Samsung Galaxy M20 Review – The Heat Is On! স্যামসাং প্রেমীদের জন্য TechsamirBD

স্মার্টফোন এর বাজারে স্যামসাং (Samsung) বেশ পুরোনো যোদ্ধা। কেবল স্মার্টফোন নয় শুরু থেকেই ক্লাসিক ফোন কিংবা টিভি বা ক্যামেরা সব ক্ষেত্রে স্যামসাং এর জুড়ি মেলা ভার।

বেশ কিছু দিন স্যামসাং এর ফোনের বেশ কিছু নেগেটিভ রিভিউ পাওয়া গেলেও প্রাণপণ চেষ্টা করে যাচ্ছে সেটা কাটাতে।

বেশ কিছুদিন আগে  জে ৪ এবং জে ৬ বাজারে আনার পর পর আরো নতুন করে বাজারে আনল এম ১০। এইতো গত মাসেই রিলিজ পাওয়া এই ফোন, মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে যাওয়ার আগেই আবার বাজারে আনল এম ২০ (Samsung M20)।

Samsung M20

কি কি পাচ্ছেন এই ফোনে? চলুন দেখে নেই এক নজরে

মাত্র ১৮৬ গ্রাম এর এই ফোনে পাবেন আন্ড্রয়েড এর ওরিও ভার্সন (৮.১)। যদিও ব্যবহারকারীরা ভেবেছিলেন তারা এই ফোনে পাবেন পাই ভার্সন।

স্যামসাং এর অন্য ফোনগুলোর চেয়ে এই ফোনের বিশেষত্ব হল এতে রয়েছে ৩ ও ৪ জিবি র‍্যাম। আর আরো সুখবর হল এর কেবল ইন্টারনাল মেমরী হল ৩২ জিবি অথবা ৬৪ জিবি।

এই ফোনের এক্সটার্নাল মেমরী কে আপনি ৫১২ জিবি পর্যন্ত বাড়াতে পারবেন।

আজকালের প্রচলিত সব ফোনের মতই এই নতুন এম ২০ (Samsung M20)। এতে রয়েছে ৪জি, ৩জি, ২জি সুবিধা। আর এই ফোনে আছে ন্যানো সিম স্লট।

অ্যাপল প্রথম ডুয়েল ক্যামেরা আনে বেশ কয়েক বছর আগে। এর ধারাবাহিকতায় বেশ কয়েকটি কোম্পানী ডুয়েল ক্যামেরা আনার পর, এবার স্যামসাং এ আপনি পাবেন ডুয়েল ক্যামেরা।

সেলফি তোলার জন্য পাবেন ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা, আর ব্যাক এ  আছে যথাক্রমে ১৩ আর ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। ফোটোগ্রাফীদের জন্য অনবদ্য এই ডিভাইসে পাবেন ১২০ ডিগ্রী আল্টা ভিউ।

এদিকে এম রেডিও এর সাথে এম ২০ এর সাথে পাচ্ছেন আর ডি এস সুবিধা। এই আর ডি এস, আপনাকে দেবে শিল্পী, গীতিকার এবং সুরকার সহ গানের প্রয়োজনীয় অনেক তথ্য। আপনি প্রয়োজনে এফ এম রেডিও থেকে রেকর্ড ও করতে পারবেন।

কালো আর নীল এই দুই রঙ এ পাওয়া যাবে এই ফোন।

এম ২০ এর এই ফোনে আপনি পাবেন ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, যেটা সবার অনেক দিনের একটা অনুরোধ ছিল।

৬.৩ ইঞ্চির এই ফোনে আছে অক্টা কোর প্রসেসর।

৩.৫ অডিও জ্যাক  আর অটো নয়েজ ক্লিয়ারেশন আপনাকে দেবে গান শোনার অন্যরকম এক অনুভুতি।

এই ফোন এর সবথেকে মারাত্মক ফিচার আমার কাছে যেটা মনে হয়েছে তা হল এর ব্যাটারী সিস্টেম

এম ১০ এ ছিল যেখানে মাত্র ৩৪০০ এম এ এইচ লি অন ব্যাটারী, এই এম ২০ তে পাবেন ৫০০০ এম এ এইচ লি পো ব্যটারী যেটা কিনা আপনাকে পুরো ২৪ ঘন্টার ও বেশি ব্যাকাপ দেবে মোটামুটি ব্যবহারের জন্য।

এই ফোনে ৩০ % থেকে ৮০% এ চার্জের জন্য আপনাকে ৫০ থেকে ৬০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে, কারন স্যামসাং এর প্রত্যেক ফোনের মত এই ফোনেও আছে ফাস্ট চার্জিং ফ্যাসিলিটিস যা কিনা আগের চেয়ে ৩ গুন বেশি।

এখানে আমার নিজস্ব একটা মতামত দিচ্ছি, সেটা হল এর মূল্যমান। স্যামসাং এর আগের ফোনগুলোর তুলনায় এখন ফিচার যত আধুনিক হচ্ছে, তত এর মূল্য আমাদের মত সাধারন মানুষের নাগালের মধ্যে আসছে।

এই ফোন এর ফিচার এর সাথে দাম দেখে ভালোই লাগল। বাংলাদেশী টাকাতে ৩ জিবি র‍্যামের ফোনটির মূল্য  ১৬ হাজার টাকা, আর ৪ জিবি র‍্যামের ফোনটির মূল্য হতে পারে ১৮ হাজার থেকে ২০ হাজার টাকার মধ্যে।

এই ফোন সম্পর্কে  আরো জানতে হলে দেখুন

Level 3

আমি TechsamirBD। MD, Blogger, Bogura। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 5 বছর 9 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 18 টি টিউন ও 4 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 4 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস