অনলাইনে আয় করার কিছু জনপ্রিয় উপায়

টিউন বিভাগ অন্যান্য
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

সবাই কেমন আছেন?আশা করি ভালো আছেন। আজকে আমি অনলাইন থেকে কিভাবে আয় করা যায় সে সম্পর্কে একটু বেসিক ধারনা দিবো। অনলাইনে আয় করার হরেক রকম উপায় রয়েছে। এগুলোর মধ্যে বেশিরভাগই ভুয়া। আমাদের মধ্যে অনেকেই রয়েছেন যারা বিভিন্ন পিটিসি সাইটের পিছনে সময় দিয়ে জীবনের মুল্যবান সময়টুকু নষ্ট করছেন। এখন বেশিরভাগ পিটিসি সাইট পেমেন্ট দেয় না। আজ আমরা অনলাইন হতে আয় করার কয়েকটি গুরুত্বপুর্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।

ফ্রিল্যান্সিং

ফ্রিল্যান্সিংয়ের নাম শুনেনি এমন লোক খুব কমই পাওয়া যাবে। এখন পর্যন্ত এটিই অনলাইনে আয় করার সবচেয়ে জনপ্রিয় উপায় হিসেবে অবস্থান করছে। ফ্রিল্যান্সিং করতে হলে অবশ্যই আপনাকে যেকোনো একটি কাজে দক্ষ হতে হবে। এই প্ল্যাটফরমে আসার আগে যেকোন একটি কাজ আগে ভালোভাবে শিখে নিন। বাংলাদেশের হাজার হাজার তরুণ তরুণীরা ফ্রিল্যান্সিং করে খুব ভালো মানের টাকা আয় করছে। বাংলাদেশে এরকারনে বেকারত্বের হার অনেকাংশে কমে এসেছে। তবে একটি কথা অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে, আগে কাজ শিখতে হবে, অনেকেই রয়েছে যারা ভালোভাবে কাজ না শিখে মার্কেটপ্লেসে ঢুকে পড়েন। এতে কিন্তু মার্কেটপ্লেসগুলিতে বাংলাদেশের ভাবমুর্তি নষ্ট হচ্ছে এটা আমাদের মাথায় রাখা উচিত। সবচেয়ে ভালো হয় যদি মার্কেটপ্লেসে ঢুকার আগে কয়েকটি লোকাল কাজ করা হয়। আগে কাজ শিখুন ভালোভাবে তারপর মার্কেটপ্লেসে ঢুকে বিড করুন এর আগে নয়। বি প্রফেশনাল। ফ্রিল্যান্সিংয়ে কমিউনিকেশন স্কিল খুবই গুরুত্বপুর্ন তাই ইংরেজিতেও দক্ষতার প্রয়োজন রয়েছে। নিজের প্রোফাইলটা সুন্দর ভাবে সাজান। সুন্দরভাবে কভার লেটার লিখতে শিখুন। কাজ না পেলে হতাশ হওয়ার কিছু নেয় লেগে থাকুন। সফলতা আসবেই।

ব্লগিং

ব্লগিং ও ফ্রিল্যান্সিংয়ের মত একটি জনপ্রিয় প্ল্যাটফরম অনলাইন থেকে আয়ের জন্য। ব্লগ লিখেও আপনি খুব ভালোমানের টাকা আয় করতে পারবেন। আপনি ইচ্ছে করলে এটিকে শখ হিসেবেই নিতে পারেন। ধরুন আপনি কোনো কিছু সম্পর্কে জানেন সেটা আপনি সবাইকে জানাতে চান কিংবা শিখাতে চান সেজন্য আপনি ব্লগিং শুরু করতে পারেন। আপনি যেকোনো বিষয় নিয়ে ব্লগ লিখতে পারেন। একটি ব্লগ সাইট খোলাও আহামরি কঠিন কিছু না। যদি বিগেনার লেভেলে হোন তাহলে ব্লগস্পট দিয়ে শুরু করতে পারেন। blogspot.com থেকে খুব সহজেই ব্লগসাইট খোলা যায়। ইচ্ছে করলে কাস্টম ডোমেইনও সংযুক্ত করতে পারবেন। এখানে অনেক ফ্রি থিম পাবেন আপনি। blogspot যেহেতু গুগলের মালিকানাধীন সাইট তাই এডসেন্স এপ্রুভ পেতে ঝামেলা হয় না। আর একবার এডসেন্স পেলেই কেল্লাপতে। আর আপনি ইচ্ছা করলে হোস্টিং কিনে ওয়ার্ডপ্রেসেও মুভ করতে পারেন। ওয়ার্ডপ্রেসে অনেক টুলস রয়েছে যেগুলি আপনি ব্লগস্পটে পাবেন না। তবে যারা নতুন রয়েছেন তারা আগে ব্লগস্পট দিয়ে শুরু করলেই ভালো হয়।

ইউটিউবিং

ইউটিউবিংয়ের কথা প্রথমে ভেবেছিলাম লিখবোনা, কিন্তু কেনো জানি না লিখেও পারলাম না। ইউটিউব থেকে আয় করা যায় এটা এখন সবাই জানে। কিন্তু বাংলাদেশের ইউটিউব প্ল্যাটফরমটা আর আগের মত নেই। বাংলাদেশের ইউটিউবে  এখন আজেবাজে কনটেন্টে গিজগিজ করতেছে। ইউটিউব থেকে আয় করা যায় এইজিনিসটা এতই ফলাউভাবে মাইকিং করা হয়েছে যে, এখন যে যেভাবে পারছে ইউটিউবে চ্যানেল একটা তৈরি করে আজেবাজে ভিডিও আপলোড করা শুরু করছে। অন্যের ভিডিও কপি করে, ভুয়া নিউজ দিয়ে, ভুল সোশ্যাল মেসেজ দিয়ে, ১৮+ কনটেন্ট দিয়ে। আপনি যদি ইউটিউবে আসতে চান তাহলে ইউনিক কিছু চিন্তা করুন। ভালো কনটেন্ট তৈরি করুন। তাহলেই আপনি ইউটিউবে সফল হতে পারবেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং

অনলাইনে আয় করার অন্যতম জনপ্রিয় মাধ্যম হলো অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। চুক্তিভিত্তিকভাবে কোনো কোম্পানি কিংবা প্রতিষ্ঠানের পণ্য বা সেবা বিক্রির মাধ্যমে আয় করাকেই সাধারণত অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বলা হয়।

ধরুণ, আপনার কোনো সমস্যায় আপনি ডাক্তারের কাছে গেলেন। ডাক্তার বিভিন্ন পরীক্ষা করানোর জন্য প্রেসক্রিপশন দিলেন। খেয়াল করলে দেখবেন ডাক্তার এসব পরীক্ষা করানোর জন্য একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার কিংবা হাসপাতালের নাম বলবে। আপনি যদি ডাক্তারের বলা ঐ ডায়াগনস্টিক সেন্টার কিংবা হাসপাতাল থেকে আপনার পরীক্ষা করান তাহলে ডাক্তার একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ কমিশন পাবেন। ডাক্তার রোগী পাঠানোর মাধ্যমে যে আয় করলেন এই বিষয়টিকে সহজ ভাষায় অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বলা হয়।

কমার্স সাইটের বাইরে অনলাইনে বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে পণ্য কিনতে গেলে দেখবেন সেটি আপনাকে একটি লিংকের মাধ্যমে অ্যামাজন, ইবেসহ এ ধরনের বিভিন্ন ওয়েবসাইটে নিয়ে যাবে। আপনি যদি ঐ লিংকের মাধ্যমে কোনো পণ্য কেনেন তাহলে ওয়েবসাইটের মালিক একটা কমিশন পাবেন। অনলাইনে ঠিক এমনিভাবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে ব্লগার ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটাররা হাজার হাজার ডলার আয় করছেন।

তবে একজন সফল অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার হতে গেলে প্রথমত আপনার ধৈর্য্য থাকতে হবে। আপনাকে অবশ্যই বেশ কিছু বিষয় জানতে হবে। সফল অ্যাফিলিয়েট মার্কেটারদের বিভিন্ন পরামর্শ শুনতে ও জানতে হবে। যারা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার হতে চান তাদের জন্য অনলাইনে অনেক রিসোর্স ওয়েবসাইট রয়েছে। ইউটিউবেও আপনি অসংখ্য ভিডিও টিউটোরিয়াল পাবেন

এছাড়াও অনলাইনে আয়ের অনেকরকম উপায় রয়েছে। আমি শুধু জনপ্রিয় প্ল্যাটফরমগুলি তুলে ধরেছি। ধন্যবাদ সবাইকে।

Level 1

আমি ফারহান মনসুর। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 2 বছর 10 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 3 টি টিউন ও 2 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 4 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস