ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

জ্ঞানপাপীর টুকিটাকি [পর্ব -০২] :: দাঁত যন্ত্রণা ওষুধ ছাড়াই ১৫ সেকেন্ডে কমে যাবে! বিশ্বাস হচ্ছে না?

দাঁত যন্ত্রণা : ওষুধ ছাড়াই ১৫ সেকেন্ডে কমে যাবে ! বিশ্বাস হচ্ছে না ?:

 

ADs by Techtunes ADs

দাঁতের যন্ত্রণায় যারা ভোগেন তারাই জানেন এর মতো আর কোনো যন্ত্রণায় এত কষ্ট পেতে হয় কিনা ! বাপের নাম ভুলিয়ে দেয় এই দাঁত যন্ত্রণা।

দাঁতের যন্ত্রণা যখন শুরু হয় তখন মনে হয়না কারো সঙ্গে কথা বলি। তখন ভালো কথা বললেও রাগে শরীর জ্বলে যায়। দুপ করে রাগে জ্বলে ওঠে মাথা। আর যিনি এই ভালো কথাগুলো বলতে গিয়ে ধমক খেলেন তিনি ভাবেন -কী এমন খারাপ কথা বললাম যে রেগে গেল ?!

আসলে দোষ তারও না , আপনারও না। দোষ হল গিয়ে দাঁতের

চলুন দেখি দাঁতকে সোজা করা যায় কিনা ! ব্যাটা বড় বাড় বেড়েছে। দাঁড়াও ঠান্ডা করছি তোমাকে।

তার আগে বলে নিই কিভাবে বা কোন পদ্ধতিতে এটা করার মনস্থ করেছি। হ্যাঁ গত পর্বের মতো এপর্বেও সাহায্য করবে সেই অ্যাকিউপ্রেসার। বুঝতে পেরেছেন তো ? কি বললেন- মাথায় ঢুকলো না কিছু। আচ্ছা বুঝেছি , আপনি আমার আগের পর্ব পড়েন নি। বেশ তাহলে এখান থেকে পড়ে নিন তাহলে এপর্বটা বুঝতে সুবিধা হবে।

জ্ঞানপাপীর টুকিটাকি : (পর্ব -০১) :চলুন , ওষুধ ছাড়াই মাথা যন্ত্রণা সারিয়ে ফেলি ! 

ADs by Techtunes ADs

বেশ তাহলে পড়ে নিয়েছেন। তাহলে এপর্বে আর অ্যাকিউপ্রসার নিয়ে আলোচনা না করে সরাসরি দাঁতের ব্যথার নিরাময়ে ঢুকে গেলাম।

দেখুন এই হল আপনার দাঁত:

 

আমি যেভাবে দাঁতের নাম্বারিং করেছি সেটা লক্ষ করুন

মানে হল মুখের একেবারে সামনে  মাঝখানে যে দুটো দাঁত আছে তার একটা আপনার বামপাশে আর একটা ডানপাশে।ডানদিকে আপনার যে দাঁতের সারি এটা তাঁর একনম্বর দাঁত।এরপরেরটা ২ , তার পরেরটা ৩ , তার পরেরটা ৪ ......।এইভাবে গুনতে হবে। বাদিকের দাঁতের সারিও এইভাবেই গুণতে হবে । নিচের পাটির দাঁতও  এইভাবে গুণতে হবে।

 

এবার নিচে হাতের ছবি দেখুন।

A= তর্জনী

B=মধ্যমা

ADs by Techtunes ADs

C=অনামিকা

D=কণিষ্ঠা

এখন কতগুলি জলের মতো সহজ জিনিস আপনাকে কষ্ট করে মনে রাখতে হবে।

১। বাদিকের উপরের পাটি বা নিচের পাটি দুটোর জন্যেই বাদিকের হাত।

২। ডানদিকের উপরের পাটি বা নিচের পাটি দুটোর জন্যেই ডানদিকের হাত।

১,২ নং দাঁতের জন্যে A বা তর্জনী

,৪ নং দাঁতের জন্যে B=মধ্যমা

৫,৬ নং দাঁতের জন্যে C=অনামিকা

 ৭,৮ নং দাঁতের জন্যে  D=কণিষ্ঠা

সেটা উপরের পাটি বা নিচের পাটির দাঁত যাই হোক না কেন।

ADs by Techtunes ADs

ধরুন আপনার কোনো একটি দাঁত যন্ত্রণা করছে আপনি প্রথমে জিভ ( জিহ্বা) দিয়ে গুনে ফেলুন কোন দাঁতটা যন্ত্রণা করছে। ধরুন গুনে দেখলেন আপনার বাদিকের উপরের পাটির  ৩ নং দাঁতটা যন্ত্রণা করছে ।  তাহলে আপনাকে  বাহাতের মধ্যমা , এই আঙুলটাকে এইভাবে ছবির মতো চিপে ধরতে হবে। যাতে একটু লাগে।

কয়েক সেকেণ্ডের মধ্যে দেখবেন আপনার দাঁতের যন্ত্রণা কমতে শুরু করেছে । যতক্ষণ আপনি সহ্য করতে পারবেন ততক্ষণ চিপে ধরে থাকুন। বা আপনি যদি না পারেন তবে কাউকে চিপে ধরে রাখতে বলুন আপনার সহ্য ক্ষমতা অনুযায়ী। বা আপনি কোনো ক্লিপ নিচের ছবির মতো আঙুলে দিয়ে রাখতে পারেন(তবে এমন কিছু করবেন না যাতে আঙুলে রক্ত জমে যায় বা অন্য কোনো সমস্যা শুরু হয় এবং সবটাই হবে আপনার সহ্য ক্ষমতা অনুযায়ী।)

 

ধরুন আপনার ডান দিকের  নিচের চোয়ালের  ৮ নং দাত যন্ত্রণা করছে তবে আপনাকে ডানহাতের কণিষ্ঠা (D)  আঙুল চিপতে হবে।

ধরুন আপনার বাদিকের নিচের চোয়ালের ১ নং দাত যন্ত্রণা করছে তবে আপনাকে বাহাতের তর্জনী (A) আঙুল চিপতে হবে

বাদিকের  উপরের চোয়ালের  ৪ নং দাত যন্ত্রণা করছে তবে আপনাকে বাহাতের মধ্যমা (B) আঙুল চিপতে হবে

ADs by Techtunes ADs

ডানদিকের  উপরের চোয়ালের ৫ নং দাত যন্ত্রণা করছে তবে আপনাকে ডান হাতের  অনামিকা (C) আঙুল চিপতে হবে

আশা করি বোঝাতে পেরেছি।

তবে শিরোনামটা ভালোভাবে খেয়াল করবেন আমি বলেছি “দাঁত যন্ত্রণা : ১৫ সেকেন্ডে কমে যাবে”

সেরে যাবে বলিনি।এটা আপনাকে দাঁতের যন্ত্রণা কমাতে সাহায্য করবে।

তবে আপনাকে কতকগুলো টিপস আমি দিতে পারি

১। দিনে অন্ততঃ তিনবার দাঁত মাজুন। সকালে রাত্রে দুই বার ব্রাশের সাহায্যে। আর দিনের কোনো একটা সময়ে আঙুলের সাহায্যে। আঙুল দিয়ে মাজার ফলে দাঁত ও দাঁতের গোড়ায় মেসেজ হয়ে যাবে যা রক্ত সঞ্চালনে সাহায্য করবে।

২। ব্রাশ দিয়ে মাজার সময় বেশি করে উপর নিচ অনুযায়ী মাজুন। আর্থাৎ উপরের পাটির দাঁত থেকে নিচের পাটির দাঁতের দিকে। এরপর পাশাপাশি মাজুন। এরপর দাঁতের ভিতরের দিকটাও মেজে নিন।

৩। আর এবার যেটা বলব সেটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ-রাত্রে খাবার পর দাঁতমাজার পরে একগ্লাস গরম জল করে তার মধ্যে আড়াই চামচ মতো লবণ বা যতটুকু আপনি সহ্য করতে পারবেন ততটুকুই লবণ দিয়ে কুলকুচি করে ফেলেদিন।এতে আপনার মুখ ও দাঁত জীবানমুক্ত ও দীর্ঘজীবি হবে। (তবে সাবধান –যাদের উচ্চ রক্তচাপ বা হাই ব্লাডপ্রেসার আছে তারা এটা করতে যাবেন না বা চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে করবেন।)

 

ADs by Techtunes ADs

এটুকু বলতে পারি এই পদ্ধতি প্রয়োগ করে আমি নিজে তো উপকার পেয়েছি এবং অনেককে দাঁতের যন্ত্রণা থেকে মুক্ত করতে পেরেছি। এখন দেখুন আপনার ক্ষেত্রে কী হয়।

অনেক ধন্যবাদ ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন।

ঙে থাকু ,রাঙিয়ে রাখুন।

রাগে থাকুন 😡  রাগিয়ে রাখুন।  :mrgreen:

 

সহায়ক গ্রন্থ :আপনার স্বাস্থ্য আপনারই হাতে : অ্যাকিউপ্রেশার ও অন্যান্য প্রাকৃতিক চিকিৎসা। (লেখক-দেবেন্দ্র ভোরা )

*********************************************************************************************************

***********************************************************************

ADs by Techtunes ADs

ADs by Techtunes ADs
Level 2

আমি সবুজের অভিযান ( Sobujer Abhijan )। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 22 টি টিউন ও 333 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

সব কিছুই তো শিখতে চাই , তবু সময় যে খুব অল্প , এক পলকেই ফুরিয়ে যাবে জীবনের যত গল্প।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

ভাই এটা কি এক যন্ত্রনা ভুলাতে আরেক যন্ত্রনা দেয়া নাকি ?

    ভাই ,আঙুলের আগা আপনি চিপে ধরে রাখলে কতটা যন্ত্রণা হতে পারে ?

    সামান্য হয়তো লাগতে পারে কিন্তু দাঁতের যন্ত্রণা কমবে , ১০০ ভাগ নিশ্চিত। 😀

Level 0

hahahah…good tips
thanks

ডাক্তার

কতক্ষণ চেপে ধরতে হবে; টিপসের জন্য ধন্যবাদ

Level 0

dhonnobad :))

চাইনিজ ট্রিকস! কাজ করার কথা!

    @নেট মাস্টার: অনেক ধন্যবাদ নেট মাস্টার ভাই ।

    তবে আমি যেটুকু পড়ে জেনেছি এই পদ্ধতি প্রথমে আমাদের এখানে আবিস্কৃত হয়ে পরে চিন সহ পৃথিবীর অন্যান্য জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে।

    আপনি এটা পড়ে দেখতে পারেন– জ্ঞানপাপীর টুকিটাকি : (পর্ব -০১) :চলুন , ওষুধ ছাড়াই মাথা যন্ত্রণা সারিয়ে ফেলি !

    একদম শুরুতে লিঙ্ক দেওয়া আছে।

জানিনা এটা কাজ করবে কিনা, তবে কাজ করলে ভাল টিউনস।
ধন্যবাদ টিউনস করার জন্য।

😀 প্রিয়তে , অনেক উপকারী পোষ্ট , মাঝে মাঝে হঠাত করেই প্রচন্ড দাত ব্যাথা করে, তখন কাজে দিবে 😀 ধন্যবাদ

যদিও আমার দাতে যন্ত্রণা নেই তবুও অনেকের জন্য খুবই স্বস্থ্য সচেতন পোষ্ট । সোজা প্রিয়তে।

কেমন আছেন ?

বহুদিন পর দেখা হয়ে খুব ভালো লাগছে। 😀

ভাই সত্য বলতে কি, এই পদ্ধতিতে সাময়িক কাজ হলেও কিছুক্ষন পরে আবার দেখা দিবে। ঠিক না?

ভাই নিয়তিম আপনার টিউন চাই । আর আপনার উল্লেখ করা বইটা কোথায় পাব জানালে খুশি হতাম ।

ossadharon