ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

হ্যান্ডস-অন রিভিউঃ ওয়ালটন Primo H6+ – মাত্র ১২ হাজার টাকায় ৩ গিগাবাইট র‍্যাম ও ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা

সুপ্রিয় কমিউনিটি,
সবাই ভালো আছেন নিশ্চয়ই? ঈদের কেনাকাটায় স্মার্টফোন থাকছে কী? আপনাদের জন্য আমার এবারের টিউন ওয়ালটনের প্রিমো সিরিজের নতুন স্মার্টফোন Primo H6+ এর হ্যান্ডস-অন রিভিউ।

ADs by Techtunes ADs

Primo H6+ মডেলটি এর পূর্বসূরী Primo H6 এর তুলনায় অনেক আপগ্রেডেড। অ্যান্ড্রয়েডের আপডেটেড সংস্করণ অ্যান্ড্রয়েড ৭.০ নউগ্যাট নির্ভর এই ফোনটিতে রয়েছে ৫.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে, ৩ গিগাবাইট র‍্যাম, ৩০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি, ১৬ গিগাবাইট রম প্রভৃতি।

১১,৯৯০ টাকা দামের এই ফোনে আরও আছে BSI সেন্সরযুক্ত ১৩ মেগাপিক্সেলের অটোফোকাস রেয়ার ক্যামেরা, এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা, কোয়াডকোর প্রসেসর ও আকর্ষণীয় নানা ফিচার।
Primo H6+ এর বিল্ড কোয়ালিটি ও ডিজাইন, ইউজার ইন্টারফেস, ব্যাটারি ব্যাকআপ, গেমিং পারফরম্যান্স, বেঞ্চমার্ক স্কোর, ক্যামেরা পারফরম্যান্স নানা খুঁটিনাটি তথ্য নিয়ে আমার টিউনটি সাজিয়েছি।

Primo H6+ hands-on

রিভিউয়ে শুরুতে একনজরে Primo H6+ এর উল্লেখযোগ্য ফিচারসমূহ দেখে নিন-

  • অ্যান্ড্রয়েড ৭.০ নউগ্যাট অপারেটিং সিস্টেম
  • ৫.৫ ইঞ্চি ২.৫ ডি কার্ভ ডিসপ্লে
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর
  • ১.৩ গিগাহার্টজ কোয়াডকোর প্রসেসর
  • ৩ গিগাবাইট র‍্যাম
  • মালি-টি৭২০ জিপিউ
  • ১৩ মেগাপিক্সেলের রেয়ার ক্যামেরা
  • ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ৩০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি

Primo H6+ hands-on

যেসব কারণে Primo H6+ ভালো লেগেছেঃ

  • ২.৫ডি কার্ভ ডিসপ্লে
  • নউগ্যাট অপারেটিং সিস্টেম
  • ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর
  • এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা

Primo H6+ review

Primo H6+ কেনার পর আপনি এর সাথে যা যা পাবেন-

  • চার্জার অ্যাডাপ্টার
  • ডাটা ক্যাবল
  • ইয়ারফোন
  • সিম ইজেক্টর পিন
  • ইউজার ম্যানুয়াল
  • ওয়ারেন্টি কার্ড

Primo H6+ Unboxing

 অপারেটিং সিস্টেম:

অপারেটিং সিস্টেমের দিক দিয়ে বর্তমান বাজারের অধিকাংশ ফোন থেকে এগিয়ে রয়েছে Primo H6+, কেননা এতে অ্যান্ড্রয়েডের আপডেটেড সংস্করণ অ্যান্ড্রয়েড ৭.০ নউগ্যাট ব্যবহার করা হয়েছে।
Primo H6+ os

বিল্ড কোয়ালিটি ও ডিজাইনঃ

নজরকাড়া ডিজাইনের প্রিমো H6+ অনায়াসেই আপনার নজর কাড়বে। এর ইউএসবি পোর্ট ও স্পিকার রয়েছে নিচের দিকে।
Primo H6+ hands-on

এর ভলিউম কী ও পাওয়ার কী উভয়ই একপার্শ্বে দেওয়া হয়েছে। এই ফোনের সামনের দিকে উপরের অংশে আছে ফ্ল্যাশলাইট, ফ্রন্ট ক্যামেরা, প্রক্সিমিটি সেন্সর আর নোটিফিকেশন লাইট। এর রেয়ার ক্যামেরা, এলইডি ফ্ল্যাশ রয়েছে পেছনের অংশে। এই ফোনে হোম/মেনু, অপশন ও ব্যাক – এই তিনটি বাটন রয়েছে।
Primo H6+ frontPrimo H6+ এর রেয়ার ক্যামেরার নিচের দিকে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর বিদ্যমান।
Primo H6+ front১৫৪.৪ মিলিমিটার উচ্চতার এই ফোনটি প্রস্থে ৭৮.৭ মিলিমিটার আর এর পুরুত্ব মাত্র ৯.১ মিলিমিটার। ব্যাটারিসহ এই ফোনের ওজন ১৯০ গ্রাম। ফোনটির ৩.৫ মিলিমিটার অডিও পোর্টটি রয়েছে উপরের দিকে আর সিম স্লটটি বাম দিকে।
Primo H6+ front

ADs by Techtunes ADs

ডিসপ্লে:

এই ফোনে ৫.৫ ইঞ্চির ২.৫ডি কার্ভ ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে। এর ডিসপ্লের রেজ্যুলেশন হলো ১২৮০x৭২০ পিক্সেল
Primo H6+ display

ইউজার ইন্টারফেস:

ডিজাইন ও ডিসপ্লে নিয়ে তো কথা হলো, এবার চলুন এই ফোনটির ইউজার ইন্টারফেস দেখে নেওয়া যাক।
Primo H6+ User Interface

সিপিউ ও চিপসেট:

১.৩ গিগাহার্টজ গতির কোয়াডকোর প্রসেসরের Walton Primo H6+ এ মিডিয়াটেকের MT6737 চিপসেট ও মালি-টি৭২০ জিপিউ ব্যবহৃত হয়েছে।
Primo H6+ cpu chipset

স্টোরেজ ও র‍্যাম:

Primo H6+ এ ১৬ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরীর পাশাপাশি আছে ১২৮ গিগাবাইট পর্যন্ত এক্সটারনাল মাইক্রো-এসডি কার্ড ব্যবহারের সুবিধা। অন্যদিকে এই ফোনে রয়েছে ৩ গিগাবাইট র‍্যাম
Primo H6+ hands-on memory

ক্যামেরা:

Primo H6+ এ আছে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত ১৩ মেগাপিক্সেল রেয়ার ক্যামেরা। এতে BSI সেন্সর থাকায় আপনি অনায়াসেই বেশ ভালো ছবি তুলতে পারবেন। আর সেইসাথে অটোফোকাস, টাচ ফোকাস, প্যানোরোমা, ফেস বিউটি প্রভৃতি ফিচার তো থাকছেই।
Primo H6+ এর ক্যামেরা ইন্টারফেস ও সেটিংস–
Primo H6+ camera settingsPrimo H6+ এর ক্যামেরায় তোলা ছবিঃ
Primo H6+ camera sample
Primo H6+ camera sample 2৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরাবিশিষ্ট এই ফোনের ফ্রন্ট ক্যামেরাতেও এলইডি ফ্ল্যাশ থাকায় স্বল্প আলো কিংবা অন্ধকারেও ভাল সেলফি তুলতে পারবেন।
Primo H6+ front camera sample

মাল্টিমিডিয়া:

৩.৫ মিলিমিটারের অডিও জ্যাকসম্পন্ন এই ফোনের সাথে যে হেডফোনটি দেওয়া হয় তার সাউন্ড কোয়ালিটি মোটামুটি।
Primo H6+ video reviewঅডিও এর কথা তো গেলে, এবার আসা যাক ভিডিওর কথায়। কোয়াডকোর প্রসেসরের এই ফোনে ১০৮০ পি ফুল এইচডি ভিডিও কোন ধরণের ল্যাগ ছাড়াই দেখা গেছে।
Primo H6+ video review

গেমিং পারফরম্যান্স:

কোয়াডকোর প্রসেসর ও ৩ গিগাবাইট র‍্যামবিশিষ্ট Primo H6+ এর গেমিং পারফরম্যান্স এই ফোনে বিভিন্ন ধরণের এইচডি গেম বেশ স্মুথলি খেলা যায়। এই ফোনে নিড ফর স্পীড, মাইনক্র্যাফট, অ্যামেজিং স্পাইডারম্যান ২ প্রভৃতি জনপ্রিয় গেম কোন ধরণের ল্যাগিং ছাড়াই খেলা গেছে।
Primo H6+ hands-on gaming performance

সেন্সর:

Primo H6+ এ ফিঙ্গারপ্রিন্ট, অ্যাক্সিলেরোমিটার, লাইট, প্রক্সিমিটিসহ মোট ১২টি সেন্সর বিদ্যমান।
Primo H6+ Color

সিম:

ডুয়েল সিম সুবিধার Primo H6+ এর উভয় স্লটেই থ্রিজি ও ফোরজি সুবিধা উপভোগ করা যায়।

রং:

কালো ও সোনালী - এই ২ রংয়ে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে Walton Primo H6+
Primo H6+ Color

ADs by Techtunes ADs

কানেক্টিভিটি:

এই ফোনে ফোরজি, ব্লুটুথ ৪.০, ওয়াইফাই, ওয়্যারলেস হটস্পট প্রভৃতি কানেক্টিভিটি সুবিধা রয়েছে। আরও আছে জিপিএস, এ-জিপিএস প্রভৃতি সুবিধা।

ব্যাটারি:

৫.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লের Primo H6+ এ ৩০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-পলিমার ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়েছে। ফুল চার্জ দিয়ে টানা ১ ঘন্টা ৪৫ মিনিট ইন্টারনেট ব্রাউজ ও এইচডি ভিডিও উপভোগ করার পর এর চার্জ ৭১% এ নেমে এসেছিলো। তবে স্বাভাবিক ব্যবহারে অনায়াসেই একদিন চালিয়ে নেওয়া যায়।
Primo H6+ Battery

বেঞ্চমার্ক:

Primo H6+ এর বেঞ্চমার্ক স্কোর যাচাইয়ের জন্য বেঞ্চমার্ক যাচাইয়ের জনপ্রিয় অ্যাপ AnTuTu বেছে নেওয়া হয়েছিলো, যেখানে এর স্কোর এসেছে ২৮০১৬; অন্যদিকে GeekBench এ এর স্কোর এসেছে ৫১৭ (সিঙ্গেল-কোর) ও ১৩৬৮ (মাল্টি-কোর)
Primo H6+ antutu benchmark
বেঞ্চমার্ক যাচাইয়ের আরেক অ্যাপ Nenamark এ Primo H6+ এর স্কোর এসেছে ৫৪.৪
Primo Primo H6+ hands-on review Nenamark Score

স্পেশাল ফিচার:

এই ফোনের বিভিন্ন স্পেশাল ফিচারের মধ্যে মাল্টি উইন্ডো, ডুরা স্পিড প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য।
Primo H6+ special feature USB Type-C

OTA আপডেট সুবিধা:

এই ফোনে OTA বা Over The Air আপডেট সুবিধা রয়েছে, যার ফলে পিসির সাথে সংযুক্ত করা ছাড়াই এর সফটওয়্যার আপডেট করা যাবে।

মূল্য:

ক্রেতাদের সাধ্যের কথা বিবেচনা করে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, ৩ গিগাবাইট র‍্যাম, ৮ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা, ১৩ মেগাপিক্সেল রেয়ার ক্যামেরা ও আকর্ষণীয় নানা ফিচারের Walton Primo H6+ এর দাম ১১,৯৯০ টাকা নির্ধারণ করেছে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ।
Primo H6+ special feature USB Type-C

চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত:

১২ হাজার টাকা বাজেটে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা, লেটেস্ট অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম, ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ও ভালো ক্যামেরা পারফরম্যান্সযুক্ত ফোন কিনতে চাইলে Primo H6+ সহজেই অন্যদের থেকে এগিয়ে থাকবে। এছাড়া ২.৫ডি কার্ভ ডিসপ্লে ও নজরকাড়া ডিজাইন তো রয়েছেই!
Primo H6+ এর রিভিউ সম্পর্কে আপনাদের মূল্যবান প্রশ্ন কিংবা টিউমেন্ট জানান টিউমেন্টে। নতুন কোন টিউন নিয়ে আবারও দেখা হবে আপনাদের সাথে। সবাই ভালো থাকুন।

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি আরিফিন সৈকত। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 76 টি টিউন ও 24 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 4 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

অ্যান্ড্রয়েড নিয়ে কাজ করতে ভালো লাগে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস