ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

ওয়ালটনের সাফল্যের গল্পঃ টিনের ব্যবসা থেকেই যে গল্পের শুরু!

বাংলাদেশের অন্যতম শীর্ষ স্থানীয় ইলেক্ট্রিক পণ্য উৎপাদনকারী সংস্থা ওয়ালটন। বর্তমানে গাজীপুরের চন্দ্রা নামক এলাকায় এই কোম্পানির নিজস্ব জমিতে গড়ে উঠেছে 'ওয়ালটন হাইটেক কঅর্পারেশন' এবং 'ওয়ালটন মাইক্রোটেক কঅর্পারেশন' নামের দুইটি ফ্যাক্টরী। ওয়ালটন কোম্পানির অঙ্গপ্রতিষ্ঠান ড্রিম পার্ক ইন্টারন্যাশনাল, মার্সেল এবং ডিজিটেক।

ADs by Techtunes ADs

তবে আপনি জানেন কি এই দেশ বিখ্যাত কোম্পানির প্রথম প্রথম একটি টিনের ব্যবসা ছিলো। সেখান থেকে একজন মানুষের অক্লান্ত পরিশ্রমের কারনেই সেই টিন এর দোকান থেকে আজ ওয়ালটন নামে পরিচিত এই কোম্পানিটি। একমাত্র তারপরিশ্রম ও অধ্যাবসায়ের কারণেই আজ ওয়ালটন গ্রুপ সারাদেশের মানুষের কাছে পরিচিত।

কে সেই ব্যক্তি? কিভাবে সে সামান্য একটি টিনের ব্যবসা থেকে এত বড় একটি কোম্পানি খুললো। সেই সফলতার কাহিনী নিয়েই কথা হবে আজ। চলুন জেনে নেয়া যাক তার ব্যাপারে।

 এস এম নজরুল ইসলাম

বাংলাদেশে ইলেকট্রনিকস পণ্য উৎপাদন শিল্পের পথিকৃত এসএম নজরুল ইসলাম। ১৯২৪ সালে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার ঘারিন্দা ইউনিয়নের বাসাইল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন এই 'এসএম নজরুল ইসলাম'। তার বাবার নাম ছিল সরকার মোঃ আতহার আলী তালুকদার। ব্যবসায়ী হওয়া সত্ত্বেও অনেক সমাজসেবা মূলক কর্মকান্ডে জড়িত ছিলেন এসএম নজরুল ইসলাম। তার নিজস্ব জমির উপর নির্মিত হয়েছে গোসাই জোয়াইর কমিউনিটি ক্লিনিক। এ ক্লিনিকের দরকারি জিনিসপত্র সব কিছুই সে নিজে খরচ করে দিয়েছিল।

এছাড়াও তিনি ছিলেন টাঙ্গাইল সমবায় ব্যাংকের পরিচালক, জমি বন্ধকী ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক, স্যার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি এবং গোসাই জোয়াইর আজিম মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি ছিলেন। বর্তমানে ওয়ালটন গ্রুপের দায়িত্ব পালন করছেন তার ছেলেরা।

নজরুল ইসলাম প্রথম অবস্থায় তার বাবা এসএম আতহার আলীর সাথে বিভিন্ন ব্যবসায় জড়িত হলেও, স্বাধীনতার পরে সে নিজ থেকেই একটি ব্যবসা শুরু করেন। ব্যবসা শুরুর প্রথম প্রথম অবস্থায় স্বাভাবিকভাবেই  লোকসানের সম্মুখিন হন তিনি। কিন্তু তার সততা কর্মনিষ্ঠা এবং পরিশ্রমের মাধ্যমে সে তার ব্যবসা কে সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে সক্ষম হন।

দেশের মানুষের কাছে সাশ্রয়ী মূল্যে বিভিন্ন পণ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার জন্য হাজার ১৯৭৭ সালে তিনি নিজে আরেকটা কোম্পানি খুলেন। যেটার নাম ছিল রিজভী এন্ড ব্রাদার্স, সংক্ষেপে আর বি। রিজভী নামটা তার বড় ছেলের। এসএম নজরুল ইসলাম দুই মেয়ে এবং ছেলের পিতা। এই লোক যে ব্যবসাতেই হাত দিয়েছেন সেখানেই সফলতা পেয়েছেন। সৎ এবং নিষ্ঠাবান ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন সব জায়গাতেই। তো একদিন নজরুল ইসলাম তার ছেলেদের নিয়ে একটি বৈঠকে বসে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিলেন তার একটি কোম্পানির নাম হবে ওয়ালটন। হয়ে গেল ইতিহাস। যেখানে আগে ' মেড ইন বাংলাদেশ ' লেখা দেখলে লোকজন অবহেলিত করত সেখানে বাংলাদেশি একটি কোম্পানি এখন অনেক মানুষের মনের চাহিদা পূরণ করছে। এক সময় এই ওয়ালটন পণ্য অনেক চাহিদা তৈরি করে আমাদের দেশে।

অতঃপর ওয়ালটন গ্রুপের অনুসারে আরেকটি কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেন, যার নাম মার্সেল।

ADs by Techtunes ADs

এসএম নজরুল ইসলাম এর কর্মনিষ্ঠা এবং পরিশ্রমের কারণে আজ এই ওয়ালটন কোম্পানি দেশের সীমানা পেরিয়ে বাইরের দেশগুলোতে রাজত্ব করছে। ২০০৬ সালে এসএম নজরুল ইসলাম গাজীপুরের চন্দ্রায় একটি জায়গা কিনে ওয়ালটনের নিজস্ব কারখানা তৈরি করেন। প্রথম প্রথম অবস্থায় তার অনেক বাধার সম্মুখীন হতে হয়। কিন্তু, পরে আস্তে আস্তে ধৈর্য ধরে সামনে এগিয়ে তার নাম এভাবেই তিনি সম্মানের সহিত উঁচু করে তুলে ধরেন। ২০০৮ সালে প্রথমবারের মতো ওয়ালটন কোম্পানি নিজেদের কোম্পানিতে তৈরি করে ফ্রিজ। সাশ্রয়ী মূল্যে সেবা দিয়ে আদায় করে নেয় গ্রাহকের আস্থা। পরে পর্যায়ক্রমে শুরু হয় টেলিভিশন, মোটরসাইকেল এবং এসি'র সূচনা। বর্তমানে বিশটির মতো দেশে যাচ্ছে এই ওয়ালটনের পন্য৷

ওয়াল্টন অফিস

মেড ইন বাংলাদেশ' এ কথাটি এখন বিশ্বের অনেক দেশের মানুষের কাছে সম্মানের সহিত পৌঁছে যাচ্ছে। আস্তে আস্তে এই ওয়ালটন কোম্পানি শুরু করে মোবাইল তৈরির কারখানা। পরবর্তীতে ল্যাপটপও তৈরি করে। এর মধ্য দিয়ে ওয়ালটন কোম্পানি কমপ্লেক্স হয়ে উঠেছে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বৃহৎ প্রযুক্তিপণ্যের উৎপাদক এবং গবেষণাগার।

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি মোঃ ইউসুফ আলী। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 মাস 3 সপ্তাহ যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 10 টি টিউন ও 9 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 2 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

প্রিয় টিউনার,

আপনার টিউনটি ‘টেকটিউনস ট্রাসটেড টিউন’ এর জন্য প্রসেস হতে পারছে না।

কারণ:

টিউনে ‘টেকটিউনস কপিরাইট ম্যাটেরিয়াল গাইডলাইন’ অনুযায়ী কমপক্ষে ৩ টি হাই-রেজুলেশনের, হাই-কোয়ালিটি, টিউনের সঙ্গে প্রাসঙ্গিক, Copyright Free ও Royalty-Free ইমেইজ Full Size ও ওয়াটারমার্ক মুক্ত ইমেইজ যোগ করা হয়নি।

করনীয়:

‘টেকটিউনস কপিরাইট ম্যাটেরিয়াল গাইডলাইন’ অনুযায়ী টিউনে কমপক্ষে ৩ টি হাই-রেজুলেশনের ওয়াটারমার্ক মুক্ত ইমেইজ যোগ করুন। সেই সাথে হাই-কোয়ালিটি, টিউনের সঙ্গে প্রাসঙ্গিক, Copyright Free ও Royalty-Free ইমেইজ Full Size এ যোগ করুন।

উপরের নির্দেশিত সংশোধন করে এই টিউমেন্টের রিপ্লাই দিন।

প্রিয় টিউনার,

আপনার টিউনটি ‘টেকটিউনস ট্রাসটেড টিউন’ এর জন্য প্রসেস হতে পারছে না।

কারণ:

টিউনে ইমেইজ ‘টেকটিউনস কপিরাইট ম্যাটেরিয়াল গাইডলাইন’ অনুযায়ী হয়নি। টিউনে ইমেইজ Full Size হিসেবে যুক্ত না করে Large সাইজ হিসেবে যুক্ত করা হয়েছে।

করনীয়:

টিউনে ইমেইজ ‘টেকটিউনস কপিরাইট ম্যাটেরিয়াল গাইডলাইন’ অনুযায়ী টিউনে ইমেইজ Large সাইজ হিসেবে যুক্ত না করে Full Size হিসেবে যুক্ত করে ঠিক করে আপডেট করুন।

উপরের নির্দেশিত সংশোধন করে এই টিউমেন্টের রিপ্লাই দিন।

প্রিয় টিউনার,

আপনার টিউনটি ‘টেকটিউনস ট্রাসটেড টিউন’ এর জন্য প্রসেস হতে পারছে না।

কারণ:

টিউনে, টিউনের সাথে মিল রেখে প্রাসঙ্গিক টিউন বিভাগ নির্বাচন করা হয়নি।

করনীয়:

টিউনে, টিউনের সাথে মিল রেখে প্রাসঙ্গিক টিউন বিভাগ নির্বাচন করে টিউন আপডেট করুন।

উপরের নির্দেশিত সংশোধন করে এই টিউমেন্টের রিপ্লাই দিন।