এই মুহূর্তে পৃথিবীর সেরা ১০ টেক কোম্পানি যেখানে কাজ করা আপনার কাছে স্বপ্নেস্বপ্না

টিউন বিভাগ খবর
প্রকাশিত

সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে আজকের টিউনটি শুরু করছি। আশা করি সবাই ভাল আছেন। আমিও ভাল আছি।

আমাদের আজকের টপিক হলন বিশ্বের সেরা ১০ টি টেক কোম্পানী যেখানে বিশ্বের সবাই কাজ করার স্বপ্ন দেখে থাকে।

বর্তমান যুগটাই হল টেকনোলোজি বেসড একটা যুগ। তাই টেকনোলজি ছাড়া কিছুই ভাবা সম্ভব না।

আর এই টেকনোলোজি যুগের কিছু জায়ান্ট কোম্পানী যারা টেকনোলোজিকে নিয়ে গেছে আরও একটা অনেক উচু মাত্রায়।

আর এই সব স্থানে কাজ করা মানেই যে কী তার আর নাই বা বললাম।

সম্প্রতি ২০১৫ সালে Glassdoor থেকে বিশ্বের সবথেকে ভাল ১০ টি টেক কোম্পানীর একটা র‌্যাঙ্কিং প্রকাশ করা হয়েছে যেটা তৈরী করা হয়েছে টেক কোম্পানীর এমপ্লয়ীদের ফিডব্যাকের উপর ভিত্তি করে।

প্রতি বছরই Glassdoor ওয়েবসাইট থেকে এমন কোম্পানীর একটা লিস্ট রৈী করা হয়। চরম প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে এসব টেক কোম্পানী বাছাই করে এই লিস্টটা তৈরী করা হয়েছে। এর ভেতর রয়েছে গুগল থেকে শুরু করে ফেসবুক, এডোবি, অ্যাপল ও আরও অনেক কোম্পানী। তো চলুন, আজ জেনে নেওয়া যাক এই টেক কোম্পানীগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত।

  • 1. Google

নাম : GOOGLE.COM

হেডকোয়ার্টার : Mountain View, CA

কাজ : গুগলের কাজ সম্পর্কে আর নতুন করে কিছু না বলি। এই সার্চ জায়ান্টকে চিনে না এমন ব্যক্তি মনে হয় বিশ্বে কোথাও খুঁজে পাওয়া যাবে না। এটাই এবার এই র‌্যাঙ্কিংএর ১ম স্থানটা ধরে রেখেছে।

কর্মচারী ফিডব্যাক :

কর্মচারীদের বেনিফিট এবং কেয়ারর অবশ্যই ওয়ার্ল্ড ক্লাস এবং এর বিকল্প অবশই খুঁজে পাওয়া সম্ভব না। এই কোম্পানী বিশ্বের সবথেকে ট্যালেন্ট ও বেস্ট কিছচু লোককে খুঁজে বের করে তাদের সাথে কাজ করার জন্য এ্টাই মনে হয় সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ জিনিস।
গুগল প্রোগ্রাম ম্যানেজার, সান ফ্রান্সিস্কো

  • 2. F5 Networks – অফিসের প্রতিটা দিনই যেন রঙিন

নাম :F5 Networks

হেডকোয়ার্টার : Seattle, WA

কাজ : এটা মূলত একটা অ্যাপ্লিকেশন ডেলিভারী নেটওয়ার্ক যেটা বিভিন্ন নেটওয়ার্ক বেসড অ্যাপ্লিকেশনে অপটিমাইজেশন করে থাকে এবং এদের সিকিউরিটি, ডাটা স্টোরেজ, পারফরমেন্স, সার্ভার প্রভুতি বিষয়েও দেখাশোনা করে থাকে।

কর্মচারী ফিডব্যাক :

 খুব্ই ভাল এবং প্রতিযোগীতাশীল একটা স্যালারী এবং গ্রেট বেনিফিট যেটা হিউজ মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানীকে চ্যালেঞ্জ জানাতে প্রস্তুত। আর এর সাথে এমন কিছু কালচার রয়েছে যেটা অফিসে আপনার দিনটিকে আরও রাঙিয়ে তুলবে। এমন একটি পরিবেশ যেখানে সবাইই বোঝে যে সবাই একটা জাহাজে রয়েছে এবং সেই জাহাজকে চালনা করার দায়িত্বও তাদের।

F5 networks software engineer in Seattle, Washington

  • 3. Facebook-নিজের মত করে সবকিছু

নাম : ফেসবুক

হেডকোয়ার্টার : Menlo Park, California, US

কাজ :বিশ্বের সবথেকে বড় সোস্যাল মিডিয়া। যেটার কাজ মনে হয় ফেসবুকের থেকে তার ইউজাররাই ভাল ভাবে জানে। আর ফেসবুকের মালিক মার্ক জুকারবার্গ জানে যে কীভাবে কর্মচারীদের খুশি রাখতে হয়।

কর্মচারী ফিডব্যাক :

 কর্মচারীদের যে পরিমাণ দায়িত্ব বা কাজ দেওয়া হয় সেটা অনেক। আপনি আপনি নিজের মত করে কাজ করতে পারবেন, ডাটা খুঁজে নিতে পারবেন এবং কী করবেন সেটাও ঠিক করতে পারবেন।

Facebook user operations associate.

  • 4. Qualcomm-কাজ করতে করতে শেখার সুযোগ

নাম : Qualcomm

হেডকোয়ার্টার :San Diego, CA

কাজ :Qualcomm মূলত একটা টেলিকমিউনিকেশশন কোম্পানী যেটা সারা বিশ্বে বিভিন্ন টেলিকমিউনিকেশন এর যন্ত্রপাতি তৈরী ও বিক্রয় ও সার্ভিসিং করে থাকে। কোয়ালকম সবময়ই এর ক্যারিয়ার কালচারের জন্য প্রসংশিত হয়ে এসেছে।

কর্মচারী ফিডব্যাক :

আমি মোবাইল টেকনোলজিতে একটা নতুন বিষয়ে কাজ করি। এখানে কাজ করতে করতে কাজ শেখার ব্যাপক একটা সুযোগ রয়েছে। কাজ ও জীবনের মধ্যে একটা সম্পর্ক তৈরী হয় এখানে কাজ করলে।

anonymous Qualcomm staff engineer/manager in San Diego, California.

  • 5. Adobe- কাজ যেখানে খুবই এনজয়েবল

নাম : Adobe

হেডকোয়ার্টার : San Jose, CA

কাজ :এ্যডোবি বিশ্বব্যাপী ডিজাইনিং ও এডিটিং এর বিভিন্ন সফটওয়্যার এর জন্য বিখ্যাত। আমরা কমবেশী সবা্ই এডোবির কোন না কোন প্রোডাক্ট ইউজ করেছি। যেমন ফটোশপ, ইলাস্ট্রেটর, ড্রিম ওয়েবার প্রভৃতি।

কর্মচারী ফিডব্যাক :

এডোবি তার কর্মচারীদের খুবই টেক কেয়ার করে থাকে। কমূচারীরা বিভিন্ন ট্রেনিং থেকে তাদের আশানরূপ ফলাফল পাচ্ছে কীনা সেটাও তারা দেখে থাকে। আমি এখানে কাজ করে খুবই এনজয় করি এবং আমি সেই সব লোকদের কাছে আইডিয়া শেয়ার করতে মজা পাই যারা সবসময়ই আমাকে সাহায্য করার জন্য প্রস্তুত।

Adobe software engineer in San Jose, California.

  • 6. MathWorks – ট্যালেন্ট এর বিকাশ ঘটানোর জন্য পারফেক্ট স্থান

নাম : MathWorks

হেডকোয়ার্টার : Natick, MA

কাজ : MathWorks হল একটা আমেরিকান প্রাইভেট কর্পোরেশন যাদের মেইন কাজ হল বিভিন্ন ম্যাথমেটিক্যাল সফটওয়ার তৈরী ও প্রকাশ করা। এদের তৈরী বিখ্যাত সফটওয়্যার হল MATLAB এবং Simulink.

কর্মচারী ফিডব্যাক :

 খুবই বন্ধুত্বভাবাপন্ন ও সার্পোটিভ কোওয়ার্কার। কোম্পানী আসলেই তাদের কর্মচারীদের কেয়ার নিয়ে থাকে। লিডারশীপ রোলের জন্য অনেক সুযোগসুবিধা রয়েছে।

MathWorks applications support engineer in Natick, Massachusetts.

  • 7. Apple- জ্ঞান আহরনের সবথেকে উপযুক্ত স্থান

নাম : Apple

হেডকোয়ার্টার :Cupertino, CA

কাজ : বিশ্বের টেক জায়ান্টদের ভেতর অন্যতম। স্মার্টফোন, আইপ্যাড, ম্যাক প্রভৃতি তৈরী করে বিশ্ববিখ্যাত একটা কোম্পানী। এটা ছিল অ্যাপল এর জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটা বছর। নতুন আইফোন, নতুন আইপ্যাডএয়ার এবং স্মার্টওয়াচ রিলিজ হয় এই বছরই।

কর্মচারী ফিডব্যাক :

 অ্যাপল সবসময় একটা অস্থীর সুযোগসুবিধা এবং অনেক ভাল বেতন দিয়ে থাকে। এই স্থানটা একটা জ্ঞানের সাগরের মত। এখানে সবাইই সমানভাবে কাজের প্রতি ডেডিকেটেড।

  • 8. LinkedIn- প্রতি মূহুর্তেই ছোটখাট চমক

নাম : LinkedIn

হেডকোয়ার্টার :Mountain View, CA

কাজ : বিশ্বের জনপ্রিয় একটা সোস্যাল মিডিয়া। এরা সাকসেস যে কী সেটা ভালভাবে জানে, আর এ্ই কারণ্ই কোম্পানীটি আজ এই লিস্টে রয়েছে।

কর্মচারী ফিডব্যাক :

 ফ্রী স্বুসাদু খাবারের পাশাপাশি এমন অনেক ছোটখাট সুন্দর জিনিস কোম্পানী আমাদের গিফট করে যেগুলো পেয়ে আমরা আসলেই খুবই আনন্দিত। আপনি এখানে খুব সহজেই প্রফেশনাল ডেভলপমেন্ট ট্রেনিং নিতে পারবেন। আপনার কাজের সিডিউলটাও অনেক সহজ।

LinkedIn site reliability engineer in Mountain View, California.

  • 9. Zillow – অসাধারণ টীমপাওয়ার

নাম : Zillow

হেডকোয়ার্টার : Seattle, WA

কাজ : Zillow মূলত একটা রিয়েল স্টেট ডাটাবেসকোম্পানী যেটা ২০০৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটা বিভিন্ন রিয়েল স্টেট এর এডভার্টাইজমেন্ট করে মুলত প্রফিট তৈরী করে থাকে। এই কোম্পানীটি এই বছর এদেরকে টপ ১০ টি কোম্পানীর লিস্টে নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছে।

কর্মচারী ফিডব্যাক :

 আপনি যদি এমনএকটা কোম্পানী খুঁজে থাকেন যেটা আসলেই কালচার এবং কর্মচারীদের সুখদুঃখের খোজখরবর সম্পর্কে কেয়ার করে সেটা হল Zillow। আপনি এমন সব টীমমেম্বারদের সাথে কাজ করবেন যারা আসলেই তাদের জব সম্পর্কে অত্যান্ত সচেতন। এবং তারাই Zillow কে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

Zillow software development engineer in Seattle, Washington.

  • 10. MINDBODY-মজার সব সুযোগ সুবিধার সাথে মজার কাজ

নাম :MINDBODY

হেডকোয়ার্টার :San Luis Obispo, California

কাজ :নামেই এটার পরিচয় অল্প সল্প বলে দেয়। এটা মুলত ছোটখাট বিজনেস আইডিয়াকে সাহায্য করার জন্য কাজ করে থাকে। এটা এর অক্লান্ত পরিশ্রম দ্বারা টপ ১০ লিস্টে উঠে আসতে সমর্থ হয়েছে।

কর্মচারী ফিডব্যাক :

আমরা সাধারণত অনেক সুযোগ সুবিধা ভোগ করে থাকি। আমাদের সিইও অনেক ইনস্পায়ারিং একজন ব্যক্তি। মাসিক ওয়েলনেস ভাউচার, অনসাইট মেসেজ, অনসাইট ওয়েলনেস প্রভৃতি সুযোগ সুবিধা আমরা পেয়ে তাকি এবং এগুলো নিয়ে আমরা খুশি।

MINDBODY customer service/technical support employee in San Luis Obispo, California

 

আমরা দেখতে পাচ্ছি যে বিশ্বের টপ কোম্পানীগুলো তাদের কর্মচারীদের সাথে যেমন বন্ধুভাবাপন্ন, তেমনই সেখানে কাজ করে চরম মজা পাওয়া যায়। এবং লক্ষ্য করলে দেখতে পাবেন যে  এসব স্থানে কাজ করার অভিজ্ঞতাটাই আলাদা। তাই, এই কোম্পানীগুলোর সাথে কাজ করাতে চাইলে এখন থেকেই প্রিপারেশন নিতে থাকুন।

ধন্যবাদ। আজ এই পর্যন্তই। পরির টিউনে আবার দেখা হবে।

 

Level 2

আমি অরিন্দম পাল। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 11 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 82 টি টিউন ও 316 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 19 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

মানসিক ভাবে দূর্বল । কোন কাজই কনফিডেন্টলি করতে পারি না , তবুও দেখি কাজ শেষ পর্যন্ত হয়ে যায় । নিজের সম্পর্কে এক এক সময় ধারণা এক এক রকম হয় । আমার কোন বেল ব্রেক নেই । সকালে যে কাজ করব ঠিক করি , বিকালে তা করতে পারি না । নিজের...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

এমন টিউন করার জন্য thanks……আরও আশা করি ।

আমি আজ প্রথম টেকটিউনার হলাম , টেকটিউনার গ্রুপ কে আমাকে টিউনার হবার সুযোগ দেওয়ার জন্য আন্তরিক অভিন্দন ও শুভেচ্ছা । যারা এখন পর্যন্ত টিউনার হন নাই তাদের সকলকে টিউনার হবার জন্য আহব্বান জানাচ্ছি । ধন্যবাদ সবাইকে ।

onek sundor tune.

ধন্যবাদ। “এ” গ্রেড টিউন।

সুন্দর টিউন

সুন্দর টিউন

যারা সারা জীবন প্রযুক্তির সাথে যুক্ত থাকতে চায়, তাদের জন্য অসম্ভব গুরুত্বপুর্ন একটি টিউন। ধন্যবাদ টিউনারকে।

বড় সব প্রতিষ্ঠানগুলোর ভিতর এবং বাইরের পরিবেশটাই এমন যে ওখানে কর্মীদের জোর করে আটকে রাখতে হয় না- ওরা নিজেরাই আটকে থাকে 😉 প্রবাসীদের বিভিন্ন ব্লগ পড়ে ওই নন্দনকাননে কর্মরতদের সম্বন্ধে এমন ধারণাই আমার মনে বদ্ধমূল হয়েছে…..যাহোক, লিস্টটা বছর বছর কিছুটা পরিবর্তিত হলেও সিলিকন ভ্যালী বেজড এসব ফার্মগুলো একেকটা ক্রিয়েটিভ পাগলদের কারখানা….. আর গুগলকে শীর্ষে না দেখলেই বরং মনটা আনচান করে কেন জানি :mrgreen:

টিউনের জন্য ধইন্যার সুবাস 🙂