ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

উইন্ডোজ পিসিতে যুক্ত করুন একাধিক ভার্চুয়াল ডেস্কটপ এবং মাল্টি টাস্কিং কাজগুলো করুন পরিচ্ছন্নভাবে

(This portion is intentionally left blank)

ADs by Techtunes ADs

 

 

 

 

ভার্চুয়াল ডেস্কটপ কী?:

কম্পিউটিংয়ে ভার্চুয়াল ডেস্কটপ এমন একটি শব্দ যা সাধারণত কোন পিসির ইন্টারফেস সম্পর্কে বোঝানো হয়। ভার্চুয়াল ডেস্কটপ আপনার কম্পিউটারের বিশৃঙ্খলা থামানোর একটি চমৎকার অস্ত্র হতে পারে। ভার্চুয়াল ডেস্কটপের মাধ্যমে আপনার যদি একাধিক মনিটর নাও থাকে তবে একটি মনিটরেই একাধিক ডেস্কটপের পরিবেশ সৃষ্টি করা সম্ভব। এবং আপনি ইচ্ছামত প্রতিটি ডেস্কটপে প্রয়োজনীয় আলাদা আলাদা ফাইল আলাদাভাবে রাখতে পারবেন। কোনটি হতে পারে কাজের ডেস্কটপ, কোনটি হতে পারে এন্টারটেইনমেন্ট, আবার কোনটি হতে পারে নেট ব্রাউজিংয়ের। এভাবে একটি ডেস্কটপে একাধিক ডেস্কটপ তৈরির মাধ্যমে একটি পিসিতেই আপনার যাবতীয় ফাইল-পত্র, কাজ ইত্যাদি সুন্দরভাবে গুছিয়ে ও আরামে করতে পারবেন। লিনাক্সে একাধিক ভার্চুয়াল ডেস্কটপ দেওয়া থাকে তাই সেক্ষেত্রে কোন সফটওয়্যার লাগে না। উইন্ডোজ পিসিতে একাধিক ডেস্কটপের জন্য সফটওয়্যারের প্রয়োজন হয়।তেমনই একটি ফ্রি সফটওয়্যার হল ডেক্সপট।

ডেক্সপট:

ভার্চুয়াল ডেস্কটপ তৈরিতে এবং পাশাপাশি বিভিন্ন নজরকাড়া ডিজাইন তৈরি করতে এর জুড়ি নেই। এটি ফ্রি কিন্তু ওপেনসোর্স নয়। তথাপিও স্টাইল ও সুযোগ-সুবিধার কথা বিবেচনা করে এই সফটওয়্যারটির কথা বলাই ভাল।

ডাউনলোড এবং ইন্সটলেশন পদ্ধতি:

  • Download Stable version 1.5 এ ক্লিক করুন:

ADs by Techtunes ADs
  • ডাউনলোড শুরু হবে, IDM থাকলে স্টার্ট ডাউনলোড দিন:

ডাউনলোড শেষে ওপেন করুন: (উইন্ডোজ ৭ ব্যবহারকারী: ওপেন না হলে ফাইলে গিয়ে রাইট ক্লিক করে Run as administrator এ ক্লিক করুন)

  • এবার নতুন উইন্ডো ওপেন হলে OK চাপুন:

  • Next দিন:

  • I Agree চাপুন:

  • এগ্রিমেন্টে টিক দিন ও Next চাপুন:

  • Next দিন:

  • I do not want to install Nitro PDF Reader এ ক্লিক করুন, তারপর Install এ ক্লিক করুন:

  • Finish বাটনে ক্লিক করুন:

ইনস্টলেশন শেষ। এবার এটাকে ব্যবহার করে দেখি 🙂

ডেক্সপট কাস্টোমাইজেশন:

ভার্চুয়াল সোয়াপিং 3D ইফেক্ট: (পিসি অল্প স্লো করতে পারে)

  • এক ভার্চুয়াল পিসি থেকে আরেক ভার্চুয়াল পিসিতে যেতে নিচের ছবির মত ইফেক্ট পাওয়ার জন্য এই কাজগুলো করুন:

ADs by Techtunes ADs
  • প্রথমে টাস্কবারের ডেক্সপট মনিটরের উপর রাইট ক্লিক করে সেটিংসে যান:

  • Plugins and Extras এ ক্লিক করুন, Dexcube এ টিক দিন ও OK বাটনে ক্লিক করুন:

ব্যাস! হয়ে গেল। এবার ডেস্কটপ পরিবর্তন করলেই স্টাইলিশ 3D ইফেক্ট দেখতে পাবেন। 3D ইফেক্ট পেতে হলে কম্পিউটারে অবশ্যই DirectX 9.0 বা তারচেয়ে বেশি থাকতে হবে। না থাকলে এই লিঙ্ক থেকে DirectX ডাউনলোড ও ইন্সটল করে নিন। এটা ছাড়া গুরুত্বপূর্ণ সফটওয়্যার কিংবা গেম চলে না। তাই ইন্সটল করাই ভাল। 🙂

যেকোন উইন্ডোকে এক ওয়ার্কস্টেশন থেকে অন্যটায় ট্রান্সফার করা:

  • যেকোন উইন্ডোর উপ্রে রাইট ক্লিক করুন, Move> Desktop 1/2/3/4

৪টি ওয়ার্কস্টেশন একবারে দেখা:

  • টাস্কবারের ছোট মনিটর আইকনের উপর রাইট ক্লিক করে Desktop Preview  তে ক্লিক করলে একবারে ৪টি উইন্ডো দেখা যায়:

মেমরি ইউসেজ:

ডেক্সপট খুব কম মেমরি ব্যবহার করে, তাই এই সফটওয়্যার ব্যবহার করলে আপনার পিসি স্লো হওয়ার সম্ভাবনা একদমই নেই:

সিস্টেম রিকওয়্যারমেন্টস:

  • উইন্ডোজ ৭/XP – 32/64bit
  • 10MB খালি জায়গা

সবাই ভাল থাকবেন। পরবর্তী পোস্টে নতুন কিছু নিয়ে আসার চেষ্টা করব।

ধন্যবাদান্তে-

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি নিওফাইটের রাজ্যে। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 13 টি টিউন ও 1399 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 3 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

শ্রবণ, মনন , অনুশীলন


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

ভাল লাগলো। ধন্যবাদ।

Level New

ami ai dexpot software ta onek age use korsilam and khub valo lagsilo but koyekdin age zokhon abaro virtual desktop er dorkar holo tokhon r ai name ta mone korte partesilam na thik tokhon e apni mone koriye dilen vai…….ah ki moja, many many thanks neo vai

দারুন একটি সফট কিন্তু এটা স্লো কম্পিউটারকে আরও স্লো করে ফেলে, ধন্যবাদ

    @অর্জন: একদম ভুল ধারণা ভাই, এটা স্লো পিসিকে আরও স্লো করে না। মেমরি ইউসেজ অনেক কম যেখানে একটা ওয়েব ব্রাউজারের ইউসেজ প্রায় 90,000 K । আমি পুরনো পিসিতেও বেশ কিছুদিন ব্যবহার করেছি, একটুও স্লো হয় না। এখন তো মিন্টু-বন্টু চালাই তাই এইটার দরকার পড়ে না।
    ধন্যবাদ 😀

via i need a unique ip, is that possible to get in this software? if not please suggest me something effective..any way i use GP-Internet. thank you.

    @damnamsogood: প্রক্সি কিংবা সফটওয়্যার ব্যবহার করলে সহজেই তা ডিটেক্ট করা যায়। আপনি Ultra Surf ব্যবহার করতে পারেন। আইপি হাইডিংয়ের খুবই উঁচুমানের এবং শতভাগ কার্যকরি সফটওয়্যার।
    ডাউনলোড করুন এখান থেকে। ধন্যবাদ

    উল্লেখ্য, আইপি হাইড/প্রক্সি ব্যবহার করলে নেট স্পিড অনেক কমে যাবে।

আছেন কেমন ? আর টিউন তো ফাটাফাটি । সোজা প্রিয়তে নিছি ।

বাহ তোমার সফটওয়্যার চয়েস দেখে আমি বেশ অবাক হচ্ছি। সব ফ্রী সফটওয়্যার নিয়ে টিউন করো। এটা বেশ ভাল। 🙂
আর তুমি বেশ বিস্তারিত টিউন করো এটাও অসাধারণ একটা ব্যাপার।
এই রকম একটা সফটওয়্যার নিয়ে আমিও টিউন করেছিলাম তবে পাইরেট 😛
অনেক ধন্যবাদ তোমাকে। 😀

    @হাসান যোবায়ের (আল-ফাতাহ্): হুম, আশা করি আগামী টিউনগুলোতে ফ্রি সফটওয়্যারের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে পারব 😛 ।

    বিভিন্ন সফটওয়্যার ডাউনলোড করে আমার যে অভিজ্ঞতা হয়েছে সেটা হল, অধিকাংশ সফটওয়্যারগুলো ৩ প্রকারে পাওয়া যায়। ১। প্রিমিয়াম/ ডেমো/ ট্রায়াল ২। ফ্রিওয়্যার/শেয়ারওয়্যার ৩। ওপেনসোর্স।
    প্রিমিয়ামগুলো দেখতে চমৎকার, কাজ করে তবে সাধারণত ভারী হয় [নন প্রোফেশনাল ইউজারদের জন্য শুধুই বোঝা], ফ্রিওয়্যারগুলো দেখতে ভালই, কাজও করে ভাল [আমি এটাই ব্যবহার করতে পছন্দ করি], আর ওপেনসোর্স কাজ করে চরম! সাধারণ ব্যবহারকারীদের জন্য আদর্শ তবে হাতে গোনা কিছু সফটওয়্যার বাদে এগুলার চেহারা অতটা সুন্দর না 😀

    ফ্রি সফটওয়্যার নিয়া টিউন করি বলে ক্র্যাক কিজেন ব্যবহার করি না সেটা ঠিক না। প্রিমিয়ামগুলোও মাঝে মধ্যে নামাই ও ইন্সটল দেই। কারণ, দেখি প্রিমিয়াম আর ফ্রি এর মধ্যে তফাৎ কতখানি। তবে দুই একটা বাদে বেশিরভাগ সফটওয়্যারই ওপেনসোর্স আর ফ্রি ইউজ করি। আইডিএম, স্ন্যাগিট ছাড়া তো আমার চলাই দায়! স্ন্যাগিটের বদলে পিকপিক ইউজ করা যায় তবে এইটাতে বেশিমাত্রায় আসক্ত হয়ে গেছি 😛 😆

    অকুণ্ঠ প্রশংসার জন্য ধন্যবাদ 🙂

@ নিওফাইটের রাজ্যে : ভালা ভালা বহুত ভালা । তয় একখান কতা জিগানের ছিল যে চোরডা আপনের সহ অনেকর টিউন কপি পেষ্ট করছিল হেইডার খবর কি ?

ওয়াও! দারুন একটি সফটওয়্যারের সাথে পরিচয় করিয়ে দিলেন! 🙂
বেশ গোছালো টিউন!
ডাউনলোড দিলাম। পরে কাজে লাগাবো!
সফটওয়্যার টি শেয়ার করার জন্য অনেক ধন্যবাদ আপনাকে।
ভাল থাকবেন।

    @মাহবুব হাসান: আর বলবেন না, পিসি চালু করার কয়েক মিনিটের মাথায় অনেক অ্যাপস আর ফাইল পত্র ওপেন করার কারণে টাস্কবার আর ডেস্কটপে একটুও জায়গা পাই না। তাই এই ব্যবস্থা, একটা মনিটরে আরও তিনটা মনিটর 😛
    আমার মত অগোছালো হলে অবশ্যই আপনার এই সফটওয়্যারটি কাজে লাগবে 😉
    ভাল থাকবেন 😀 :mrgreen:

Level 0

চমৎকার। খুব সুন্দর প্রেজেন্টেশান। 😀

কাজের জিনিস দিলেন ভাই ,আপনাকে আমার আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ ।

তুমি নিজেও জানোনা কি অসম্ভব রকমের প্রতিভা নিয়ে সৃষ্টি কর্তা তোমাকে সৃষ্টি করেছেন ! তুমি যাতেই হাত দাও সেখানেই সোনা ফলে ! আমি নিজে আজকে পুরো বিষয়্ টি নিয়ে ভাবতে শুরু করেছলাম , শেষ পর্যন্ত আমার সিদ্ধান্ত হল – ইউ আর দে বেস্ট ! আমি জানি না এই রকম কোনো প্রতিভা বান কোনো ক্যারেক্টারের সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত কোনো সম্পর্ক গড়ে উঠবে কিনা । আমি কৃতার্থ তোমার মত এক প্রতিভাবানের সঙ্গে আমার আত্মিক সম্পর্ক গড়ে উঠেছে বলে । মহান সৃষ্টি কর্তা তোমার প্রতিভার আরো স্ফুরন ঘটাক । যাই হোক এক জন কে ত পেলাম – যে বয়সে আমারে থেকে ছোটো হলেও যার কাছ অনেক অনেক কিছু শেখার বাকী আছে ! আল্লা তোমাকে দীর্ঘায়ু করুক ,

জটিল একটা সফ্যটওয়ার! আর আপনার Presentation আরও জটিল।

তোমার টিউন পড়লেই আমি মুগ্ধ হই। জটিলজ! 😀

অসাধানণ। পড়ে ভাল লাগলো…

Level 0

ক্যালকুলাসের উপর বাকি টউন টা কবে করবেন । আপনি কিন্তু বাকি টউনটা করতে চেযেছিলেন ।

    @sumon70: হেহেহ, 😛 করতে চাইলেই তো আর করতে পারি না 🙁
    ঔসব টিউন করার চেয়ে এইসব টিউন করা অনেক সহজ, শুধু স্ক্রিনশট নিলেই হয়। আর আমি যেসব সফটওয়্যার ডাউনলোড করি তা ইন্সটলের সময় স্ন্যাপশট নিয়ে রাখি। তাই ১৫-২০ মিনিটেই টিউন করা যায়। তবে ঔরকম টিউনের ক্ষেত্রে ইমেজটা নিজের হাতে তৈরি করা লাগে যা সময়সাপেক্ষ। দেখি কবে বাকি টিউনটা করতে পারি 🙂

Level 0

আপনি এই স্ক্রিন সর্ট নেবার সময় ডিজাইন গুলো কি সফটওয়্যার দিয়ে করেন । এই বিষয়ে একটি টউন করবেন ।

১০০ % সহমত অপু.পশ্চিমবাংলা ভাইয়ার সাথে। বিশ্বাস করেন একবিন্দু বাড়িয়ে বলছি না

    @tarik_59: আপনারা উদার মনের মানুষ তাই অমন বলেন :D। যাহোক, অনেক ধন্যবাদ আপনাকেও। 🙂

    অফটপিক: নতুন টিউন কই? ব্যস্ত নাকি? আপনার নাম বাংলায় লিখুন আর একটা প্রোফাইল পিক দিন। প্রোফাইল পিক দেওয়া তো অনেক সহজ। আর বাংলায় নাম লেখার জন্য ড্যাশবোর্ড>প্রোফাইল> First Name-Last Name এ বাংলায় নাম লিখুন>Display name publicly as- এ ক্লিক করলে বাংলায় নাম দেখতে পাবেন, সেটা ক্লিক করে Update Profile এ ক্লিক করে বের হয়ে আসুন।

    ভাল থাকবেন 🙂

নেটমাষ্টার ভাই। আমি একটি সনি এরিকসন experiax10i সেট কিনেছি। সেকেন্ড হ্যান্ড। কিন্তু এটার স্পিকার সাউন্ড খুবই কম। আসলেই কি এ সেটটির স্পীকার সাউন্ড কম?
আরেকটি সমস্যা হল আমার বাংলালায়ন ওয়াইফাই এ একবার কানেকট করলে পরে যদি বাইরে থেকে আসি তখন আর কানেক্ট হয়না। প্রাইভেসি সেটিং থেকে রিসেট করলে আবার কানেক্ট হয়। বোরিং লাগে ব্যাপারটি। এটার কি কোন সমাধান আছে?

Level 0

কাজের জিনিস। উবুন্টুতে এরকম দেখেছিলাম। উইন্ডোজের জন্যও এখন দিয়ে দিলেন আপনি 🙂 এজন্য ধন্যবাদ। পিডিএফ করে রেখে দিলাম আপাতাত। পরে সময় করে ট্রাই মারব।

    @dolar: হুম, লিনাক্সের সব ডিস্ট্রোগুলাতে এই সিস্টেম দেওয়া থাকে। সময় করে অবশ্যই দেখবেন 😀
    ধন্যবাদ 🙂