজন নানাকথা বলে অনেকে গালিও দেয়ে অনেক সময় তাতে আমার কি আমি চলি আমার মত কারন ব্লগার হিসেবে আমি আর সেই রক্ত মাংসের মানুষ নেই যার মান-অপমান বোধ ছিল হয়ে গেছি ভার্চুয়াল জগতের ভার্চুয়াল মানব অন্তত অনলাইনে। তাই কোন কিছুই ব্যাক্তিগতভাবে নেই না। এভাবেই পরিবেশের সাথে খাপ খাইয়ে এগোতে হবে আমাদের সকলকে।

ধন্যবাদ।

বিনামূল্যে আধুনিক এবং রোমান্টিক সব ভিডিও গান ও সিনেমা ডাউনলোডের জন্য ভিজিট করুন

http://AllFreeVideo.tk

আমি আপনার সাথে এক মত

Level New

যাই হোক রিয়া আপু একজন জনপ্রিয় ব্লগার হিসাবে তার প্রতিবাদে সকলেই সাড়া দিয়েছেন।

আমি ও সকলের সাথে একমত কিন্তু চোরদেরতো এভাবে থামানো যাবেনা।
অনেক ছোট বড় চোর আছে।
আসলেই কিছু করার আছে কি আমাদের??

কপিরাইট আইন আমাদের দেশে কি কোন ইফেক্ট করবে, যেখানে আসল আইনই মানা হয়না।

sahityo.com এর একই অবস্থা করে ছেড়েছে http://bengalinewspapers.co.cc/category/sahitto এই ঠিকানার ওয়েবসাইট

এ, ইয়াকুব ভাই, শাকিল ভাই, সোহান(টিনটিন) ভাই আপনাদের কথা ১০০% সঠিক। বাকী যারা কমেন্টস করেছেন তারাও ভালোই বলেছেন। কিন্তু একটা কথা সকল টিউনারদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই যে, এভাবে টেকটিউন্সের টিউনারদের মধ্যে একটা বিশৃঙ্খলা তৈরী হচ্ছে। যেটা আমাদের প্রযুক্তির জন্য “মেতে উঠো প্রযুক্তির সুরে” এই টাইটেলটির সাথে মানানসই নয়। রিয়া আপুকে যেভাবে চোর সাজানো হইছে এটা মোটেও আমাদের ব্লগ জগতে আশা করা যায় না। বিশেষ করে বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে মেয়ে ব্লগার তো পাওয়াই মুসকিল। আর তাতে যদি আবার চোর সাজতে হয় তাহলে তো ….. 🙁

যাহোক মি. মেহেদী.কম.বিডি একটু খেয়ালি হোন প্লিজ। বুঝেন তো কপি রাইট আউন ভঙ্গ করা কতটা বেআইনি। সোহান(টিনটিন) ভাই এর কথাটি একটু খেয়াল কইরেন………….. 🙂

বড়ই দংখের কথা।

আপু আপনার লেখাটা পরলাম অনেক দেরিতে ।আপনি হয়্তো আমার কমেন্ট পড়বেন না কিন্তু তার্পরো নিজের একটা ঘটনা শেয়ার না করে পারছি না।
আমার একটা ফেসবুক পেইজ আছে।আমার সৌভাগ্য কি না জানি না, আমি পোষ্ট দেয়ার সাথে সাথে সেটা ২-৪ পেজ কপি করে যাদের ফ্যান আমার থেকে বেশি।কিছুই বলার নাই কারন আমার পেজ ৬০০০ ওদের পেজ ১৪০০০ , ২২০০০ ।একবার কমেন্টে বলেছিলাম আমার পেজের নাম্টা দিন , ওই এডমিন আমার কমেন্টের রিপ্লাই না দিয়ে আমাকে ব্যান করে দিয়েছে।

যাই হোক আপু আমি আমার কাজ করে যাচ্ছি আপনিও আপনার কাজ করে যান্।ভালো থাকুন্।ইচ্ছা হলে আমার পেজ্টা থেকে ঘুরে আসতে পারেন
http://www.facebook.com/we.are.not.single

    @ঠান্ডা নিয়ন:-
    প্রথমেই বলে রাখি, এখানে আমার সব লেখার মন্তব্য আমার কাছে আজও পৌছোয়, আমি সবই পড়ি। একটি মন্তব্যও না পড়ে মুছে ফেলিনা আমি। এতো পুরোনো লেখায় মন্তব্য এলে তার মূল্য তাজা লেখায় মন্তব্যের চেয়েও অনেক বেশী কিছু।
    এখন আপনার লেখা নিয়ে বলি, আমি জানি নিজের লেখা কপি হয়ে গেলে যথেষ্ট খারাপ লাগে। তবে এর অন্য দিকও থাকে, যেমন, আপনার ৬০০০ ফ্যানের পাশাপাশি অন্যদের ১৪০০০/২২০০০ ফ্যানের কাছে পৌছে যাচ্ছে আপনার লেখা। হয়তো তারা আপনার নাম জানছেন না, হয়তো তারা আপনার পেজের ঠিকানা জানছেন না, কিন্তু সেইসব পেজে আসা মন্তব্যগুলোতে নিশ্চয় বোঝেন যে আপনার লেখার মান কতোখানি? সেই মান আপনার, অন্য কারো নয়। মজার ব্যাপার, যে বা যারা আপনার লেখা নিচ্ছেন, তারাও মনে মনে জানেন যে সেই মানের দাবীদার তারা নন। “বিবেক” বলে একটা কথা আছে না? সেখানে আপনিই রাজা।
    হ্যাঁ, অবশ্যই আপনি আপনার কাজ করে চলুন। আপনি যা জানেন আর যা বোঝেন তা ছড়িয়ে দিন সবার মাঝে। আর একটা কাজ করবেন, যারা আপনার লেখা নিচ্ছে – সেইসব পেজের ঠিকানা দিয়ে আপনার লেখার নিচে একটি Note দিয়ে রাখবেন যে আপনার লেখাটি বিনা অনুমতিতে অন্য পাতায় প্রকাশিত হয়েছে। (এতে কিছু শত্রুবৃদ্ধি হবে, ভেবে নিয়ে করবেন)

আসসালামু আলাইকুম, আমার সাইটের কিছু পোষ্ট গুগল এর প্রথম পেজে থাকতো, ২টি সাইট পোষ্টগুলো হেডিংসহ কপি করেছে, ফলে তাদের পোষ্ট গুগল এর ১ম পেজে থাকছে ৷ এখন আমি কিভাবে আমার পোষ্টকে গুগল এর ১ম পেজে নিয়ে আসবো ?
আমার পোষ্ট লিংকঃ https://www.islamkjanun.com/2015/07/blog-post_88.html?m=1
যে কপি করেছে সাইট-১ঃ https://ibtv99.blogspot.com/2017/10/blog-post_82.html?m=1
সাইট-২ঃhttps://islamicthinkingbd.blogspot.com/2017/10/blog-post_307.html?m=1