ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

বিজ্ঞানের খাতা [পর্ব-২৫] :: বেলুনে চড়ে মানুষের প্রথম আকাশ ভ্রমন

বিজ্ঞানের খাতা

নীলাকাশে পাখির উড়াউড়ি মানুষকে মুগ্ধ করেছে। পাখির ওড়া দেখে সেও ডানা মেলে দূর আকাশে ওড়ার স্বপ্ন দেখেছে। পাখিকে নকল করে মানুষ ডানা তৈরী করল। তারপর সেটা নিজের বাহুর সাথে যুক্ত করে ডানা ঝাপটে ওড়ার ব্যর্থ চেষ্টা করল। পাখির ওড়া দেখে ইতালির ভিঞ্চি গ্রামের লিয়োনার্দো দ্যা ভিঞ্চি হেলিকপ্টারের প্রথম নকশা আঁকেন।

ADs by Techtunes ADs

১৭৬৬ সালে ইংল্যান্ডের হেনরি ক্যাভেন্ডিশ হাইড্রোজেন আবিষ্কার করেন। হাইড্রোজেন হচ্ছে তখন পর্যন্ত সব থেকে ক্ষুদ্র মৌলিক উপাদান এবং হালকা গ্যাসীয় পদার্থ। এটা বাতাসের থেকেও হালকা। ক্যাভেন্ডিশ বললেন এটার ওজন ঋণাত্মক এবং এটা পৃথিবী থেকে কোন বস্তু বাতাসে ভাসিয়ে নিতে পারবে। কিন্তু বাস্তবে মতবাদটা কোন কাজ দিলো না। ১৭৮২ সালে ফ্রান্সের জোসেফ মাইকেল মন্টগোলফিয়ার সিল্কের ব্যাগে উত্তপ্ত বাতাস ভরার চেষ্টা করলেন। উত্তপ্ত বাতাসের ঘনত্ব সাধারন বাতাসের তুলনায় কম। ফলশ্রুতিতে ব্যাগটা বাতাসে ভেসে বেড়াতে সক্ষম হলো এবং উপরে উঠে তার বাড়ীর ছাদের সিলিং স্পর্শ করলো।

এফ রহমানের ব্লগ

১৭৮৩ সালের এপ্রিল মাসের ২৫ তারিখ, জোসেফ তার ভাই জ্যাকুস এটিন্নে কে সাথে নিয়ে বিশাল গোলাকার এক ব্যাগ তৈরী করলেন। অনেক আগুন জ্বালিয়ে গরম বাতাস ঢুকিয়ে বেলুনটাকে ফোলালেন। ফোলানো এই ব্যাগের নিচে একটা ঝুড়ি বেঁধে তাতে খামার থেকে আনা কয়েকটা প্রানী বসিয়ে দিলেন। অবুঝ প্রানী ভয়ে ডাকাডাকি শুরু করল। বেলুনটা প্রানীগুলোকে উড়িয়ে নিতে সফল হলো। এই সাফল্যে দুই ভাই অনুপ্রানিত হলেন। নভেম্বর মাসে তারা প্যারিসের বইস ডি বৌলোগনে নামক স্থানে ৭০ ফুট দীর্ঘ এক বেলুন ওড়ালেন। বেলুনে আরোহী ছিলেন দুজন মানুষ। জিয়ান ফ্রাঙ্কোইস ডি রোজিয়ার এবং মারকুইস দ্যা আরতানদেস। বলা যায় আধুনিক পৃথিবীতে তারাই প্রথম মানুষ যারা আকাশে উড়লেন।

এফ রহমানের ব্লগ

তার আগে আকাশে ওড়ার ক্ষমতা ছিলো পাখি এবং বিভিন্ন ধর্মের দেবতাদের। বেলুনটি এই দুজন সাহসী মানুষকে ৩০০০ ফুট উঁচুতে নিয়ে যায়। পঁচিশ মিনিটের এই ভ্রমনে তারা পাঁচ মেইল দূরত্ব অতিক্রম করে। আগুনে আরো খড় জ্বালিয়ে তারা এটাকে নিয়ন্ত্রণ করেন। প্যারিসের মানুষের মুখে তখন শুধু বেলুনে মানুষের আকাশ ভ্রমনের গল্প। পহেলা ডিসেম্বর জ্যাকুইস চার্লিস এবং নোয়েল রবার্টস হাইড্রোজেন ভর্তি বেলুনে চেপে ফ্রান্সের প্যারিস নগরীর আকাশে সাতাইশ মাইল পথ ভ্রমন করতে সক্ষম হন।

পৃথিবীর প্রথম মহিলা এলিজাবেথ থিবল বেলুনে চেপে ফ্রান্সের লিয়ন নগরে ১৭৮৪ সালে জুন মাসের ৪ তারিখে আকাশ ভ্রমনে যান। ১৭৮৪ সালের ৪ অক্টোবর, জেমস সেটলার প্রথম ব্রিটিশ যিনি বেলুনের নকশা করেন এবং সেটাতে চেপে আকাশ ঘুরে আসেন। আমেরিকার আকাশে প্রথম বেলুন ওড়ে ফিলাডেলফিয়ায়। ফরাসী জিয়ান পিয়েরে ব্লানচার্ড ১৭৯৩ সালের ৯ জানুয়ারী এটা পরিচালনা করেন। ১৭৮৫ সালে ফরাসি ব্লানচার্ড এবং আমেরিকান ড. জন জেফ্রিস বেলুনে চেপে প্রথম ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দেন। ১৭৮৫ সালে ব্লানচার্ড প্যারাস্যুট আবিষ্কার করেন। আপনি কি জানেন প্রথম প্যারাস্যুট ব্যবহারকারী মানুষ কে ছিলেন। অবশ্যই ব্লানচার্ড।

 এফ রহমানের ব্লগ

ADs by Techtunes ADs
Level 2

আমি সরদার ফেরদৌস। Asst Manager, Samuda chemical complex Ltd, Munshiganj। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 94 টি টিউন ও 466 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

আমি ফেরদৌস। জন্ম সুন্দরবনের কাছাকাছি এক জনপদে। ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ থেকে লেখাপড়া করেছি এপ্লাইড কেমিস্ট্রি এন্ড কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে। এরপরে চাকরি করছি সামুদা কেমিকেল কমপ্লেক্স লিমিটেডের উৎপাদন বিভাগে সহকারী ম্যানেজার হিসেবে। এছাড়া আমি বাংলা উইকিপিডিয়ার একজন প্রশাসক।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

    @hasan sabuz: ভাইজান, প্রতিটি মন্তব্যে আপনার ব্লগের ঠিকানা দেয়ার দরকার নাইতো। ইতোমধ্যে আপনার ব্লগের ঠিকানা আমার মুখস্ত হয়ে গেছে।

বিভাগটা টেক ফিউশন দিলে মানাত।

    @Iron maiden: বিভাগ পরিবর্তনে আমার আপত্তি নাই। এখন বিভাগ পরিবর্তন করলে টেকটিউন্স আপত্তি করবে কিনা সেই বিষয়ে কোন নির্দেশণা পাচ্ছি না। আসলে প্রথম বিজ্ঞানের খাতা- হঠাৎ করে ডিনামাইট আবিষ্কার কোন বিভাগে দেব সেটা নির্বাচনে আমি বিশাল ঝামেলায় পড়ে গেছিলাম। পরে মনে হলো বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের সাথে মানায় ভালো, তাই দিলাম।

      সবকয়টা না তো,এই টাইপের যে টিউনগুলো লিখেছেন সেগুলোর কথা বলছি। 😎

        @Iron maiden: আচ্ছা ওয়ার্ডপ্রেসে বিভাগ আর ট্যাগের মধ্যে মৌলিক পার্থক্যটা কোথায়?

প্রথমেই আপনাকে অভিনন্দন আপনার বিজ্ঞানের খাতা এখন চেইন টিউন, আর ধন্যবাদ আমাকে বিজ্ঞানের খাতার ছাত্র করার জন্য।