ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

বিজ্ঞানের খাতা [পর্ব-১৪] :: প্রথম বিকল্প শিশু খাদ্য ও নেসলে।

বিজ্ঞানের খাতা

যখন নতুন শিশু পরিবারে আসে তখন সবার মনে খুশীর বান ডাকে। সন্তান জন্মের পর তার মুখে তুলে দেয়া হয় মায়ের বুকের শাল দুধ। বিকল্প খাবারের ব্যবস্থা করা বোকামি। তবে সকল শিশুই কি মায়ের বুকের দুধ খেতে পারে? কিছু তো ব্যতিক্রম থাকে। যারা মায়ের বুকের দুধ টেনে খতে পারে না অথবা পারলেও তা হজম করতে পারে না। তাদের কি উপায় হবে? এখন শিশুকে খাওয়ানোর জন্য বিবিধ বিকল্প খাবার পাওয়া যায়। যদিও মায়ের দুধ শিশুর জন্য উৎকৃষ্ট খাবার্। আমি যে সময়ের কথা বলছি সেই সময়ে নবজাতক শিশুকে খাওয়ানোর মত বিকল্প খাবার ছিল না। ১৮৬৭ সালে হেনরি নেসলে বিশেষ ফরমূলায় নবজাতকের জন্য একটি মাতৃদুগ্ধের বিকল্প খাবার প্রস্তুত করতে সক্ষম হলেন যা মাতৃদুগ্ধ পানে অক্ষম নবজাতক শিশুদের খাওয়ানো যাবে। নেসলের খবর পেলেন একটি শিশু জন্মেছে। শিশুটি কিছুতেই তার মায়ের দুধ সহ্য করতে পারছে না। তখন নেসলে তার তৈরী খাবার শিশুটিকে খাওয়ালেন। নেসলের নতুন ফর্মূলা শিশুটির জীবন রক্ষা করলো।

ADs by Techtunes ADs

সহস্র শিশুর জীবন রক্ষাকারী হেনরি নেসলে ১৮১৪ সালের ১০ আগস্ট জার্মানীর ফ্রাংকফ্রুটে জন্মগ্রহন করেন। বর্নাঢ্য জীবনের শেষে তিনি সুইজারল্যান্ডের ব্লোনি শহরে ১৮৯০ সালের ৭ জুলাই মারা যান।

নবজাতকের জীবন রক্ষার সেই ঘটনার পরে নেসলের তৈরী খাবার ফ্যারিন ল্যাকটি হেনরি নেসলে সমগ্র ইউরোপে প্রচুর পরিমানে বিক্রি হতে লাগলো। সমসাময়িক সময়ের জন্য সে ছিলো এক বিশাল আবিষ্কার। নেসলের অগ্রযাত্রা থেমে থাকেনি। দেশের সীমান পেরিয়ে বহুজাতিক কোম্পানী হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে। আজকের দিনে নেসলে এত বিস্তৃত হয়েছে যে পৃথিবীর সবদেশেই নেসলের তৈরী খাদ্যসামগ্রী বিক্রি হয়। দেড়শো বছর পেরিয়ে এসে নেসলে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ৪৮৯ টি কারখানা প্রতিষ্ঠা করেছে। ১০০ টির বেশী দেশে নেসলের জনপ্রিয় পন্য নেসক্যাফে, কারনেশান, ম্যাগী বিক্রি হয়। ম্যাগী নুডুলস বাংলাদেশের শিশুদের কাছে বেশ জনপ্রিয়। নেসলেই ইউরোপে প্রথম কনডেনসড মিল্ক তৈরী করে।

মানুষ কোকো বীজ থেকে চকোলেটের পানীয় তৈরী করা শিখেছে প্রাচীন আমলে। সেটাকে শক্ত করে প্রথম ক্যান্ডিবার তৈরী করেন জোসেফ ফ্রাই এন্ড সনস। আর চকোলেটে দুধ মিশিয়ে মিল্ক ক্যান্ডি আবিষ্কার করেন হেনরি নেসলে ১৮৭৫ সালে। বিভিন্ন ধরণের কফি যেমন সলিউবল কফি, ফ্রিজ ড্রাইড কফি, গ্রানুলেটেড বা দানাদার কফি নেসলেই প্রথম প্রস্তুত করে।

হেনরি নেসলে জিন্দাবাদ।

 এফ রহমানের ব্লগ

ADs by Techtunes ADs

ADs by Techtunes ADs
Level 2

আমি সরদার ফেরদৌস। Asst Manager, Samuda chemical complex Ltd, Munshiganj। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 94 টি টিউন ও 466 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

আমি ফেরদৌস। জন্ম সুন্দরবনের কাছাকাছি এক জনপদে। ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ থেকে লেখাপড়া করেছি এপ্লাইড কেমিস্ট্রি এন্ড কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে। এরপরে চাকরি করছি সামুদা কেমিকেল কমপ্লেক্স লিমিটেডের উৎপাদন বিভাগে সহকারী ম্যানেজার হিসেবে। এছাড়া আমি বাংলা উইকিপিডিয়ার একজন প্রশাসক।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

সব অতি প্রতিভাবানরা কি খালি জার্মানিতেই জন্মায়? 😉

    @Iron maiden: নাহ চীন দেশেও জন্মায়। আরবের উষর ভূমিতেও কেউ কেউ জন্মায়। কিন্তু বাংলাদেশে জন্মায় সব মাথামোটা অলসের দল যারা বিজ্ঞানের খাতা লেখা ছাড়া আর কিছু করার যোগ্যতা রাখে না। বড়ই পরিতাপের বিষয়।

      @ফেরদৌস:আপনার কমেন্ট পরে হাসতে হাসতে পেট ব্যাখা হয়ে গেছে। 😛

        @Iron maiden: হাসলেন মুখে অথচ ব্যাথা হলো পেট! লক্ষণ তো ভালো না ভাইজান। আপনার চিকিৎসা করা দরকার। ডেইলি তিন বেলা ভাত খাওয়ার আগে কচু পাতার জুস খাবেন। তাহলে আর হাসলে পেটে ব্যাথা হবেনা। না না না। এ জন্য আমাকে কিছু দিতে হবে না। খুশী হয়ে আমার নামে মসজিদ মাদ্রাসায় দশ পয়সা দান খয়রাত কইরেন। তাতেই আমার শান্তি।

          @ফেরদৌস:ধন্যবাদ পথ্য শেয়ার করার জন্য 😛
          কিন্তু লাষ্টে যে লাইনটা বল্লেন সেটা আমি করতে পারব না,কারণ আমি মুসলিম নই।আমার ধারণা কোনো ভিন্নধর্মাবলম্বিদের মসজিদ মাদ্রাসায় প্রবেশের অধিকার নেই,ঠিক আছে? 😎

Level 0

শিশুদের জন্য মায়ের দুধের বিকল্প দুধের যে কোন প্রকার প্রচার প্রচারণা বা বিজ্ঞাপন (সেটা খবর বা তথ্যের আদলে হলেও) হু এবং বাংলাদেশ সরকার কতৃর্ক আইনত নিষিদ্ধ এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ। অতিসত্বর এই পোস্ট সরান নয়তো পুরো টেকটিউনস পরিবারকেই ঝামেলায় ফেলবেন।

    @maxit:হ্যাঁ এটা ঠিক বলেছেন।কিন্তু একই সাথে ইতিহাসটা জেনে রাখাটা খারাপ কি? 😎

      @Iron maiden: আমি মনে করিনা তিনি ঠিক বলেছেন। প্রতি মন্তব্যে আমি বিশদ ব্যাখা করার চেষ্টা করেছি। আমি বিশ্বাস করি আপনি আমার সব লেখা পড়েন। তাহলে তো আপনার কাছে যুক্তিগ্রাহ্য মন্তব্য প্রত্যাশা করবো এবং সেটাই করি। আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

        @ফেরদৌস:এটা ওনাকে বলেছি ওনাকে সুক্ষভাবে পচানোর জন্য।আমার মনে হয় উনি “শিশুদের প্রধান বিকল্প খাদ্য”এই কথাটার উপর লাফিয়েছেন। 😎

          @Iron maiden: আমি কোথাও প্রধান বলে প্রচার করি নাই , প্রথম বলেছি। যাই হোক মানুষকে খোঁচা মারা স্বাস্থ্যের জন্য উত্তম হলেও পঁচানো ক্ষতিকর। তাতে পরিবেশ দূষণ হবে।

          আর আপনার ধারণা ঠিক না। জানার আগ্রহ থাকলে আপনি মসজিদেও যেতে পারেন। কেউ যদি বাধা দেয় তবে তাদের বিশ্বাসে ঘাটতি আছে। আপনি মসজিদে ঢুকলে যদি আপনার সমস্যা হয় তবে সেখানে আমার কিছু বলার নাই।

          মসজিদে ফিতে সমস্যা হলে মন্দিরে দিয়েন। আমার আপত্তি নাই। ধর্মের প্রধান কাজ মানুষকে উদার হতে শেখানো। অথচ আমরা কোন ধর্মের মানুষই উদার হতে পারিনি কখনো।

    @maxit: আপনার মন্তব্য পড়ে আমার কড়া কিছু কথা বলার ইচ্ছে হয়েছিলো। কিন্তু নিজেকে সামলালাম। আসলে দোষটা আমারই। আমি আপনাকে হয়তো বোঝাতে সমর্থ হয়নি। অথবা আপনি আমার পোস্ট পড়েন নাই। জাস্ট শিরোনাম পড়ে মন্তব্য করেছেন।

    আমার পোস্টে কোথাও আমি বলি নাই সকল নবজাতক শিশুকে বিকল্প শিশু খাদ্য খাওয়ানোর কথা। আমি বার বার করে বলেছি যে সকল শিশুরা মায়ের দুধ খেতে অপারগ তাদের জীবন কিভাবে রক্ষা হলো সেই কাহিনী। এতে কিভাবে বিকল্প শিশু খাদ্যের প্রচারণা হলো আর টেকটিউনস পরিবার ঝামেলায় পড়লো সেটা আমাকে যুক্তি বিজ্ঞানের যুক্তিতে বুঝিয়ে দেবেন বলে আশা রাখি।

    আর বাংলাদেশে যেহেতু বিকল্প শিশু খাবার আইনত নিষিদ্ধ , তাই বাজারে বিকল্প শিশু খাদ্য পাওয়া যাবে না। তাহলে এই পোস্ট পড়ে পিতা মাতা কোন জায়গা থেকে বিকল্প খাবার কিনবেন? তারা কি জার্মানীতে যাবেন বিকল্প খাব্রা কিনতে?

    আপনার মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

      @ফেরদৌস:না না এখানে গণহারে সকল ধর্ম(এমনকি নিজ ধর্ম ও)বিশ্বাসী সকল মানুষকে নির্মম বলতে পারেন না। :-”
      এটা মূলত মানুষের ধর্মান্ধতা প্রকাশ করে,ধর্ম নিয়ে বেশি বাড়াবাড়ি বা লেবুর মত কচলাকচলি কথনোই কাম্য নয়,স্বয়ং মহানবীই এটা বলে গিয়েছেন। 😐

        @ফেরদৌস:আর আপনার এই কথাটা “আপনি মসজিদে ঢুকলে যদি আপনার সমস্যা হয় তবে সেখানে আমার কিছু বলার নাই।”-আমার একটুও ভাল লাগল না।মনে কষ্ট পেলাম। ;-(
        আমি সমস্যা হয় কথাটা কখন বলেছি?আমি বলতে চেয়েছি ওখানে ঢুকতে গিয়ে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছি। 😐
        কিন্তু আমার মতে আমি/আপনি যেকোন ধর্মের সাধনাস্থলে যেতেই পারি,সেখানকার মানুষের কাছে সেই ধর্ম সম্পর্কে কিছু জানতেই পারি,তাতে কি সমস্যা? 😉
        দয়া করে এ টাইপের কথা বলবেন না,এ টাইপের কথা আমার তীব্র অপছন্দের। 🙁

          @Iron maiden: আঘাত করার জন্য দুঃখিত। তবে আমি মনে করি কোন ধর্মকে সত্যিকার অর্থে জানতে চাইলে বুঝতে চাইলে সেই ধর্মের স্কলারদের কাছে যেতে হবে, ধর্ম শাস্ত্র নিয়ে লেখা বইয়ের কাছে যেতে হবে। তীর্থস্থানে যাওয়ার দরকার নেই।

          আধা শিক্ষিত মৌলানা, টোলে পড়া পন্ডিতের কাছে গেলে আপনি ধর্মের খন্ডিত শিক্ষা পাবেন। যা ধর্মের মূল শিক্ষা আপনাকে জানাতে সমর্থ হবে না কখনো। আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

        @Iron maiden: বাস্তব দুনিয়ায় উদাহরন দিন। আমরা যদি মানুষকে মানুষ ভাবি তবে কিভাবে ধর্মের নামে একজন আরেকজনকে শেষ করার প্রতিযোগিতায় নামি। আমি নাস্তিক নই। আল্লাহকে বিশ্বাস করি। তার মানে এই না যে ধর্মের অপব্যাখ্যা কারীদের ব্যাখা শুনে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টানের গলা কাটতে ছুটে যাবো। আমি আমার মত করে বুঝি।

          তার মানে বাংলাদেশের অধিকাংশ মুসলিমদের মত আপনিও “Muslim Secularism” চেতনায় বিশ্বাসী তাই তো!ঈশ যদি সব দেশের “সকল” মুসলিম যদি এভাবে বুঝতেন! 😀
          যা হোক,ধর্মীয় আলোচনা আর দীর্ঘ করার ইচ্ছা নেই তাই এখন এখানেই সমাপ্তি ঘটালাম।ভাল থাকবেন,আর আমার কমেন্টগুলো আপনাকে কোনোরকম ধর্মীয় চেতনায় আঘাত করলে আমি অতি দুঃখিত।বাই।

    @maxit: hala abul……….ferdous chalaia jan….mia apnar post onek valo hoy……

      @tore khaisi: মিতা, আপনি যখন বলেছেন তখন কি আর না চালিয়ে উপায় আছে। ধন্যবাদ আপনাকে।

চমৎকার টিউন