ফেসবুকের পরিবর্তে ব্যবহার করুন বাংলাদেশি একটি অসাধারণ সোশ্যাল অ্যাপ

Level 4
টিউনার, সেনবাগ রেসিডেন্সিয়াল দাখিল মাদ্রাসা, নোয়াখালী

হ্যালো বন্ধুরা, বর্তমানে আমরা অনেকেই ফেসবুক ব্যবহার করি। আর ফেসবুক হচ্ছে একটি বাহিরের দেশের তৈরিকৃত অ্যাপ। তাই যদি আমাদের দেশের কোন অ্যাপ করতে পারতাম তাহলে হয়তো আরো অনেক ভালো হতো। আর এই কথা মাথাই রেখেই তৈরি করে ফেলেছে বাংলাদেশি ডেভেলপাররা অসাধারণ একটি সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ। সেই অ্যাপটিতে শুধু সোশ্যাল মিডিয়া অপশনই না রয়েছে আরো অনেক অপশন যা আমরা পুরো টিউনে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করবো। তাই আশা করি টিউনটির শেষ পর্যন্ত আমাদের পাশেই থাকবেন।

 

বাংলাদেশি অ্যাপ হওয়ায় আমরা অনেকে তা ব্যবহার করতে চাইবো না। আমরা অনেকেই জানি বাংলাদেশি কোন পণ্যই বাহিরের দেশের মতো ভালো হয় না। কিন্তু বর্তমানে বাংলাদেশও এগিয়ে যাচ্ছে বাহিরের দেশ গুলো মতো। তার জন্য দরকার শুধু আপনার মতো নাগরিকদের সহযোগিতা। একটা বিষয় আপনি জেনে থাকবেন যখন ফেসবুক  তৈরি করা হয় তখন কিন্তু ফেসবুকের এইরকম অসাধারণ ফিচার গুলো ছিল না। কিন্তু মানুষের ব্যবহার করার ফলে তারা আস্তে আস্তে এই ধরনের ফিচার যোগ করেন। তাই আমরা যদি আমাদের এই অ্যাপটাকে ব্যবহার করতে থাকি তাহলে আমাদের এই অ্যাপটাও ফেসবুক হার মানিয়ে দিবে। তো চলুন শুরু করা যাক।

 

আমি যে অ্যাপটি নিয়ে আলোচনা করবো সেই অ্যাপটির নাম হচ্ছে কথা অ্যাপ। আপনারা অনেকেই এর নাম শুনে থাকবেন কিন্তু হয়তো বাংলাদেশি হওয়ায় ব্যবহার করেননি কিন্তু আমি গ্যারান্টি দিচ্ছি আপনারা একবার ব্যবহার করলে তার প্রেমে পড়ে যাবেন। অ্যাপটিতে রয়েছে অনেক অসাধারণ ফিচার এবং আমার কাছে সবচেয়ে ভালো লেগেছে তার চ্যাট সিস্টেমটি। সেখানে অনেক দারুণ দারুণ স্টিকার রয়েছে যা ব্যবহার করে অনেক মজা পাবেন। এবং রেফার সিস্টেমও রয়েছে সেই অ্যাপটিতে।

 

কিভাবে ইনস্টল এবং একাউন্ট খুলবেন?

কথা অ্যাপটি আপনারা সহজেই প্লে স্টোরে পেয়ে যাবেন। তাই প্রথমে আপনি আপনার প্লে স্টোরে প্রবেশ করবেন। তারপর সার্চ বারে লিখবেন kotha। সার্চ করার পর আপনার সামনে এইরকম একটি অ্যাপ আসবে।

অ্যাপটি আসার পর সহজেই ইনস্টল করে নিবেন। এবং পারলে অ্যাপটিতে পাচ স্টার রেটিং দিবেন। যাতে করে অ্যাপটি প্লে স্টোরে টপে থাকতে পারে। ইনস্টল হয়ে গেলে অপেন করবেন।

এই পেজটি আসার পর দেখতে পাবেন এখানে বলা আছে তাদের নিয়ম কানুন গুলো গ্রহণ করতে। তাই আপনি নিচের AGREE AND CONTINUE বাটনে ক্লিক করবেন। তাহলে পরিবর্তি পেজ আপনার সামনে আসবে।

এখানে আপনার মোবাইল নাম্বারটি চাইবে। আপনি আপনার মোবাইল নাম্বারটি সঠিকভাবে দিবেন। এবং মনে রাখবেন নাম্বারটি কিন্তু জিরো ছাড়া দিবেন। এবং নিচের অ্যারো বাটনটিতে ক্লিক করবেন। সবকিছু ঠিক ঠাক থাকলে আপনার নাম্বারে একটি ম্যাসেজ যাবে। এবং নিচের মতো একটি পেজ আসবে।

আপনি যে মোবাইল দিয়ে একাউন্টটি খুলতেছেন সেই মোবাইলে যদি নাম্বারটি থাকে তাহলে ভেরিফিকেশন কোডটি নিয়ে নিবে। আর যদি না থাকে তাহলে সেখান থেকে কোডটি এখানে বসিয়ে দিবেন। তাহলে নিচের মতো একটি পেজ আসবে।

এই অ্যাপটিতে একটি দারুণ সিস্টেম রয়েছে। তাহলো আপনার কন্টাক্টে থাকা কেউ যদি এই অ্যাপটিতে একাউন্ট খুলে তাহলে অটোমেটিকই আপনার ফ্রেন্ড লিস্টে এড হয়ে যাবে। তাই এখানে Continue বাটনে ক্লিক করবেন। এবং Allow তে ক্লিক করবেন।

 

এখানে আপনার একটি নাম দিবেন এবং আর চাইলে আপনার একটি ছবি দিতে পারেন। যদি চান যে পরে দিবেন তাহলে ছবি না দিয়ে নিচের ঠিক বাটনে ক্লিক করবেন। আর যদি দিতে চান তাহলে Change Profile Picture বাটনে ক্লিক করুন।

এখানে আপনি যদি এখন ছবি তুলে দিতে চান তাহলে From Camera বাটনে ক্লিক করুন। আর যদি গ্যালারি থেকে দিতে চান তাহলে From Gallery বাটনে ক্লিক করে একটি ছবি সিলেক্ট করে দিন। এবং নিচের ঠিক বাটনে ক্লিক করুন। তাহলে দেখতে পাবেন আপনার একাউন্টটি খুলে গেছে। এবং নিচের মতো একটি পেজ দেখতে পাবেন।

তারা আপনারা চ্যাটিং পেজে নিয়ে এসেছে। বর্তমানে আপনার কোন বন্ধু না থাকায় শুধু তাদের একটি আইডি দেখতে পাচ্ছেন। আপনি চাইলে তাদের করা ম্যাসেজ গুলো পড়তে পারেন। তাহলে জানতে পারবেন এই এ্যপটিতে কি কি ফিচার রয়েছে এবং কিভাবে তা ব্যবহার করতে হয়।

 

কিভাবে অ্যাপটি ব্যবহার করবেন?

অ্যাপটি ব্যবহার করা প্রায়ই ফেসবুকের মতো তবে কিছু কিছু ভিন্ন রয়েছে। অ্যাপটি ব্যবহার করতে হলে প্রথমে আপনার কিছু ফ্রেন্ড থাকতে হবে। তাহলেই আপনি তাদের সাথে চ্যাট করতে পারবেন। তাদের নিয়ে গ্রুফ খুলতে পারবেন এবং আরো অনেক কিছু করতে পারবেন তাই ফ্রেন্ড থাকা জরুরি। প্রথমেই চলুন দেখে নিন আপনার কয়জন ফ্রেন্ড রয়েছে। তার জন্য অ্যাপটির নিচে থাকা বারে একটি Friends নামে বাটন দেখতে পাবেন সেখানে ক্লিক করুন।

 

এখানে আপনার সকল ফ্রেন্ড দেখতে পাবেন। যেহেতু এই একাউন্টটি নতুন তাই ফ্রেন্ড নাও থাকতে পারে। আর যদি আপনার কন্টাক্ট লিস্টে থাকা কারো এই একাউন্টটি থাকে তাহলে আপনি সেটাও এখানে দেখতে পাবেন।

এবার চলুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে ফ্রেন্ড বানাবেন। এর দুটি পদ্ধতি রয়েছে প্রথম পদ্ধতি হচ্ছে রেফার করে আপনার বন্ধুকে ফ্রেন্ড করা। আর দ্বিতীয় পদ্ধতি হচ্ছে যাদের এই অ্যাপটিতে একাউন্ট রয়েছে তাদেরকে ফ্রেন্ড করা। প্রথমেই জেনে নিই কিভাবে রেফার করে ফ্রেন্ড করা যায়। তার জন্য Friends পেজে থাকা অবস্থায় Invite & Refer অপশনে ক্লিক করুন।

এখানে আপনার রেফার কোডটি দেখতে পাবেন। সেখান থেকে Copy বাটনে ক্লিক করে কোডটি কপি করুন। তারপর উপরের নিয়মে আপনার বন্ধুকে একাউন্ট খুলে দিন। তারপর তার অ্যাপে থাকা উপরের প্রোফাইল পিকচার এর উপর ক্লিক করুন।

এখানে একটু নিচে আসুন তারপর Enter Referral Code বাটনে ক্লিক করুন।

এই বক্সটিতে আপনার একাউন্ট থেকে কপি করা কোডটি লিখে নিচের ঠিক বাটনে ক্লিক করুন। তাহলে আপনার প্রোফাইলে গিয়ে দেখতে পাবেন যে Score অপশনে দেখতে পাবেন 5 যুক্ত হয়েছে। এবং তার সাথে আপনার একাউন্টেও 5 স্কোর দেখতে পাবেন। আপনি এই স্কোর গুলো দিয়ে আপনার প্রোফাইলকে আরো আপডেট করতে পারবেন।

এতক্ষণ তো দেখলাম কিভাবে নিজের বন্ধুকে ফ্রেন্ড করতে হয়। এখন দেখবো কিভাবে অ্যাপটিতে থাকা মানুষকে বন্ধু বানাতে হয়। তার জন্য যাকে বন্ধু বানাবেন সার্চ করে খুঁজে নিয়ে তার প্রোফাইলে প্রবেশ করবেন।

এবং তার প্রোফাইলের নিচে থাকা Follow বাটনে ক্লিক করবেন। তাহলেই আপনি তাকে ফ্রেন্ড বানাতে পারবেন।

এটি একটি মোটামোটি বড় ধরনের অ্যাপ। তাই এখানে সকল অপশন বুঝানো সম্ভব না। আমি শুধু কিভাবে একাউন্ট খুলতে হয় এবং ফ্রেন্ড বানাতে হয় তা শিখিয়ে দিয়েছি। আর কিভাবে টিউন করতে হয় কিভাবে চ্যাট করতে হয় আশা করি তা আপনারা পারবেন। এবং ব্যবহার করতে করতে শিখে যাবেন।

এভাবে চাইলে আপনি অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারেন। এবং অ্যাপটির আরো বিভিন্ন অপশন খুঁজে বের করতে পারেন। আশা করি টিউনটি ভালো লেগেছে। যদি ভালো লাগে তাহলে এখনই আপনার বন্ধুকে কথা অ্যাপটিতে একাউন্ট করে নিন। আজকের জন্য এই পর্যন্ত আল্লাহ হাফেজ।

Level 4

আমি রাশেদুল ইসলাম। টিউনার, সেনবাগ রেসিডেন্সিয়াল দাখিল মাদ্রাসা, নোয়াখালী। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 1 বছর যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 52 টি টিউন ও 56 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 9 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস