ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

নিজের স্মার্টফোন এ তোলা ছবিগুলো বেচে দিন। স্টক ফটোগ্রাফির কমপ্লিট টিউন।

  • আপনি কি ফটোগ্রাফি ভালোবাসেন ?
  • আপনার কি ছবি তোলার শখ আছে ?
  • আপনি কি অনেক দিন যাবৎ ছবি তোলেন ?
  • বাসায় কি একটা ক্যামেরা অযথা পরে আছে ?
  • আপনার একটা ভালো ক্যামেরা ওয়ালা স্মার্টফোন আছে ?
  • আপনি কি জানতে চান অনলাইনে কিভাবে ছবি বিক্রয় করতে হয় ?
  • আপনি কি জানতে চান অনলাইনে কিভাবে ছবি কিনতে হয় ?

আপনি তাহলে এখন সঠিক অবস্থানে আছেন। এখনই শুরু করে দিন স্টক ফটোগ্রাফি। কারন শুধু ছবি বিক্রি করেই ইনকাম করা সম্ভব লক্ষ টাকা!

ADs by Techtunes ADs

আসুন জানি বিস্তারিত।

যে কেউ চাইলেই তার তোলা ছবি গুলো বিক্রি করতে পারে অনলাইনে, হোক সেটা হাতের স্মার্টফোন দিয়েই। DSLR ক্যামেরা দিয়েই তোলা হতে হবে ছবি এমন কোনো কথা নেই! হ্যা এইটা ঠিক যে DSLR ক্যামেরা দিয়ে তোলা ছবির মান অনেক ভালো হয়। মার্কেট প্লেস এ DSLR ক্যামেরাতে তোলা ছবি গুলো স্মার্টফোন দিয়ে তোলা ছবিগুলো থেকে এগিয়ে থাকে। তবে ছবি যদি আসলেই ভালো হয় তাহলে স্মার্টফোন/DSLR কোন ব্যাপার নাহ।

মার্কেটপ্লেস:

মার্কেটপ্লেস!! হ্যা ছবি কেনা-বেচা করার জন্য অনলাইনে অনেক বাজার আছে। ব্যাপারটা কি রকম? আসুন উদাহরন দিয়ে বুঝি। আমরা প্রতিনিয়ত শাকসবজি কেনার জন্য কাঁচাবাজারে যাই। সেখানে বিক্রেতারা সবজি বিক্রি করে, ক্রেতারা সবজি কেনে। ছবির মার্কেটপ্লেস ও একইরকম। পার্থক্য একটাই, কাঁচাবাজার সরাসরি আর ছবির এই বাজার অনলাইনে।

এখানে ক্রেতারা ছবির লাইসেন্স কেনে ছবিটি কমার্শিয়ালি ব্যবহারের জন্য। আমরা আমাদের নানারকম ব্যক্তিগত কাজে ছবির দরকার হলে গুগল এ সার্চ করে ছবি ডাউনলোড করে ব্যবহার করি, কোনো লাইসেন্স এর তোয়াক্কা করি না। ব্যক্তিগত কাজে সবক্ষেত্রে লাইসেন্স এর প্রয়োজন পরে না! কিন্তু কোন কমার্শিয়াল কাজের জন্য একটা ছবি ব্যবহার করতে হলে অবশ্যই লাইসেন্স এর দরকার হয়। ক্রেতারা এখান থেকে ছবিটা কেনার মুল উদ্দেশ্যই হল ছবিটা কমার্শিয়ালি ব্যবহারের লাইসেন্স পাওয়া।

কোন ছবি গুলো বিক্রি হয়:

ছবি শুধু তুললেই হলো না। কোন ছবিগুলো বিক্রি হয় এটা জানাটাও জরুরি। এজন্য নিজেকে একটা প্রশ্ন করলেই ব্যাপারটা সহজ হয়ে যায়। আপনি নিজের কোনো দরকারে কোন ছবিটা টাকা খরচ করে কিনবেন? হ্যা টাকা খরচ করে মানুষ সে জিনিসটাই কেনে যেটা তার প্রয়োজন এবং যেটার এসথেটিক ভ্যালু আছে। এসথেটিক ভ্যালু সহজ ভাবে বলতে গেলে যার সৌন্দর্য আছে এবং ইউনিক বা ব্যাতিক্রম। এজন্য মার্কেটপ্লেস সম্পর্কে বিস্তর ধারনা রাখতে হয় সবসময়। একেক সময়ের একেক ট্রেন্ড। ট্রেন্ড ফলো করলে সফলতা দ্রুত পাওয়া যায়।

কেন মানুষের ছবির দরকার:

এখন তাহলে অবশ্যই জানা উচিত যে মানুষের ছবির প্রয়োজন কেন? এর কোনো স্পেসিফিক উত্তর হবে না। কারণ নানা কারণে মানুষের ছবির প্রয়োজন হয়। ওয়েবসাইটের ব্যানার, প্রেজেন্টেশন স্লাইড, ট্রাভেলিং এজেন্সি, কোনো গ্রাফিক্স ডিজাইন, ওয়ালপেপার, ইউজার ইন্টারফেস ডিজাইন, মার্কেটিং, টিউনার, লিফলেট, ব্যানার আরো হাজারো কাজে মানুষের ছবির দরকার হয়। সারা বিশ্বে লক্ষ লক্ষ ক্রেতা আছে ছবির।

ADs by Techtunes ADs

চিন্তার বিষয়:

চিন্তার বিষয় হলো লক্ষ লক্ষ ক্লায়েন্ট যেমন আছে তেমনি লক্ষ লক্ষ ফটোগ্রাফার ও আছে। তাই এই স্টক ফটোগ্রাফির জগৎ অনেক কম্পিটিটিভ! বহু প্রফেশনাল ফটোগ্রাফার এর পাশাপাশি বহু আনাড়ি ফটোগ্রাফার ও আছে। এত কম্পিটিশন এর মধ্যে নিজেকে যে আলাদা করতে পারে সবার থেকে, সেই সফল হয়। যদিও সফলতা পাওয়া একটু সময় সাপেক্ষ!

কি, নিরুৎসাহিত করে দিলাম?

উৎসাহ:

উৎসাহিত হওয়ার মতো অনেক কিছুই আছে। একটা ছবি অসংখ্য বার বিক্রয় করা যায়। শুধু তাই না, একটা ছবি আপনি যত খুশি তত মার্কেটপ্লেস এ বিক্রয়ের জন্য দিতে পারেন। মার্কেটপ্লেস এর সংখ্যাও নেহায়েত কম না! একটা ছবি সারাজীবন বিক্রি করতে পারবেন। আমি একজনকে জানি যে ২০০৮ থেকে স্টক ফটোগ্রাফি করে। সে ২০১০ এ ছবি দেয়া বন্ধ করে দেয়। ২০১৭ তে তার একটি মার্কেটপ্লেস এ মোট ৭২ টি ছবি থেকে ইনকাম ৬ লক্ষ টাকার ও বেশি!

এখন কথা হল, এত এত মার্কেটপ্লেস এর মধ্যে আপনি কোনটা বা কোনগুলো বেছে নিবেন। অবশ্যই সবচে পপুলার এবং ভালো পেমেন্ট পাওয়া যায় এমন গুলোই বেছে নিতে হবে। জানেন না কোনগুলো স্টক ফটোগ্রাফির জন্য ভালো মার্কেটপ্লেস? ম্যান, জাস্ট গুগল ইট! আমার পছন্দের কিছু মার্কেট প্লেস এর নাম বলি এবার। আপনার চাইলে এগুলোতে একবার ঢুঁ মারতে পারেন। এগুলো সেরা ১০ এর মধ্যেই পেয়ে যাবেন।

1. Getty Images
2. ShutterStock
3. iStock Photos
4. Fotolia
5. Dreamstime

একেক মার্কেটপ্লেস এর একেকরকম ইউজার ইন্টারফেস ও পেমেন্ট সিস্টেম হয়ে থাকে। তবে ছবি বিক্রয়ের জন্য এক্সেপ্টেড হওয়ার নিয়ম-কানুন গুলো প্রায় একই। প্রথমে মার্কেটপ্লেস এ একটা সেলার একাউন্ট করতে হবে। একাউন্ট রেজিস্টার করার সময় অবশ্যই সব তথ্য সত্য ও সঠিক দিতে হবে। তানাহলে একাউন্ট এপ্রুভ হবে না। আর যদি হয় ও তাহলে পেমেন্ট রিসিভ করার সময় ঝামেলা হবে!

কিছু বিষয় যা জানা প্রয়োজন:

১. কপিরাইট: ছবি অবশ্যই আপনার নিজের তোলা হতে হবে।
২. কোয়ালিটি: ছবির কোয়ালিটি, রেজুলেশন, শার্পনেস এবং এসথেটিক ভ্যালু থাকতে হবে। তানাহলে আপনার ছবি মার্কেটপ্লেস এ বিক্রির জন্য এক্সেপ্টেড হবে না!
৩. মার্কেটপ্লেস এ একাউন্ট করার জন্য আইডি কার্ড/পাসপোর্ট লাগবে।
৪. টাকা রিসিভ করার জন্য ইন্টারনেশনাল পেমেন্ট মেথড লাগবে। Ex: Payoneer Mastercard.

[নোট: কোনো পেমেন্ট মেথোড সংযুক্ত করা ছাড়াও আপনি ছবি বিক্রি করতে পারবেন। আপনার বিক্রয়কৃত ছবির টাকা আপনার একাউন্ট এ থাকবে। পেমেন্ট নেয়ার আগে পেমেন্ট মেথোড সংযুক্ত করে নিলেই হবে।]

৫. পরিচিত কোনো মানুষ বা স্থাপনা ছবিতে থাকলে তার রিলিজ লাগবে। মানুষের জন্য মডেল রিলিজ আর স্থাপনার জন্য প্রোপার্টি রিলিজ। (আগ্রহী থাকলে টিউমেন্ট এ জানান, মডেল রিলিজ/ প্রোপার্টি রিলিজ নিয়ে টিউন করবো ইনশাআল্লাহ)।

ADs by Techtunes ADs

যেকোনো তথ্যের জন্য টিউমেন্ট করতে ভুলবেন না। কিছু জিগ্যেস্য না থাকলেও টিউমেন্ট করুন। এতে লেখার আগ্রহ বাড়ে।

© Md. Abdun Nahid
15 September 2017

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি মোঃ আবদুন নাহিদ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 2 বছর 6 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 4 টি টিউন ও 2 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

মডেল রিলিজ/ প্রোপার্টি রিলিজ নিয়ে টিউন করেন প্লিয
ধন্যবাদ ভালো টুন এই জন্য

ইনশাআল্লাহ করব।

Level 0

অত্যন্ত সুন্দর ও গোছানো টিউন। ধন্যবাদ আপননাকে এমন গুরুত্বপূর্ণ একটি টিউন করার জন্য। আশাকরি পরবর্তী বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবেন। শুভ কামনা রইলো।