ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

অপারেটিং সিস্টেম থাকা অবস্থাতেই আপনার হার্ডডিস্কের পার্টিশান গুলোকে ভেঙ্গেচুরে নিজের মত করে সাজিয়ে নিন। অবিশ্বাস্য হলেও সত্য কোন ডাটা হারিয়ে যাবেনা!

আমরা যারা কম্পিউটার ব্যবহার করি তাদের অনেকেরই হয়ত নতুন করে পার্টিশান করার দরকার হয়না। কেননা একটা পিসি কিনলে দোকান থেকেই সাধারণত এই পার্টিশানের কাজটুকু করে দেওয়া হয়। কিন্তু কোন কারনে যদি আপনার পিসির পার্টিশান নতুন করে করতে হয় বা একটি বা দুটি পার্টিশান বাড়াতে হয় তখন অনেকেই হয়ত একটু বিড়ম্বনায় পড়েন। আবার যাদের ল্যাপটপ আছে তাদের হয়তবা মাত্র দুটি পার্টিশান আছে তারা চাচ্ছেন যদি দুই একটা পার্টিশান বাড়ানো যেত তাহলে ভাল হতো।

ADs by Techtunes ADs
Partition of HardDisk

আবার অনেকের হয়ত অনেকগুলো পার্টিশান আছে তারা চাচ্ছে দুই একটা পার্টিশান বাদ দিবে। সাধারণত কোন পার্টিশান ব্রেক করলে এর ডাটাগুলো সব মুছে যায়। আজ আমি আপনাদের সাথে এমন একটা সফটওয়্যারের পরিচয় করে দিব যার সাহায্যে অতি সহজেই আপনি এই কাজগুলো করতে পারবেন। কিন্তু আপনার কোন ড্রাইভের কোন ডাটা মুছে যাবে না বা নষ্ট হবেনা। মাত্র ৮.৪ মে.বা এই সফটওয়্যার (ডাউনলোড লিঙ্ক) এখান থেকে ফ্রি টা ডাউনলোড করুন। এই সবগুলো সুবিধা আপনাকে দিবে। সফটওয়্যারটির নাম

। এবার আসি এটা কিভাবে ব্যবহার করবেন।

  • প্রথমে এটি ডাউনলোড করে ইন্সটল করুন। ফ্রি সফটওয়্যার কোন সিরিয়ালের দরকার নাই। তাই এটা বিস্তারিত বললাম না। আশা করি পারবেন।
  • এবার স্টার্ট মেনু বা ডেস্কটপ থেকে সফটওয়্যারটি চালু করুন।

    EASEUS Partition Master 8.0.1 Home Edition

  • উপরের ছবির মত দেখতে পাবেন। এই সফটওয়্যারের বাম পাশে দেখেন অনেক অপশন আছে। এখন আপনি ঠিক করুন আপনি কি করবেন।
  • আমি আপনাদেরকে দেখাবো কিভাবে ডাটা না হারিয়ে হার্ডডিস্কের একটি পার্টিশান বাড়ানো যাবে। প্রথমে আমাদের ঠিক করতে হবে আমরা কোন কোন ড্রাইভ থেকে জায়গা নিয়ে নতুন পার্টিশান করতে চাই। এর জন্য যে পার্টিশান থেকে জায়গা নেব (অবশ্যই ঐ ড্রাইভে অতটুকু পরিমান ফ্রি স্পেস থাকতে হবে) সেই পার্টিশান সিলেক্ট করে বাম পাশ থেকে Resize/Move Pertition এ ক্লিক করুন। এইরকম উইন্ডো আসবে।
EASEUS Partition Master 8.0.1 Home Edition
  • এখান থেকে আপনি ঠিক করে দিন আপনার নতুন পার্টিশান কত মেগাবাইট নিয়ে তৈরী হবে(উল্লেখ্য ১০২৪ মে.বা.=১ গি.বা.)। হয়ত আমাদের ড্রাইভটি পূর্বে ছিল ১০০ গিগাবাইট এর ফ্রি স্পেস ছিল ৪০ গিগাবাইট আর আমরা চাচ্ছি এই ড্রাইভটাই আমাদের হবে ৭০ গিগাবাইট। তাহলে ৭০X১০২৪ দিয়ে যত হয় মানে ৭১৬৮০ মে.বা. পার্টিশান সাইজের ঘরে লিখে দিয়ে ok বাটনে ক্লিক করুন।
  • নিচের ছবির মত আসবে। এখানে আপনার আগের ড্রাইভের বর্তমান অবস্থা এবং আনএ্যালোকেটেড স্পেস দেখাবে। আপনার যদি কোন ভুল হয়ে থাকে এখান থেকে আপনি আনডু করার সুযোগ পাবেন।
EASEUS Partition Master 8.0.1 Home Edition
  • অন্য ড্রাইভ থেকে যদি জায়গা নিতে চান তাহলে একই পদ্ধতিতে সেই ড্রাইভ সিলেক্ট করে একই কাজ  করতে হবে।
  • এবার Apply বাটনে ক্লিক করুন। একটা মেসেজ আসবে আবার ok করুন। পিসি রিস্টার্ট হবে। অপেক্ষা করুন, পিসি বুট হওয়ার কিছুক্ষন পর কম্পিউটার স্বাভাবিক নিয়মে চালু হওয়ার বদলে নতুন একটি উইন্ডো আসবে এবং আপনি যে পরিবর্তন গুলো করেছিলেন সেগুলো এখন সংঘঠিত হবে। কাজ শেষ হওয়ার পর আবার পিসি রিস্টার্ট হবে। এবার একটি সাকসেসফুল মেসেজ দেখিয়ে পিসি রিস্টার্ট হয়ে চালু হবে। এবার আপনি লক্ষ করে দেখুন যে সকল পার্টিশান থেকে আপনি জায়গা নিয়েছেন সেগুলোর সাইজ কম দেখাচ্ছে। আমাদের এবার নতুন পার্টিশান তৈরী করতে হবে। এর জন্য সফটওয়্যারটি আবার চালু করুন এবং আনএ্যালোকেটেড অংশ সিলেক্ট করে বামপাশ থেকে Create Partition এ ক্লিক করুন।
EASEUS Partition Master 8.0.1 Home Edition
  • এই রকম আসবে।
EASEUS Partition Master 8.0.1 Home Edition

এখান থেকে ড্রাইভের একটি নাম এবং কতটুকু জায়গা নিয়ে পার্টিশান হবে তা উল্লেখ করে ok করুন। আবার Apply বাটনে ক্লিক করে ok করে রিস্টার্ট করুন। কাজ সম্পূর্ণ শেষ হওয়ার পর দেখবেন আপনার কম্পিউটারে নতুন একটি পার্টিশান বা ড্রাইভ যুক্ত হয়েছে।

যদি কোন কারণে দুই জায়গায় ফ্রি স্পেস বা একাধিক আনএ্যালোকেটেড স্পেসের মাঝে একটি ড্রাইভ থাকে তাহলে আপনি সেই ড্রাইভ সিলেক্ট করে Resize/Move Partition সিলেক্ট করে সহজেই ড্রাগ করে একপাশে সরিয়ে নিয়ে এসে আনএ্যালোকেটেড স্পেস দুটিকে একত্র করতে পারেন।

আরো সুবিধাঃ

  • সফটওয়্যারটি উইন্ডোজ এক্সপি/ভিসতা/সেভেনের ৩২ বিট বা ৬৪ বিট সমর্থন করে।
  • ড্রাইভ লেটার পরিবর্তন করতে দেয়।
  • সহজে ডিস্ক ডিগফ্রাগমেন্ট করা যায়।
  • প্রাইমারি পার্টিশানকে লজিক্যাল পার্টিশানে কনভার্ট করতে পারে। বা লজিক্যালকে প্রাইমারি করতে পারে।
  • পুরো একটি পার্টিশানকে কপি করতে পারে। এছাড়া একটি ড্রাইভকে হাইড করতে পারে।
  • পার্টিশানকে ডিলিট বা ফরম্যাট তো অবশ্যই করতে পারে।

অসুবিধাঃ

  • একটি পার্টিশানকে দুই ভাগে ভাগ করতে পারেনা।
  • দুইটি পার্টিশানকে একত্র করতে পারেনা।

ভাল লাগলে মন্তব্য করবেন আশা করি। ধন্যবাদ।

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি মাহাবুব। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 10 বছর 4 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 8 টি টিউন ও 137 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

কোন প্রাপ্তিই পূর্ণ প্রাপ্তি নয়, কোন প্রাপ্তিই দেয়না পূর্ণ তৃপ্তি... হেলাল হাফিজ


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level New

DATA না মুছলে তো অনেক ভালো Soft এবং ভালো Tune…

দারুন বলেছেন মাহবুব ভাই।এরকমই খুঁজছিলাম।কাজে লাগবে অবশ্যই।আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

@ D!pu >>> এখনও বৃষ্টি পড়ে… ভাই,মাহবুব ভাই যথার্থ বলেছেন।আপনি নির্ভয়ে কাজ করতে পারেন।কোন ডাটা হরাবেনা।

Level 0

ভাল মানে..এর চেয়ে আরকি ভাল।ধন্যবাদ আপনাকে এমন একটি টিউন উপহার দেওয়ার জন্য।

Level 0

আমি উইন্ডোজ 7 এর ডিফল্ট সিষ্টেম দিয়েই পার্টিশন করি,কই কখনও তো ডাটা ডিলেট হয়নি। তবে কোন ড্রাইভ থেকে SWAP পার্টিশন বের করতে চাইলে Eusus অনেক কাজের,ভালো টিউন।

    ঠিক! টিউন দেখে ভেবেছি সেটা নিয়েই টিউন। 🙁 কিন্তু আলাদা সফটওয়্যার নিয়ে লিখা

    উপল ভাই, আমিও ল্যাপটপ কেনার পর Win 7 এর ডিফল্ট সিস্টেম দিয়েই পার্টশান করে দুই থেকে চারটি করেছিলাম। কিন্তু বেশ কয়েকটা সমস্যা রয়ে গিয়েছিল, যেমন: ২টি ড্রাইভকে Extended Partition/Logical Drive করতে পারিনি কোনভাবেই। আবার আপনি তো বললেনই SWAP পার্টিশানের কথা। আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

    হু। কারণ একটা সিস্টেম এ ৪টার বেশী প্রাইমারী পার্টিশন করা সম্ভব নয়।

খুব ভাল হয়েছে ধন্যবাদ

অপারেটিং সিস্টেম থাকা অবস্থাতেই আপনার হার্ডডিস্কের পার্টিশান গুলোকে ভেঙ্গেচুরে নিজের মত করে সাজিয়ে নিন।

অথচ আপনাকে একবার রিস্টার্ট দিতে হচ্ছে। আসলে এমন একটা উপায় আছে যা দিয়ে পিসি রিস্টার্ট দেওয়া লাগেনা, কোনো সফটওয়্যার লাগেনা, কোনো ডাটা হারিয়ে যায়না, ইচ্ছামত এবং খুব দ্রুত পার্টিশন কম বেশি, ড্রাইভ লেটার চেঞ্জ করা যায়। এমনকি ভার্চুয়াল ড্রাইভ বানানো যায়।

সেটা হল উইন্ডোজ এর ডিফল্ট পার্টিশন ম্যানেজার।

টিউন হিসেবে খুব ভালো হয়েছে। শিরোনামের সাথে সঙ্গতি পাইনি। আর একটা বিপদজনক কথা লিখেন নি। সেটা লিখে দিন।

    Level 0

    আপনার উপায়ে কেমনে কাজ টি করতে হয় একটু বিসতারিত বলবেন কি??

    আমি নিজেও ডিফল্টটাই ব্যবহার করি, কিন্তু এখানে পার্টিশানটা করা এত সহজ যা না দেখলে কেউ বিশ্বাস করবে না। আর বিপদ কি আছে বুঝলামনা। অপারেটিং সিস্টেম থাকা অবস্থায় বলতে বোঝাতে চেয়েছি—অপারেটিং সিস্টেম নতুন করে সেটআপ দেওয়ার দরকার নাই। আর রিস্টার্ট হলেও তো অপারেটিং সিস্টেম থাকে, তাই না। ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য।

    ওহ! আমি তখন বুঝতে পারিনি। দুঃখিত।

    বিপদ যেটা হল, কোনো লজিকাল ড্রাইভ কমিয়ে বা বাড়িয়ে প্রাইমারি পার্টিশন এর সাথে যোগ করলে ডিস্ক ক্র্যাশ করে।

    আমি আমার ডেস্টটপে অনেক আগে একবার PowerQuest Partition Magic ব্যবহার করে C: এর জায়গা বাড়িয়ে ১০ গিগা থেকে ২০ গিগা করেছিলাম তখন কোন সমস্যা হয়নি। অপারেটিং ছিল এক্সপি।

    ধন্যবাদ মাহবুব ভাই । পোষ্টটি ভাল হয়েছে । এটা অনেক জ্ঞানী-গুণীদেরও কাজে আসবে । 😉 আর মাহবুব ভাই শুধু ২০ গিগা কেন ৪০ গিগাও করা কোন ব্যাপার না ….. এর জন্য একটু কম কম জানা দরকার ….. আর যারা বেশি বেশি জানে তারা ৪০ গিগা তো দূরের কথা তাদের কাছে ১০ গিগা করতেও যেন কি কি জানি সমস্যা হয় ………….. !!! 😆 😆 😆

    আবারও ধন্যবাদ মাহবুব ভাই সুন্দর পোষ্টটির জন্য ।

    ধইন্যা পাতা তরঙ্গ ভাই।?!

    Level 0

    ভাই, আমার উত্তর তো দিলেন না।

    সময় করে নিঃশ্চই করব।

Level 0

c drive a kaj korle windows a problem hobe nato?

    C ড্রাইভে এইটা দিয়ে কাজ হবে কি না, আমি চেক করে দেখিনি।

এক্সপি ছাড়া বাকি windows এ কোন software ছাড়াই এই কাজ টি করা যায় ।
[my computer right click – manage – disk management ]

Level 0

অনেক দরকারি একটা টিউন দিলেন। ধন্যবাদ।

Level 0

কেউ তাহলে একটা টিউন করে ফেলুন।কিভাবে ডিফল্ট সফটওয়্যার দিয়েই নতুন পার্টিশন বানানো যায় ।

অনেক উপকারি জিনিস ধন্যবাদ আপনাকে……ভাই আমার Dynamic Disk converter full version খুব জরুরি দরকার কারো কাছে থাকলে প্লিজ জানাবেন……Email:- [email protected]

Level 0

ডাউনলোড করছি। ভাই আমি যদি অন্য ড্রাইভের কিছু জায়গা নিয়ে C ড্রাইভ বাড়াতে চায় তাহলে কি পারা যাবে? আর পারলে কিভাবে একটু জানিয়ে দিবেন।

    শুনুন, আপনার সি ড্রাইভ যদি প্রাইমারি আর ডি যদি লজিকাল হয় তাহলে ভুলেও এই কাজ করতে যেয়েন না। ডিস্ক করাপ্টেড হয়ে যাবে।

    এই সফট দিয়ে সেটা করা যাবেনা । কিন্তু আপনি যদি Win-XP ব্যবহার করে থাকেন তাহলে PowerQuest Partition Masic 8 দিয়ে এই কাজটি করতে পারেন, তবে একটা প্রাইমারি অন্যটা লজিক্যাল হলে সমস্যা হতে পারে। । ঐটা নিয়ে টিউন করিনি কারন ঐটা Win Vista/Seven Support করেনা। ধন্যবাদ।

অনেক কাজের জিনিস ধন্যবাদ

ভাল টিউন আশা করি এইরকম টিউন আরো করবেন ।

Level 0

অনেক সুন্দর হয়ছে কাজে লাগবে ভাই আপনাকে অনেক ধন্যবাদ!

স্যার,
দরকারী টিউন। আমারতো C drive বড়ানো দরকার। But টিউন পড়ার পর মন্তব্য পড়ে হতাশ। C drive আর বাড়ানো হলোনা।

    এক্সপি দেওয়া থাকলে PowerQuest Partition Magic8 দিয়ে দেখতে পার।

ধন্যবাদ……স্যার…সামনের দিন গুলোতে আরো সুন্দর কিছু আসা করছি…তাও আবার ফ্রিতে…

    তমাল, ধন্যবাদ মন্তব্য করার জন্য। চেষ্টা করব আরো কিছু লিখতে, কিন্তু জানোই তো আমার ব্যস্ততা। কাল ছুটি ছিল তাই লিখেছি।

আসসালামু আলাইকুম, অবশ্যই ভালো হয়েছে। আল্লাহ আপনাকে উত্তম প্রতিদান দিক।

    ওয়ালাইকুম আস সালাম। ধন্যবাদ, আপনাক কমেন্ট করার জন্য।

অসাধারণ হয়েছে। অবশ্যই আমার অনেক কাজে আসবে। আপনাকে ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য।

    আপনার কাজে আসলে আমার পরিশ্রম সার্থক!?

খুব সুন্দর হয়েছে মাহবুব ভাই, ধন্যবাদ।

GREAT

প্রিয়তে । তবে কাজটা সেনসেটিভ।

    হ্যাঁ ভাই কাজটা একটু সেনসেটিভ।

আপনাকে ১০০০০০ ধন্যবাদ। ডাউনলোড দিলাম, কাজ হলে আরও ১০০০০০ ধন্যবাদ।

    যেভাবে বলেছি সেভাবেই করবেন কাজ হবে ১০০% সিওর। কাজ করার পর বলবেন কিন্তু ………..

ভাল টিউন।প্রিয়তে রাখলাম।আশাকরি ভবিষ্যতে কাজে লাগবে।

ধন্যবাদ নিশাচর নাঈম।

এটা দিয়ে কি একটি Partition থেকে জায়গা কেটে নিয়ে অন্য Partition এ যোগ করা যাবে কি না? করলে কি ভাবে বা এ ধরনের সফটোয়ার আছে কি????

    অবশ্যই করা যাবে। প্রথমে একটা পার্টিশান রিসাইজ করে কমিয়ে নিন তারপর যে পার্টিশানের জায়গা বাড়াতে চান সেটা মুভ করে (ভয় নেই ড্রাগ করে নিয়ে আসতে পারবেন) আনএ্যালোকেটেড স্পেসের কাছে নিয়ে আসুন। এবার যে পার্টিশানটি বাড়াতে চান সেটা রিসাইজ করে বাড়িয়ে নিন। ব্যস হয়ে গেল, দিয়ে দিন একটা রিস্টার্ট, কাজ শেষ। ধন্যবাদ

    সবই হলো, কিন্তু পার্টিশনটি মুভ করতে পারছি না, এছাড়া কমানে পাটিশনের সাথে থাকা পাটিশনটি বড় করতে পারছি, কিন্তু মুভ করতে পারছি না

ACCHA VAIA APNAKE AMAR SOMOSSTA BOLI.AMI 1 YEAR AGE LINUX UNSTALL KORTE GIE PARTISION SOBGULU DELATE KORE FELI.EKHON SUDHU C DRIVE TA ACHE.EKHON AMI KI EI SOFTWARE DARA SOB DRIVE BANATE PARBO?AMAR HARDDISKER MEMORY 80 GB.JODI EI SOFT DIE SETA KORA JAI TAHOLE KIVABE SOMVOB?APNI JETA LIKHECHEN SEVABE?NAKI ONNO KONO PODDHOTITE?

    আপনার C: এ জায়গা কত গিগা।

    78 gb

    আপনি WINDOWS XP দাড়া আপনার সমস্যা দূর করতে পারবেন।এ জন্য আপনাকে প্রথমে WINDOWS XP INSTALL দেওয়ার সময় যখন DRIVE গুলো SHOW করবে তখন দেখবেন আপনার DILETE করা HARD DISK গুলো SHOW করতেছে।আপনি এগোলও নতুন করে CREAT করবেন।তাহলে আপনার সমস্যা দূর হয়ে যাবে………….

    ji na .amake kono drive o install korar somoi dekhaina.ar creat o korte partechina

power Quest partision magic সফটওয়্যার দিয়েও একি কাজ করা যায়। আপনাকে ধন্যবাদ ।