ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

সবচেয়ে সহজ এবং ১০০ নিরাপদ উপায় অ্যান্ড্রয়েড ফোন রুট করার

আমি আপনাদেরকে ০৩ টি উপায়ে অ্যান্ড্রয়েড রুট করার কৌশল দেখাবো এক সময় অ্যান্ড্রয়েড ফোন রুট করা অনেক কঠিন একটা ব্যাপার ছিল কিন্তু এখন রুট করাটা অনেক সহজতর ব্যাপার হয়েগেছে। তিনটির মধ্যে একটি কম্পিউটারের মাধ্যমে এবং বাকী দুটি পদ্ধতী দেখাবো কিভাবে কম্পিউটার ছাড়াও আপনার নিজস্ব মোবাইলের মাধ্যমে রুট করতে হয়। এই তিনটি পদ্ধতীই সহজ এবং বর্তমান সময়ের জন্য খুবই নিরাপদ। যার যার চাহিদামত কম্পিউটার অথবা মোবাইলের মাধ্যমে আপনার প্রিয় অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলটি-কে রুট করে নিতে পারবেন। আর যাদের কম্পিউটার আছে তারা ইচ্ছা করলে তিনটির মধ্যে যে কোন একটি উপায়ে রুট করে নিতে পারবেন। যাদের কম্পিউটার কিংবা ল্যাপটপ নেই তারা চাইবে মোবাইলের সাহায্যে রুট করে নিতে। সবার চাহিদার কথা ভেবে আমি আপনাদের জন্য এই পদ্ধতিগুলো একসাথে শেয়ার করে দিলাম। তবে আমার পরামর্শ হচ্ছে যাদের কম্পিউটার আছে তারা অবশ্যই কম্পিউটার এর মাধ্যমে রুট করে নিবেন। কারণ কম্পিউটার এর মাধ্যমে রুট করা সবচেয়ে সহজ এবং নিরাপদ।
it blogs
রুট কিঃ শব্দটি এতোই প্রচলিত হয়ে গেছে যে, রুট ইউজার বলার বদলে সবাই এটিকে সরাসরি রুট বলে থাকে। সবচেয়ে সহজ শব্দে বলা যায়, রুট হচ্ছে অ্যাডমিনিষ্ট্রেটর বা প্রশাসক। যদিও এর বাংলা অর্থ গাছের শিকড়, লিনাক্সের জগতে রুট বলতে সেই পারমিশন বা অনুমতিকে বোঝায়, যা ব্যবহারকারীকে সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী করে তোলে। রুট হচ্ছে একটি অ্যাডমিনিষ্ট্রেশন পারমিশন বা অনুমতি। এই অনুমতি থাকলে ব্যবহারকারী সেই ডিভাইসে যা ইচ্ছে তাই করতে পারেন। উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে ব্যবহারকারী অ্যাডমিনিষ্ট্রেটর প্রিভিলেজ ছাড়া সিস্টেম ফাইলগুলো নিয়ে কাজ করতে পারেন না। লিনাক্সেও তেমনি রুট পারমিশন প্রাপ্ত ইউজার ছাড়া সিস্টেম অ্যাডমিনিষ্ট্রেশনের কাজগুলো করা যায় না। যিনি লিনাক্স-চালিত কম্পিউটার বা সার্ভারে যা ইচ্ছে তাই করতে পারেন অথবা যার সব কিছু করার অনুমতি রয়েছে, তাকেই রুট ইউজার বলা হয়। নিচে আমি বর্ণনা করবো কিভাবে রুট করতে হয়।
আমি আগেই বলে দিয়েছি যাদের কম্পিউটার আছে তারা অবশ্যয় এই পদ্ধতিতে রুট করে নেবেন। কারণ এটি সম্পূর্ণ নিরাপদ অর্থাৎ মোবাইল ব্রিক করার কোন প্রকার ঝুকি নেই। এ পদ্ধতিতে অ্যান্ড্রয়েড এর যে কোন ভার্সন-কে রুট করতে পারবেন। সর্বশেষ Android Oreo-8.00 ভার্সন পর্যন্ত এটি অনায়াসে রুট করতে সক্ষম। মোবাইল রুট করার ক্ষেত্রে এ সফটওয়ারটি কোন কোন ধরনের ডিভাইস সাপোর্ট করছে সে বিষয়ে তাদের অফিসিয়াল সাইট থেকে বিস্তারিত জানতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে তাদের তালিকায় আপনার ডিভাইসটি রয়েছে কি না সে বিষয়ে নিশ্চিত হতে পারবেন। তাহলে দেরী না করে কাজের কথায় আসি।

ADs by Techtunes ADs
  • Kingo Android Root সফটওয়ারটি আপনার কম্পিউটারে ডাউনলোড করে ইনস্টল করে নিন।

এখন আপনাকে ছোট একটা কাজ করতে হবে। মোবাইলের Developer Options অন করে Enable USB Debugging এ ঠিক চিহ্ন দিতে হবে। এটি করার জন্য আপনার মোবাইলে Settings থেকে Developer Options যেতে হবে।

  • তারপর USB Cable এর মাধ্যমে আপনার মোবাইলটি কম্পিউটারের সাথে কানেক্ট করুন।
  • কানেক্ট হওয়ার পর এটি অটোমেটিক্যালি ড্রাইভার ডাউলোড করে ইনস্টল করে নেবে। এর জন্য অবশ্যয় আপনার কম্পিউটারটি ইন্টারনেট এর সাথে কানেক্টেট থাকতে হবে।
  • ড্রাইভার ইনস্টল হওয়ার পর মোবাইলটি কম্পিউটার থেকে ডিসকানেক্ট করে আবার কানেক্ট করেন
  • এখানে শুধু ROOT এ ক্লিক করলেই আপনার মোবাইলটি রুট হতে শুরু করবে। এর মধ্যে আপনাকে কিছুই করতে হবে না। নিচের চিত্রের মত রুট হওয়ার অপশন শো করতে থাকবে। (রুট হওয়ার জন্য ২-৩ মিনিট সময় নিতে পারে)
  • রুট কমপ্লিট হওয়ার পর নিচের চিত্রের মত সাকসেছ ম্যাসেজ শো করলে Finish Button এ ক্লিক করতে হবে।
  • তারপর আপনার মোবাইলটি রিস্টার্ট করুন। That's All.
  • নোটঃ রুট করতে কোন প্রকার সমস্যা হলে Kingo Root এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট হতে রুট করার টিউটোরিয়াল দেখে নিতে পারেন। তারা তাদের অফিসিয়াল সাইটে সকল ধরনের ডিভাইস রুট করার টিউটোরিয়াল শেয়ার করেছে।

 দ্বিতীয় পদ্ধতী - মোবাইলের মাধ্যমে রুটঃ
দীর্ঘ দিন থেকে Kingo Root শুধুমাত্র কম্পিউটার এর মাধ্যমে অ্যান্ড্রয়েড ফোন Root করার সুবিধা দিয়ে আসছিল। বিগত এক-দুই বছর যাবৎ তারা Kingo Root এর Apk ভার্সন বের করেছে। ফলে এখন থেকে যাদের হাতে নাগালে কম্পিউটার নেই তারাও অত্যান্ত কার্যকরী এই App টি দিয়ে সহজে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলটি রুট করে নিতে পারবেন।

  • প্রথমে এখান থেকে Kingo Root অ্যাপটি ডাউনলোড করুন।
  • তারপর অ্যাপটি Install করে Launch করলে নিচের চিত্রটি দেখতে পাবেন। (মোবাইলের ইন্টারনেট কানেশন অবশ্যই একটিভ করে রাখবেন)
  • এখন উপরের চিত্রের নীল কালারের One Click Root  অপশনে ক্লিক করলে নিচের চিত্রের ন্যায় রুট হওয়া শুরু করবে।
  • এই অংশে আপনাকে কিছুই করতে হবে না। শুধুমাত্র রুট না হওয়া পর্যন্ত কিছু সময় অপেক্ষা করতে হবে। রুট সম্পন্ন হওয়ার পর নিচের চিত্রেরমত Success Message শো করবে।
  • এতটুকু করলেই দ্বিতীয় পদ্ধতীতে আপনার মোবাইল রুট হয়ে যাবে।

তৃতীয় পদ্ধতী - মোবাইলের মাধ্যমে রুটঃ

এ পদ্ধতীতে দেখাবো কিভাবে Kingroot অ্যাপ দিয়ে মোবাইলের মাধ্যমে খুব সহজে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোন রুট করবেন। নামের দিক থেকে Kingo Root এবং Kingroot দেখতে প্রায় এক রকম হলেও একটু মনোযোগ সহকারে দেখলে নামের পার্থক্য বুঝা যায়। অ্যান্ড্রয়েড ফোন রুট করার জন্য বর্তমান সময়ে এটি খুবই সহজ এবং জনপ্রিয় একটি অ্যাপ। এটি শুরুর দিকে শুধুমাত্র Chines Version ছিল কিন্তু বিগত এক বছর থেকে English Version বের হয়েছে। এটি দিয়ে মাত্র এক ক্লিক করেই আপনার ফোনটি রুট করতে পারবেন। এটি দিয়েও অ্যান্ড্রয়েড এর প্রায় সকল আপডেট ভার্সন পর্যন্ত রুট করা যায়। এই অ্যাপস এর ডেভেলপারদের ভাষ্য অনুসারে বর্তমানে প্রায় এক লক্ষ এর বেশী ধরনের ডিভাইস রুট করা যায়।

  • প্রথমে এখান থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করে ইনস্টল করুন।
  • ইনস্টল হওয়ার পর অ্যাপটি অপেন করলে কিছুক্ষনের মধ্যে আপনার মোবাইলটি স্ক্যান হবে এবং নিচের চিত্রটি শো করবে। রুট করার জন্য অবশ্যই আপনার মোবাইলের ইন্টারনেট একটিভ করে রাখবেন। বাকি অংশ দেখুন

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি আইটি ব্লগ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 2 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 24 টি টিউন ও 4 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 5 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 10 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস