টুইটার থেকে আজীবনের জন্য ব্যান হয়েছে ট্রাম্প এর একাউন্ট

টিউন বিভাগ টেকটিউনস টেকবুম
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 28
সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা

জানা গেছে চিরদিনের জন্য টুইটার ট্রাম্প এর একাউন্ট ব্যান করেছে। ট্রাম্পের অ্যাকাউন্টে টুইটারের নিষেধাজ্ঞা চিরকালই থাকবে, এমনকি তিনি আবার প্রেসিডেন্ট পদ হলেও।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি, ডোনাল্ড ট্রাম্পের উপর নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে টুইটার শক্ত অবস্থানে আছে। এই প্ল্যাটফর্মটি ঘোষণা করেছে যে ট্রাম্প কখনও টুইটারে ফিরে আসতে পারবে না, এমনকি যদি ট্রাম্প ২০২৪ সালে আবারও রাষ্ট্রপতি প্রার্থী হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

ট্রাম্পের দ্বিতীয় অভিশংসন বিচারের মাঝে, টুইটারের প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা Ned Segal, একটি সাক্ষাতকারে ট্রাম্পের টুইটার একাউন্ট নিয়ে মুখ খুলেছেন। Ned Segal জানিয়েছেন, টুইটার আর কখনো ট্রাম্পের একাউন্টের অনুমতি দেবে না।

সেগাল উল্লেখ করেছেন, " টুইটারের রিমুভাল নীতিগুলি বৈষম্যমূলক আচরণ করে না, আপনাকে যখন প্ল্যাটফর্ম থেকে সরিয়ে ফেলা হবে, আপনি একজন CFO বা প্রাক্তন, বর্তমান সরকারি কেউ হলেও কিছু করার নেই"।

তিনি আরও বলেছিলেন যে টুইটারের "নীতিগুলি, যাতে মানুষ সহিংসতা প্ররোচিত না করে তা নিশ্চিত করার জন্য তৈরি করা হয়েছে, এবং যদি কেউ এই নীতিগুলি লঙ্ঘন করে তবে টুইটারকে সেগুলি সরিয়ে ফেলতে হবে। প্ল্যাটফর্মের নিয়ম অনুসারে তাদেরকে আর ফিরে আসতে দেয়া হবে না"।

অন্য ভাবে বলতে গেলে, ট্রাম্প কখনই টুইটারে ফিরতে পারবেন না এবং তিনি প্রাক্তন সরকারী কর্মকর্তা হলেও সত্যটি পরিবর্তন হবে না। ট্রাম্প আবারও রাষ্ট্রপতির প্রার্থী হওয়ার চেষ্টা করা হলে টুইটারের নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি কার্যকর থাকবে।

এখানে উল্লেখ্য, ২০২১ সালের ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটাল হিলের দাঙ্গার পরে ট্রাম্পকে নিষিদ্ধ করেছিল টুইটার। তবে এর আগেও টুইটার এবং ট্রাম্পের মধ্যকার সম্পর্ক খুব বেশি ভাল ছিল না।

ট্রাম্পের কয়েকটি টুইটকে লেবেল করা এবং লিমিট করার মত কাজে টুইটার একা ছিল না, এর আগে ফেসবুকও ভুল তথ্য দেওয়ার জন্য ট্রাম্পের অনেক কন্টেন্ট কে Flag করেছিল।

ওয়াশিংটন, ডিসির বিক্ষোভের পরে ট্রাম্পকে মূলত সমস্ত সামাজিক মিডিয়া থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। টুইটার কেবল ট্রাম্পকে তার প্ল্যাটফর্ম থেকে সরিয়ে দেয়নি, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম স্ন্যাপচ্যাট, ইউটিউব, এমনকি টুইচও ট্রাম্পের অ্যাকাউন্টের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিয়েছিল।

এখন যেহেতু ট্রাম্পকে প্রায় সমস্ত বড় বড় সামাজিক প্ল্যাটফর্ম থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে, তিনি কখনও সোশ্যাল মিডিয়ায় পুনরায় আসতে পারবেন কিনা তা স্পষ্ট নয়।

তথাকথিত মুক্ত বক্তব্য সামাজিক নেটওয়ার্ক Parler সম্ভবত ট্রাম্পের বক্তব্যকে প্রমোট করতো। তবে এখন প্ল্যাটফর্মটি তার নিজস্ব প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাকে বহিষ্কার করেছে এবং পুরো প্ল্যাটফর্মটি ইন্টারনেট থেকে গায়েব হয়ে গেছে।

-
টেকটিউনস টেকবুম - ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

Level 28

আমি সোহানুর রহমান। সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 6 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 465 টি টিউন ও 186 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 55 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

কখনো কখনো প্রজাপতির ডানা ঝাপটানোর মত ঘটনা পুরো পৃথিবী বদলে দিতে পারে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস