Internet Arcade – ২০২০ সালে এসেও খেলুন কয়েন দিয়ে খেলা, ভিডিও গেম গুলো! কোন গেমস ইন্সটল করা ছাড়াই! আবার হারিয়ে যান আপনার ছেলেবেলায়!

টিউন বিভাগ ওয়েবওয়্যার
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 28
সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা

আসসালামু আলাইকুম, কেমন আছেন টেকটিউনস কমিউনিটি? আশা করছি সবাই ভাল আছেন। আজকে আবার হাজির হলাম নতুন টিউন নিয়ে। আজকে আলোচনা করব কিভাবে ২০২০ সালে এসেও সেই কয়েন দিয়ে খেলা ভিডিও গেম গুলো খেলবেন। তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

শুরুর কথাঃ

মোস্তফা গেম খেলার দিন গুলো মনে আছে? টিফিনের টাকা দিয়ে প্রায়ই চলে যেতাম গেম গুলো খেলতে, স্কুল ফাকি দিয়েও কম খেলিনি, লাল সাদা মেশিনের গেম গুলো। বর্তমান জেনারেশনের ছেলেমেয়েরা আর ওসব গেম খেলে না আর মেশিন গুলোও খুব একটা দেখা যায় না। আমরা যদি চাই তারপরেও শত ব্যস্ততা জন্য আর আধুনিক সব গ্রাফিক্স নির্ভর গেমের ভীরে ওসব গেম খুঁজে পাই না। আপনার সেই শৈশবের দিন গুলো আর গেম গুলোর কথা মনে করিয়ে দিতেই আমার এই প্রচেষ্টা আজকের এই টিউন। এর আগেও এমনটি টিউন করেছিলাম চাইলে দেখে নিতে পারেন।

ইন্টারনেট আর্কাইভ এর নতুন প্রজেক্ট! ইন্সটল ছাড়াই ওয়েব সিমুলেটরের মাধ্যমেই খেলুন আপনার প্রিয় ২৫০০ এর বেশি MS-DOS গেমস! আর হারিয়ে যান আপনার ছেলেবেলায়!

আমরা এখন হয়তো সবাই Wayback Machine বা Internet Archive এর সাথে পরিচিত, যারা বিভিন্ন ওয়েবসাইটের নতুন পুরাতন সকল তথ্য সংরক্ষণ করে। সম্প্রতি এই Wayback Machine, কয়েন দিয়ে চালিত ভিডিও গেম গুলো নিয়ে একটি প্রজেক্ট চালু করেছে। যে প্রজেক্টের নাম Internet Arcade। এখানে ১৯৭০ থেকে ১৯৯০ সালের ভেতরের প্রায় ৯০০ এর বেশি কয়েন অপারে-টেড অথবা Mainframe গেম সংরক্ষণ করা হয়েছে। JSMESS সিমুলেটরের মাধ্যমে আপনি সেই সোনালি দিনের গেম গুলো খেলতে পারবেন। তাছাড়াও আপনি যদি, আপনার থেকে বয়সে বড় গেম গুলো নিয়ে রিসার্চ করতে চান, জানতে চান কেমন ছিল গেম গুলো তবে ব্যবহার করতে পারেন এই Internet Arcade।

Internet Arcade ওয়েবসাইটে ইংরেজি শিরোনামে বিভিন্ন ধরনের গেম আছে। আপনি যদি সেই সময়ের হয়ে থাকেন তাহলে আমি নিশ্চিত, আপনি গেম গুলো দেখে আবেগপ্রবণ হয়ে যাবেন। যদি গেম গুলোতে হাই গ্রাফিক বা সাউন্ড সিস্টেম ছিল না তবুও এগুলোতে অনেকের দীর্ঘ সময়ের স্মৃতি জড়িয়ে আছে।

আমি এই অসাধারণ উদ্যোগের জন্য এবং Wayback Machine কে ধন্যবাদ দিতে চাই কারণ তারা কিছুক্ষণের জন্য হলেও অনেক ব্যক্তিকে শৈশবের দিন গুলোতে ফিরিয়ে নেবে।

Internet Arcade

অফিশিয়াল ওয়েবসাইট @ Internet Arcade

কিভাবে ব্যবহার করবেন, Internet Arcade?

চলুন দেখে নেয়া যাক কিভাবে Internet Arcade ব্যবহার করে খেলবেন সেই ফেলে আসা দিনের  গেম গুলো।

ধাপ ১

প্রথমেই চলে যান Internet Arcade এর ওয়েবপেজে। নিচের মত একটি পেজ দেখতে পাবেন।

এখানে সব গুলো গেম বিভিন্ন তথ্যের সাথে সিরিয়াল করা আছে যেমন, কতবার ভিউ হয়েছে, কতটি মন্তব্য এসেছে ইত্যাদি। যেকোনো গেমে ক্লিক করুন এর সিমুলেটরটি চালু হবে।

ধাপ ২

গেমের বিভিন্ন ডাটাবেজ ডাউনলোড হতে কিছুটা সময় নেবে।

কিছুক্ষণ লোড হবার পর গেম এর স্ক্রিন আসবে। সাউন্ড শুনতে চাইলে উপরে ডান পাশে ক্লিক করুন, কি মনে পড়ে গেলো তো?  আপনি কীবোর্ড বা joystick দুইটিই ব্যবহার করতে পারেন গেম খেলার জন্য।

ধাপ ৩

এবং ফাইনালি খেলতে থাকুন আপনার পছন্দের সেই ভিডিও গেম গুলো।

এই Internet Arcade এর সবচেয়ে ভাল দিক হচ্ছে গেম গুলো খেলতে কোন ধরনের ঝামেলা হয় না। ক্লিক করার সাথে সাথেই চলে নির্দিষ্ট গেমের স্ক্রিন।

সুবিধা

চলুন জেনে নেয়া যাক কেন ব্যবহার করবেন Internet Arcade এবং এর কিছু সুবিধা

  • সহজেই ফিরে যেতে পারবেন শৈশবের দিন গুলোতে।
  • JSMESS সিমুলেটরের মাধ্যমে খেলতে পারবেন পুরাতন দিনের সেই গেম গুলো।
  • সব গুলো গেম খেলতে পারবেন বিনা মূল্যে।
  • আপনার পিসিতে কোন গেমই ইন্সটল দিতে হবে না।

শেষ কথা

যাদের ১৯৮০ থেকে ৯৬ সময় গুলোতে যাদের শৈশব ছিল তাদের কাছে আশা করছি এর এই উদ্যোগটি চমৎকার লাগবে তাছাড়া এই জেনারেশনের যারা আছে তারাও রিসার্চ করতে পারবে গেম গুলো নিয়ে। জানতে পারবে বর্তমান এই হাই গ্রাফিক গেম গুলোর শুরু কিভাবে হয়েছিল।

আমি ব্যক্তিগত ভাবে এর এই উদ্যোগটির প্রশংসা না করে পারছি না। কয়েকটি গেম খেলেছি এবং আমার অভিজ্ঞতা যথেষ্ট ভাল ছিল। তাছাড়া হেড-ফোন লাগিয়ে গেম গুলো খেলে সেই শৈশবের ফিল পাচ্ছিলাম।

কেমন হল আজকের টিউন তা অবশ্যই টিউমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন। আমাদের জানান আপনার কাছে কেমন লেগেছে এই এক্সটেনশনটি।

পরবর্তী টিউন পর্যন্ত ভাল থাকুন। আমাদের সমসাময়িক যে সংকট চলছে এর থেকে রক্ষা পেতে সবাই সচেতন থাকবেন কারণ আপনার সচেতনতাই পারে আমাদের সবাইকে খারাপ অবস্থা থেকে বাঁচাতে। সবাই বাসায় থাকুন আর আল্লাহর উপর ভরসা রাখুন, আল্লাহ হা-ফেজ।

Level 28

আমি সোহানুর রহমান। সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 6 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 469 টি টিউন ও 186 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 56 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

কখনো কখনো প্রজাপতির ডানা ঝাপটানোর মত ঘটনা পুরো পৃথিবী বদলে দিতে পারে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস