ADs by Techtunes tAds
ADs by Techtunes tAds

জেইলব্রেক কি এবং এর সুবিধা ও অসুবিধা

টিউন বিভাগ আইফোন
প্রকাশিত

সফটওয়্যাঅ্যাপল কোম্পানি আইফোনে সব সুবিধা দেয় না তাদের ব্যাবসা এবং বিভিন্ন সমস্যার কারনে। তাই অনেক অতিরিক্ত সুবিধা পাবার জন্য কয়েকজন হ্যাকার মিলে App Store মত করে অন্য আরেকটা Store বানিয়েছে যা কিনা Cydia নামে পরিচিত। এই Cydia অ্যাপসটাকেই জেইলব্রেক বলে। এখান থেকে অনেক অ্যাপস বা টুইক ইন্সটল করা যায় যা কিনা আইফোন ব্যবহারকারীদের খুবই কাজে লাগে। অনেক অতিরিক্ত সেটিং পাওয়া যায় যা কিনা বিভিন্ন অ্যাপসে কাজে লাগে। আইফোনকে কাস্টমাইজ করা যায়।

ADs by Techtunes tAds

Cydia তে কিন্তু সব অ্যাপস/টুইক ফ্রী না। এখানেও ডলার দিয়ে অনেক অ্যাপস/টুইক কিনতে হয়। এখান থেকে ফ্রী পাওয়ার জন্য তাই রেপো অ্যাড করতে হয়।

জেইলব্রেক থাকার কিছু সুবিধাঃ
* প্রায় ৯০% পেইড অ্যাপস ফ্রী ইন্সটল করা যায়।
* ৭৫% অ্যাপসের ভিতর থেকে কোন কিছু ফ্রিতে কিনা যায়।
* ব্লুটুথ দিয়ে অন্য মোবাইলে গান, ভিডিও, ছবিসহ অনেক কিছু আনা নেয়া করা যায়।
* নেট থেকে কোন গান, ভিডিও, রিংটোন ডাউনলোড করে সরাসরি মিউজিক, ভিডিও অ্যাপসে নেয়া যায়।
* আইফোন দিয়ে রিংটোন বানিয়ে তা আইফোনে ব্যবহার করা যায়।

*  অ্যাপস লক করা।
* আরও অনেক সেটিং পাওয়া যায় যা কিনা আইফোন ব্যবহার করতে অনেক সহজ হয়।
* আইফোনে ফন্ট, থিমসহ অনেক কিছু কাস্টমাইজ করা যায়।
* আরও অনেক কিছু যা লিখে বুঝানো আসলেই অসম্ভব।

জেইলব্রেক থাকার কিছু অসুবিধাঃ
* আইফোনের ৩০০এমবি থেকে ১ জিবি মেমোরি খরচ হয় জেইলব্রেক করলে।
* বিভিন্ন টুইক ঠিকমত কাজ করতে বারবার Restart Springboard করতে হয়।
* যেকোনো সময় আইফোনের সফটওয়্যার Restore করা লাগতে পারে Cydia সংক্রান্ত সমস্যার কারনে।
* আরও অনেক ধরনের সমস্যা হতে পারে যা Cydia কিভাবে ব্যবহার করবেন তার উপর নির্ভর করে।

উপরে উল্লেখিত কারণ থেকে আরও বেশি সমস্যা বা সহজ হতে পারে। যা আইফোন ইউজারের উপর নির্ভর করে। মোট কথা একদম দরকার না থাকলে জেইলব্রেক না করাই ভাল। আমার এই টিউনে কোন ভুল থাকলে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। এগুলো সম্পূর্ণ আমার নিজের অভিজ্ঞতা থেকে জানানো যা অন্য ইউজারদের সাথে নাও মিলতে পারে।

জেইলব্রেক করার চেয়ে জেইলব্রেক ধরে রাখা অনেক প্রয়োজনীয়। সব সফটওয়্যার ভার্সনে জেইলব্রেক করা যায় না। তাই যদি নতুন সফটওয়্যার ভার্সন আসে দয়া করে আপডেট করতে যাবেন না।

আপনারা চাইলে আমার সাইটটিতে ভ্রমণ করে আসতে পারেন: https://mobiletechtunes.blogspot.com/
আপনারা চাইলে আমার চ্যানেলটিতে ভ্রমণ করে আসতে পারেন: https://www.youtube.com/c/THEdewanrakib1

ADs by Techtunes tAds
Level 2

আমি মোঃ রাকিব। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 মাস 1 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 20 টি টিউন ও 1 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

প্রিয় টিউনার,

আপনার টিউন/টিউন গুলো নেগেটিভ র‌্যাংকিং পাচ্ছে

টেকটিউনসে টিউন করার উদ্দেশ্য হচ্ছে টেকটিউনসে আপনার নিজেস্ব অডিএন্স ও ফলোয়ার তৈরি করা। টেকটিউনস এর অডিএন্স, টিউজার, টিউডার ও টিউজিটরদের জন্য মান সম্পন্ন কন্টেন্ট তৈরির মাধ্যমে আপনার টিউন র‌্যাংক করা, টিউনের জোসস পাওয়া এবং নিজের ফলোয়ার বাড়ানো। টেকটিউনসে আপনার টিউনের জোসস পেতে হবে ও ফলোয়ার বাড়াতে হবে। আপনার টিউনের যত বেশি জোসস ও আপনার যত বেশি ফলোয়ার হবে আপনার টিউন তত বেশি র‌্যাংক করবে তত বেশি ফলোয়ারদের কাছে পৌঁছাবে। টেকটিউনসে প্রকাশিত আপনার টিউন গুলো আপনার ফলোয়ারদের কাছে শো করে। আপনার ফলোয়াররা আপনার টিউনে জোস করলে তা ফলোয়াররা বেশি দেখতে পান এবং বেশি জোস পাওয়া টিউন গুলো টিউজাররা নিজেদের টিউন স্ক্রিনে দেখতে পায়। আপনার ফলোয়ার বাড়ান এবং কোয়ালিটি টিউন করে জোস বাড়ান।

  1. আপনার টিউনে একটি বাক্যও কপি পেস্ট কন্টেন্ট থাকলে
  2. অ্যাফিলিয়েট, রেফারাল লিংক দিয়ে ঘরে বসে অনলাইন আয় জাতীয় টিউন করলে
  3. টিউনের যে কোন ধরনের অ্যাফিলিয়েট, রেফারাল ডাউনলোড লিংক বা সর্ট লিংক থাকলে
  4. টিউজিটর ড্রাইভাট এর উদ্দেশ্যে টেকটিউনসে আংশিক টিউন করে বাকি অংশ পড়তে নিজের সাইট বা ভিডিও এর লিংক স্থাপন করলে
  5. টিউজিটর ড্রাইভাট এর উদ্দেশ্যে টিউন করে ডাউনলোড করার জন্য লিংক টিউনে না দিয়ে নিজের সাইট বা ভিডিওতে গিয়ে ডাউনলোড করার লিংক স্থাপন করলে
  6. টিউজিটর ড্রাইভাট এর উদ্দেশ্যে টিউন শুরুতেই, টিউনের প্রথম ৫০ শব্দের মধ্যে, টিউনের বিভিন্ন শব্দ, বাক্য ঘন ঘন নিজের সাইট, চ্যানেল, গ্রুপ, টিউন এর সাথে অপ্রাসঙ্গিক ইনলাইন লিংক করলে
  7. টিউজিটর ড্রাইভাট এর উদ্দেশ্যে টিউনে কোন ধরনের বর্ণনা না দিয়ে বিস্তারিত না লিখে শুধু মাত্র চ্যানেল লিংক ভিডিও টিউন করলে
  8. টিউজিটর ড্রাইভাট এর উদ্দেশ্যে টিউনে ভিডিও এম্বেড অবস্থায় না দিয়ে ক্লিকএবল ভিডিও লিংক হিসেবে টিউনে স্থাপন করলে
  9. নিজের করা একই টিউন কপি পেস্ট করে বারবার টেকটিউনসে প্রকাশ করলে
  10. টেকটিউনসে প্রকাশিত অন্য টিউনারের টিউন হুবহু কপি করে বা আংশিক পরিবর্তন করে নিজের নামে টিউন করলে
  11. যে কোন অ্যাপ, সফটওয়্যার ইত্যাদির এর অফিসিয়াল স্টোর, অফিসিয়াল পেইজ, অফিশিয়াল সাইট এর ডাউনলোড লিংক না দিয়ে নিজ থেকে নিজের সাইট, পেইজ, গ্রুপ এ লিংক স্থাপন করে বা অন্য কোন অ্যাফিলিয়েট ফাইল হোস্টে আপলোড করে লিংক স্থাপন করলে

আপনার টিউন নেগেটিভ র‌্যাকিং পায়। এধরনের টিউন টিউজিটররা পছন্দ করে না এবং তা নেগেটিভ র‌্যাংকিং পায়। নেগেটিভ র‌্যাংকিং এর ফলে আপনার টিউন গুলো টেকটিউনস স্ক্রিন থেকে দূরে সরে যেতে থাকে।

টেকটিউনসে কি ধরনের কোয়ালিটি টিউন কিভাবে করে নিজের ফলোয়ার বাড়াবেন তা প্র্যাকটিক্যালি শিখতে টেকটিউনস এর ‘ট্রাস্টেড টিউনারদের’ সকল টিউন গুলো দেখুন ও শিখুন এবং তাঁদের মত করে টিউন করুন। টেকটিউনস ট্রাস্টেড টিউনার ১, টেকটিউনস ট্রাস্টেড টিউনার ২, টেকটিউনস ট্রাস্টেড টিউনার ৩

টেকটিউনস সৌশল নেটওয়ার্ক কীভাবে কাজ করে তা জানতে এই টিউনটি পড়ুন এবং টেকটিউনসে টিউন করতে কি কি বিষয় মেনে টিউন করতে হয়, কোন কোন বিষয় মেনে টিউন করলে আপনার টিউন র‌্যাংক করবে বেশি ফলোয়ার পাওয়া যাবে তা জানতে এই টিউনটি পড়ুন।

টেকটিউনসে টিউন করতে সঠিক ভাবে টেকটিউনস সম্বন্ধে জানুন ও টেকটিউনসে কী ধরনের টিউন করলে টিউজিটররা আপনাকে ফলো করবে আপনার টিউন পছন্দ করবে আপনার টিউনে বেশি জোসস করবে তা আয়ত্ব করুন। টেকটিউনস একটি টেকনোলজি সৌশ্‌ল নেটওয়ার্ক। আপনাকে নিজের কোয়ালিটি কন্টেন্ট এর মাধ্যমে নিজের ফলোয়ার তৈরি করত হবে কমিউনিটিতে ইনফ্লুয়েস তৈরি করতে হবে।