ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তির জঘন্যতম-নীতির অতীত-বর্তমান একটু জানুন – ভবিষ্যৎ আপনাকেই গড়তে হব।

পোস্টটি সরাসরি এখান থেকে কপি করা। মূল লেখক সহজ পৃথিবী।
আর অবশ্যই সবখানে শেয়ার করতে পারেন। লেখকের অনুমতি দেয়া আছে। পারলে ফেসবুক শেয়ার অবশ্যই করবেন। সারা বাংলাদেশের এমন পোস্ট পড়া উচিৎ।

ADs by Techtunes ADs

ব্যান্ডউইথ'ই তথ্যপ্রযুক্তি, তথ্যপ্রযুক্তি মানেই ব্যান্ডউইথ।একবিংশ শতাব্দীর দ্বিতীয় দশকে একটা দেশ তথ্যপ্রযক্তিতে কতটুকু ডেভলপ করেছে তা জানতে আর কোন ডাটা দরকার নেই, শুধু ঐ দেশের ব্যান্ডউইথ ইউজ ও জনসংখ্যা রেশিও দিয়েই ফুল জানা যাবে।যার মানে বর্তমান তথ্যপ্রযুক্তির অর্থনীতি- রাজনীতির এই বিশ্বে অর্থনীতি ও উন্নয়নের প্রথম ইন্ডিকেটর হচ্ছে দেশটির পারক্যাপটা ব্যন্ডউইথ কত ? তো চলুন তথ্যপ্রযুক্তিতে সর্বদা সবার পিছে পশ্চাদপদ বাংলাদেশ যে ২০০৬ সালে প্রথম সাবমেরিন ক্যবলে সংযুক্ত হয়ে তার অতীতের ক্ষতি কাটিয়ে না উঠে কি করছে ? যেখানে এর একমাত্র নীতিমালা হওয়া উচিত, কিভাবো আরও বেশি ব্যন্ডউইথ ব্যবহার করা যায়, সেই বাংলাদেশে ব্যান্ডউইথ নিয়ে কি করছে ? আজকাল মার্কেটে ১ জিবি কন্টেন্টের ভ্যাট সহ প্রায় ৪০০/- টাকায় বিক্রি হয় -গ্রামীনফোন ইন্টারনেটের পি-6 প্যাকেজে।আরএক প্যাকেজে ৩ এমবি কন্টেন্ট এর দাম ৯/- টাকা, অন্যএক প্যাকেজে ৯৯ এমবি ৯৯/- টাকা - গতি অবশ্যই সর্বদা সমান, ৫ কেবিপিএস।রেইটগুলো উল্লেখ করার কারন, সামান্য এক এমবি, এক জিবি নেট কন্টেন্টের জন্য দেশের সাধারন মানুষকে কত টাকা খরচ করতে হয় তার সম্পর্কে দৃষ্টি আকর্ষন করতে।

এই যে, এত যে মূল্যবান ও প্রয়োজনীয় এই ব্যান্ডউইথ, বর্তমান যুগে অন্ন বস্ত্র বাসস্থানের পরেই ব্রডব্যান্ড হবে জনগণের মৌলিক চাহিদার একটি, তাকে বুঝে, না বুঝে আমাদের রাষ্ট্রীয় নীতি নির্ধারকরা কি রকম হাস্যকর অব্যবস্থাপনায় রেখেছে তা দেখলে, আমি শিওর হাসতে হাসতে আপনার লুঙ্গি খুলে যাবে।গত ২০০৯ সালের মার্চ মাসে বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যবলের কোম্পানীর ওয়েবসাইটের এক নটিশে দেখেছিলাম - বাংলাদেশ ২০০৬ সালের মে মাসে ৭ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ নিয়ে সিমিউই-৪ সাবমেরিন ক্যবলে প্রথমবারের মত যুক্ত হয়ে, ২০০৭ সালের ডিসেম্বরে ১ম আপগ্রেডেশনের মাধ্যমে ২৪ জিবিপিএস ও ২০০৮ সালে ডিসেম্বরে ২য় আপগ্রেডেশনে এই সংযোগে ৪৫ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ অর্জন করে।সেখানে আরও উল্লেখ ছিল, ডিসেম্বর ২০০৯ এ এই ল্যান্ডিং স্টেশনে ৩য় আপগ্রেডেশন করা হবে যেখান আরও ১১০ জিবিপিএস যুক্তু হবে। আরও ছিল, ঐ মুহুর্তে সারাদেশে ১০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ ব্যবহার হচ্ছে এবং বাড়তি ব্যান্ডউইথ সরকার ২০১৩-১৪ সাল পর্যন্ত চাহিদার কথা বিবেচনা করে সংরক্ষণ ও রপ্তানী করার চিন্তা ভাবনা করছে।কত বড় ইডিয়ট চিন্তা করুন ? আপনি বিষয়টি বুঝলে অবশ্যই মাথার চুল ছিরতে ইচ্ছা করবে ? পরবর্তী আরেক নোটিশে দেখা যায় দেশে এখন ১৫ জিবিপিএস ব্যবহার হচ্ছে, এই মুহুর্তেও তাই।

তাহলে আমরা গত ৩ বছর ধরে কি করে আসছি ? মাত্র ১৫ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ ব্যবহার করছি আর বাকি ৩০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথের কি হইলো ? কোন ব্যাংকে জমা আছে ? ব্যান্ডউইথ কি বিদ্যুৎ নাকি, যে মোবাইলের ব্যাটারী চার্জ দিয়ে ল্যাপটপ চার্জ দিয়ে কিছু রেখে দিবেন ? তারমানে অব্যবহৃত রাখছি ? - ব্যবহার করিনি, মানে ফেলে দিয়েছি ? এক সময় শুনতাম, আমেরিকা নাকি তার উৎপাদিত বাড়তি গম সমুদ্রে ফেলে দিত - বাংলাদেশ কি ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথে সে পর্যায় চলে গেছে ? বলেন কি ? দঃকোরিয়া বাংলাদেশের অর্ধেক জনগণ নিয়েও এই মুহুর্তে কত ব্যান্ডউইথ ব্যবহার করছে, জানেন ? ১১ টি ক্যবলে দঃকোরিয়া এই মুহুর্তে ২৫ টেরাবিট/সেকেন্ড বা ২৫০০০ জিবিপিএস ব্যবন্ডউইথ ব্যবহার করছে।আর আমরা ১৬ কোটি জনগণের বাংলাদেশ মাত্র ৪৫ জিবিপিএস এর মধ্য ৩০ জিবিপিএস ফেলে দিচ্ছি !!!! চলুন তো এই ফেলে দেয়া পরিমানটার বাজার মূল্যটা একটু দেখি! সাবমেরিন ক্যবলে গত ৩ বছরে (৩০ x ৬০ x ৬০ x ২৪ x ৩৬৫ x ৩) ভাগ ১০০০ = ২৮,৩৮,২৪০ টেরাবিট বা প্রায় ৩০ লক্ষ টেরাবিট কন্টেন্ট অব্যবহৃত ছিল।এখন প্রতি জিবি ১০০/- টাকা করে ধরলেও এই ক্ষতির আর্থিক পরিমান ২৮,৩৮,২৪০ x ১০০ x ১০০০ = ২৮৩,৮২,৪০,০০,০০০ টাকা বা প্রায় ৩০ হাজার কোটি টাকা।

আচ্ছা বলুনতো, সাবমেরিন ক্যবল সংযোগের আগে অর্থাৎ ২০০৬ সালের আগে, বিটিসিএল এর তত্ত্ববধানে হংকং থেকে রেডিও লিংকে ভিস্যাটের মাধ্যমে যতটুকু ব্যান্ডউইথ লিজ নেয়া হতো আমরা কি তার সবটুকু ব্যবহার করতাম ? অবশ্যই ইউজ করতাম, কারন জনগণের টাকায় কেনা ব্যান্ডউইথ জনগণ ব্যবহার না করার কোন যুক্তি বা সুযোগ নেই, এটা খুব সহজ হিসাব, এটা ভিষন অন্যায়, আর বাংলাদেশের মত দেশের জন্য মহাপাপ।ব্যান্ডউইথ এমন কোন জিনিষ না যে তাকে এখন ব্যবহার না করে ভবিষ্যতের জন্য সরক্ষন করা যায় বা কিছু ব্যান্ডউইথ ভবিষ্যৎ চাহিদা মেটানোর জন্য রেখে দেয়াও নির্বুদ্ধিতা।পৃথিবীর কোন দেশ এই কাজটা করে না।কোন দেশের যদি একটা না, দশটা সাবমেরিন ক্যবলও থাকে তাহলেও তার সবটুকু ব্যান্ডউইথই ইউজারদের জন্য এ্যালোকেট করে। দেশে দেশে ব্যান্ডউইথ নিয়ে যা করা হয়, তা হলো হাজারো রকমের পলিসি করা, মূল্য, প্যাকেজ, ফ্রী, গতি ইত্যাদী ক্যাটাগরি করে কিভাবে আরও বেশি ব্যন্ডউইথ ইউজ করা যায় ও ইফিসিয়েন্ট ইউজ করা যায় সেই লক্ষ্য সামনে রেখে।

আর আমরা বিশ্বে সবশেষ দেশ হিসাবে সাবমেরিন ক্যবলে যুক্ত হয়ে গত ৩ বছর ধরে দুই-তৃতীয়াংশ ব্যান্ডউইথ অব্যবহৃত রেখে জনগণকে তাদের প্রাপ্য থেকে বঞ্চিত করলাম।একটু খেয়াল করে দেখেন, আমরা গত ৩ বছরে আপনার যে ডিজিটাল অগ্রগতি হয়েছেন বলে আপনি আস্ফালন করেন, তার পরিমান কিন্তু অব্যবহারের অর্থেক বা ১৪,১৯,১২০ টেরাবিট'ই।এইটুকু কন্টেন্টই বাংলাদেশ গত ৩ বছরে আপলোড ও ডাউনলোড করেছে।আজ নেটে সার্চ দিয়ে যা বাংলার কন্টেন্ট পান তা এরই অংশ -৩ বছর বাংলাদেশ এটুকুই দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা অর্জন করেছে।যদি এই ব্যবহারের পরিমান ৪২,৫৭,৪০০ টেরাবিট হতো তাহলে আজ আরও এত পরিমান নেটে আপলোড/ডাউনলোড হতো নাকি ? এতে আপনার উন্নতি কি কম হতো, না বেশি ? আপনি জানেন কি আজ পর্যন্ত ভিয়েতনামের কন্টেন্ট অভিজ্ঞতা কয় শত কোটি টেরাবিট ?

এবার আর একটি মজার কাহিনী দেখুন, প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে আজ আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড সভাপতিরাও মাইকে গলা ফাটায়া বলেন, ১৯৯৪ সালে বিএনপি সাবমেরিন ক্যবলে সংযুক্ত না হয়ে বাংলাদেশের সর্বশ্রেষ্ঠ ক্ষতিটি করেছে - এই কথা শুনে গর্ধপ টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী থেকে শরু করে ঢাবির ভিসি পযন্ত হাত তালি দেয়।চলুনতো সে সময়ের ক্ষতির পরিমানটি টাকা ভ্যালুতে দেখি! কি বলেন ? সে সময় সাবমেরিন ক্যবল না থাকলেও আমারা ভিস্যাটের মাধ্যমে আনা নেট ইউজ করেছিলাম।যার পরিমান সর্বোচ্চ কয়েক এমবিপিএস থেকে ২০০৬ সালে এসে সর্বোচ্চ ৫০০ এমবিপিএস ছিল।ততকালীন সিমিউই-৩ ক্যবলে, ১৯৯৪ সালে বাংলাদেশ সংযুক্ত হলে ২০০৬ পর্যন্ত আপগ্রেড করে সর্বচ্চ ৫০০ এমবিপিএস থেকে ২ জিবিপিএস পর্যন্ত ব্যান্ডউইথ পেতো। তাহলে ১২ বছরে বিএনপি ক্ষতি করেছে সর্বোচ্চো ৩,৭৮,৪৩২ টেরাবিট কন্টেন্ট। সুতরাং দেখা যায় বর্তমান সরকার ৩ বছরেই সেই সময় বিএনপির করা ক্ষতির ৯ গুন বেশি ক্ষতি করেছে।

এখানেই শেষ নয়, সেদিন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী এক অনুষ্ঠানে জানালেন, গত বছর অক্টবর মাসে আমাদের সাবমেরিন ক্যবল তৃতীয় আপগ্রডেশনের মাধ্যমে মাত্র ৫০ কোটি টাকা খরচ করে ৪৫ জিবিবিএস থেকে ১৬৪ জিবিপিএস সংযোগে উন্নিত হয়েছে।তার মানে গত ৩ মাস যাবৎ ব্যবহার করছি ১৫ জিবিপিএস আর অব্যবহৃত রাখছি ১৫০ জিবিপিএস -হায়হায়হায়।এটাও কিন্তু ঠিক না, আরও আছে, এই যে তৃতীয় আপগ্রেডেশনটি তা সিডিউল মত হওয়ার কথা ছিল ২০০৯ সালে ডিসেম্বর মাসে।এরপর ২০১০ সালে ও ২০১১ সালের আপগ্রেডেশন এই ক্যবলটি আজ তার সর্বশেষ ১.২৮ টেরাবিট ব্যন্ডউইথে উন্নিত হয়ে গেছে।শ্রীলাংকার'ই এই একই ক্যবলে ১ টেরাবিট ব্যন্ডউইথ আছে আজ।এরপর এক সময় ক্যাপাসিটি কমে কমে তাড়টি রিজেক্ট হবে। তাহলে দেখেন ৩ বছরে বিএনপির কয়েকশ গুন বেশি ক্ষতি করেছে ? তাই বলছিলাম ১৯৯৪ সালে সাবমেরিন ক্যবল মাথায় না দিয়ে বিএনপি যা ক্ষতি করেছিল, গত ৩ বছরেই আওয়ামী লীগ তার ৩০০ গুনেরও বেশি ক্ষতি করেছে -হিসাব সহ দেখাইয়া দেওয়া যাবে -শুধু দেশের শিক্ষিত-মূর্খরা বুঝবে না এই যা, কারন এরা সব টিউব লাইট, তাই সরকারের প্রতিটি মাইর এদের বুঝতেই ৫ বছর লেগে যায়।

তারপরও আমরা আশা রাখি একদিন সময় থাকতেই আমরা বুঝব, সেদিন প্রথমেই এদের প্রত্যেকটার দপ্তরের চেয়ারের পেছনের অর্নার বোড থেকে নাম ঠিকানা নিয়ে এদের খুজে বের করবো!!!!! দেশের তথ্যপ্রযুক্তির ভবিষ্যৎ খুবই ভয়ংকর অবস্থার মধ্যে দিয়ে পার করছে।সঠিক সময়ে আপগ্রেডেশন করে সিমিউই-৪ ক্যবলে যত কম মূল্যে আমরা টেরাবিট ব্যান্ডউইথ পাব তা যদি এবার মিস করি তাহলে আর রক্ষা নাই।আবার হাজার কোটি টাকা খরচ করে এই ফ্যামেলির পরবর্তী ক্যবলে সংযোগ নিতে অনেক দেরী তারপর আবার কম ব্যান্ডউইথ দিয়ে শুরু করে গ্রেজুয়ালী আপগ্রেড করতে হবে।যেমন দেখুন ২০০৬ সালে ৮৫০ কোটি টাকায় মাত্র ৭ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ পেয়েছিলাম আবার একই ক্যবলে ২০০৯ সালে আপগ্রেডে মাত্র ৫০ কোটি টাকায় ১১০ জিবিপিএস যোগ হয়ে হয়েছে ১৬৫ জিবিপিএস।১৯৯৪ সালে সংযোগ না নিয়ে আমরা যে ক্ষতি করেছি সেটা তেমন ক্ষতি ছিল না, কারন চাহিদা কম থাকায় ভিস্যাটেই তা সম্ভব ছিল কিন্তু বর্তমান গিগাবিট গতির বিশ্বে এবারের ক্ষতি ২০২৫ সাল পর্যন্ত পঙ্গু করে দেবে আমাদের।এই ক্যবলে অলরেডি দুই বছর ড্রপ মারছেন।এই ক্যবলে যদি ক্যবলের সর্বোচ্চ ব্যন্ডউইথ না ধরতে পারেন তাহলে আপনাদের শেষ রক্ষাও হবেনা।তখন ভারত থেকে টেরেস্টারিয়াল লিংকে প্রতি জিবি ৫০ কোটি হারে নিলেও দেশকে বাঁচাতে পারবেন না।একটা কথা বলি, আপনাদের মাথায় না ঢুকলেও ধরে নেন অক্সিজেন ছাড়া মানুষ বাঁচলেও ভবিষ্যতে সভ্যতা অর্থনীতি ব্যান্ডউইথ ছাড়া বাঁচবে না।

ADs by Techtunes ADs

একবার ভেবে দেখেছেন, এখনই আমরা বলছি দেশে দুই কোটি নেট ইউজার আছে ১৫-২০% আরও আওয়াজ দিচ্ছি ২০১৫ সালের মধ্যে লক্ষ্য ৪৫% পেনিট্রেশনের, কিছু বোঝেন ? এই হিসাবে মুহুর্তেই বর্তমান নেটওয়ার্কেই বাংলাদেশের অন্তত ৪০০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ ব্যবহার করার কথা ছিল।আর ৩জি করার পর এই দুই কোটি ইউজারকে ডেডিকেটেড ৫ এমবিপিএস দিতেও যদি ১ লক্ষ জিবিপিএস লাগে তাহলে সর্বচ্চ কোন ফর্মুলায় শেয়ার করে আপনি ১০০০ জিবিপিএস বা ১ টেরাবিটের নিচে ব্যান্ডউইথ দিয়ে ৫ এমবিপিএস গতির লোয়েস্ট থ্রীজি দিতে পারবেন ? হিসাব করে নীতিনির্ধারকদের দেখাতে বলেন ? অথচ এই মুহুর্তে আপনার আছে মাত্র ১৬৫ জিবিপিএস।আবার ব্যবহার করছেন ১৫ জিবিপিএস, আহাম্মক কোনহানকার।

ভাবছেন যেই বিষয়টি নিয়ে কারও মিনিমাম সচেতনতা নেই আমি কেন এত সিরিয়াস ? কারন আমি বিশ্বাস করি- তথ্যপ্রযুক্তি ছাড়া বাংলাদেশের আর কোন সমাধান নাই, আবার এই বিষয়েই দেশটি বিশ্বে সবচেয়ে পশ্চাদপদ, ভবিষ্যৎ পৃথিবীতে তথ্যপ্রযুক্তি ছাড়া একটা দেশ হয়ে পরবে সবচেয়ে অযোগ্য।আমি আরও বিশ্বাস করি, শুধু সঠিক নীতির মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশ করা বিশ্বের অন্য যেকোন দেশের চেয়ে সহজ - বলতে পারেন এটা জাতির সৌভাগ্য, সৃষ্টিকর্তার আশির্বাদ।

পোষ্টটি যত পারেন শেয়ার করবেন। দেশের এই অসহায় করুন চিত্র অন্তত দশ লাখ লোকের পড়া উচিত।

জয়েন এ্যান্ড ক্রিয়েট এ্যা মুভমেন্টঃ সেইভ ইউওর কান্ট্রি, লাস্ট চান্স। Digital Bangladesh Warriors

ADs by Techtunes ADs
Level 7

আমি হাসান যোবায়ের। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 10 বছর 4 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 158 টি টিউন ও 4948 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 129 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

নতুন কিছু করার দারুন আকাঙ্ক্ষা!


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

shared at facebook.

much thanks.

লেখাটা পড়ছি আর রাগে গা জলছে।শালারা দেশ টা ইন্ডীয়া কে দিয়ে দিবে।

যখন শুনি বিদেশ থেকে কোনো বন্ধু বলছে যে তার নেট স্পীড 5-10 MBPS…আর বিল দেয় মাত্র ৩০ থেকে ৬০ ডলার,তখন আমিও স্বপ্ন দেখি আমিও কবে এমন স্পীড এর নেট ব্যবহার করবো…………………।।

Level 0

অশেষ ধন্যবাদ হাসান যোবায়ের, চমৎকার তথ্যবহুল লেখাটি শেয়ার করার জন্য। আসল কথা আমাদের দেশে মোহাথির মোহাম্মদের মত একজন দেশ প্রেমিক রাজনৈতিক নেতার অভাব । ক্ষমতার মসনদে যাবার জন্য যতরকমের কারসাজি জানা দরকার তাতে এ+প্লাস পাবার যোগ্য। এখনই সময় সব কিছু পরিবর্তন করবার । একদিন হবেই…………। ধন্যবাদ।

কুত্তার বাচ্চাদের যদি ১ হালি থাবড়া মারতে পারতাম মনে শান্তি, আমি দেশের বাহিরে থাকি আমার নেট স্পীড 20 MBPS ক্লিক করলেই সাথে সাথে ওপেন হইয়া যায়, কিছুদিন পর দেশে যাব তখন অবস্থা কি হবে সেই চিন্তা করতেছি, ধন্যবাদ হাসান যোবায়ের ভাই লেখাটি শেয়ার করার জন্য।

    @অর্জন: হাহাহা।আমি যেটা বললাম আপনি তার উদাহরন দিলেন।বাংলাদেশ এ আপনাকে অগ্রিম স্বাগতম কচ্ছপ নেট ব্যবহার এর জন্য।

    @অর্জন: ঠান্ডা মাথায় চিন্তা করতে হবে। দেশেও কিছু ভাল সার্ভিস পাবেন যদি টাকা থাকে।

@মুকুট, কোন যুক্তিতে বললেন দেশটা ইন্ডিয়াকে দিয়ে দিবে? আপনি কোন দলকে ক্ষমতায় চান?

“আসলে আইটি সেক্টরে একজন ভাল জ্ঞানী ব্যক্তি দরকার”- ১০০% সহমত।

    @আবু সায়েম: দয়া করে কেউ আমার পোস্টে রাজনীতির কথা টেনে আনবেন না।
    পোস্টে যেটুকু বলা হয়েছে সেটা প্রয়োজন ছিল।
    সহমতের জন্য ধন্যবাদ।

    @আবু সায়েম: আপনি কি খবর দেখেন না? ট্রাঞ্জিট দিয়ে ওরা তিতাস নদীর উপর বাধ দিয়ে ইন্ডীয়ার মাল আনা নেয়ার সুবিধা করে দিয়েছে।ইন্ডিয়ার কাছে গ্যাস রপ্তানি করবে অথচ বাংলাদেশের মানুষ গ্যাস পায়না।সিলেটের সিমান্তে নতুন করে জরিপ করে ইন্ডীয়ার অংশ বেশী দেখানো হচ্ছে।আরো কত কি।আমি ডিজিটাল বাংলাদেশ এর জন্য আওয়ামি কে ভোট দিয়েছিলাম।কিন্তু এখন তাদের জুতার বারি দেয়া বাকি আছে।আর শেয়ার বাজার এর কথা নাই বল্লাম।ফকির হয়ে বসে আছি।
    আর টিপাইমুখি বাধ এর খবর কি শুনেন নাই? যখন এই বাধ হবে আর সিলেটের মানুষ পানি না পেয়ে মরবে তখন বুঝবেন এটা আসলেই বাংলাদেশ?

      @মুকুট: হাসান যোবায়ের ভাই মানা করে দিয়েছে রাজনীতির কথা বলতে। শুধু এটুকু বলতে চাই, আমার বয়স বেশী না। গত বিএনপির সরকারের আমল আর বর্তমান আওয়ামীলিগ আমল দেখতেছি। আপনি ভালো বলেন কাকে? আপনার কি গত বিএনপির আমল মনে নাই? তারা দেশে কি শুরু করেছিল? আপনার ১ম মন্তব্যের প্রেক্ষিতে যদি বলি বিএনপি কি জামায়াত কে নিয়ে দেশটাকে জঙ্গির কারখানা+পাকিস্তান বানাতে চায়? তাই বলি তর্ক করলে অনেক কিছু নিয়েই করা যাবে। প্রধান দুই রাজনৈতিক দলই তর্কের উপাদান যোগায়। আমরা অসহায়। এ জন্য মন্দের ভালোটা নিয়েই থাকতে হয়। আমরা সবাই এই অবস্থার পরিবর্তন চাই।

      হাসান যোবায়ের ভাইয়ের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি রাজনৈতিক মন্তব্য হয়ে গেল বলে। (তবে এটাও অস্বীকার করার উপায় নেই যে টিউনেও রাজনৈতিক দৃষ্টি ভঙ্গি নেই। এটাও বলতে চাই, আপনি আমার একজন প্রিয় টিউনার)

      @মুকুট: আমি বিএনপি,আওয়ামিলিগ কোনোটাই করিনা।২টাকেই চরম ঘৃনা করি। আমি শুধু আপনার এই কথার কিছু উদাহরন দিলাম মাত্র।
      “””কোন যুক্তিতে বললেন দেশটা ইন্ডিয়াকে দিয়ে দিবে? আপনি কোন দলকে ক্ষমতায় চান?””

    @ আবু সায়েম:- আপনাদের মত শিক্ষীত মূর্খদের জন্যই আজ দেশের এই অবস্থা। আপনারা যারা আওয়ামিলীগের সাপোর্টার তারা বি এন পি আমলে দেশের কী কী ক্ষতি হয়েছে তার উদহারণ দিবেন আর যারা বি এন পির সাপোর্টার তারা আওয়ামিলীগের সময় দেশের কী কী ক্ষতি হয়েছে তার উদহারণ দেন কিন্তু এক বারও ভাবেন না যে ক্ষতিটা আমার নিজের, আমাদের হয়েছে।কারা দেশের কী ক্ষতি করছে, কী চুরি করেছে তা না ভেবে কী ভাবে দেশটাকে এগিয়ে নেওয়া যায় আসুন সবাই মিলে তা চিন্তা করি। টেকটিউনসের সবার কাছে অনুরোধ দ্রুত একটা আন্দোলনের ব্যবস্থা করুন। ঐ গর্ধবদের কে বুঝানো দরকার যা আন্দোলন ছাড়া আর কোন বিকল্প নাই।

      @মাসুদুর রহমান: “কারা দেশের কী ক্ষতি করছে, কী চুরি করেছে তা না ভেবে কী ভাবে দেশটাকে এগিয়ে নেওয়া যায় আসুন সবাই মিলে তা চিন্তা করি।” ক্ষতি, চুরি বন্ধ না করলে দেশ এগুবে কিভাবে? প্রকৃতভাবে আমি আওয়ামীলিগ , বিএনপি বা জামায়াত কারো সাপোর্টার না। সত্যি বলতে আমার আজব লাগে কেউ যখন বলে দেশটা ইন্ডিয়া হয়ে যাবে বা পাকিস্তানের মত জঙ্গি পূর্ণ রাষ্ট্র হবে। যার কারনে আমি মুকুট ভাইকে উক্ত প্রশ্নটা করেছিলাম। আর শিক্ষিত মূর্খ কিন্তু আমিও আপনাকে ভাবছি।

আরে ভাই এত উত্তেজিত হয়ে লাভ আছে। বাংলাদেশ সরকার যে আপনাকে ইন্টারনেট ব্যাবহার করার বেবস্থা করে দিছে এতাই তো বড় কথা। তারা তো তাও ইন্টারনেট শব্দ তার মানে বুঝে!!!? তাদেরকে ইন্টারনেট এর যেকোনো বিষয়ের উপর একটা বক্তব্য দিতে বলেন তারা ঘণ্টার পর ঘণ্টা ভাষণ দিয়ে দিবে পড়ে কিন্তু ওরা নিজেও জানেনা যে কি বলল। ওরা বেশির ভাগই শুধু ভাষণ দিতে জানে আর পারে শুধু ………?। এই দোষ শুধু তাদের না প্রতিটি মেধাবি ছাত্রদের কারন মেধাবী রা শুধু ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার ব্যাংকার হওয়ার স্বপ্নে বিভোর কিন্তু দেশ চালনাকে তারা পেশা হিসাবে নিতে চাইনা। এই সুযোগে যারা চরম চরম মেধাবী !! ( মানে বুঝতেই পারছেন কোন দিক দিয়ে মেধাবী ) তাদের হাতে দেশ চালানোর ভার দিয়া দিচ্ছি আর আশা করছি তারা আমাদের তথ্য প্রযুক্তির সরবচ্চ সেবা দিবে। আমরা হলাম সবচে বড় ইডিয়ট।

    @বাধন৮৬১: “মেধাবী রা শুধু ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার ব্যাংকার হওয়ার স্বপ্নে বিভোর কিন্তু দেশ চালনাকে তারা পেশা হিসাবে নিতে চাইনা। এই সুযোগে যারা চরম চরম মেধাবী !! ( মানে বুঝতেই পারছেন কোন দিক দিয়ে মেধাবী ) তাদের হাতে দেশ চালানোর ভার দিয়া দিচ্ছি আর আশা করছি তারা আমাদের তথ্য প্রযুক্তির সরবচ্চ সেবা দিবে। আমরা হলাম সবচে বড় ইডিয়ট।”
    কঠিনভাবে সহমত।
    সত্যি কথা বলতে গেলে আমিও রাজনীতি ঘৃণা করি।

Level 0

হাসান যোবায়ের ভাই, কি যে বলেন ওনাদের ভাবার সময় কয়
ওনারা কত কামে ব্যস্ত (ব্যাংক ঋণ নেওয়া , বিভিন্ন দিবস পালন করা,চাকুরিতে দলীয় লোকদের নিয়োগ , ………..কত বল)
ভাই,টেনশনে আছি এই ভেবে যে ওনারা আবার আপনার নামে মামলা করে বসে নাকি।
হাসান যোবায়ের ভাই, আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ সুন্দর ও বিশ্লেষণমলক পোস্টের জন্য।
শেষ কথা,”একজন ঘুমন্ত ব্যক্তিকে জাগানো সম্ভব কিন্তু ঘুমের ভানধরা ব্যক্তিকে জাগানো প্রায় অসম্ভব”।

    @mana: ”একজন ঘুমন্ত ব্যক্তিকে জাগানো সম্ভব কিন্তু ঘুমের ভানধরা ব্যক্তিকে জাগানো প্রায় অসম্ভব”।
    হক কথা বলেছেন।

      @mana: @হাসান যোবায়ের (আল-ফাতাহ্): ভাইয়া যাদের কথা বলছে তারা যদি যান্তু নেট স্পীড কি? তাহলে ব্যবস্থা নিত হয়তোবা কিন্তু তারাতো যানে না যে নেট স্পীড কত প্রয়োজন। আর যারা জানেন তাদের ক্ষমতা নেই স্পীড বাড়ার। আমাদের শিবগঞ্জে ২২-১২-১১ তারিখে মনে হয় প্রধান মন্ত্রির সাথে সরাসরি চেক করলো। কিন্তু সে ডিস এর ছাতি দিয়ে কিন্তু যদি আমাদের দেশের নেট স্পীড যদি বেশি হত তা হলে এটা একটা কম্পিউটার এর মাধ্যমে হয়। আমি যখন তাদের কে বললাম যে এটা ইন্টারনেট দিয়ে করা যেত না? তখন যে বলল যে, এতে যে টাকা পাব ইন্টারনেট দিয়ে করালে কি সে টাকা দেবে? তার মানে তারা টাকা খাওয়া জন্য এটা করছে না।

      রব ভাই সবই হলো টাকার খেলা 🙁

আমাদের মন্ত্রী হল বাংলা ছবির রাজু…….তাদের মাতই উনি সৎ নিষ্ঠাবান…
আমার নাম রাজু….খাই শুধু পেয়ারা বাদাম কাজু….
রাজু আমার নাম….নেই কোন বদনাম৤
এক কালের বিখ্যাত তরকারী ব্যবসায়ী৤
উনি কিভাবে ব্যান্ডউইথ বুঝবেন৤ একটা মেইল পাঠাতেও যার পিএস এর সাহায্য লাগে আর তিনি বুঝবেন ব্যান্ডউইথ!!!
কোন দিন উনি ‍কোন কিছু ডাউনলোড করেছেন কিনা আমার সন্দেহ৤ এটা করলেও ‍অন্তত কিছুটা বুঝতেন৤
আমরা অভাগা জাতি..:( 🙁

আমাদের মন্ত্রী হল বাংলা ছবির রাজু…….তাদের মতই উনি সৎ নিষ্ঠাবান…
আমার নাম রাজু….খাই শুধু পেয়ারা বাদাম কাজু….
রাজু আমার নাম….নেই কোন বদনাম৤
এক কালের বিখ্যাত তরকারী ব্যবসায়ী৤
উনি কিভাবে ব্যান্ডউইথ বুঝবেন৤ একটা মেইল পাঠাতেও যার পিএস এর সাহায্য লাগে আর তিনি বুঝবেন ব্যান্ডউইথ!!!
কোন দিন উনি ‍কোন কিছু ডাউনলোড করেছেন কিনা আমার সন্দেহ৤ এটা করলেও ‍অন্তত কিছুটা বুঝতেন৤
আমরা অভাগা জাতি..:( 🙁

আচ্ছা ভাই,,,,আমরা কি ফেইসবুকের মাধ্যমে একটা ডিজিটাল বিস্ফোরণ করতে পারি না???? আমরা ফেইসবুকের মাধ্যমে একত্রিত হয়ে বিশাল এক আন্দোলন রাজপথে করতে পারি না??? কত কিছুইর জন্যই ত আনন্দোল হয় , আমরা না হয় এই ইন্টারনেট এর জন্যই করলাম৤

    Level 0

    @ফারুক হোসাইন: ভাই আমি আপনার সাথে এক মত………যে আন্দোলন হবে রাজনীতি মুক্ত………

      @Mukut: অবশ্যই রাজনীতি মুক্ত৤ আমাদের একটাই দল হবে তার নাম হল বাংলাদেশ দল ৤

    @ফারুক হোসাইন: আপনার সাথে কঠিনভাবে একমত।
    আমরা ইচ্ছা করলেই এমন একটা আন্দোলন গড়ে তুলতে পারি। 😀

      @হাসান যোবায়ের (আল-ফাতাহ্): যত দ্রুত সম্ভব আমাদেরকে এই ডিজিটাল বিস্ফোরণ করতে হবে৤ বিশ্ব মিডায়ার মাধ্যমে সবাই জানবে৤ তা হলেই আমাদের সরকারের টনক নড়বে৤ ডিজিটাল বাংলাদেশ বাংলাদেশ ওয়ারিওর্সের কাছে /সবার কাছে আমার একটাই প্রস্তাব সেটা হল এই লেখাটি বাংলাদেশের সব কয়টি ফোরাম, ব্লগ ও ওয়েব পেজে ছড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করুন৤ এতে সচেতনতা যেমন বৃদ্ধি পাবে তেমনি জনমত, জনবল তৈরি হবে৤ আর এই আন্দোলনকে আরে বেগবান করতে আরে উদ্দ্যেগ নেয়া হোক৤

      @হাসান যোবায়ের (আল-ফাতাহ্): যত দ্রুত সম্ভব আমাদেরকে এই ডিজিটাল বিস্ফোরণ করতে হবে৤ বিশ্ব মিডায়ার মাধ্যমে সবাই জানবে৤ তা হলেই আমাদের সরকারের টনক নড়বে৤ ডিজিটাল বাংলাদেশ বাংলাদেশ ওয়ারিওর্সের কাছে /সবার কাছে আমার একটাই প্রস্তাব সেটা হল এই লেখাটি বাংলাদেশের সব কয়টি ফোরাম, ব্লগ ও ওয়েব পেজে ছড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করুন৤ এতে সচেতনতা যেমন বৃদ্ধি পাবে তেমনি জনমত, জনবল তৈরি হবে৤ আর এই আন্দোলনকে আরো বেগবান করতে আরে উদ্দ্যেগ নেয়া হোক৤

হাসান ভাই আসলেই কি এই দেশটা ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে…………………? গ্যাস , পানি, বিদ্দুত , আজ আর কোনটাই পাওয়া যাচ্ছেনা ………………শেষ পর্যন্ত নেট নিয়াও দুর্নীতি ……………আর আমরা শান্তির প্রতিক পাইরার মত চুপ ই থাকব…………!
আল্লাহ জানেন কি হতে যাচ্ছে…………।

    @Nasir Chowdhury: সাধারন মানুষ যদি একবার খেপে যায় তাহলে কোন সরকারের ক্ষমতা নাই ঠেলা সামলানোর।
    সমস্যা হলো সেই দিনটা কবে??

আমাদের দেশের সরকার হাতি গেলে দেখে না, মশা গেলে দেখে। তাও মশা মারার চেস্টা করে না। আমি এখানে সৌদি আরবে WIFI এর স্পীড পাই মাত্র ৫৪ এমবি। কেব্‌লে স্পীড পাই ১০০ এমবি। কিন্তু যখন দেশে নেট টু নেট ফোন করি তখন মাথার চুল ছেড়াছাড়া আর উপায় পাইনা। আমাদের দেশকে ডিজিটাল বানানোর নামে বলে ডিজিটাল চুর বানাইতাছে। আমি মাঝে মাঝে আব্বাকে বলতাম বড় শিক্ষক ব্যাংকাররা এত মূর্খ কেন। তখন আমার বাবা বলতেন, ১৯৭২ এর পর কয়েক বছর যাবত স্কুল-মাদ্রাসার চেয়ার টেবিল সহকারে পাশ করেছে, তারা বর্তমানের অবস্থার কথা কি জানে, আর কি জানবে। (RFL এর Advertise ছিল। যতই চাপাচাপি করেন কোন লাভ নাই,চাই RFL এর টিউবয়েল।) আমার মনে হয় আমার কথাটা বুঝতে পেরেছেন। বাক্যটা আমি প্রতীক অর্থে ব্যবহার করেছি। ধন্যবাদ সুন্দর একটা তথ্যবহুল টিউন করার জন্য। আমি চাই আপনার এই লেখাটা সারা বাংলাদেশের সকল মানুষের কাছে পৌঁছে যাক।

হায়রে হায়, হায় হায়……
আরো শোনেন, GrammenPhone এর যদি Unlimited মোডেম নেন, তবুও তা আনলিমিটেড না। কারন ৫ জিবি ব্যবহার শেষ হইলেই তারা স্পিড কমায় দেয়, আর সেই স্পিড মাত্র ৩-৪ কিলো পার সেকেন্ড। অর্থাৎ পেজ খুলতে দিয়ে আপনি ঘুমাতে যেতে পারেন। তাহলে ভাবুন, কোম্পানিগুলো কেমন চোর!!!

Level 0

Ki r bolbo desher kotha sobai sundor sundor comment korsen and @jobayer vi apnake onek onek Thanks aita share korar jonno

হাসান ভাই আবারো জনগুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়ে এতো সুন্দর একটি প্রতিবেদন করায় অনেক অনেক ধন্যবাদ । টিউনতো সোজা প্রিয়তে আর নির্বাচিত করতে আমি ভোট দিয়েছি। অন্তত্য দেশর কিছু লোক জানুক কেন আমরা পিছিয়ে আছি।

অনেক ধন্যবাদ, আমি দুবাইতে থাকি, আমার নেটের স্পীড 900kbps, আর আমার সুনার বাংলার 10 kbps, এই ডিজিটাল সরকারকে অনেক সময় মন থেকে অনেক গালি দেই। যখন আমি voice chat/ video chat করতে পারিনা,
আসলে আমাদের মুখে অনেক বড বড় কথা, কাজের বেলাই টু টু , আমি মনে করি যদি আমাদের সব tuner/blogger ভাইরা এগিয়ে আসে, তাহলে ম্নে কিছুটা স্মাধান হত,।

গত ২.৫ বছর (প্রায়) ধরে TechTunes পড়ছি , আজ Sign Up না করে আর… থাকতে পারলাম না।
রক্ত গরম হয়ে গেছে।চুপ করে বসে থাকার দিন শেষ।এবার নিজেদের অধিকার আদায় করে নিতে হবে।
শুরু করতে হবে “ব্যন্ডউইথ আন্দলোন”।আসুন সবাই অন্তত এক দিন মাঠে নামি তাতেই কাজ় হবে ,ইনশাল্লাহ।
@হাসান যোবায়ের, ভাই অনেক কষ্ট করে এই টিউন টা করছেন, আপনার লেখার ধার অনেক, ভাই আর একটু কষ্ট করে “ব্যন্ডউইথ আন্দলোন” নিয়ে একটা টিউন করেন। আশা করছি আপনার ডাকে সবাই এগিয়ে আসবে। (আল্লাহ আপনার মঙ্গল করুন)

    @অবুঝ বালক: অসীম ধন্যবাদ আপনাকে। আপনার মতো যদি সবাই এগিয়ে আসে তাহলে সবই সম্ভব। আশা করি আন্দোলনের বেশি দেরি নেই।

    @অবুঝ বালক: ১০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০০৤ আমরা একমত৤

আমি এই সাইট থেকে টাকা ইনকাম করতেছি। কোন ইনভেস্টমেন লাগেনা। এলার্ট পের মাধ্যমে আপনি টাকা তুলতে পারবেন।মাত্র ১.২০ ডলার ইনকাম হলেই টাকা তুলা যায়। জয়েন করুন http://www.cashnhits.com/index.php?ref=bd24live

চমৎকার তথ্য বহুল পোস্ট………আন্দোলন টা এখন শুরু করা দরকার… অনেক হয়েছে আর মেনে নেওয়া যায় না

    @পংকজ: “আন্দোলন টা এখন শুরু করা দরকার… অনেক হয়েছে আর মেনে নেওয়া যায় না”
    খাটি কথা!

অসাধারণ লিখেছেন। আসলে মূল কথা হলো যারা নীতি নির্ধারক তারা আসলে জানেই না ব্যান্ডউইথ কী। আর যাদের এ কাজে উপদেষ্টা করা হয়েছে তারা সর্বোচ্চ ইন্টারমিডিয়েট শ্রেণির কম্পিউটার সায়েন্স এর বই লিখতে পারেন। অথচ আমাদের দেশের কত ছেলে মাইক্রোসফট এর মতো কোম্পানীতে চাকরি করছে। তাদের কাছে একবার হাত ও বাড়ায় না সম্মানিত নীতি নির্ধারকগণ। আবারও ধন্যবাদ লেখককে।

তোমাকে অনেক ধন্যবাদ সুন্দর একটি তথ্য বহুল টিউন এখানে শেয়ার করার জন্য এবং মুল লেখকেও ধন্যবাস এমন তথ্য বহুল টিউনটি কষ্ট করে লেখার জন্য।
আসলেই আমরা অভাগা জাতি আমরা শুধু আছি অতিত নিয়ে ঘাটাঘাটিতে আর ব্যাক্তি পুজায়,কে বুঝাবে আমাদের রাজনীতিবিদদের যে বর্তমান আধুনিক যুগে পুরানো স্বপ্ন পুরুনের দিকে না তাকিয়ে সামনের স্বপ্ন পুরুনে এগিয়ে আসতে হবে।তবেই আমাদের সফলতা আসবে।

Level 0

বড় রকমের একটা পরিবর্তন দরাকার। ——–> right

যে দেশের মন্ত্রিসভার অধিকাংশ মন্ত্রি ক্লাস ফাইভ পাস সেখানে এই বিষয় তাদের মাথার উপর দিয়ে যাবে।এদেশে অল্প যেটুকু ভাল স্পীড এর নেট ব্যবস্থা আছে তার মূল্য খুব বেশি।তথ্যপ্রযুক্তির এই যুগে আমাদের মত এমন একটা অসীম সম্ভাবনাময় দেশে এই বৈষম্য মেনে নিতে কষ্ট হয়।

আমার নেট স্পীড 100 MBPS. ক্লিক করলেই ওপেন হয়। ধন্যবাদ হাসান যোবায়ের।

আমি দেশের বাহিরে থাকি আমার নেট স্পীড 100 MBPS ক্লিক করলেই সাথে সাথে ওপেন হইয়া যায়, কিছুদিন পর দেশে যাব তখন অবস্থা কি হবে সেই চিন্তা করতেছি, ধন্যবাদ হাসান যোবায়ের ভাই লেখাটি শেয়ার করার জন্য।

নেট স্পীড ছাড়া, বাংলাদেশ ডিজিটাইল হবে, ডিজিটাল হবে না।

যারা বাহিরে থাকেন তারা আর স্পিডের কথা বইলেন না, কষ্টে আরো যন্ত্রনা হইতাছে…… আন্দোলন নয় শুধু ধরে ধরে সাইজ করতে ইচ্ছা করছে..
হাসান যোবায়ের (আল-ফাতাহ্) ভাই কে ধন্যবাদ ।

Level 0

ধণ্যবাদ ভাই। আসুন আমরা সবাই শপৎ করি আগামী নিরবাচনে হাসিনা ও খালেদা কে ভোট দিবনা।

Level 0

খুব তাড়াতাড়ি কিছু একটা করা খুব দরকার । আর কত ? 🙁

ডিজিটাল বাংলাদেশ বাংলাদেশ ওয়ারিওর্সের কাছে /সবার কাছে আমার একটাই প্রস্তাব সেটা হল এই লেখাটি বাংলাদেশের সব কয়টি ফোরাম, ব্লগ ও ওয়েব পেজে ছড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করুন৤ এতে সচেতনতা যেমন বৃদ্ধি পাবে তেমনি জনমত, জনবল তৈরি হবে৤ আর এই আন্দোলনকে আরে বেগবান করতে আরো উদ্দ্যেগ নেয়া হোক৤

ভাইজান আমি টিটিতে অনেক দিন ধরে সদস্য হয়ে আছি। কিন্তু আমার অজ্ঞতার জন্য কোন কমেন্ট করতে সাহস পাই না।
তবে আজ আপনার এই পোষ্টটি পড়ে কমেন্ট না করে থাকতে পারলাম না।
আসুন আমরা রাজপথে নামি। তবে অবশ্যই কোন রাজনৈতিক আশ্রয় ছাড়া।
কবে আসছেন? আমি সবসময় প্রস্তুত।

আমরা সরাসরি আন্দোলনে যেতে চাই৤ যত দ্রুত সম্ভব আমাদেরকে এই ডিজিটাল বিস্ফোরণ করতে হবে৤ আমরা আর চুপ থাকতে চাইনা৤ আমরা বুড়া না তরুণ আর এটাই আমাদের বড় শক্তি৤ তরুণ শক্তিকে ভয় পায়না এমন কোন নজির নেই৤ পাকিস্তানের মত বদমাশ শাসকেরা বাংলাদেশের কাছে হেড়েছিল এই একটি কারণে৤

জয়েন করেন করেন “(বাব/BAB) ব্যন্ডউইথ আন্দোলন বাংলাদেশ” ফেসবুক গ্রুপ৤

আমাদের দেশে পন্ডিতের অভাব নেই। ডিজিটাল বাংলাদেশ লইয়া লাফালাফির শেষ নাই। কত্তো হাজার হাজার নীতি যে সরকার তৈরী করে। কিন্তু এমন কোন নীতি তৈরী করে না য দেশের তথ্যপ্রযুক্তি সেক্টরে কোন কাজে আসে। দেশের বাইরে থাকি, ২০ এমবিপিএস লাইন ব্যবহার করি। যখন দেশে যাই, তখন লাইনের স্পীড দেখে কান্না পায়। এখানে এরা অলরেডি 4G LTE শুরু করে দিয়েছে আর আমরা 3জি চালু করার জন্য কত্তো শত নীতি। ফারুক ভাই ঠিক বলেছেন, আমাদের ডিজিটাল বিষ্ফোরণ করতে হবে। তবে আমাদের সরকার দ্বারা এমন কোন উন্নয়নমূলক কাজ হয়তো হবে না। দেখা যাক, আর কতো খারাপ হতে পারে আমাদের অবস্থা। লেখককে ধন্যবাদ এমন সুন্দর বর্ণনামূলক একটি লেখা উপহার দেবার জন্য।

আপনার সাথে সহমত। ভাই কি করব, মনে করেছিলাম এবার বোধহয় সরকারের ঘুম ভাংবে, কিন্তু যে লাউ সেই কদু!!! কিছুই হচ্ছেনা, অযোগ্য অপদার্থ মন্ত্রি বসিয়ে রেখেছে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে যার খেসারত এখন আমরা দিচ্ছি। মন্ত্রি মহোদয়(!?!) ব্যান্ডউইথ রফতানি করিয়া প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা আহরণের অতি উত্তম পন্থা উদ্ভাবন করিয়াছেন। শুনেছিলাম জানুয়ারিতে ১২,০০০/Mbps (ভ্যাট ব্যতিত) ব্যান্ডউইথ ৬০০০/Mbps (ভ্যাট ব্যতিত) করা হবে কিন্তু সেইটা আর হল না, মাত্র ২০০০ টাকা কমিয়ে তারা লম্ফ জম্ফ করছেন। মন্ত্রি মহোদয়(!?!) মনে হয় ব্যান্ডউইথ সংরক্ষণ করিবার কোন উপায় আবিস্কার করিয়াছেন, যাহা উনি হয়তো চুরি(!!!) হইয়া যাওয়ার ভয়ে জনসমক্ষে প্রকাশ করিতে পারিতেছেন না(!!!) পেটেন্ট লইয়া উনি উনার আবিস্কার আপনাদের সামনে অতিসত্তর প্রকাশ করিবেন – যে কিভাবে কি করিলে আপনি আপনার ব্যান্ডউইথ সংরক্ষণ করিতে পারিবেন(???!!!)। আমরা হয়তো সেই অপেক্ষায় আছি। ধন্যবাদ 🙂

খুব ই সময়োপযোগী এবং তথ্যবহুল একটি লেখা!
অনেক ধন্যবাদ জোবায়ের লেখাটি শেয়ার করার জন্য।
ফেসবুকে শেয়ার দিলাম।

Level 0

আমার একটি পরামর্শ আছে, আমাদের একটা তারিখ (উদাহরণ 01-02-2012) নির্ধারণ প্রয়োজন হবে, আমাদের জাতীয় নেতৃস্থানীয় খবর কাগজে চিঠি পাঠাতে হবে তাদের এই বিষয়বস্তু প্রকাশের অনুরোধ করে
university গুলোতে leaflet বিলি করতে হবে ছাত্রদের সমর্থনের জন্য

    @babui123: হ্যা আমাদের এই রকমই পরিকল্পনা নিয়ে এগোতে হবে৤ আল্লাহ যেন আমাদের সবাইকে যেন সেই শক্তি দেন৤

@babui123 সহমত।

Level 0

কিছু কইলাম না । যদি ফাঁসী দেয়। আমি হাসিনা/ খালেদা রে ভুই ফাই।

Very well and informative post which shows that even Bangladesh has Submarine cable but for the uneducated people and Corruption in IT Sector in Bangladesh lead it to totally unproductive. I don’t know at this moment which government can rescue us. Because BNP or Bangladesh Awamilig Whatever took the responsibility to lead the nation, both are following illegal policy. Both of these two parties member never think about the nations and they don’t like to follow what foreign country are doing. Now all other countries Internet speed are very high and 3G or 4G are available and our country net speed never reached even 1Mbps. So I hope the Prime minister of Bangladesh would take immediate step to uplift of Bangladesh Internet and never made this country down. I am not sure whether the government of Bangladesh read this article or not? May be they have proper education but they don’t have real sense which can build a nation. It’s a very pathetic to us. I am sure current government cannot continue anymore if they never took any action. Thanks for nice post.

তাই তো বলি হাসান ভাইইয়ের পোষ্টে এত ভিড় কেন। ভাই চরম হইছে।

কারো যদি ভাল লাগে ঘুরে আসতে পারেন নিচের লিং থেকে…………
http://mimarriagemedia.com

আসলে হাসিনা আর খালেদা হল গু-এর এপিঠ আর ওপিঠ। দুটো থেকেই দুর্গন্ধ বের হয়।

এক কথায় জোস!!!!! 😀

jogonnotomo disen…. aibar sob cheye valota den… khali to sobai desher kharap tai dey…valota to kew deynah

Time nosto na kore digital andolon gore tuli, ekta panel create kore taderke niye kaj suru kora dorkar khub taratari, kajgulo onektai ei post e deya ase. Fb ekta madhom hote pare, blog gulo to asei. Sobai share korun ei lekhati, ekta fb page khola jete pare etc. Aro kisu idea sobar ongsogrohone emnitei ber hoye asbe. Thanks for the aweosome post.

Level 0

সে কি চেনে মানুষ রতন
দরগা তলায় মন মজেছে
শিরনী খাওয়ার লোভ যার আছে
সাদুর হাটে সে যদি জায় ————————————————-
মনটা এই লাইনে নিয়া আসেন সব ঠিক হইয়া যাইব
আমি এই লাইনে তাই কোন কষ্ট নাই
অনেক হারাইছি জিবনে
আর কিছু হারাইলে কিছু মনে হয়না

হাসান ভাই মামলা খাইয়েন না সত্য বলা নিষেধ

———————————মন থাকে তার দরগা তলায় ————————————————

এই জন্নী মামলা খাইলে জীবন সার্থক

সবই বুঝলাম , কিন্তু বিড়ালের গলায় ঘন্টাটা বাধবে কে? সরকারের কাছেতো তথ্যটা পৌছাতে হবে । আর পৌছালেই যে কাজ হবে এমন কথা না । তবে আগে সমস্ত ব্লগ, ফোরামে জনমত গড়ে তুলে আমরা সবায় মিলে একটা নির্দিষ্ট দিনে আন্দোলনে নামতে পারি । সমস্ত পত্রিকা গুলাতে এর একটা কপি পাঠাতে পারি । তানাহলে কিছুই হবে না ।

ভাই কি বলব মনের দূক্ষে আন্তটা পাইটা যাই< ভাই ঐ দিন Youtube একটা ভিডিএ টিউটরিয়াল ডাইন করেছি দেখি উনি কি নেট ব্রাইজ করেন নাকি pc r file folder খুলেন বুযা যায়না

আপনি তো আমারে হতভম্ব করে দিলেন। হাসিনা বলেছেন ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ হবে। তাই বাকি ব্যান্ডউইথ গুলো মনে হয় ২০২০ সালের Dicembore এ পাবো।

Level 0

হা হা ভাই হাসালেন ……… ২০২০ সালে আমরা ১gbps স্পীড পাব !!!!