ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

“ওয়েব ডিজাইন” স্বপ্নের ক্যারিয়ার শুরু থেকে সফলতা – যেমন হবে আপনার পথ চলা [পর্ব-০৬] [শেষ পর্ব]

আজ টিউনের শেষ পর্ব। আশা করছি আগের পর্ব গুলো সবাই পড়েছেন এবং সবার ভালো লেগেছে। পুরো টিউনটি আপনার কেমন লাগলো তা জানাতে ভুলবেন না কিন্তু। আর যত সমস্যা, সাহায্য, প্রশ্ন সব এই টিউনেই শেষ করে ফেলুন। কারণ এটি শেষ পর্ব 😀 এই সুযোগ আর পাবেন না।

ADs by Techtunes ADs

আজ আমি পুরো টিউনটির সারসংক্ষেপ লিখবো। যেন পুরো টিউনের মর্ম কথা বুঝতে পারেন। আছে শেষ কিছুয়া কথা এবং সব শেষে আমার সম্পর্কে কিছু কথা।

সারসংক্ষেপ

একটি ওয়েব সাইট এর দৃশ্যমান অংশ ডিজাইন করাই হচ্ছে ওয়েব ডিজাইন। এইচটিএমএল, সিএসএস, জাভাস্ক্রিপ্ট, জেকুয়েরি ইত্যাদি মারকাপ ও স্ক্রিপ্টিং ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করে ওয়েবসাইট বানানো হয়। বিশ্বে ওয়েব ডিজাইন এর মান এবং মূল্য দুটোই অনেক বেশি। আপনি যদি একজন ভাল ওয়েব ডিজানার হতে পারেন, তবে ভার্চুয়াল জগতে আপনার দারুণ সুনাম থাকবে। ওয়েব ডিজাইন এ বিদেশে চাকরী করে বা আমাদের দেশের ফার্ম এ চাকরী করে অথবা ফ্রিল্যান্সিং করে ভাল পরিমাণ আয় করা যায়। আমাদের দেশের সফল ওয়েব ডিজাইনার রা মাসে ১-২ লক্ষ টাকার উপরে আয় করছেন শুধু ফ্রিল্যান্সিং করে। আপনার যদি আগ্রহ থাকে ওয়েব ডিজাইন এর প্রতি তাহলে আপনি শিখতে পারেন ওয়েব ডিজাইন। তবে লোভে পড়ে, টাকার নেশায় ওয়েব ডিজাইন শিখলে সফলতার মুখ দেখবেন না। প্রথমে এইচটিএমএল দিয়ে শেখা শুরু করুন। এরপর সিএসএস এবং ধাপে ধাপে সিএসএস ৩, এইচটিএমএল ৫, জাভাস্ক্রিপ্ট, জেকুয়েরি ইত্যাদি শিখতে থাকুন। অনেক পরিশ্রম আর সময় দিয়ে কাজ শিখুন। অনল্প শিখেই টাকার পিছে দৌড়াবেন না। তাহলে প্রথম প্রথম হয়তো হাজার পাচেক টাকা কামাবেন, তবে ভবিশ্যতে উন্যতি করতে পারবেন না। সেই হাজার পাচেক টাকা পার করতে পারবেন না কখনো। অল্প বিদ্যা ভয়ংকরী। সামান্য শিখেই ওডেস্ক এ একাউন্ট খুলে বিড করা শুরু করলে পরিনতি বেশি ভাল হবে না। কাজ পাবার সম্ভাবনা খুব কম। পেলেও বেশ সমস্যায় পড়বেন এবং অন্যের হাতে পায়ে ধরতে হবে। কাজ শিখুন, পরিশ্রম করুন। নিজের উপর আত্মবিশ্বাস রাখুন।

শেষ কিছু কথা

অনেকেই মনে করতে পারেন আমি লোভ দেখানোর চেষ্টা করেছি। না! আমি শুধু ওয়েব ডিজাইন এর মূল্য সম্পর্কে ধারণা দেয়ার চেষ্টা করেছি মাত্র। ভুলেও লোভে পড়ে ওয়েব ডিজাইন শিখতে যাবেন না। যদি আপনার ওয়েব ডিজাইন এ আগ্রহ থাকে তবেই কেবল ওয়েব ডিজাইন শিখুন। লোভে পড়ে শিখতে গেলে সফল হতে পারবেন না। আয় করার কথা মাথায় নিয়ে কখনো সফল হওয়া যায় না। আপনার লক্ষ হতে হবে শেখা, দক্ষতা এবং সফলতা। তাহলে আপনি সফল হতে পারবেন। হ্যা, আয় সম্পর্কে ধারণা থাকা প্রয়োজন। আপনি আয় করতে পারবেন। তবে আয় করা কখনই যেন আপনার লক্ষ না হয়।

টিউনটি তে আমি চেষ্টা করেছি ওয়েব ডিজাইন এর উপর মোটামোটি বিস্তারিত ধারণা লিখার। আশা করছি সবাইকে বোঝাতে পারেছি। যদি আপনি কোন কিছু না বুঝে থাকেন। তবে অবশ্যই মন্তব্য করুন। আর আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে তাও মন্তব্বের মাধ্যমে আমাকে জানিয়ে দিন।

কোন প্রতিষ্ঠানে গিয়ে শেখার প্রয়োজন আছে?

আমার মনে হয়না কোন প্রতিষ্ঠানে গিয়ে ওয়েব ডিজাইন শেখার প্রয়োজন আছে। তাও আপনার যদি একান্তই ইচ্ছা থাকে তাহলে একটু খোঁজ খবর নিয়ে ভাল কোন প্রতিষ্ঠানে কোর্স করতে পারেন। বিঃদ্রঃ মত বিরোধের কারনে আমি কোন প্রতিষ্ঠানের নাম উল্লেখ করতে চাচ্ছি না। এমনকি আমার ঠিক জানা ও নেই। তাই নিজেরাই একটু কষ্ট করে খোঁজ করুন।

এই টিউন টি কেন লিখেছি?

বহু মানুষ আমাকে ফেসবুক এ মেসেজ দিয়েছেন, তারা ওয়েব ডিজাইন শিখতে চান কিন্তু শুরু করতে পারছেন না বা বুঝতে পারছেন না আরো অনেক কিছুই। সবাইকে আলাদা আলাদা করে বোঝানো সম্ভব নয়। তাই এই টিউন লিখার সিদ্ধান্ত নেই। অনেকেই হতাশ হয়ে আছেন কিছু করার আশায়। পারছেন না। রাস্তা খুঁজে পাচ্ছেন না। আমার ইচ্ছা ছিল সবার এই হতাশা দূর করার। আমি যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি। কতটুকু পেরেছি জানি না।

আমাদের তরুন প্রজন্মের অবস্থান

ADs by Techtunes ADs

বর্তমানে আমাদের তরুন প্রজন্মের অবস্থা নিয়ে মনে হয় বেশি কিছু বলা লাগবে না। দেশ কিভাবে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে সেটা সবাই নিজের চোখেই দেখছেন। কিন্তু হাতের পাচ আঙ্গুল যেমন সমান নয় তেমনি সব তরুনরাও এক নয়। একদল তরুন যেমন দেশ ধ্বংসে উঠে পড়ে লেগেছে, অপর দিকে আরেক দল তরুণ নিজেদের সর্বাত্মক পরিশ্রম দিয়ে দেশকে ধ্বংসের মুখ তগেকে বাচাচ্ছে।

আমাদের দেশের ফ্রিল্যান্সার রা অধিকাংসই তরুণ। তাদের অয়স খুব বেশি না। তারা রাত দিন অক্লান্ত পরিশ্রম করে দেশে বৈদেশিক মুদ্রা এনে দিচ্ছে। যদিও সরকার থেকে তেমন কোন সুযোগ সুবিধা তারা পাচ্ছে না, তাও তারা নিঃস্বার্থ ভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছে। এদের জন্য আমার লাল সালাম। তোমরাই দেশের আসল সন্তান! তোমরা প্রমাণ করেছ দেশকে ভালবাসতে হলে রাজনীতি করতে হয় না। দেশকে ভালবাসতে হলে নিজের বিবেক বুদ্ধি দিয়েই ভালবাসা যায়। তোমাদের বিবেক বুদ্ধি তোমাদের সঠিক পথ দেখিয়েছে, তোমরা ধ্বংসের পথে না গিয়ে আলোর পথে এগিয়েছো. আবারও লাল সালাম তোমাদের।

একদল তরুণ যখন স্কুল, কলেজ, ভারসিটিতে উচ্চ শিক্ষা নিয়েও বিভিন্ন নেশা, রাজনীতি ইত্যাদি ভাবে নিজের ও দেশের ভবিষ্যৎ ধ্বংস করতে ব্যস্ত। আরেকদল তরুণ তেমন কোন প্রাতিষ্ঠানিক উচ্চ শিক্ষা লাভ না করেও বা করতে না পেরেও ফ্রিল্যান্সিং কে নিজের পেশা, নেশা এবং জীবন করে রাত দিন অক্লান্ত পরিশ্রম করে দেশে বৈদেশিক মুদ্রা আনায় ব্যস্ত। এতে তারা নিজেরা যেমন স্বাবলম্বী হতে পারছে পাশাপাশি দেশের অনেক বড় উপকার করছে। গত কয়েক বছরে বাংলাদেশি তরুণ ফ্রিল্যান্সার রা বিশ্বদরবারে বাংলাদেশকে অনেক উপরে নিয়ে গেছে। তারা অর্জন করেছে অনেক বড় বড় খেতাব। আর সেই খেতাবে তার নামের পাশে আরেকটি পরিচয় থাকে, বাঙ্গালী।

টেকটিউনস এর ২০১২ সালের একটি মিটাপ এ ডঃ মোস্তফা আঙ্কেল এই কথা বলে কেদে দিয়েছিলেন "এই বয়সে তরুণরা নিজেদের নেশার জগতে ঠেলে দেয়, আর তোমাদের মত তরুণরা নিঃস্বার্থে টেকটিউনস এর মত ব্লগ গুলোর সাহায্যে জ্ঞান বিতরন করে যাচ্ছ। এটা ভেবেই অনেক ভাল লাগে"। (উনার কথাটা ঠিক এমন ছিলো না, আমার যতটুকু মনে আছে বলেছি। উনার টিউন টি দেখতে পারেন এখানে)

পথভ্রষ্ট তরুণ সমাজকে এখন আলোর পথে নিয়ে আশা আমাদের দায়িত্ত। তারা যদি আমাদের তরুণ ফ্রিল্যান্সারদের সাথে মিলে একসাথে কাজ করে তাহলে বাংলাদেশ কে আর বেশি দিন গরিব দেশের পরিচয় নিয়ে থাকতে হবে না।

ফ্রিল্যান্সিং এ নারীদের অবস্থান

দুঃখজনক হলেও সত্যি ফ্রিল্যান্সিং জগতে নারীদের তেমন হাতছানি নেই। হাতে গোনা কয়েকজন নারী কেবল ফ্রিল্যান্সিং জগতে সফল হয়েছেন। কয়েকদিন আগে হয়ে যাওয়া বেসিস ফ্রিল্যান্সার অ্যাওয়ার্ড এ ১০০ জন এর মধ্যে মাত্র ৩ জন নারী। অথচ ফ্রিল্যান্সিং পেশা টি নারীদের জন্য বেশি উপযোগী। আমাদের পুরুষদের জন্ম থেকেই অভ্যাস বাইরে বাইরে থাকার। আর নারীদের ছোট থেকেই ঘরে পর্দায় থাকতে হয়। হ্যা! বর্তমানে নারীরা অফিস, স্কুল কলেজ ইত্যাদি তে পুরুষদের সাথে সমান বেগে এগোচ্ছে। আর আমি বলছি না নারীদের ঘরে কোণঠাসা হয়ে থাকতে। আমাদের দেশের অধকাংশ নারীর অধিকাংস সময় কাটে ঘরের কোনে। তাদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং এর পেশা টি সবচেয়ে উপযোগী। তারা তাদের প্রয়জনিও কাজ শেষে অবসর সময়ে বসে প্রতিদিন ৪-৫ ঘন্টা কাজ করে মাসে খুব ভাল আয় করতে পারে। এতে তারা নিজেরা স্বাবলম্বী হতে পারবে। অন্যের উপর নির্ভর করে চলতে হবে না। কলেজ-ভারসিটিতে পরুয়া মেয়ে, বিবাহিতা নারী, সন্তানের মা সবার জন্যই এই পেশা বেশ সুবিধা জনক।

ঠিক কি কারনে জানিনা, নারীরা এই পেশায় খুবই কম। যদিও বর্তমানে নারীদের সংখ্যা পূর্বের তুলনায় বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে আমাদের সবাইকে আরো সচেতন হতে হবে। আমাদের আশে পাশের বান্ধবি, মা, বোন, স্ত্রী তাদের অবসর সময় গুলো নষ্ট না করে এই পেশায় ব্যয় করার জন্য আমরা তাদের উদ্বুদ্ধ করবো। তাদের ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে জানাবো। তাদের শেখার সুযোগ করে দিবো। বাংলাদেশে যে সংখ্যক বেঁকার নারী আছে তার অর্ধেক ও যদি ফ্রিল্যান্সিং কে পেশা হিসেবে নেয় তবে বাংলাদেশ খুব দ্রুতই আমাদের স্বপ্নের বাংলাদেশ হবে ইনশাল্লাহ।

আমার সম্পর্কে কিছু কথা

আমার আসল নাম রাকিবুল হাসান। এবার ধানমন্ডি গভঃ বয়েজ হাই স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছি। বয়স ১৬। . ঢাকায় জন্ম এখানেই বড় হয়েছি, এখন ঢাকাতেই আছি।

ADs by Techtunes ADs

ছোট থেকেই কম্পিউটার এর প্রতি অনেক নেশা। ক্লাস সেভেন এ প্রথম নিজের কম্পিউটার কিনি। তখন অবশ্য ২৪/৭ গেম খেলা নিয়ে ব্যস্ত থাকতাম। অবশ্য বন্ধুদের সাথে মিলে ছোট খাটো ট্রিক শিখতেও খুব মজা পেতাম। এমনি করতে করতে একটু একটু কম্পিউটার শেখা। বাবা কম্পিউটার ভাল জানতেন। তার কাছ থেকে একটু একটু করে অনেক কিছুই শিখি। ধীরে ধীরে মনোযোগ গেম থেকে অন্য দিকে যায়। এইযে গেম, এটা কিভাবে বানালো? আমি কি বানাতে পারবো? এসব কথা মাথায় ঘুরতো। তখন গেম খেলা ছেরে গেম এডিট করার পেছনে লাগি।

নবম শ্রেণীতে উঠে কাকতালীয় ভাবে টেকটিউনস এর সাথে পরিচয়। ওর সাথে আমার বেশ আড্ডা জমে গেলো। বলতে পারেন টেকটিউনস এর হাত ধরেই আমার এত দূর আশা। আমি আজ যা পারি বা যা শিখছি এর অনেকটা কৃতিত্ব টেকটিউনস এর। টেকটিউনস থেকেই আমার ব্লগিং শেখা, ওয়েব ডিজাইন, ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে জানা, আরো অনেক কিছুই। টেকটিউনস থেকে যে কত কিছু শিখেছি তা বলে শেষ করতে পারবো না। টেকটিউনস এর এই ঋণ কখনো শোধ করতে পারবো কিনা জানি না। তাই আজও বিনা দ্বিধায় টেকটিউনস কে ভাল কিছু উপহার দেয়ার চেষ্টা করি। টেকটিউনস এর জন্য আমার যতটুকু আছে সব দিয়ে করতে রাজি আছি।

টেকটিউনস এর প্রতি কৃতিত্ব প্রকাশ করা মানেই এর টিউনার দের প্রতি কৃতিত্ব প্রকাশ করা। টেকটিউনস এর টিউনারদের প্রতি কৃতিত্ব প্রকাশ করে শেষ করা যাবে না। টিউনারদের অসাধারণ সব টিউন গুলোর জন্যই হয়তো আমি এত কিছু শিখতে পেরেছি। তাদেরকে ধন্যবাদ দেয়ার মত ভাষা আমার নেই। কারো নাম লিখতে চাচ্ছি না, নাম লিখে শেষ করতে পারবো না। আর একজনের নাম বাদ গেলে হয়তো খারাপ লাগবে। তাই কারো নামই লিখচি না।

আমি এখন ওয়েব ডিজাইন শিখছি। কোন প্রতিষ্ঠানে নয়। নিজেই অনলাইন এ টিউটোরিয়াল দেখে এবং পড়ে। আমাকে কেও ফ্রিল্যান্সার/ গুরুতর ওয়েব ডিজাইনার/ মহা জ্ঞানী ভেবে ভুল করবেন না। আমি ওয়েব ডিজাইন শিখছি কেবল। ফ্রিল্যান্সিং? এখনো ওডেস্ক এ একাউন্ট ও খুলি নাই। মহা জ্ঞানী? আমাকে ওই দিন মহাজ্ঞানি বলবেন যেদিন আমি মার্ক জুকার বারগ বা বিল গেটস থেকেও বড় কিছু করে দেখাতে পারবো। আপনাদের কাছে অনুরোধ রইলো আমার। এটা আমার স্বপ্ন। অনেক বড় হবার স্বপ্ন।

সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন। সামনে ৯ তারিখ আমার এসএসসি পরিক্ষার ফলাফল।

কারো কোন সাহায্য লাগলে ফেসবুক এ নক করবেন, আমার স্বল্প জ্ঞান দিয়ে সাহায্য করার চেষ্টা করবো।

আমি আছি ফেসবুক এঃ Rakibul Hasan

<< ৫ম পর্বের টিউন / সকল টিউন

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি কম্পিউটার লাভার। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 107 টি টিউন ও 1266 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 11 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

Also known as "Raiku Saiko". React.js & Javascript Developer. Former Wordpress Developer, Front-end Designer. Technology Addicted.


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

বাংলাতে আর থেকে পরিপূর্ণ গাইডলাইন আমি আগে পাই নি। তোমার টিউন সার্থক।
তোমার জন্য অনেক অনেক শুভ কামনা। অনেক দূর এগিয়ে যাবা এটা আমার বিশ্বাস। 🙂

আস্সালামু আলাইকুম। আমি আপনার টিউনটা পড়া শেষ করলাম। আমি সত্যি অনুপ্রানীত হয়েছি। আমার এখন কোন PC নেই। আমার অনেক দিনের ইচ্ছা, শখ, উদ্দেশ্য, এবং সপ্ন আমি web developer হব। HSC পরিক্ষা দিচ্ছি। পরিক্ষার পরে লেগে যাব কাজ শেক্ষায়। আমি জানি আপনার সবাইকে help করেন। অতয়েব, আমাকেঅ যে help করবেন এটাও জানি। আপনার সাফল্য করছি।

অসাধারণ একটা ধারাবাহিক টিউন এর জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ আপনাকে, আমি মাত্র শিখা শুরু করেছি, এই অবস্থায় আপনার টিউনটি অনেক উপকারে আসবে আমার । আর আশা করি ফেসবুক এ নক করলে আপনাকে পাওয়া যাবে ।

Level 0

ভাইরে কি দেখালেন….এক্কিবারে ফিটাই দিলেন তো…..অনেক ভালো লিখছেন….

Boss!!!
Dhonnobad debar kuno vasa nai.
Apnar ei tune aro age dorkar chilo. Thamben na kokhon o. In shaa allah apni e parben success hote

রাকিব ভাই আপনাকে ধন্যবাদ দিয়ে খাটো করবোনা!!!
শুধু এতটুকু বলবো যে, আমি কিছুদিন আগে থেকে web development শেখা শুরু করেছি, আপনার এই অসাধারন টিউন আমাকে আরো অনেক বেশী অনুপ্রানিত .উদ্যমি এবং আগ্রহী করবে নিঃসন্দেহে ।
আপনার স্বপ্ন পূরণ হোক, শুভ কামনা রইলো ।

অনেক ভাল লিখেছ ভাই কম্পিউটার লাভার। তোমার এত অল্প বয়সে ধৈর্য ও আগ্রহ দেখে আমি অবাক হয়েছি। তোমার বয়সে কম্পিউটার কি আমরা সেটাই জানতাম না। আর তোমরা আধুনিক যুগে এ দিক দিয়ে অনেক এগিয়ে। তোমাদের কাছে-ই দেশ সত্যিকারে সৃজনশীল কিছু আশা করতে পারে। তোমার সম্পুর্ন টিউনস গুলো আমি পড়েছি এবং অনেক ভাল লেগেছে। প্রাথমিক পর্যায়ের সকলের শিখার জন্য খুবই উপযোগী একটা দিক-দর্শন। দোয়া করি তোমার অবিষ্ট লক্ষ্যে তুমি পৌঁচাও। তোমার সুন্দর ভবিষ্যত কামনা করছি। ধন্যবাদ!

Level 0

ভাই আপনার টিউন পড়ে এখন মনে হচ্ছে আমার সপনোও বাস্তব হতে পারে । তাই লেগে পরলাম ।আশা করি সাহায্য চাইলে পাব ।আর আপনার সফলতা কামনা করি।

Level 0

অনেক সুন্দর করে গুছিয়ে লিখেছেন , আপনার জন্যও রইলো আমাদের শুভ কামনা রইলো ।

Level 0

ভাই তোমার লেখা যথেষ্ট সুন্দর হয়েছে। আমি সত্যি মুগ্ধ। অনেক দিন স্লো হয়ে গিয়েছি এখন আবারও অনুপ্রানিত হলাম। ধন্যবাদ।

প্রিয় টিউনার,

আপনার টিউনটি টেকটিউনস চেইন টিউন হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। অভিনন্দন আপনাকে!

টেকটিউনসে চেইন টিউন কীভাবে প্রক্রিয়া হয় তা জানতে টেকটিউনস সজিপ্র এর https://www.techtunes.co/faq “চেইন টিউন” অংশ দেখুন।

নিয়মিত চেইন টিউন করুন। এখন থেকে আপনার নতুন করা চেইন টিউন গুলো টেকটিউনস থেকে চেইন এ যুক্ত করা হবে। চেইন টিউনে যুক্ত হবার ফলে চেইনের প্রতিটি পর্ব একসাথে থাকবে।

চেইনে নতুন পর্ব যুক্ত হলে তা টেকটিউনসের প্রথম পাতায় দেখা যাবে এবং “সকল চেইন টিউনস” https://www.techtunes.co/chain-tunes/ পাতায় চেইন টিউনটি যুক্ত হবে।

নিয়মিত চেইন টিউন করে নতুন নতুন টিউন আপনার চেইনে যুক্ত করুন এবং অসম্পূর্ণ না রেখে আপনার চেইন টিউনে নিয়মিত পূর্ণাঙ্গ রূপ দিন।

মেতে থাকুন প্রযুক্তির সুরে আর নিয়মিত করুন চেইন টিউন!

very inspiring tune….good job!

অনেক অনেক ধন্যবাদ এত কষ্ট করে সবাইকে একটা বিষয়ে স্বচ্ছ ধারনা দেবার জন্য আমিও শিখছি মাত্র তবে প্রফেশনালী গ্রাফিক্স এর কাজ করছি দেশের বাইরে আগের মতন একটা আসা হয়না এখানে আজ হঠাৎ আসলাম ভালমানের একটা লিখা দেখে তাই থমকে দাড়ালাম

ভাল আছো ভাই ? At first thanks to you . Then what about your result ? Then a question to you – আমি যদি ওয়েব ডিজাইন শিখি এবং করি , তাহলে কি কোন problem আছে ??

বসস.
আপনি জটিল লিখছেন !!
দারুন পুরা ফাটাইয়া দিছেন. 😛

Level 0

VAIA APNI KHUB VALO LEKHEN APNAR PORO TUTORIAL PORLAM KHUB VALOHOYSE VAIA

প্রিয় রকিবুল হাসান,
আপনার লেখাগুলো খুব ভাল হয়েছে। আপনার ২গুন ৩গুন বড় অনেক লেখকও এত গুছিয়ে এই বিষয়ে লিখতে পারে না। বিষয়গুলো বাস্তব এবং একই সাথে positive ভাবে ব্যাখ্যা করাটা আমার কাছে খুবই ভাল লেগেছে। লেখার ভিতরে উল্ল্যেখ করা link গুলো পাঠকদের কাজে আসবে, এক্ষেত্রেও আপনার সততা, নিষ্ঠা ও পরিশ্রম লক্ষ্যনীয়।
Salute to you.

Level 0

vai apnar sob gulo likhai porlam .asolei oshadharon likhsen.valo thakben, khub e upokrito holam.

Thanks a lot Rakibul. By reading your 6 tunes within few hrs i got full information about web design. Its really awesome !!! Thanks again……..

Level New

ভাই, আপনার এই চেইন টিউনটি ওয়েব ডিজাইন শেখার জন্য পরিপূর্ণ গাইডলাইন। বিশেষ করে আমার মতো যারা মাত্র শুরু করেছে তারা আপনার টিউনের মাহাত্ব্যটা বুঝতে পারবে। নতুনদের জন্য সঠিক রাস্তা খুজে নেওয়াটাই সবচেয়ে কঠিন কাজ। আপনি এটা সবার জন্য সহজ করে দিয়েছেন।
আমিও এই রাস্তায় নতুন। আশা করি আপনার গাইডলাইন ফলো করে সফল হতে পারবো। আর ফেসবুকে নক করলে সাহায্য পাবো আশা করি ?

রাকিব,
ভাল লাগলো তাই সরাসরি নাম ধরেই ডেকে বলছি, সব টিউন মন লাগিয়ে পড়েছি। হঠাৎ করে একদিন ইচ্ছে হল ওয়েব ডিজাইন সম্পর্কে জানবো, তোমার বয়সী ভাইপো’র কাছে গিয়ে বললাম, আর সেই শুরু। ৪ দিনে অনেক এগিয়ে গেলাম, না শুধু ভাইপো’র শিক্ষাতে নয়, তোমার টিউন এর কারণেও। তাই কৃতজ্ঞতা জানানোই উদ্দেশ্য। চললাম এগিয়ে অজানার পথে——!!!!