ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

খালিহাতে আত্মরক্ষা শিখুন – আত্মবিশ্বাসী হোন [৬ষ্ঠ-পর্ব] :: ব্লকিং করা

খালিহাতে আত্মরক্ষা শিখুন আত্মবিশ্বাসী হোন

আসসালামু আলাইকুম। আজ ব্লকিং শিখবো।

ADs by Techtunes ADs

ব্লকিং

"Blocking is the heart of your defense."  সুতরাং এর গুরুত্ব বুঝতেই পারছেন। দুই হাত ব্যবহার করে শরীরের তিন ভাগ এলাকাকে রক্ষা করা যায়।  প্রথম ভাগ: মাথা ও মুখ, দ্বিতীয় ভাগ: বুক ও পেট, তৃতীয় ভাগ: তলপেট ও অন্ডকোষ। যেকোন আঘাত ঠেকাতে হাতের এই অংশগুলো ব্যবহার করুন (সফট ব্লক বলেও একটা জিনিষ আছে; তবে এখানে এত বিস্তারিত দিচ্ছিনা।)

নিচের ছবিগুলো লক্ষ্য করুন। এখানে শরীরের প্রথম ভাগ রক্ষার ব্যাপারে দেখানো হয়েছে। একহাত যখন মাথার উপর তুলে ব্লক করবেন, অন্যহাত তখন আপনার কোমরের কাছে থাকবে। হাতের অবস্থান ভালমত দেখে প্র্যাকটিস করুন। এগুলো প্রায় সবই ইউ টিউবে পাবেন। যেহেতু আমাদের দেশের নেট স্পিড কম সেহেতু সেগুলোর লিংক দিচ্ছিনা। আপনার যেসব বুঝতে অসুবিধা সেগুলো ইউটিউবে ভিডিও দেখে নিলে অনেক সুবিধে হবে।

এবার দেখা যাক শরীরের মধ্যভাগের জন্য কোন ব্লক করতে হয়? এই ব্লকে বুক, পেট, সোলার প্লেক্সাসের মার রুখতে পারবেন।


শরীরের নিম্ন ভাগের ব্লকিং এর জন্য নিচে দেখুন:

ADs by Techtunes ADs

কোন ধরনের ব্লক  শরীরের কোন অংশ ব্লকিং এর জন্য প্রযোজ্য তা ছবির শেডেড অংশগুলো দেখলে বুঝবেন।

ব্লকিংগুলো যদি পরিষ্কার না বুঝে থাকেন তাহলে তীর চিহ্নিত ছবি গুলো দেখে প্র্যাকটিস করুন। সহজ হয়ে যাবে।

 অনেক ধরনের ব্লকিং আছে। সেলফ ডিফেন্স এর জন্য অত গভীরে না গেলেও চলবে। তবে শুধু পড়লেই হবেনা। ছবি দেখে দেখে প্র্যাকটিস করতে হবে। প্রচুর প্র্যাকটিস করলেই সত্যিকার মারামারিতে কাজে দেবে। মারামারির সময় কি এতকিছু মনে থাকবে? থাকবেনা। তাই অনেক প্র্যাকটিস করলে শরীর নিজে থেকে রেসপন্স করবে। অত চিন্তা করা লাগবেনা।


আপনার বোঝার সুবিধার্থে আরও ছবি দিলাম। বন্ধুর সাথে প্র্যাকটিস করুন ধীরে ধীরে। শুধু ব্লক করলেই প্রতিপক্ষের হাত ধীরে ধীরে অবশ হয়ে যায়-ব্যথায়। বিশ্বাস না হয়ে প্র্যাকটিস করেই দেখুন।

এবার একটু মারামারি!! 😆

ADs by Techtunes ADs

ছবিতে দেখানো ডান দিকের লোকটি আপনি। এ মহিলার দিকে একটু দৃষ্টি নিক্ষেপ করায় আপনাকে পিটুনি দিতে এসেছে।

আপনার মাথা লক্ষ্য করে সে ডান হাতে ঘুষি চালিয়েছে। আপনি বামহাতে ব্লক করলেন। এবার একই ভাবে বাম হাতে মারলো। এবারও আপনি ব্লক করলেন। এবার  সে আপনার চোখ লক্ষ্য ঘুষি মারল। আর সহ্য করা যায়না!! বাম হাতে তার ঘুষি ব্লক করে ডান হাতে সোলার প্লেক্সাসে মারুন। এতেই হবে।

কোন মহিলা যদি এই পোস্ট পড়েন তিনি নিশ্চয় আমার উপর রাগ করছেন। ঠিক আছে। নিচে দেখুন।

এবার বামের লোক শত্রু। সে এসেই আপনার পেট লক্ষ্য করে লাথি চালিয়েছে। একপাশে সরে গিয়ে ডানহাতে ব্লক করুন। নিচের দিকে যেভাবে ব্লক করতে হয়। এবার তার গলায় মধ্যমা বের করে খোঁচা দিন।

সম্ভবত: ঠিকমত লাগেনি :mrgreen:

আপনার মাথা লক্ষ্য করে এবার রাউন্ডহাউজ কিক চালালো শয়তান! ডানহাতে ব্লক করে সোলার প্লেক্সাসে মারুন কনুই এর গুঁতো। আশা করা যায় এতে শয়তান দোযখে ফিরে যাবে।

আজ এখানেই বিদায়।



ADs by Techtunes ADs

ADs by Techtunes ADs
Level 2

আমি মুহাম্মদুল্লাহ চৌধুরী। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 19 টি টিউন ও 95 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 3 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

এক্সপ্লোরার......


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Oh, You are great! I think you are a blackbelt! Thanks a lot my dear! http://www.Pctips20.tk

“ছবিতে দেখানো ডান দিকের লোকটি আপনি। এ মহিলার দিকে একটু দৃষ্টি নিক্ষেপ করায় আপনাকে পিটুনি দিতে এসেছে।”
বাবারে বাবা, ইভটিজিং! ইভটিজিং! 😆

সিলেট খুব সুন্দর তাই না? আমার গ্রামও খুব সুন্দর। পল্লী বিদ্যুৎ আন্দোলন কানসাটের নাম শুনেছেন? কানসাটের পাশের গ্রামটিই আমাদের। কখনও বেড়াতে আসলে জানাবেন।

ভাইয়া, জিমেইল আছে? থাকলে আসেন গুগল টক এ চ্যাট করি! [email protected]

Level 0

ভাই, আমি তায়কোয়ান্দ শিখি। এর আগে কারাতে শিখেছি। কারাতের চেয়ে তায়কোয়ান্দতে খাটুনি বেশি। এখন আর মজা পাই না। বাসে করে ৪ কিমি+ ৪ কিমি মোট ৮ কিমি যেতে আসতে আমার তেল কমে যায়। আপনার টিঊন গুলো সবই দেখেছি। খুব সুন্দর হয়েছে।
আমি আর বেশি দিন শিখব না। তায়কোয়ান্দতে ব্ল্যাকবেল্ট টা পেলেই লাপাত্তা দেব। আমি মনে করি এতদিনে যা শিখেছি তা দিয়ে যুদ্ধ করা যাবে। শরীরকে আর কষট দিতে চাই না। বাসায় নিজে কিছু করি। বেল্ট কিভাবে পায় সেটা যদি কেঊ যানে আর শিখবে না। আপনার কাজ গুলো দারুন।

কোপা সামছু!!! 😛

অনেক অনেক ধন্যবাদ মুহাম্মদুল্লাহ চৌধুরী ভাই।

Level 0

@ মুহাম্মদুল্লাহ চৌধুরী, সত্যি কথা হল, ফাইট করতে হলে তেমন শিখতে হয়না। কারাতের কাতা এবং তায়কোয়ান্দর পুমসে কোন কাজেই লাগে না। কিন্তু বিরক্তিকর জিনিস হল এগুলো না শিখলে আপনাকে বেল্ট দেবে না। আমার এত রাগ হয় মাঝে মাঝে ! আপনার শুধু জানতে হবে কিভাবে ব্লক, ঘুসি ও লাথি মারতে হয়। সেই সাথে নিয়মিত অনুশীলন করতে হবে। তাই নিজে শেখাই ভাল। ক্লাব গুলোর শুধু টাকার ধান্দা। আপনি পারলেও বলবে এটা হয়নি, ওটা হয়নি, আর মাস গেলেই তো টাকা। আমি প্রায় সব ব্লক, ঘুসি ও লাথি শিখেছি এবং কাজেও লাগাতে পারি। কিন্তু ওই যে বললাম? আপনি কি জানেন ব্রুস লীর কোন ব্ল্যাক বেল্ট ছিল না ! সেও আপনার মত শুধু বেসিক জানত। এরপ্ র নিজেই একটা স্টাইল বানিয়ে নিয়েছিল যার নাম “জিত কুনে দো”। আমার অনেক বন্ধু এসে বলে মার্শাল আরট শিখবে। ওদের বুঝিয়ে বলি ব্যাপার টা। ওদের কিছু বেসিক শিখিয়ে দেই।
আজকে ১ টা বছর পুমসে শিখতে শিখতে বিরক্ত হয়ে গেছি। কারাতে শেখার সময় কাতা শিখে মাথা নস্ট হত। এর কোন কাজই নেই, শুধু নাচের মত শিখব আর বেল্ট পাব। ওফ বিরক্তিকর এখন ব্যস্ত তাই যাই না। সামনের মাসে গিয়ে ব্ল্যাক বেল্ট চাইব। দিলে ভাল, না দিলে আরও ভাল। সোজা বাসায়। একেবারে যাওয়া বন্ধ।

    @Foysal13: ভাই দারুন লিখেছেন! আমিও তাই মনে করি। আমি বুত্থান মার্শাল আর্টের স্কুলে ক্লাস করেছিলাম। এত ঝামেলা দেখে বাদ দিয়ে দিই। ব্রুস লী যে ব্ল্যাকবেল্ট নয় তা জানতাম না! যেহেতু আমার প্রাতিষ্ঠানিক ডিগ্রী (বেল্টের কথা বলছি) নাই, সেহেতু মনটা একটু খারাপ হতো। কিন্তু আপনার কমেন্ট পড়ে সত্যি খুব ভাল লাগলো। আপনি অবলীলায় যে কথা গুলি বললেন, অনেক মার্শাল আর্টিস্ট তা স্বীকার করেনা।
    শুধু মার্শাল আর্টই নয়, বেশির ভাগ জিনিষই আমি নিজে নিজে শেখার চেষ্টা করি। যদিও একজন গুরু থাকলে সহজ হয়ে যায় তারপরও নিজের অধ্যবসায় টা আসল। আমার লেখাতে কোথাও ভুল দেখলে অবশ্যই সাজেশন দেবেন। অনেক ধন্যবাদ। যোগাযোগ রাখবেন। আমি ফেসবুকে আছি। এই নামেই পাবেন।

@everybody মুহাম্মদুল্লাহ ভাইয়ের মেয়েটার খুব জ্বর। 🙁 আপনারা তাঁর মেয়ের জন্য দোয়া করবেন প্লিজ। 🙁

Level 0

@ মুহাম্মদুল্লাহ চৌধুরী,
আপনার মেয়েকে আল্লাহপাক অবশ্যই সুস্থ করে দেবেন, আমিন।
অনেক ধন্যবাদ আপনাকে। ব্রুস লীর কেন ব্ল্যাক বেল্ট নাই? আসলে উনি মাস্টার “ইপ মান” এর কাছে ‘ঊইং চুন” কুংফু শিখতেন। ১৬ বছর বয়সে তার হাতে খড়ি। কিন্তু ১৮ বছর বয়সেই আমেরিকা পারি জমান তিনি। তাই আর কোর্সটা শেষ করতে পারেননি। আমেরিকাতে বক্সিং দেখে দারুন মনে ধরে তার। কিছুদিন বক্সিংও শিখেছেন তিনি। এরপর সব মিশিয়ে, গবেশনা করে তৈরী করেন “জিত কুনে দো”। জিত কুনে দো কে বলা হয় Style without style. এর কোন ধরা বাধা নিয়ম নেই। তাহলে এটা আবার কেমন জিনিস? ব্রুস লী বলেন, “Jeet Kune Do is not a style, it’s a method of learning martial art. When you have to punch, just punch. When you need to kick, just kick. You don’t need the useless fancy movement. Be formless, shapeless, like water. When you put it in a glass, it forms like a glass. When you put it in a bottle, it forms a bottle. Water can flow, water can clash. Be water my friend.”
ব্রুস লীর এই কথাটা আমি ১০০% মানি। জিত কুনে দো কোন আলাদা martial art নয়, এটা একটা Philosophy 🙂

ধন্যবাদ সবাইকে।
দেখুন মার্শাল আর্ট নিয়ে এত পড়েছি অথচ মার্শাল আর্টের গুরুর এই দারুন উক্তিটি চোখে পড়েনি। সত্যিই তাই! আপনার কাছে অনেক শিখলাম। ধন্যবাদ।

Level 0

অনেক কিছু শিখলাম জানলাম। আমি কয়েক মাস আগে একজন বড় ভাইয়ের কাছে শেখা শুরু করেছি।
আমি দু বছর আগে কানসাট বেড়াতে গিয়েছিলাম, খুব ভাল লেগেছে।

Level 0

আপনার সাথে যোগাযোগ করতে চাচ্ছি, দয়া ……

Level 0

আমার গুগল টক নেই। প্লিজ facebook/[email protected] or 01833 680 619

মার্শাল আর্ট শেখার আমারও খুব শখ ছিল। এখনও আছে। আপনার লেখা দেখে খুব ভালো লাগল। আচ্ছা বিভিন্ন টেকনিক এর ব্যাপারে লিখুন যাতে বাড়িতে আমরা একটু অভ্যাস করতে পারি। সেল্ফ ডিফেন্সের কোন ভিডিও কি ইউটিউবে পাওয়া যায়? যদি যায় তাহলে একটু লিন্ক দিন। আসলে সার্চ করে তো অনেক আসে তার মধ্যে কোনটা উপযুক্ত সেটা বুঝতে পরি না তাই আপনাকে অনুরোধ করা।