ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

নতুনদের জন্য মাইক্রোসফট ওয়ার্ড [পর্ব-০৫] :: Insert মেনুর বিস্তারিত

আসসালামু আলাইকুম। কেমন আছেন সবাই? আশা করি ভালোই আছেন। আমিও আপনাদের দোয়ায় আল্লাহর রহমতে ভালো আছি।

ADs by Techtunes ADs

গত পর্বে আমরা শিখেছিলাম মাইক্রোসফট ওয়ার্ড –এর View মেনুর বিস্তারিত,  আজকে আমরা শিখব মাইক্রোসফট ওয়ার্ড-এর Insert মেনুর বিস্তারিত,  তাহলে চলুন শুরু করা যাক আজকের পর্ব, Insert মেনুর বিস্তারিত..

Insert মেন্যু (Insert Menu)
ইনসার্ট মেনুর সাহায্যে পেজ ব্রেক, সেকশন ব্রেক, পেজ নাম্বারিং, বিভিন্ন ধরনের প্রতীক (Symbol) টাইপ করা, অটো টেক্সট সংযোজন করা, গাণিতিক ইকুয়েশন/ফরমুলা লেখা ইত্যাদি কাজ করা হয়ে থাকে। অর্থাৎ এম.এস.ওয়ার্ডে ভিন্ন কোন স্থান থেকে কিছু সংযোজিত করার জন্য এ মেনু ব্যবহার করা হয়।

১. Break:  ব্রেক কমান্ডের সাহায্যে পেজ ব্রেক, সেকশন ব্রেক করা হয়ে থাকে। ডকুমেন্টে কোন লেখা লিখতে থাকরে পেজের শেষে কার্সর চলে আসলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নতুন পেজ তৈরী হয়। কিন্তু যদি কোন পেজে লেখা শেষ না করেই পরবর্তী নতুন একটি পেজে লেখার প্রয়োজন হয় তখন ব্রেক কমান্ড দিতে হয়। এজন্য ইনসার্ট মেনু থেকে Break কমান্ড দিন। তারপর Page Break ক্লিক করে Ok বাটনে ক্লিক করুন। তাহলে নতুন পেজে তৈরী হয়ে কার্সর সেখানে চলে যাবে।এবং এক কলাম থেকে আরেক কলাম এ যেতে হলে, এজন্য ইনসার্ট মেনু থেকে Column Break কমান্ড দিন। তারপর Column Break সিলেক্ট করে Ok বাটনে ক্লিক করুন। তাহলে কার্সর দুই নং কলামে চলে যাবে।

২. Page Numbers: হেডার-ফুটার ডায়ালগ বক্স থেকে কিভাবে পেজ নাম্বারিং করা যায় তা আমরা আগেই ভিউ মেনুতে দেখেছি। কিন্তু হেডার-ফুটার দেয়ার প্রযোজন না হলে আমরা ইনসার্ট মেনু থেকেও পেজ নাম্বারিং করতে পারি। এজন্য ইনসার্ট মেনু থেকে Page Numbers এ ক্লিক করি। এবার Postion থেকে Bottom of page (Footer)/Top of page (Header) সিলেক্ট করি। তারপর Alignment থেকে এটি ডানে (Right) থাকবে না বাঁয়ে (Left) থাকবে তা সিলেক্ট করুন। যদি প্রথম পেজেও নম্বর দিতে চান তাহলে Format এ ক্লিক করুন। যদি পেজ নাম্বারিং ফরম্যাট করতে চান অর্থাৎ লেখার ষ্টাইল ঠিক করতে চান তাহলে Format বাটনে ক্লিক করে তা নির্ধারণ করে দেই। সবশেষে Ok ক্লিক করুন।

৩. Date and Time: চিঠিপত্রে তারিখ ও সময় উল্লেখ করার প্রয়োজন হয়। আমরা এ কমান্ডের সাহায্যে তারিখ ও সময় ডকুমেন্টে প্রদান করতে পারি। এজন্য প্রথমে কার্সর নির্দিষ্ট স্থানে রাখি। তারপর ইনসার্ট মেনু থেকে Date and Time এ ক্লিক করুন। এখানে Available formats থেকে পছন্দের ফরম্যাটের উপর ক্লিক করুন। যদি তারিখ ও সময় স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপডেট করার প্রয়োজন হয় তাহলে Update automatically চেক বক্সে ক্লিক করুন।

৪. Auto Text: যে সব লেখা ডকুমেন্টে প্রায়ই দিতে হয় যেমনঃ Dear Sir, Yours Faithfully, Assalamu Alaikum ইত্যাদি লেখাগুলিকে এম.এস.ওয়ার্ডের বিশেষ মেমোরীতে সেভ করে রাখা যায়। এগুলিকে অটো টেক্সট বলে। যখনই এগুলির প্রয়োজন হবে কার্সরকে সেখানে রেখে ইনসার্ট মেনুর AutoText এ মাউস পয়েন্টার রাখুন। তারপর এ মেনুর অভ্যন্তরে বিভিন্ন ক্যাটাগরী যেমনঃ Closing, Salutation, Signature ইত্যাদির যেটি প্রয়োজন সেখানে মাউস পয়েন্টোর নিন। যেমন Saluation এ মাউস পয়েন্টোর নিয়ে Dear Sir : এ ক্লিক করুন। তাহলে ডকুমেন্টে এটি সংযোজিত হবে যদি নতুন কোন অটো টেক্সট এখানে ঢোকাতে চান তাহলে AutoText এর ভিতর AutoText এ ক্লিক করুন। এ ডায়ালগ বক্সের Enter AutoText entries here বক্সে নতুন অটো টেক্সট লিখে Add এ ক্লিক করুন। তাহলে নতুন অটো টেক্সট এম.এস.ওয়ার্ডে সংযোজিত হবে যেটি সব জায়গাতে ব্যবহার করতে পারবেন।

৫. Symbol: কি-বোর্ডে যে সব অক্ষর বা প্রতীক থাকে না সেগুলি ডকুমেন্টে আনতে হয় এ কমান্ডের সাহায্যে। এজন্য প্রথমে ইনসার্ট মেনু থকে Symbol এ ক্লিক করুন। এবার Font এর ঘরে Wingdigs/Webdings/Wingdings2/Wingdings3 ইত্যাদি যে কোন একটি Symbol নির্ভর ফন্ট সিলেক্ট করুন। তারপর নিচ থেকে যে প্রতীকটি পছন্দ হয় সেটির উপর ডাবল ক্লিক করুন, অথবা প্রতীকটি সিলেক্ট করে Insert বাটনে ক্লিক করুন, তাহলে এটি ডকুমেন্টের কার্সর যেখানে আছে সেখানে সংযোজিত হবে। যদি অন্যান্য ভাষার কোন প্রতীক/অক্ষর চান তাহলে Normal কোন ফন্ট যেমন Arial/Tahoma/Times New Roman ইত্যাদি সিলেক্ট করে কাজ করুন।

৬. Picture : ডকুমেন্টে ছবি, ওয়ার্ডআর্ট, চার্ট/গ্রাফ, ক্লিপআর্ট, অর্গানাইজেশন চার্ট, অটো শেপস ইত্যাদি সংযোজন করা হয় এখান থেকে। এজন্য প্রথমে ইনসার্ট মেনু থেকে Picture এ মাউস পয়েন্টার ক্লিক করে। তারপর Clip Art/From File এ ক্লিক করুন। আমি Clip Art ক্লিক করলাম আপনার ইচ্ছা করলে From File ক্লিক করে যে ছবিটি পছন্দ হবে তার উপর মাউস ক্লিক করুন। তাহলে আপনার পছন্ত করা ছবি ডকুমেন্টে সংযোজিত হবে। নিচে দেখুন...

** Word Art:  হচ্ছে বিভিন্ন ষ্টাইলের লেখ। এটি সংযোজনের জন্য একই ভাবে ইনসার্ট মেনুর Picture সাবমেনু থেকে Word Art এ ক্লিক করি। যে ষ্টাইলটি পছন্দ হবে তার উপর ক্লিক করে ok করি। এবার আপনার পছন্দের শব্দ/ লাইন লিখুন। তারপর Ok ক্লিক করুন।

** Text Box:  একটি অতি প্রয়োজনীয় টুলস। ডকুমেন্টের যেকোন স্থানে কিছু লেখা বক্স আকারে দেয়ার জন্য এটি ব্যবহৃত হয়্ এর সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো এটি যেকোন স্থানে নড়াচড়া করানো যায়। এজন্য প্রথমে ইনসার্ট মেনুর Text Box এ মাউস পয়েন্টার রাখি। তাপর Horizontal/Vertical এর যেকোন একটি ক্লিক করি। এখানে লেখা আড়াআড়ি লেখার জন্য হরাইজন্টাল এবং লম্বালম্বি লেখার জন্য ভার্টিকল অপশন ব্যবহার করা হয়্ টেক্সট বক্সে ক্লিক করলে একটি ড্রইং ক্যানভাস স্বয়ংক্রিয়ভাবে স্ক্রিনে দেখা যায়। এটি মূলতঃ ড্রইং কে আরও সুন্দরভাবে করার জন্যই ব্যবহৃত হয়। যদি ক্যানভাস ছাড়া টেক্সট বক্স দেখতে চাই তাহলে কি-বোর্ডে Esc বাটনে ক্লিক করি। তাহলে একটি প্লাস চিহ্নিত মাউস আইকন পাব। এখন মাউসএর বাম বাটন চেপে টেক্সট বক্স অংকন করি। সবশেষে টেক্সট বক্সে ক্লিক করে প্রয়োজনীয় টেক্সট লিখি। টেক্সট বক্সের বিভিন্ন কর্ণারে মাউস ক্লিক করে চেপে রেখে বিভিন্ন স্থানে স্থানান্তর করা যায়।

৭. File: কম্পিউটারে সংরক্ষিত অন্য কোন ফাইলের লেখা ডকুমেন্টে যোগ করার জন্য এ কমান্ডটি কাজে লাগে। এজন্য ইনসার্ট মেনু থেকে File এ ক্লিক করুন। তারপর কম্পিউটারে সেভ করা একটি ফাইলের নামের উপর ক্লিক করুন। সবার শেষে Insert এ ক্লিক করে উক্ত ফাইলের লেখা ডকুমেন্টে সংযুক্ত হবে।

৮. Object Ole (Object Linking and embedding) সাপোর্ট করে এমন প্রোগ্রামের ফাইল ওয়ার্ডে সংযুক্ত করা হয় এ সাব-মেনুর সাহায্যে। যেমনঃ ফটোশপ ইমেজ, মাইক্রোসফট ইকুয়েশন, মাইক্রোসফট এক্সেল চার্ট/ওয়ার্ক শীট, সাউন্ড/ভিডিও ক্লিপ ইত্যাদি। এ ফিচারটির সাহায্যে একটি ডকুমেন্টকে বহুমাত্রিক সুবিধায় উপস্থাপন করা যায় যেখানে একই সাথে ছবি, চার্ট, ভিডিও, সাউন্ড ইত্যাদি থাকবে।

৯. Heyperlink : হাইপারলিংক শব্দটি ওয়েব কনসেপ্ট এর সাথে জড়িত। এটি মূলতঃ কোন লেখার সাথে অন্য কোন লেখার, ইমেইল, ওয়েব এ্যাড্রেস ইত্যাদির link করার জন্য ব্যবৃহত হয় যেমনঃ ডকুমেন্টের কোথাও Tuchtunes শব্দটি লিখলেন। এখন আপনি চাচ্ছেন এ টেকটিউনস শব্দটির সাথে http://www.techtunes..com.bd এর লিংক দেওয়া থাকবে। যাতে কেউ টেকটিউনস শব্দটির উপর ক্লিক করলেই এর ওয়েব পেজ সাথে সাথে ব্রাউজারে ওপেন হবে। এজন্য প্রথমে টেকটিউনস শব্দটিকে সিলেক্ট করুন। তারপর ইনসার্ট মেনু থেকে Hyperlink ক্লিক করুন। তারপর Address বক্সে লিখুন http://www.techtunes..com.bd আর টেকটিউনস ওয়েব এড্রেস উপর মাউস নিলে কি লেখা আসবে তা Screen Tip বক্স – লিখে দিতে পারেন সবশেষে Ok বাটন ক্লিক করুন।

** Heyperlink:  তুলে দেয়ার জন্য উক্ত শব্দের উপর রাইট মাউস ক্লিক করে Remove Hyperlink এ ক্লিক করুন, নিচে দেখুন...

ইনশাআল্লাহ আগামী পূর্বে MS WORD –এর মেনুবারের Format মেনু সম্পর্কে ধারনা দেওয়া হবে।

ভালো লাগলে কমেন্ট জানাতে ভুলবেন না, আজ এই পর্যন্ত।

আল্লাহ হাফেজ

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি হোছাইন আহম্মদ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 9 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 486 টি টিউন ও 2515 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 11 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমি হোছাইন আহম্মদ, কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টারে আছি শিক্ষক হিসাবে। ভালবাসি ব্লগিং, ডিজাইনিং এবং তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত যে কোন কিছু, খুবই সামান্য যা জানি শেয়ার করি এবং কিছু শেখার চেষ্টা করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

ধন্যবাদ ভাই। অনেক কিছু জানলাম। চালিয়ে যান।

Level 0

নতুন অনেক কিছু জানলাম।ধন্যবাদ আপনাকে।

নতুন করে অনেক কিছু শিক্ষলাম।

হোছাইন ভাইকে অনেক ধন্যবাদ যে শত ব্যস্তার মাঝে নতুনদের জন্য অনেক কিছু শিক্ষাতে পারছেন। ভাই চালিয়ে জান সাথে আছি।

    @MD. রফিকুল ইসলাম: ধন্যবাদ রফিক ভাই আপনার অটোক্যাড এর টিউন গুলো অনেক সুন্দর হচ্ছ, আপনার থেকে অটোক্যাড শিখার আমার অনেক আগ্রহ চালিয়ে যান আপনার টিউন।