ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

BRAC BANK, হ্যাকার ও একজন পথে বসে যাওয়া ফ্রিল্যান্সার

টিউন বিভাগ খবর
প্রকাশিত

আপনাদের জন্য এমন একটি পোষ্ট নিয়ে হাজির হবো কখনও ভাবিনি ।

ADs by Techtunes ADs

লেখালেখিতে এমনিতেই আমার হাত ভালো না, তাই সবসময় মন্তব্যই করি পোষ্ট করার চেয়ে ।

আমার ফ্রিল্যান্সার বন্ধুদের সব সময় ব্রাক ব্যাঙ্কে আ্যাকাউন্ট খুলতে বলি, আমি সাথে করে নিয়ে গিয়েও কয়েকজনকে আ্যাকাউন্ট খুলে দিয়েছি । আজ সেই ব্রাক ব্যাঙ্কের নামেই অভিযোগ লিখতে বসেছি ।

আমার ব্রাক আ্যাকাউন্ট নাম্বার 2401102433129001 (Mizanur Rahman) , অনেক কষ্ট করে রাত জেগে জেগে কাজ করে কিছু টাকা জমিয়েছিলাম । ব্রাকের দূর্বল নিরাপত্তা ব্যাবস্হার জন্য তার শ্রাদ্ধ হয়েছে গতকাল দুপুর ২ টা ৪০ মিনিটে।

সাধারনত আমি সকাল ৯ টায়  ঘুমাই এবং বিকেল ৩/৪ টায় উঠি । প্রতিদিনের মতো গতকালও বিকেল ৪ টায় ঘুম ভাঙ্গে । বিনা প্রয়োজনে আমি ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিংয়ে লগইন করিনা ।
রাত দশটার দিকে একটা পেমেন্ট দেব এইজন্য লগইন করতে চেষ্টা করলাম । পাসওয়ার্ড ভুল এবং বারবার ভুল পাসওয়ার্ড দেওয়ার কারনে আমার ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিং লকড । দেখে মেজাজ খারাপ হয় গেলো। তখনও জানতাম না ইতোমধ্য আমার সর্বনাশ হয়ে গেছে ।

ইন্টারনেট ব্যাঙ্কিং এর মাধ্যমে ফান্ড ট্রান্সফার হলে ফোনে মেসেজ আসে,  যেহেতু কোন মেসেজ আসেনি তাই ভয় পাবার কোন কারন দেখলাম না ।
কিছুক্ষন পরে মেইল ওপের করে দেখি ব্রাকথেকে নতুন মেইল ।

Dear Customer, Your A/C:2401102433129001 has been Debited by Tk 50000 For credit to A/C:1532102559472001

মাথা খারাপ হয়ে গেল দেখে । তাড়াতাড়ি এটিএম বুথে গেলাম । হ্যা ঘটনা সত্যি.....৫০,০০০/= অপরিচিত আ্যাকাউন্টে চলে গেছে ।
আর মাত্র ২০০ টাকার মতো আছে ।

ব্রাকের হেল্প লাইন 16221 এ ফোন দিলাম ।
তারা iBanking বন্ধ করে রাখলো । (যদিও ওটা করার দরকার ছিলোনা)

ADs by Techtunes ADs

গতকাল রাতে ব্রাকের ফেসবুক পেজে পোষ্ট দিলাম ।

আজ দুপুরে ব্রাক থেকে রিপ্লে দিলো।

ব্যাঙ্কে গেলাম । লিখিত অভিযোগ করে আসলাম । তারা হাসিমুখে দুঃখ প্রকাশ করলো । এবং নির্লজ্জের মতো বলতে থাকলো- তাদের ব্যাঙ্ক অন্ত্যান্ত নিরাপদ...তাদের সার্ভার ও ব্যাঙ্কিং সিস্টেম অনেক নিরাপদ ও উন্নত।

ধৈর্যের বাধ ভেঙ্গে গেল । তাদেরকে বললাম আপনারা সিকিউরিটির কিছু বোঝেন ?

  • ১) ব্যাঙ্কে প্রতিবার লগিন করলে যদি ফোনে বা মেইলে ভেরিফিকেশন কোড আসতো তাহলে বলতাম আপনাদের ইব্যাঙ্কিং নিরাপদ ।
  • ২) ফান্ড ট্রান্সফার করতে গেলে যদি ভেরিফিকেশন কোড আসতো তাহলে বলতাম আপনাদের ইব্যাঙ্কিং নিরাপদ ।
  • ৩) ইউজারনেম চেন্জ করা যায় না ।
  • ৪) পাসওয়ার্ড স্পেশাল ক্যারেক্টার বা Alphabet ও Numeric এর কম্বিনেশন দেওয়া  যায় না ।
  • ৫) পাসওয়ার্ড শুধুমাত্র Numeric দিতে হয়, তাও আবার সর্বোচ্চ ৮ সংখ্যার ।
  • ৬) আইপি সিকিউরিটি নেই ।

এই হলো আপনাদের বিশ্বের সবচেয়ে নিরাপদ ব্যাঙ্কিং ।

তারা আমকে বোঝানোর চেষ্টা করলো-  আপনার টাকা আপনার পাশের কেউ নিয়ে থাকতে পারে ।

এটা অসম্ভব । আমার ইউজার নেম পাসওয়ার্ড কোনদিন কোথাও লিখে রাখিনি, ব্রাউজারে সেভ করা নেই, এমনকি কম্পিউটারের লগইন পাসওয়ার্ডও কারো জানা নেই । সবচেয়ে বড় কথা হলো আমার বাসায় আর কেউ নেই যে কম্পিউটার ব্যাবহার করতে জানে ।

আমি ব্যাক্তিগত ভাবে মনে করি ব্যাঙ্কের অসাধু কোন কর্মকর্তা এই ঘটনার সাথে জড়িত । তাছাড়া অন্য কোন ভাবে ডাটা লিক হবার কথা না । কেউ হয়তো ট্রজন,কিলগার,মালওয়্যারের কথা বলতে পারেন। গতকাল রাত থেকে এখন পর্যন্ত আমি ঘুমাইনি.... ৬ টা এন্টিভাইরাসের আপডেটেড ভার্সন দিয়ে ফুল PC স্ক্যান করিয়েছি । নাই, কোন ভাইরাস নাই । সাধারনত আমি Licensed Kaspersky Internet সিকিউরিটি ইউজ করি ।অটো আপডেট আ্যাক্টিভ করা আছে ।

কয়েকজন বন্ধুর কাছ থেকে কিছু গুরুত্বপূর্ন তথ্য পেয়েছি । ব্রাক ক্যাঙ্কের কর্তাবাবুদের উদ্দেশ্যে কিছু প্রশ্ন রাখতে চাই-

ADs by Techtunes ADs
  • ১) ভোটার আইডি কার্ড ছাড়া ব্রাকে একাউন্ট করা সম্ভব ? যদি সম্ভব না হয় তাহলে হ্যাকার এই আ্যাকাউন্ট কিভাবে করলো- 1532102559472001 (মোঃ ইমাম উদ্দিন)
  • ২) অসম্পূর্ন তথ্য দিয়ে আ্যাকাউন্ট করা সম্ভব ? যদি সম্ভব না হয় তাহলে হ্যাকার এই আ্যাকাউন্ট কিভাবে করলো- 1532102559472001 (মোঃ ইমাম উদ্দিন)
  • ৩) নমীনির নাম না দিয়েই আ্যাকাউন্ট রা সম্ভব ? যদি সম্ভব না হয় তাহলে হ্যাকার এই আ্যাকাউন্ট কিভাবে করলো- 1532102559472001 (মোঃ ইমাম উদ্দিন)
  • ৪) ফেক ফোন নাম্বার অথবা চিরতরে বন্ধ হয় যাওয়া সিম দিয়ে আ্যকাউন্ট করা সম্ভব ? আবার সেই আ্যকাউন্টে iBanking বা কার্ড চালু করা সম্ভব ? যদি সম্ভব না হয় তাহলে হ্যাকার  কিভাবে করলো- 1532102559472001 (মোঃ ইমাম উদ্দিন)
  • ৫) আপনাদের ১ম প্রজন্মের নিরাপত্তা ব্যাবস্হা কবে ৫ম প্রজন্মে উত্তীর্ন হবে ? কবে SMS ভেরিফিকেশন চালু করবেন ?
  • ৬) নতুন আ্যকাউন্ট খুলতে কবে থেকে সঠিক ইনফো লাগবে ? গ্রাহকের বর্তমান ঠিকানা বা স্হায়ী ঠিকানা কবে থেকে সশরীরে ভেরিফাই করবেন ?
  • ৭) আপনাদের কাছে আমি টাকা আমানত রেখেছি, আমার প্রয়োজন মতো টাকা তোলার জন্য । কবে আমার টাকা দিবেন ?
  • ৮) আপনাদের অল্পকিছু বুথ, তাও আবার বারো মাস রোগব্যধি লেগেই থাকে, নয়তো টাকা থাকে না । এইরকম লুল বাঙ্কিং ঠিক হবে কবে ?
  • ৯) আইপি সিকিউরিটি কবে চালু হবে ? যাতে ভিন্ন কম্পিউটার থেকে আ্যাক্সেস করতে গেলে অথোরাইজেশন বাধ্যতামূলক ?

হ্যাকারের আ্যাকাউন্টে যতই ভুল তথ্য দেয়া থাক । এটিএম বুথের CC ক্যামেরায় হ্যাকারের ছবি আছে । আপনারা চাইলেই পারবেন ।

ন্যাশনাল আইডি ছাড়া নাকি শুধুমাত্র ভার্সিটি আইডি/অফিসের আইডি দিয়ে অ্যাকাউন্ট ওপেন করা যায় । সেই ক্ষেত্রে সেই ইনফরমেশন তাদের কাছে অবশ্যই রয়েছে। ব্র্যাক অ্যাকাউন্ট ওপেন করতে হলে কারো ব্র্যাকে অ্যাকাউন্ট আছে, এমন কারো সাইন এবং অ্যাকাউন্ট নাম্বার প্রদান করতে হয়। চাইলে তার মাধ্যমেও খুঁজে বের করা সম্ভব।

আমরা ফ্রিল্যান্সাররা শান্তিপ্রিয় লোক । অধিকাংশ লোক যেখানে ধর-মার-খা তরীকায় চলে সেখানে আমরা রাতের ঘুম হারাম করে সৎপথে উপার্জন করি । আমাদের অনেক কষ্টের টাকা । মুখ বুজে বসে থেকে বা দায়সরা তদন্ত করে অসাধু লোকদের সহযোগীতা করবেন না।

শুধু আমি একা নই । অসংখ্য লোক এই সমস্যার ভুক্তভোগী । তাদেরকে অনুরোধ করছি এই টিউনটি সোস্যাল মিডিয়াতে এবং ব্লগে শেয়ার করার জন্য

আজ আমি বিপদে পড়েছি কাল আপনি বা আপনার আপনজনও পড়তে পারে । আজ যদি ব্যাংক আমার সমস্যা এড়িয়ে যায় কাল আপনারটাও এড়িয়ে যাবে এবং একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটতে থাকবে ।
আমরা নিরাপদ ও ঝমেলাবীহিন ব্যাঙ্কিং চাই ।

অবশেষে ব্রাক ব্যাঙ্ক আমাকে ফোন দিয়েছে । তারা হ্যাকারকে ধরতে সব ধরনের সাহায্য করতে প্রস্তুত । RAB এ কম্প্লেইন করলে তারা সকল তথ্য দিয়ে সহযোগীতা করবে । তারা এটাও নিশ্চিত করেছে আমার ব্যাবহৃত পাসওয়ার্ড দিয়েই টাকা ট্রান্সফার হয়েছে । ব্যাংকের অসাধু কোন কর্মকর্তা এটার সাথে জড়িত তারা এটা মানতে রাজি নয় । সবশেষে কথা হলো- তারা তাদের iBanking এর সিস্টেমে বড় ধরনের পরিবর্তন আনছে আগামী ১ মাসের মধ্যে । (আবারও তারা ফোন করবে)

আমার নামে একটা ফেসবুক আইডি থেকে স্ক্যাম রিপোর্ট ছড়ানো হচ্ছে । তার বক্তব্যে স্পষ্টভাবে দেখা যাচ্ছে সে আমাদের আন্দোলন থামিয়ে দিতে চাচ্ছে । আরেকটা ব্যাপার হলো সে আমার কিছু ব্যাক্তিগত তথ্যও জানে । সত্যমিথ্যা মিশ্রন করে সে সুন্দরভাবে পোষ্ট লিখছে । পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে সে চায় আন্দলোন না চলুক এবং হ্যাকারের পরিচয় না বেরিয়ে আসুক ।আইডির লিংক- http://www.facebook.com/arib.nafiz . আইডির বয়স ৯ দিন ।

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি ট্রায়াল ভার্সন। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 8 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 10 টি টিউন ও 81 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

নিজের সম্পর্কে বলার মতো কিছু নেই ।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level 0

vai bank er name mamla kore den… oi shalarai ei kaz korese..

Level 0

https://www.facebook.com/BRACBANK ব্র্যাক ব্যাংক এর পেজে সবাই পোস্ট দিন।

    @Zahid: ব্যাংকের নামে মামলা করার আগে বাংলাদেশ ব্যাংকে অভিযোগ করতে হবে ।@swordfish: জ্বি এতো ব্যাপারটা দ্রুত ওদর নজরে আসবে ।

      আমার জানা মতে বাংলাদেশ ব্যাংকে অভিযোগ করলে তারাই সকল ব্যাবস্তা নেবে ।

    Level 0

    @swordfish:

    [email protected] এখানে মেইল পাঠান ।

    @swordfish: টিউন টা স্টিকি করা হোক।

ইন্টারনেট ব্যাংকিং সুবিধার জন্যই আমি মূলত ব্র্যাক ব্যাংক ব্যবহার করি ! এখন এদের নিরাপত্তা দেখে হাসি পাচ্ছে !
একাউন্ট থেকে টাকা ট্রান্সফাল হয় অথচ ট্রান্সফারীরকে ধরতে পারে না ! হা হা হা ( অট্টহাসির ইমো হবে )

ব্র্যাক ব্যাংকের ইন্টারনেট ব্যাংকিংয়ের সিকিউরিটি সিস্টেম আরও শক্তিশালী করা উচিত।

ব্র্যাক ব্যাংকে স্টুডেন্টদের জন্য ইজি অ্যাকাউন্ট সুবিধা রয়েছে। ন্যাশনাল আইডি ছাড়াই শুধুমাত্র ভার্সিটি আইডি/অফিসের আইডি দিয়ে অ্যাকাউন্ট ওপেন করা যায়। সেই ক্ষেত্রে সেই ইনফরমেশন তাদের কাছে অবশ্যই রয়েছে। ব্র্যাক অ্যাকাউন্ট ওপেন করতে হলে কারো ব্র্যাকে অ্যাকাউন্ট আছে, এমন কারো সাইন এবং অ্যাকাউন্ট নাম্বার প্রদান করতে হয়। চাইলে তার মাধ্যমেও খুঁজে বের করা সম্ভব।

এটা হ্যাকারের কাজ নয় কোন ব্যাংক কর্মকর্তা করেছে ।
কারন টাকা পাঠানোর মোবাইলে ম্যাসেজ আসে তা আসে নাই শুধু মেইল এসেছে ।

আর উনারা নর্তকী নাচ দেখানোর জন্য টাকা পাঠানোর পর ম্যাসেজ পাঠায় কেন ?

অন্য ব্যাংক আগে মোবাইলে কোড পাঠায় সেই কোড ব্যবহার করে টাকা পাঠাতে হয় উনারা কেন এই সিস্টেম চালু করে না ?

    @MD. RUBEL AHMED: আমিও মনে করি উনারা জড়িত থাকতে পারে । তবে নেটওয়ার্ক সমস্যার জন্য মেসেজ নাও আসতে পারে । শেষের দুই লাইন জাস্ট অসাম 🙂

আমি সিওর ব্যাঙ্কের অসাধু কোন কর্মকর্তা এই ঘটনার সাথে জড়িত

আমার একজন ব্যাংকার ভাইয়ের কাছে শুনলাম বেসরকারি ব্যাংক গুলা নাকি এখন বেশ্যা বাজার হয়ে গেছে।

আমি এর তিব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।জদি মাঠে নামতে চান তবেও সাথে আছি।

আপনার পোস্ট টা পরে বড়োই কষ্ট লাগলো, আমার মনেহয় অই ব্যাংকএর কিছু/কোন ভাজাইল্লা কর্মকরতার কাজ এটা, নতুবা তারা এর ভিতরেই অপরাধীকে শনাক্ত করে ধরতে পারতো। এদের ঘোড়ার গাড়ির আমলএর নিরাপত্তা খুবি হাস্যকর লাগল আগে ভুঝতাম যে তারা খুব ভাল মানের বাঙ্কিং পরিচালনা করে কিন্তু এখন দেখছি পুরাই লুল;

আমি ডাচ-বাংলা এবং ইসলামি ব্যাংক এর অনলাইন সিস্টেম ব্যবহার করি।প্রতি ২মাস পর পর অটোমেটিক ভাবে পাসওয়ার্ড মেয়াদ উত্তির্ন হয়ে যায়।তাই নতুন পাসওয়ার্ড দিতে হয়।পাসওয়ার্ড এ Alphabet ও Numeric কোড ছাড়া সাধারন পাসওয়ার্ড দেয়া যায়না।

Level 0

ব্র্যাক ব্যাঙ্কের নামে মামলা করে দিন!
আগামীকালই একজন উকিলের সাথে কথা বলুন।
তার আগে আপনি যতটুকু সম্ভব ইনফরমেশন কালেক্ট করে নিন হ্যাকার সম্বন্ধে, এবং তিনি কোন কর্মকর্তার সই করা ফর্ম দিয়ে এ্যকাউন্ট ওপেন করেছেন, সেই কর্মকর্তা কোন ব্র্যাঞ্চ এ কাজ করেন, এ্যাকাউন্ট খোলার সময় তিনি কোন ব্র্যাঞ্চ এ ছিলেন।
একজন ল-ইয়ার আপনাকে এ ব্যাপারে সাহায্য করবেন।
আর অবশ্যই মামলা দুইটা করবেন, হারানো টাকা পুনরুদ্ধার ও ক্ষতিপূরণ মামলা।
আরও পরামর্শ হল কালই আপনি এই ব্যাপারে পত্রিকায় লিখুন এবং তার কপি রেখে দিন।

আপনার জন্য শুভ কামনা রইল!

Brac Bank এ ইমেইল এ তাদের সিকিউরিটির কথা জানিয়েছি । একাউন্ট করার ইচ্ছা ছিল , এখন দেখছি বিকল্প ব্যাঙ্ক খুজতে হবে।

আপনাকে অনেক ধন্যবাদ সবাইকে সতর্ক করার জন্য, আর আপনার ঘটনার জন্য সত্যিই দুঃখিত । তাদের উচিৎ তাতক্ষনিক ভাবে হ্যাকারের একাউন্ট ফ্রীজ করে দেয়া ও টাকা ফেরত দেয়া।

মামলা করার আগে আপনি ব্যাংক ম্যানেজার এর সাথে সশরীরে গিয়ে কথা বলে আসুন। আশানুরূপ কিছু না হলে তখন অন্য পদক্ষেপ নিন।

গতকাল ব্রাকে গিয়েছিলাম তিনজন একাউন্ট করতে। ইউটিলিটি বিল নিয়ে গেছিলাম না বলে একাউন্ট হয়নি। এখন দেখি ব্রাকে একাউন্ট ই করা যাবে না।

অত্যন্ত কষ্টের কথা

ভাই , আপনার কি মনে নাই যে Brac skhukrabad শাখায় ভল্ট এ Gold চুরির ঘটনা । ভল্ট চুরির পর ব্যাঙ্ক বলল যে , তারা শুধু জমা রাখে , কোনো সিকিউরিটি দিবে না। মানে হলো তাদের ব্যাঙ্ক টাকা রেখে পাহারা দিবেন আপনি ……মজা না !…..

Level 0

amar ek friend 20000/= lost koresilo, pore payoneer theke dispute koresilo. Brac bank theke 100 goj dure thaki.
Vai ami bujhtesi apnar kostota, karon amiyo freelancer, taka earn kora koto kosto eta amader theke onno ke valo bujhbe?

অত শত বুঝি না ভাই, টেকা নিসস তো টেকা দিবি। আর Trial version ভাই, আপনি যদি এই টাকার মায়া ছেরে দেন তাহলে আমাদের ভবিষ্যৎ কিন্তু অন্ধকারে ঢাকা পরবে। আপনি এই টাকার জন্য যুদ্ধ করে যান, যদি আমাদের কোন সাপোর্ট লাগে, আমরা আছি আপনার পাশে।
অন্তত বুঝি যে রাত জেগে কাজ করাটার পারিশ্রমিক যদি কেউ কেড়ে নেয় তবে কেমন লাগে।
আমরা আছি আপনার সাথে……
আপনি যুদ্ধ ঘোষণা করেন… তাহলে অন্তত তাদের Security System টা নাড়া দিতে পারে…

এটার কঠোর পদোক্ষেপ নেওয়া দরকার।

খুবই দু:খ জনক ঘটনা। কোন কথা নাই সরাসরি মামলা করেন ব্যাংকের বিরুদ্ধে তাহলে বাধ্য হয়েই তারা সমাধান দিবে আশা করি।
টাকা যদি ব্যাংকেই নিরাপদ না থাকে তাহলে কোথায় রাখবে পাবলিকে? যতদূর মনে হচ্ছে এটা কোন কর্মকর্তারই কাজ।

আমি তো ভাই অভার শিউর যে এটা কোন ব্যাংক কর্মকর্তারই কাজ।

ঘাড়ে ধইরা চিপ দেন গিয়া ………

আগে জানতাম শুধু সরকারী প্রতিস্টানেই দুর্নীতি হয়,এখন দেখী বেসরকারী প্রতিস্টান ও কম যায় না।সাবাস বাংলাদেশ সাবাস,এভাবেই এগিয়ে যাও। ভালো মানূষেরা! আপনার আর কত খেলা দেখলে আপনাদের টনক নড়বে?????

এই যদি হয় দেশের ব্যাংকগুলোর হাল , তাহলে মানুষ কোথায় নিরাপদে টাকা রাখতে পারবে!!!!!!!!!!!!!!!!!!

via apni BRAC BANK ar Managing Director ar kache ak ta cithi likhen asa kori apnar problem solve hoea jabe, coz amar vai BRAC BANK a job kore, sai ai kotha bollo.

Level 0

এসব কজ সাধারন ব্যাংক কর্মকর্তারাই করে থাকেন। আমি যখন ইসলাম গ্রুপে কাজ করতাম তখন আমি আমার স্যারের Dhaka Bank এর পার্সোনাল একাউন্ট আমিই দেখাশুনা করতাম যেমন টাকা ডিপোজিট,ক্যাশ উত্তোলন, ভিসা কার্ড,চেক বই উত্তোলন থেকে সব কিছু। সালারা আমার স্যারের সাইন নকল কইরা নতুন চেক বইয়ের জন্য আবেদন করে এবং আমার সাইন নকল কইরা চেক রিসিভ করে। পরবর্তীতে সালারা চেকে আমার স্যারের সাইন নকল কইরা ৩,৭৫,০০০ টাকা তুলে নেয়।পরে আমি ও স্যার ব্যাংকে থেকে চেক বইয়ের আবেদন পত্রটি ও যে চেকের মাধ্যমে টাকা উঠিয়েছে তা দেখতে চাই।
তাতে দেখা গেল সেখানে স্যারের সাইন ও আমার সাইন একটুকু মিল নাই । তখন স্যার জীজ্ঞাসা করল সাইন যখন মিলেনাই তা হলে আপনারা চেক বই ইস্যু করলেন কেন বা টাকাই দিলেন কেন।পরে অবশ্য সালারা টাকা ফেরত দিছে।
এজন্য স্যারকে ধন্যবাদ যে তিনি আমার মত একটি ছেলেকে সঠিক বিচার পাইয়ে দিয়েছেন। নইলে তো সালারা ওদের অপকর্ম ঢাকার জন্য আমাকে ফাঁসিয়ে দিত।……..

Level 0

মামলা করেন ব্যাংকের বিরুদ্ধে,
যদি মাঠে নামতে চান তবে সাথে আছি

Level 0

omg! বলে কি! আমার বাসার সামনে ব্রাক ব্যাংক বলে আমি ব্রাকে একাউন্ট করতে চেয়েছিলাম গেরান্টার না পেয়ে একটু দুরে সাউথ ইস্ট ব্যাংকে একাউন্ট করেছিলাম। সাউথ ইস্ট ব্যাংকে ফান্ড ট্রান্সফারের ব্যবস্থা নাই বলে মনটা খারাপ লাগতে ছিল। এখন দেখি ফান্ড ট্রান্সফারের দরকার নাই বাবা। এমনিতেই ভালো আছি।ব্রাক ব্যাংকের দুর্বল সিকিউরিটির কথা শুনায়ে ভালোই করলেন। আমার মনে হয় ফান্ড ট্রান্সফারের ব্যবস্থা থাকলে সিকিউরিটি অত্যন্ত শক্তিশালী হওয়া উচিত।যাই হোক আপনার এত কষ্টের টাকা আপনি যে ভাবে হোক উদ্ধার করবেন । এত দুর্বল সিকিউরিটি নিয়া শালারা টিকে আছে কিভাবে?!উফ!মাথাটা ঘোরায়ে দিলেন ভাই। মানুষ নিরাপদ কোথায় বলতে পারেন?

আপনি কঠোর পদক্ষেপ নেন। আমরা আপনার সাথে আছি।

কি বলব বুঝতেসি না …এতদিন অর্থাৎ গত ৩ বছর ধরে ডিবিবিএল ইউস করতেসি … এই কয়দিন আগে নিহাত থেকায় পড়ে ব্যাক এ একাউন্ট করলাম …তাও তোমাদের কথা ধরে অর্থাৎ ব্যাক ভাল , ইণ্টারনেট ব্যাঙ্কিং সুবিধার কারন এর মধ্যে অন্যতম যদি এটাতে যদি এত প্রব্লেম থাকে এবং সিকিউরিটি প্রব্লেম থাকে তাহলে তো আর কোন মানেই হয় না :/

আমার মনে হয় ব্র্যাক ব্যাংক ইচ্ছা করলেই অপরাধী সনাক্ত করতে পারবে । আর যদি সেটা না করে তবে অভিযোগের তির তাদের দিকেই যাবে ।

Level 0

ভাই কেইস করেন।ওদের কাছে সব ইনফরমেশন আছে।পত্রিকায় খোলা কলামে লিখে পাঠান।কখনোই তাদের ছাড়বেন না।

vai ami eimatro taderke email e complain korlam ebong taderke boycott korar threat dilam. apni eka na, amra sobai apnar sathe asi.

এটা ব্র্যাক ব্যাংক এর কাছে অস্বাভাবিক কিছু নয় 😀 হারামজাদের ব্যাংকে আমি একখানা অ্যাকাউন্ট করে টের পাইছিলাম যে এরা কেমন ধরনের সার্ভিস দিয়ে থাকে। ৪০ হাজার টাকা ডিপোজিট করে সেই টাকা আর উঠাতেই দিচ্ছিলো না। আমার টাকা আমাকে উঠাতে দিচ্ছিলো না। অতশত ঝামেলা না করে আমি ম্যানেজার এর কাছে গিয়ে বললাম আমার ব্যাংকে টাকা রাখার দরকার নাই, আমার টাকা আমাকে ফেরৎ দিয়ে আমার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিন।

সেই থেকে ব্র্যাক ব্যাংক ছেড়েছি আর পর্যন্ত কোনোদিন কোন কাজে ব্র্যাকব্যাংক এর মুখ দেখিনা। প্রয়োজন হলে বড় ভাই, বন্ধু বা অন্য ব্যাংক দিয়ে কাজ চালিয়ে নেই।

ব্র্যাক ব্যাংক এর মত ফালতু সার্ভিস আমার মনে হয় অন্য কোন ব্যাংক দেইনা। সালারা নিজেই পাক্কা চোর, তাই পরের টাকা পকেটে পুরাই হচ্ছে তাদের কাজ।

আপনি দ্রুত থানায় একটা মামলা করুন, সেই সাথে পত্রিকায় আপনার খবরটি পাথানোর চেস্টা করুন।

Level 0

ট্যাগ করে ষ্ট্যাটাস দিসি, দেখি কি বলে…..
http://www.facebook.com/LuckyFM007/posts/414837561932802

আমার একটা করার চিন্তা ছিলো কিন্তু এসব ইস্যুতেই আগানোর সাহস পাইনা

আমারও Trial Version ভাইয়ের মত হ্যাকিংয়ের সমস্যাই পড়ি, গত ৯/৪/২০১২ইং তারিখ রাত ১০:০৪মিনিটে আমার এ্যাকাউন্ট হতে ৪১২০০/= (একচল্লিশ হাজার দুই শত টাকা) হ্যাকিং হয়, ১০:২৩মিনিটে কল সেন্টারে কল দিলে আমাকে বলে কাছাকাছি কোন ব্রাঞ্চে গিয়ে কম্প্লেইন দিতে, দিলাম পরের দিন যার এ্যাকাউন্টে টাকাটা গেছে তার নাম্বারে ম্যানেজার সাহেব কল দিলেন একই কাহিনী তার ফোন বন্ধ, তারপর তার নামে ১টা জিডি করে আবারও জিডিসহ কম্প্লেইন দিলাম।২/৩ দিন পর পর কাস্টমার কেয়ারে কল দিলে ৫০টাকা কলিং চারজ যাচ্ছে, ব্রাঞ্চে গেলে ঠিকমত সাপোট দিচ্ছে না বলে যা করার ম্যানেজমেন্ট থেকে করবে জনাব আমাদের কিছুই করার নাই আপনি অপেক্ষা করেন। কাস্টমার কেয়ার থেকে বলে জনাব বুজতে পারছেন জটিল কেইস সময় লাগবে তবে কেউ নিশ্চয়তা দিয়ে বলতে পারবেনা যে আপনি অবশ্যই টাকা ফেরত পাবেন, বলে তদন্ত চলছে তদন্ত শেষ হোক তারপর বলা যাবে। এই করে ১মাস শেষ হলো ৪/৫/২০১২ইং তারিখে ১টা চিঠি পাঠায় ব্যাংক থেকে চিঠিতে লেখা আছে ১০/৪/২০১২ইং থেকে ১০/০৮/২০১২ইং তারিখ পযন্ত সময় লাগবে শুধু তদন্ত করার জন্য তারপর আমাকে জানাবে টাকা দিবে কিনা। দীরঘ ৬মাস পরে আমাকে জানালেন যে তারা হ্যাকিংয়ের কোন দায়ভার নিবে না এটা গ্রাহককে বহন করতে হবে। এক্ষেত্রে ব্যাংকের কিছুই করার নাই। ১টা ব্যাপার সবাই লক্ষ্য করেন টাকা গুলো আামার আপনার এ্যাকাউন্ট থেকে অসত ব্যাংক করমকরতাদের কাছে চলে যাচ্ছে সেই ক্ষেত্রে ব্যাংকের কোন ক্ষতি হচ্ছে না কারন টাকা গুলো তো আমার, আপনার কষ্টে অরজিত টাকা। আমি আজ পর্যন্ত আমার টাকা ফেরত পেলাম না। আমি আমার টাকা ফেরত চাই। আপনাদের সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। এ ব্যাপারে ব্যাংকের কোন মাথা ব্যাথা নেই, থাকবেই বা কেন ব্যাংক থেকে তো সরাসরি বলে তাদের কিছু করার নেই। তারপরও বলে তারা এ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের টাকা নাকি উন্নতমানের ১০০% নিরাপত্তা দিচ্ছে। ব্রাক ব্যাংকের নাকি কোনা গাফিলতি নাই এটা তাদের দাবি। এরপর বাকি টুকু আপনারাই বলেন কোন ভাল কাজটি করলে এদের বিরুদ্ধে ভাল কিছু করা যাবে। নিচে হ্যাকিং এ্যাকাউন্ট নং এর তথ্য দেওয়া হল –

From:
Date: Mon, Apr 9, 2012 at 10:05 PM
Subject: Your BRAC Bank Internet Banking Transaction Information
To: [email protected]

Dear Customer, Your A/C:1505102128562001 has been Debited by Tk 41200 For credit to A/C:1511201848895001 – (Nazrul Islam)

ভাই আপ্নের জন্য লগইন করলাম।

ভাই আমি ১০০% গ্যারান্টি দিয়া বলতে পারি এইটা HACKER এর কোন কাজ না।যদি হইত তাইলে আপ্নের অ্যাকাউন্ট বা ইমেইল এ অনেক উলতা পাল্টা মেইল আসত।কারন আমি আমার নিজের সামনে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট hack হউয়া দেকসি।আমি সিউর এইটা অদের কাজ।[ai ta boilen brack bank re r manager er kaner niche 3 ta dia doilen amer kotha er por bujum sala chot*******put ki koy][tar por or bapere shikhamu bank account hack kamne korte hoy]

একজন মানুষের অ্যাকাউন্ট হুদাই ওয়ার্নিং না দিয়া হ্যাক করা কোন ভাবেই শম্বভ না।আর ভাই মামলা করলে বুইজা কইরেন নাইলে আপ্নের আরও টাকা ফাঁকা হয়া জাইতে পারে।বুজেন ত এইটা বাংলাদেশ।

সোনার বাংলাদেশ।

ভাই আমরা সব ফ্রীলান্সারা আপনার সাথে আছি। আপনি Legal Action এ যান। আর সব বাংলা ব্লগ গুলি তে এই পোস্টটি শেয়ার করুন।

Level 0

বাংলানিউজ২৪ এ খবর টা আসছে উপরে লিঙ্ক দেয়া আছে।প্রথম আলোতে খবর টা আনতে পারেন কিনা দেখেন ………..টাইট হইয়া যাইত তাইলে।

নিরাপত্তা ভাল সম্ভবত ইসলামী ব্যাংকে। ব্যালেন্স ট্রান্সফারের সময় মোবাইলে কোড আসে সেই কোড দিয়ে ভেরিফিকেশন করতে হয়। পাসওয়ার্ড বাধ্যকামূলকভাবে আপারকেস, লোয়ারকেস, সংখ্যা এবং ডিজিট দিতে হবে। প্রতিমাসে পাস রিনিউ করতে হয়। ব্রাক কে গণধোলাই দিতে হবে। কিছু পত্রিকায় নিউজ দেন, নিউজের লিংক ব্রাকে পাঠায়ে দেবেন।

Level 0

ভাই কখনো লিখি না শুধু পড়ি । আজ না লিখে পারলাম না, ভাই কি করছেন জানি না তবে আমি হইলে যে শাখায় একাউন্ট করছেন ঐ শাখার ম্যানেজারে বাইন্দা পিটাইতাম যা হবার পরে হবে। হালারে বুঝাইতাম যে রাত জেগে কাজ করতে কষ্ট কি?

ভাই মামলা করেন একদম ছাইরা দয়েন না। হালার পো চুরি করার আর মানুষ পাইলো না?

    @jabedje: apnera sob bebosta koren amio asi.oi sala chot*******put re ami hacking shikhamu loge or bapere oo shikhamu!!!!!!!!

vai ra amader. amra akta andolon korte pari na o vai ar jonno … sokole mile nahoy colon bank a shalago theke tk kemne anbo seta ber kori ar vaiya apni case koren tahole akta law bitthi thankbe …akon sokole mile akta kisu poramosso age kore nin post dia amader janan ki korte hobe …projokti blog golor o diyettto ase … ami tt kase o a bapare koroniyo dekneddreshanamolok post cai..

আপাতত আপনি থানায় একটা জিডি করুন। কেস করবেন কিনা সেটা পরে সিদ্ধান্ত নেয়া যাবে। জিডি করা না হলে কোন ডকুমেন্ট থাকবেনা। জিডির কপি ব্যাংকে দিয়ে আসবেন, সাথে পোস্ট আর নিউজের সব লিংক। ডকুমেন্ট সব সাথে রাখুন, বাংলাদেশ ব্যাংকে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দিতে কাজে লাগবে।

বুঝতে পারতেসি দেশে অভাব বেশ পরেছে । ব্যাংক টাকা জমা নিয়ে , সেই টাকা পাহারা না দিয়ে খাওয়ার ধান্ধায় আছে । এই সোনার বাংলাদেশে আমার মাটির ব্যাংক সব থেকে বেশি নিরাপদ ।

ব্র্যাক ব্যাংক এ একাউনট করার সুপ্ত বাসনা কবর চাপা দিলাম । ইসলামী ব্যাংকই ভালো …………

Eta to voyonkor bapar!!!!

Level 0

bhai amer o same problem hoisa…mejaz ta onk khrp hoya asa

Level 0

Sobay [email protected] email dan TT ar link ta diya and Brac ar fb page a post dan. We want justice. We want justice. We want justice!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

Level 0

eto besi response pabar poreo tune ta featured / sticky kora jay na ? TT te sei je ekta tune featured hoise ota ar jayga theke nore na.

ব্রাক ব্যাংক থেকে টাকা তুলে অন্য নিরাপদ ও (ইন্টারনেট ব্যাংকিং ) ছাড়া অন্য ব্যাংকে রাখতে হবে, ভয়ে আছি যদি আমিও ঐ বিপদে পড়ি। ট্রায়েল ভার্সন ভাই আপনাকে লিগ্যাল একশান নিতে হবেই, চোর কে ছেড়ে দিলে চুরি বেড়ে যাবে। আর এক জন আপনার মত বিপদে পড়বে।

Level 0

vai ami kono freelancer na but ami 100% sure eta bank er kormokortar kaj karon tara mone hoy Indian Dhiru Vai Ambani er story ta jene gese se o check jaliyati kore Reliance group korse era o chay

ei posti pray 3000 er upor view houyese but facebook share vare nai tar 1%.ken van er shoman ba kacakaci holo na,,ami khubi ahoto vai apnar jonno,,shomobedona cara ar kice korar nai amr,,,vai ami ei post share to krchi and ami chai copy kore amr facebook status show korte chai,obikrito hobe na,,ami chai ei beparta aro shobai januk,,,

ভাই, আমার তো মনে হয় এটার মধ্যে ব্যাংকের কেউ জড়িত আছে। নাহলে এটা এত ইজি না। কেউ আপনার টাকা নিয়ে যাবে অথচ আপনার মোবাইলে কোন মেসেজ ই আসলো না!!

http://www.techtunes.co/tips-and-tricks/tune-id/187104
Amar facebook & twiter a share korbo.
Carry on…. One day you will earn more, many, many more.Pray also for me.

Level 0

Vie apner ae post pore khob kosto laglo. Brack Bank ae obsta age janle ek ta o account kortam na.. Thank you brother giving for this information.

Level 0

মামলা করতে হবে। কোন মাপ নাই।

Level 0

আমরা আপনার সাথে আছি….

Level 0

দয়া করে সবাই যার যার মেইল আইডি থেকে নিচে দেয়া এড্রেসে মেইল করুন। এটা বাংলাদেশ ব্যাংকের গ্রাহক অভিযোগ কেন্দ্রের ঠিকানাঃ

Fax : 0088-02-9530273

E-mail : [email protected]

Level 0

খুবই দুঃখজনক ঘটনা। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের উপরে চাপ দিন। কোন মাফ নেই। :/

ভাই আপনি বাংলাদেশ ব্যাংক এর হট লাইন এ যোগাযোগ করে দেখেন ওদের কোন বাবস্থা নেয়ার এখতিয়ার আছে নাকি। সাধারনত সব ব্যাংক এ নাম্বার টা দেয়া থাকে। আরেকটা বিষয় হল আপনআর টাকা যার অ্যাকাউন্ট এ ট্রান্সফার হল সে ভোটার আইডি ছাড়া কি করে অ্যাকাউন্ট খুলল এটাই অভিযোগ দেয়া দরকার বাংলাদেশ ব্যাংক কে।

Level 0

আপনার পোষ্টটি পড়লাম দুঃখ করা ছাড়া আর করার কিছু্ই নেই, তবে একটা জিনিস অনুমান করছি আপনার টাকা ফেরৎ পাবার ব্যপারে, আর তা হল আপনার টাকা যে একাউন্টে টেনেস্ফার হয়েছে তাকে ধরলেই পাওয়া যাবে যেহেতু একটা একাউন্ট নং দেয়া আছে তাছাড়াও আইপির মধ্যমে ও এই টাকা কোথায় এবং কে লগইন করে সরিয়ে নিয়েছে তা পাওয়া কোন কষ্টকর ব্যপার না। তবে এটা সরাসরি উত্তোলন করে হয়েছে বলে আমার মনে হয় এব্যপারে ব্যাংক কর্মকর্তারাই ভাল জানেন। ইন্টারনেট বা অনলাইনে টাকা আত্মসাৎ করলে অনেক প্রমানের মাধ্যমে উহা সনাক্ত করা সম্ভাব। আপনি এ ব্যাপারে সেচ্চার হন আমারা আপনার পাশেই আছি নতুবা আমাদের ই-বানিজ্য মুখথুবড়ে পড়বে। কারন আমাদের অনেক সমস্যার মাঝে এটি আরএকটি বড় সমস্যা।

Level 0

Vhai, Aishob faltu(Vung-Vang) bank-e account kora bondho koren. Ar jader existing account ache tara account remove koren. Tokhon dekhben aishob faltu(Vung-Vang) bank pothe boshbe kivabe?

জ্বরও একটা রোগ, তেলাপোকাও একটা পাখি আর ব্র্যাক ব্যাংকও একটা ব্যাংক।

shortcut 2 HeLL…………….
ভাই জানিনা আপনার কি দশা এহন!! ব্যাবাক্তের একই কথা মামলা করেন মামলা করেন……… মাগার বুঝতাছি না কোনো আপডেট নিউজ তো পাইলাম না…। যে হানকার গরু অইহানেই বান্দা আছে মনে হয়! জাউক্কগা প্যাচাল পাইরা টাইম খোয়াইবার চাইনা…… অল্প করা কয়ডা কথা কইইয়া যাই, মন চাইলে হুইনেন……… আর না চাইলে…????……………
পয়লা থেইক্কা মাইর শুরু করেন……………
*** যারে দিয়া একাউন্ট খোলাইছিলেন (বেশিরভাগ ফ্রেন্ড সার্কেল গো মইদ্ধে ব্যাঙ্ক এর একাউন্ট ওপেন এর চাহুরি পায় আর আশপাশ থেইক্কাই বনিবনা শুরু করে তাই দ্যাহেন এমন কাউরে দিয়া কি একাউন্ট ডা খোলাইছিলেন নি) হ্যাতারে ধরেন ” কিল্ল্যাইগা??? হেতি আপনার প্রায় এ টু জেড জানে … বুইচ্চেইন।

*** হ্যাকারের কাম না এইডা নিশ্চিন্তে থাহেন ( ট্রাই এঙ্গেল এ একডা কথা কই তা অইলো চোর ই জানে যে আরেক চোর ক্যাম্নে কহন চুরি করবার পারে )। আর হ্যাকার রা আপনারে চিত থেইক্কা কাইত কইরা এরপর ছাড়তো “স্যাম্পল হিসাবে কইলে” মেইল —ই ঢুকবার পারতেন না ।

*** মোতা ওয়ালা পাব্লিক নিয়া এরপর মামলা দিতে যাইয়েন । তা না হইলে ……অই যে , কইলাম না যেই হান কার গরু অইহানেই বান্দা থাকবেন……। ছুডা লাগবো না। কি বুঝাইলাম বুজ্ঝেন তো……।????????

ভালা থাইক্কেন…………

ব্রেকিং নিউজঃ
যে একাউন্ট নাম্বারে হ্যাকার টাকা নিয়েছে ঐ আ্যাকাউন্টের মালিককে হাজির হয়েছে ব্রাক ব্যাংকে । বিজয়নগরে আছে । ঐ লোক বলতেছে গতকাল সোস্যাল মিডিয়াতে তার আ্যকাউন্টের নামে রিপোর্ট দেখে ভয় পেয়ে গেছে , আ্যাকাউন্ট তার ভাই ব্যাবহার করে এবং ব্যাপারটা নিয়ে সমাধানের জন্যই সে ব্যাংকে গেছে ।
আপাতত এটুকু, আপডেট দিচ্ছি ,

অনলাইন কমিউনিটির ঠেলা ব্র্যাক ব্যাংক এইবার বুজেছে ।

আন্দোলন চলবেঃ জয় বাংলা

Level 0

যতক্ষন না পর্যন্ত এই থ্রেডে প্রত্যেকের টাকার সমস্যা সমাধান হচ্ছে এই ঠেলা বন্ধ করা ঠিক হবে না। যেভাবেই হোক টাকা তাদের ফেরত দিতেই হবে। প্রতিটা ব্যাংকের টার্মস এন্ড কন্ডিশন আছে। সেসব অমান্য করলে খুব সহজেই মামলা করা যায়। তবে মামলা করার আগে অভিযোগ করা উচিৎ। শুধু ট্রায়াল ভার্শনের নয় আরও অনেকেরই টাকা মেরে দিয়েছে এরা। শুধু ওনারটা সলভ হলেই থেমে যাবেন না দয়া করে।

@ মডারেটরঃ টিউন টা স্টিকি করা হোক।

ব্র্যাক বাংলাদেশের সবচেয়ে ফালতু ব্যাংক লাগে আমার কাছে, অনলাইন ট্রানজাকশন নিয়ে তাদের কোনরকম মাথাব্যাথা, দক্ষতা কিছুই নাই। ডিসপুট রিকোয়েস্ট দিলে পাত্তাই দেয়না। ভুল জায়গায় ভুল মানুষ রাখার ফল এইটা।

আপনি মামলা করুন। এদের বাঁশ দেওয়া দরকার।

দুঃখ জনক ঘটনা । ভাই সাথে আছি..এগিয়ে জান ।

Level 0

Puray Osthir Kahini.Unbeliveble Response & Support From All Tuners.Bro,Apni Brank Bank Against E ” Money Loundaring” Case FIR Koren.I Am Lawyer.I will Help U Without Any Cost.Keep Going…

সবাই নিজ নিজ ফেসবুক পেজে, ফ্রেণ্ডদের পেজে শেয়ার করেন, সবাই জানার পর সতর্ক হয়ে যাবে, ব্র্যাক ব্যাংকের একাউণ্ট খোলার হার কমে যাবে……….টাকা তুলে ফেলতে থাকবে………বিভিন্ন অনলাইন মিডিয়া, ব্লগে শেয়ার করতে থাকেন……..ব্র্যাক ব্যাংক এইবার বুঝবে………….ঠ্যালা কারে কয়…………………..

দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া দরকার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের একজন অফিসারের সাথে কথা বলে যথাযথ ভাবে সরাসরি অভিযোগ দিন। ওদের হাগু-মুতু বের হয়ে যাবে। থানায় একটা সাধারন ডায়েরি করুন। আন্দোলন অব্যাহত রাখুন। আমিও আছি আপনাদের সাথে। শালাদের কারওয়ান বাজারে কাচামরিচের টুকরি ধরাইয়া দেয়া দরকার।

আইনজীবীর সাথে কথা বলে মামলা করেন।

Level 0

ami trust bank er madhome beton pai. february masher beton tulte amr wife jay brac bank er buth a. debit card buth a deyer por tk na dia card back ase and pore abar card dhukale lekha ase insuficant balance.pore ami online a check kore dekhi amar tk uthano hoya gese.pore brac bank a complain korle ora bole amader kisu korar nai.pore trust bank a complain korlam ora bollo ai tk brac bank debe. aj masher 21 tariq ami akhono tk paini..

একজন দক্ষ আইনজীবীর সাথে শেয়ার করে পরামর্শ নিন।

Level 0

একটা ব্যাংক দেউলিয়া হয়ে গেলেও ডেপোজিটররা যাতে ক্ষতিগ্রস্থ না হন সেজন্য বাংলাদেশ ব্যংক ডেপোজিট ইন্সুরেন্স স্কীম নামে একটা প্রকল্প চালু রেখেছে… হ্যাক আর প্যাক যাই হোক ঐটা দায় সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের..এটা ব্যাংকের দূর্বলতা, দায়ী ব্র্যাক ব্যান্ক, তারা যদি প্রবলেম সলভ করতে না পারে তার পরবর্তী দায় সেন্ট্রাল ব্যাংকের ঘাড়ে….. আমার মনে হয় আপনার ভয় পাবার কিছু নাই… আপনার টাকা আপনার কাছে আসতেই হবে… শুধু হাল ছেড়ে দেবেননা…

Level 0

আগে লগিন করলে মেসেজ আস্ তো না এখন আসে । ওদের ইন্টারনেট ব্যাংকিং সার্ভিস ভালো না আরো অনেক সিকিউরিটি বাড়াতে হবে ।

Level 0

We have recently saw posts related to alleged fraud of iBanking from Account of Mr. Mizanur Rahman (reported by Trial Version).
Please be assured that
1. There has not been any breach of security at the bank’s internet banking, rather the password of the account-holder was compromised at his end.
2. We have already got in touch with the account-holders and the issue is currently being dealt with utmost attention.
Furthermore, below information may help clarify queries:
– BRAC Bank had immediately frozen transactions on both the complainant account as well as the beneficiary account
– The complainant and the account-holder are two different individuals
– An e-mail as well as SMS was notification were sent to the registered email and mobile-number registered with the account of Mr. Mizanur Rahman
– The banglanews24.com news was carried without any discussion with either the account-holder or the Bank
– Responsibility of protecting login ID and password of e-mail or internet banking belongs to the individual account-holder exclusively. No other individual or bank can be held responsible for that

As mentioned, BRAC Bank has already extended maximum support to the account-holder as well as the law-enforcing agency to assist in recovering/ resolution of the transferred amount.

Thank you all for your feedback – we have taken these into account and we shall try to incorporate relevant ones in enhancing our security features.

Being a responsible, Bangladeshi bank, BRAC Bank will always protect the rights of the customers within its purview.

Facebook a oder page a amon 1ti status pailam

মামলা করেন + প্রত্রিকা তে একটি নিউজ দেন। BRAC BANK এর নামে । প্রত্রিকাতে বলেন BRAC BANK
লেনদেন খুব অনিরাপদ সে জন্য আপনাদের সকলের অবগতির জন্য এই BANK থেকে কনো রকম লেনদেন থেকে বিরত থাকার জন্য অনুরোধ করা হল

ট্রায়াল ভার্সন ভাই- আপনার জন্য খুব খারাপ লাগছে।আপনি ভেঙ্গে পরবেন না আপনার পাশে আমরা আসি । আমিও তো ওডেস্ক এ কাজ করি এখনো BANK accunt করেনি। সব চেয়ে ভাল BANK কোনটি একটু বলেন