৯৫ শতাংশ স্ক্র্রিণ রেশিও নিয়ে আসছে Sony Experia XZ3

টিউন বিভাগ খবর
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

সনি এক্সপেরিয়া জেড এর কথা মনে আছে? ওই যে ক্যাটরিনা কাইফের এডযুক্ত লম্বাটে অ্যান্ড্রয়েড ফোন যেটা ২০১৩ সালে বাজারে এসেছিল এই কোয়াড কোর প্রসেসর আর ২ জিবি র‌্যামের সেটটি। এখন বাজারে আপনি Sony Experia XZ2 পাচ্ছেন। কিন্তু ২০১৯ সালে বাজারে আসতে চলেছে সনি এক্সপেরিয়া এক্সজেড ৩। আর আজকের টিউনটি এই ডিভাইসটির উপরই একটি প্রিভিউ হিসেবে লেখা।

আইফোন এক্স এর চমৎকার ডিজাইনের জন্য সেটার দাম এবং সেটা নিয়ে দুনিয়াতে অনেক মাতামাতি হয়েছিল এবার আবারো একই ধরনের মাতামাতির জন্য অপেক্ষা করুন কারণ এবারের সনি এক্সপেরিয়া ডিভাইসে আপনি পাচ্ছেন ৯৫% স্ক্র্রিণ রেশিও মানে ডিজাইনের আরেকটি ইউনিক পরিবর্তন আপনি ডিভাইসে পেতে যাচ্ছেন।

টেককনফিগারেশন কোম্পানি এবারের সনি এক্সপেরিয়ার ডিভাইসটি বানাচ্ছে আর বাজারে আপনি ডিভাইসটিকে পাবেন Sony Xperia XZ3 Infinity নামে।

এক্সজেড ৩ ডিভাইসের পেছনের ২টি লেন্সের ডুয়াল ক্যামেরা সেটআপ থাকবে। কিন্তু সামনের ক্যামেরাকে পপ আপ সিস্টেমে আনা হয়েছে যেটি অনেকটাই চমৎকার এবং একটি ইউনিক আইডিয়া। আর ডিভাইসে পাচ্ছেন ৬.২ ইঞ্জির বিশাল 95% Ratio এর স্ক্রিণ। আর বাকি ৫% উপরের এবং নিচের স্টোরিও স্পিকারের জন্য রাখা হয়েছে। ডিভাইসটি বানানো হয়েছে মেটাল ফ্রেমের সাহায্যে। ডিসপ্লে পাচ্ছেন 4K OLED প্রযুক্তি। ৫ ইঞ্জির ডিভাইসগুলোই দুহাতে চালাতে কস্ট হয় আর এই ছয় ইঞ্চির চেয়ে বড় এবং বিশাল ডিভাইসটি চালাতে আপাতত কস্ট হলেও ডিজাইনে মনমুগ্ধ হয়ে যাবেন আপনি।

ফ্রন্ট ক্যামেরাটি Pop Up camera হিসেবে পাবেন সেটি ফ্রন্ট ক্যামেরা মোডে গেলে ০.৮ সেকেন্ডে পপ আপ হয়ে আপনার সামনে আসবে। এতে আরো পাবেন AI beautification এবং Ultrasonic Proximity Sensors।

ডিভাইসে ধারণা করা হচ্ছে যে প্রসেসর হিসেবে ব্যবহার করা হবে স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫ কারণ স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ প্রসেসরটির ২০১৯ সালের মাঝামাঝি নাগাদ মুক্তি পেতে পারে আর আমরা এক্সজেড৩ ডিভাইসটি ২০১৯ সালের শুরু দিকে পাবো। স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫ প্রসেসরটি বানানো হয়েছে 10nm LPP  প্রসেসর এবং এতে রয়েছে টোটাল আটটি কোর যাদের মধ্যে চারটি রয়েছে Kryo 385 2.7Ghz যেগুলো হেভি ডিউটি সার্ভিস দেবে এবং রয়েছে আরো চারটি Kryo 385 1.7GHz যেগুলো ডিভাইসের সাধারণ কাজগুলোকে পারফরমেন্স দেবে।

এক্স জেড ৩ ডিভাইসে আপনি আরো পাবেন Dedicated AI Processing Unit তার মানে হলো এর মাধ্যমে ডিভাইসে আপনি আরো অধিক কোয়ালিটিযুক্ত XR Headsets, ল্যাগফ্রি গেমিং এবং লং লাস্টিং ব্যাটারী সার্পোট পাবেন। ডিভাইসটির র‌্যাম থাকতে পারে ৬ গিগাবাইট তবে এটি এখনো নিশ্চিত নয়।

এক্সজেড ৩ ডিভাইসের ক্যামেরায় আপনি পাবেন ২০ মেগার ২টি লেন্সযুক্ত টোটাল ৪০ মেগাপিক্সেলের ব্যাক ক্যামেরা যা দিয়ে অসম্ভব সুন্দর এবং বাস্তবিক ছবি আপনি তুলতে পারবেন। এতে আপনি আরো পাবেন Motion Eye Camera ফিচার, পাবেন LED flash এবং 4K HDR Video রেকর্ডের সুবিধা সাথে পাবেন super-slow motion FHD video 960 FPS এ রেকর্ড করার সুবিধা এবং EIS ফিচার, পাবেন Bokeh effect সার্পোট, লেজার ফোকাস সহ আরো অনেক বিল্ট ইন ফিচার যা এখনই সনি বলছে না।

অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে পাবেন একদমই নতুন অ্যান্ড্রয়েড পি বা অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ OS। ২০১৮ সালের কোনো স্মার্টফোনেই আপনি অ্যান্ড্রয়েড পি প্রি-ইন্সটলেড হিসেবে পাবেন না। তবে এক্সজেড ৩ যদি ২০১৮ সালের একদম শেষেও যদি রিলিজ করা হয় তাহলে এটি অ্যান্ড্রয়েড পি যুক্ত প্রথম ডিভাইস হিসেবে আপনি অ্যান্ড্রয়েড পি এর স্বাদ নিতে পারবেন। আর অ্যান্ড্রয়েড পি এর কিছু নতুন ফিচার নিয়ে আমি আগে একটি টিউন করেছি সেটাও আপনি দেখে নিতে পারেন যদি সেটা না পড়ে থাকেন তাহলে। আপাতত মাত্র ৮টি  ডিভাইসে আপনি অ্যান্ড্রয়েড পি ব্যবহার করতে পারবেন সেগুলো হলো গুগল পিক্সেল, পিক্সেল  এক্সএল, গুগল পিক্সেল ২, পিক্সেল ২ এক্সএল, এইচটিসি ইউ১১, ইউ১১ প্লাস এবং এলজি ভি৩০, ভি৩০এস।

আপকামিং অ্যান্ড্রয়েড পি এর আপকামিং বেস্ট ফিচারগুলো

আর ডিভাইসটির ব্যাটারী সম্পর্কে কিছু নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না তবে ধারণা করা হচ্ছে যে এটি 3500 থেকে 4000 mAH ক্ষমতার রিমুভেবল ব্যাটারী থাকবে যেখানে আপনি অনেকগুলো অপটিমাইজেশন পাবেন যাতে আরো বেশিক্ষণ ব্যাটারী আপনাকে ব্যাকআপ দিতে পারে। এছাড়াও সনির Stamina Mode কে আরো উন্নত করা হবে যা দিয়ে আপনি কয়েকদিন পর্যন্ত বিনা চার্জে ব্যাটারীকে ব্যাকআপ করিয়ে নিতে পারবেন। আরো থাকছে Quick Charge 4+ ফিচার যেটার মাধ্যমে চার্জের সময় ডিভাইস হিট হবে না এবং চার্জিং স্পিড অনেক দ্রুত পাবেন আপনি।

তো এই ছিল সনি এক্সপেরিয়া এক্সজেড ৩ সম্পর্কে এ পর্যন্ত যাবতীয় তথ্য। ডিভাইসটির র‌্যাম সহ টোটাল পূর্ণাঙ্গ কনফিগারেশন এবং এর মূল্য আমরা এ বছরের শেষের দিকে জানতে পারবো। দেখা যাক সনি এবারে আমাদের জন্য কি চমক রাখছে।

আজ তাহলে এ পর্যন্তই থাক। টিউনটি ভালো লাগলে নিদ্বির্ধায় জোস বাটনে ক্লিক করে ফেলুন। আর ডিভাইসটির সম্পর্কে কোনো মতামত দিতে চাইলে সেটা নিচের টিউমেন্ট বক্সে করে ফেলুন।

Level 10

আমি ফাহাদ হোসেন। Supreme Top Tuner, Techtunes, Dhaka। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 662 টি টিউন ও 429 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 118 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

যার কেউ নাই তার কম্পিউটার আছে!


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস