ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

১০ টি ইউটিউব বিকল্প সাইট! দেখে নিন, কোন সাইটটি আপনার জন্য সেরা বিকল্প?

টিউন বিভাগ ইন্টারনেট
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

২০০৫ সালে নির্মিত, ইউটিউব সর্বাধিক দেখা ভিডিও স্ট্রিমিং সাইটগুলির মধ্যে রয়েছে। সারা বিশ্বে এই প্ল্যাটফর্মটির ১.৩ বিলিয়নেরও বেশি ব্যবহারকারী রয়েছেন। সন্দেহ নেই যে ইউটিউব বিশ্বের সেরা ভিডিও সাইটগুলির মধ্যে একটি। এবং এটি এখন পর্যন্ত সবচেয়ে জনপ্রিয়। যেকোনো দেশের বড় বড় চলচ্চিত্র নির্মাতারা নিজেদের ছবি মুক্তি করার আগে ইউটিউবে ট্রেলার দেয়  আর তার থেকেই কোটি কোটি টাকা আয় করে। শুধু তাই না ইউটিউবে কম টাকায় বিজ্ঞাপণ দেওয়া যায় এবং এই সুযোগ বড় বড় কোম্পানিরা নেয়, তার থেকে মুনাফা লাভ করে। এই প্ল্যাটফর্মটি ডিজিটাল অর্থনীতির একটি বড় অংশ।

ADs by Techtunes ADs

এতক্ষন করলাম ইউটিউবের প্রশংসা, এবার বলছি  ইউটিউবের কিছু খারাপ দিক যেগুলো না জানলেই নয়। যেমন, এখন আপনি প্রত্যেকটি ভিডিও দেখতে গেলে আপনাকে জোর করে  বিজ্ঞাপণ দেখানো হয়, যেটা এতদিন ধরে টিভিতে হতো। ডিজিটাল অর্থনীতির অংশ হলেও, এর থেকে আয় করা খুব কঠিন। যারা ভিডিও বানিয়ে আপলোড করে তারা খুবই কম আয় করে। তার কারণ ইউটিউবের নীতিগত সমস্যা। অনলাইন আয়ের যত প্ল্যাটফর্ম আছে তার মধ্যে ইউটিউবারদের আয় সবচেয়ে কম। এই সমস্যার সমাধানের জন্য আপনার কাছে  নিয়ে এলাম  আরো কিছু ভিডিও স্ট্রিমিং সাইট। অনলাইন ভিডিও ইন্টারনেটের এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ যে এখানে প্রচুর দর্শনীয় মূল্যবান ভিডিও সাইট রয়েছে। অনলাইনে ভিডিও দেখার জন্য এখানে সেরা ইউটিউব বিকল্প রয়েছে।

মনে রাখবেন নিচে তালিকাভুক্ত  সাইটগুলো  কোনো ক্রমে সাজানো নেই।

১. ভিমিও

এমনকি যদি আপনি নিয়মিত ইউটিউব দেখে থাকেন, তাহলে ভিমিও কে আপনার নিয়মিত দেখা উচিত। এই সাইটটি ওয়েবে প্রথম হাই ডেফিনেশন ভিডিও আপলোড করে। এটি সমর্থন করে উচ্চ মানের ভিডিও। পাবেন একদম পেশাদার ভিডিও যা পেশাদারদের দিয়ে বানানো হয়েছে।

২. মেটাক্যাফে

মেটাক্যাফে এমন একটি ভিডিও সাইট যা সংক্ষিপ্ত রূপে ভিডিও তৈরিতে বিশেষজ্ঞ। এটি ইউটিউবের মতো অন্যান্য ভিডিও সাইটের মধ্যে একটি। এটিতে আছে  বিশ্বের সেরা ভিডিও এবং  আপনার প্রিয় ভিডিও গেমটিতে কীভাবে একটি কঠিন স্তর সম্পূর্ণ  করতে হয় তার টিপস থেকে সমস্ত কিছুই অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

মেটাক্যাফের  অন্যতম শক্তি হলো এর সরলতা। এর ব্রাউজিং ইন্টারফেসটি মোটামুটি সোজা, মেনু বার সহ সর্বশেষ, জনপ্রিয় এবং ট্রেন্ডিং ভিডিওর সাথে যুক্ত করা।

৩. ডেইলিমোশন

ডেইলিমোশন ইউটিউবের মতো আরও একটি ভিডিও ওয়েবসাইট। এটি তার বিখ্যাত প্রতিদ্বন্দ্বীর চেয়ে মাত্র এক মাস পরে ২০০৫ সালের মার্চ মাসে এসেছে। আজ, ডেইলিমোশন সম্ভবত ইউটিউবের সবচেয়ে কাছের প্রতিযোগী। পেশাদার প্রকাশক এবং অপেশাদার উভয়ই মিলিয়ন ভিডিও আপলোড করেছেন। হোমপেজে ভিডিওগুলি বিভাগ অনুসারে সংগঠিত করা হয়, গরম বিষয় এবং ট্রেন্ডিং ভিডিওগুলিকে সর্বাধিক গুরুত্ব দেওয়া হয়।

ADs by Techtunes ADs

৪.  ভিওহ

ইসরায়েলি  স্টার্টআপ কিলিপসো থেকে উদ্ভূত, ভিওহ একটি ইউটিউব বিকল্প যা নিজেকে একটি  টিভি সংস্থা হিসাবে বর্ণনা করে। সাইটটি কয়েক মিলিয়ন ভিডিও নিয়ে গর্ব করে, তাদের বেশিরভাগ ভিডিও পেশাদারদেড় দিয়ে বানানো। ভিওহ প্রদান করে টিভি সিরিজ সহ সম্পূর্ণ এপিসোড এবং ক্লিপ্স। আর এটিতে রয়েছে ক্লাসিক সিরিজের ভিডিও।

টিভি ক্লিপগুলি ছাড়াও, ভিওহতে বিভিন্ন ধরনের সঙ্গীত ভিডিও  রয়েছে। এটিতে একটি চলচ্চিত্র  বিভাগ রয়েছে যা কিছু পূর্ণ দৈর্ঘ্যের বৈশিষ্ট্যগুলির পাশাপাশি প্রচুর পরিমাণে চলচ্চিত্রের স্মরণীয় ক্লিপগুলি অন্তর্ভুক্ত করেছে।

৫. দি ইন্টারনেট আর্কাইভ

ইন্টারনেট আর্কাইভ  হল  বই, সংগীত, সফ্টওয়্যার এবং অবশ্যই চলচ্চিত্রগুলি সহ সমস্ত প্রকারের ফ্রি সামগ্রীর একটি ওয়েব-ভিত্তিক গ্রন্থাগার।

ইন্টারনেট আর্কাইভের ভিডিও সামগ্রীর অন্যতম শক্তি হ'ল এটির ঐতিহাসিক সামগ্রীর বিশাল সংগ্রহ। যদিও এর কিছু নতুন ভিডিও রয়েছে, এর কয়েকটি সেরা ভিডিওগুলি পুরানো এবং অস্পষ্ট যেমন - সংবাদ প্রতিবেদনগুলি, টিভি সিরিজ এবং চলচ্চিত্র  যা সাধারণত অন্য সাইটগুলিতে খুঁজে পাওয়া শক্ত। অন্যান্য অনেক সাইটের মতো, ব্যবহারকারীরা ইন্টারনেট আর্কাইভে  ভিডিও আপলোড করতে পারেন। ভিডিওগুলি আপলোড করার সময়, ব্যবহার করা হয় H.264  ভিডিও কোডিং ফর্ম্যাট।

৬. ক্র্যাকল

সনি পিকচার এন্টারটেইনমেন্টের মালিকানাধীন, ক্র্যাকল একটি অনলাইন স্ট্রিমিং সাইট যা ওয়েবের মূল সিরিজের  পাশাপাশি বিভিন্ন হলিউডের চলচ্চিত্র এবং টিভি সিরিজগুলি উপস্থাপন করে। ক্র্যাকলের আসল কিছু ভিডিও সমালোচকদের প্রশংসা কুড়িয়েছে।

৭. টুইচ

টুইচ হল ওয়েবের সেরা লাইভ স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম। সাইটটি অ্যামাজনের মালিকানাধীন। টুইচের মূল কেন্দ্রবিন্দু  লাইভ ভিডিও গেম স্ট্রিমিং এবং গেমিং-সম্পর্কিত টক শো। এছাড়াও কিছু নন-গেমিং ভিডিও রয়েছে। উল্লেখযোগ্যভাবে, টুইচ উৎসব  এবং সঙ্গীতানুষ্ঠান থেকে বেশ কয়েকটি লাইভ সঙ্গীত  ভিডিও সম্প্রচার করেছে।

ADs by Techtunes ADs

৮. দি ওপেন ভিডিও প্রজেক্ট

ওপেন ভিডিও প্রকল্পটি উত্তর ক্যারোলিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যাপেল হিলের স্কুল অফ ইনফরমেশন অ্যান্ড লাইব্রেরি সায়েন্সের ইন্টারঅ্যাকশন ডিজাইন ল্যাবরেটরিতে তৈরি করা হয়েছিল। এটা কাজ  করে গবেষণা সমিতিকে নিয়ে এবং সাথে যারা কাজ করে ডিজিটাল লাইব্রেরীতে। ওপেন ভিডিও প্রকল্পে পাওয়া বেশিরভাগ ভিডিও র প্রকৃতি শিক্ষামূলক। নাসার সংরক্ষণাগার থেকে প্রচুর ভিডিও রয়েছে, পাশাপাশি ১৯৫০ এর দশকের ক্লাসিক টিভি বিজ্ঞাপণ এবং শিক্ষামূলক চলচ্চিত্রের সংগ্রহ রয়েছে। আপনি যদি ঐতিহাসিক ভিডিও  অনুসন্ধান করতে চান তবে ওপেন ভিডিও প্রকল্পটিকে দেখতে পারেন।

৯. ৯গ্যাগ

৯ গ্যাগ হল  মজাদার এবং বোকামিযুক্ত সমস্ত বিষয়গুলির একটি সংগ্রহ: মজার ফটো, জিআইএফ, গেমিং ভিডিও, মেমে, এনিমে এবং আরও অনেক কিছু। বেশিরভাগ বিষয়বস্তু মজাদার।

১০. টেড টকস

টেড টকস একটি শীর্ষস্থানীয় ভিডিও ওয়েবসাইট। এটিতে প্রযুক্তি, ব্যবসা, নকশা, বিজ্ঞান এবং বিশ্বব্যাপী সমস্যাগুলি নিয়ে  ২৩০০ টিরও বেশি আলোচনা রয়েছে। কিছু আলোচনা মজার, আবার কিছু সংবেদনশীল। সমস্ত টেড কথাবার্তার ভিডিওগুলির থেকে আপনি  খুঁজলে  স্মরণীয় কিছু অবশ্যই পাবেন।

ভিডিও এর বিশাল নির্বাচন এবং গুগলের সাথে সংযোগ সহ একাধিক কারণে ইউটিউব শীর্ষস্থানীয় ভিডিও ওয়েবসাইট। তবে উপরে উল্লিখিত ভিডিও সাইটগুলির  সমস্তই  উপযুক্ত ইউটিউব বিকল্প। এই সাইটগুলিতে শুধু হাই ডেফিনেশন ভিডিও পাবেন যে তা নয়, পেশাদারিত্বও  দেখতে পাবেন। এক একটি সাইট এক একটি বিষয়ে বিশেষজ্ঞ নিয়ে উপস্থিত। আপনার প্রশ্নের উত্তর কে ভালো দিতে পারবে?একজন পেশাদার বিশেষজ্ঞ  নাকি একজন অপেশাদার ইউটিউবার! সাথে এখন থেকে দেখতে পাবেন কোনো  বিজ্ঞাপণ ছাড়া পেশাদারি  ভিডিও। আগে আপনার এই অভিজ্ঞতা হয় নি।

আপনার কোন সাইটটি ইউটিউবের বিকল্প বলে মনে হয়?

ADs by Techtunes ADs
Level 3

আমি অভিজিত চৌধুরী। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 2 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 14 টি টিউন ও 30 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 9 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 6 টিউনারকে ফলো করি।

লিখতে চাই ,নিজেকে প্রকাশ করতে চাই।লেখার মাধ্যমে অন্যকে জানাতে চাই।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস