ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

এক্সক্লুসিভ: এই প্রথম Windows 8 এর ইউজার ইন্টারেফস প্রদর্শন করল Microsoft! (দেখুন ছবিসহ)

রেডমন্ড, ওয়াশিংটন, ১ জুন, ২০১১। ভদ্রমহিলার নাম জুলি লারসন-গ্রীন। পেশায় করপোরেট ভাইস প্রেসিডেন্ট, উইন্ডোজ এক্সপেরিয়েন্স। আসুন তার জবানিতেই জেনেই আদ্যোপান্ত:

ADs by Techtunes ADs

আজকে, ডি৯ কনফারেন্সে, এই প্রথম বারের মত আমরা উইন্ডোজের নেক্সট জেনারেশন প্রদর্শন করলাম, যার অন্তনির্হিত কোড-নেম "Windows 8"। উইন্ডোজ ৮ হচ্ছে চিপ থেকে উইন্ডোজ ইন্টারফেসের একটি নতুন ধারনা। এটা আসলেই একটি নতুন ধরনের ডিভাইস, ছোট থেকে বড় পর্দা সবক্ষেত্রেই থাকবে স্পর্শকাতর, সাথে কী-বোর্ড/ মাউস সহ অথবা এগুলো ছাড়াই।

প্রদর্শনীতে দেখানো হয়েছে, কীভাবে আমরা নিউ জেনারেশন টাচ-সেন্ট্রিক হার্ডওয়্যার জন্য ইন্টারফেসের কিছু নতুন প্রক্রিয়া সম্পর্কে চিন্তাভাবনা করেছি। উইন্ডোজের ক্ষমতা, ফেক্সিবিলিটি এবং কানেক্টিভিটি অপপরিবর্তিত রেখেই তা হয়েছে আরও ফাস্ট, ফ্লুইড এবং ডাইন্যামিক।

প্রদর্শিত নতুন ইন্টারফেসের কিছু বৈশিষ্ট এখানে দেয়া হলো:


* টাইল-বেজড স্টার্ট স্ক্রীন থেকে দ্রতু এ্যাপস লঞ্চিং করা যায় যা উইন্ডোজের স্টার্ট মেন্যু রিপ্লেস করেছে এং তা কাস্টমাইজেবল আবার ফুলস্ক্রীণ স্ক্যালেবল।

* লাইভ টাইলসের সাথে নোটিফিকেশন, সবসময় আপ-টু-ডেট তথ্য দেখিয়ে যেতে থাকবে।

* চলমান এ্যাপ্লিকশেনগুলো সুইচিং করা যাবে ফ্লুইড এবং ন্যাচারালি।

* স্ক্রীনের পার্শ্বে যে কোন এ্যাপ্লিকেশনকে সুবিধাজনকভাবে স্ন্যাপ এবং রিসাইজ করার ক্ষমতা, উইন্ডোজের সামর্থ্য ব্যবহার করে তাই আপনি সহজেই মাল্টিটাস্ক করতে পারবেন।

* ওয়েব-কানেক্ট এবং ওয়েব-পাওয়ারড এ্যাপ্লিকেশনগুলো বিল্ট-ইন HTML 5 এবং JavaScript ব্যবহার করা হয়েছে যা পিসির সবোর্চ্চ ক্ষমতা এ্যাকসেস করবে।

* সবোর্চ্চ হার্ডওয়্যার এক্সেলেরেটেড "ইন্টারনেট এক্সপ্লোলার ১০" দিয়ে করা যাবে সম্পূর্ণ টাচ-অপ্টিমাইজড ব্রাউজিং।

ADs by Techtunes ADs

বর্তমানের উইন্ডোজ প্রোগ্রামগুলো এবং উইন্ডোজ ৮ এর এ্যাপ্লিকেশনগুলোর মধ্যে মুভমেন্টের জন্য দেখানো হয়েছে নিরন্তর উদ্যম। চলমান উইন্ডোজের সকল সামর্থ্যই আপনি পাবেন, ইউন্ডোজ এক্সপ্লোরার এবং ডেস্কটপসহ যেমনটা সমস্ত উইন্ডোজ সেভেন লগো পিসি, সফটওয়্যার এবং পেরিফেরালস এর জন্য করা হয়েছে।

যদিও নতুন ইউজার ইন্টারফেস ডিজাইন এবং অপটিমাইজ করা হয়েছে স্পর্শকারতা (টাচ)-এর জন্য , সমানতালে মাউস এবং কী-বোর্ডেও এটা ব্যবহার করা যাবে। এ ব্যাপারে আমাদের মনোভাব হচ্ছে- নো কম্প্রোমাইজ- আপনি যে কোন পেরিফেরালের ডিভাইসই পছন্দ করেন না কেন, আপনি তা ব্যবহার করতে পারবেন। নতুন এই আবিষ্কার অব্যশই নিউ জেনারেশনের হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট উৎসাহিত করবে, উন্নত করবে বিশ্বের পিসি ইউজারদের এক্সিপেরিয়েন্স।

আজকে , নতুন সিস্টেমের জন্য ডেভেলপারগণ কীভাবে এ্যাপস তৈরী করছে সে ব্যাপরে কিছু আলাপ হয়েছে। উইন্ডোজ ৮ এ্যাপস ব্যবহার করবে এইচটিএমএল-৫ এর ক্ষমতা, সাথে স্ট্যান্ডার্ড জাভা স্ক্রীপ্ট এবং এইচটিএমএল যা নতুন ধরনের ইন্টারফেস সরবরাহ করবে। এসব নতুন এ্যাপসগুলি সমস্তই ফুলস্ক্রীন এবং টাচ-অপটিমাইজড এবং এগুলো সহজেই উইন্ডোজ ইউজার ইন্টারফেসের সাথে কম্প্যাটিবল অবস্থায় ইন্টিগ্রেট করা থাকবে।

ডেভেলপারদের কাছে নতুন প্ল্যাটফর্ম এবং টুলস আবিষ্কারের দ্বার উন্মোচন করায় আমরা সত্যিই উৎফুল্ল এবং এটা এখন দেখার বিষয়, তারা কতটুকু তাদের ক্রয়েটিভি প্রদর্শনের মাধ্যমে নতুন ধরনের এ্যাপস তৈরী করতে পারে। এবং, এটা কেবলই টাচ পিসি’র বিষয় নয়। নতুন ইন্টারফেস কাজ করবে কী-বোর্ড এং মাউস সহ অথবা এগুলো ছাড়াই, বড় মাপের প্রস্তত পর্দায়, ছোট স্লেট অথবা ল্যাপটপ, ডেস্কটপ, অল-ইন-ওয়ান এমনকি ক্লাসরুম সাইজড ডিসপ্লে-তেও। শত মিলিয়ন পিসিতে চলবে উইন্ডোজ ৮ ইউজার ইন্টারফেস!

যেমনটা এ বছরে শুরুতে বলা হয়েছিলো, উউন্ডোজ ৮ চলবে System on a Chip (SoC) প্রসেসরে, প্রদর্শনীতে সেটাই অনুসরণ করা হয়েছে এবং আমাদের ব্রাউজার ইঞ্জিন, তাৎপর্যপূর্ণভাবে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ১০ জন্য জন্য স্ট্যান্ডার্ড সাপোর্ট বৃদ্ধি করেছে। উউন্ডোজ ৮ এর এসব আবিষ্কার এবং নতুন ধ্যান ধারনা, উইন্ডোজ আর্কিটেকচার যেমন- কার্নেল, নেটওয়াকিং, স্টোরেজ, ডিভাইস, ইউজার ইন্টারফেস সবকিছুইকেই প্রশস্ত করবে।

এটাই শেষ নয়, আমাদের থলিতে থাকা আরও অনেক কিছুই আসছে। আরলি টেস্টিং এর জন্য আমরা খুব কঠোর পরিশ্রম করছি এবং আমার পরিকল্পনা করেছি টীম ব্লগের মাধ্যমে আমাদের ইঞ্জিনিয়ারিং ডায়ালগটা আবার শুরু করব, যেমনটা আমরা করেছিলাম উইন্ডোজ সেভেন-এর জন্য।

তাই, আমাদের সাথেই থাকুন- আমাদের অনেক নতুন নতুন চমকপ্রদ সব আবিষ্কার আসছে সামনের মাসগুলোতে।

1
By Julie Larson-Green
Corporate Vice President, Windows Experience

এবার আসুন আমার কথায়। এই নিউজটা গত পরেশো দিনই দেখেছি। আলসেমির জন্য লিখে উঠতে পারছিলাম না। যা হোক, এখন দেখা যাক এর অনন্য বৈশিষ্ট্যের এক্সক্লসিভ কিছু স্ল্যাপশট যা ঐদিনের প্রদর্শিত প্রকাশিত ভিডিও থেকে নিয়েছি।


০১। এটা হলো স্টার্ট!
01

ADs by Techtunes ADs

০২.। শুরুতেই দেখা যাচ্ছে মাল্টিটাস্কিং এখন ছেলেখেলা। পাশ থেকে টেনে এ্যাপস সুইচিং করা হচ্ছে
02

০৩। একপাশ থেকে এ্যাপস সুইচিং করে পরবর্তী মাল্টি এ্যাপস থেকে নিউজ ফিড টাচ করার চিত্র
03

০৪। এসে গেল নিউজ ফিড। সেখানকার মাল্টিফিড থেকে বাছাই করা হচ্ছে একটি
04

০৫। হাজারো এ্যাপস থেকে বাছাই করা হয়েছে ওয়েদার, বিস্তারিত দেখা যাচ্ছে পুরো পর্দা জুড়ে
05

০৬। সেখান থেকে সুইচিং করে আবার ইন্টারনেটে। পাশে মাল্টিটাস্ক সুবিধার এ্যাপস
06

০৭। ইন্টারনেট চালু থাকা অবস্থায়ই পাশ থেকে টেনে আনা হচ্ছে ভিডিও।
07

০৮। এটা হচ্ছে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ১০ এর কারিশম্যাটিক ট্যাব..
08

০৯। ট্যাব টাচ করার পর...
09

১০। এক্সেলে চলছে হিসাব নিকাশের কাজ। পাশাপাশি টুইট দেখাও...
10

১১। পাওয়ার পয়েন্ট খোলা রেখেই উইন্ডোজ এক্সপ্লোরারের সাহায্যে প্রয়োজনীয় ফাইলের খোঁজ চলছে..
11

ADs by Techtunes ADs

১২। ভিডিও দেখার পাশাপাশি লাইভ নিউজেও চোখ রাখা যাচ্ছে
12

১৩। এই হলো অন-ক্রীন কী-বোর্ড! এখন আর মাউস কিংবা কী-বোর্ড দরকার নাই!!
(মাউস আর কী-বোর্ড প্রস্তুতকারক কোম্পানীগুলো তাহলে কী করবে???)
13

* ছবি দেখে মন না ভরলে, দেখুন তাহলে ইউটিউব ভিডিও।
YouTube Video Link

লেখাটি একই সাথে আমার ব্লগসাইট: আবর্ণক::: ফুল ফ্রি সফটওয়্যারস ডাউনলোড এ প্রকাশিত।

তথ্যসূত্র: মাইক্রোসফট নিউজ সেন্টার থেকে অনূদিত। ভাষান্তর: আবর্ণক।

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি আবর্ণক। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 10 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 24 টি টিউন ও 147 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

ফুল ভার্সন সফটওয়্যারের জগতে আপনাকে স্বাগতম! এই প্রথম কোন বাংলা সাইটে পাবেন অতি প্রয়োজনীয় এবং মূল্যবান সব ফুল ভার্সন সফটওয়্যারের বাংলা প্রিভিউ এবং সরাসরি ফ্রি ডাউনলোড লিংক। ভিজিট করুন: http://abornoc.tk/


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

হুমম, স্মার্টফোন আর ট্যাবলেটের জন্য বলে মনে হচ্ছে!

    সবকিছুর জন্যই। টিউন পুরোটা পড়লে বুঝতে পারতেন।

কবে আমার কম্পিউটারে সেট আপ দিব ভাই।

    হা হা…. আমার তো মনে মনে হচ্ছে ডিভিডটা রমে ঢুকিয়ে সেট-আপ দেওয়া শুরু করি।

নাহ, তেমন খুশি হতে পারলাম না। দেখে মনে হচ্ছে উইন্ডোজ ৭ এর ইন্টারফেসের গুটিকয়েক এদিক-সেদিক। মাল্টিটাচ ডিসপ্লে নেই এমন ইউজারদের এখন পর্যন্ত উইন্ডোজ ৮ নিয়ে খুব বেশী উৎসাহী হওয়ার কারন দেখছিনা 🙁

    আমার মোটেই তা মনে হচ্ছে না। এটা তো ভাই টাচ ছাড়াও চালাতে পারবেন। আপনি কী পুরোটা পড়েছেন এবং ইউটিউব ভিডিওটা দেখেছেনে?
    আরেকটা কথা, কী হলে খুশি হতেন?

উইন্ডোজ ৮ বাজারে আসলে আমার করণীয়:

১। আমাকে একটা টাচ্-স্ক্রীণ মনিটর কিনতে হবে।
২। মনিটরটি হতে হবে ১৬ : ৯ (যা আমার এক্কেবারে অপছন্দ; আমি সবসময় স্কয়ার মানে ৪ : ৩ মনিটর পছন্দ করি)।
৩। এখন উইন্ডোজ ৭ চালাই। এই একই কনফিগারে উইন্ডোজ ৮ চলবে তো?

তবে বুঝতে পারছি, উইন্ডোজ ৮ দারুণ একটা অভিজ্ঞতা দিবে। আমি উত্তেজনায় টগবগ করে ফুটছি!! 😀

অফ টপিক: ভদ্রমহিলার হাসিটা আমাকে পাগল করেছে!!! 😛

    হা হা…. ভদ্রমহিলাকে তাহলে ই-মেইল করতে হয় যে, আপনাদের প্রোডাক্টের সাথে আপনার হাসিটাও আমরা পছন্দ করেছি।

    আপনার উত্তেজনাটা ভিডিওটা দেখার সময় আমি টের পেয়েছি। তখন আমিও টগবগ করে ফুটেছি…

ভিডিও লিঙ্ক সরাসরি দিয়ে দিন তাহলে এখানেই দেখা যাবে।

ভাল টিউন।

    আরেকটু ঝেড়ে কাশেন মানে কিভাবে ভিডিওটা দিব একটু বিস্তারিত বলনু প্লীজ! ধন্যবাদ আপনাকে।

ধন্যবাদ আপনাকে নিউজটা জানানোর জন্য………

    আপনাকেও ধন্যবাদ, নিউজটা পড়ার জন্য।

চমকপ্রদ খবর পড়ে অনেক মজা পাইলাম ধন্যবাদ

    হুম, প্রথম পড়ে আমিও মজা পেয়েছিলাম। ধন্যবাদ আপনাকে।

বাজারে windows 8 লেখা অনেক dvd পাওয়া যাচ্ছে এগুলো কি modified windows 7? টিউনটির জন্য ধন্যবাদ।

Level 0

এবার বুঝি সব Desktop আর Laptop গুলার দিন শেষ !!!