ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

ব্লগার বিশেষজ্ঞ হয়ে যান; ব্লগার টিউটোরিয়াল: আদ্যোপান্ত [পর্ব-২] :: ব্লগার ড্যাসবোর্ড পরিচিতি

হ্যাল্লো টেকটিউনসবাসী,

ADs by Techtunes ADs

কি অবস্থা আপনাদের? আশা করছি এবং আমি জানি আপনারা অনেক অনেক ভাল আছেন। ভাল থাকাটা একটা মাস্ট আর ভাল না থাকাটাই অস্বাভাবিক, কেননা আপনি আছেন বাংলা ভাষার সবচেয়ে বড় এবং প্রথম এবং সেরা প্রযুক্তি ব্লগ টেকটিউনসে। টেকটিউনসের সাথে থেকে খারাপ থাকার কোন প্রশ্নই উঠে না।

আর তাই আমিও আছি অনেক ভাল। মেতে আছি প্রযুক্তির সুরে। আর প্রযুক্তি দুনিয়ার বাসিন্দারা আপনাদের জন্য আজ নিয়ে এসেছি ব্লগার বিশেষজ্ঞ হয়ে যান সিরিজের দ্বিতীয় পর্ব। যারা প্রথম পর্ব পড়েন নি তারা এই পর্ব শুরু করার আগে অবশ্যই প্রথম পর্বটি পড়ে নিন

গত পর্বে বলেছিলাম দ্বিতীয় পর্বে ব্লগার ড্যাশবোর্ড নিয়ে আলোচনবা করব। ড্যাশবোর্ডের বিভিন্ন টুলসের সাথে পরিচিত হবো এবং তাদের ব্যবহার সম্পর্কে জেনে নেবো। তো চলুন শুরু করা যাক।

ব্লগার ড্যাশবোর্ড

পূর্বের পর্ব আপনি সম্পূর্ণ ফলো করে থাকলে আপনি ইতিমধ্যে একটি ব্লগ তৈরী করে ফেলেছেন। তো ব্লগ তৈরী করে ফেলার পর আবার ব্লগার ড্যাসবোর্ডে ফিরে আসুন। ড্যাসবোর্ড দেখতে নিচের ছবির মত দেখাবে।
ব্লগার ড্যাসবোর্ডে অনেকগুলো টুলস এবং অপশন দেখতে পাবেন। এই প্রত্যেকটির সম্পর্কে আমরা এখন জানব। প্রথমেই সর্ব উপরে বামে Blogger লেখা এবং ব্লগারের লোগো দেখতে পাবেন। এটা সম্পর্কে আসলে বলার কিছু নেই। তার নিচে থাকবে আপনার তৈরী করা ব্লগের নাম। গত পর্ব ভাল করে পড়লে আপনি মনে করতে পারবেন আমি যে ব্লগটি তৈরী করেছিলাম সেটার নাম দিয়েছিলাম Blogger Starter আর তাই এখানে 'Blogger Starter' দেখাচ্ছে। তার নিচে আছে 'ব্লগ দেখুন'। এটা আপনার ব্লগের লিংক এম্বেডেড টেক্সট। অর্থাৎ এটিতে ক্লিক করলে আপনাকে আপনার তৈরী করা ব্লগের হোমপেজে নিয়ে যাবে।
তার নিচে আছে 'টিউনগুলি'। এর ভেতর আপনার ব্লগে করা সমস্ত টিউন থাকবে। প্রকাশিত কিংবা ড্রাফট হিসেবে সংরক্ষিত সকল টিউন বা লেখা এখান থেকে দেখা যাবে। তাছাড়া নতুন কোন টিউন করতে হলেও এখানে যেতে হবে আবার প্রকাশিত কিংবা ড্রাফট কোন টিউন এডিট করতে হলেও এখানে যেতে হবে। আবার কোন টিউন ডিলেট করতে হলেও টিউনগুলি তে গিয়ে ডিলেট করতে হবে।
'টিউনগুলি'র নিচে আছে 'পরিসংখ্যান'। 'পরিসংখ্যান' থেকে মূলত ব্লগ মোট কতবার দেখা(ভিজিট) হয়েছে, কতজন মানুষ ব্লগ দেখেছে(ভিজিট করেছে), কোন টিউন কতবার দেখা হয়েছে, কোন জায়গার বা দেশের মানুষ আপনার ব্লগ দেখছে, কোন ব্রাউজার আপনার ব্লগে বেশি এসেছে, কোন অপারেটিং সিস্টেম থেকে কতবার ব্লগ দেখা হয়েছে, কোন পেজ কতবার দেখা হয়ছে(যদি পেজ থাকে), কতগুলি টিউমেন্ট(টিউমেন্ট) করা হয়েছে, কোথা থেকে মানুষ আপনার ব্লগে আসছে (অন্য কোন ওয়েবসাইট থেকে নাকি গুগল থেকে নাকি সরাসরি ব্লগে আসছে), কি সার্চ করে আপনার ব্লগে মানুষ এসেছে এমনসব তথ্য জানতে পারবেন। এমনকি আপনি সূক্ষ্ম ভাবে আজকের, গতকালের, একসপ্তাহের, একমাসের, একবছরের, ব্লগ তৈরি করা থেকে আজকে পর্যন্ত এরকম ভাগ ভাগ করে পরিসংখ্যান দেখতে পারবেন।
'টিউমেন্টসমূহ', পরিসংখ্যানের নিচেই যে মেনুটি আছে সেটি হল টিউমেন্টসমূহ। টিউমেন্টসমূহ তে আপনার ব্লগে প্রকাশিত এবং অপ্রকাশিত স্প্যাম সকল টিউমেন্ট দেখতে পারবেন। টিউন অনুযায়ী টিউমেন্টসমূহ প্রদর্শিত হবে। এখান থেকে কোন টিউমেন্ট ডিলেট করে দেয়া, আনএপ্রুভ করা, ভুলবশত স্প্যামে চলে যাওয়া কোন টিউমেন্টকে এপ্রুভ করার মত কাজগুলি করতে পারবেন।
'টিউমেন্টসমূহে'র নিচেই আছে 'প্রচারাভিযান'। এটি মূলত গুগল এডওয়ার্ডসের মাধ্যমে ব্লগকে বুস্ট করার অপশন। আমরা ফেসবুকে যেমন দেখেছি কোন পেজ বা টিউনের লাইক টিউমেন্ট বাড়ানোর জন্য ডলারের মাধ্যমে বুস্ট করা যায় এটিও তেমনি ডলারের মাধ্যমে ব্লগকে বুস্ট করা। এখান থেকে আপনি নিজের মনেরমত করে একটা এড তৈরী করতে পারবেন এবং ডলার দিয়ে সেই এড চালু করতে পারবেন। ব্লগের পাঠকসংখ্যা বাড়াতে প্রথমাবস্থায় অনেকে এরকম এড দিয়ে থাকে।
'পৃষ্ঠাসমূহ' তে প্রধানত বিভিন্ন পৃষ্ঠা বা পেজ তৈরী করা হয়। ব্লগে অনেক প্রয়োজনেই আমাদের পেজ প্রয়োজন হয়। নীতিমালা/আমাদের সম্পর্কে এই ধরণের পেজ তৈরি করার জন্য এটি ব্যবহৃত হয়। ব্লগার টিউটোরিয়ালের ধারাবাহিকতায় অন্য কোন পর্বে আমরা পেজ তৈরী করা শিখব।
'লেআউট'; হল মূলত আপনার ব্লগের চেহারা-সুরত। অর্থাৎ আপনার ব্লগটির লুক এখান থেকে ঠিক করতে হবে। ব্লগটি দেখতে কেমন হবে বলতে, টিউনগুলি কোথায় থাকবে; মাঝে নাকি ডানপাশে, উইজেটগুলি কোনটা কোথায় থাকবে এবং কোন এড বসালে সেটা কোথায় থাকবে সেগুলো এখান থেকে ঠিক করা যাবে। এখান থেকে এর বাইরেও ইচ্ছাকরলে আপনার ব্লগের লোগো সেট করে নিতে পারেন।
'লেআউট' এর নিচের অপশনটি হল 'থিম'। এই থিম জিনিসটা কি এটা আমরা পরে জানব। এখন এটুকু জেনে রাখি যে থিম হল আপনার ব্লগের বডি। মানে থিম ঠিক করে দেয় আপনার ব্লগের শরীর কেমন হবে আর লেআউট শুধুমাত্র সেটাকে সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলে। থিম মূলত প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ HTML এ লেখা থাকে। একটা ব্লগের মূল কার্যাবলি পরোক্ষভাবে এই থিম নিয়ন্ত্রন করে। থিমকে অনেকসময় টেমপ্লেট ও বলা হয়।
এরপর আছে 'সেটিংস'। সেটিংস সম্পর্কে বলার কিছু নেই। এখান থেকে ব্লগের নাম, টাইটেল, ব্লগের এড্রেস, এসইও এর মত কাজগুলো করা হয়। এই সেটিংস সম্পর্কে একটু বিস্তারিত জেনে নেই;
সেটিংসে ক্লিক করলে প্রথমেই আসে 'সাধারণ'। এই 'সাধারণ' সেটিংস থেকে আপনার ব্লগের টাইটেল বা নাম দিতে বা পরিবর্তন করতে, ব্লগের সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু লিখতে অর্থাৎ ব্লগের বর্ণনা যোগ করতে এবং ব্লগের ঠিকানা পরিবর্তন করতে অর্থাৎ ওয়েব ঠিকানা পরিবর্তন করতে পারবেন। এছাড়াও সাধারণ সেটিংস থেকে আপনার ব্লগে এনক্রিপ্টেড পদ্দতিতে ডাটা ট্রান্সফার চালু করতে অর্থাৎ HTTPS পদ্ধতির ডাটা ট্রান্সফার চালু করতে, অতিথি লেখক যোগ করতে, ব্লগের দর্শক সীমিত করতে অর্থাৎ দর্শকে যেকোন লিমিট আনতে পারবেন।
এরপর আছে 'টিউন টিউমেন্ট এবং শেয়ার করা'। এখান থেকে হোমপেজে সর্বাধিক কতটি টিউন শো করবে, কারা টিউমেন্ট করতে পারবে, টিউন প্রকাশিত হবার সাথে সাথে গুগল প্লাসে শেয়ার করা হবে কিনা এমন সব নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন।
'ইমেল' এ কোন ইমেল থেকে টিউন করা যাবে, টিউমেন্ট কোন ইমেল থেকে বিন্যস্ত করা যাবে এসব ঠিক করা যাবে।
'ভাষা এবং বিন্যাস' মূলত ব্লগের ভাষা এবং সময় ঠিক করার জন্য ব্যবহৃত হয়।
'অভিরুচি অনুসন্ধান করুন' ব্লগের ডিফল্ট এসইও এর জন্য এই অপশনটি ব্যবহৃত হয়। ভালভাবে না জেনে  এর কিছু পরিবর্তন করা অনেক ঝুকিপূর্ণ।
'অন্য' এখানে আপনার ব্লগে ১৮+ কিছু আছে কিংবা টিউন করবেন কিনা, ব্লগ ব্যাকআপ, ব্লগ টিউন ব্যাকআপ এর মত কাজগুলি দেখতে পারবেন। এছাড়া ব্লগ যদি ডিলেট করে দিতে চান তাহলেও এখানে আসতে হবে।
এরপর আছে 'ব্যবহারকারীর সেটিংস'। এখান থেকে ব্লগার এর ভাষা, ব্যবহারকারীর আইডি কি ব্লগার থেকে হবে নাকি গুগল প্লাস থেকে হবে এই বিষয়গুলি দেখা যাবে।
সবার নিচে আছে 'পঠন তালিকা' এবং 'সহায়তা'। পঠন তালিকাতে আপনি কোন ব্লগকে ফিচার করতে চাইলে এড করতে পারেন আর সহায়তা কেন্দ্রে ব্লগার সম্পর্কিত সহায়তা পাবেন।
তো এই ছিল আজকের টিউনে। আগামী পর্বে ব্লগে টিউন করা, ব্লগের টিউন লেখার রাইটারের অংশসমূহের পরিচিতি নিয়ে হাজির হয়ে যাবো। ততক্ষণ পর্যন্ত টেকটিউনসের সাথেই থাকুন। আর অবশ্যই মতামত জানাতে ভুলবেন না।

ADs by Techtunes ADs
Level 1

আমি হাসিবুর ইসলাম নাসিফ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 4 বছর 10 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 43 টি টিউন ও 76 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

বিষাদময় পৃথিবীতে আমি আনন্দ খুঁজে নিই সবকিছু থেকে। আর স্বপ্ন দেখি মহাকাশ ভেদ করে ভালোবাসা ছড়িয়ে দেবার। স্বপ্নচারী আমার স্বপ্নগুলোই বাঁচিয়ে রেখেছে আমাকে। হাত ধরে চলো স্বপ্ন দেখি একসাথে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

অাপনার টিউটোরিয়ালটি সুন্দর হয়েছে । আচ্ছা আমার ব্লগটি ভূল করে ষ্থায়ী ডিলিট করে দিয়েছে , এখন আমি কিভাবে আমার ব্লগটি আবার ফিরিয়ে আনা যায়? দয়া করে জানালে উপকৃত হব। ধন্যবাদ আপনাকে।

    দুঃখিত, আপনি যদি ব্লগে ব্যাকআপ সেটাপ না করে থাকেন তাহলে পার্মানেন্টলি ডিলেট করা ব্লগ ফিরিয়ে আনা সম্ভব নয়।
    মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ।