নোকিয়া : নতুনত্বে, নতুন শক্তিতে আর্বিভাব

গত দশকের ঘটে যাওয়া ঘটনাগুলোর মধ্যে সবচেয়ে নিদারুণ হচ্ছে নোকিয়ার মতো প্রতিষ্ঠিত একটি মোবাইল কোম্পানির প্রযুক্তি জগত থেকে নিরবে অর্ন্তধান। প্রযুক্তির ক্ষেত্রে মোবাইল উদ্ভাবন যেমনি একটি আলোড়ন সৃষ্টিকারী ঘটনা ছিল ঠিক তেমনি সাশ্রয়ী মূল্যে হাতে হাতে এই প্রযুক্তি পৌছে দেয়ার ক্ষেত্রে নোকিয়া একটি বিরাট অবদান রেখেছে। একটি সময় ছিল যখন মোবাইল ব্যবহারকারীরা শুধুমাত্র একটি কোম্পানিকেই চিনত। বিশেষ করে দক্ষিণ এশিয়ায় নোকিয়া তার ব্যবসার ক্ষেত্রকে দারুণভাবে প্রসারিত করেছে।

অভিযোজনের নীতিটি প্রযুক্তির ক্ষেত্রেও যে সত্য সেটি হয়তো নোকিয়া অনুধাবন করতে পারেনি অথবা মানতে পারেনি। ফলশ্রুতিতে নিয়মতান্ত্রিকভাবেই তাদের নির্বাসন হয়েছে। শেষ পর্যন্ত তাদেরকে নিলামের মতো দেউলিয়াতে ও পড়তে হয়েছে। তাদের জায়গা দখল করে প্রযুক্তির বিশ্বে আবির্ভাব ঘটেছে অসংখ্যা প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের।

কিন্তু শব্দটি যেন শেষ শব্দটিকে  সবসময় চ্যালেঞ্জ এ রাখে। সেই নিয়মে আবারও মোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নোকিয়া হাজির হয়েছে তাদের নতুন কারিশমা নিয়ে। তাদের সাড়া ফেলে দেওয়া কতগুলো মডেলের মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে নোকিয়া-8।

বাংলাদেশী টাকায় এর প্রতাশিত মূল্য ধরা হয়েছে প্রায় 44990 টাকা। অন্যান্য এ্যন্ড্রয়েড সেটের সাথে মিল রেখে এতেও ডুয়াল সিম ব্যবহারের ব্যবস্থা রয়েছে। 4 জিবি র‌্যামের সাথে বিল্পইন রয়েছে 64 জিবি মেমোরি। ব্যবহারকারীর সেলফি খায়েশ মেটাতে রয়েছে ফ্রন্ট-ব্যাক উভয় ক্ষেত্রে 13 মেগাপিক্সেল ক্যামরা। দীর্ঘসময় পাওয়ার ব্যাকাপের জন্য রয়েছে 3090 অ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি।

ইনটারনেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে 3জি 4জি উভয় সুবিধা সংযুক্ত করা হয়েছে। অ্যান্ডয়েড ভারসন 7.1.1 (নগাট) এর সঙ্গে রয়েছে 2.45 গিগাহার্টজ এর প্রসেসর।

অল্পকিছু অসুবিধা ব্যতিত নোকিয়া-8 দারুণ সংস্করণ যা নোকিয়াকে তার হারানো অবস্থান ফিরিয়ে আনতে সহায়তা করবে। ফোনটিতে একই সাথে দুটি সিম অথবা দুটি মেমোরি কার্ড ব্যবহার করা যাবেনা।

Level 1

আমি বৈরাম খান। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 3 বছর 8 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 2 টি টিউন ও 1 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস