ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

আয় হচ্ছেনা? মন খারাপ না করে পড়ে নিন কিভাবে আয়ের পথে সুবিধা হবে…

অনেকদিন পরে আবার টেকটিউনসে লিখতে বসলাম; আশাকরি সবাই ভালো আছেন। প্রথম পাতায় একটি পোস্ট দেখে পড়তে গেলাম, টেকটিউনস জরিপ [জুন ২০১০]: অনলাইন আয়ের ব্যাপারে সফলতা কম। আমি দেখলাম সেখানে ৩৩৮ জন অংশ নিয়েছিলেন জরিপে তাদের মধ্যে নিয়মিত ভালো আয় করছেন এবং আগ্রহ নেই ব্যাক্তিদের সংখ্যা বাদ দিলে বাকি সিংহভাগই চেষ্টা করছেন অথচ আয় কম, আগ্রহ থাকলেও চেষ্টা করে দেখেননি নয়তো চেষ্টা করেও এখনো পর্যন্ত ব্যর্থ। ধন্যবাদ সাবটাইটেল মামুন, এই জরিপের তথ্য আমাদের সামনে উপস্থাপনা করার জন্য।

ADs by Techtunes ADs

আজকাল একটি প্রবণতা দেখা যাচ্ছে যে লোকমুখে শুনে কিম্বা বিভিন্ন ওয়েবসাইট / ব্লগ পড়ে আয়ের আশায় অনেকেই ব্লগ খুলছেন। কিন্তু অধিকাংশ ব্লগারের ধারনা যে একটি ব্লগ খুলে যা ইচ্ছা লিখে ফেললেই ভিজিটার এসে বিজ্ঞাপনে ক্লিক করবে এবং আয় হতে থাকবে। এর ফলে সৃষ্টি হচ্ছে প্রচুর এমন ব্লগ যেখানে প্রযুক্তির নামে সফটওয়্যার ডাউনলোড দেওয়া হচ্ছে, মিউজিক ব্লগের নামে গানের এলবাম পাইরেসি করে ডাউনলোড দেওয়া হচ্ছে নয়তো সেই উইন্ডোজ টিপস & ট্রিকস, ওয়ার্ডপ্রেস আর ব্লগার ব্লগ কিভাবে বানাতে হয় আর কিভাবে কাস্টমাইজ করতে হয়; কেউ বা বানাচ্ছেন দেশী বিদেশী চলচ্চিত্র অভিনেতা অভিনেত্রীদের ছবির ব্লগ। এইভাবে আয় হবেনা। হলেও তা হতাশাজনক হবে। কেউ কেউ এর মধ্যে সাফল্য পেয়ে গেলেও সেটা ব্লগিংয়ের জোরে কম আর প্রচুর লোকজনের সঙ্গে চেনাপরিচিতির কারনে সাফল্য পাচ্ছেন। এছাড়া কিছু প্রোগ্রামিং জানা গুণী ব্যাক্তিরা সাফল্য পাচ্ছেন। বাকিদের কি হবে?

অনলাইনে ব্লগ থেকে আয় যেভাবে হয় -

খুব স্পষ্ট করে একটি কথা বুঝতে হবে, ব্লগাররা যেমন চাইছেন আয় করতে, তেমনই বিজ্ঞাপনদাতাও এসেছেন আয় করতে। তিনি বিজ্ঞাপনে টাকা ঢালছেন মানে এই নয় যে তিনি বিশ্বের সকল ব্লগারকে অকাতরে দান করতে এসেছেন। তার একটি পণ্য আছে, সেইটার প্রচার চাইছেন তিনি এবং সেই পণ্যের বিক্রয় বাড়ানোর উদ্দেশ্যেই তিনি বিজ্ঞাপন দিচ্ছেন। তাকে আপনি ব্লগার হিসেবে কিভাবে সাহায্য করতে পারেন? উপায় একটাই, আপনি হোন তার সেলসম্যান। তার পণ্য বিক্রয় করার পথে তাকে সাহায্য করুন আপনার ব্লগ মারফত, আপনার ভিজিটারদের মাঝে প্রচার করে। বদলে নিন কমিশন। ব্লগ থেকে আয়ের এটাই মূল কথা।

ব্লগ থেকে আয় করতে চাইলে -

আগেই ভেবে নিন বাজারে এখন কি কি পণ্যের চাহিদা বেশি যাচ্ছে। প্রচলিত ভাষায়, কোন কীওয়ার্ডের মূল্য কেমন যাচ্ছে আজকাল। এইটা জেনে নিয়ে তার পরে ভাবুন যে ওইসব কীওয়ার্ডের বিষয়ের মধ্যে আপনি কোন কোন বিষয়ে লিখতে পারবেন। যে বিষয়ে আপনার সামান্যতমও জ্ঞান নেই, সেই বিষয়ে লিখতে বসলে এখান ওখান থেকে কপি করতে হবে লেখা। তাতে লাভের বদলে ক্ষতিই হবে। সেই চেষ্টায় না গিয়ে নিজে কি লিখতে পারেন ভেবে নিয়ে সেই বিষয়ের ব্লগ খুলুন। আপনার ব্লগ কিম্বা ওয়েবসাইটকে বানিয়ে তুলুন বিজ্ঞাপনদাতার অনলাইন দোকানের সমান। বিজ্ঞাপনদাতাকে প্রচুর বিজনেস দিন আর ঘরে তুলে নিন আকর্ষণীয় কমিশন যা আসবে গুগল এডসেন্স চেকের মধ্যে দিয়ে। অনেকেই এই দিকটা উপেক্ষা করে চলেন, তাই আয়ের পথেও নিরাশাই পান। এখন থেকে বুঝে নিয়ে উপযুক্ত পথে চললে আয়ও ভালোই পাবেন।

কীওয়ার্ডের তারতম্য ঘটান

এসইও করার আগে জেনে নিন, সার্চ ইঞ্জিনে মূলত দুই প্রকারের সার্চ হয়। এক শ্রেনীর ইউজার তথ্য খোঁজেন, অন্য আরেক শ্রেনীর ইউজার কিছু কেনার উদ্দেশ্যে নানাবিধ তথ্য খোঁজেন। প্রথম ধরনের সার্চ থেকে আয় হওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ। অসম্ভব বলছিনা, ক্ষীণ বলছি - অর্থাৎ ক্লিক পড়লেও তাতে ০.০১ ~ ০.০৫ ডলার রেট হয়তো পাবেন, এর বেশি নয়। কিন্তু ভালো আয়ের উৎস হচ্ছে ওই দ্বিতীয় ধরনের সার্চ ইউজার যারা কিছু কিনতে চান। আপনি বিজ্ঞাপনদাতার অনলাইন রিপ্রেজেন্টেটিভ, তাই এই দ্বিতীয় শ্রেনীর সার্চ ইউজারকে টার্গেট করবেন এবং আপনার লেখার মধ্যে দিয়ে পণ্যের প্রতি আগ্রহ সঞ্চার করে তুলে ইউজারকে বিজ্ঞাপনদাতার ওয়েবসাইটের দিকে এগিয়ে দেবেন। এতেই বিজ্ঞাপনদাতার বানিজ্যিক উদ্দেশ্য সফল হবে এবং তিনিও আপনাকে বেশি টাকা দেবেন ওই ক্লিকের জন্য।

এইজন্য কীওয়ার্ডে তারতম্য ঘটাতে হবে। যেমন, nokia mobiles - lcd tv reviews ইত্যাদি কীওয়ার্ডে যে কাজ হবে, তার চেয়ে বেশি কাজ হবে lcd tv price walmart, used mobiles for sale, discount mobiles in california ইত্যাদি কীওয়ার্ডে। দুই ধরনের কীওয়ার্ডের তফাৎ বুঝে নিন। আমি সামান্য উদাহরণ দিলাম, আপনারা ইচ্ছে করলে গুগলের নানাবিধ কীওয়ার্ড রিসার্চ টুলস ব্যবহার করে বেশি চাহিদার কীওয়ার্ড খুঁজে নিতে পারবেন।

ইউনিক কন্টেন্ট লেখার উপায় অনেক

ইউনিক কন্টেন্ট নিয়ে প্রচুর আলোচনা হয়েছে ইতিপূর্বে। আমরা কেউ বিজ্ঞানী নই, আমরা কিছু আবিষ্কার করছিনা, তাই ইউনিক বলতে সেই অর্থে কিছুই হবেনা। জানা জিনিস, ঘুরেফিরে একই সব টপিক, কিন্তু এরই মধ্যে ইউনিক এবং ফ্রেশ কন্টেন্ট বলতে এমন কিছু করতে হবে যাতে পাঠকের নজরে সেটা বস্তাপঁচা একই জিনিস নাহয়ে যায়। এখানে আসবে ক্রিয়েটিভ রাইটিংয়ের প্রয়োজন। আবারও সেই একই কথা, আমরা কেউ সাহিত্যিক বা ঔপন্যাসিক নই তাই গল্প কাহিনী লেখা সম্ভব নয়। তাহলে কি করবেন?

আপনি এই সমাজে থাকেন, আপনার পরিবার, আত্মীয়স্বজন, বন্ধুমহল ইত্যাদি আছে; আপনার চারপাশে প্রত্যেকের জীবনে ঘটে চলেছে কিছু সাধারন দৈনন্দিন জীবনধারনের গল্প। সেইখান থেকেই তুলে আনুন কিছু গল্প। লিখে ফেলুন ব্লগে। দেখবেন ইউনিক এবং আকর্ষণীয় কন্টেন্ট তৈরী হয়ে যাচ্ছে। এই যেমন একদিন আপনার বন্ধু ফোন করে আপনাকে জানালো সে নতুন মোবাইল কিনতে চায়, তিনি আপনার সঙ্গে গিয়ে কোনো এক শপিং মলে বিভিন্ন দোকান ঘুরে অনেক মডেল দেখে তার পছন্দের সেট বেছে নেবেন। এটাই লিখে ফেলুন? এবং দেখুন কিভাবে সুন্দর ভাবে বাস্তবিক উপায়ে ইউনিক কন্টেন্ট তৈরী হয়ে যাবে, তাতে একদিকে যেমন থাকবে অনেক শপিং মলের নাম, সাথে থাকবে বিভিন্ন মোবাইল মডেলের নাম/নম্বর ও যা যা ফিচার দেখলেন তার বিবরণ। আস্ত একটা মোবাইল রিভিউ হয়ে যাবে অনায়াসে! নিজেই বুঝবেন যে অন্য সাইটের থেকে আলাদা হয়েছে আপনার লেখা।

এইভাবে বিভিন্ন আলাদা আলাদা বিষয়ে ব্লগিং করতে পারেন। মনে রাখবেন, জীবন থেকে তুলে আনা গল্প অন্যান্যদের জীবনের সাথেও মিলে যায় এবং পাঠক তাতে নানাভাবে আকর্ষণবোধ করবেনই।

এখানেই সবকিছু শেষ নয়...

এইসবই যে সব তা আমি বলছিনা। এর সঙ্গে মেলাবেন এতোদিন যা যা শিখেছেন। ব্যাক লিঙ্ক তৈরী করবেন নিজের সাইটের জন্য। ভালো এসইও করবেন। উপযুক্ত ডোমেইন নেবেন, অযথা চেনাপরিচিতদের মাঝে ব্লগের ঠিকানা বিলি করবেন না। তাতে ভিজিটার বেড়ে যাবে অথচ আয় হবেনা, তখন গুগল এডসেন্সে স্মার্ট প্রাইসিংয়ের মুখে পড়তে হবে। প্রচুর বিজ্ঞাপন দিয়ে আসল লেখাকে ঢেকে ফেলবেন না। এইসব ছোটখাটো অনেক বিষয় যা যা এতোকাল পড়েছেন বিভিন্ন ব্লগে সেইসবকেও কাজে লাগাবেন।

ADs by Techtunes ADs

এই লেখাটিই আরো বিশদে জানতে চাইলে আমার ব্লগে পড়ে নিতে পারেন। নিচে আমার অন্যান্য লিংক:-

মূল ওয়েবসাইট | ব্লগ | আমার ব্লগের বিভিন্ন আরএসএস ফিড :-

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি রিয়া। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 11 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 96 টি টিউন ও 362 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

জীবনের সব ভুল, যদি ফুল হয়ে যায়... জীবনের সব কালো, যদি আলো হয়ে যায়...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

ধন্যবাদ রিয়া আপু।

অসাধারণ টিউন,এত সুন্দর করে লেখা খুব কম টিউনেই হয়,খুভই সুন্দর উপস্থাপনা,অনেক ভাল লাগলো টিউনটি পড়ে,আপনাকে অসংখ ধন্যবাদ এমন সুন্দর একটি টিউন উপহার দেয়ার জন্য.
টিউনটি নির্বাচিত করার দাবি জানাচ্ছি.

    আতাউর রহমান ভাই এর সাথে আমি একমত।

আপু আপনাকে অনেক ধন্যবাদ এত সুন্দর একটা টিউন এর জন্য…..

আপু, ধন্যবাদ আপনাকে, আমার মতো কম জানা লোকের কাজে আসবে।আপনার ব্লগটি ও দারুন।

Thank you Apu…. 🙂

নতুন করে বলার কিছু নেই। আপনার লিখা সবসময়ই ভাল হয়। দয়া করে টেকটিউনসে নিয়মিত লিখবেন। কারন ইদানিং অন্যসব ভাল টিউনাররা উধাও হয়ে গেছেন।

সত্যিই কি বলে যে আপনার প্রশংসা করব তা বুঝে উঠতে পারছিন। অসাধারণ লেখনী…………………

মনযোগ দিয়ে পড়লাম।

    তারপর?

    এরপর আর কিছু নাই !
    আগে শিখে নেই, এরপর আয়ের চিন্তা ভাবনা। বেশিরভাগ আয় করতে যেয়ে যেভাবে ফেল মারছে শুনলাম তাতে এই লাইনে যেতে একটু ভয় হচ্ছে। তারপর যখন বড় বড় টিউনাররা যখন আশা দেয়, তখন তো একটু ভাল লাগে বলতে হয়।

    হা তাই, আগে শিখে নেই, এরপর আয়ের চিন্তা ভাবনা।

ভালোই লিখেছেন।

টিউনটি আমার কাছে অনেক দামী মনে হয়েছে।একদম “গুগলের হাইপেয়িং কী-ওয়ার্ডের” মত।অনেক ধন্যবাদ রিয়া আপু।

আপু অনেক ভালো লিখছো আশা করি আমাদের টেকি ভাইদের অনেক কাজে লাগবে ।আর নিয়মিত টেকটিউনস এ লেখা চাই ।

আপু আপনার টিউনটি খুবই মনোযোগ দিয়ে পড়লাম তাতে আমি মনে করি এটা একটি অসাধারণ টিউন।
আপু আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ আর আপনার টিউন নিয়মিত ভাবে আশা করছি।

অসাধারন|
বেশ ভালো লেগেছে, সজীব রহমানের মন্তব্যটাই কপি পেষ্ট করি-
টিউনটি আমার কাছে অনেক দামী মনে হয়েছে।একদম “গুগলের হাইপেয়িং কী-ওয়ার্ডের” মত।অনেক ধন্যবাদ রিয়া আপু।

স্যালুট টু রিয়া আপু । 🙂

“আমার ফেসবুক পেজ [কনট্যাক্ট তালিকাভুক্ত করতে চাইলে অবশ্যই জানাবেন টেকটিউনস থেকে আসছেন কিনা]”
লেখাটি বুঝলাম না। আপনার ফেসবুক পেজে add as friend অপশন পেলাম না।
http://www.facebook.com/extraperson

    দুঃখিত, প্রাইভেসি মোড অনেক কড়া ছিল বলেই এই বিপত্তি।

অনেকদিন পর রিয়া আপু……………….
অনেকদিন পর আরেকটি অসাধারণ কাজের টিউন………………….
অনেক দিন পর আবারও রিয়া আপুকে ধন্যবাদ দেওয়ার সুযোগ পেলাম………………….

ধন্যবাদ রিয়া আপু………………ভাল থাকবেন সবসময়!!!

আপনার টিউন পইড়া একটা কারনে আমার কেন জানি খুব হাসি পেল ,,,,,,,

হায়রে অনলাইন আর টাকা, শুনতে শুনটে কান ঝালাপালা, আমার এত টেকার কাম নাই,

কয়েকদিন আগে হোস্টেলে এক বড় ভাই পিসি কিনল ২৮হাজার টেকা দিয়া, কয়েকদিন পরেই দেখি নেট ও লইয়া ফালাইছে,, অথচ সেই পাবলিক সফট সেটাপ কেমনে করতে হয় সেটাও জানেনা, সেই নাকি আবার অনলাইন থেকে টেকা কামানোর লাইগাই পিসি ও নেট নিছে…….

আইচ্ছা টেকা কামানো কি এতই সহজ ?

আইজ পর্যন্ত কামের লিংক ছাড়া অকামের লিংক মানে এ্যাড লিংকে আমি মনে হয় ৯৯.৯৯% সময়েই ক্লিক করি না, তাইলে আগে ভাবতে হবে আমার মত ইউজার কয়জন আছে, অবশ্য এইরাম ইউজার কমেই আছে বলে মনে হয়, যাউক গা আমি তো কিছুই জানিনা, আগে শিইখা লই তার পর টেকার স্বপ্ন দেখমু

Level 0

রিয়া আপু,ধন্যবাদ, ঘুমন্ত জাহাঙ্গীর ভাইয়ে সাথে একমত, আপনে অনেক ভাগ্যবতী দুই মা পেয়েছেন্ আর কারত এক টা ও মা নেই, স্যরি রিয়া আপু,,,,,,,,,!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

Level 0

চমতকার এবং অতীব কার্যকর কিছু টিপস

অনেক অনেক ধন্যবাদ

এক নিশ্বাসে পড়ে নিলাম, প্রিয়তেও গেল। ধন্যবাদ আপু টিউনটি করার জন্য।

খুব ভালো হয়েছে।

চমৎকার টিউন হয়েছে।আপনার লাস্ট টিউন এর পর আপনার আর টিউন নেই কেন?

Level 0

রিয়া আপু সুন্দর ও উপকারি একটা লেখা পড়লাম এখান থেকে অনেক শেখার আছে। আমি আপনার অনেক লেখা পড়েছি অনেক কিছু বুঝতে পারছি তবু আমার একটা সাইট গুগল এডসেন্স করার সাহস পাচ্ছি না যদি কোন কারনে গুগল এপ্রুভ না করে তখন আমি কি করব এই ভেবে গুগল এডসেন্স এর জন্য এখনো পর্যন্ত এপ্লাই করিনি। আপনি অভিজ্ঞ তাই আমার সাইটটা গুগল এডসেন্স করার জন্য আপনার সহায্য চাই। ধন্যবাদ।
http://www.knowpar.com

    @uttamdas38: অযথা দুশ্চিন্তার কোনোই কারন নেই। যদি একটি সাইট এ্যাপ্রুভ নাহয়, তবে কিছু ইম্প্রুভমেন্ট ঘটিয়ে আবারও চেষ্টা করতে পারেন, অথবা অন্য সাইট দিয়েও চেষ্টা করতে পারেন। আমি আপনার সাইট দেখলাম। ডিজাইন ঠিকই আছে, আরো আর্টিকেল লিখুন ও অরিজিনাল লেখা লিখুন, ভাল ভাবে (স্প্যাম না করে) সুচিন্তিত উপায়ে সাইটের প্রচার করুন এবং কিছু ব্যাকলিঙ্ক সৃষ্টি করুন। সাইটে ট্র্যাফিক ভালভাবে এলে গুগল নিশ্চয় আপনার এ্যাপ্লিকেশন পাস করে দেবে।

Level 0

রিয়া আপু আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। এত তারাতারি আপনার পরামর্শ পাব আশা করিনি কারন আপনার অনেক আগের লেখার মাধ্যমে আমার সমস্যার কথা জানালাম মনে করেছিলাম আমার সমস্যার কথাটা সহজে আপনার নজরে আসবেনা যদিও বা আসে এত তারাতারি আশা করিনি । এর আগে আমি অনেক জায়গায় আমার সমস্যার কথা জানিয়েছি কিন্তু কোন পরামর্শ পায়নি। আপনার অনেক ব্যস্ততার মাঝেও দায়িত্ব মনেকরে আপনি আমাকে সুন্দর একটা পরামর্শ দিয়েছেন। আমি আপনার দায়িত্ববোধকে সম্মান জানাই। আমার সাইটে কোন ধরনের কপি করা পোষ্ট নেই । গত দুই বছর ধরে আমার নিজের চেষ্টায় সাইটটা এতটুক পর্যন্ত এনেছি। আমি চাচ্ছি এই অবস্থায় গুগল এডসেন্সের জন্য এপ্লাই করতে । যদি করা যায় তবে কিভাবে করব একটা দিকনির্দেশনা দিতেন তাহলে আমার উপকার হতো। আপনিতো আমার সাইটটা দেখেছেন। প্লিজ হেল্প করুন।ধন্যবাদ।

    @uttamdas38: আপনার লেখাগুলি যেহেতু অরিজিনাল, তাই অবশ্যই গুগলের ভাল নজরে আপনি থাকবেন। এছাড়া যেসব দিক গুগল বিচার করবে তা হল সাইটে কত ভিজিটার, সাইটের কন্টেন্ট কতখানি সার্চ হচ্ছে – মানে কতখানি জনপ্রিয় টপিকে লেখাগুলি আছে, কত ঘন ঘন নতুন লেখা আপনি লেখেন (মাসে অন্তত ২০-টি লেখা দিতে পারলে খুব ভাল হয়), মোট কতগুলি লেখা আপনার ব্লগে আছে (৭০-১০০ পোস্ট হলে ভাল), ইংরাজী লেখায় ভুলভ্রান্তি কম নাকি বেশী, ব্যাকলিঙ্ক আছে কিনা ইত্যাদি অনেক কিছুই গুগল দেখে। আরেকটি কথা, SEO করতে গিয়ে কোনো Black Hat পলিসি যেন না থাকে – এতে অবশ্য এ্যাডসেন্স সরাসরি প্রভাব পড়বেনা, তবে সার্চ ইঞ্জিনে র‍্যাঙ্ক এদিকওদিক হতে পারে, তাতে ভিজিটার পাবেন কম এবং এ্যাডসেন্স আয় কম হবে! সাইটে অন্য এ্যাড চললে কয়েকদিনের জন্য সেইসব স্থগিত রাখবেন যখন এ্যাডসেন্স আবেদন করবেন। গুগল তাতে আপত্তি করবেনা, তবে ওরা দেখবে যে আপনি হয়তো ইতিমধ্যেই আয় করছেন সাইট থেকে তাই বাড়তি গুরুত্ব হয়তো নাও দিতে পারে।

Level 0

ধন্যবাদ রিয়া আপু , আপনার পরামর্শগুলো আমার অভিজ্ঞতাকে অনেকগুন বাড়িয়ে দিল। এবার আমি গুগল এডসেন্সের জন্য এপ্লাই করব। রিয়া আপু প্রথমে অতিরিক্ত বারারির জন্য ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি। প্রথম পর্যায়ে গুগল সাইট এপ্রুভ না করে যদি বিভিন্ন ধরনের কারন দেখায় এই সব বিষয়গুলো আমি যদি না বুঝি তখন আপনার হেল্পটা বেশী প্রয়োজন হবে।প্লিজ এই সহায্যটুকু করবেন কী ? যদি আপনার এই সাহায্যের আশাটুকু পায় তবে আমার কাজটা শেষ করতে পারব।ধন্যবাদ।

Level 0

রিয়া আপু আমার সাইটটা গুগল এডসেন্সের জন্য এপ্লাই করেছি। কিন্তু গুগল সাইটটা এপ্রুভ না করে ইনকারেক্ট এড্রেস ইসু দেখিয়ে মেসেজ দিল।আমি ঠিক করে রিসামিট করি এই ভাবে তিন চারবার রিসামিট করি। এখন আরেকটা মেসজ দিয়ে বুঝালযে আমার সাইটে প্রথমে পরীক্ষামূলক ব্ল্যাঙ্ক বিজ্ঞাপন দিবে। কিভাবে বিজ্ঞাপগুলো নিতে হবে তা স্টেপ বাই স্টেপ বুঝিয়ে দিল। আমি তাদের কথামত একাউণ্ড খুলতে চাচ্ছি তখন একাউণ্ড না খুলে পুনরায় রিসামিটের ফরমটা চলে আসতেছে। এখন আমি কি করব বুঝতে পারচ্ছিনা। এ অবস্থায় একবার রিসামিট করেছি। দয়াকরে এই সমস্যার একটা সমাধানের পথ দেখিয়ে দেন। ধন্যবাদ।

    @uttamdas38: হয়তো এ্যাপ্রভ হয়নি এখনও, অথবা গুগল কোনো কারনে এ্যাপ্রুভাল স্থগিত রেখেছে – তাই রিসাবমিট অপশান দেখাচ্ছে। এ্যাপ্রুভ নাহয়ে থাকলে কিছুই করার নেই, রিসাবমিট করতেই হবে।

Level 0

রিয়া আপু দয়াকরে আমার এই সমস্যার সমাধানের একটা পথ দেখিয়েদিন। আমি আপনার পরামর্শ আশা করছি।ধন্যবাদ।

Level 0

রিয়া আপু আমার সাইটটা গুগল এপ্রুভ না করে এই কারনটা দেখিয়েছে ।Issues:

– Site does not comply with Google policies
দয়াকরে এই বিষয়ে একটা সমাধান দেন। ধন্যবাদ।

    @uttamdas38: আমি এতদূর থেকে বসে কী আর সমাধান দেবো বলুন? যদি স্থানীয়ভাবে কাউকে পান তবে তার কাছে ভাল করে জেনে নিন। টেকটিউনসেও এ্যাডসেন্স এক্সপার্ট আছেন, তাদেরকেও জিজ্ঞেস করতে পারেন। নয়তো নিজেকেই করতে হবে। অনেকেই বেসিক একটা ভুল করে – গুগলের নিয়মকানুনগুলি পড়েই দেখেনা। আমি আপনাকে অনুরোধ করবো যে শর্টকাট পথে না গিয়ে ভাল করে জেনে নিয়ে এগোন। গুগলের নিয়মাবলি পড়লেই জানতে পারবেন সব, তার সঙ্গে নিজের সাইট মিলিয়ে নিন, নিশ্চয় গুগল এ্যাপ্রুভ করবে তারপরে।

Level 0

রিয়া আপু আনেকটা গুগলের গাইডলাইন ফলো করে সাইট রি-সাবমিট করেছি জানিনা এবার কি হয়। আমার জন্য করবেন । আমার আশেপাশে কোন অভিজ্ঞলোক নেই যার কাছথেকে সাহায্য পাওয়া যাবে। আমার যে অভিজ্ঞতা সবকিছু অনলাইন থেকে বর্তমানে টেকটিউনস। টেকটিউনসে আপনার লেখাগুলো পড়ে এবং আপনার দেয়া পরামর্শ আমার অভিজ্ঞতা অনেক বাড়িয়ে দিল যা আমার কাছে আগে ছিল না। আমি মনেকরি আমার সমস্যার সমাধানের পথ হচ্ছে অনলাইনের মাধ্যমে আপনার পরামর্শ ও সহযোগিতা যা আমার কাজ ও অভিজ্ঞতাকে আরো উন্নত করবে। ইন্টানেটের যুগে এখন কেউ দুরে নয় এটা আমার ধারনা। আমি টেকটিউনসে অনেকের কাছে পরামর্শ ছেয়েছি অনেকের মধ্যে আপনিই আমাকে দায়িত্ব মনেকরে পরামর্শ দিলেন।বিশ্বাস করুন, এই কথাটা আপনাকে খুশিকরার জন্য নয় এটাই সত্যি। দয়াকরে দূরত্বের দোহায় দিয়ে সহযোগিতাটা বন্ধ করে দিবেন না। আপনার কাছ থেকে আমার আরো অনেক কিছু জানার আছে। অনেক বেশী কথা বলে ফেললাম ক্ষমা করবেন।ধন্যবাদ।

Level 0

রিয়া আপু সাইটা গুগল এডসেন্সের জন্য অনেকবার এপ্লাই করেছি কিন্তু কোন ভাবে এভপ্রুব হচ্ছেনা। দয়াকরে বলুন এখন আমি কি করতে পারি।ধন্যবাদ।
http://www.knowpar.com

Level 0

রিয়া আপু গুগল এডসেন্স না পেয়ে এখন এডব্রাইট এবং ক্লিকসরের এড দিয়েছি। একটা সাইটে এডব্রাইট এবং ক্লিকসরের এড একসাথে দেওয়া যাবে কিনা দয়াকরে বলুন।ধন্যবাদ

Level 0

রিয়া আপু, সালাম নিবেন। অনেক কষ্টে গুগল এডসেন্স এপ্রুভ পেলাম। এখন আমার সাইটে গুগল এড দেখাচ্ছে। এখন আমি কিভাবে এডসেন্স রক্ষা করতে পারি এবং কিভাবে আয় বাড়াতে পারি এই বিষয় সম্পর্কে দয়াকরে আমাকে একটা ধারনা দিন। আপনা পরামর্শ গুলো আমার খুব কাজে আসে। ধন্যবাদ।