ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

অভ্যন্তরীণ হতাশা, ক্ষোভ! কর্মীদের এবং মানুষদের ব্যথিত করছে ফেসবুক

Level 13
সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা

বোস্টন ভিত্তিক সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার Max Wang, যিনি সাত বছর ফেসবুকে কাজ করার পর প্রতিষ্ঠানটি ত্যাগ করেন। তিনি পহেলা জুলাই একটি ভিডিও শেয়ার করেন যেখানে ফেসবুকের একটি অভ্যন্তরীণ মিটিং দেখা যায় যেখানে কর্মীদের সতর্ক করা হচ্ছিল।

ADs by Techtunes ADs

ভিডিও টির সাথে তিনি লিখে দেন, "আমি মনে করছি ফেসবুক মানুষকে ব্যথিত করছে। যদি আপনিও এটি মনে করেন তাহলে এটি দেখুন"।

যেখানে অন্য কর্মীর ফেসবুক থেকে বিদায় নিলে কোন ছবি শেয়ার করেন, সেখানে Wang একটি ভিডিও শেয়ার করে নিজের হতাশা প্রকাশ করেন।

George Floyd হত্যাকাণ্ডের পর ফেসবুক থেকে ট্রাম্পের বিতর্ক না সরানো নিয়ে অভ্যন্তরীণ কলহ, প্রতিবাদ, এবং প্রস্থান নিয়ে কথা হচ্ছিল ভিডিওটিতে।

ফেসবুকের নেতাদের সমালোচনা করে Max Wang বলেন, আমরা ব্যর্থ হচ্ছি এবং এটি খুব খারাপ, আমরা আমাদের নীতিমালায় সেই ব্যর্থতাটি সন্নিবেশিত করেছি।

বিভিন্ন সময় ফেসবুক বিভিন্ন সমালোচনার জন্ম দিলেও ফেসবুকের শেয়ার সব সময় বেড়েই চলেছে, প্রতিষ্ঠানটির বিভিন্ন কর্মীর মতে, ফেসবুক কিছু ক্ষতি করার চেয়ে বেশিরভাগ ভালই করেছে।

ফেসবুক ইঞ্জিনিয়ার, Dan Abramov গত ২৬ জুন অভ্যন্তরীণ যোগাযোগ প্ল্যাটফর্মে একটি Post এ বলেন, "আমাদের এবারের প্রতিক্রিয়া একেবারে ভিন্ন, আমি মনে করছি সংস্থাটির নেতারা তাদের কর্মীদের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করছে"।

Max Wang এবং Dan Abramov এর বক্তব্যে এটি পরিষ্কার হয় ফেসবুক বিভিন্ন সময় রাষ্ট্রপতির বক্তব্য গুলো কিভাবে নিয়ন্ত্রণ করে এসেছে এবং কিভাবে তাদের নেতৃত্বে আস্থার সংকট তৈরি করেছে।

এই হতাশা, ক্ষোভের মধ্যে ফেসবুকের কর্মীরা, জাকারবার্গ এবং আরও কিছু ফেসবুক লিডারদের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে আসলেই কি ফেসবুক বিশ্বকে আরও উপযুক্ত করে গড়ে তুলছে? অভ্যন্তরীণ কলহ এমন পর্যায়ে পৌঁছে গেছে যে ফেসবুকের প্রধান নির্বাহীরা তাদের সহ কর্মীদের চাকরীচ্যুত করারও হুমকি দিচ্ছে।

আর এদিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন যতই এগিয়ে আসছে, ফেসবুকের অভ্যন্তরীণ কলহ ততই বৃদ্ধি পাচ্ছে। কর্মীরা ফেসবুক এর বিভিন্ন সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছে। কর্মীরা উদ্বেগ প্রকাশ করছে কোম্পানিটিতে সবার অজান্তেই রাজনৈতিক প্রভাব পড়ছে, এবং ফেবসুক গণতন্ত্রকে ক্ষুণ্ণ করছে।

ADs by Techtunes ADs

ফেসবুকের সাবেক এক নির্বাহী বলেন, কর্মীদের উদ্বেগ সংস্থায় তাদের অভিজ্ঞতাকে প্রতিফলিত করছে, এই সমস্ত পদক্ষেপগুলি এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে যে মানুষ নভেম্বরের নির্বাচনের ফলাফলকে বিশ্বাস করবে না। কারণ ফেসবুকে তাদের বার্তা গুলো সবার বিশ্বাসই নষ্ট করছে।

George Floyd এর আন্দোলনে, মে মাসে করা Donald Trump এর বিতর্কিত ফেসবুক Post "When the looting starts, the shooting starts" এর বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বিপাকে পড়ে। এরপর থেকেই ফেসবুকের আসলে কিভাবে রাজনৈতিক বক্তব্য পরিচালনা করা উচিৎ সেটা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। এই ঘটনায় ফেসবুকের একজন কর্মী পদত্যাগ করেছে এবং অন্যান্য কর্মীরাও ফেসবুকের এমন আচরণে অসম্মতি প্রকাশ করেছে।

যেখানে ট্রাম্পের এমন বক্তব্য টুইটার Flag করে দিয়েছে সেখানে, ফেসবুক কেন কোন ব্যবস্থা নেয় নি এজন্য বেশ বিতর্কিত হয়েছে জাকারবার্গ।

তবে জাকারবার্গ তার বিভিন্ন বক্তব্যে জানিয়েছেন জনগণের এটা দেখার অধিকার আছে যে তাদের নেতারা কি বলছে বা কি বুঝাতে চাচ্ছে।

বিতর্কিত এই বক্তব্য না সরানোর প্রতিবাদে ফেসবুককে বয়কট করেছিল বড় বড় বিজ্ঞাপণী সংস্থা গুলো।

আর এই ঘটনার পর ফেসবুকের অভ্যন্তরীণ কর্ম পরিবেশেও কলহ দেখা দেয়। ফেসবুকের মাত্র ৪৫ শতাংশ কর্মী এই স্টেটমেন্টে একমত হয় "Facebook was making the world better" এবং ফেসবুকে ঠিক নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে অনলাইন এক জরিপে এই মত দেয় প্রতিষ্ঠানটির ৪৪ ভাগ কর্মী। দেখা গেছে ট্রাম্পের বিতর্কিত সেই মন্তব্যের পর ফেসবুকের এই দুটি স্টেটমেন্ট এর গ্রহণযোগ্যতাই কমে যায়।

Max Wang, তার ভিডিওতে তিনি অভিযোগ করেন জাকারবার্গ কর্মীদের ব্যাখ্যা করেছিলেন কেন তিনি ট্রাম্পের সেই Post ডিলিট করেন নি। তিনি একই সাথে এটি পলিসিতে পড়ে কিনা এ ব্যাপারেও কথা বলেন।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন বাইরের বিভিন্ন পক্ষের কথা মেনে ফেসবুক বারবার তাদের পলিসি পরিবর্তন করেছে বলেই, Coca-Cola, Starbucks এবং Verizon এর মত কোম্পানি গুলো তাদের বয়কট করেছে।

ADs by Techtunes ADs

তবে ফেসবুকের মত এমন জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়ার অভ্যন্তরীণ এই ধরনের কলহ সত্যিই হতাশা জনক এবং Max Wang, এর ভিডিওতে এই বিষয় গুলোই উঠে এসেছে।

তবে অনেকের দাবী ফেসবুকের উচিত, তারা কিভাবে রাজনৈতিক বক্তব্য পরিচালনা করবে এটি নিয়ে স্বচ্ছ কোন পলিসি তৈরি করা।

তবে বেশ কিছুদিন ধরে শুনা যাচ্ছিল, জাকারবার্গ এবং ট্রাম্পের মধ্যে একধরনের চুক্তি হয়েছে, যার জন্য জাকারবার্গ প্রেসিডেন্টের বক্তব্য অন্যভাবে পরিচালনা করছেন। কিন্তু পরবর্তীতে জাকারবার্গ নিজেই বলেছেন তাদের মধ্যে এমন কোন চুক্তি হয় নি এবং এটা হাস্যকর।

কিছুদিন আগে জাকারবার্গ, ট্রাম্পের করোনা মোকাবেলা প্রতিক্রিয়াকেও সমালোচনা করেছেন।

-
টেকটিউনস টেকবুম - ১৩ আগস্ট ২০২০

ADs by Techtunes ADs
Level 13

আমি সোহানুর রহমান। সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 469 টি টিউন ও 177 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 30 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

কখনো কখনো প্রজাপতির ডানা ঝাপটানোর মত ঘটনা পুরো পৃথিবী বদলে দিতে পারে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস